Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

মহাখালী বাস টার্মিনালে ঈদে বাড়ি ফেরা মানুষের ভিড়

প্রকাশিত:Friday ২৯ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১৯০জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

মুসলমানদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর আসন্ন। কয়েকদিন পরে পালিত হবে মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের ঈদুল ফিতর।ঈদ পালনে স্বজনদের সঙ্গে মিলিত হতে বাড়ি ফিরছেন অনেকেই। মহাখালী বাস টার্মিনালে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভিড় বাড়ছে মানুষের।


 ঈদযাত্রায় জনস্রোতের সুযোগ নিচ্ছে কিছু পরিবহন। আবার কিছু পরিবহনে ভাড়া অপরিবর্তিত আছে।


শুক্রবার (২৯ এপ্রিল) দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত রাজধানীর মহাখালী বাস টার্মিনাল ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।আজ শুক্রবার ২৭ রমজান শেষ হচ্ছে। 


দুই-তিন দিন পরে ঈদ। বাড়ি ফেরা মানুষের চাপ বাড়ছে। ২৮-২৯ রোজায় যাত্রীদের ভিড় আরো বাড়বে।



মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে সিলেট, হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, নওগাঁ, গাইবান্ধা, ময়মনসিংহ জামালপুর, নেত্রকোনা ও কিশোরগঞ্জ রুটের বাস চলাচল করছে।  


আরও খবর



সহযোগী প্রতিষ্ঠান থেকে চেয়ারম্যান পদে থাকতে পারবেন আরও ৬ মাস

প্রকাশিত:Tuesday ২৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | জন দেখেছেন
Image

ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান বা পরিচালকরা একই আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সহযোগী প্রতিষ্ঠানে থাকতে পারবেন না। যারা আছেন তাদের ৩০ জুনের মধ্যে পদত্যাগ করার কথা থাকলেও পদত্যাগের সময় আরও ছয় মাস বাড়ানো হয়েছে।

অর্থাৎ আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত তারা সেসব প্রতিষ্ঠানে থাকতে পারবেন। মঙ্গলবার (২৮ জুন) বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগ এ বিষয়ে নির্দেশনা দিয়ে সব আর্থিক প্রতিষ্ঠান বরাবর পাঠিয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন নির্দেশনায় বলা হয়েছে, আর্থিক প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান বা পর্ষদ সদস্যদের সমন্বয়ে গঠিত পর্ষদের সহায়ক কমিটি যথা- নির্বাহী কমিটি, অডিট কমিটি ও ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে নিযুক্ত কোনো ব্যক্তি ওই আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সাবসিডিয়ারি কোম্পানি বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের অর্থায়নে গঠিত ও পরিচালিত কোনো কোম্পানি/প্রতিষ্ঠান বা ফাউন্ডেশনের পরিচালনা পর্ষদ বা গভর্নিং বডি, যে নামেই অভিহিত হোক না কেন, এর চেয়ারম্যান/পরিচালক/সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

এরূপ দায়িত্বরত ব্যক্তিকে ৩০ জুনের মধ্যে সংশ্লিষ্ট পদ থেকে পদত্যাগ/অব্যাহতি গ্রহণের মাধ্যমে পদ শূন্য করতে হবে মর্মে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এক্ষেত্রে বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে এ বিষয়ে সার্কুলার লেটারে বর্ণিত নির্দেশনা পরিপালনের জন্য নির্ধারিত সময়সীমা বৃদ্ধির আবেদনের প্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট পদ হতে পদত্যাগ/অব্যাহতি গ্রহণের মাধ্যমে পদ শূন্য করার সময়সীমা চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বর্ধিত করা হলো। অন্যান্য নির্দেশনা অপরিবর্তিত থাকবে।


আরও খবর



পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তে বাইকারদের অবরোধ

প্রকাশিত:Monday ২৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১৪জন দেখেছেন
Image

পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তের টোল প্লাজার সামনে মোটরসাইকেল সড়কের ওপর রেখে বাস, ট্রাক ও প্রাইভেটকার চলাচলে বাধা দিয়েছেন বাইকাররা।

সোমবার (২৭ জুন) দুপুর ১টা ৫০ মিনিট থেকে ২টা ১০ মিনিট পর্যন্ত তারা সড়ক অবরোধ করেন। পরে সেনাবাহিনীর সদস্যরা এসে বাইকারদের বুঝিয়ে সরিয়ে দেন। এ সময় পদ্মা সেতুর টোল প্লাজার সামনের সড়কে গাড়ির দীর্ঘ লাইন দেখা যায়।

রোববার ভোর ৬টা থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ করেছে সরকার। তাই সেতু দিয়ে পার না হতে পেরে ক্ষিপ্ত হয়ে সড়ক অবরোধ করেন বাইকাররা।

নড়াইলের মাহমুদ হাসান লিটন, নওগাঁর মো. ইউসুফ আলী ও শিপনসহ মোটরসাইকেল চালকরা বলেন, ‘আমরা মোটরসাইকেলে করে ঢাকা যাবো। কিন্তু জাজিরা টোল প্লাজায় এলে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা আমাদের পার হতে দিচ্ছেন না। তাই আমরা সড়ক অবরোধ করেছি।’

এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বাসচালক দেলোয়ার হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, ‘পদ্মা সেতু দিয়ে মোটরসাইকেল চলাচল তো আমরা বন্ধ করিনি। আমাদের কেন অবরোধ করে রাখবে?’

