Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

কলারোয়ার মির্জাপুরে কলের পাইপ দিয়ে দেড় মাস ধরে গ্যাস উঠছে, এলাকাবাসী আতংকে

প্রকাশিত:সোমবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ২০০জন দেখেছেন

Image

কলারোয়া প্রতিনিধি:কলারোয়ার মির্জাপুরে কলের পাইপ দিয়ে অনাগল ভাবে গত দেড় মাস ধরে গ্যাস উঠতে দেখা গেছে। এলাকাবাসীরা বলেন-এর আগেও কয়েক বার মির্জাপুর সরকারী স্কুল মাঠে পানির কল বসানোর সময় গ্যাস ওঠে। এই স্কুল মাঠের যে কোন স্থানে খুড়লেই গ্যাস উঠছে। গত দেড় মাস আগে স্থানীয় জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর থেকে সরকারী ভাবে পানির কল বসানোর জন্য পাইপ পোতা হয়। আর সেই পাইপ দিয়ে অনাগল ভাবে গ্যাস ওঠায় তারা কলটির পাইপ এর মূখ বন্ধ করে রেখে চলে যায়। এখন সে কলের পাইপের পাশ দিয়ে গ্যাস উঠছে। অনেকে আগুন জ্বালিয়ে গ্যাস কি না তা পরীক্ষা করে দেখছেন। এলাকাবাসীরা আরো বলছেন-এই গ্যাস ওঠায় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বহু অফিসার এসে দেখে শুনে চলে যায়। কিন্তু আজও পর্যন্ত তার কোন সুরহা হয়নি। এই সরকারী স্কুল মাঠের নিচে যে কি গুপ্ত ধন লুকিয়ে আছে তা তারা ঠিক ভাবে বলতে পারবেন না।তবে অনেকে বলছেন-গ্যাস খুব খারাপ জিনিষ। যে কোন সময় বিস্ফরণ ঘটলে এলাকায় অনেক ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে। সে জন্য তারা আতংকে রয়েছেন। তারা আরো বলেন-বিজ্ঞানীরা এই স্থানের মাটি খুড়ে পরীক্ষা করে গেলে এলাকাবাসীর আতংক কেটে যেত। আতংক গ্রস্থ এলাকাবাসী বিষয়টি নিয়ে জেলা প্রশাসকের সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন।


আরও খবর



মেহেরপুরের মুজিবনগর সীমান্ত দিয়ে ভারত থে‌কে ১০-১২ জন পুশ ইন

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৬৮জন দেখেছেন

Image

মে‌হেরপুর প্রতিনিধি:মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলার নাজিরাকোনা সীমান্ত দিয়ে ভারত থে‌কে ১০ জন পুশ ইন  হ‌য়ে‌ছে।ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ তা‌দের‌কে বৃস্পতিবার ভোরের দিকে পা‌ঠি‌য়ে দেয়।  পুশ ইন হ‌য়ে আসা লোকজন তাদের নিজ বাড়ির উদ্দেশ্যে ফিরে গেছে। তা‌দের বা‌ড়ি য‌শোর, সাতক্ষীরাসহ বি‌ভিন্ন জেলায়। 

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, ভোর চারটার দিকে নাজিরাকোনা সীমান্তের কাটাতারের গেট খুলে দেয় বিএসএফ। এসময় ১০ জন ভারত থেকে বাংলাদেশ সীমান্তে প্রবেশ করে। পায়ে হেঁটে তারা নাজিরাকোনা গ্রামের ভেতরে গিয়ে ভ্যানযোগে মুজিবনগর উপজেলা শহর কেদারগঞ্জে পৌঁছায় ভোরের দিকে। সেখানে স্থানীয় সাংবাদিকরা তাদের গন্তব্যে ফেরার ভিডিও ধারণ করেন। 

পুশ ইন হয়ে আসা কয়েকজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, তারা সকলেই দরিদ্র। কাজের খোঁজে অনেক আগে তারা ভারতে গিয়েছিলেন। সেখানে শ্রমিকের কাজ করার এক পর্যায়ে তারা ভারতীয় পুলিশের হাতে আটক হয়। বেশ কিছুদিন হাজতবাসের পর গেল রাতে তাদেরকে আনা হয় নাজিরাকোনা সীমান্তে। সেখানে তাদের আঙ্গুলের ছাপ নেয় বিএসএফ সদস্যরা। এক পর্যায়ে কাটাতারের গেট খুলে তাদেরকে বাংলাদেশের ভেতরে পাঠিয়ে দেয়। 

মুজিবনগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উজ্জল দত্ত জানান, পুশব্যাকের বিষয়টি পুলিশের কাছে কোন তথ্য নেই। বিজিবির কাছে কোন তথ্য আছে কি না তাও জানা নেই। 

তবে পুশব্যাকের বিষয়ে জানতে চেয়ে বিজিবি মুজিবনগর নাজিরাকোনা বিও‌পি কমান্ডার  বলেন, পুশব্যাকের কোন তথ্য আমাদের কাছে নেই।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



মাগুরা জেলা বিএনপির আহবায়ক যুগ্ম আহবায়কসহ ৮ জনের জামিন ৩৪ জন কারাগারে

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৮৩জন দেখেছেন

Image

স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরা জেলা বিএনপির  আহবায়ক আলী আহম্মদ, সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক আহসান হাবীব কিশোর যুগ্ম আহবায়ক  খান হাসান ইমাম সুজাসহ  মোট ৪২ জন  বিএনপি নেতা কর্মী ৮ জুলাই সোমবার মাগুরা জেলা ও দায়রা জজ আদালতে হাজীর হলে আদালত  আলী আহাম্মদ আহসান  হাবীব কিশোর খান হাসান ইমাম সুজাসহ ৮ জনের জনের জামিন মজ্ঞুর করে বাকি ৩৬ জনের জামিন বাতিল করে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে।

মাগুরা ভায়না মোড়ে যাত্রীবাহী বাসে আগুন ও শালিখায় বিস্ফোরক আইনে এদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হয়।  আসামীরা উচ্চ আদালত থেকে  অন্তবর্তীকালীন জামিন পেয়ে সোমবার মাগুরা জেলা ও দায়রা জজ আদালতে হাজির হয়ে স্থায়ী জামিনের আবেদন করলে মাগুরার মামলায় ৩ জনের এবং শালিখার  মামলায় ৫ জনের  জামিন মজ্ঞুর করে বাকি ৩৬ জনের জামিন বাতিল করে জেলা হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। আসামীদের পক্ষে জামিন শোনানী করেন কেন্দ্রীয় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাবেক মন্ত্রী এড, নিতাই রায় চৌধুরী, এড রোকনুজ্জামান খানসহ  স্থানীয় আইনজীবীরা। এ সময় মাগুরা সদর উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কুতুব উদ্দিন, সদর থানা বিএনপির সাবেক সভাপতি সৈয়দ রফিকুল ইসলাম তুষার, জেলা যুবদলের সভাপতি ওয়াসিকুর রহমান কল্লোল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক গোলাম জাহিদ, জেলা ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাব্বী প্রমুখ আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



নওগাঁয় অর্থ আত্মসাৎ করে আত্মগোপনে থাকা চাল ব্যবসায়ীকে আটকের দাবি

প্রকাশিত:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৮৭জন দেখেছেন

Image

নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি:নওগাঁর মহাদেবপুরে ওসমান অ্যাগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ (প্রা.) লিমিটেডের চেয়ারম্যান ওসমান গণির বিরুদ্ধে ধান ব্যবসায়ী ও কৃষকদের প্রায় ৩৫ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। অর্থ আত্মসাৎ করে আত্মগোপনে রয়েছেন। মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে পাওনাদাররা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে ‘ভুক্তভোগী সকল পাওনাদারের’ ব্যানারে মানববন্ধন করছেন। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটি একটি কোম্পানিকে ভাড়া দিয়ে পরিবারসহ ঢাকায় অবস্থান করছেন তিনি। এদিকে অভিযোগকারী ব্যবসায়ীরা টাকা না পেয়ে হন্যে হয়ে ঘুরছেন। পরে ভুক্তভোগীরা ওসমান গণির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিয়ে তাদের টাকা ফেরতের দাবি জানিয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারক লিপি দেন।

মানববন্ধনে আড়তদার আবু আহসান হাবিবের সভাপতিত্বে আড়তদার সামিউল আলম, ইমতিয়াজ হোসেন সরদার, মাসুদ মোল্লাসহ বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী ও অভিযোগকারী কৃষকরা বক্তব্য রাখেন। মানববন্ধনে প্রায় তিন শতাধিক ব্যবসায়ী ও কৃষকরা অংশগ্রহণ করেন।

ভুক্তভোগি ব্যবসায়ী ও কৃষক সূত্রে জানা যায়, নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার নওগাঁ-মহাদেবপুর সড়কের আখেড়া এলাকায় ওসমান গণি গত প্রায় ৪০ বছর আগে চালকল গড়ে তুলে ব্যবসা শুরু করেন। পর্যায়ক্রমে চালকলটি অটোমেটিকে রুপান্তর করে ওসমান অ্যাগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ (প্রা.) লিমিটেড নাম দেন। যেখানে কয়েক একর জায়গার ওপর পাঁচটি ইউনিট গড়ে তোলেন। ধানের আড়ৎদারদের কাছ থেকে নগদ ও বাকিতে ধান কিনে চালকল পরিচালনা করা হতো। এতে ব্যবসার সুবাদে আড়তদারদের সঙ্গে সখ্যতা গড়ে ওঠে। এভাবে জেলা ও জেলার বাহিরের প্রায় ২৬০ জন ধান ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে নগদ ও বাকিতে ধান কিনতেন তিনি। একপর্যায়ে প্রায় ৩৫ কোটি টাকা ধান ব্যবসায়ীদের কাছে বকেয়া রাখেন।

ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, গত তিন থেকে চার মাস ধরে ধান ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ওসমানের দূরত্ব বাড়তে থাকে এবং টাকা আত্মসাতের চেষ্টা করা হয়। তিনি পরিবারসহ ঢাকায় অবস্থান করতে থাকেন। গোপনে তার প্রতিষ্ঠানটি একটি কোম্পানির কাছে ভাড়া দিয়ে দেন।

আব্দুল ওহাব মোল্লা ও জিন্নাত হোসেন নামের দুই ভুক্তভোগি বলেন, ওসমান গনী আমাদের সাথে প্রতারণা করেছেন। তার কাছে আমরা ৩০০জন ব্যবসায়ী ও কৃষকরা প্রায় ৩ কোটি টাকা পাই। কিন্তু আমাদের কোন টাকা ফেরত দিচ্ছেনা। তার কঠিণ শাস্তির দাবি করছি।

উপজেলার মাতাজি হাট এলাকার মোল্লা ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকার সামিউল আলম বলেন, ‘গত কয়েক বছর থেকে ওসমান গণিকে ধান দিয়ে আসছি। নগদ ও বাকিতে ধান দিতাম। এভাবে প্রায় এক কোটি ৩৯ লাখ টাকা পাওনা রয়েছি। পাওনা টাকা চাওয়া হলে বিভিন্ন বাহানা শুরু করেছে। আমার মতো ২৬০ জন ব্যবসায়ীর প্রায় ৩৫ কোটি টাকা পাওনা রয়েছে। আমরা এখন পথে পথে ঘুরছি।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মহাদেবপুর উপজেলার ওসমান অ্যাগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান ওসমান গণি বলেন, ‘প্রায় ৩৮ বছর থেকে ব্যবসা করছি। ব্যবসার সুবাদে অনেক টাকা লোকসান হয়েছে। এ ছাড়া ব্যবসায়ীদের কাছেও আমার দেনা রয়েছে। আমার কাছে নগদ টাকা নাই। পাওনাদারদের বলেছি যে সম্পদ আছে, তা বিক্রি করে দেনা পরিশোধ করা হবে। নিজেকে দেউলিয়া ঘোষণা করার জন্য আদালতে একটি আবেদন করেছি, তবে আমি আমার প্রতিষ্ঠানটি ভাড়া দিয়েছি। এর বেশি কিছু বলতে চাইনা।

জেলা প্রশাসক মো.গোলাম মওলা বলেন, ভুক্তভোগি ব্যবসায়ী কৃষকরা একটি স্বারকলিপি দিয়েছেন। আমরা আইন অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ভর করেছে বিএনপি : ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১০৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সোমবার (৮ জুলাই) দুপুরে আওয়ামী লীগের সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের,বলেন কোটাবিরোধী আন্দোলনের মতো জনদুর্ভোগ কর্মসূচি পরিহার করা উচিত বলে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ২০১৮ সালে পরিপত্র জারি করে সব কোটা বিলুপ্ত করে সরকার। পরে কোটা পুনর্বহালের জন্য উচ্চ আদালতে আপিল করে সাতজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান।

সেতুমন্ত্রী বলেন, দেশের সর্বোচ্চ আদালতে বিষয়টি বিচারাধীন। উচ্চ আদালতের রায় না হওয়া পর্যন্ত আমাদের অপেক্ষা করতে হবে। আমরা মনে করি উচ্চ আদালত বাস্তব পরিস্থিতি বিবেচনা করে রায় দেবেন।

তিনি বলেন, এখানে রাজনৈতিক ইস্যু যুক্ত হয়েছে। বিএনপি এই আন্দোলনের ওপর ভর করেছে। তারা (বিএনপি) সাপোর্ট‌ করেছে। সাপোর্ট করা মানেই যুক্ত হয়ে যাওয়া। কারা যুক্ত হয়েছে, কোনো ষড়যন্ত্রের অংশ কী না, সব কিছু সময় বলে দেবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, এস এম কামাল হোসেন, সুজিত রায় নন্দী, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



জয়পুরহাটের পাঁচবিবি সীমান্তে বিজিবি-বিএসএফ ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৪৮জন দেখেছেন

Image
এস এম শফিকুল ইসলাম জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃপবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে জয়পুরহাটের পাঁচবিবির হাটখোলা সীমান্তে মিষ্টি উপহার দিয়ে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেছে বর্ডার গাড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও ভারতীয় বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স (বিএসএফ)।সোমবার  দুপুরে সীমান্তের ২৮১ মেইন পিলারের সাব ৫ পিলারের শূন্য রেখায় বিজিবি’র হাটখোলা ক্যাম্প কমান্ডার সুবেদার অসীম মারাকা  বিএসএফের ভারতীয় গয়েশপুর ক্যাম্প কমান্ডার এস আই ভীম  সিংকে মিষ্টি উপহার দিয়ে ঈদের শুভেচ্ছা জানান।  পরে  একই জায়গায়  ভারতের চকগোপাল ক্যাম্প কমান্ডার এস আই ডি নিতাই নান্দাকে মিষ্টি উপহার দেওয়া হয়। এসময় বিজিবি-বিএসএফ উভয় বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

হাটখোলা বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডার সুবেদার অসীম মারাকা  বলেন, সীমান্তে দুই বাহিনীর মধ্যে সৌহার্দ্য, সম্প্রীতি ও ভ্রাতৃত্ববোধ বজায় রাখতে দুই দেশের বিভিন্ন ধর্মীয় ও জাতীয় উৎসবে আমরা পরস্পর মিষ্টি ও ফুল উপহার দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়ে থাকি। এতে করে সীমান্তে দ্বায়িত্ব পালনে উভয় বাহিনীর মাঝে সুসম্পর্ক বজায় থাকে।  

এসময় গয়েশপুর ক্যাম্প কমান্ডার এস আই ভীম  সিংক ও চকগোপাল ক্যাম্প কমান্ডার এস আই ডি নিতাই নান্দা ভারতীয় বিএসএফের পক্ষ থেকে সকল বাংলাদেশিকে ঈদের শুভেচ্ছা জানান।

আরও খবর