Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

মাত্র ৬ মাসেই খসরু চৌধুরী এমপির বাজিমাত, এ বছরের মধ্যই শেষ হবে শতাধিক রাস্তার সংস্কার কাজ

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১০৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ২০২৪ সালের ৭ জানুয়ারি। সেই হিসাবে ৭ জুলাই ঢাকা-১৮ আসনের সংসদ সদস্য হিসাবে মো. খসরু চৌধুরীর ৬ মাস পূর্ণ হবে। এলাকার উন্নয়নে এই ৬ মাসে ব্যাপক কর্ম তৎপরতা চালিয়েছেন তিনি। ভাঙাচোরা রাস্তার সংস্কারে পর্যাপ্ত বরাদ্দ চেয়ে ও ঢাকা-১৮ আসনের হোল্ডিং ট্যাক্স মওকুফের দাবিতে সংসদে একাধিকবার বক্তব্য দিয়েছেন। দ্রুত রাস্তা মেরামতে বরাদ্দ পাস করাতে দৌড়-ঝাঁপ করেছেন সচিবালয় ও নগর ভবনে। তিনি নির্বাচিত হওয়ার পর শুরু করেছেন শতাধিক রাস্তার কাজ। যা শেষ হবে ২০২৪ সালের মধ্যে।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে খসরু চৌধুরী ঘোষণা দিয়েছিলেন, তিনি নির্বাচিত হলে তার প্রথম কাজ হবে সর্বাধিক অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে সিটি কর্পোরেশনের সঙ্গে সমন্বয়-পূর্বক স্বল্পতম সময়ের মধ্যে টেকসই পরিবর্তন নিশ্চিত করা। এ কাজে তিনি সফল হয়েছেন। এমপি নির্বাচিত হয়েই খসরু চৌধুরী ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও কাউন্সিলরদের সঙ্গে সমন্বয় করে উন্নয়ন কাজ শুরু করেছেন। বর্তমান ঢাকা-১৮ আসনে ১০০টিরও অধিক রাস্তার কাজ চলমান রয়েছে। স্থানীয় সরকার মন্ত্রীসহ বিভিন্ন দপ্তরে কথা বলে নতুন নতুন আরও কিছু উন্নয়নমূলক কাজ শুরু করার চেষ্টা করছেন।

উত্তরখান ও দক্ষিণখান এলাকায় গ্যাস সংকট চরমে। খসরু চৌধুরী এমপি নির্বাচিত হওয়ার পরে গ্যাস পাইপ লাইন সংস্কারের মাধ্যমে গ্যাস সমস্যার সমাধানের চেষ্টা করেছেন। ঢাকা-১৮ আসনকে সন্ত্রাস, মাদক ও চাঁদাবাজ-মুক্ত করতে কাজ করছেন তিনি। তিনি প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে একাধিকবার বৈঠক করেছেন। ঢাকা-১৮ আসনের বিভিন্ন-স্পটকে চাঁদা-মুক্ত করেছেন। অটো-লেগুনার চাঁদা বন্ধ করেছেন। যানবাহন থেকে সব ধরনের চাঁদাবাজি বন্ধ করা হয়েছে। যারা এসব অবৈধ কাজে জড়িত ছিলো, দল-মত-নির্বিশেষে তাদের সকলের বিরুদ্ধেই জিরো টলারেন্স দেখিয়ে আইনগত কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য তিনি প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছেন।

জাতীয় সংসদে দেওয়া প্রতিটি বক্তব্যে খসরু চৌধুরী অবহেলিত ঢাকা-১৮ আসনের উন্নয়নে পর্যাপ্ত বরাদ্দ চেয়েছেন। মাদক, সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ-মুক্ত ঢাকা-১৮ আসন গড়ার প্রত্যয় ব্যখ্ত করেছেন। ২০১৮ সাল থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত ঢাকা-১৮ আসনের নাগরিকদের কর ও হোল্ডিং ট্যাক্স মওকুফ করার বিষয়ে একাধিকবার মাননীয় স্পিকার, অর্থমন্ত্রী ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

"সম্প্রতি জাতীয় সংসদে মোঃ খসরু চৌধুরী (১৯১ ঢাকা-১৮): স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (স্থানীয় সরকার বিভাগ) মন্ত্রীর কাছে ঢাকা-১৮ আসনের রাস্তাগুলোর কাজ কবে নাগাদ শেষ হবে সেটি জানতে চেয়েছিলেন। উত্তরে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম জানিয়েছেন,  ঢাকা-১৮ আসনের ইউনিয়ন হতে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে সংযুক্ত ওয়ার্ডসমূহের (ওয়ার্ড নং-৪৪, ৪৫, ৪৬, ৫১, ৫২, ৫৩ ও ৫৪) “নতুনভাবে অন্তর্ভুক্ত ১৮ (আঠারো)টি ওয়ার্ড উন্নয়ন” শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ২৪ ইসিবি কর্তৃক রাস্তা উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। উক্ত কাজগুলো আগামী নভেম্বর ২০২৪ এর মধ্যে সম্পন্ন করার পরিকল্পনা রয়েছে। এছাড়াও ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের অঞ্চল-৭ এ সংযুক্ত ওয়ার্ডসমূহ (ওয়ার্ড নং- ৪৭, ৪৮, ৪৯ ও ৫০) এর ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তাসমূহ উন্নয়নের জন্য বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে ওয়ার্ডগুলোর উন্নয়ন কাজ ৩১ ডিসেম্বর, ২০২৪ তারিখের মধ্যে সম্পন্ন করার পরিকল্পনা রয়েছে।"

মো. খসরু চৌধুরী এমপির ছয় মাসের কার্যক্রম মূল্যায়ন করতে গিয়ে বৃহত্তর উত্তরা থানা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও উত্তরখান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান মিলন বলেন, বিগত বছর গুলোতে ঢাকা-১৮ আসন ছিলো উন্নয়ন বঞ্চিত। তবে খসরু চৌধুরী ঢাকা-১৮ আসনের মানুষের দুঃখ-দুর্দশা দূর করতে নিরলস-ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। আশাকরি তিনি সফল হবেন।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য কাজী সালাউদ্দিন পিন্টু বলেন, এমপি নির্বাচিত হওয়ার আগে খসরু চৌধুরী যেসব প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তিনি তা বাস্তবায়ন করতে কাজ করছেন। তিনি ৫ বছর তথা ৬০ মাসের জন্য এমপি নির্বাচিত হয়েছেন। মাত্র ৬ মাস অতিবাহিত হয়েছে সামনে রয়েছে ৫৪ মাস। তিনি আগে এমপি না হয়েও মানুষের জন্য কাজ করেছেন। এখন এমপি হয়ে দিনের পুরোটা সময়ই মানুষের জন্য কাজ করছেন। তিনি যে ইশতেহার দিয়েছেন তা শতভাগ বাস্তবায়ন হবে ইনশাআল্লাহ।


আরও খবর

হাসপাতালে ভর্তি শামীম ওসমান

বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪




মেহেরপুর ডিবি’র অভিযানে মোবাইল চোর সিন্ডিকেটের তিন সদস্যকে আটক

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ,মেহেরপুর প্রতিনিধিঃসারাদেশ বিভিন্ন শোরুমে স্বর্ণ ও মোবাইল চোর সিন্ডিকেটের তিন জনকে আটক করেছে মেহেরপুর জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। মঙ্গলবার রাতে চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। এ সময় উদ্ধার করা হয় ৫২ টি মোবাইল সেট। 

আটকরা হচ্ছে- চোর সিন্ডিকেটের সেকেন্ড ইন কমান্ড চট্টগ্রামের পটিয়া থানার মহিরা গ্রামের অজিত চক্রবর্তীর ছেলে ইমন ওরফে লিটন(৩৩), লোহাগাড়া থানার উকিল পাড়ার মৃত সোলঅইমানের ছেলে আব্দুল্লাহ আল মারুফ ওরফে জিল্লু( ৩৪) ও সাকিব(২৪)। এদের বিরুদ্ধে মেহেরপুর শহরের এসআর টেলিকমের চুরির ঘটনায় মামলাসহ ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে মেহেরপুর সদর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। 

