Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

কোরবানির পশু কাটার জন্য সৈয়দপুরের কসাই ঢাকা যাওয়ার প্রস্তুতি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৭৭জন দেখেছেন

Image

জহুরুল ইসলাম খোকন সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:ঈদ উল আজহায় কোরবানির পশু কাটার জন্য সৈয়দপুর থেকে শতাধিক কসাই ঢাকা যাওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছেন।ট্রেন ও বাসে করে এযাবৎ অর্ধশতাধিক কসাই ঢাকা পৌঁছেছেন। কোরবানির তিন দিনে অন্তত ২০ লাখ টাকাও বেশি আয় করবেন বলে জানিয়েছেন তারা।

কসাইরা জানান, কুরবানী ঈদ এর মাস খানিক আগেই ঢাকার অনেকেই সৈয়দপুরের কসাই বুকিং দিয়ে রেখেছেন। একারনে ঈদের ২/৩ দিন আগেই ঢাকায় সব কসাইকে পৌঁছাতে হবে।কন্ট্রাক হয়েছে হাজারে ৩০০ টাকা দিতে হবে কসাইদের। সে হিসেবে এক লাখ টাকার একটি গরুতে কসাইকে দিতে হবে ৩০ হাজার টাকা।

কাল্লু নামের এক কসাই জানান, এবারে শতাধিক কসাই ঈদে ঢাকায় গিয়ে কোরবানির পশুর মাংস কাটার কাজ করবেন। চারজন  করে একটি গ্রুপে পশু কাটার  কাজটি করবেন তারা। তিনদিনে একেকটি গ্রুপ কমপক্ষে ১৬টি গরু কাটতে পারবেন। এতে করে একেকটি গ্রুপ ৪ লাখ টাকা আয় করতে পারবেন।

মজ্নু নামের অপর এক কসাই জানান,১৫ জুন রাতে বাসে করে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিবেন। অনেকে  আবার ১৬ জুন সকালে যাবেন ঢাকায়। কেউ কেউ ঈদের আগের দিন রাতে বিমানে ঢাকায় পৌঁছাবেন।

নাদের এন্টারপ্রাইজ এর সুপারভাইজার আলমগীর বলেন, আমার কাছে ১৫-২০ জন কসাই ঢাকা যাওয়ার জন্য টিকেট চেয়েছেন। এদের মধ্যে কেউ কেউ টিকেট নিয়ে গেছেন। সৈয়দপুর থেকে অনেক কসাই ঈদের আগের দিন বিমানযোগে ঢাকায় যাবেন বলে জানান বিমানের টিকেট বিক্রেতারা ।

রাজধানীর উত্তরায় থাকেন তারেক নামের এক অবসর প্রাপ্ত বিমান কর্মকর্তা। চাকরির সুবাদে তিনি সৈয়দপুরে ছিলেন দীর্ঘদিন। একারনে এশহরের অনেকেই তাঁর পরিচিত। ঈদে কুরবানির মাংস কাটতে মোবাইলে সৈয়দপুরের একজন কসাইয়ের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে তার। ঈদের দিন সকালে উত্তরার বাসায় গিয়ে কোরবানির গরুর মাংস কাটতে হবে। বিনিময়ে ২০ হাজার টাকা নিবেন কসাইকে।

সৈয়দপুর কসাই সমিতির সভাপতি মোঃ নাদিম ওরফে ছোটুয়া বলেন, ঢাকার মানুষরা তাদের কুরবানির পশু কাটাতে হাজারে ৩০০ টাকা দেয়ার কারনে ঈদের আগে কসাই শুন্য হয়ে যাবে সৈয়দপুর। এশহরের মানুষ তাদের পশু কার দ্বারা কাটবেন বুঝতে পারছি না। সৈয়দপুরের মানুষ যদি হাজারে ১৫০ টাকা মাংস কাটা বাবদ দিতেন তাহলে অর্ধেক কসাই ঢাকায় যেতো না। তিনি আরো বলেন, কসাইদের ও উচিত ঈদের শুধু নিজের স্বার্থ না দেখে সৈয়দপুর বাসীর পাশে থাকা। নিজের স্বার্থ হাসিল করতে সৈয়দপুর বাসীকে বিপদে ফেলে ঢাকায় যাওয়া ঠিক হচ্ছে না বলে জানান তিনি। 