এরআগে সকালে কয়েকশ মোটরসাইকেল পদ্মা সেতু পার হওয়ার জন্য জাজিরা টোল প্লাজায় আসে। মোটরসাইকেল নিয়ে পার হতে না পেরে অনেকে পিকআপে চেপে পদ্মা সেতু পার হয়।

শনিবার (২৫ জুন) পদ্মা সেতু উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (২৬ জুন) ভোর ৬টা থেকে টোল দিয়ে যানবাহন পারাপার শুরু হয়। উদ্বোধনী দিনে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন দুই যুবক। পরে এক প্রজ্ঞাপনে পদ্মা সেতু দিয়ে মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ করে সরকার।


আরও খবর



শাবিপ্রবিতে বন্যার পানি, বিপাকে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত:Friday ১৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৪৯জন দেখেছেন
Image

সিলেটে টানা বৃষ্টিপাত ও উজানের পাহাড়ি ঢল নামায় আবারও সুরমা নদীর পানি উপচে প্লাবিত নগরীর বিভিন্ন এলাকা। সৃষ্টি হয়েছে নগর জুড়ে ভয়াবহ বন্যা। এবার শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ঢুকে গেছে বন্যার পানি। এতে বিপাকে পড়েছেন শিক্ষার্থীসহ বিশ্ববিদ্যালয় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল, প্রশাসনিক ভবন, একাডেমিক ভবনসহ বিভিন্ন জায়গার আশেপাশে পানি প্রবেশ করেছে। বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) সকাল থেকে ধীরে ধীরে পানি বাড়তে থাকে। সন্ধ্যার দিকে ক্যাম্পাস হাঁটুপানি পর্যন্ত ওঠে। ফলে গাড়ি চলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে। এতে শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

এদিকে ক্যাম্পাসে পানি বেড়ে যাওয়ায় আতঙ্কে আছেন শিক্ষার্থীরা। এভাবে পানি বাড়া অব্যাহত থাকলে হলের নিচে পানি ওঠে যাবে। চারদিকে লতাপাতা ও ঝোপঝাড় থাকায় সাপ বিচ্ছুর ভয়েও আছেন শিক্ষার্থীরা।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, টানা বৃষ্টিপাত ও উজানের পাহাড়ি ঢলের কারণে গত ১৪ মে সিলেটে পানি বাড়তে শুরু করে। কয়েকদিনের মধ্যে পানি নেমে গেলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। তবে গত কয়দিন যাবত টানা বৃষ্টিপাত শুরু হওয়ায় আবারও সিলেটে পানি বাড়ছে। বিভিন্ন আবাসিক এলাকায় পানি ঢুকে যাওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েছেন হাজারো মানুষ। বন্যা পরিস্থিতি উন্নতি না ঘটায় এবার শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ঢুকেছে বন্যার পানি। এতে প্রয়োজনীয় জিনিসের জন্য বাইরে যেতে কষ্ট হচ্ছে সংশ্লিষ্টদের।

ক্যাম্পাসে পানি ঢুকে যাওয়ায় শঙ্কা প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মোহাইমিনুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, ‘বন্যার পানি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ করায় খুবই শঙ্কিত। প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র আনতে বাইরে যেতে হলে পানি মাড়াতে হচ্ছে। এছাড়া টানা বৃষ্টিতে বাইরে বের হতে মন চায় না। এভাবে পানি বাড়লে আমরা যারা হলে থাকি তাদের নানা সমস্যায় পড়তে হবে।

jagonews24

বন্যার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ক্যাম্পাসে পানি ঢুকে যাওয়ায় আমরা সবাই শঙ্কিত। এখন পর্যন্ত কোনো সমস্যা হয়নি। যদি পানি এভাবে বাড়তে থাকে তাহলে শুক্রবার এ বিষয়ে একটা সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে পানি বাড়ার ফলে আবাসিক হলের শিক্ষার্থীদের যাতে কোনো সমস্যা না হয়, এজন্য হলের নিচতলা ছেড়ে ওপরের তলায় থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার শাবিপ্রবিতে অনুষ্ঠিতব্য ঢাবির ‘চ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে কোষাধ্যক্ষ বলেন, এ পরীক্ষায় মাত্র ৭৫ জন শিক্ষার্থী অংশ নেবেন। যেহেতু সারাদেশে একযোগে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে সেহেতু আমাদের এ পরীক্ষা নিতে হবে। আমরা এর জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছি।

ঢাবির ভর্তি পরীক্ষার সিলেট কেন্দ্রের সমন্বয়ক অধ্যাপক ড. রাশেদ তালুকদার জাগো নিউজকে বলেন, ক্যাম্পাসে বন্যার পানি ঢুকে যাওয়ায় শুক্রবার ঢাবির ‘চ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শাবিপ্রবির একাডেমিক ভবন ‘ই’ তে নেওয়া হবে না। বিশ্ববিদ্যালয়ের আইআইসিটি ভবনে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।


আরও খবর



ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ দিচ্ছে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি

প্রকাশিত:Wednesday ১৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
Image

ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে ‘লেকচারার’ পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ২৬ জুন পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি
বিভাগের নাম: ডিপার্টমেন্ট অব আর্কিটেকচার

পদের নাম: লেকচারার
পদসংখ্যা: নির্ধারিত নয়
শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক
অভিজ্ঞতা: প্রয়োজন নেই
বেতন: আলোচনা সাপেক্ষে

চাকরির ধরন: ফুল টাইম
প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ
বয়স: নির্ধারিত নয়
কর্মস্থল: ঢাকা

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট [email protected] এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ২৬ জুন ২০২২

সূত্র: বিডিজবস ডটকম


আরও খবর



চীনের সঙ্গে বাণিজ্য ঘাটতি কমানোর বিকল্প নেই: বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:Wednesday ০৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৪৯জন দেখেছেন
Image

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, চীন বড় একটি বাজার। বাংলাদেশের জন্য প্রচুর সম্ভাবনাময়। কিন্তু সে দেশ থেকে শুধু আমদানি বাড়ছে। বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে রপ্তানি বৃদ্ধির বিকল্প নেই। সেখানে আমাদের অনেক পণ্য রপ্তানির সুযোগ রয়েছে, সেটা কাজে লাগাতে হবে।

বুধবার ঢাকায় প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে রিসার্চ অ্যান্ড পলিসি ইনট্রিগ্রেশন ফর ডেভেলপমেন্ট (র্যাপিড) এবং বাংলাদেশ চায়না চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাষ্ট্রি আয়োজিত ‘মেকিং দি মোস্ট অব মার্কেট এক্সেস ইন চায়না: হোয়াট নিডস টু বি ডান’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ যেসব দেশে আমরা পোশাক রপ্তানি করছি, চীন তার চেয়েও কয়েকগুণ বড় বাজার। আমাদের শিল্পের যন্ত্রপাতি ও কাঁচামালসহ বিভিন্ন পণ্য চীন থেকে আমদানি করতে হয়। কিন্তু রপ্তানি করতে পারি না। সে কারণেই চীনের সঙ্গে আমাদের বাণিজ্য ব্যবধান অনেক বেশি।

টিপু মুনশি বলেন, এখন আমাদের শুধু তৈরিপোশাকের উপর নির্ভর করে থাকলে চলবে না। সেক্ষেত্রে অন্যান্য পণ্যের জন্য চীন সবচেয়ে ভালো গন্তব্য হতে পারে।

সেমিনারে জানানো হয়, বিগত ২০২০-২০২১ অর্থবছরে চীনে পণ্য রপ্তানি হয়েছে ৬৮০ দশমিক ৬৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। যেখানে ওই বছর আমদানি হয়েছে প্রায় ১৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, এ বিশাল বাণিজ্য ব্যবধান কমিয়ে আনার জন্য আমরা প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। চায়না আমাদের প্রায় ৯৮ ভাগ পণ্য রপ্তানির উপর ডিউটি-ফ্রি সুবিধা প্রদান করছে। বাংলাদেশ আগামী ২০২৬ সাল থেকে এলডিসি গ্র্যাজুয়েশন করছে। বাংলাদেশ আশা করছে চীন আরও তিন বছর বাড়িয়ে আগামী ২০২৯ সাল পর্যন্ত এ বাণিজ্য সুবিধা অব্যাহত রাখবে।

তিনি বলেন, এলডিসি গ্র্যাজুয়েশনের পর বাংলাদেশ বাণিজ্যসুবিধা পেতে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে এফটিএ বা পিটিএ’র মতো বাণিজ্য চুক্তি স্বাক্ষর করে সুবিধা গ্রহণ করবে। বাংলাদেশ এরই মধ্যে চীনের সঙ্গে এমওইউ স্বাক্ষর করেছে। জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন করে সম্ভ্যাব্যতা যাচাই চলছে। সবদিক বিবেচনায় নিয়েই চীনের সঙ্গে আমাদের বাণিজ্য চুক্তি হতে পারে।

বাংলাদেশ চায়না চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (বিসিসিসিআই) প্রেসিডেন্ট গাজী গোলাম মুর্তুজার সভাপতিত্ব অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকায় নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস চেয়ারম্যান এ এইচ এম আহসান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিসিসিসিআই’র ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল আল মামুন মৃধা।


আরও খবর