Logo
আজঃ বুধবার ২২ মে ২০২৪
শিরোনাম

মিল্টন সমাদ্দার ৪ দিনের রিমান্ডে

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | ১৬৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এজ কেয়ার আশ্রমের চেয়ারম্যান মিল্টন সমাদ্দারকে রাজধানীর মিরপুর থানায় দায়ের করা মানবপাচার আইনের এক মামলায় চার দিনের রিমান্ডে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

রোববার (৫ মে) বিকেলে শুনানি শেষে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বেগম শান্তা আক্তারের আদালত এই আদেশ দেন।

এর আগে মৃত্যুসনদ জালিয়াতির অভিযোগে মিরপুর মডেল থানায় দায়ের হওয়া মামলায় তিন দিনের রিমান্ড শেষে মিল্টন সমাদ্দারকে আদালতে হাজির করেন তদন্ত কর্মকর্তা মিরপুর জোনাল টিমের সাব-ইন্সপেক্টর মোহাম্মদ কামাল হোসেন। এরপর তাকে মানবপাচার আইনের মামলায় গ্রেপ্তার দেখানোসহ সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন ডিবি পুলিশের পরিদর্শক শিকদার মাইতুল আলম।

প্রথমে তাকে গ্রেপ্তার দেখানোর বিষয়ে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মেহেরা মাহবুব তাকে গ্রেপ্তার দেখানোর আবেদন মঞ্জুর করেন। এরপর রিমান্ডের বিষয়ে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। মিরপুর মডেল থানার (মানবপাচার) আদালতের সাধারণ নিবন্ধন শাখার সাব-ইন্সপেক্টর সাইফুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

উল্লেখ্য, গত ২ মে আসামির তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। গত ১ মে রাতে রাজধানীর মিরপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে মিল্টন সমাদ্দারকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। এরপর তার বিরুদ্ধে মিরপুর মডেল থানায় তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।


আরও খবর



বাংলাদেশ ২ ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতল

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪ | ১৩৪জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক:বাংলাদেশ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে ৯ রানের জয় পেয়েছে । টাইগাররা এর মধ্য দিয়ে দুই ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে। তাওহীদ হৃদয় সর্বোচ্চ ৫৭ রান করেন এবং ৩ উইকেট শিকার করেন সাইফউদ্দিন।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়েকে ১৬৬ রানের টার্গেট দেয় বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে টাইগার বোলারদের দাপটে পাত্তাই পায়নি সিকান্দার রাজার দল। শেষ দিকে জয়ের আশা জাগালেও ৯ রানে হারে তারা।

রান তাড়ায় মাঠে নেমে ধারাবাহিক বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে জিম্বাবুয়ে। ১০ ওভার শেষে তাদের সংগ্রহ দাড়ায় ৪ উইকেটে ৬৫ রান। মোটামুটি কঠিন লক্ষ্যে ব্যাট করতে থাকা সফরকারীরা তখন অনেকটাই চাপে।

এক পর্যায়ে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকা জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ দাড়ায় ৮ উইকেটে ৯১ রান। এরপর আকরাম ও মাসাকাদজা টানা বাউন্ডারি হাঁকিয়ে জয়ের সম্ভাবনা তৈরি করেন। তবে শেষ পর্যন্ত ৯ উইকেটে ১৫৬ রানে থামে জিম্বাবুয়ের ইনিংস।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে আক্রমণাত্মক শুরু করেন লিটন দাস ও তানজিদ তামিম। চতুর্থ ওভারে বাজেভাবে বোল্ড হয়ে সাজঘরের পথ ধরেন লিটন। পরের ওভারেই সিকান্দারের বলে বোল্ড হয়ে বিদায় নেন অধিনায়ক নাজমুল শান্ত।

তাওহীদ হৃদয়কে সঙ্গে নিয়ে দলের হাল ধরেন তানজিদ তামিম। তিনিও বিদায় নেন ২১ রানের ইনিংস খেলে। এরপর জাকের আলী ও হৃদয়ের ব্যাটে লড়াকু সংগ্রহের পথে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

হৃদয় বোল্ড হন ৪ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় ৫৭ রানের ইনিংস খেলে। একই ওভারে মুজারাবানি শিকার করেন ৪৪ রান করা জাকেরকেও। শেষ দিকে মাহমুদউল্লা রিয়াদ ও রিশাদের ব্যাটে ১৬৫ রানের সংগ্রহ গড়ে টাইগার শিবির।


আরও খবর



ইরানে পাঁচ দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা

প্রকাশিত:সোমবার ২০ মে ২০24 | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | ৬৭জন দেখেছেন

Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি, দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির-আবদোল্লাহিয়ানের নিহতের ঘটনায় পাঁচ দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছে ইরান।

সোমবার (২০ মে) বার্তা সংস্থা বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

এদিকে রাইসি মৃত্যুর পরপরই ইরানের অন্তর্র্বতীকালীন প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন দেশটির বর্তমান ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মাদ মোখবার।

অন্তর্র্বতীকালীন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ইরানের সর্বোচ্চ কর্তৃপক্ষ গার্ডিয়ান কাউন্সিল সোমবার (২০ এপ্রিল) এ পদে তার নাম ঘোষণা করেছে। মোখবার দেশের নিয়ন্ত্রণভার গ্রহণ করার ৫০ দিনের মধ্যে জাতীয় নির্বাচন আয়োজন করবেন।

উল্লেখ, ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসিকে বহনকারী হেলিকপ্টারের ধ্বংসাবশেষের সন্ধান মিলেছে দুর্ঘটনার প্রায় ১৬ ঘণ্টা পর। তবে প্রেসিডেন্ট রাইসি, দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির-আবদোল্লাহিয়ান ও পূর্ব আজারবাইজানের গভর্নর মালেক রহমাতিসহ ৯ জন নিহত হয়।


আরও খবর



গাজীপুরে মালবাহী ট্রেনে যাত্রীবাহী ট্রেনের ধাক্কা, আহত অনেকে

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৩ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | ১১০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:শুক্রবার (৩ মে) বেলা ১১টার দিকে গাজীপুরের জয়দেবপুরে দাঁড়িয়ে থাকা একটি মালবাহী ট্রেনে যাত্রীবাহী একটি ট্রেন ধাক্কা দিয়েছে। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে এতে অনেকেই আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ঢাকার সঙ্গে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

জানা যায়, টাঙ্গাইল থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা টাঙ্গাইল কমিউটার ট্রেনটি বেলা ১১টায় জয়দেবপুর স্টেশনে যাত্রাবিরতি শেষে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। ট্রেনটি স্টেশন থেকে ছেড়ে আউটার সিগন্যালে পৌঁছানোর পর লাইন ক্রসিং করার সময় বিপরীত দিক থেকে আসা জয়দেবপুর আউটার সিগন্যালের কাজীবাড়ি ছোট দেওড়া এলাকায় একটি মালবাহী ট্রেনের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় যাত্রীবাহী ট্রেনের চালকসহ আহত চারজনকে উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আরও আহত থাকতে পারে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, টাঙ্গাইল কমিউটার ট্রেনটি অনেকটা খালি অবস্থায় ঢাকার দিকে যাচ্ছিল। ঘটনার পর থেকে ঢাকা-টাঙ্গাইল এবং ঢাকা-ময়মনসিংহ রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। খবর পেয়ে গাজীপুর মেট্টোপলিটন পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস এবং রেলওয়ে কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন।


আরও খবর



মাগুরার শ্রীপুরে আওয়ামী লীগের দু’নেতার সমর্থকদের সংঘর্ষ বাড়ি-ঘর ভাঙচুর-লুটপাট

প্রকাশিত:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | জন দেখেছেন

Image
স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার বরিশাট গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে  মঙ্গলবার আওয়ামী লীগের দু’নেতার সমর্থকদের মধ্যে দিনভর দফায় দফায় সংঘর্ষ, ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এদের এক গ্রুপের নেতৃত্বে রয়েছেন শ্রীপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কাজী তারিকুল ইসলাম তারেক ও অপর গ্রুপের নেতৃত্বে আছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও শ্রীকোল ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মোতাসিম বিল্লাহ সংগ্রাম। 

