Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা
দীর্ঘদিন ধরে ক্যান্সারে ভুগছিলেন তিনি

কৌতুক অভিনেতা টাঙ্গাইলের আহসান আলী ভাদাইমা আর নেই

প্রকাশিত:Sunday ২২ May 20২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৩৯২জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

টাঙ্গাইলের কৌতুক অভিনেতা ‘ভাদাইমাখ্যাত’ আহসান আলী (৫০) মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্নাইলাহি রাজিউন)। রোববার (২২ মে) দুপুরে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। 


আহসান আলীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দাইন্যা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আফজাল হোসেন। 


মারা যাওয়ার সময় আহসান আলী দুই স্ত্রী, দুই ছেলে ও দুই মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি টাঙ্গাইল সদর উপজেলার দাইন্যা ইউনিয়নের দাইন্যা রামপাল গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন। 


কৌতুক এ অভিনেতার শ্যালক জজ আলী জানান, ‘দীর্ঘদিন যাবত ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন আহসান আলী। এছাড়া তার লিভারেও পানি জমা ছিল। রোববার সকালে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে প্রথমে শহরের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে নেওয়া হয়। সেখানে থেকে পরে আহসান আলীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়। ঢাকার শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুরে মারা যান আহসান আলী।


ইউপি চেয়ারম্যান আফজাল হোসেন জানান, লাশ হাসপাতালে আছে। বাড়িতে আনার প্রক্রিয়া চলছে।


মরহুমের পারিবার সূত্র জানা গেছে, আহসান আলী এক সময়ে কৃষি কাজ করে সংসার চালাতেন। প্রায় দুই বছর আগে তিনি কৌতুক অভিনয় শুরু করেন। ২০ বছর আগে ক্যাসেটের মাধ্যমে তিনি ‘ভাদাইমা’ হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন।’



আরও খবর



পাবনা জেলা স্কুলের দুই ছাত্রকে অপহরণচেষ্টা, যুবক আটক

প্রকাশিত:Tuesday ২৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১৪জন দেখেছেন
Image

দিনদুপুরে পাবনা জেলা স্কুলের পঞ্চম শ্রেণির দুই ছাত্রকে অপহরণের চেষ্টা করেছে দুর্বৃত্তরা। তবে স্থানীয়দের বাধার মুখে সে চেষ্টা ব্যর্থ হয়। এসময় জনতা অপহরণকারী চক্রের এক সদস্যকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে।

মঙ্গলবার (২৮ জুন) দুপুর পৌনে ১২টার দিকে পৌর সদরে পাবনা জেলা স্কুলের অদূরে রায়বাহাদুর গেটের কাছে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, অপহরণকারী দলের তিন সদস্যের মধ্যে আটক ব্যক্তির নাম জিহাদ (২৬)। তিনি পাবনা সদর উপজেলার জহিরপুর গ্রামের আ. মজিদের ছেলে। তিনি তার অপর দুই সহযোগীর নাম-পরিচয় জানিয়েছেন। তবে পুলিশ তদন্তের স্বার্থে তাদের নাম প্রকাশ করেনি। তারা পেশায় রংমিস্ত্রী বলে জানিয়েছেন।

ঘটনাস্থলের পাশে থাকা এক অভিভাবক নাম প্রকাশ না করে জানান, তিনি তার শিশুকে নিয়ে জেলা স্কুলে এসেছিলেন। ঘটনার সময় জনগণের হৈচৈ শুনে ও জটলা দেখে কাছে যান। এসময় পুলিশ খবর পেয়ে জনতার হাতে আটক অপহরণকারী দলের একজনকে নিয়ে চলে যায়।

পাবনা জেলা স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক আ. রাজ্জাক ওই দুই ছাত্রের বরাত দিয়ে বলেন, শিশুদের এক শিফটের ছুটি শেষে তারা বাড়ি যাচ্ছিল। তারা স্কুলের অদূরে রায় বাহাদুর গেটের কাছে পৌঁছানোর পর তিন যুবক তাদের ধরে মোটরসাইকেলে তুলে নেওয়ার চেষ্টা করে। এসময় তারা শিশুদের বলেন, ‘তোদের বাবারা মাদক খায়। আমরা তাদের কাছে টাকা পাই। তোরা আমাদের সাথে চল, তাহলে তোদের বাবারা টাকা দিয়ে দেবে।’ এসময় দুই শিশু চিৎকার শুরু করলে পাশে থাকা দোকানের কর্মচারীরা এসে অপহরণকারীদের ঘিরে ধরার চেষ্টা করলে দুজন মোটরসাইকেল নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যান। কিন্তু একজন জনতার হাতে ধরা পড়েন।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে জেলা স্কুলের অন্যান্য ছাত্র-শিক্ষক ও পাবনা সদর থানার পুলিশ সদস্যরা হাজির হন। পরে পুলিশ ওই দুই ছাত্রকে শিক্ষকদের জিম্মায় দিয়ে অপহরণকারী দলের সদস্যকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

ঘটনাস্থলে যাওয়া পুলিশের উপ- পরিদর্শক (এসআই) ডেভিড হিমাদ্রি বলেন, আমরা জনতার কাছ থেকে এক অপহরণকারীকে আটক করে থানায় নিয়ে এসেছি। আটক ওই যুবক পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে, তারা দলে তিনজন ছিলেন। তারা পেশায় রংমিস্ত্রী বলে দাবি করেছেন। তাদের উদ্দেশ্য ছিল শিশুদের আটক করে অভিভাবকের কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায় করা। আটক অপহরণকারী তার দুই সহযোগীর নাম পুলিশকে জানিয়েছে।

পাবনা সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম বলেন, এ ঘটনায় পুলিশ আইনি ব্যবস্থা নিচ্ছে। আটক যুবককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তারা দেওয়া তথ্য যাচাই করে দেখা হচ্ছে।


আরও খবর



সাক্ষ্য দিলেন সগিরা মোর্শেদের ভাই

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৬১জন দেখেছেন
Image

রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরীতে চাঞ্চল্যকর সগিরা মোর্শেদ হত্যা মামলায় তার ভাই ডা. গওস আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন। মঙ্গলবার (৭ জুন) ঢাকার দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনাল-১-এর বিচারক রফিকুল ইসলামের আদালতে সাক্ষ্য দেন তিনি।

এদিন মামলার সাক্ষী ডা. গওসের জবানবন্দি গ্রহণ করেন আদালত। এরপর আসামিপক্ষ জেরা শুরু করেন। তবে জেরা সম্পূর্ণ না হওয়ায় আদালত পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য আগামী ১২ জুন দিন ধার্য করেন। এর আগে এ মামলায় আটজনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে।

এ মামলার আসামিরা হলেন- নিহত সগিরা মোর্শেদের ভাসুর ডা. হাসান আলী চৌধুরী, তার স্ত্রী সায়েদাতুল মাহমুদা ওরফে শাহীন, হাসান আলীর শ্যালক আনাস মাহমুদ ওরফে রেজওয়ান এবং ভাড়াটে খুনি মারুফ রেজা।

২০২১ সালের ২ ডিসেম্বর ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালত সগিরা মোর্শেদের ভাসুরসহ চারজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। এর মধ্যদিয়ে দীর্ঘ ৩১ বছর পর এ মামলার আনুষ্ঠানিক বিচার কাজ শুরু হয়।

এরপর গত বছরের ১১ জানুয়ারি মামলার বাদী ও সগিরা মোর্শেদের স্বামী আব্দুস সালাম চৌধুরী আদালতে সাক্ষ্য দেন। এর মধ্যদিয়ে এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়।

২০২০ সালের ১৬ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে সগিরার ভাসুরসহ চারজনকে আসামি করে এক হাজার ৩০৯ পৃষ্ঠার একটি অভিযোগত্র জমা দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআইয়ের পরিদর্শক রফিকুল ইসলাম। পরে একই বছরের ৯ মার্চ ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ পিবিআইয়ের দেওয়া অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন।


আরও খবর



বুস্টার ডোজে আগ্রহ কম মানুষের

প্রকাশিত:Sunday ০৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৬৪জন দেখেছেন
Image

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে বুস্টার সপ্তাহ ঘোষণার দ্বিতীয় দিনেও টিকা কেন্দ্রে তেমন ভিড় চোখে পড়েনি। কেন্দ্রগুরোতে দেখা যায়নি কোনো লাইন। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু কমে আসায় টিকা গ্রহণে আগ্রহ কমেছে।

রোববার (৫ জুন) সরজমিনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) টিকাকেন্দ্র ও অস্থায়ী কেন্দ্রে ঘুরে দেখা যায়, কেন্দ্রগুলোতে স্বাভাবিক সময়ের মতো টিকাদান কর্মসূচি চলমান। তবে গণটিকা কার্যক্রমে বাড়েনি উপস্থিতি।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশে করোনার প্রকোপ বাড়লেও দেশে করোনা পরিস্থিতি অনেক ভালো। সবমিলিয়ে মানুষের মধ্যে টিকায় আস্থা বাড়লেও বুস্টার ডোজ নিতে ঢিলেঢালা ভাব দেখা যাচ্ছে। প্রচারের অভাবে অধিকাংশ কেন্দ্রে টিকাগ্রহীতার উপস্থিতি কম। ফলে ভোগান্তি ছাড়াই সহজে মিলছে টিকা।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা বলছেন, ধীরে ধীরে টিকাকেন্দ্রে ভিড় বাড়বে। একই সঙ্গে বাড়ানো হবে প্রচার-প্রচারণা। তবে বিশেষ ক্যাম্পেইনের মেয়াদ বাড়ছে না।

রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিএসএমএমইউ টিকাকেন্দ্রে বুস্টার ডোজ নিতে আসেন রাজধানীর আজিমপুর কবরস্থান এলাকার বাসিন্দা সোহেল রানা। তিনি জানান, দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার দিন তাকে দীর্ঘসময় লাইনে অপেক্ষা করতে হয়েছিল। ভিড় ছিল খুব। তবে আজ আসা মাত্রই টিকা পেয়েছেন তিনি। কোনো ধরনের ঝমেলা পোহাতে হয়নি তাকে।

এই কেন্দ্রের সমন্বয়ক ডা. মো. দাউদ আহমেদ তালুকদার বলেন, রোববার দুপুর ২টা পর্যন্ত এই কেন্দ্রে ৬৪৮ জনকে বুস্টার ডোজ দেওয়া হয়েছে। এর আগের দিনও প্রায় এই সংখ্যাক মানুষ টিকা নিয়েছেন। করোনা নিয়ন্ত্রণে চলে আসায় অনেকেই ইচ্ছেকৃতভাবে টিকা নিচ্ছেন না। করোনা নিয়ন্ত্রণে থাকায় বুস্টারপ্রতাশীদের মধ্যে একটা অংশ বড় মনে করছেন টিকা নেওয়ার দরকার নেই। এছাড়া অফিস, আদালত ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার কারণে টিকা নেওয়ার পর একদিন বিশ্রাম নেওয়ার সুযোগ পাবে না ভোবে টিকা নিচ্ছেন না অনেকেই। বুস্টারের ক্যাম্পেইনে তেমন প্রভাব তৈরি করতে পারেনি জনমনে।

তিনি আরও বলেন, আমার কেন্দ্রে প্রথম দুই ডোজ গ্রহণকারীদের বেশিরভাগই বুস্টার ডোজ নিয়েছেন। তবে এখনো যারা বাকি আছেন তারা আসছেন না। বর্তমানে যারা আসছেন, তারা অধিকাংশই অন্য কেন্দ্র থেকে আসা। টিকার ক্যাম্পেইন বেশি বেশি হওয়া দরকার বলে জানান তিনি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য বলছে, গত বছরের ১৯ ডিসেম্বর দেশে বুস্টার ডোজ দেওয়া শুরু হয়। এ পর্যন্ত মোট বুস্টার ডোজ পেয়েছেন ১ কোটি ৬৭ লাখ মানুষ। প্রথম ডোজ নেওয়া টিকাগ্রহীতার ১৪ দশমিক ২৩ শতাংশ বুস্টার ডোজের আওতায় আনা সম্ভব হয়েছে। দ্বিতীয় ডোজ সম্পন্ন হয়েছে এমন সাড়ে ৪ কোটি মানুষ বুস্টার ডোজের অপেক্ষায় রয়েছেন। দ্রুত সময়ের মধ্যে এ জনগোষ্ঠীকে টিকার আওতায় আনতে সপ্তাহব্যাপী বিশেষ ক্যাম্পেইন পরিচালনা করছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। তবে প্রচারণার অভাবে এই ক্যাম্পেইনে টিকাদানে গতি বাড়েনি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভ্যাকসিন ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যসচিব শামসুল হক বলেন, আস্তে আস্তে টিকাগ্রহীতার আগ্রহ বাড়বে। টিকা নিতে মানুষের আগ্রহ কমে এসেছে, এটা আমরা লক্ষ্য করছি। এর প্রধান কারণ দেশে করোনা সংক্রমণ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। মানুষ নিজেদের ইচ্ছেমতো চলাফেরা করছেন। অনেকেই স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না। এমনকি টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রেও আগ্রহ দেখাচ্ছেন না।

তিনি আরও বলেন, দেশের মানুষের মধ্যে রোগী বেশি দেখা দিলে সেবা নেওয়ার প্রবণতা দেখা দেয়। করোনা নিয়ন্ত্রণে থাকায় টিকা নিতে আসছেন না তারা। তবে সংক্রমণ আবার বাড়লে অনেক মানুষ টিকা নিতে পারবেন না।

বিশেষ ক্যাম্পেইনের সময় বাড়ছে না জানিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এই কর্মকর্তা বলেন, লক্ষ্য পূরণ না হলেও বাড়ছে না ক্যাম্পেইনের মেয়াদ। আগামী ১০ জুনের মধ্যেই এই কর্মসূচি শেষ হবে। তবে টিকাগ্রহীতাদের আগ্রহ বাড়াতে প্রচার-প্রচারণ আরও বাড়ানো হবে।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, সারাদেশে মোট ১৬ হাজার ১৮১ টিকাকেন্দ্রে বুস্টার ডোজ টিকা দেওয়া হয়। এর মধ্যে ৬২৩টি স্থায়ী কেন্দ্র ও ১৫ হাজার ৫৫৮টি অস্থায়ী কেন্দ্র। স্থায়ী কেন্দ্রগুলোতে ৭ দিন ও অস্থায়ী কেন্দ্রগুলোতে ২ দিন টিকাদান কার্যক্রম চলবে। অস্থায়ী কেন্দ্রে টিকা দেওয়ার তারিখ স্থানীয় পর্যায়ে প্রচার-প্রচারণা ও মাইকিং করে জানানো হয়। একযোগে ৪৫ হাজার ৫৩৫ জন টিকাদান কর্মী ও স্বেচ্ছাসেবী কাজ করছেন। দ্বিতীয় ডোজের টিকা নেওয়ার পর ৪ মাস পার হয়েছে এমন ১৮ বছর ও এর বেশি বয়সের নাগরিকরা বুস্টার ডোজ পাবেন।


আরও খবর



মেহেরপুর পৌরসভা-তিন ইউপিতে নৌকা, একটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী

প্রকাশিত:Wednesday ১৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৮৪জন দেখেছেন
Image

মেহেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে মাহফুজুর রহমান রিটন বিপুল ভোটে দ্বিতীয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। একই দিন চার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনটিতে নৌকা এবং একটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয় লাভ করেছেন।

বুধবার (১৫ জুন) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই সুষ্ঠু পরিবেশে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়।

বেসরকারি ফলাফলে জানা গেছে, মেহেরপুর পৌরসভায় নৌকা প্রতীকে মাহফুজুর রহমান রিটন পেয়েছেন ১৫ হাজার ৪৬১ ভোট। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক মেয়র মোতাচ্ছিম বিল্লাহ মতু নারকেল গাছ প্রতীকে পেয়েছেন ৭ হাজার ৪৪৬ ভোট।

এদিকে, চার ইউনিয়নের মধ্যে আমঝুপি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান হিসেবে দ্বিতীয়বারের মতো জয় পেয়েছেন বোরহান উদ্দীন চুন্নু। তিনি সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি। নৌকা প্রতীকে তিনি পেয়েছেন ৮ হাজার ৫২ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী শফিকুল ইসলাম ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ৭ হাজার ৪৬৫ ভোট।
পিরোজপুর ইউনিয়নে দ্বিতীয়বারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন আব্দুস সামাদ বাবলু বিশ্বাস। তিনি জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি। নৌকা প্রতীকে তিনি ৮ হাজার ৫৩ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আব্দুস সালাম আনারস প্রতীকে পেয়েছেন ৬ হাজার ২১০ ভোট।

বারাদী ইউনিয়নে প্রথমবারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোমিনুল ইসলাম। নৌকা প্রতীকে তিনি ৫ হাজার ৩২ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আরমান আলী ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ৪ হাজার ৮৫৪ ভোট।

এছাড়া শ্যামপুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মতিয়ার রহমান চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। চশমা প্রতীকে তিনি ৬ হাজার চার ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হাসেম আলী ঘোড়া প্রতীকে ৩ হাজার ২৩১ ভোট পেয়েছেন।

বেসরকারি এসব ফলের তথ্য জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আবু আনসার নিশ্চিত করেছেন।


আরও খবর



অটবির চেয়ারম্যান-এমডিসহ ৬ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

প্রকাশিত:Thursday ১৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৩৮জন দেখেছেন
Image

টাঙ্গাইলে প্রতারণা, চেক ডিসঅনার ও অর্থ আত্মসাতের মামলায় অটবি লিমিটেডের চেয়ারম্যান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও পরিচালকসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার (১৪ জুন) টাঙ্গাইলের চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বাসাইল আমলি আদালতের বিচারক মুছা. রুমা খাতুন এ পরোয়ানা জারি করেন।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) টাঙ্গাইল আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) এস আকবর খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, অটবির চেয়ারম্যান ফাল্গুনী কুন্ডু, তার ছেলে ও অটবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক অনিমেষ কুন্ডু, মেয়ে ও অটবির পরিচালক অমিতি কুন্ডু, অটবির প্রধান হিসাব কর্মকর্তা শেখ আসাফুজ্জামান, প্রধান মানবসম্পদ কর্মকর্তা শাহেদ আলম ও ডেপুটি ম্যানেজার আবুল বাশারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী মোহাম্মদ শামীম মিয়া অটবির লিমিটেডের সাবেক নির্বাহী পরিচালক ও কোম্পানি সচিব। তিনি টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার কাশিল দক্ষিণ পাড়া এলাকার মোহাম্মদ বোরহান উদ্দিনের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, অটবির লিমিটেডের সাবেক নির্বাহী পরিচালক ও কোম্পানি সচিব মোহাম্মদ শামীম মিয়াকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। তবে কোম্পানির কাছে তার পাওনা বেতন-ভাতাদি, গ্র্যাচুইটি, প্রভিডেন্ট ফান্ডের টাকা পরিশোধ করা হয়নি।

তিনি কোম্পানির কাছে ৯৬ লাখ ৫৯ হাজার টাকা পাবেন। তাকে কোম্পানি থেকে কয়েকটি চেক দেওয়া হয়। তবে চেকগুলোতে টাকা না থাকায় সেগুলো ডিসঅনার হয়। পরে ওই ভুক্তভোগী কোম্পানির কাছে পাওনা টাকা চাইতে গেলে উল্টো তাকে হুমকি দেওয়া হয়।

এ ঘটনায় কোম্পানির সাবেক কর্মকর্তা শামীম মিয়া বাদী হয়ে গত ৫ মে টাঙ্গাইল চিফ জুডিসিয়াল আদালতে কোম্পানির মালিকসহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। পরে আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে সমন জারি করেন।

গত ১৪ মে আদালতে তাদের হাজির হওয়ার নির্দেশ থাকলেও তারা হাজির না হওয়ায় মঙ্গলবার গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন টাঙ্গাইলের চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বাসাইল আমলি আদালতের বিচারক।

মামলার বাদী ও অটবির সাবেক কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামীম মিয়া বলেন, বেতন-ভাতাসহ পাওনা পরিশোধ না করেই অটবির মালিকসহ সংশ্লিষ্টরা প্রতারণার আশ্রয় নেন। কোম্পানি থেকে পাঁচটি চেক দেওয়া হলেও একটি চেকের টাকা উত্তোলন করা গেছে। বাকি চারটি চেকের অধীনে টাকা লেনদেন বন্ধ করে দেওয়া হয়। পরে পাওনা টাকা চাইতে গেলে হুমকিসহ লাঞ্ছিত করা হয়। এ কারণে অটবির মালিক, এমডি, পরিচালকসহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছি। ওই মামলায় আদালত তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন।

তিনি আরও বলেন, গ্রেফতারি পরোয়ানার খবর পেয়ে অটবির প্রধান মানবসম্পদ কর্মকর্তা শাহেদ আলম ফোনে মামলা তুলে নেওয়ার হুমকি দিয়েছেন। অন্যথায় প্রাণনাশের হুমকি দেন। এ ঘটনায় ঢাকার বাড্ডা থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছি। এর আগে ২০১৯ সালে গুলশান থানায় আরও একটি জিডি করা হয়েছিল।

বাদীপক্ষের আইনজীবী আজহার জহুর খান জানান, প্রতারণা, অর্থ আত্মসাৎ ও চেক ডিসঅনার মামলায় অটবির মালিকসহ ছয় কর্মকর্তার বিরুদ্ধে সমন জারি করা হয়েছিল। তবে আসামিরা আদালতে হাজির না হওয়ায় মঙ্গলবার তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

হুমকির বিষয়ে জানতে অটবির প্রধান মানবসম্পদ কর্মকর্তা শাহেদ আলমের সঙ্গে মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

এ বিষয়ে টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার (এসপি) সরকার মোহাম্মদ কায়সার জানান, আদালত থেকে প্রায় প্রতিদিনই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়। আদালত থেকে আমাদের কাছে আসতে কিছু সময় লাগে। এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর