Logo
আজঃ Monday ০৮ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড নিখোঁজ সংবাদ প্রধানমন্ত্রীর এপিএসের আত্মীয় পরিচয়ে বদলীর নামে ঘুষ বানিজ্য

‘কোর্টে প্রতারণার আশ্রয় নিতে গেলেও তিনবার চিন্তা করবে’

প্রকাশিত:Wednesday ০৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৭৬জন দেখেছেন
Image

আদালতের সঙ্গে প্রতারণা করায় এক কোম্পানির কাছ থেকে এক কোটি টাকা জরিমানা আদায়ের বিষয়টি নজিরবিহীন উল্লেখ করে অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন বলেছেন, কেউ প্রতারণার আশ্রয় নিতে গেলেও তিনবার চিন্তা করবে।

মঙ্গলবার (৭ জুন) ‘এফএমসি ও-২ লিমিটেড’ কোম্পানির কাছ থেকে জরিমানা আদায়ের পর রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা এ কথা বলেন।

এদিন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে কোম্পানিটির প্রতিনিধিরা এই টাকা জমা দেন।

অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, ‘এফএমসি ও-টু লিমিটেড’ ২০১৭ সালে হাইকোর্টে একটি মামলা করে। তখন ছিল ডিসেম্বর মাস। তখন নিম্ন আদালতে ছুটি ছিল। এ কারণে হাইকোর্টে মামলা করে তারা জানালো তাদের প্রতিষ্ঠানের নাম সিআইবি তালিকায় আসছে। এ কারণে এটি চ্যালেঞ্জ করে নিম্ন আদালতে মামলা দায়ের করবে জানিয়ে আদালত বন্ধ থাকাকালীন নিষেধাজ্ঞা চায়।

তিনি বলেন, তখন আদালত নিষেধাজ্ঞা জারি করে তাদের মামলা করতে বলেন। এরপর ২০১৭ থেকে ২০২১ পর্যন্ত তারা কোনো মামলা করেনি, বরং নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়িয়ে এভাবেই চালিয়ে আসছিল। এরপর যখন তারা আবারও মেয়াদ বাড়াতে আবেদন করলো তখন বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এটা দেখে বলেন, আপনারা তো মামলাই করেননি। আপনারা এতদিন কী করেছেন?

এ এম আমিন উদ্দিন বলেন, এ প্রশ্নের কোনো জবাব দিতে না পারায় তাদের আবেদন খারিজ করে এক কোটি টাকা জরিমানা করেন আদালত। এরপর হাইকোর্টের জরিমানার আদেশের বিরুদ্ধে তারা স্থগিত চেয়ে আপিলে আবেদন করেন। কিন্তু সেখানেও তারা সেটি শুনানি না করে ফেরত নিতে চাইলেন। এরই মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে আমাদের তথ্য জানানো হয়। তখন আমরা আদালতকে বললাম, আপনারা যদি এটা ডিসমিস করে দেন তাহলে তারা আর জরিমানার টাকাটা দেবে না। পরে আদালত প্রতিষ্ঠানটিকে টাকা জমা দিয়ে তারপর মামলা প্রত্যাহারের আবেদন করতে বলেন। পরে আজকে তারা টাকা জমা দিলে আদালত তাদের আবেনটি নিষ্পত্তি করে দেন।

এ আদেশ দেশে যুগান্তকারী উল্লেখ করে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, দেশে প্রথমবারের মতো কোর্টের সঙ্গে প্রতারণা করে আদেশ নেওয়ায় তাদের এক কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এ আদেশ বিচারব্যবস্থায় নতুন একটি মাইলফলক। এভাবে কেউ প্রতারণার আশ্রয় নিতে গেলে কম করে হলেও তিনবার চিন্তা করবে।


আরও খবর



বাণিজ্য ঘাটতি ৩ হাজার ৩২৪ কোটি ডলার

প্রকাশিত:Monday ০১ August ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ০৬ August ২০২২ | ১৮জন দেখেছেন
Image

সদ্য শেষ হওয়া ২০২১-২২ অর্থবছরে বাংলাদেশের বাণিজ্য ঘাটতি অনেক বেড়েছে। এক বছরে রপ্তানি আয়ের তুলনায় আমদানি ব্যয় বেশি হয়েছে ৩ হাজার ৩২৪ কোটি ডলার, যা আগের অর্থবছরের (২০২০-২১) চেয়ে প্রায় ৯১৪ কোটি ডলার বেশি। বাংলাদেশি মুদ্রায় (প্রতি ডলার ৯৪ টাকা ৭০ পয়সা ধরে) এ ঘাটতির পরিমাণ ৩ লাখ ১৪ হাজার ৭৮২ কোটি টাকা। গত অর্থবছরে ২ হাজার ৩৭৭ কোটি ডলারের বাণিজ্য ঘাটতি ছিলো।

২০২০-২১ অর্থবছরের বৈদেশিক লেনদেনের ভারসাম্যের (ব্যালান্স অব পেমেন্ট) ওপর বাংলাদেশ ব্যাংকের রিপোর্টে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

অর্থনীতিবিদরা বলছেন, করোনা মহামারি পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর থেকেই আমদানিতে জোয়ার বইছে। আর এতে আমদানি-রপ্তানির মধ্যে ব্যবধান বা বাণিজ্য ঘাটতি বেড়েছে। এই মুহূর্তে বাংলাদেশের অর্থনীতির বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে আমদানির লাগাম টেনে ধরা। এটা করতে না পারলে সংকটে পড়বে অর্থনীতি।

চলতি হিসাব ভারসাম্যে (কারেন্ট অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স) বড় ঘাটতিতে পড়েছে বাংলাদেশ। বিদায়ী অর্থবছরের ঘাটতির (ঋণাত্মক) পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৮৬৯ কোটি ডলার। আগের ২০২০-২১ অর্থবছরে একই সময়ে ঘাটতি ছিলো ৪৫৭ কোটি ডলার।

এছাড়া ২০২১-২২ অর্থবছরের সামগ্রিক লেনদেনে (ওভার অল ব্যাল্যান্স) ঘাটতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৫৩৮ কোটি ডলার। অথচ ২০২০-২১ অর্থবছরের একই সময়ে এই সূচকে ৯২৭ কোটি ডলারের উদ্বৃত্ত ছিলো।

প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, বিদায়ী অর্থবছর দেশে ২ হাজার ১০৩ কোটি ডলারের সমপরিমাণ রেমিট্যান্স দেশে এসেছে। এটি আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ১৫ শতাংশ কম। গত ২০২০-২১ অর্থবছরে এসেছিল দুই হাজার ৪৭৭ কোটি ডলার।

প্রতিবেদনে দেখা যায়, গত অর্থবছরে রপ্তানি আয় হয়েছে ৪ হাজার ৯২৪ কোটি ডলার। আগের অর্থবছরের চেয়ে রপ্তানি আয় বেড়েছে ৩৩ দশমিক ৪৫ শতাংশ। একই সময় আমদানি ব্যয় হয়েছে ৮ হাজার ২৪৯ কোটি ডলার। আর আমদানি বেড়েছে ৩৫ দশমিক ৯৫ শতাংশ। রপ্তানির চেয়ে আমদানি বৃদ্ধির হার বেশি হওয়ায় বাণিজ্য ঘাটতিও বেড়েছে।

আলোচিত সময়ে সেবা খাতের বাণিজ্য ঘাটতিও বেড়েছে। বিদায়ী অর্থবছরের সেবা খাতে বাংলাদেশ আয় করেছে ৯৯৮ কোটি ডলার। অন্যদিকে, সেবা খাতে দেশের ব্যয় হয়েছে ১ হাজার ৩৮৫ কোটি ডলার। আর সেবা খাতের ঘাটতি দাঁড়িয়েছে ৩৮৭ কোটি ডলার। আগের ২০২০-২১ অর্থবছরের একই সময়ে এই ঘাটতি ছিলো ৩০২ কোটি ডলার।


আরও খবর



মা হলো জলনুপুর

প্রকাশিত:Thursday ০৪ August ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ২২জন দেখেছেন
Image

৩২ বছর পর রংপুর চিড়িয়াখানায় প্রথমবারের মতো জলনুপুর নামের একটি জলহস্তি বাচ্চা প্রসব করেছে। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) সকাল সোয়া ৯টায় জলনুপুরটি বাচ্চা প্রসব করে।

চিড়িয়াখানা সূত্র জানায়, ১৯৮৯-১৯৯০ সালে রংপুর চিড়িয়াখানা প্রতিষ্ঠার পর একটি পুরুষ জলহস্তি ছিলো। সে জলহস্তি মারা গেলে একটি নারী জলহস্তি আনা হয়। পরে ২০২১ সালে আরও একটি পুরুষ জলহস্তি যোগ হয় চিড়িয়াখানায়। এরপর নারী জলহস্তি বাচ্চা প্রসব করে।

jagonews24

চিড়িয়াখানায় ঘুরতে আসা শিউলি আক্তার জানান, জলহস্তির বাচ্চা দেখে খুবই ভালো লাগছে। এখানে আসা এখন সার্থক মনে হচ্ছে।

চিড়িয়াখানায় জ্যু অফিসার এইচএম শাহাদাত জানান, যখন বুঝতে পারলাম জলনুপুরের পেটে বাচ্চা এসেছে তখন থেকে তাকে বিশেষ পরিচর্চা শুরু করি। আট মাস প্রতীক্ষার পর সকাল সোয়া ৯টার দিকে জলহস্তিটি বাচ্চা প্রসব করে। বাচ্চার ওজন ২৫-৩০ কেজি হবে। বাচ্চা সুস্থ রয়েছে।

jagonews24

রংপুর চিড়িয়াখানার কিউরেটর ডা. মো. আমবার আলী তালুকদার জানান, জলহস্তির পেটে বাচ্চা আসার পর থেকেই সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় ছিলাম আমরা। নিরাপদে বাচ্চা প্রসবের জন্য ইতোমধ্যে পুরুষ জলহস্তিকে আলাদা আবাসস্থলে নেওয়া হয়েছে। অনুকূল পরিবেশের কারণে চিড়িয়ানার সব বন্যপ্রাণী ও পাখিগুলো সুস্থ রয়েছে। বংশ বৃদ্ধির মাধ্যমে ধীরে ধীরে রংপুর চিড়িয়াখানা বন্যপ্রাণীর একটি সংরক্ষণ কেন্দ্রে পরিণত হচ্ছে।


আরও খবর



ভর্তি পরীক্ষার হল পরিদর্শনে যাবে না রাবি প্রশাসন

প্রকাশিত:Sunday ২৪ July ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ০৪ August ২০২২ | ১২জন দেখেছেন
Image

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে কেন্দ্র পরিদর্শনে যাবে না বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। পরীক্ষা চলাকালে কেন্দ্র পরিদর্শনে গেলে শিক্ষার্থীদের মনোযোগে ব্যাঘাত ঘটে বলে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

শনিবার (২৩ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদ সিনেট ভবনে আয়োজিত ভর্তি পরীক্ষা সম্পর্কিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানিয়েছেন রাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার।

উপাচার্য বলেন, এ বছর ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে কোনো কেন্দ্র পরিদর্শনে যাবে না বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। কারণ পরিদর্শনে গেলে শিক্ষার্থীদের মনোযোগে ব্যাঘাত ঘটে, তারা ইতস্তত বোধ করে। অথচ এ সময়ে শিক্ষার্থীরা আরও কিছু প্রশ্ন বেশি উত্তর দেওয়ার সুযোগ পাবে। তাই এবছর কোনো পরীক্ষাকেন্দ্র পরিদর্শনে যাবে না প্রশাসন।