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সামাজিক আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মোতাসিম বিল্লাহ সংগ্রাম ও কাজী তারিকুল ইসলাম গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছিলো। এ দ্বন্দ্বের জেরে কয়েকদিন আগে কাজী তারিকুল ইসলাম গ্রুপের রহিমসহ কয়েকজনকে মারধর করে এবং কয়েকটি বাড়ি ভাঙচুর করে। পূর্বের ভাঙচুরের ঘটনার জের ধরে মঙ্গল সকালে কাজী তারিকুল ইসলামের সমর্থকেরা মোতাসিম বিল্লাহ সংগ্রামের সমর্থক নুরুজ্জামান রোজি, আবদুল মাজেদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা আসমত আলীর ‘বীর নিবাস’, শরিফুল, রফিকসহ বেশ কয়েকজনের বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করে। এদিকে এ সংবাদ ছড়িয়ে পরলে সংগ্রামের লোকজনও প্রতিপক্ষ তারিকুল ইসলাম গ্রুপের ডাবলু শেখের বাড়িসহ বেশ কয়েকজনের বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করে। এ ঘটনার পর থেকে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এলাকায় বড় ধরনের সংঘর্ষের আশঙ্কা রয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ তাসমীম আলম জানান, খবর পেয়ে তিনিসহ শ্রীপুর থানা পুলিশ ও মাগুরা থেকে রিজার্ভ পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষ চলাকালে ৫ জনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন  করা হয়েছে। 

আরও খবর



নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সেচ মটরে সংযোগ তোপের মুখে ডিজিএম!! মাসিক সভায়

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | ৪৫জন দেখেছেন

Image
আব্দুস সবুর তানোর থেকে:রাজশাহীর তানোরে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে অধিক টাকার বিনিময়ে সেচ মটরে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়েছেন পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম জহুরুল ইসলাম। নিষেধ থাকার পরও বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার কারনে উপজেলা মাসিক সাধারণ সভায় তোপের মুখে পড়তে হয় ডিজিএমকে। বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে উপজেলা পরিষদের হলরুমে সাধারণ মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন নির্বাহী অফিসার ইউএনও মোস্তাফিজুর রহমান। 