আরও খবর



নবীনগর সেমন্তঘর গ্রামে ফেসবুক লাইভে এসে আত্মহত্যা করেছে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ২৩৫জন দেখেছেন

Image

মোহাম্মদ হেদায়েতুল্লাহ নবীনগর(ব্রাহ্মণবাড়িয়া)প্রতিনিধিঃব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগরে ফেসবুক লাইভে এসে নিজ ঘরে রশি পেঁচিয়ে আব্দুর রশিদ (৩০) নামে এক যুবক আত্মহত্যা করেছেন। বুধবার দিবাকত গভীর রাতে উপজেলার বিদ্যাকুট ইউনিয়নের সেমন্তঘর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ঐ যুবক সেমন্তঘর উত্তর পাড়ার মো. জালাল মিয়ার ছেলে।নিহত আব্দুর রশিদ এর ফেসবুক ওয়ালে ৬ মিনিটের ভিডিওতে দেখা যায়, তিনি বৃহস্পতিবার রাতে তার ফেসবুক লাইভে আসেন। এর আগে তিনি তার ঘরের সিলিংয়ে একটি রশি বেঁধে রাখেন। লাইভ চালু করে তিনি একটি টেবিলে উঠে গলায় রশি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, সে চট্টগ্রামে বেকারির লাইন চালাইতো, সে মাদকাসক্ত ছিল গতকাল চট্টগ্রাম থেকে বাড়িতে এসে তার নিজঘরে তার ফেসবুক প্রোফাইল থেকে ফেসবুকে লাইভে এসে সিলিং এর সাথে দড়ি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।শিবপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আবু বক্কর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে রশিদকে জুলন্ত অবস্থায় তার নিজ ঘর থেকে উদ্ধার করি। পরিবার সুত্রে জানতে পারি সে মাদকাসক্ত ছিল। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



বোটানিক্যাল গার্ডেনে প্রবেশ ফি ১০০ টাকা অযৌক্তিক: পরিবেশমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৪০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:পরিবেশ, বন ও জলবায়ু বিষয়কমন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী মন্তব্য করেছেন,রাজধানীর মিরপুরের জাতীয় উদ্ভিদ উদ্যান বা বোটানিক্যাল গার্ডেনে প্রবেশ ফি একলাফে ২০ টাকা থেকে ১০০ টাকা করাকে অযৌক্তিক বলে।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) সচিবালয়ে মন্ত্রণালয় সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন তিনি।পরিবেশমন্ত্রী বলেন, এখানে একটা রাজস্ব চাহিদা আছে। তবে এতো বাড়ানো উচিত না বলে আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি। এটা অযৌক্তিক।

এর আগে, এ বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের বন অধিশাখা-১ থেকে গত ২১ এপ্রিল একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এছাড়া দৈনিক পত্রিকায় এ বিষয়ে বিজ্ঞাপনও দেওয়া হয়েছে। গার্ডেনে প্রবেশের গেটেও এ নিয়ে নির্দেশনামূলক ব্যানার টানানো হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ১২ বছরের বেশি বয়সিদের ক্ষেত্রে জনপ্রতি ১০০ টাকা প্রবেশ ফি দিতে হবে। আর এর চেয়ে কম বয়সিদের জন্য প্রবেশে ফি দিতে হবে ৫০ টাকা। তবে কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে অগ্রিম অনুমতি নিয়ে বোটানিক্যাল গার্ডেনে গেলে ১০০ জনের একটি দলের জন্য ১ হাজার টাকা ফি দিতে হবে। এর চেয়ে বেশিজনের দল হলে দেওয়া লাগবে দেড় হাজার টাকা। গবেষকেরাও এই ফির আওতায় থাকবেন।

প্রজ্ঞাপনে বিদেশি পর্যটক ও শরীরচর্চার জন্য উদ্যানে যারা নিয়মিত হাঁটতে যান, তাদের জন্যও আলাদা ফি নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রত্যেক বিদেশি পর্যটকের জন্য দিতে হবে ১ হাজার টাকা বা সমমূল্যের ইউএস ডলার। আর উদ্যানে হাঁটতে যাওয়া ব্যক্তিদের একটি বার্ষিক কার্ড করাতে হবে। এর জন্য ফি দেওয়া লাগবে ৫০০ টাকা। তবে অবস্থান করা যাবে মাত্র ১ ঘণ্টা। অথচ শরীরচর্চার জন্য আগে উদ্যানে গেলে কোনোরকম ফি লাগত না।

বোটানিক্যাল গার্ডেনে প্রবেশ ফি বাড়ানোর বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উঠেছে সমালোচনার ঝড়। ব্যবহারকারীদের মতে, ঢাকায় সাধারণ মানুষের যাওয়ার জায়গা কম। শিশুরা গাছপালা তথা সবুজ দেখতে পায় না। এত অধিক হারে ফি বাড়ানো অনুচিত ও অযৌক্তিক মনে করছেন তারা।


আরও খবর



পুঠিয়া-দুর্গাপুরের সাবেক সাংসদ এড্যাঃ নাদিম মােস্তফার ইন্তেকাল

প্রকাশিত:সোমবার ০১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৩৭জন দেখেছেন

Image
সাজদুর রহমান জাহিদ পুঠিয়া (রাজশাহী) প্রতিনিধিঃ না ফেরার দেশে চলে গেলেন পুঠিয়া-দুর্গাপুরের সাবেক সাংসদ বিএনপি নেতা এড্যাঃ নাদিম মোস্তফা(৫৮)। তার মত্যুতে পুঠিয়া-দুর্গাপুরর বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে আসে। মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে নাদিম মোস্তাফার ছোট ভাই বিএনপি নেতা সাইদ হাসান জানান, সাবেক সাংসদ এড্যাঃ নাদিম মোস্তফা হৃদরোগসহ শারীরিক নানা জটিলতায় ভুগছিলেন। রাববার (৩০ জুন) রাজধানীর ঢাকার বাসায় সকালের নাস্তার পর অসুস্থ্য হয়ে পড়েন। এরপর অচতন হয়ে পড়লে তাকে রাজধনীর ইউনাইটেড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানকার  কর্তব্যরত চিকিৎসক তাক মৃত ঘাষণা করেন। পুঠিয়া উপজলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মনছুর রহমান মাস্টার জানান, আগামীকাল সোমবার (১ জুলাই) দুর্গাপুর পাইলট উচ বিদ্যালয় মাঠে সকাল ১০টায়, পুঠিয়া পিএন সরকারি উচ বিদ্যালয় মাঠ সকাল ১১টায় এবং সকাল সাড়ে ১১টায় বানেশ্বর সরকারি কলেজ  মাঠে সাবেক সাংসদ এড্যাঃ নাদিম মোস্তফার জানাযার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে। পরে বাদ যোহর শাহ্ মুখ দম মাঠে জানাযার নামাজ শেষে রাজশাহী মহানগরর হেতিমখাঁ কবর স্থানে বাবা মায়ের কবরের পাশে তাকে দাফন করা হবে। উল্লখ্য বিএনপির সাবেক সাংসদ এড্যাঃ নাদিম মোস্তাফা পুঠিয়া-দুর্গাপুর রাজশাহী-৫ আসন থেকে ১৯৯৬ ও ২০০১ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। বিএনপির এই সাবেক নেতা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ও রাজশাহী জেলা ছাত্রদল সভাপতির দায়িত্ব পালন করন। রাজশাহী মহানগরর সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহী জেলার সভাপতির দায়িত্ব পালন করন। এছাড়াও কেনদ্রীয় কমিটির বিশেষ সম্পাদক ও নির্বাহী কমিটির সদস্য ছিলেন।

আরও খবর

হাসপাতালে ভর্তি শামীম ওসমান

বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪




হলে ফেরার অনুরোধ প্রত্যাখ্যান আন্দোলনকারীদের

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৭৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা হলে ফেরার অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেছেন। ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ হলের প্রভোস্ট ড. মোহাম্মদ জাভেদ হোসেন এমন অনুরোধ করলে শিক্ষার্থীরা তা প্রত্যাখ্যান করে ‘দালাল দালাল’ ‘ভুয়া ভুয়া’ স্লোগান দিতে দেখা যায়।

সোমবার (১৫ জুলাই) বিকেলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের দফায় দফায় সংঘর্ষের পর রাত পৌনে ৮টার দিকে ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ হলের সামনে আসেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো. মাকসুদুর রহমান।

তিনি বলেন, আমাদের হাতে সবকিছু নেই। সুযোগ থাকলে আমরা বহিরাগতদের আগেই সরিয়ে দিতাম। এখন হল প্রভোস্ট ও হাউস টিউটরদের মাধ্যমে হলের ভেতর প্রবেশ করিয়ে বহিরাগত যারা আছে তাদের বের করার ব্যবস্থা করব।

এদিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের থেকে প্রায় ৩০ গজ দূরে একটি সাঁজোয়া যান নিয়ে কয়েকশত পুলিশ অবস্থান করছেন। এর আগে তারা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হল গেট থেকে ব্যারিকেড দিয়ে দোয়েল চত্বরের দিকে নিয়ে যান।

সোমবার কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের চতুর্মুখী হামলায় দুই শতাধিক শিক্ষার্থী আহত হয়েছে।

জানা গেছে, ছাত্রলীগের হামলায় আহত দুই শতাধিক শিক্ষার্থীর মধ্যে অন্তত ছয়জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিরা ঢাবির মেডিকেল সেন্টার এবং ঢামেক থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। তবে আহত শিক্ষার্থীদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারে নেওয়া হলে সেখানেও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এসএম হল ছাত্রলীগ, জগন্নাথ হল ছাত্রলীগ, মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হকিস্টিক, লাঠি নিয়ে মহড়া দিতে দেখা যায়। সংঘর্ষের একপর্যায়ে সাধারণ শিক্ষার্থীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে পড়েন।

-খবর প্রতিদিনসি.


আরও খবর



ডোমারে আনন্দলোক বিদ্যালয়ের তহবিল সংগ্রহ বিষয়ক মতবিনিময় সভা

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ২২জন দেখেছেন

Image

আনিছুর রহমান মানিক, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি:নীলফামারীর ডোমারে আনন্দলোক বিদ্যালয়ের তহবিল সংগ্রহ বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

জাতীয় পর্যায়ে অলাভজনক সংস্থা আনন্দলোক ট্রাস্ট ফর এডুকেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট  আয়োজিত মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সকাল ১১টায় ডোমার বহুমূখি উচ্চ বিদ্যালয় হলরুমে ইসমত আরা আকতার ইমু’র উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উক্ত বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রবিউল আলম।

এ সময় অতিথি হিসাবে সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা সুদীপ কুমার শর্মা, আনন্দলোক ট্রাস্টের পরিচালক রিয়াসত করিম, কো-অর্ডিনেটর মিজানুর রহমান জুয়েল, বোড়াগাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম রিমুন, পৌর কাউন্সিলর আখতারুজ্জামান সুমন, সহকারী অধ্যাপক ডেইজী নাসনীন মাশরাফি নীনা, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান বেগম রৌশন কানিজ বক্তব্য রাখেন। 

স্থানীয় ও জাতীয় প্রেক্ষাপট বিবেচনায় আনন্দলোক বিদ্যালয়গুলোকে বৈদেশিক সাহায্য ছাড়া কিভাবে স্থানীয় প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলা যায়, সেই বিষয়ে সুধী সমাজের পরামর্শ ও মতামত গ্রহণ ছিল এই আয়োজনের মূলউদ্দেশ্য। 

অনুষ্ঠানে প্রভাষক এনছানুল হক, শিক্ষিকা মহামায়া দেব বর্মা, নাজমা আক্তার, পল্লীশ্রী প্রকল্পের জেলা সন্বয়কারী মোকিম চৌধুরী, সাংস্কৃতিক কর্মী মিজানুর রহমান সোহাগ, জেলা সন্বয়কারী ধীরাজ রায়, এডুকেশন সুপার ভাইজার সালাউদ্দিন ইউসুফ, ইউপি সদস্য রমেশ চন্দ্র সহ অনেকে তারা তাদের মতামত ব্যক্ত করেন।  

অনুষ্ঠানে জাতীয় সংস্থার প্রতিনিধিগণ, শিক্ষক, প্রভাষক, শিক্ষানুরাগী, ব্যবসায়ী, জনপ্রতিনিধি, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস, শিক্ষার্থী এবং বিভিন্ন স্তরের শ্রেণি পেশার মানুষ মতবিনিময় সভায় অংশগ্রহন করেন। 

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর