Logo
আজঃ Friday ১৯ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে আবাসিকের অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন ডেমরায় প্যাকেজিং কারখানায় ভয়বহ অগ্নিকান্ড রূপগঞ্জে পুলিশের ভুয়া সাব-ইন্সপেক্টর গ্রেফতার রূপগঞ্জে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ॥ সভা সরাইলে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত। নারায়ণগঞ্জে পারিবারিক কলহে স্ত্রীকে পুতা দিয়ে আঘাত করে হত্যা,,স্বামী গ্রেপ্তার রূপগঞ্জ ইউএনও’র বিদায় সংবর্ধনা নাসিরনগরে স্বামীর পরকিয়ার,বলি ননদ ভাবীর বুলেটপানে আত্মহত্যা নাসিরনগরে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদত বার্ষিকী পালিত ডেমরায় জাতীয় শোক দিবসের কর্মসুচি পালিত
মনের স্বাস্থ্য ভালো না থাকলে শরীরও অসুস্থ হয়ে পড়ে

মানসিক স্বাস্থ্য ভালো রাখতে এই ১০ টি কাজ করুন

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৬২৩জন দেখেছেন
Image


লাইফস্টাইল ডেস্ক:

 

মনের স্বাস্থ্য ভালো না থাকলে শরীরও অসুস্থ হয়ে পড়ে। সাধারণত আমরা শরীরের অসুখ টের পেলেও নিজের কিংবা অন্যের মনের অসুখ টের পাই না। এ কারণে অনেকেই মানসিকভাবে বিকারগ্রস্ত, নেশাগ্রস্ত কিংবা আত্মহননকারী হয়ে ওঠেন। যা কারও কাম্য নয়।

 

এজন্য ফিট ও সুস্থ থাকতে অবশ্যই মানসিক স্বাস্থ্যের যত্ন নেওয়া জরুরি। তবে কর্মব্যস্ত জীবনে অনেকেরই দু’দণ্ড বসে কাটানোর ফুরসত নেই। এ কারণেই মানুষের মধ্যে চাপ ও উদ্বেগ বাড়ছে। দীর্ঘদিন এভাবে থাকতে থাকতে মানসিক স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটছে।

সম্প্রতি ব্রিটিশ জার্নাল অব সাইকেয়েট্রিতে প্রকাশিত ‘কান্ট্রি পেপার অন মেন্টাল হেলথ-বাংলাদেশ’ শীর্ষক এক প্রতিবেদন অনুসারে, দেশের মোট জনসংখ্যার প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে ১৮.৭ শতাংশ মানুষ বিভিন্ন ধরনের মানসিক রোগে আক্রান্ত।

প্রতিবেদন অনুসারে, মহামারি করোনার কারণে মানসিক রোগের ব্যাপকতা আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। এমন এক পরিস্থিতির মধ্য দিয়েই রোববার (১০ অক্টোবর) বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস পালিত হচ্ছে। এ বছর দিবসের প্রতিপাদ্য ‘অসম বিশ্বে মানসিক স্বাস্থ্য’।

নিজেকে মানসিকভাবে সুস্থ রাখার দায়িত্ব কিন্তু আপনারই। তাই মানসিক রোগ যেন বাসা না বাঁধে সেদিকে সময় থাকতে সচেতন হতে হবে। পাশাপাশি মানসিক স্বাস্থ্য ভালো রাখার ১০ উপায় মেনে চলুন-

পর্যাপ্ত ঘুমাতে হবে

ঘুম শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ঘুম মস্তিষ্কের রাসায়নিক পদার্থগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে। এই রাসায়নিকগুলো আমাদের মেজাজ ও আবেগ পরিচালনা করে।

যদি আমরা পর্যাপ্ত না ঘুমায়, তাহলে মস্তিষ্কে বিভিন্ন অংশ ঠিকমতো কাজ করতে পারে না। ফলে হতাশ ও উদ্বিগ্ন হয়ে পড়া স্বাভাবিক। তাই পর্যাপ্ত ঘুমের বিকল্প নেই।

পুষ্টিকর খাবার

পুষ্টিকর খাবার শুধু শরীরের জন্য গুরুত্বপূর্ণ নয়, বরং মনের জন্যও উপকারী। কিছু খনিজ যেমন- আয়রন ও ভিটামিন বি ১২ এর ঘাটতি মেজাজ পরিবর্তনের জন্য দায়ী। তাই সুষম খাবার খাওয়া জরুরি। আপনি যদি খিটখিটে মেজাজ, হতাশা বা উদ্বিগ্নতায় ভোগেন তাহলে কফি খাওয়া কমিয়ে আনুন।

অ্যালকোহল, ধূমপান ও মাদক পরিহার

অনেকেই হতাশ হয়ে ধূমপান ও মাদকের উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েন। তবে জানেন কি, এগুলো হতাশা কাটায় না বরং শরীর ও মনে বিরূপ প্রভাব ফেলে। দীর্ঘ সময় ধরে অতিরিক্ত মদ্যপানে শরীরে থায়ামিনের ঘাটতি হতে পারে। থায়ামিন মস্তিষ্কের কার্যকারিতার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

এর ঘাটতি দেখা দিলে স্মৃতি বিভ্রাট, মনোযোগের অভাব, বিভ্রান্তি ও চোখের সমস্যা হতে পারে। আবার যদি আপনি ধূমপান করেন, এতে থাকা নিকোটিন শরীর ও মস্তিষ্ক উভয়েরই ক্ষতি করে। পরবর্তীতে ধূমপান বন্ধ করলে আপনি আরও বিরক্ত ও উদ্বিগ্ন হয়ে উঠতে পারেন। তাই মাদকমুক্ত জীবন গড়ুন।

সূর্যের আলো গায়ে মাখুন

সূর্যালোক ভিটামিন ডি এর একটি বড় উৎস। ভিটামিন ডি শরীর ও মস্তিষ্কের খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটি মস্তিষ্কের ক্ষতিকর পদার্থ দূর করে। ফলে মেজাজ আরও উন্নত হয়। কারণ অ্যান্ডোরফিন ও সেরোটোনিন এর উৎপাদন বেড়ে যায়। তবে রোদে গেলে ত্বক ও চোখকে নিরাপদ রাখুন।

প্রতিদিন অন্তত আধা ঘণ্টা থেকে ২ ঘণ্টা গায়ে সূর্যের আলো মাখুন। শীতের সময় অনেকেই হতাশ হয়ে পড়েন। কারণ তখন সূর্যের দেখা কম পাওয়া যায়। এটি সিজনাল অ্যাফেকটিভ ডিসঅর্ডার (এসএডি) নামে পরিচিত। তাই পর্যাপ্ত সূর্যের আলো গায়ে মাখুন, এতে মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটবে।

দুশ্চিন্তা দূরে রাখুন

 

সবার জীবনেই কাজের চাপ আছে। তাই বলে এ নিয়ে বেশি দুশ্চিন্তা করা উচিত নয়। এ সমস্যা সমাধানে আপনাকে জানতে হবে কীভাবে আপনি চাপ সামলাবেন। যদি না পারেন তাহলে মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়বেন।

এজন্য দৈনন্দিন জীবনের কোনো না কোনো সমস্যার তালিকা তৈরি করুন। এরপর তা সমাধানের উপায় খুঁজুন। অযথা অলীক কল্পনায় ডুবে থাকবেন না। যখন দেখবেন আপনার ঘুমাতে সমস্যা হচ্ছে, তার অর্থ হলো আপনি বেশি দুশ্চিন্তা করছেন!

 

শরীরচর্চা আবশ্যক

 

মানসিক স্বাস্থ্য ভালো রাখতে অবশ্যই আপনাকে নিয়মিত শরীরচর্চা করতে হবে। কারণ যত বেশি সক্রিয় থাকবেন, মস্তিষ্কের রাসায়নিক পদার্থগুলোও বেড়ে যায়। যা মেজাজ ভালো রাখতে সহায়তা করে। অন্যদিকে শরীরচর্চার অভাবে মেজাজ খারাপ হতে পারে।

পাশাপাশি উদ্বেগ, চাপ, ক্লান্তি ও অলসতা বোধ করতে পারেন। তাই শরীর ও মন দু’টোই ভালো রাখতে নিয়মিত শরীরচর্চা করুন। ম্যারাথন দৌড় বা ফুটবল খেলার প্রয়োজন নেই, আপনি নিয়মিত হাঁটাহাঁটি ও কায়িক পরিশ্রম করেও সুস্থ থাকতে পারবেন।

যা ভালো লাগে, তা-ই করুন

আপনার যা ভালো লাগবে বা করতে ইচ্ছে করবে তা-ই করুন। আপনার যদি ঘুরতে যেতে, শপিং করতে কিংবা ছবি আঁকতে ভালো লাগে তাহলে তা-ই করুন। আপনি যা উপভোগ করেন সেই কাজগুলো যখন করবেন তখন মনও ভালো থাকবে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, যারা অন্যের বাধ্যগত হয়ে নিজের খুশিকে দমিয়ে রাখেন, তাদের মধ্যে খিটখিটে মেজাজ ও অসুখী হওয়ার সম্ভাবনা বেশি দেখা যায়। তাই নিজের ভালো লাগাকে প্রাধান্য দিন।

মিশুক হওয়ার চেষ্টা করুন

অন্যদের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক বজায় রাখার চেষ্টা করুন। যখনই সুযোগ পাবেন মানুষের সঙ্গে কথা বলুন। গবেষণায় দেখা গেছে, অন্যদের সঙ্গে মাত্র ১০ মিনিট কথা বলা স্মৃতিশক্তি ও পরীক্ষার স্কোর উন্নত করতে পারে! তাই মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়ান ও মিশুক হওয়ার চেষ্টা করুন।

অন্যের জন্য কিছু করুন

কাউকে সাহায্য করলে নিজের মধ্যেও অন্যরকম ভালো লাগার অনুভূতি কাজ করে। তাই অন্যের জন্য কিছু করার চেষ্টা করুন। কোনো দরিদ্রকে খাবার বা পোশাক কিনে দিন কিংবা সামান্য অর্থ দিয়ে সাহায্য করুন। দেখবেন আপনার মন ভালো হয়ে যাবে।

তখন নির্দিষ্ট কোনো বিষয় নিয়ে হতাশ না হয়ে বরং বিশ্ব সম্পর্কে ধারণা তৈরি হবে। নিজেকে অসহায় ভাবার আগে না খেয়ে থাকা মুখগুলোর ছবি ভাসবে মনে। ফলে অন্যের জন্য কিছু করার স্পৃহা জন্মাবে। এর মাধ্যমে জীবনে এগিয়ে যাওয়ার উৎসাহ পাবেন।

সাহায্য নিন

আপনি যদি মানসিকভাবে অসুস্থ বোধ করেন তাহলে অন্যের সাহায্য নিন। মুখ বুজে থাকবেন না। নিজের অসুবিধার কথা সবার সঙ্গে শেয়ার করুন। কারণ অত্যাধিক মানসিক চাপে আপনি বিকারগ্রস্তও হয়ে পড়তে পারেন। অনেকেই মনে করেন, মন ভালো নেই এ বিষয়ে কাউকে জানালে সে পাগল বলবে!

এ ধারণা থেকে সরে আসুন। মানুষের শরীর যেমন সবদিন ভালো যায় না, ঠিক তেমনই মনও সব সময় ভালো থাকে না। তাই মানসিকভাবে চাপ অনুভব করলে কাউন্সিলিং করুন বা মনোবিদের সাহায্য নিন। তার আগে পরিবারের সঙ্গে শেয়ার করুন।

 

খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



চুন্নুর নেতৃত্বে ইসির সংলাপে যাচ্ছে জাপা

প্রকাশিত:Saturday ৩০ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১৭ August ২০২২ | ২৮জন দেখেছেন
Image

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ডাকা চলমান রাজনৈতিক সংলাপে অংশ নিতে রোববার (৩১ জুলাই) নির্বাচন ভবনে যাচ্ছে জাতীয় পার্টি (জাপা)। এদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ঘণ্টাব্যাপী এই সংলাপ হওয়ার কথা রয়েছে।

শনিবার (৩০ জুলাই) জাপার গণমাধ্যম দপ্তর থেকে বলা হয়, রোববার বেলা ১১টায় নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে জাপা মহাসচিব মো. মুজিবুল হক চুন্নুর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল সংলাপে তাদের প্রস্তাবনা তুলে ধরবেন।

জাতীয় পার্টির প্রতিনিধি দলে আরও থাকবেন দলটির কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম, প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপা, ফখরুল ইমাম, মীর আব্দুস সবুর আসুদ, শফিকুল ইসলাম সেন্টু, অ্যাডভোকেট মো. রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, লিয়াকত হোসেন খোকা, জহিরুল ইসলাম জহির, মোস্তফা আল মাহমুদ, ভাইস চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন ভূঁইয়া, যুগ্ম মহাসচিব গোলাম মোহাম্মদ রাজু।

এদিকে ইসির রাজনৈতিক সংলাপে ৩৯টি দলের অংশ নেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সবশেষ বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি ‘না’ করে দেওয়ায় বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সংলাপে অংশ নিয়েছে ২৬টিতে দল।

আর সংলাপ বর্জন করেছে ৯টি দল। দুটি দল সময় বাড়ানোর জন্য অনুরোধ করছে। রোববার জাতীয় পার্টি ছাড়াও আওয়ামী লীগের সঙ্গে সংলাপে বসবে ইসি।


আরও খবর



কাঙালি ভোজ নিয়ে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ, আহত ১০

প্রকাশিত:Monday ১৫ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ২৪জন দেখেছেন
Image

নেত্রকোনা সদর উপজেলার চল্লিশা ইউনিয়নের বাঘরা বাজারে জাতীয় শোক দিবসে কাঙালি ভোজ আয়োজন নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

সোমবার (১৫ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহত ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি মেম্বার আবদুল জলিল, সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান লালু, সহ-সভাপতি মো. জনি মিয়া ও ছাত্রলীগ নেতা সুলতান মাহমুদ মিলনকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা বিপ্লব খান ও আফতাব উদ্দিনকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

এলাকাবাসী ও দলীয় সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার চল্লিশা ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি লাল চান মিয়ার নেতৃত্বে বাঘরা বাজারে মসুর আহমেদ সুপার মার্কেটের সামনে দলীয় অস্থায়ী কার্যালয়ে এক পক্ষ ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা বিপ্লব খানের নেতৃত্বে অপর পক্ষ বাঘরা ফাজিল মাদরাসার পাশে কাঙালি ভোজ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে।

এনিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সকাল থেকেই উত্তেজনা দেখা দেয়। দুপুর ১২টার দিকে দুই পক্ষের নেতাকর্মীদের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে উভয়পক্ষ দেশীয় নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি মেম্বার আবদুল জলিল, সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান লালু, সহ-সভাপতি মো. জনি মিয়া, সুলতান মাহমুদ মিলন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা জুয়েল মিয়া, লিটন মিয়া, এরশাদ মিয়া ও মজিবুর রহমানসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হন।

খবর পেয়ে নেত্রকোনা মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে আওয়ামী লীগ নেতা বিপ্লব খান ও আফতাব উদ্দিনকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়।

এনিয়ে এলাকায় দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ বিষয়ে নেত্রকোনা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার সাকের আহমেদ জানান, কাঙালি ভোজ আয়োজন নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হন। এ ঘটনায় এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তবে থানায় কেউ লিখিত অভিযোগ করেননি।


আরও খবর



‘টেনশন গ্রুপের’ অস্ত্র চালানোর ভিডিও ভাইরাল

প্রকাশিত:Friday ১২ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ২১জন দেখেছেন
Image

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ‘টেনশন গ্রুপ’ নামের একটি কিশোর গ্যাং গ্রুপের অস্ত্র চালানোসহ তাদের কর্মকাণ্ডের কয়েকটি ভিডিও ক্লিপ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

শুক্রবার (১২ আগস্ট) বিকেলে ভিডিওগুলো ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

ভিডিওগুলোতে দেখা যায়, টেনশন গ্রুপের প্রধান রাইসুল ইসলাম সীমান্ত পিস্তল ও গুলি নিয়ে গানের সঙ্গে নাচানাচি করছেন। আরেকটি ভিডিওতে এক যুবককে নির্যাতন করতে দেখা গেছে

এরআগে শনিবার (৬ আগস্ট) রাতে সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকা থেকে টেনশন গ্রুপের প্রধান সীমান্তসহ ওই গ্রুপের সাত সদস্যকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১১। পরদিন সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি মামলা করে র‌্যাব।

তখন তল্লাশি করে তাদের কাছ থেকে একটি ছোরা, দুটি সুইচ গিয়ার চাকু এবং দুটি লোহা ও স্টিলের পাইপ উদ্ধার করা হয়। তবে ওইসময় তাদের কাছে কোনো পিস্তল পাওয়া যায়নি।

ভিডিওগুলো ভাইরাল হওয়ার পর এসব অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী। তা নাহলে জামিনে বেরিয়ে এসে এসব অস্ত্র নিয়ে আবারও এলাকায় ত্রাস সৃষ্টির আশঙ্কা রয়েছে।

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোখলেসুর রহমান জানান, তাদের বিরুদ্ধে দ্রুতবিচার আইনে মামলা করা হয়েছে। চলতি সপ্তাহেই তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়া হবে। তারা বর্তমানে কারাগারে আছেন।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হাফিজুর রহমান মানিক জানান, ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া অস্ত্র চালানোর ভিডিওটি তারা হাতে পেয়েছেন। খুব শিগগির অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা করা হবে।

র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক (সিও) লে. কর্নেল তানভীর মাহমুদ পাশা বলেন, কিশোর গ্যাং দমনে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। অভিযান পরিচালনা করে এসব অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করা হবে।


আরও খবর



হকির মেয়েদের নিয়ে চার দলীয় টুর্নামেন্ট এ মাসেই

প্রকাশিত:Thursday ০৪ August ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১৭ August ২০২২ | ২৯জন দেখেছেন
Image

ডেভেলপমেন্ট কাপ নাম দিয়ে হকির মেয়েদের মাঠে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে এ মাসেই। আগস্টের শেষ সপ্তাহে হতে পারে এই টুর্নামেন্ট। মেয়েদের চারটি দলে ভাগ করে খেলানো হবে লিগ ভিত্তিতে। শীর্ষ দুই দল নিয়ে হবে ফাইনাল।

এটা কোন চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নয়। দীর্ঘদিন খেলার বাইরে থাকা মেয়েদের ম্যাচ খেলানোর বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের প্রাথমিক পরিকল্পনা এটি।

বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইউসুফ জাগো নিউজকে জানিয়েছেন, ‘আগামী ১৬ আগস্ট আমাদের নির্বাহী কমিটির সভা হওয়ার সম্ভাবনা আছে। ওই মিটিংয়ে মেয়েদের নিয়ে একটা টুর্নামেন্ট করার বিষয়টি এজেন্ডায় থাকবে। সভাপতি অনুমতি দিলে আমরা এই টুর্নামেন্ট করবো।’

ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মনে করেন, ১৬ আগস্ট সভায় অনুমোদন হলে ৭-৮ দিনের নোটিশে আমরা টুর্নামেন্ট করতে পারবো। সেক্ষেত্রে ২২ থেকে ২৪ আগস্টের মধ্যে টুর্নামেন্ট শুরু হতে পারে।


আরও খবর



২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ৩৫ ডেঙ্গুরোগী

প্রকাশিত:Friday ২২ July 20২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১৭ August ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
Image

ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৫ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এ নিয়ে সারাদেশে মোট ২৭৬ জন ডেঙ্গুরোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। তবে এ সময়ের মধ্যে কোনো ডেঙ্গুরোগীর মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি।

শুক্রবার (২২ জুলাই ) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের ইনচার্জ ডা. মো. জাহিদুল ইসলামের সই করা ডেঙ্গুবিষয়ক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) সকাল ৮টা থেকে শুক্রবার একই সময়ের মধ্যে সারাদেশে নতুন করে ৩৫ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। নতুন আক্রান্তদের মাঝে ৩৪ জন ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তাদের মাঝে মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন ১৯ জন। ঢাকার বাইরে চিকিৎসাধীন ১ জন।

এ নিয়ে বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে মোট ২৭৬ জন ডেঙ্গুরোগী ভর্তি রয়েছেন। তাদের মধ্যে ঢাকার ৪৭টি সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ২১৫ জন। ঢাকার বাইরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৬১ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২ হাজার ১৪ জন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ১ হাজার ৭৩৩ জন।

এসময়ে ঢাকায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১ হাজার ৭১৫ জন ও সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১ হাজার ৪৯৮ জন। ঢাকার বাইরের হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২৯৯ জন ও সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৩৫ জন।

এর আগে চলতি বছরের ২১ জুন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়। এরপর পর থেকে এ পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে।

২০২০ সালে ডেঙ্গুর সংক্রমণ তেমন একটা দেখা না গেলেও ২০২১ সালে সারাদেশে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। ওই বছর ২৮ হাজার ৪২৯ জন ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হন। একই বছর সারাদেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ১০৫ জনের মৃত্যু হয়েছিল।


আরও খবর