Logo
আজঃ Tuesday ০৭ February ২০২৩
শিরোনাম

মোটর সাইকেলই তাদের জীবিকার একমাত্র উৎস

প্রকাশিত:Wednesday ০৪ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ | ১৬০জন দেখেছেন
Image

মোঃ আব্দুল হান্নান,  নাসিরনগর,ব্রাহ্মণবাড়িয়াঃ-

জেলার নাসিরনগর উপজেলার ভাটি অঞ্চল নামে খ্যাত গোয়ালনগর ইউনিয়ন। মাছমা ভিটাডুবি রামপুর,নোয়াগাও,কদমতলী,লালুয়ারটুক,সীমের কান্দি ও কদমতলী এ বেশ কয়েকটি গ্রাম নিয়ে গঠিত গোয়াল নগর ইউনিয়ন।


এ ইউনিয়নের লোকজন বর্ষা ছয় মাস নৌকা আর শুকনো মৌসুমে ছয় মাস মোটর সাইকেলে যাতায়াত করে থাকে।সেখানে ভিটাডুবি থেকে রামপুর আর লালুয়ারটুক যাতায়াতের একটি মাত্র কাঁচা রাস্তা রয়েছে।বর্ষায় পানিতে তলিয়ে যাবার কারনে রাস্তাটি ভগ্নদশা আর খানাকন্দে পরিণত হয়েছে।রাস্তার উপরে তিনটি ব্রীজ থাকলেও সেগুলো এখন অনেক ঝুকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে।


শুকনো মৌসুমে রাস্তাটিতে বিভিন্ন গ্রামে যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম মোটর সাইকেল।সেই জন্য উক্ত রাস্তাটিতে প্রায় পঞ্চাশ জনেরও অধিক লোক মোটর সাইকেলে যাত্রী বহন করে চলায় তাদের সংসার।মোটর সাইকেল চালকরা জানান,রাস্তাটি ভগ্নদশার কারণে যাত্রীরা দুর্ঘটনার ভয়ে মোটর সাইকেলে যাতায়াত করতে চাচ্ছে না।তাছাড়াও বিভিন্ন জিনিস পত্রের দাম বেড়ে গেছে।যার পলে অনেকেই এখন সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে।ভিটাডুবি থেকে থেকে আশানগর পর্যন্ত রাস্তাটি কোন এক সময় হাওড় অঞ্চল উন্নয়ন প্রকল্প হিলিপের মাধ্যমে পাঁকা করন করা হলেও বর্তমানে রাস্তাটি দুরাবস্থায় পতিত হয়েছে।


গোয়ালনগর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আজহারুল হক জানান, গোয়ালনগর ইউনিয়নে প্রায় চল্লিশ হাজার লোকের বসবাস।তিনি বলেন শুনেছি এম পি সাহেব বাজার পর্যন্ত আরো প্রায় দুই কিঃমিঃ রাস্তা পাকা করনের উদ্যোগ নিয়েছেন এবং তা প্রক্রিয়াধীন রয়েছেন বলে শুনেছি।

গোয়ালনগর ইউনিয়নের রাস্তাঘাটের উন্নয়নের কোন সম্ভাবনা রয়েছে কি না জানতে চাইলে,নাসিরনগর উপজেলা প্রকৌশলী সৈয়দ জাকির হোসেন জানান,প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা


আরও খবর