 ডিবি ওসি সাইফুল ইসলাম জানান, গেল ৮ জুলাই ভোরে মেহেরপুর শহরের এস আর টেলিকমে চুরির ঘটনা ঘটে। চোরেরা তালা ভেঙ্গে শোরুমের ভিতরের প্রবেশ করে নামিদামি ব্রান্ডের দুই শতাধিক মোবাইল চুরি করে। ঐদিন রাতেই শোরুমের স্বত্বাধিকারী সাইদুর রহমান বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামী করে মেহেরপুর সদর থানায় একটি চুরির মামলা দায়ের করেন। দোকানের সিসিটিভির ফুটেজ পর্যবেক্ষণ করে মাঠে নামে ডিবি পুলিশ। প্রযুক্তি ব্যবহার করে চুরির ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করা হয়। চোরদের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে মঙ্গলবার রাতে চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়। এ সময় উদ্ধার করা হয় ৫২ টি মোবাইল। 

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা চুরির ঘটনায় জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করে। তাদের স্বীকারোক্তি তে চিহ্নিত করা হয় এই চক্রের আরো ৯ সদস্যকে। তাদের প্রত্যেকের নামে দেশের বিভিন্ন স্থানে ১০ থেকে ১২টি করে মামলা রয়েছে। অন্যান্য আসামীদের আটকে অভিযান অব্যাহত আছে বলেও জানালেন ডিবির ওসি সাইফুল ইসলাম।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



ওবায়দুল কাদের শিক্ষক প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে যা বললেন

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৭৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সর্জনীন পেনশন স্কিম ‘প্রত্যয়’ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষকদের একটি প্রতিনিধি দল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে বৈঠক করেছেন ।

শনিবার (১৩ জুলাই) বেলা ১১টায় ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয় বৈঠক শুরু হয়। দুপুর ১টায় বৈঠকটি শেষ হয়।

বৈঠক শেষে ওবায়দুল কাদের বলেন, কর্মবিরতির বিষয়ে সাংগঠনিকভাবে আলোচনার পর শিক্ষকরা তাদের সিদ্ধান্ত জানাবেন।

সর্বজনীন পেনশনের ‘প্রত্যয়’ স্কিমের কার্যকারিতা ২০২৫ সালের ১ জুলাই থেকে শুরু হবে। এ বিষয়ে ২০২৪ সালে যে তথ্য দেওয়া হয়েছিল তা সঠিক নয়। এটা তাদের পরিষ্কারভাবে বলেছি।

শিক্ষকদের সুপার গ্রেড প্রদানের বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মর্যাদা ও লিখিত দাবিনামা সরকারের উচ্চ পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রীর সমীপে উত্থাপন করবো। পরবর্তী সিদ্ধান্ত আমরা আলাপ করে নেব। আলাপ আলোচনা করে আশা করি সমাধান আসবে।

শিক্ষকদের কর্মবিরতি প্রত্যাহার করার অনুরোধ করেছেন বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



যবিপ্রবি'র ৯ শিক্ষার্থী আজীবন বহিষ্কার

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৩৫জন দেখেছেন

Image

ইয়ানূর রহমান শার্শা,যশোর প্রতিনিধি:চাকরি প্রার্থীদের অপহরণ এবং একজন আবাসিক শিক্ষার্থীকে রাতভর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ততার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) বিভিন্ন বিভাগের ৯ শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবন বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। আজীবন বহিষ্কৃত ৯ জন এবং বর্তমানে ছাত্রত্ব না থাকায় আরও চার জনসহ মোট ১৩ জনের বিরুদ্ধেই দেশের প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেলে যবিপ্রবির প্রশাসনিক ভবনের সম্মেলন কক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতি-নির্ধারণী ফোরাম রিজেন্ট বোর্ডের ১০০তম (বিশেষ) সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। রিজেন্ট বোর্ডের সদস্যদের অনেকে ভার্চুয়ালি এবং সশরীরে সভায় অংশ নেন। তদন্ত কমিটি প্রতিবেদনের পর তা নিয়মানুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিসিপ্লিনারি কমিটিতে উপস্থাপন করা হয়। পরবর্তীতে ডিসিপ্লিনারি কমিটির সুপারিশ রিজেন্ট বোর্ডের সভায় উপস্থাপন করার পর তা ঘটনার গুরুত্ব বিবেচনায় নিয়ে এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সভার শুরুতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্প্রতিক ঘটনাসমূহের বিষয়ে যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন বক্তব্য দেন। বক্তব্যে তিনি গত ২০২৩ সালের ৭ ডিসেম্বর  লিফট অপারেটর নিয়োগ নির্বাচনী বোর্ডের সময় উদ্ভূত ঘটনাসমূহ রিজেন্ট বোর্ডের সদস্যদের অবহিত করেন এবং গত ২০২৪ সালের ৪ জুন  যবিপ্রবি শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া বিজ্ঞান (পিইএসএস) বিভাগের শিক্ষার্থী শাহরিন রহমানকে রাতভর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের ঘটনা অবহিত করেন।

রিজেন্ট বোর্ডের সভায়, গত ২০২৩ সালের ৭ ডিসেম্বর  লিফট অপারেটরে চাকরি প্রার্থীদের অপহরণের ঘটনায় সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় এবং তাদের বিষয়ে ইতিমধ্যে জারিকৃত বিধি-নিষেধ লঙ্ঘন করায় যবিপ্রবির ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের শিক্ষার্থী মোঃ বেলাল হোসেন, ফার্মেসী বিভাগের শিক্ষার্থী জি এম রাইসুল হক রানা, শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া বিজ্ঞান (পিইএসএস) বিভাগের শিক্ষার্থী নৃপেন্দ্র নাথ রায়, মুশফিকুর রহমান, ফাহিম ফয়সাল লাবিব ও মোঃ আবু বক্কারকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যবিপ্রবির রুলস অব ডিসিপ্লিন ফর স্টুডেন্টস অনুযায়ী আজীবন বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। তবে ফাহিম ফয়সাল লাবিবের বর্তমানে ছাত্রত্ব নেই। উল্লিখিতদের মধ্যে যাদের ছাত্রত্ব নেই তাদের বিরুদ্ধে দেশের প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। একইসাথে তাদেরকে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে ও আবাসিক হলে প্রবেশে বিধি-নিষেধ আরোপের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

রিজেন্ট বোর্ডের সভায়, গত ২০২৪ সালের, ৪ জুন দিবাগত রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মসিয়ূর রহমান হলের ৩০৬ নম্বর কক্ষে শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী শাহরিন রহমানকে রাতভর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের ঘটনা প্রমাণিত হওয়ায় যবিপ্রবির শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া বিজ্ঞান বিভাগের সোহেল রানা, রেদওয়ান আহমেদ জিসান, মো. বিপুল সেখ, ইছাদ হোসেন,মো.আশিকুজ্জামান (লিমন) ও মো. আমিনুল ইসলাম; ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের মো. বেলাল হোসেন ও পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের মো. রায়হান রহমান রাব্বীকে যবিপ্রবির রুলস অব ডিসিপ্লিন ফর স্টুডেন্টস অনুযায়ী আজীবন বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। তবে সোহেল রানা, ইছাদ হোসেন এবং আশিকুজ্জামান (লিমন)-এর বর্তমানে ছাত্রত্ব নেই। উল্লিখিতদের মধ্যে যাদের ছাত্রত্ব নেই তাদের বিরুদ্ধে দেশের প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। একইসাথে তাদেরকে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে ও আবাসিক হলে প্রবেশে বিধি-নিষেধ আরোপের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

যবিপ্রবির উপাচার্য ও রিজেন্ট বোর্ডের সভাপতি অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন যশোর-৩ আসনের সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ, বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড.মোঃ আনিছুর রহমান, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (বিশ্ববিদ্যালয়) খালেদা আক্তার, যুগ্ম সচিব ড. মোর্শেদা আক্তার, যশোরের আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড.কাওছার উদ্দিন আহম্মদ, আইসিসিডিআর’বি-এর বায়োসেফটি অ্যান্ড বিএসএল-৩ ল্যাবরেটরির প্রধান ড. আসাদুলগনি, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়াজেদ মিয়া বিজ্ঞান গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক অধ্যাপক ড. কৌশিক সাহা, ইউজিসি অধ্যাপক ড. শরীফ এনামুল কবির, ইব্রাহিম কার্ডিয়াক হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিউটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. এম. এ. রশীদ, যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মর্জিনা আক্তার, যবিপ্রবির অণুজীববিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. ইকবাল কবীর জাহিদ, কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল (সিএসই) বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গালিব,অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস (এআইএস) বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. মেহেদী হাসান, রেডিয়েন্ট ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের চেয়ারম্যান মো. নাসের শাহিরয়ার জাহেদী এমপি, সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আবু বক্কর সিদ্দিকী, যশোর সরকারি মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. এ এইচ এম আহসান হাবীব, রিজেন্ট বোর্ডের সচিব ও রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. আহসান হাবীব প্রমুখ।


আরও খবর



কর্মীদের দক্ষ করে বিদেশে পাঠাতে হবে : প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৬৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:কর্মীদের দক্ষ করে জনশক্তিতে রূপান্তর করে বিদেশে প্রেরণ করতে হবে,বলেছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী শফিকুর রহমান চৌধুরী । বৈধ পথে তাদের অর্জিত রেমিটেন্স দেশে পাঠাতে হবে।

রোববার (১৪ জুলাই) ঢাকা টেকনিক্যাল টিচার্স ট্রেনিং ইনস্টিটিউটে (ডিটিটিটিআই) এক প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমাদের কর্মতৎপরতায় বিদেশ গমনেচ্ছু কর্মীরা বিভিন্ন কারিগরি জ্ঞান ও ভাষার ওপর দক্ষতা অর্জন করতে সক্ষম হচ্ছে। কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রসমূহ পুরাতন আমলের যন্ত্রপাতি দিয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়ায় তা নতুন প্রজন্মের কাজে লাগানো যাচ্ছে না। তাই প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রসমূহে আধুনিক যুগোপযোগী ও আধুনিক যন্ত্রপাতি স্থাপনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

তি‌নি বলেন, শুধুমাত্র প্রবাসী কর্মীদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করলেই হবে না, প্রশিক্ষকদেরও প্রতিনিয়ত আধুনিক প্রযুক্তি সম্পর্কে প্রশিক্ষণ দিতে হবে। আমি আশা করছি, আধুনিক যন্ত্রপাতির সমন্বয়ে কিছুদিনের মধ্যে আমাদের কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রসমূহ ঢেলে সাজাতে সক্ষম হব।

বিদেশে গমনেচ্ছু কর্মীদের ভাষা জ্ঞানের ওপর জোর দিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমাদের কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রগুলোতে(টিটিসি) কী কী ধরনের ট্রেডে চালু আছে? বা আমরা কী কী ধরনের প্রশিক্ষণ কর্মীদেরকে দেই তা সবাইকে জানার সুযোগ করে দিতে হবে। প্রচারের ব্যবস্থা করতে হবে।

প্রবাসীদের সব সমস্যা আমার জানা উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রবাসীদের কষ্ট আমি অনুভব করি। প্রবাসীদের সব সমস্যা সমাধানে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। আমি আপনাদের একজন হিসেবে সর্বদা কাজ করব।

এ সময় বাংলাদেশ জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক সালেহ আহমদ মোজাফফর উপ‌স্থিত ছিলেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



ভারি বৃষ্টির পূর্বাভাস ৫ বিভাগে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৯২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আগামী ৪৮ ঘণ্টায় দেশের পাঁচটি বিভাগে ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণের আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। সেই সঙ্গে বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) ভারি বর্ষণের সতর্কবাণীতে এ তথ্য জানিয়েছে সংস্থাটি।

এতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের ওপর মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ, সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও ১১ জুলাই বেলা ১১টা থেকে পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টায় ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণ হতে পারে। ভারি বর্ষণজনিত কারণে চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের পাহাড়ি এলাকার কোথাও কোথাও ভূমিধসের শঙ্কা রয়েছে।

এদিকে, আবহাওয়ার আরেক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণ হতে পারে।

সারাদেশে দিনের এবং রাতের তাপমাত্রা ১-২ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর