Logo
আজঃ Wednesday ২৬ January ২০২২
শিরোনাম
অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে সহ-শিল্পীদের নগ্ন ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। বিদেশের মাটিতে কৃষিপণ্য সরবরাহ বাড়াণোর লক্ষ্যে : ইরান রাজনৈতিক কঠিন চাপে রয়েছেন মেয়র আরিফুল স্বপ্নের মেট্রোরেল রওনা হলো আগারগাঁওয়ের উদ্দেশে ওমিক্রনের সংক্রমণে ভারতে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত নিয়মিত আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ মুরাদ হাসান এমিরেটসের ফ্লাইটে কানাডা গেলেন সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলী মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ আগামী বিশ্বকাপে ব্যাটসম্যানদের উন্নতি দেখতে চান করোনাভাইরাসে আরও ছয়জনের মৃত্যু বিশ্বের ৪৩তম ক্ষমতাধর নারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

মাতুয়াইলের নাইয়ুম মিয়া রাজনৈতিক জীবনে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন বলিষ্ঠ সৈনিক

প্রকাশিত:Sunday ০৯ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১৭১জন দেখেছেন
Image


বজলুর রহমানঃ

ত্যাগী নেতা-কর্মীদের জন্যই টিকে আছে আওয়ামী লীগ।আওয়ামী লীগ অনেক ত্যাগী ও অঙ্গীকারবদ্ধ নেতা তৈরি করেছে তার মধ্যে মাতুয়াইলের মোঃ নাইয়ুম মিয়া অন্যতম, রাজনৈতিক জীবনে তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন বলিষ্ঠ সৈনিক ও জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবে সকলের নিকট পরিচিত।তিনি ছিলেন সাবেক ছাত্রলীগের পরীক্ষীত একজন নেতা।


মাতুয়াইল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারন সম্পাদক।এছারাও মোঃ নাইয়ুম মিয়া ছিলেন বৃহত্তর মাতুয়াইল ইউনিয়ন আওয়ামীযুবলীগ এর সাবেক সাধারন সম্পাদক,সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ঢাকা-মহানগর দক্ষিন।বর্তমানে মোঃ নাইয়ুম মিয়া ৬৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিন এর সক্রিয় একজন কর্মী।


তার নেতৃত্বের গুনাবলী তাকে অনন্য এক উচ্চতায় পৌছে দিয়েছে।তিনি জয় করতে পেরেছেন নেতা-কর্মীদের মন।ঢাকা মহানগর দক্ষিন আওয়ামীলীগ নেতাদের কাছে নাইয়ুম মিয়া একজন আস্থাভাজন কর্মী হিসেবে পরিচিত।আওয়ামীলীগ কে আরও সুসংগঠিত ও শক্তিশালী করতে এবং জনসমর্থনও বাড়াতে তিনি এলাকায় নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন।


তৃণমূল নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ করতেও  তিনি দিনরাত পরিশ্রম করে চলেছেন।নাইয়ুম মিয়ার বিষয়ে জানতে এলাকাবাসী অনেকের সাথেই কথা বলে জানা যায়,বিগত সময়ে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার জন্য, ঘরে ঘরে গিয়ে সরকারের উন্নয়নের কথা তুলে ধরে তিনি ভোটারদের নানা ভাবে অনুপ্রনীত করেছেন।


তৃণমূলের এই নেতা যেভাবে এলাকায় আওয়ামীলীগের ভাবমুর্তি উজ্জল করতে কাজ করে চলেছেন সত্যিই তা প্রশংসার দাবী রাখে।



আরও খবর



অসম প্রেমের কারণে সিরাজদিখানে যুবকের উপর বর্বরোচিত নির্যাতন

অসম প্রেমের কারণে সিরাজদিখানে যুবকের উপর বর্বরোচিত নির্যাতন

প্রকাশিত:Sunday ০৯ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ৮৫৮জন দেখেছেন
Image


স্টাফ রিপোর্টারঃ

মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদিখানের বালুচর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডে জয়নাল মেম্বারের বাড়িতে অসম প্রেম করার অপরাধে সাইফুল ইসলাম রাজন নামে এক যুবককে অমানুষিক নির্যাতন করায় দুদিন ধরে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে ঐ যুবক।


মোবাইল ফোনে গত ৭ জানুয়ারী বালুচর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডে জয়নাল মেম্বারের বাড়িতে সাইফুলকে ডেকে নিয়ে চালানো হয় বর্বরোচিত নির্যাতন।বর্তমানে ছেলেটি ইছাপুরা হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভর্তি আছেন।


স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, বালুচর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডে জয়নাল মেম্বারের বাড়ির মেয়ের সাথে  প্রেমের সম্পর্ক হয় সাইফুলের। ৩ বছরের প্রেমের সম্পর্ক যখন গভীরতর হলে তারা দুজনে পালিয়ে যায়। তখন বাধা হয়ে দাঁড়ায় প্রেমিকার পরিবার।সাইফুলের লেখাপড়া ও পরিবারিক অবস্থা ভালো না থাকায় আপত্তি ওঠে প্রেমিকার পরিবার থেকে।


গত ৮জানুয়ারি মোবাইল ফোনে ডেকে নেয় প্রেমিকার আত্মীয় আলমগীর হোসেন পিতা জয়নাল,মনির পিতা নুর আলি,জাহাঙ্গীর পিতা জামাল মিয়া। সরল বিশ্বাসে সাইফুল যায় ঐ বাড়িতে। পূর্বপরিকল্পনা মতো উপরোল্লিখিত ব্যাক্তিরা গাছের সাথে বেঁধে আদিযুগের বর্বরোচিত কায়দায় অমানুষিক বিচার  করা হলো তার প্রতি।


আরও খবর



মানিকগঞ্জে সরকারি নির্দেশ অমান্য করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা।

প্রকাশিত:Tuesday ২৫ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ৫৩জন দেখেছেন
Image

প্রধান শিক্ষক আব্দুল রহিম

বজলুর রহমান

করোনা ভাইরাসের কারণে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে সরকার। কিন্তু সরকারি নির্দেশ অমান্য করে এবং সাস্থ ঝুঁকি নিয়ে ক্লাস নিচ্ছেন মানিকগঞ্জ জেলার হরিরামপুর থানার মানিক নগর বাজারের পদ্মা আইডিয়াল কিন্ডার গার্ডেনের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহিম। তিনি প্রতিষ্ঠান খোলা রেখে নিয়মিত ক্লাস পরিচালনা করে আসছেন। মঙ্গলবার সকালে এই দৃশ্য এলাকার অভিভাবকদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।


পরে সাংবাদিকদের উপস্থিতি টের পেয়ে দ্রুত শিক্ষার্থীদের ছুটি দিয়ে দেন প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহিম। শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা জানায় জোর করে তাদের ক্লাসে আসতে বাধ্য করছেন প্রধান শিক্ষক। তারা আরো জানায় স্কুলে অনুপস্থিত থাকলে তাদের স্কুল থেকে বের করে দেওয়া হবে। এই হুমকির মুখে তারা স্কুলে আসতে বাধ্য হচ্ছে।


স্কুলে গিয়ে দেখা যায় সকল শিক্ষক উপস্থিত। প্রধান শিক্ষক কাজে ব্যস্ত। প্রতিষ্ঠানের সামনে জাতীয় পতাকা উড়ছে। কয়েকজন শিক্ষক জানায় তারা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন কিন্তু প্রধান শিক্ষক কিছুতেই মানেন না সরকারি নির্দেশনা। প্রধান শিক্ষক বলেন সরকারি নিয়ম মানলে প্রতিষ্ঠান চালানো যাবেনা।


কয়েকজন সাংবাদিক প্রধান শিক্ষক আবদুর রহিমকে এই বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি জানান আপনারা এত খারাপ কেন। আমার প্রতিষ্ঠান খোলা রাখি আর বন্ধ রাখি সেটা আমার ব্যাপার। সরকারের সব সিদ্ধান্ত মেনে আমার প্রতিষ্ঠান চালাতে পারবো না।


এই বিষয়ে মানিকগঞ্জ হরিরামপুর সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার মাহফুজা আক্তার বলেন বিষয়টি আমি শিক্ষা অফিসার কে জানাচ্ছি এবং বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নিতে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে।


আরও খবর



একই রুমের ফেনে ঝুলছিল নারী-পুরুষের মরদেহ

একই রুমের ফেনে ঝুলছিল নারী-পুরুষের মরদেহ

প্রকাশিত:Sunday ০৯ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১০৮জন দেখেছেন
Image


গাজীপুর প্রতিনিধিঃ

গাজীপুরের গাছা এলাকার একটি বাড়ি থেকে গলায় ফাঁস লাগানো দুই নারী-পুরুষের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে জাঝর উত্তর পাড়া এলাকার শাহীন মিয়ার বাড়ির দ্বিতীয় তলার রুম থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।


নিহতরা হলেন, গাজীপুর জেলার কালিগঞ্জ থানার বেতয়া গ্রামের মিজানুর রহমানের মেয়ে লিমা রহমান (২৫) ও সিলেট সদর এলাকার বোরাইয়া এলাকার রঞ্জিত চৌধুরীর ছেলে রজত কান্তি চৌধুরী । লিমা মোটেক সোয়েটার কারখানার মেডিকেল এসিস্ট্যান্ট হিসেবে চাকুরি করতেন এবং রজত গাজীপুর সদর এলাকার সিগমা ডায়েগনষ্টিক সেন্টারের পরিচালক। 


বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের গাছা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নন্দলাল চৌধুরী।


তিনি জানান, বৃহস্পতিবার বিকেলে কর্মস্থল মোটেক সোয়েটার কারখানা থেকে বাসায় ফিরে লিমা রহমান। শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটি থাকায় শনিবার কর্মস্থলে যাওয়ার কথা ছিল তার। কিন্তু শনিবার কর্মস্থলে না যাওয়ায় কারখানার মালিক পক্ষ দুপুরের খাবারের বিরতিতে লিমার বাসায় লোক পাঠায়।

বাসায় ডাকাডাকি করে কোন সারাশব্দ না পেয়ে দরজা ধাক্কা দিয়ে দেখতে পান লিমা রহমান ও রজত কান্তি চৌধুরী গলায় ওরনা পেঁচিয়ে সিলিং ফ্যানের হুকের সাথে ঝুলে আছে। পরে গাছা থানা পুলিশকে খবর দিলে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়।


গাছা জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার আহসানুল হক জানান, প্রাথমিকভাবে জানা গেছে পূর্বে সিগমা ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে মেডিকেল এসিস্ট্যান্ট পদে চাকুরী করতেন লিমা। চাকুরীর সুবাদে প্রতিষ্ঠানের পরিচালক রজত কান্তি চৌধুরীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয় তার।


মাস দুয়েক আগে লিমা চাকুরী ছেড়ে সোয়েটার কারখানায় চাকুরী নেন। লিমা ওই বাড়িতে একাই ভাড়া থাকতেন। পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে রজত ওই বাড়িতে নিয়মিত যাতায়ত করতেন। তবে তাদের মধ্যে কি সম্পর্ক এবং কেন আত্মহত্যা করেছে সেটি জানা যায়নি।



আরও খবর



নীতি দুর্নীতি--এ দায়ভার কার,নেতা- নেত্রীর না জনতার?