ইউএনও পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএমকে বলেন মার্চ মাসের সভায় সিদ্ধান্ত হয় নতুন ভাবে কোন সেচ মটরে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া যাবেনা। কিন্তু আপনি সেই নিষেধ অমান্য করে কেন বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়েছেন জানতে চাইলে ডিজিএম কোন সদ উত্তর না দিয়ে এড়িয়ে গিয়ে বলেন বিদ্যুৎ বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা প্রত্যায়ন দিয়েছেন বলেই সংযোগ দেয়া হয়েছে। ডিজিএমের এমন কথায় ইউএনও বলেন, সভার সিদ্ধান্ত অমান্য করার কোন সুযোগ নেই। আপনি ক্ষমতা প্রয়োগ করে সংযোগ দিয়েছেন। আপনি সভার সিদ্ধান্ত অমান্য করে কিসের ভিত্তিতে সংযোগ দিলেন সেটা সভায় পরিস্কার করে বলেন, তানাহলে আপনার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ইউএনওর এমন কথায় কোন জবাব দেননি ডিজিএম। ইউএনও বিএমডিএর সহকারী প্রকৌশলীর কাছে জানতে চান সংযোগ দেয়ার ব্যাপারে আপনি অবহিত কিনা, তিনি জানান আমি কিছুই জানিনা। এসব নিয়ে আমার দপ্তরেও অভিযোগ আসছে। ইউএনও উপজেলা চেয়ারম্যান কে এবিষয়ে বলার জন্য অনুরোধ করেন। চেয়ারম্যান বলেন, গভীর বা অভীর নলকূপের স্কীমের এরিয়ায় সংযোগ দেয়া সঠিক না। আপনারা বিভিন্ন খামারের নামে বানিজ্যিক সংযোগ দিয়েছেন সেই সংযোগ নিয়ে সেচ দিচ্ছে। বানিজ্যিক সংযোগ কতট আছে, অনুমোদিত কতটা এবং আবাসিক সংযোগ থেকে সেচ দেয়া হয় সব মিলে কত সংযোগ আছে ডিজিএমের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান এমুহূর্তে এতথ্য দেয়া অসম্ভব। পুনরায় ইউএনও ডিজিএমকে বলেন আগামী সভায় এসব সংখ্যার হিসেব দিবেন।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন অফিসার ইনচার্জ ওসি আব্দুর রহিম, কলমা ইউপির চেয়ারম্যান খাদেমুন নবী বাবু চৌধুরী, পাঁচন্দর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন, সরনজাই ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক খাঁন, তালন্দ ইউপি চেয়ারম্যান নাজিমুদ্দিন বাবু, টিএইচও বার্নাবাস হাসদাক, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সিদ্দিকুর রহমান, কৃষি অফিসার সাইফুল্লাহ আহম্মেদ, প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা: ওয়াজেদ মিয়া, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মনিরা বেগম, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা এম ফজলুর রহমান, তানোর পৌরসভার প্যানেল মেয়র আরব আলী, কামারগাঁ ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন প্রামানিক প্রমুখ। এসময় উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

সুত্রে জানা যায়, উপজেলার ভূগর্ভের পানি দিনের দিন তলিয়ে যাচ্ছে। বিভিন্ন এলাকায় খাবার পানির সংকট দেখা দিয়েছে। ভূগর্ভের পানি রক্ষার জন্য বিগত ২০১৩-১৪ সালের দিকে কৃষি মন্ত্রণালয় সেচ পাম্প বসানো নিষিদ্ধ করে দেন। কিন্তু পল্লী বিদ্যুতের একশ্রেণী অসাধু কর্মকর্তা কর্মচারীরা উপজেলা জুড়ে খামার ও বাগানের নামে শতশত সেচ মটরে সংযোগ দিয়েছেন। জাতীয় নির্বাচনের আগে ইউএনও হিসেবে যোগদেন বেলাল হোসেন। তিনি অতিগোপনে অনৈতিক সুবিধা নিয়ে প্রায় ৫০ টির মত সেচ মটর বা ( STW) এর অনুমতি দেন। বিষয়টি প্রকাশ পেলে ভূগর্ভের পানি রক্ষার জন্য স্থানীয় সংসদ বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে নিষেধ করেন কর্তৃপক্ষকে। সংসদের নির্দেশ ও উপজেলা মাসিক সভায় সিদ্ধান্ত অমান্য করে পল্লী বিদ্যুৎ তানোর জোন সংযোগ দিতেই আছেন।
নাম প্রকাশে না করে বেশ কয়েকজন জনপ্রতিনিধি জানান, সংসদের কথা অমান্য এবং সভার সিদ্ধান্ত অপেক্ষা করে কোন ক্ষমতা বলে সংযোগ দিলেন ডিজিএম। যারা এসবের সাথে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া দরকার। আর উপজেলায় যে পরিমান জমি আছে সে অনুযায়ী গভীর অগভীর পাম্প আছে। বরং গভীর নলকূপ গুলো রিবোরিং করলে কোন সেচ সংকট হবেনা। নতুন ভাবে সেচ মটর দেয়ার কোন প্রয়োজন নেই। এসব নিয়ে মোটা বানিজ্য হয়েছে বলেই সব নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে পল্লী বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়েছেন। 

ডিজিএম জহুরুল বলেন, আমি ৫১ অনুমোদিত মটরের চিঠি পেয়েছে। কে কি বললো সেটা কোন বিষয় না, আমি আইনগত ভাবে সঠিক আছি।

আরও খবর