Logo
আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪
শিরোনাম

কুমিল্লায় বাস ও অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে ভাই-বোন নিহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৬ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১৯৯জন দেখেছেন

Image

কুমিল্লা প্রতিনিধি:কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার আঞ্চলিক সড়কে যাত্রীবাহী বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিক্সার মুখোমুখি সংঘর্ষে ভাই-বোন নিহত হয়েছে। দুর্ঘটনায় একই পরিবারের তিনিজনসহ মোট পাঁচজন গুরুতর আহত হয়েছেন। আজ শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে দাউদকান্দি উপজেলার শেখবাড়ি এলাকায় গৌরীপুর-মতলব আঞ্চলিক সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

নিহতরা হলেন] উপজেলার কাউয়াদি গ্রামের সিরাজ মিয়ার ছেলে আল আমিন (৩৫) ও মেয়ে ছালেহা বেগম (৪৫)। নিহত ছালেহা উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের মৃত আনু মিয়ার স্ত্রী ছিলেন।

এ দুর্ঘটনায় আহতরা হলেন অটোরিকশার যাত্রী নাজমুল (২৫), তার স্ত্রী রিনা আক্তার (২২), মেয়ে শিশু নুসরাত (৩), অপর যাত্রী রোকসানা (৩০ ) এবং চালক শান্ত (২০)। আহতদেরকে দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, উপজেলার শেখবাড়ি এলাকায় গৌরীপুর-মতলব আঞ্চলিক সড়কে ঢাকাগামী জৈনপুর পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস (ঢাকা-জ-১৪-০৩৩৪) এর সঙ্গে বিপরীতগামী সিএনজিচালিত অটোরিকশা (কুমিল্লা-থ-১১-৮৬৫৭) মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। দুর্ঘটনায় অটোরিকশার চালক ও ছয় যাত্রী গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুজনকে মৃত ঘোষণা করেন।

দাউদকান্দি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আলমগীর ভূঞা বলেন, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। দুর্ঘটনা কবলিতবাস ও অটোরিকশা পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।


আরও খবর

মেট্রোরেল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে

বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪




কালিয়াকৈরে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | ৩৩জন দেখেছেন

Image
সাগর আহম্মেদ,কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার ডুবাইল চরপাড়া এলাকায় রোববার সকালে অজ্ঞাত  এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, কালিয়াকৈর উপজেলার ডুবাইল চরপাড়া এলাকায় বান্দাবাড়ী আঞ্চলিক সড়কের পাশে পা ভাঙ্গা অবস্থায় অজ্ঞাত(৩০) যুবকের লাশ পড়ে থাকতে দেখেন এলাকাবাসী । পরে অজ্ঞাত যুবকের লাশ দেখে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে  ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করেন। পুলিশ ধারণা করছেন সড়ক দুর্ঘটনা ও অন্য কোন কারণ হতে পারে বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। 

কালিয়াকৈর থানার ওসি অপারেশন  যোবায়ের আহম্মেদ জানান, ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে কোন পরিচয় পাওয়া যায়নি। বিষয়টি আইনি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

আরও খবর



বাংলাদেশকে ২৫ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এডিবি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৭৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:বাংলাদেশকে ঋণ দিচ্ছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)দেশের সামাজিক সুরক্ষা ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করতে । বাংলাদেশি মুদ্রায় এ অর্থের পরিমাণ ২ হাজার ৯৩৫ কোটি ৫০ লাখ টাকা (প্রতি ডলার ১১৭.৪২ টাকা ধরে)।

সোমবার (১০ জুন) অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সঙ্গে এডিবি ঋণ চুক্তি সই করে। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে ইআরডি সচিব সচিব মো. শাহরিয়ার কাদের সিদ্দিকী এবং এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর এডিমন গিনটিং নিজ নিজ পক্ষে চুক্তিতে সই করেন।

এডিবি কান্ট্রি ডিরেক্টর এডিমন গিন্টিং বলেন, দ্বিতীয় শক্তিশালীকরণ সামাজিক স্থিতিস্থাপকতা কর্মসূচির লক্ষ্য হলো সুরক্ষার কভারেজ এবং দক্ষতা বৃদ্ধি, সুবিধাবঞ্চিত মানুষের আর্থিক অন্তর্ভুক্তি উন্নত করা এবং বৈচিত্র্যপূর্ণ সুরক্ষা চাহিদার প্রতিক্রিয়া জোরদার করার ক্ষেত্রে সংস্কারমূলক কাজকে ত্বরান্বিত করা। এ কর্মসূচির প্রথম ধাপ ২০২২ সালের জুনে শেষ হয়েছে।

তিনি বলেন, নতুন এই প্রোগ্রামটি বাংলাদেশের সামাজিক সুরক্ষা ব্যবস্থার প্রতিরক্ষামূলক এবং প্রতিরোধমূলক ক্ষমতা জোরদার করার জন্য সরকারের জাতীয় সামাজিক নিরাপত্তা কৌশলের দ্বিতীয় ধাপের কর্মপরিকল্পনাকে সমর্থন করে। প্রোগ্রামটি সামাজিক সুরক্ষা প্রোগ্রাম পরিচালনায় দক্ষতা উন্নত করতে, সবচেয়ে দুর্বলদের জন্য সুরক্ষা বাড়াতে এবং অবদানকারী সুরক্ষা প্রকল্পগুলো প্রবর্তনের মাধ্যমে সামাজিক সুরক্ষার সুযোগ উন্নত করতে সহায়তা করবে। এটি দুর্বলতা, বর্জন এবং আরও দারিদ্রের মধ্যে পড়ার ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করবে।

সংস্থাটি জানায়, এই প্রোগ্রামটি দক্ষতা এবং কার্যকারিতা উন্নত করার জন্য প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য দুটি নগদভিত্তিক সুরক্ষা প্রোগ্রামকে একীভূত করবে। এই প্রোগ্রামটি জলবায়ু পরিবর্তনজনিত দুর্যোগের জন্য সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে থাকা ব্যক্তিদেরও শনাক্ত করাসহ জলবায়ু দুর্বলতার বিরুদ্ধে স্থিতিস্থাপকতা জোরদার করার জন্য সামাজিক সুরক্ষায় জলবায়ু অভিযোজিত ব্যবস্থাগুলোকে একীভূত করতে সহায়তা করবে।

এডিবির সহায়তা বিধবা ভাতা কর্মসূচির আওতায় সুবিধাভোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি করবে এবং ট্রান্সজেন্ডারদের জন্য জীবিকা সহায়তা কর্মসূচির কভারেজ সম্প্রসারণের মাধ্যমে অসহায় নারী ও ট্রান্সজেন্ডারদের সুরক্ষাকে শক্তিশালী করবে। এ ছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংক মহিলা উদ্যোক্তাদের জন্য ক্ষুদ্র উদ্যোগ পুনঃঅর্থায়ন প্রকল্পের জন্য তার তহবিল দ্বিগুণ করছে, যাতে আর্থিক পরিষেবাগুলোতে মহিলা ক্ষুদ্র ব্যবসা অপারেটরদের অংশগ্রহণ সম্প্রসারিত করা যায়।

এডিবি জানায়, কর্মসূচির আরেকটি লক্ষ্য হলো তৈরি পোশাক খাতের শাসন ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করা। এ ছাড়া এটি একটি ত্রিপক্ষীয় কমিটি গঠনে সমর্থন করে, যার মধ্যে রয়েছে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীনে কর্মীদের জন্য সামাজিক সুরক্ষার ওপর কর্মী সমিতি, নিয়োগকর্তা সমিতি এবং দেশের সামাজিক বিমা প্রকল্পগুলোকে আরও বিকাশের ক্ষেত্রে একটি মূল প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থা হিসেবে সহায়তা করা।


আরও খবর

মেট্রোরেল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে

বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪




পত্নীতলায় মাদকদ্রব্য সহ ৩জনকে আটক করেছে র‌্যাব

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৫৯জন দেখেছেন

Image
দিলিপ চৌহান, পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি:র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-৫, রাজশাহীর একটি অপারেশন দল শুক্রবার পত্নীতলা উপজেলার ঘোষনগর ইউপির মোসলেমের মোড়ে অভিযান চালিয়ে ৪৭.৫ কেজি অবৈধ মাদকদ্রব্য গাঁজা সহ সংঘবদ্ধ মাদক চক্রের ৩সদস্যকে গ্রেফতার করেছে।

র‌্যাব-৫, রাজশাহীর এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকেই দেশের সার্বিক আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার লক্ষ্যে সব ধরণের অপরাধীকে আইনের আওতায় নিয়ে আসার ক্ষেত্রে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৫, রাজশাহীর একটি চৌকস আভিযানিক দল গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে পত্নীতলার ঘোষনগর এলাকায় কতিপয় সংঘবদ্ধ মাদক চক্রের সদস্যরা অবৈধ মাদকদ্রব্য গাঁজার একটি বড় চালানসহ অবস্থান করছে বলে জানতে পেরে সেখানে অভিযান পরিচালনা করে ৩ জনকে ২টি বস্তাসহ আটক করে। এসময় তাদের বস্তা তল্লাশী করে ৪৭.৫ কেজি অবৈধ মাদকদ্রব্য গাঁজা উদ্ধার করে।

আটককৃতরা হলো পত্নীতলা উপজেলার ঘোষনগর ইউপির নবীর উদ্দীনের ছেলে নূর নবী (৩৮), উপজেলার চাপড়া গ্রামের রামপদ এর ছেলে রজনী কান্ত (৩২) এবং চাপাই নবাবগঞ্জ জেলার নাচোল দেউপাড়া গ্রামের ইসাহাকের ছেলে মোঃ নবী (৩০)। এসময় তাদের কাছে থাকা ৩টি মোবাইল ফোন ও সীম উদ্ধার করে।

র‌্যাব জানায়, ধৃত আসামিগণ সঙ্গবদ্ধ মাদক চক্রের সদস্য। তারা নিজ পেশার আড়ালে দীর্ঘদিন যাবত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে সুকৌশলে অবৈধ মাদকদ্রব্য গাঁজা, ফেন্সিডিল সহ বিভিন্ন মাদক কৌশলে কুমিল্লা জেলার ভারতীয় সীমান্ত এলাকা হতে সংগ্রহ করে নওগাঁ সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রয় ও সরবরাহ করে আসছিল।

উপরোক্ত ঘটনায় থানায় একটি মামলা রুজু হয়েছে বলে পত্নীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোজাফফর হোসেন নিশ্চিত করেছেন।

আরও খবর



বোদা থানার পুলিশের হাতে ধরা পড়ল জিনের বাদশা

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৬১জন দেখেছেন

Image

কুয়েল ইসলাম সিহাত,বোদা (পঞ্চগড়) প্রতিনিধিঃপঞ্চগড়ে মুঠোফোনে জিনের বাদশা পরিচয় দিয়ে প্রতারণা করে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে মিলন ইসলাম (৫০) নামে জিনের বাদশা চক্রের এক সদস্যকে বুধবার (৫ জুন) আইনি প্রক্রিয়া শেষে বিকেলে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। এর আগে গত মঙ্গলবার দিনগত গভীর রাতে উপজেলার কাজলদিঘী কালিয়াগঞ্জ ইউনিয়নের উৎকুড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। মো. মিলন ইসলাম ওই এলাকার মৃত আব্দুল আজিজের ছেলে। ধৃত মিলন ইসলাম ও তার একটি প্রতারকচক্রের দল সহ দীর্ঘদিন যাবৎ মানুষকে সিঙ্গাপুর, ইউএসএ এর ডলারসহ অন্যান্য দেশের মূদ্রা, হুনুমানের পয়সা, নকল স্বর্ণের পুতুল, নকল কষ্টি পাথরের মূর্তি, তক্ষক সহ প্রভৃতি জিনিস দেখিয়ে মানুষের নিকট হতে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে আসতেছিল।

বোদা থানা সূত্রে জানা যায়, ২০২৪ সালের অনুষ্ঠিত ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ২য় ধাপে মহসিন আলী রুবেল নামে নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে হেলিকপ্টার প্রতীক নিয়ে উপজেলা নির্বাচনী প্রচারনা শুরু করেন। ধৃত আসামী মিলন ইসলাম গত ২৩ মে চেয়ারম্যান প্রার্থীর গাড়ী ড্রাইভার বুলু ইসলামকে হিপনোটাইজ করেন এবং ২১ মে ২০২৪ইং তারিখের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বাদী মহসিন আলী রুবেলের পক্ষে ভোট কেন্দ্রে কথিত জিনের বাদশা পাঠিয়ে বাদীকে বিজয়ী করবে মর্মে প্রলোভন দেখিয়ে বিশ্বাস স্থাপন করে ১৫ লাখ হাতিয়ে নেন। পরবর্তীতে নির্বাচনের দিন ভোট গণনা শেষে বাদী চেয়ারম্যান প্রার্থী ৬ষ্ঠ স্থানের অধিকার করায় প্রতারক চক্রের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টায় ব্যার্থ হলে গত ২২ শে মে সন্ধ্যা অনুমান সাড়ে ৭টায় বাদী ব্যক্তিগত ড্রাইভার বুলু ইসলামসহ বাদীর পরিচিত লোকজনদের নিয়ে ধৃত আসামী মিলন ইসলাম এর বাড়ীতে যান এবং বাদী মহসিন আলী রুবেল নির্বাচনে বিজয়ী না হওয়ায় প্রতারক চক্রের নিকট প্রদানকৃত ১৫ লাখ টাকা ফেরত চাইলে তারা বাদীকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করে। পরবর্তীতে বাদী মহসিন আলী রুবেল থানায় উপস্থিত হয়ে বোদা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

এর প্রেক্ষিতে পঞ্চগড় জেলার সম্মানিত পুলিশ সুপার জনাব এস এম সিরাজুল হুদা পিপিএম-বার, সহকারী পুলিশ সুপার (বি-সার্কেল) জনাব রুনা লায়লা মহোদয়গনের দিক-নির্দেশনায় বোদা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মোজাম্মেল হক পিপিএম এর নেতৃত্বে বোদা থানার এসআই মো. আব্দুস ছালাম ও সঙ্গীয় ফোর্সের সমন্বয়ে গঠিত আভিযানিক দল তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার ও পুলিশি অভিযান পরিচালনা করে গত মঙ্গলবার ৪ জুন সকাল ৯’৩৫ ঘটিকার বোদা থানাধীন কাজলদিঘী কালিয়াগঞ্জ বাজার এলাকা হতে কুখ্যাত জিনের বাদশা মো. মিলন ইসলামকে আটক করে। বোদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হক বিষয়টি নিশ্চিত করে সময় সংবাদকে বলেন, অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে অভিযান পরিচালনা করে তাকে গ্রেফতার করা হয়। মিলনকে বুধবার (৫ জুন) বিকেলে আদালতে তোলার পরে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। কিন্তু শুনানি না হওয়ায় এখনো রিমান্ডের বিষয়ে আদালতে কোনো নির্দেশনা আসেনি। তবে এ চক্রের অন্য সদস্যদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছে তিনি।


আরও খবর



বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটার নিয়ে অভিযোগ তদন্তে হাইকোর্টের রুল

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৪৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:বিদ্যুতের বিল আদায় স্বচ্ছতা, অতিরিক্ত চার্জের রিফান্ডসহ এ-সংক্রান্ত অভিযোগের নিরপেক্ষ তদন্ত করতে কেন নির্দেশনা দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে সংশ্লিষ্টদের প্রতি রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

মঙ্গলবার (১১ জুন) বিচারপতি মো. মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মাসুদ হোসেন দোলন সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। গত ৬ জুন জরুরি ভিত্তিতে বিদ্যুতের বিল ব্যবস্থা পর্যালোচনা এবং নিরীক্ষা, স্বচ্ছতা, অতিরিক্ত চার্জের রিফান্ড, গ্রাহকের সঙ্গে যোগাযোগ এবং নীতি সংস্কারের নির্দেশনা চেয়ে রিট করা হয়। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী সাইফুল্লাহ মামুন, জামিউল হক ফয়সাল ও আব্দুল্লাহ আল হাদী।

জ্বালানি ও বিদ্যুৎ সচিব, পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি বাংলাদেশের চেয়ারম্যান, এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড, পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড, ডেসকো, ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি, নর্দান ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি ও ডিপিডিসির কর্তৃপক্ষকে রিটে বিবাদী করা হয়েছে।

রিটে বলা হয়, বাংলাদেশে বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটার চালু করা হয়েছে। ২০২৫ সালের মধ্যে সব বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীকে এর আওতায় আনা হবে বলে ঘোষণা রয়েছে। এরপরও গ্রাহকরা অতিরিক্ত চার্জ, গোপন চার্জ, স্বচ্ছতার অভাবসহ নানাভাবে বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন।


আরও খবর

মেট্রোরেল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে

বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