Logo
আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪
শিরোনাম

মধুপুরে বাকী না দেয়ায় ব্যবসায়ীকে মারপিট, টাকা লুট দোকান ভাংচুর

প্রকাশিত:শনিবার ২৬ আগস্ট ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৬৬৯জন দেখেছেন

Image

মধুপুর টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃটাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার আলোকদিয়া ইউনিয়নের গাংগাইর এলাকায় বাকী না দেওয়ার জেরে এক মনোহারী দোকান ব্যবসায়ীকে মারপিট টাকা লুট ও দোকান ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে।ভুক্তভোগী পরিবার সূত্রে জানা যায়, গাংগাইর মধ্যপাড়া গ্রামের মৃত আঃ কাদেরের ছেলে মোঃ সুরুজ মিঞা  গাংগাইর মধ্যপাড়া পাগলা বাসস্টান্ড এলাকায় মনোহরী দোকান করেন।বৃহস্পতিবার(২৪ আগস্ট) সকাল ১১ টার দিকে একই এলাকার শুকুর আলীর ছেলে রিয়াজ মিয়া বাকীতে সিগারেট চাইলে দোকান মালিক সুরুজ আলী দিতে অস্বীকৃতি জানালে দুজনের মধ্যে কথা কাটা কাটি হয়।

কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে রিয়াজ উদ্দিন ওরফে ছানা, মৃত করিমের ছেলে ফারুক, শুকুর আলীর ছেলে রবি, মান্নানের ছেলে সজীব মিলে দোকানে ডুকে দরজা বন্ধ করে সুরুজকে এলোপাতাড়ি ভাবে পিটাতে থাকে। পিটানোর এক পর্যায়ে   তাকে সাবল দিয়ে মাথায় আঘাত করলে মাথা ফেটে গুরুতর রক্তাক্ত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। পরবর্তীতে সন্ত্রাসী বাহিনী দোকানে থাকা প্রায় লক্ষাধিক টাকা নিয়ে চলে যায়। স্থানীয় লোকজন সুরুজ আলীকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে মধুপুর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থার অবনতি হলে  উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।বর্তমানে সুরুজ আলী ময়মনসিংহ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পান্জা লড়ছেন বলে জানান তার পরিবারের লোজকন। এঘটনায় ভুক্ত ভোগীর স্ত্রী সন্তান ও পরিবারের লোকজন এবং এলাকাবাসী প্রশাসনের নিকট সুষ্ঠ বিচার দাবী করেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



শিবপুর বিদ্যালয়ের জায়গা বেদখল,বাজার পরিচালনা কমিটির সভা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ জুন ২০২৪ | ১৮০জন দেখেছেন

Image

মোহাম্মদ হেদায়েতুল্লাহ  নবীনগর(ব্রাহ্মণবাড়িয়া)প্রতিনিধি:ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার শিবপুর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ে জায়গা সম্পত্তি বেদখল ও দোকান পাঠ সহ- গরুর বাজার পরিচালনা ও অনিয়ম প্রসঙ্গে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে  ।

বৃহস্পতিবার  দুপুরে অত্র বিদ্যালয়ে এলাকার মান্যবর ব্যাক্তিবর্গগণের উপস্থিতিতে এই  অনুষ্ঠিত  হয়েছে ।

এসময় অত্র বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সৈয়দ আহম্মদের সভাপতিত্বে ও  অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ হোসেন কবিরের  সঞ্চালণায় এতে বক্তব্য রাখেন নবীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার তানভীর ফরহাদ শামীম, 

শিবপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম. আর মজিব, শিবপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ, ও সমাজসেবক, মোঃ শাহীন সরকার, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক অলিউর রহমান ভূঁইয়া,যুগ্ন আহবায়ক ডা: আবু জাফর জামাল, অত্র  বিদ্যালয়ে সাবেক সভাপতি হাজী মুসা মিয়া , মোহাম্মদ ইউনুস সরদার , অত্র বিদ্যালয়ে দাতা সদস্য হাজী লিটন মেম্বার , অত্র বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির সদস্য আবুল ফায়েজ , মোহাম্মদ জাকির হোসেন,  আশরাফ উল্লাহ সবুজ,সালাউদ্দিন সরকার, হুসনা বেগম , বিদ্যুৎ শাহী সদস্য  সোঃ মনজুরুল আলম মজনুর, শিবপুর ইউনিয়ন ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি কবির আহমেদ, মোঃ হোসেন আহম্মেদ , মোঃ আবুল হাশেম মোল্লা, লুৎফুর রহমান , মোহাম্মদ দুলাল মিয়া , অত্র ডিগ্রি কলেজ ম্যানেজিং কমিটির সদস্য আশরাফ হোসেন আকছির, 

মাওলানা মাইনুদ্দিন মেম্বার , ফারুক ডাক্তার , ওয়াসেক সরদার, অত্র এলাকার মান্যবর ব্যাক্তিবর্গগণ।

   -খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



এমপি আনার হত্যা মামলায় আটক শিমুল ভূঁইয়ার 'সেকেন্ড ইন কমান্ড' সাইফুল বিস্ফোরক সহ আটক

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১৮১জন দেখেছেন

Image
ইয়ানূর রহমান শার্শা,যশোর প্রতিনিধি:ভারতের কলকাতায় সাংসদ আনোয়ারুল আজিম আনার হত্যা মামলায় জড়িত চরমপন্থি পূর্ব বাংলার নেতা শিমুল ভূঁইয়ার 'সেকেন্ড ইন কমান্ড' সাইফুল আলমকে আটক করেছে যশোর ডিবি পুলিশ। এ সময় তার কাছ থেকে একটি ভারতীয় নম্বরের মোবাইল ও বিস্ফোরক জব্দ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৮মে) রাত সাড়ে নয়টার দিকে যশোর শহরের রায়পাড়া বাবলাতলা এলাকার  আদর্শ মৎস্য হ্যাচারী থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। মৎস্য শ্রমিক পরিচয়ে সাইফুল মেম্বার সেখানে আত্মগোপনে ছিলেন। 

ডিবি পুলিশের দাবী সাইফুল ওই হ্যাচারিতে পাঁচ দিন ধরে অবস্থান করছিলেন। 

যশোর ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মফিজুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, সাইফুল চরমপন্থী শিমুল ভুঁইয়ার 'সেকেন্ড ইন কমান্ড' হিসেবে পরিচিত। সে যশোরের উদয় শঙ্কর হত্যা, রাকিব হত্যা, সুব্রত হত্যা মামলায়  চার্জশিটভুক্ত আসামী ।  সে এসকল হত্যার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার  করেছে।  শিমুল ভুইয়া আটকের পর সে গ্রেফতার এড়াতে আত্মগোপনে চলে যায়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে যশোর শহরের রায়পাড়া বাবলাতলা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ডিবি পুলিশের একটি দল। এ সময় ওই এলাকার আদর্শ মৎস হ্যাচারী থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে একটি ভারতীয় নম্বরের মোবাইল ও বিস্ফোরক জব্দ করা হয়েছে।

সে যশোরের একাধিক  হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।

এক প্রশ্নের জবাবে এসআই মফিজুল ইসলাম বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে সাইফুল্লাহ মেম্বার সাতক্ষীরা ও ভারত সীমান্ত এলাকায় ছিল। সে ভারতীয় মোবাইল নম্বর দিয়ে যোগাযোগ করতো ৷

আরও খবর

মেট্রোরেল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে

বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪




রাস্তায় নিম্মমানের বিটুমিন ও সামগ্রী ব্যবহার ক্ষুব্ধ স্থানীয়রা

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১৪৯জন দেখেছেন

Image
আব্দুস সবুর তানোর থেকে:রাজশাহীর তানোরের কামারগাঁ ইউনিয়নের (ইউপি) নেজামপুর-হাতিনান্দা পর্যন্ত্য ৩০০মিটার রাস্তা নির্মাণের কার্পেটিংয়ে নিম্নমাণের বিটুমিন ও বেডে নিম্নমাণের ইটের খোয়া ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে। জানা গেছে, রাস্তা নির্মাণকাজের শুরুতেই ব্যাপক অনিযমের অভিযোগ এনে গ্রামবাসি নির্মাণকাজে বাধা দিয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে অভিযোগ করেন। সম্প্রতি ইউপি চেয়ারম্যান ফজলে রাব্বি ফরহাদ প্রয়াত হবার সুযোগে সাব-ঠিকাদার সুরুজ আলী তার নিজের ইচ্ছেমতো কাজ করেছেন।স্থানীয় ইউপি সদস্যকে(মেম্বার) অবগত ও তার উপস্থিতি কাজ করার কথা থাকলেও তাকে জানানোই হয়নি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, রাস্তার সাববেইজ করার সময় ইটের খোয়া ও বালু একইরকম ব্যবহার করার কথা থাকলেও এখানে চার ভাগের একভাগ খোয়া ব্যবহার করা হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কার্যসহকারি বলেন, এমনিতে বিটুমিনের মান খারাপ তার ওপর প্রায় ২৫ কিলোমিটার দুরের পরানপুর মাঠ থেকে ট্রলিতে করে পাথর নিয়ে আশায় টেম্পারেচারের মান নস্ট হয়েছে।

জানা গেছে, দেশের সড়ক-মহাসড়ক উন্নত করার লক্ষ্যে ২০১৫ সালে বিটুমিন ব্যবহার নিয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রণালয়। সেই প্রজ্ঞাপণে বিটুমিন ব্যবহারের ক্ষেত্রে ইআরএল-এর বিটুমিন ব্যবহার করতে বলা হয়েছে। সেটি পাওয়া না গেলে ৬০ থেকে ৭০ গ্রেডের 
বিটুমিন ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। কিন্ত্ত নেজামপুর রাস্তায় সেই মাণের বিটুমিন ব্যবহার করা হয়নি। এখানে আমদানি করা নিম্নমাণের বিটুমিন ব্যবহার করা হয়েছে। এবিষয়ে জানতে চাইলে সাব-ঠিকাদার সুরুজ আলী বলেন,স্থানীয়রা যে অভিযোগ করছেন তা ঠিক নয়। তিনি বলেন, সিডিউল মোতাবেক কাজ করা হয়েছে।এছাড়াও প্রকাশনগর পরানপুর গ্রাম থেকে চরশত মিটার রাস্তাও একই ভাবে অনিয়ম করে কার্পেটিং করা হয়েছে। খোয়ার ওপর করা হয়েছে কার্পেটিং। 

সরেজমিনে এমন অবস্থা দেখলে এসও শাহিন সালাম দ্রুত শ্রমিকদের বলেন পরিস্কার করে পিচ দিয়ে কার্পেটিং করতে হবে। প্রায় প্রতিটি রাস্তা দরপত্রে যে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান পায় তার কাছ থেকে এলজিইডির একশ্রেণির কর্মকর্তারা পছন্দের ঠিকাদারের কাছে বিক্রি করতে বলেন। প্রায় রাস্তা অগ্রিম লাভ দিয়ে কিনে করার কারনে ব্যাপক অনিয়ম করা হয় বলে অহরহ অভিযোগ থাকলেও রহস্য জনক কারনে কর্তৃপক্ষ একেবারেই নিরব। যার কারনে বিভিন্ন দোহায়ে ও এলজিইডি অফিস কে ম্যানেজ করে চলছে অনিয়ম দূর্নীতির কাজ৷ যা সরেজমিনে তদন্ত করলেই বেরিয়ে পড়বে ভয়াবহ দূর্নীতি। 
 
উপজেলা প্রকৌশলী সাইদুর রহমান বলেন, রাস্তার কাজের অনিয়মের ব্যাপারে আমার জানা নেই, কেউ কোনো অভিযোগও করেনি। তিনি বলেন, রাস্তা পরিদর্শনে অনিয়মের কোনো সত্যতা পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।এবিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য (মেম্বার) বুলু বলেন, ঠিকাদারের বিল পরিশোধের আগে, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে রাস্তা সরেজমিন পরিদর্শনের দাবি জানান।

আরও খবর



ব্যাংক লেনদেনের সময় বাড়ল

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৫৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:ব্যাংক লেনদেনের নতুন সময়সূচি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক,সরকার ঘোষিত অফিস সময়সূচির সঙ্গে তাল মিলিয়ে। ঈদের পর থেকে নতুন সময়সূচি অনুযায়ী ব্যাংকের লেনদেন ও অফিস কার্যক্রম চলবে।

নতুন নিয়মে আগামী ১৯ জুন থেকে ব্যাংকগুলোর লেনদেন শুরু হবে সকাল ১০টায়, যা চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। আর ব্যাংকগুলোর অফিস খোলা থাকবে সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। তবে শুক্রবার ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি থাকবে।

এখন ব্যাংক লেনদেন হয় সকাল ১০টা থেকে বিকেল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত। ব্যাংকগুলোর অফিস চলে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। সেই হিসাবে ব্যাংক লেনদেন আধা ঘণ্টা ও অফিস ১ ঘণ্টা বেশি সময় চলবে।

রোববার (৯ জুন) বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিপার্টমেন্ট অব অফসাইট সুপারভিশন থেকে এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করা হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, সরকার ঘোষিত অফিস সময়সূচির অনুবর্তনে পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত ১৯ জুন থেকে নতুন সময়সূচি অনুযায়ী ব্যাংক কার্যক্রম পরিচালিত হবে। ব্যাংক কোম্পানি আইন, ১৯৯১ এর ৪৫ ধারার ক্ষমতাবলে এ নির্দেশনা জারি করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।


আরও খবর

মেট্রোরেল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে

বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪




মেহেরপুরে কাঁঠাল গাছ ছেয়ে আছে ঝুলন্ত কাঁঠালে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৯৪জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ, মেহেরপুরঃজাতীয় ফল কাঁঠাল। ফলের রাজা হিসেবেও সবার কাছে সমাদৃত। এটি শুধুমাত্র একটি মৌসুমী ফলই নয়- পুষ্টিগুণে ভরপুর ও অর্থকরী ফসল হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে। মেহেরপুরের সর্বত্র এখন কাঁঠাল গাছগুলিতে ঝুলন্ত কাঁঠালে ছেঁয়ে আছে। কোন কোন এলাকায় আগাম জাতের কাঁঠালগুলি পাঁকতে শুরু করেছে। পাঁকা কাঁঠালের মিষ্টি গন্ধে কীট পতঙ্গরা ভিড় করছে গাছে গাছে। আর সেই আনন্দে বাগান মালিকরা গাছ পরিচর্যায় ব্যস্ত। তবে কাঁঠাল প্রক্রিয়াজাত করণের কোন সুবিধা না থাকায় এ এলাকার মানুষেরা চরম আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে।

জেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে,  কাঁঠাল গাছগুলো ফলে ফলে ভরে গেছে। প্রতিটি গাছে ১০০ থেকে ২০০ পর্যন্ত ফল ধরেছে। বছর দশেক আগেও আম কাঠালের বাগান ছিল।  এখন শুধু আমের বাগান রয়েছে। এখানকার অধিকাংশ কাঁঠাল গাছ বাগানভিত্তিক না। বাড়ির আঙ্গিনায়, রাস্তার দুই ধারে, স্কুল-কলেজ চত্বরে প্রচুর কাঁঠাল গাছের দেখা মেলে। অভাবের কারণে অনেকে কাঁঠালের গাছ বিক্রি দিচ্ছে। আসবাবপত্র প্রস্তকারী ও ব্যবসায়ী এসব নামমাত্র মূল্যে কিনে ফায়দা লুটছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

কাঁঠাল ব্যবসায়ীরা জানান, হাট-বাজারগুলোতে পাঁকা কাঁঠাল উঠতে শুরু করেছে। অনেকেই আছেন প্রতি বছরই প্রায় এক থেকে দেড় লক্ষাধিক টাকার কাঁঠাল বিক্রি করেন। দুই থেকে তিন মাস কাঁঠালের ভরা মৌসুম। এ সময় পাইকার ও শ্রমিক শ্রেণির লোকদের বাড়তি আয়ের সুযোগ হয়। এবার আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় কাঁঠালের ফলনও ভালো হয়েছে। গত বছরে কাঁঠাল কম ধরেছিল তাই দাম একটু বেশি ছিল। এবারও অনুকুল আবহাওয়ার কারণে ফলন বেশি হয়েছে। তাই অনেক কম দামে কাঁঠাল পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছে ব্যবসায়িরা। 

এলাকার অনেকেই মন্তব্য করেছেন, অন্যান্য ফল ও গাছ নিয়ে সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে যত তৎপরতা লক্ষ করা যায়, কাঁঠাল নিয়ে তার সিঁকি ভাগও হয় না। অথচ কাঠাল একটি অর্থকরী ফসল ও জাতীয় ফল। কোন পৃষ্ঠপোশকতা না থাকায় ও অবাধে কাঠাল গাছ নিধন হওয়ায় এখন কোন বাগান পাওয়া যায় না। বাড়ির আঙ্গিনাতে বা রাস্তার ধারে অনেকেই গাছ লাগান। সরকার একটু নজর দিলেই অনেকেই কাঠাল বাগানে উদ্বুদ্ধ হতো।

উপজেলা কৃষি অফিসার ইমরান হোসেন জানান, কৃষিপণ্য কাঁঠাল মুলত একটি মৌসুমী সুস্বাদু ফল। কাঁঠালের বিচি তরকারীতেও সমান জনপ্রিয়। এলাকায় কোন কাঁঠাল প্রক্রিয়াজাত করার বাবস্থা না থাকায় কৃষকরা তাদের ন্যায্য দাম থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। কাঁঠাল প্রক্রিয়াজাত ব্যবস্থ›া গড়ে তুললে এ উপজেলার মানুষ অর্থনৈতিকভাবে উপকৃত হবে।


আরও খবর