প্রকাশিত:Tuesday ১৮ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১০৬জন দেখেছেন
Image


মোঃ আব্দুল হান্নানঃ

নির্বাচন আসে,নির্বাচন চলে যায়।সাধারণ জনগণ তাদের মুল্যবান ভোটও সুচিন্তিত মতামত দিয়ে তাদের পছন্দের নেতানেত্রী বা জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করে। তেমনি সারা দেশের ন্যায় ২০২১ সালের ১১ অক্টোবর ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে অনুষ্টিত হয় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন।নির্বাচনে চেয়ারম্যান,মেম্ভার ও সংরক্ষিত মহিলা মেম্ভার পদে অনেকেই প্রতিদ্বন্ধিতা করে, কেউ বিজয়ী আবার কেউ পরাজিত হয়েছে।নির্বাচনে জনগণ তাদের অনেক মুল্যবান ভোট ও সুচিন্তিত মতামত দিয়ে বিভিন্ন ইউনিয়নে  ভাল মানুষকে আবার কোন কোন ইউনিয়নে  বির্তকিত মাদক ব্যবসায়ী আর অযোগ্য লোককেও  মনোনীত করেছেন। আবার কোন কোন ইউনিয়নে ভাল মানুষকে ও রায় না দিয়ে বাড়িতে পাটিয়ে দিয়েছেন।সবই জনগণের ইচ্ছা। 


তারই বাস্তব উদাহরণ স্বরুপ যেমন বিগত নির্বাচনে ফান্দাউক ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ইউপি সদস্য পদে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করেন ফান্দাউক গ্রামের কুখ্যাত মাদক ও ইয়াবা ব্যবসায়ী মৃত আরব আলীর ছেলে মোঃ জাকারিয়া জাকির।যার ভয়াল মাদক ব্যবসার ছোবলে ধ্বংস হচ্ছে এলাকার যুব সমাজ।যার ভয়ে মুখ খোলে কেউ কথা বলার সাহস পায়না।২০১৮ সালের ২২ মার্চে যার বাড়িতে জধন এর লোকজন অভিযান চালিয়ে প্রচুর পরিমান ইয়াবা,ফেনসিডিল,ল্যাপটপ,সিসি ক্যামেরা,বিদেশী টর্চলাইট,কয়েকটি পাসর্পোট সহ আরো বিভিন্ন দ্রব্য ও মাদক ব্যবসার প্রায় নগদ ৩ লক্ষ টাকা উদ্বার করে।এসময় জধন এর উপস্থিতি বুঝতে পেরে জাকির সুকৌশলে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।পরে জধন -৯ ইসলামপুর সিলেটের এস আই আল ইমরান বাদি হয়ে জাকারিয়া জাকিরকে আসামী করে নাসিরনগর থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে  থানার মামলা নং ২৫ তারিখ ২২/৩/২০১৮ রুজু করে।মামলার পর থেকে পালিয়ে যায় জাকির।অনেক দিন পালিয়ে থাকার পর আদালতে হাজিরা দিতে গেলে আদালত জাকিরের জামিন না মঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরনের নির্দেশ দেন।বেশ কিছু দিন জেলবাস শেষে জামিনে মুক্তি নিয়ে এলাকায় এসে ব্যবসা য়ীক ধরন পাল্টিয়ে সম্পুর্ন নতুন নিয়মে আবারো শুরু করে দেন। বিগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ইউপি সদস্য পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করলে ফান্দাউক ইউনিয়নের বুদ্বিবান  সচেতন সাধারণ জনগণ  জাকিরকে তাদের মুল্যবান ভোট ও সুচিন্তিত রায় দিয়ে ইউপি সদস্য নির্বাচিত করে তাদের পক্ষে কথা বলতে ও কাজ করতে ইউনিয়ন পরিষদে পাটিয়ে দেয়।

অপরদিকে জনগনের অনুরোধে বুড়িশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত ১,২,৩ মহিলা আসন থেকে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করেন আশুরাইর গ্রামের সিনিয়র সাংবাদিক পত্নী শিক্ষিত, নম্র, ভদ্র সেলিনা বেগম।
সেলিনা দীর্ঘদিন যাবৎ তার নিজ এলাকার নিরক্ষর বয়স্ক ও শিশুদের মাঝে শিক্ষার আলো ছড়ি যাচ্ছেন।

মানুষের বিপদে আপদে সব সময় পাশে রয়েছেন।সেলিনার স্বামী একজন স্বনামধন্য সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী।সে সারা জীবণ মানুষের বিপদে আপদে পাশে থেকে মানুষকে নানা ভাবে সহযোগিতা করে আসছেন।যেমন অন্ধকারাচ্ছন্ন রাস্তায় স্ট্রিট লাইটের মাধ্যমে বিদ্যুতায়িত করা,রাস্তাঘাট সংস্কার করা,মসজিদে অনুধান প্রদান, রোগীর চিকিৎসা সেবা এগিয়ে যাওয়া,বিভিন্ন দুর্যোগে খাবার নিয়ে সাধারণ মানুষের পাশে দাড়ানো,সমাজের অবহেলিত বঞ্চিত,দুস্থ দরিদ্র অসহায মানুষের মাঝে বিধবা ভাতা,বয়স্কভাতা,প্রতিবন্ধীভাতা গর্ভবতীভাতা, শীতে অসহায় মানুষের পাশে কম্বল নিয়ে হাজির হওয়া সহ আরো নানা ধরনের কাজে সহযোগিতা করা যার কাজ। সেই সাংবাদিক পত্নী সেলিনা বেগম নির্বচনে প্রতিদন্ধীতা করলে জনগণ সেলিনাকে তাদের মহামুল্যবান ভোট ও সুচিন্তিত মতামত  দিয়ে পরিষদে না পাটিয়ে একদম সোঁজা ফেল করিয়ে বাড়িতে পাটিয়ে দিয়েছে।

তেমনি ভাবে শুধু ফান্দাউক আর বুড়িশ্বর নয় অনেক ইউনিয়ন পরিষদেই জাকিরের মত লোকজনকে জনগণ ভোট দিয়ে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করে পরিষদে পাঠিয়েছেন,আবার অনেক পরিষদেই লোকজন সেলিনার মত প্রার্থীকে তাদের মহামুল্যবান ভোট ও মতামত না দিয়ে বাড়িতে ফেল করিয়ে বাড়িতে পাটিয়ে দিয়েছেন।তাহলে এবাব আপনারাই বলেন,নেতা নেত্রী বা জনপ্রতিনিধি নির্বাচনে এ দায়ভার কার? জনতার উপর দিলাম এ বিচারের ভার।


আরও খবর



বাংলাদেশ স্কাউটস ঢাকা মেট্রোপলিটন যাত্রাবাড়ী থানার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন জিয়াউদ্দিন জিয়া

বাংলাদেশ স্কাউটস ঢাকা মেট্রোপলিটন যাত্রাবাড়ী থানার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন জিয়াউদ্দিন জিয়া

প্রকাশিত:Monday ১০ January ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ১০৯জন দেখেছেন
Image


সোহরাওয়ার্দীঃ

বাংলাদেশ স্কাউটস ঢাকা মেট্রোপলিটনের থানাভিত্তিক কাউন্সিলে যাত্রাবাড়ী থানা থেকে এস.এম.জিয়াউদ্দিন জিয়া সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন।


যাত্রাবাড়ী থানা আওতাধীন সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান ও ইউনিট লিডারগণের উপস্থিতিতে নির্বাচন পক্রিয়ার মাধ্যমে জিয়া উদ্দিন (জিয়া) সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।ইমপিসা ওপেন স্কাউট গ্রুপের গ্রুপ সম্পাদক হিসেবে দীর্ঘদিন যাবত দ্বায়িত্ব পালন করছেন এস.এম.জিয়াউদ্দিন জিয়া।


ইমপিসা ওপেন স্কাউট গ্রুপ গত লকডাউনে জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ, নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে বাজার করা, চলাচল করা এবং মাস্ক সঠিকভাবে পরিধান করার বিষয়ে ধলপুর বাজার, মানিকনগর বাজার, গোপীবাগ বাজার ও বিভিন্ন স্থানে  নানা কর্মসুচী পালন করেছে।


এছারাও করোনা দুর্যোগে দুর্দশাগ্রস্ত মানুষকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করে।ভোট ও সমর্থন দিয়ে নির্বাচিত করায় সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান ও ইউনিট লিডারগণের প্রতি ধন্যবাদ জানিয়েছেন এস.এম.জিয়াউদ্দিন জিয়া।


আরও খবর