Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

কুমিল্লায় মানবজমিন পত্রিকার প্রতিনিধিসহ সারাদেশের সাংবাদিকদের ওপর হামলা-মামলা ও নির্যাতনের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রকাশিত:Saturday ২১ May ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১৩৩জন দেখেছেন
Image

বজলুর রহমানঃ

বৃহস্পতিবার (১৯ মে) রাজধানীর যাত্রাবাড়ী সাংবাদিক ক্লাবের আয়োজনে মানববন্ধন ও সভা অনুষ্ঠিত হয়। এনটিভির সিনিয়র নিউজ রুম এডিটর ও যাত্রাবাড়ী সাংবাদিক ক্লাব এর সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম শাকিলের সঞ্চালনায় দৈনিক দিন প্রতিদিনের সম্পাদক ও যাত্রাবাড়ী সাংবাদিক ক্লাব এর সভাপতি মো: শফিকুল ইসলাম সাদ্দামের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম (বিএমএসএফ) এর প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান আহমেদ আবু জাফর।


বক্তব্য রাখেন ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন ডিইউজের দপ্তর সম্পদক আমিরুল ইসলাম ওমর, খোরশেদ আলম সিকদার (যুগান্তর) যাত্রাবাড়ী সাংবাদিক ক্লাব এর সাংগঠনিক সম্পাদক আলাউদ্দিন আজাদ (ভোরের সময়), দপ্তর সম্পাদক মুন্সী আল ইমরান (চ্যানেল23), প্রচার সম্পাদক অমর মজুমদার (আলোকিত সকাল), সাংস্কৃতিক সম্পাদক মো.শরীফুল হক (তথ্যবাণী), মহিলা সম্পাদিকা আফিফা নওশীন, বজলুর রহমান (দৈনিক আমাদের কণ্ঠ) মোগল সম্রাট, এম জে কিবরিয়া (দিন প্রতিদিন), শ্যামপুর থানা প্রেসক্লাবের সভাপতি মো: জনি, সাধারণ সম্পাদক মোঃ মনির হোসেন, মশিউর রহমান সুজন, সাইফুল ইসলাম পারভেজ প্রমূখ।


এসময় সাংবাদিক নেতারা বলেন সারাদেশে সাংবাদিকদের ওপর যে বর্বরোচিত হামলার ঘটনা ঘটছে এর কোন প্রতিকার নেই। এধরনের ন্যক্কারজনক ঘটনা থেকে সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধের বিকল্প নেই। এবং সাংবাদিকদের নির্যাতনের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে সাংবাদিক নির্যাতন বন্ধে রাষ্ট্রের কাছে যুগোপযোগী আইন প্রণয়নের দাবি জানান।


আরও খবর



সিদ্ধার্থকে বিয়ে করছেন কিয়ারা আদভানি, ঘটক করণ জোহর!

প্রকাশিত:Saturday ১১ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৭৯জন দেখেছেন
Image

বলিউডে আবারও বাজতে চলেছে বিয়ের সানাই। এবারও পাত্র পাত্রী দুই তারকা। অনেকদিন ধরেই কিয়ারা আদভানির সঙ্গে অভিনেতা সিদ্ধার্থ মালহোত্রার প্রেম চলছে। এবার শোনা যাচ্ছে তাদের বিয়ে হতে চললো। চলতি বছরেই নাকি তারা বিয়ের পিঁড়িতে বসবে।

আনন্দবাজার অনলাইন সে কথাই বলছে। তারা দাবি করে, কিয়ারা-সিদ্ধার্থের বিয়ের খবরে তাদের ভক্তরা খুশির জোয়ারে ভাসছেন।

এই বিয়ের নেপথ্যে করণ জোহরের নাম উঠে আসছে। অসংখ্য জনপ্রিয় ছবির প্রযোজক-পরিচালক নাকি শুধুই তারকাসন্তানদের নিয়ে ব্যস্ত থাকেন না, বরং সময়ে সময়ে তিনি সফল ‘মদনদেব’ও। অনেক বিচ্ছেদ নাকি থমকে গিয়েছে তার আঙুলের ইশারায়!

করণ জোহরের জন্মদিনে কিয়ারা-সিদ্ধার্থের বিচ্ছেদ নিয়ে যে গুঞ্জন ছিল সেটা নিয়ে আলোচনা হয়। সেখানেই দুই তারকার মনোমালিন্য দূর করে তাদের বিয়ের বিষয়ে উৎসাহ দেন করণ। আরও জানা যায়, মূলত সিদ্ধার্থ-কিয়ারার সম্পর্কের দূরত্ব কমাতেই নাকি এই আয়োজন করেছিলেন করণ জোহর।

পরিচালকের ঘনিষ্ঠ মহল জানাচ্ছে, আপাতত বাঁধভাঙা ভালবাসা দুই তারকার মনে। একে অপরকে আঁকড়ে ধরেছেন আরও। কাজের ব্যস্ততার মধ্যেও পরস্পর কাছাকাছি থাকছেন। হাতের কাজ শেষ হলেই নাকি লম্বা ছুটি।

একান্তে ভালবাসতে উড়ে যাবেন বিদেশে! তার পরেই কি বিয়ের ঘোষণা? বলিউড বলছে, সবটাই ক্রমশ প্রকাশ্য!


আরও খবর



সেই ব্লান্ডেল-মিচেলই এখন আশা নিউজিল্যান্ডের

প্রকাশিত:Sunday ২৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৩১জন দেখেছেন
Image

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পুরো সিরিজেই এবার নিউজিল্যান্ডকে লড়াইয়ে ধরে রাখতে পেরেছিলেন মিডল অর্ডারের দুই ব্যাটার, ড্যারিল মিচেল আর টম ব্লান্ডেল। পুরো ব্যাটিং লাইনআপের শুরুতে এবং শেষে ধ্বস নেমেছে কিউইদের। কিন্তু মাঝে এই দুই ব্যাটার দারুণ চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন ইংলিশ বোলারদের।

দ্বিতীয় ইনিংসেও যখন ধ্বস নেমেছে নিউজিল্যান্ড ব্যাটিংয়ে, ইংলিশ বোলারদের সামনে যখন ধুঁকছে, তখন সেই মিচেল আর ব্লান্ডেলই এখন উইকেট ধরার চেষ্টা করছেন। ইংলিশ বোলারদের আগ্রাসী রূপ এখনও বেশিক্ষণ দেখতে হয়নি তাদের।

তৃতীয় দিন শেষ বিকেলে ব্যাট করতে নেমে তারা মাত্র ৭ রানের জুটি গড়ে অবিচ্ছিন্ন রয়েছেন। এর মধ্যে টম ব্লান্ডেল ৫ রানে এবং ড্যারিল মিচেল ৪ রান নিয়ে আজ ব্যাট করতে নামবেন।

তবে, পুরো সিরিজে তারা যেভাবে হাল ধরেছিলেন কিউইদের, সেভাবেই সবার প্রত্যাশা, এবারও ধরবেন। তাতে যদি ইংল্যান্ডের সামনে বড় একটি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেয়া যায়!

প্রথম ইনিংসেও সেঞ্চুরি করেছিলেন ড্যারিল মিচেল। ১০৯ রান করেছিলেন তিনি। টম ব্লান্ডেল করেছিলেন ৫৫ রান। এ দু’জনের ব্যাটে ৩২৯ রান করেছিল নিউজিল্যান্ড।

দ্বিতীয় ইনিংসে ৩১ রানে পিছিয়ে থেকে ব্যাট করতে নেমে যদিও ওপেনার টম ল্যাথাম ৭৬ রান করেছিলেন এবং কেনে উইলিয়ামসন করেছিলেন ৪৮ রান, তবুও ধুঁকছে নিউজিল্যান্ড।

কারণ ১৬১ রানে পড়েছে ৫ উইকেট। দিন শেষ করেছে তারা ১৬৮ রানে। ইংল্যান্ডের সামনে লিড দাঁড়িয়েছে কেবল ১৩৭ রানের। দ্বিতীয় টেস্টে ২৯৯ রানের লক্ষ্য দিয়েও টেস্ট বাঁচাতে পারেনি নিউজিল্যান্ড। মাত্র ৫০ ওভারে জিতে গিয়েছিল ইংলিশরা। এবারও যদি লিডটা বড় না হয়, তাহলে জয়ের আশা তো বহুদূর, ম্যাচই বাঁচাতে পারবে না তারা। সে ক্ষেত্রে হতে হবে হোয়াইটওয়াশ।


আরও খবর



ইনস্টাগ্রামে কোহলির ইতিহাস

প্রকাশিত:Wednesday ০৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৫৬জন দেখেছেন
Image

শুধু মাঠেই নয়, মাঠের বাইরেও যেন রেকর্ড ভাঙতে উস্তাদ বিরাট কোহলি। এবার তিনি ইতিহাস গড়লেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামে।

প্রথম ভারতীয় হিসেবে ইনস্টাগ্রামে ২০০ মিলিয়ন বা ২০ কোটি ফলোয়ারের (অনুসারী) মাইলফলক স্পর্শ করেছেন কোহলি। ক্রীড়াবিদদের মধ্যে তার চেয়ে বেশি ফলোয়ার আছে কেবল লিওনেল মেসি আর ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর।

ইনস্টাগ্রামে রেকর্ড গড়লেও অবশ্য বর্তমানে খেলার মাঠে সময়টা খুব ভালো কাটছে না কোহলির। আইপিএলের সর্বশেষ আসরে ছিলেন অফফর্মে।

জাতীয় দলের নেতৃত্ব হারিয়েছেন আগেই। ২০২১ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর এই ফরম্যাটের নেতৃত্ব ছেড়ে দেন কোহলি। এরপর তাকে ওয়ানডে থেকেও সরিয়ে দেয় বোর্ড। অভিমান নিয়ে তারপরই টেস্টের নেতৃত্বও ছাড়েন কোহলি।

এর মধ্যে আইপিএলে টানা অফফর্ম। ব্যাট হাতে খারাপ সময় কাটানো এই তারকাকে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ভারতের আসন্ন টি-টোয়েন্টি সিরিজে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে।


আরও খবর



সপ্তাহের রসালাপ: চাষির কুয়ো কেনা

প্রকাশিত:Friday ১৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৪২জন দেখেছেন
Image

একবার এক চতুর ব্যক্তি তার নিজের পাত-কুয়োটি একজন চাষির কাছে বিক্রি করে দেন। তার পরের দিন যখন চাষি কুয়ো থেকে পানি তুলতে গেলেন। তখন সেই ধূর্ত ব্যক্তি চাষিকে বলেন যে, তিনি চাষিকে কেবল কুয়ো বিক্রি করেছেন কিন্তু তার পানি বিক্রি করেননি।

তখন চাষিটি বুঝতে পারলেন না যে তিনি কি করবেন এবং বিষণ্ণ চিত্তে আকবরের সভায় গিয়ে উপস্থিত হলেন। তখন বীরবলকে এই মামলার তদারকি করতে বলা হল।

তারপরের দিনই কুয়ো বিক্রি করা লোকটির সঙ্গে সেই চাষিকেও রাজ দরবারে ডাকা হল। চতুর লোকটি তখন সেই একই কথা বললেন যে তিনি তার কুয়ো বিক্রি করেছে কিন্তু তার জল নয়।

এ কথা শুনে বীরবল বললেন, হে বন্ধু আমার! তবে তো তোমাকে এক্ষেত্রে হয় কুয়ো থেকে সব জল সরিয়ে ফেলতে হবে কিংবা সেই জল রাখার জন্য কর দিতে হবে কারণ কুয়োটি তো তোমার নয়, চাষির।

তখন বুদ্ধিতে হেরে গিয়ে অসহায় বোধ করে সেই ব্যক্তিটি তার ভুল বুঝতে পারেন এবং তার জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

লেখা: সংগৃহীত
ছবি: সংগৃহীত

প্রিয় পাঠক, আপনিও অংশ নিতে পারেন আমাদের এ আয়োজনে। আপনার মজার (রম্য) গল্পটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়। লেখা মনোনীত হলেই যে কোনো শুক্রবার প্রকাশিত হবে।


আরও খবর



সফলতা ও সমৃদ্ধির উপায় কী?

প্রকাশিত:Sunday ২৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১৯জন দেখেছেন
Image

কার্পণ্য মানুষের স্বভাবজাত। সম্পদ ব্যয়ের জন্য আল্লাহ তাআলার পক্ষ থেকে যে ক্ষমা ও দয়ার ঘোষণা রয়েছে, তা অর্জন করতে হলে স্বভাবজাত কৃপণতা থেকে বিরত থাকতে হবে। নিজের প্রয়োজনে, অন্যের প্রয়োজনে এবং ইবাদত তথা আল্লাহ তাআলার সন্তুষ্টির জন্য নিজ উপার্জিত সম্পদ ব্যয় করতে হবে। কার্পণ্য যেমনই হোক, যে স্তরেরই হোক, তা নিন্দনীয়। কারণ মানুষের জীবনে সফলতা ও সমৃদ্ধির অন্তরায় হচ্ছে কৃপণতা। তাহলে সফলতা ও সমৃদ্ধির জন্য করণীয় কী?

কোরআনুল কারিমে মহান প্রভু সরলভাবে সম্পদ ব্যয়ের আহ্বান জানিয়েছেন এভাবে-

یٰۤاَیُّهَا الَّذِیْنَ اٰمَنُوْۤا اَنْفِقُوْا مِمَّا رَزَقْنٰكُمْ مِّنْ قَبْلِ اَنْ یَّاْتِیَ یَوْمٌ لَّا بَیْعٌ فِیْهِ وَ لَا خُلَّةٌ وَّ لَا شَفَاعَةٌ،  وَ الْكٰفِرُوْنَ هُمُ الظّٰلِمُوْنَ

হে মুমিনগণ! আমি তোমাদেরকে যে রিজিক দিয়েছি তা থেকে তোমরা ব্যয় কর; সেই দিন আসার আগে, যেদিন কোনো বেচাকেনা, বন্ধুত্ব ও সুপারিশ গ্রহণ করা হবে না। আর কাফেররাই জালেম।’ (সুরা বাকারা : আয়াত ২৫৪)

কার্পণ্যই সফলতা ও সমৃদ্ধির অন্তরায়

আল্লাহ তাআলার কাছে শয়তান প্রতিজ্ঞা করেছিলে যে, সে আদম সন্তানকে পদে পদে বিভ্রান্ত করবে। এর বাস্তবায়ন হিসেবেই বিভিন্ন সময় নানানভাবে সে মানুষকে ধোঁকা দিতে চেষ্টা করে। শয়তান তার এ মিশন বাস্তবায়নে চক্রান্তের কোনো শেষ নেই। সুন্দরকে অসুন্দর আর অসুন্দরকে সুন্দর হিসেবে তুলে ধরতে সে সদা সচেষ্ট। কৃপণতাও এমনই একটি চক্রান্ত। মহান আল্লাহ মানুষকে সতর্ক করে বিষয়টি এভাবে তুলে ধরেছেন-

اَلشَّیْطٰنُ یَعِدُكُمُ الْفَقْرَ وَ یَاْمُرُكُمْ بِالْفَحْشَآءِ، وَ اللهُ یَعِدُكُمْ مَّغْفِرَةً مِّنْهُ وَ فَضْلًا ،  وَ اللهُ وَاسِعٌ عَلِیْمٌ

‘শয়তান তোমাদেরকে দরিদ্রতার ভয় দেখায় এবং তোমাদেরকে কার্পণ্যের আদেশ করে। অথচ আল্লাহ তোমাদেরকে তাঁর পক্ষ থেকে ক্ষমা ও দয়ার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। আল্লাহ প্রাচুর্যময়, সর্বজ্ঞ।’ (সুরা বাকারা : আয়াত ২৬৮)

সম্পদ ব্যয়ের নির্দেশনা

মহান রবের নির্দেশনা খুবই সরল। তিনি মানুষকে এ মর্মে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, ‘সম্পদ ব্যয় করলে তিনি অনুগ্রহ করে সম্পদ আরও বাড়িয়ে দেবেন। অথচ শয়তান মানুষকে ভিন্ন প্ররোচনা দেয়। বিতাড়িত শয়তান মানুষকে এ বলে ধোঁকা দেয়- যদি সম্পদ ব্যয় করে ফেল, তাহলে তো গরিব হয়ে পড়বে; তাই নিজ সম্পদকে আঁকড়ে ধরো, কৃপণতা অবলম্বন কর!

মনে রাখতে হবে

কৃপণতা হচ্ছে শয়তানের একটি হাতিয়ার, যা দিয়ে সে মানুষকে সরল পথ থেকে সরিয়ে দিতে চায়। শয়তানের এ ধোঁকা থেকে বেঁচে থাকতে হবে। কোরআনের বিধান মতে আল্লাহর পথে খচর করতে হবে। তবেই মুমিন হবে সফল। সম্পদে সমৃদ্ধ হবে। মুমিনের সম্পদ ব্যয় কেমন হবে তার একটা নির্দেশনা কোরআনে পাকে এভাবে এসেছে-

وَ مَا تُنْفِقُوْنَ اِلَّا ابْتِغَآءَ وَجْهِ اللٰهِ،  وَ مَا تُنْفِقُوْا مِنْ خَیْرٍ یُّوَفَّ اِلَیْكُمْ وَ اَنْتُمْ لَا تُظْلَمُوْنَ

তোমরা তো শুধু আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্যই (সম্পদ) ব্যয় করে থাক। আর যে সম্পদই তোমরা ব্যয় কর তোমাদেরকে তার প্রতিফল পূর্ণমাত্রায় দেয়া হবে এবং তোমাদের ওপর জুলুম করা হবে না।’ (সুরা বাকারা : আয়াত ২৭২)

মুমিন নানান প্রয়োজনে সম্পদ ব্যয় করে। কখনো ব্যক্তিগত প্রয়োজনে কিংবা পরিবারের সদস্যদের প্রয়োজন মেটাতে সম্পদ ব্যয় করে। আবার কখনো সামাজিক প্রয়োজন মেটাতেও সম্পদ ব্যয় করে। ধর্মীয় ইবাদত-বন্দেগিতেও সম্পদ ব্যয় করতে হয়। যাকাত, ফেতরা, হজ, কোরবানিসহ নানান ধর্মীয় খাতে সম্পদ ব্যয় করে থাকে। এ সব সম্পদ ব্যয় যদি বিশুদ্ধ নিয়তে হয় তবে তা নিঃসন্দেহে তার জন্য পুণ্য বয়ে আনতে পারে। সমৃদ্ধি ও সফলতা বয়ে আনতে পারে। কল্যাণের কাজে সম্পদ ব্যয়ের প্রতিফল দেওয়ার ব্যাপারে কোরআনুল কারিমে মহান আল্লাহ বলেন-

وَ مَا تُنْفِقُوْنَ اِلَّا ابْتِغَآءَ وَجْهِ اللٰهِ،  وَ مَا تُنْفِقُوْا مِنْ خَیْرٍ یُّوَفَّ اِلَیْكُمْ وَ اَنْتُمْ لَا تُظْلَمُوْنَ.

‘তোমরা তো কেবল আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্যই (সম্পদ) ব্যয় করে থাক। আর যে সম্পদই তোমরা ব্যয় করো তোমাদেরকে তার প্রতিফল পূর্ণমাত্রায় দেওয়া হবে এবং তোমাদের ওপর জুলুম করা হবে না।’ (সুরা বাকারা : আয়াত ২৭২)

সম্পদ ব্যয়ের নির্দেশনার পাশাপাশি কার্পণ্য সম্পর্কেও সাবধান করা হয়েছে। কোরআনে পাকে এসেছে-

وَ اُحْضِرَتِ الْاَنْفُسُ الشُّحَّ.

‘এবং মানুষ লোভহেতু স্বভাবত কৃপণ।’ (সুরা নিসা : আয়াত ১২৮)

মানুষ আল্লাহর পথে সম্পদ খরচ করতে কৃপণতা করে। অথচ সব সম্পদ মহান প্রভুর অনুগ্রহ ও দান। কোনো মুমিনই তা অস্বীকার করতে পারে না। কোরআনুল কারিমের আয়াতেও মহান আল্লাহ সেদিকে ইঙ্গিত করেছেন এভাবে-

اَنْفِقُوْا مِمَّا رَزَقْنٰكُمْ

‘আমি তোমাদেরকে যে রিজিক দিয়েছি তা থেকে ব্যয় করো।’

শুধু তা-ই নয়,

কী পরিমাণ সম্পদ ব্যয় করতে হবে। সে নির্দেশনাও এসেছে কোরআনের ঘোষণায়-

وَ لَا تَجْعَلْ یَدَكَ مَغْلُوْلَةً اِلٰی عُنُقِكَ وَ لَا تَبْسُطْهَا كُلَّ الْبَسْطِ فَتَقْعُدَ مَلُوْمًا مَّحْسُوْرًا.

‘তুমি তোমার হাত তোমার ঘাড়ে আবদ্ধ করে রেখো না এবং তা সম্পূর্ণ প্রসারিতও করো না, তাহলে তুমি তিরস্কৃত ও নিঃস্ব হয়ে পড়বে।’ (সুরা বনি-ইসরাঈল : আয়াত ২৯)

وَ الَّذِیْنَ اِذَاۤ اَنْفَقُوْا لَمْ یُسْرِفُوْا وَ لَمْ یَقْتُرُوْا وَ كَانَ بَیْنَ ذٰلِكَ قَوَامًا

‘যখন তারা ব্যয় করে তখন অপব্যয় করে না, কার্পণ্যও করে না, বরং তারা আছে এতদুভয়ের মাঝে মধ্যম পন্থায়।’ (সুরা ফুরকান : আয়াত ৬৭)

সুতরাং মুমিন মুসলমানের উচিত, সফলতা ও সমৃদ্ধির লক্ষ্যে ইসলামের দিকনির্দেশনা মোতাবেক আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য কল্যাণের পথে ব্যয় করা। আবার ব্যয়ের নামে অপব্যয় ও অপচয় থেকে বিরত থাকার প্রতিও সতর্ক থাকা জরুরি।

সম্পদ ব্যয়ের উপযুক্ত ক্ষেত্রে যেমন হাত গুটিয়ে রাখা যাবে না, আবার যত সম্পদ আছে তার সবই দান করে দেওয়া যাবে না। প্রয়োজনীয় ব্যয়ের ক্ষেত্রে কার্পণ্যও করা যাবে না, অপ্রয়োজনে ব্যয় করে সম্পদের অপচয়ও করা যাবে না। স্বভাবধর্ম ইসলাম জীবনের সর্বক্ষেত্রে যেমন আমাদেরকে ভারসাম্যপূর্ণ আচরণ শিক্ষা দেয়, তেমনি সম্পদ ব্যয়ের ক্ষেত্রেও ইসলামের নির্দেশনা-অপচয় ও কার্পণ্যকে দুই পাশে রেখে এর মাঝ দিয়ে এগিয়ে যেতে হবে।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে সফলতা ও সমৃদ্ধির লক্ষ্যে যথাস্থানে উপযুক্ত ব্যয় করার তাওফিক দান করুন। অযথা কিংবা পুরো সম্পদ দান করে নিঃস্ব হওয়া থেকে বেঁচে থাকার তাওফিক দান করুন। ইসলামের যথাযথ দিকনির্দেশনা মেনে কল্যাণের পথে চলার তাওফিক দান করুন। আমিন।


আরও খবর