প্রশ্নোত্তর পর্বে বিভাগীয় শহরে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে উপাচার্য বলেন, আমরা এই বিষয়ে এককভাবে সিদ্ধান্ত নিতে পারবো না। আমরা পরবর্তীকালে শিক্ষার্থীদের সুবিধার কথা চিন্তা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিল ও ভর্তি পরীক্ষা কমিটিতে আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেবো।

এছাড়া পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরের কোনো দোকানে খাবারের অতিরিক্ত দাম কিংবা যানবাহনে বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ পেলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্থানে ৯টি ওয়াটারপ্রুফ টেন্ট স্থাপন করা হবে। প্রতিটি টেন্টে অভিভাবকদের বসার জন্য ২০০টি করে চেয়ার থাকবে ও ১২টি স্থানে ওয়াশরুমের ব্যবস্থা থাকবে বলে জানানো হয়।

আরও জানানো হয়, এবারের ভর্তি পরীক্ষায় র্যাব, পুলিশ ও গোয়েন্দাসহ নানা স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। চিকিৎসা সহায়তায় ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে রাবি চিকিৎসা কেন্দ্র পরিচালিত একটি মেডিকেল টিম কাজ করবে। সার্বক্ষণিক চারটি অ্যাম্বুলেন্স থাকবে।

এদিকে সোমবার (২৫ জুলাই) সকাল ৯টা থেকে শুরু হবে ভর্তি পরীক্ষা। এবারের ভর্তি পরীক্ষায় প্রত্যেক ইউনিটে চারটি শিফটে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ বছর রাবি ভর্তি পরীক্ষায় বিশেষ কোটাসহ মোট আসন সংখ্যা ৪ হাজার ৬৪১টি। এই আসনের বিপরীতে মোট ১ লাখ ৭৮ হাজার ২৬৮টি চূড়ান্ত আবেদন জমা হয়েছে। এর মধ্যে ‘এ’ ইউনিটে ৬৭ হাজার ২৩৭টি, ‘বি’ ইউনিটে ৩৮ হাজার ৬২১টি এবং ‘সি’ ইউনিটে ৭২ হাজার ৪১০টি চূড়ান্ত আবেদন জমা পড়ে। এবার একক আবেদনকারীর সংখ্যা ১ লাখ ৫০ হাজার ৪২৯ জন। এবারে এক ঘণ্টাব্যাপী ভর্তি পরীক্ষা এমসিকিউ পদ্ধতিতে গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর



সংক্ষিপ্ত বিশ্ব সংবাদ: ২০ জুলাই ২০২২

প্রকাশিত:Wednesday ২০ July ২০22 | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ৮৬জন দেখেছেন
Image

আমাদের চারপাশে অসংখ্য ঘটনা ঘটছে প্রতিদিনই। এর মধ্যে হয়তো আলোচনায় আসে হাতেগোনা কিছু। তবে সময় ও পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে বেশকিছু বিষয়। এগুলো জানা না থাকলে অনেক ক্ষেত্রেই পিছিয়ে পড়তে হয়। এ কারণে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ঘটে যাওয়া নানা ঘটনা থেকে সংক্ষেপে গুরুত্বপূর্ণ কিছু সংবাদ থাকছে জাগো নিউজের পাঠকদের জন্য-

পাকিস্তানের অর্থনীতি খাদের কিনারায়, জরুরি বৈঠক প্রধানমন্ত্রীর

পাকিস্তানের অর্থনীতি ক্রমেই ভেঙে পড়ছে। এমন পরিস্থিতিতে দেশটির প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ জরুরি বৈঠক ডেকেছেন। বুধবার (২০ জুলাই) জিও নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। জানা গেছে, বৈঠকে অর্থনৈতিক দল ও অন্যান্য উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকবেন।

ইউরোপে গ্যাসের ব্যবহার ১৫ শতাংশ কমানোর আহ্বান

ইউক্রেন যুদ্ধকে কেন্দ্র করে রাশিয়ার ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে অঞ্চলটিতে গ্যাসের সরবরাহ ব্যাপকভাবে কমিয়েছে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এতে তীব্র গ্যাস সংকটে পড়েছে ইউরোপ। এমন পরিস্থিতিতে দেশগুলোকে গ্যাসের ব্যবহার ১৫ শতাংশ কমানোর আহ্বান জানিয়েছে ইউরোপীয় কমিশন।

পাকিস্তানে বিয়ের যাত্রী নিয়ে নৌকাডুবি, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫০

চলতি সপ্তাহের শুরুতে পাকিস্তানে বিয়ের যাত্রী নিয়ে একটি নৌকা ডুবে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। ধারণা করা হচ্ছে এতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫০ ছাড়িয়েছে। বুধবার (২০ জুলাই) দেশটির কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছে। জানা গেছে, মর্মান্তিক দুর্ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে। সোমবার (১৮ জুলাই) নৌকাটি সিন্ধু নদীতে দুর্ঘটনার কবলে। এসময় এটিতে শতাধিক যাত্রী ছিল।

মাঝআকাশে প্লেনে ত্রুটি, জরুরি অবতরণ

দিল্লি থেকে গুয়াহাটিগামী প্লেনের উইন্ডশিল্ডে ফাটল ধরা পড়লো মাঝ আকাশে। এ ঘটনা নজরে আসার পর বেসরকারি সংস্থার ওই প্লেনটিকে জরুরিভিত্তিতে ভারতের জয়পুরে অবতরণ করানো হয়। গত দু’দিনের মধ্যে এই নিয়ে গো ফার্স্ট নামে ওই সংস্থাটির প্লেনে তৃতীয় বার যান্ত্রিক ত্রুটি ধরা পড়লো বলে জানিয়েছে ভারতের আকাশে প্লেন পরিবহনের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ডিরেক্টরেট জেনারেল অব সিভিল এভিয়েশন (ডিজিসিএ)।

আমাদের মধ্যে আর কোনো বিভক্তি নেই: রনিল বিক্রমাসিংহে

শ্রীলঙ্কার নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন রনিল বিক্রমাসিংহে। নির্বাচিত হওয়ার পরই বুধবার তিনি বলেন, সংকটে জর্জরিত শ্রীলঙ্কায় বিভক্তির অবসান ঘটেছে। পার্লামেন্টের ভাষণে তিনি বলেন, আমাদের মধ্যে আর কোনো বিভক্তি নেই। ছয়বারের এই প্রধানমন্ত্রীকেই দেশটির পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত করেছেন আইনপ্রণেতারা।

ইউক্রেনের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন সিরিয়ার

অবশেষে আনুষ্ঠানিকভাবে ইউক্রেনের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দিয়েছে সিরিয়া। কিয়েভের একই ধরনের পদক্ষেপের পর রাশিয়ার বন্ধু রাষ্ট্রটি এ তথ্য জানালো। সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, পারস্পরিক নীতির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে ইউক্রেনের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ইউরোপে গ্যাসের সরবরাহ কমই থাকবে, হুঁশিয়ারি পুতিনের

ইউক্রেন যুদ্ধকে কেন্দ্র করে রাশিয়ার ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে পশ্চিমাদেশগুলো। এরপর পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে ইউরোপে গ্যাসের সরবরাহ কমাতে থাকে রাশিয়া, যা প্রায় বন্ধ হওয়ার পথে। এতে চরম বিপাকে পড়েছে ইউরোপ। এমন পরিস্থিতিতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সতর্ক করে জানিয়েছেন, ইউরোপে গ্যাসের সরবরাহ এরকম কমই থাকবে। আর এজন্য পশ্চিমাদেশগুলোই দায়ী বলেও জানান তিনি।

সংক্রমণ বাড়ায় অস্ট্রেলিয়ায় বাড়ি থেকেই কাজ করার আহ্বান

অস্ট্রেলিয়ায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা রেকর্ড মাত্রার কাছাকাছি। ফলে দেশটিতে লোকজনকে বাড়ি থেকেই কাজ করার আহ্বান জানানো হয়েছে। একই সঙ্গে মাস্ক পরার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। দেশটিতে করোনার তৃতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে। ওমিক্রনের বিএ.৪ এবং বিএ.৫ সাবভ্যারিয়েন্টের কারণে দেশটিতে নতুন করে সংক্রমণ বাড়ছেই। এদিকে চলতি মাসের শুরুতেই সেকেন্ড বুস্টার ডোজের কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

বিশ্বে দুর্বল পাসপোর্টের তালিকায় বাংলাদেশ নবম

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মধ্যে শক্তিশালী ও দুর্বল পাসপোর্টের তালিকা প্রকাশ করেছে হেনলি অ্যান্ড পার্টনার্স। এই তালিকায় বিশ্বের শক্তিশালী পাসপোর্টের তালিকায় রয়েছে জাপান, সিঙ্গাপুর এবং দক্ষিণ কোরিয়া। শক্তিশালী পাসপোর্টের তালিকায় শীর্ষে থাকা জাপানের নাগরিকরা ১৯৩টি দেশে আগাম ভিসা ছাড়াই ভ্রমণ করতে পারেন।

পুতিন-এরদোয়ানকে বন্ধু বানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রই

ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর রাশিয়াকে অর্থনৈতিক ও কূটনৈতিকভাবে একঘরে করতে উঠে পড়ে লেগেছে যুক্তরাষ্ট্র ও তার নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাটো। কিন্তু সেই চেষ্টা সফল করতে জোটের যে সদস্যের ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ, সেই তুরস্কই বাঁধ সাধছে। মস্কোর ওপর নিষেধাজ্ঞা মানতে রাজি নয় তারা। এমনকি যে দেশটি যুক্তরাষ্ট্রের শত্রু তালিকার শীর্ষে, সেই ইরানের আতিথ্য গ্রহণ করে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে দেখা করতে তেহরান গেছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান।


আরও খবর



বৃষ্টির আশায় রংপুরে নামাজ

প্রকাশিত:Tuesday ১৯ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
Image

আষাঢ় পেরিয়ে এখন চলছে শ্রাবণ মাস। এরপরও নেই বৃষ্টির দেখা। তাই বৃষ্টির আশায় রংপুরে দুই রাকাত ইসতিস্কার নামাজ আদায় করেছেন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা। সম্মিলিত ইমাম পরিষদ রংপুর জেলা ও মহানগর শাখার আয়োজনে মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) বেলা সোয়া ১১টায় কালেক্টরেট ঈদগাহ মাঠে এ নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।

নামাজে ইমামতি করেন সম্মিলিত ইমাম পরিষদ রংপুর জেলার সভাপতি ও কারামতিয়া জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মো. বায়েজিদ হুসাইন।

বৃষ্টির আশায় রংপুরে নামাজ

নামাজ অংশ নেন রংপুর সিটি করপোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র মাহমুদুর রহমান টিটু, সম্মিলিত ইমাম পরিষদ রংপুর জেলার সেক্রেটারি মাওলানা মো. হাফিজুল ইসলামসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা কয়েকশ মুসল্লি। নামাজ শেষে তাপদাহ থেকে পরিত্রাণের আশায় বৃষ্টিসহ দেশ ও জাতির কল্যাণে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

নামাজের আগে কোরআন ও হাদিসের আলোকে বয়ান পেশ করেন ইমাম পরিষদের নেতৃবৃন্দ।


আরও খবর