Logo
আজঃ Wednesday ২৫ May ২০২২
শিরোনাম

ক্রিকেটার নাসির হোসেন বাবা হলেন

প্রকাশিত:Monday ১৮ April ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ১৫৭জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

নানা ঘাত প্রতিঘাত পেরিয়ে অবশেষে পুত্র সন্তানের বাবা হলেন জাতীয় ক্রিকেটার নাসির হোসেন। গত ৮ এপ্রিল নাসির হোসেন ও তামিমা সুলতানা তাম্মি দম্পতির কোলজুড়ে এসেছে তাদের প্রথম সন্তান। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে খবরটি নিশ্চিত করেছেন নাসির নিজেই।


গত ২৫ ফেব্রুয়ারি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তামিমা তাম্মির বেবি বাম্পের ছবি পোস্ট করে সবার কাছে দোয়া চেয়েছিলেন নাসির। তবে এর আগে গত ডিসেম্বরেই জানা যায়, বাবা হতে চলেছেন এ তারকা অলরাউন্ডার।


অবশেষে প্রথমবারের মতো বাবা হওয়ার অনুভূতি পেলেন ৩০ বছর বয়সী এ অলরাউন্ডার। দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন নাসির-তামিমা দম্পতি।


উল্লেখ্য, গত বছরের ১৪ এপ্রিল বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন নাসির ও তামিমা। এরপর থেকে এ বিয়ে নিয়ে নানান ঝামেলা পোহাতে হয়েছে এ দুজনকে। এমনকি বারবার যেতে হয়েছে আদালতেও।


আরও খবর



জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০২২ এর প্রতিযোগিতায়

শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত হয়েছে সামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজ

প্রকাশিত:Monday ২৩ May ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ১২৪জন দেখেছেন
Image

নাজমুল হাসানঃ

জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০২২ এর প্রতিযোগিতায় বৃহত্তর ডেমরা শিক্ষা থানা (ডেমরা, যাত্রাবাড়ী, সবুজবাগ, মুগদা)-র শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত হয়েছে - সামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজ। 

শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান নির্বাচিত হয়েছেন সামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রিন্সিপাল ডঃ মো. মাহবুবুর রহমান মোল্লা। শ্রেষ্ঠ শ্রেণি শিক্ষক (কলেজ); শ্রেষ্ঠ স্কাউট গ্রুপ, শ্রেষ্ঠ স্কাউট শিক্ষকও নির্বাচিত হয়েছে এই প্রতিষ্ঠান থেকে।


এছাড়া আরো ১৯টি ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থান অধিকার করে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করে শিক্ষার্থীরা। জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতা-২০২২ এর ঢাকা জেলা পর্যায় প্রতিযোগিতায় সামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৩ জন শিক্ষার্থী ১ম স্থান অর্জন করে।


সোমবার ২৩ মে সামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রিন্সিপাল ডঃ মো. মাহবুবুর রহমান মোল্লার নিজ কার্যালয়ে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানানো হয়।

ডঃ মো. মাহবুবুর রহমান মোল্লা শিক্ষার্থীদের উদ্দ্যশ্যে বলেন,"বিভাগীয় পর্যায়ে তোমাদের সাফল্য কামনা করছি"।


গত (১১ মে) বুধবার  থেকে শুরু হয়েছে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ প্রতিযোগিতা। এদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পর্যায়ের প্রতিযোগিতা শুরু হয়। আর ৬ জুন জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতার মধ্যে দিয়ে এ প্রতিযোগিতা শেষ হবে। ইতোমধ্যে এ প্রতিযোগিতার সূচি ও নীতিমালা প্রকাশ করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।


আরও খবর



তিস্তার বাঁধ ধসে হুমকির মুখে হাজারও বসতঘর

প্রকাশিত:Tuesday ১০ May ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৩ May ২০২২ | ৭৮জন দেখেছেন
Image

লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ

সরকারী উদ্যোগে  গত বছর সংস্কার করা বাঁধ চলতি বছর বন্যার আগেই ধসে গিয়ে হুমকির মুখে পড়েছে লালমনিরহাটের ভূমি অফিসসহ তিস্তাপাড়ের হাজারও বসতবাড়ি।


জানা গেছে, ভারতের সিকিম ও পশ্চিমবঙ্গের ওপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ার পর নীলফামারীর কালীগঞ্জ সীমান্ত হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে ঐতিহাসিক তিস্তা নদী।


যা লালমনিরহাট, নীলফামারী, রংপুর ও গাইবান্ধা জেলার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে কুড়িগ্রাম জেলার চিলমারী বন্দর হয়ে ব্রহ্মপুত্র নদের সঙ্গে মিশে যায়। দৈর্ঘ্য প্রায় ৩১৫ কিলোমিটার হলেও বাংলাদেশ অংশে রয়েছে প্রায় ১২৫ কিলোমিটার।  

ভারতের গজলডোবায় বাঁধ নির্মাণের মাধ্যমে ভারত সরকার একতরফা তিস্তার পানি নিয়ন্ত্রণ করায় শীতের আগেই বাংলাদেশ অংশে তিস্তা মরুভূমিতে পরিণত হয়। বর্ষা মৌসুমে অতিরিক্ত পানি প্রবাহের ফলে বাংলাদেশ অংশে ভয়াবহ বন্যার সৃষ্ট হয়। বন্যায় সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় তিস্তার বাম তীরের জেলা লালমনিরহাট।


তিস্তা নদী জন্মলগ্ন থেকে খনন না করায় পলি পড়ে ভরাট হয়েছে নদীর তলদেশ। ফলে পানি প্রবাহের পথ না পেয়ে বর্ষাকালে উজানের ঢেউয়ে লালমনিরহাটসহ পাঁচটি জেলায় ভয়াবহ বন্যার সৃষ্টি করে। এ সময় নদী ভাঙনও বেড়ে যায় কয়েকগুণ। প্রতি বছর শুষ্ক মৌসুমে নদীর বুকে চর জেগে উঠে। আর বর্ষায় লোকালয় ভেঙ্গে তিস্তার পানি প্রবাহিত হয়। ফলে বসতভিটা ও স্থাপনাসহ ফসলি জমি নদী গর্ভে বিলিন হচ্ছে। নিঃস্ব হচ্ছে তিস্তাপাড়ের মানুষ।


পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) লালমনিরহাট প্রতি বছর বাঁধ নির্মাণ ও সংস্কারের নামে বরাদ্দ দিলেও কাজ শুরু করেন বর্ষাকালে। যা সামান্যতে পানির স্রোতে হারিয়ে যাচ্ছে। বর্ষার অথৈ পানিতে জরুরি কাজের নামে বরাদ্দ দেওয়া এসব সরকারি অর্থ কোনো কাজে আসছে না নদীপাড়ের মানুষের।


গত বছর বন্যার সময় লালমনিরহাট সদর উপজেলার খুনিয়াগাছ গ্রামে নির্মিত বাঁধ সংস্কার করতে জিও ব্যাগ (বালি ভতি বিশেষ ব্যাগ) ডাম্পিং করে পাউবো। যা গত বন্যা পরবর্তীকালে কাজটি সমাপ্ত করা হয়। চলতি বছর বন্যা আসার আগেই গত ০৬ মে মধ্য রাতে ৩০ মিটার বাঁধ ধসে যায়। পরে স্থানীয়রা বালুর বস্তা ফেলে কোনো রকম রক্ষা করে।


স্থানীয়রা জানান, গত বছর বন্যার শেষ দিকে পাঁচ হাজার জিও ব্যাগ প্রস্তুত করলেও তাড়াহুড়ো করে মাত্র চার হাজার জিও ব্যাগ ডাম্পিং করে। বাকিসব জিও ব্যাগ তিস্তার চরাঞ্চলেই বালুচাপা পড়ে রয়েছে। রাতে আঁধারে জরুরি কাজের অজুহাতে নামমাত্র কাজ করে চলে যায় পাউবো। ফলে এ বছর বন্যা না আসতেই বাঁধটি প্রায় ৩০-৪০ মিটার এলাকা ধসে যায়। 


আরও খবর



প্রেমিকার সাথে মনোমালিন্যের সূত্র ধরে

প্রমিকাকে ভিডিও কল করে প্রেমিকের আত্মহত্যা

প্রকাশিত:Wednesday ২৫ May ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ২১জন দেখেছেন
Image

নিজস্বপ্রতিনিধিঃ

চুয়াডাঙ্গা পৌরসভায় প্রেমিকাকে ভিডিও কলে রেখে এক কলেজছাত্র আত্মহত্যা করেছেন।তার নাম ফজলে রাব্বি ওরফে সোলাইমান (২৪) ।মঙ্গলবার (২৪ মে) দিবাগত রাত ২টার দিকে চক্ষু হাসপাতালের পেছনে ভাড়া বাসায় এ ঘটনা ঘটে। 


ঘটনার পর পরিবারের সদস্যরা দরজা ভেঙে ফজলে রাব্বিকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিলে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।


নিহত কলেজ ছাত্র চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বোয়ালমারি গ্রামে টুলু মিয়ার ছেলে। তিনি চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের অনার্স তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন। বেসরকারি স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র সনো সেন্টারে এক্স-রে বিভাগে কর্মরত ছিলেন রাব্বি। বাবা টুলু মিয়ার চাকরির সুবাদে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার চক্ষু হাসপাতালের পেছনে ভাড়া বাড়িতে পরিবারের সঙ্গে থাকতেন।


পরিবারের সদস্যরা বলেন, ‘দিনগত রাত ২টার দিকে অজ্ঞাত একটি নারী আমাদের ফোন করে ফজলে রাব্বি গলায় ফাঁস দিয়েছে বলে তার ঘরে যেতে বলেন। আমরা গিয়ে দেখি দরজা বন্ধ। প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় দরজা ভেঙে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়। পরে জানতে পারি প্রেমিকার সঙ্গে মনোমালিন্যের কারণে ভিডিও কলেই আত্মহত্যা করে ফজলে রাব্বি।’


পরিবারের কাছে ফোন দেওয়া নাম্বারে কথা হলে অপরপ্রান্ত থেকে বলা হয় নম্বরটি চুয়াডাঙ্গার শুভ নামে এক তরুণীর। তিনি ঢাকায় একটি ছাত্রী মেসে থাকেন। ঢাকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের অনার্স প্রথম বর্ষের ছাত্রী। শুভ ফজলে রাব্বির প্রেমিকা। রাতে তারা ভিডিও কলে কথা বলছিলেন। হঠাৎ তাদের মধ্যে মনোমালিন্য দেখা দিলে ভিডিও কলে রেখেই রাব্বি তার ঘরে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস দেন। পরে শুভর এক বান্ধবীর মাধ্যমে ফজলে রাব্বির পরিবারের নম্বর সংগ্রহ করে খবর দেওয়া হয়।


চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সোহরাব হোসেন বলেন, দিনগত রাত ২টার দিকে ফজলে রাব্বি নামে এক যুবককে হাসপাতালে নিয়ে আসে পরিবারের সদস্যরা। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়। হাসপাতালে আসার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। মরদেহ হিম ঘরে রাখা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট থানায় জানানো হবে।


চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন বলেন, ‘মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। প্রতিবেদন পেলে বিস্তারিত জানা যাবে।’


আরও খবর



মা মারা যাওয়ায় এক বছর যেতে না যেতেই মেয়ে পানিতে ডুবে মারা গেলো

মা মরেছে আগুনেপুড়ে মেয়ে মরল পানিতে ডুবে

প্রকাশিত:Sunday ২২ May 20২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ৮২জন দেখেছেন
Image


নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

এক বছর আগে আগুন পোহাতে গিয়ে পুড়ে মারা গিয়েছিলেন মা।ওই নারীর দেড় বছর বয়সী শিশুটির মৃত্যু হয়েছে পানিতে ডুবে ।


বৃহস্পতিবার (১৯ মে) সকালে টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার দিঘলকান্দী ইউনিয়নের বাদেপারশী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।


শিশুটির নাম মারিয়া আক্তার। সে গোপালপুর উপজেলার দিঘলআটা গ্রামের মিল্টন মিয়ার মেয়ে। তার মায়ের নাম আছিয়া বেগম।


ঘাটাইল থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।


পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, মারিয়া জন্মের পর বাবার বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে শীতে আগুন পোহানোর সময় আগুনে পুড়ে মারা যান আছিয়া বেগম। এরপর থেকে নানা-নানির কাছে বড় হচ্ছিল শিশু মারিয়া আক্তার।


বুধবার (১৮ মে) সকালে শিশুটি বাড়ির উঠানে খেলাধুলা করছিল। এক পর্যায়ে বাড়ির লোকজন তাকে খুঁজে পাচ্ছিলেন না। খুঁজে না পেয়ে শিশুটির নানা থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির পাশের ডোবায় শিশুটির মরদেহ ভাসতে দেখেন প্রতিবেশীরা। পরে তারা ডোবা থেকে মরদেহ উদ্ধার করেন।


শিশু মারিয়া আক্তারের নানা লেবু মিয়া বলেন, ‘মারিয়ার বয়স যখন পাঁচ মাস তখন তার মা আমার বাড়িতে অবস্থানকালেই আগুন পোহাতে গিয়ে পুড়ে মারা যায়। মা মারা যাওয়ায় এক বছর যেতে না যেতেই মেয়েটা পানিতে ডুবে মারা গেলো। এই কষ্ট আমি কোথায় রাখবো?’


এ বিষয়ে ঘাটাইল থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল হক বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে এ ঘটনায় পরিবার থেকে থানায় কোনো অভিযোগ করা হয়নি।


আরও খবর



শীঘ্রই আলোচনায় বসবে বিএনপির সাথে

বিএনপিসহ সমমনা দলগুলোর সঙ্গে আলোচনায় বসবে সিইসি

প্রকাশিত:Friday ২০ May ২০22 | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ৮১জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

বিএনপিসহ রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে খুব শিগগির সংলাপে বসার ইঙ্গিত দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল।

তিনি বলেছেন, বিএনপিসহ রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে শিগগির সংলাপে বসবে নির্বাচন কমিশন।


শুক্রবার (২০ মে) সকালে সাভার উপজেলা মিলনায়তনে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

সিইসি আরও বলেন, ‘ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। এর সক্ষমতা কতটুকু দরকার, আরও কী কী করা যায় তা নিয়ে ভাবছি। সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য আমরা কাজ করবো।’

ভোটার তালিকা প্রণয়নের জন্য তিন ধরনের তথ্য নেওয়া হচ্ছে জানিয়ে নির্বাচন কমিশনের সচিব হুমায়ুন কবীর খোন্দকার বলেন, ‘২০২৩ সালের ২ মার্চ ভোটার তালিকা প্রণয়ন করা হবে।

এই ভোটার তালিকা দিয়েই আগামী জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তাই এই ভোটার তালিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। শুধু তাই নয়, ট্রান্সজেন্ডার ও নিষিদ্ধ পল্লীর মা-বোনদেরও কিন্তু এই তালিকায় আনার জন্য আমরা নির্দেশনা দিয়েছি। কীভাবে নিয়ে আসবেন সে বিষয়ে আমরা প্রশিক্ষণও দিয়েছি।’

এ সময় ঢাকা জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার, জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মনির হোসেন, সাভার উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম রাজীব, সাভার পৌরমেয়র আব্দুল গণি, সাভারের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাজহারুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর