Logo
আজঃ Wednesday ২৫ May ২০২২
শিরোনাম
কিডনি বেচা-কেনার দায়ে সাতজন গ্রেফতার

মানুষের কিডনি বেচা-কেনার দায়ে সাতজন গ্রেফতার

প্রকাশিত:Sunday ১৫ May ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ৮১জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

জয়পুরহাটের কালাই ও পাঁচবিবি উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে অভিযান চালিয়ে কিডনি বেচাকেনা চক্রের সঙ্গে জড়িত ৭ দালালকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) পুলিশ।  


শনিবার (১৪ মে) দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে এতথ্য জানিয়েছেন জয়পুরহাটের পুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মদ ভূঞা।


 গ্রেফতার দালাল চক্রের সদস্যরা হলেন- কালাই উপজেলার থল গ্রামের মৃত সিরাজ উদ্দিনের ছেলে সাহারুল ইসলাম (৩৮), একই উপজেলার উলিপুর গ্রামের ফরিদুল ইসলামের ছেলে ফরহাদ হোসেন ওরফে চপল (৩১), জয়পুর বহুতি গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে মোশারফ হোসেন (৫৪), ভেরেন্ডি গ্রামের জাহান আলীর ছেলে শাহারুল ইসলাম (৩৫), জয়পুর বহুতি গ্রামের মৃত মোবারক হোসেনের ছেলে মোকাররম হোসেন (৫৩), দূর্গাপুর গ্রামের মৃত বছির উদ্দিন ফকিরের ছেলে সাইদুল ইসলাম ফকির (৪৫) ও পাঁচবিবি উপজেলার গোড়না আবাসনের মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে সাদ্দাম হোসেন (৪০)।  

  

পুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মদ ভূঞা সাংবাদিকদের জানান, শুক্রবার রাতে জয়পুরহাটের কালাই ও পাঁচবিবি উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।


 


তিনি বলেন, দালালরা দীর্ঘদিন ধরে জয়পুরহাটের মাত্রাই ও উদয়পুর ইউনিয়নসহ বিভিন্ন এলাকার নিরীহ, ঋণগ্রস্ত ও হতদরিদ্র মানুষদের ফুসলিয়ে টাকার লোভ এবং অল্প সময়ে বড়লোক হওয়ার স্বপ্ন দেখিয়ে নারী এবং পুরুষদের কিডনি বিক্রি করাতেন। এসব নিরীহ মানুষরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দালালদের খপ্পরে পরে প্রথমে ৪-৫ লাখ টাকার চুক্তিতে তাদের মূল্যবান কিডনি বিক্রি করে দেন।


পরে ভারত ও দুবাইসহ বিভিন্ন দেশে গিয়ে তাদের কিডনি দিয়ে নামমাত্র চিকিৎসা নিয়ে যখন দেশে ফেরেন, তখন দালালরা বিমান বন্দরেই তাদের হাতে ১-২ লাখ টাকা ধরিয়ে দিয়ে সেখান থেকে বিদায় করেন।


পরবর্তীকালে কিডনি দাতারা নিজের অঙ্গ বিক্রি করে ঝুঁকি নিয়ে জীবন অতিবাহিত করলেও লাভবান হচ্ছেন এসব দালালরা।


আবার নিজের কিডনি বিক্রি করে প্রতারিত হয়ে নতুন করে দালাল বনে যাচ্ছেন কোনো কোনো কিডনি দাতারা।  


তিনি আরও জানান, গ্রেফতার দালালরা কিডনি বেচাকেনার সঙ্গে জড়িত রয়েছেন বলে পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবদে স্বীকার করেছেন। কিডনি বেচাকেনা প্রতিরোধে দালাল চক্রের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।  


সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফারজানা হোসেন, সদর সার্কেল মোসফেকুর রহমান, পাঁচবিবি সার্কেল ইশতিয়াক আলমসহ পুলিশের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা।


জানা যায়, বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী ২০১১ সাল থেকে এ পর্যন্ত ৫শ জনেরও বেশি অভাবী মানুষ তাদের শরীরের একটি করে কিডনি বিক্রি করেছেন। আর এসব ঘটনায় ১৫টি মামলায় এ পর্যন্ত ১২১ জনকে আসামি করা হলেও গ্রেফতার হয়েছে মাত্র ৪৭ জন।   



আরও খবর



আড়াই হাজার থেকে ১০০ কেজি গাঁজা ও একটি প্রাইভেটকার জব্দ করেছে র‌্যাব-১১

প্রকাশিত:Wednesday ১১ May ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ১৩৮জন দেখেছেন
Image

শরীফ আহমেদঃ

নারায়ণগঞ্জ আড়াইহাজার হতে ১০০ কেজি গাঁজাসহ ০২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত একটি প্রাইভেটকার জব্দ করেছে র‍্যাপিডঅ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-১১।


র‌্যাব-১১, সিপিএসসি, আদমজীনগর, নারায়ণগঞ্জের একটি আভিযানিক দল গত ১০ মে ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ বিকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজার থানাধীন করাইতলা রামচন্দ্রদী ব্রীজ এলাকায় এক বিশেষ মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে।


 উক্ত অভিযানে আনুমানিক ৩০ লাখ টাকা মূল্যের ১০০ কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী ১।  মোঃ আকরাম হোসেন (২৩) এবং ২।  মোঃ আল আমিন হোসেন (২২) নামক ০২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে হাতে-নাতে গ্রেফতার করা হয়।  


এ সময় তাদের হেফাজত হতে মাদক পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত ০১টি প্রাইভেটকার জব্দ করা হয়।  গ্রেফতারকৃত আসামীরা উভয়ই কুমিল্লা জেলার কোতয়ালী থানার বাসিন্দা।


আরও খবর



আগামী জুনেই উদ্বোধন হচ্ছে পদ্মা সেতু

প্রকাশিত:Wednesday ১১ May ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১৩১জন দেখেছেন
Image

বজলুর রহমানঃ

এবছরের জুনের শেষ দিকে পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পদ্মা সেতুর কাজের অগ্রগতির সামারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পাঠানো হয়েছে। 


আগামী মাসের (জুন) শেষ দিকে সেতুটি উদ্বোধনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে সময় চেয়েছি। তিনি সময় দিলে জুনেই পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে।


বুধবার (১১ মে) রাজধানীর সেতু ভবনে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের ১১১তম সভা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন মন্ত্রী।



ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার প্রকল্প পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্প। পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের মূল সেতুর বাস্তব কাজের অগ্রগতি শতকরা ৯৮ শতাংশ। এর মধ্যে নদীশাসন কাজের বাস্তব অগ্রগতি শতকরা ৯২ শতাংশ এবং মূল সেতুর কারপেটিং কাজের অগ্রগতি শতকরা ৯১ শতাংশ। প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি শতকরা ৯৩ দশমিক ৫০ শতাংশ।




পদ্মা সেতুর নাম ‘শেখ হাসিনা-পদ্মা সেতু’ নামকরণে সেতু বিভাগ প্রস্তাব দেবে বলে জানিয়েছেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, সেতুটি উদ্বোধনের আগেই আমরা ‘শেখ হাসিনা -পদ্মা সেতু’ নামকরণ করতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রস্তাব দেবো। তিনি সম্মতি দিল আমরা এ নামে সেতুর উদ্বোধন করবো।


তিনি বলেন, সেতু বিভাগের আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প হচ্ছে চট্টগ্রামে কর্ণফুলী নদীর তলদেশ দিয়ে নির্মাণাধীন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল। ২ হাজার ৪৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের দ্বিতীয় টানেল টিউবে রিং প্রতিস্থাপনসহ ১০০ শতাংশ বােরিং কাজ সম্পন্ন হয়েছে। প্রায় ১ হাজার ২৩৪ মিটার স্লাব নির্মাণ কাজও সম্পন্ন হয়েছে। বর্তমানে দ্বিতীয় টানেল টিউবের প্রয়ােজনীয় ইন্টার্নাল স্ট্রাকচার নির্মাণের কাজগুলো চলমান রয়েছে। প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি শতকরা ৮৫ শতাংশ।


আরও খবর



পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র দেশের অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ করবে

রুপপুরের পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র দেশের চাহিদা মিটিয়ে অর্থনৈতিক লাভ এনে দেবে

প্রকাশিত:Friday ২০ May ২০22 | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ৭১জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

রূপপুরে চলছে দেশের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের কাজ। ২০২৩ থেকে এখানকার প্রথম ইউনিট উৎপাদনে যেতে পারে, সেই লক্ষ্যে চলছে কার্যক্রম। সংশ্লিষ্টদের আশা এটি একদিকে দেশের বিদ্যুৎ চাহিদা পূরণ করবে অন্যদিকে দ্বিগুণের বেশি অভ্যন্তরীণ রিটার্ন দেবে সরকারকে।২৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের ক্ষমতাসম্পন্ন এ প্রকল্পে ব্যয় হচ্ছে ১২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বা এক লাখ ১৩ হাজার কোটি টাকা।

প্রকল্পটিতে ৯০ শতাংশ রাশিয়ার ঋণ, বাকি ১০ শতাংশ ব্যয় করবে বাংলাদেশ সরকার।

উৎপাদনে গেলে রাশিয়াকে প্রতি বছর ঋণ শোধ করতে হবে ৫৬৫ মিলিয়ন বা সাড়ে ৫৬ কোটি ডলার। এত বড় অংক দেখে কেউ কেউ এটিকে সাদা হাতির প্রকল্প বলছেন। কিন্তু এমন অভিযোগ নাকচ করে সরকারের সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এটা শ্বেত হস্তীর প্রকল্প নয়, বরং উন্নয়নের মাইলফলক।



বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, প্রকল্পের দুটি রিঅ্যাক্টর চালুর পর প্রতি বছর কিস্তি পরিশোধ করতে হবে (৫৬ কোটি ডলার)। প্রকল্পের রিটার্ন থেকে কিস্তির অর্থ উঠে এলে ভর্তুকির দরকার পড়বে না।

পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প প্রসঙ্গে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলমম বলেন, প্রতি বছর অভ্যন্তরীণভাবে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে রিটার্ন আসবে সাড়ে ৯ শতাংশ। প্রকল্প ঋণের সুদ ১ থেকে ২ শতাংশের বেশি হবে না। তার মানে বাংলাদেশ এই প্রকল্পের মাধ্যমে অনেক লাভবান হবে।

তাছাড়া পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন বিদ্যুতের জন্য রূপপুরের কোনো বিকল্প নেই।


প্রকল্প সংশ্লিষ্টদের তথ্য মতে, প্রকল্পের দুটি রিঅ্যাক্টর থেকে বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে দুই হাজার ৪০০ মেগাওয়াট, যার সমান ২৪ লাখ কিলোওয়াট বা ইউনিট।

এক ইউনিট বিদ্যুৎ যদি পাঁচ টাকায় বিক্রি করা হয়, তাহলে এক ঘণ্টায় আয় হবে এক কোটি ২০ লাখ টাকা। একদিনে ২৪ ঘণ্টা হিসেবে দৈনিক আয় আসবে ২৮ কোটি ৮০ লাখ। বছরে ১০ হাজার ৫১২ কোটি আয় হবে। যদি ডলার হিসাব করা হয়, তাহলে বার্ষিক আয় দাঁড়াবে এক হাজার ২৩৬ মিলিয়ন ডলার, যেখানে ঋণ শোধ করতে হবে ৫৬৫ মিলিয়ন ডলার।


অন্যদিকে প্রতি মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে জ্বালানি ব্যয় হবে সাড়ে ৪ থেকে ১১ দশমিক ২ মার্কিন ডলার এবং মেইনটেন্যান্স অ্যান্ড অপারেশন ব্যয় হবে প্রতি মেগাওয়াটে ৮ থেকে ১৪ ডলার। এই দুই ধরনের ব্যয় মিলিয়ে প্রতি মেগাওয়াটে গড় খরচ হবে ১৬ থেকে ১৮ ডলার।


দুই হাজার ৪০০ মেগাওয়াট উৎপাদনে না গিয়ে যদি ৯০ শতাংশও উৎপাদন হয়, তাহলে এর ব্যয় কমে দাঁড়াবে ৩৪০ মিলিয়ন ডলারে। পাশাপাশি আয়ও কমে দাঁড়াবে এক হাজার ১১২ মিলিয়ন ডলারে। এ হিসাবে বছরে প্রকল্প থেকে মোট আয় হবে এক হাজার ১১২ ডলার এবং ব্যয় হবে ৩৪০ মিলিয়ন ডলার। আয় থেকে ব্যয় বাদ দিয়ে বছরে ৭৭২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় থাকবে প্রকল্প থেকে।


কর্মকর্তারা বলছেন, প্রতি বছর কমপক্ষে ৭৭২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার লাভ হলে



আরও খবর



ফুলবাড়ীর নাওডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদে সবুজায়ন ও সৌন্দর্য বৃদ্ধি লক্ষ্যে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচি পালিত

প্রকাশিত:Sunday ০৮ May ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ৬৬জন দেখেছেন
Image
নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
 কুড়িগ্রাম: দেশে সবুজায়ন বৃদ্ধি করতে কয়েক বছর ধরে ধারাবাহিকভাবে বর্ষা মৌসুমে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করে আসছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ।


মুজিববর্ষ উপলক্ষে গত বছর ও এ বছর মিলিয়ে সারা দেশে তিন কোটি গাছের চারা রোপণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


এর মধ্যে গত বছর প্রায় এক কোটি চারা রোপণ করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। 

বজ্রপাত একটি স্বাভাবিক প্রাকৃতিক দুর্যোগ হলেও সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাপক প্রাণহানি বিশেষজ্ঞদের ভাবাচ্ছে। সরকারি পর্যায়ে ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় ও বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থার হিসাব বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত পাঁচ বছরে সারা দেশে বজ্রপাতে প্রায় তিন হাজারের বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। 

২০১১ সালের পর থেকে বজ্রপাতের পরিমাণও বেড়েছে উদ্বেগজনক হারে। বজ্রপাতে ২০১৫ সালে ৯৯ জন, ২০১৬ সালে ৩৫১ জন ও ২০১৭ সালে ২৬২ জনের প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে। ২০২১ সালের মে পর্যন্ত ১৬ জনের মৃত্যু ও চার শতাধিক আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। 

তাই এরই ধারাবাহিকতায় দেশব্যাপী বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ রবিবার সকাল ১০ ঘটিকায় ১নং নাওডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের সামনে গাছ রোপণ করে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোঃ হাছেন আলী।

এসময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন নাওডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মোঃ শফিকুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ রফিকুল ইসলাম, ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ হিমু ও যুবলীগ নেতা মোঃ বুলবুল হোসেন। 

এ সময় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ হাছেন আলী বলেন, ‘বাংলাদেশের যুবসমাজ এই কর্মসূচির দ্বারা অনুপ্রাণিত হবে। শুধু গাছ লাগালেই চলবে না, গাছের সঠিক পরিচর্যাও করতে হবে।’


আরও খবর



চোর-ছিনতাইকারী বলে গালি দেয়ায় ১০ বছরের শিশুর আত্মহত্যা

প্রকাশিত:Tuesday ২৬ April ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ১৬৬জন দেখেছেন
Image

সাভার প্রতিনিধিঃ

সাভার পৌর এলাকায় চোর-ছিনতাইকারী বলে গালির অপবাদ সইতে না পেরে আরাফাত (১০) নামে এক শিশু বাসায় ফ্যানের সঙ্গে গলায় দড়ি দিয়ে ঝুঁলে আত্মহত্যা করেছে।সোমবার (২৫ এপ্রিল) দুপুরে সাভার পৌর এলাকার দেঁওগায়ে কামালের বাড়ি থেকে শিশুটির ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।


শিশু আরাফাত চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ থানার কালিবাজার গ্রামের জিন্নার ছেলে। সে সাভারে দেঁওগায়ে দাদির কাছে থাকতো। বিয়ে বিচ্ছেদের পর বাবা-মা শিশুটিকে দাদির কাছে রেখে যার যার মতো সংসার করছেন। তাদের সঙ্গে এখন আর কোন যোগাযোগ নেই দাদী জরিনা বেগমের।



দাদি জরিনা বেগম  বলেন, ‘বাপ-মায়ে চলে যাওয়ার পর আরাফাত আমার সঙ্গে সাভারেই থাকতো। শুনেছি কারা যেন আরাফাতকে চোর-ছিনতাইকারী বলে গালিগালাজ করেছে। পরে গতকাল (সোমবার) দুপুরে আমি বাসায় না থাকলে সে ফ্যানের সঙ্গে গলায় দড়ি দিয়ে ঝুঁলে আত্মহত্যা করে। তার মরদেহ পুলিশ এসে উদ্ধার করে।



আরও খবর