Logo
আজঃ বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

খাগড়াছড়িতে পুলিশের অভিযানে ৩৪ লাখ টাকার সিগারেট জব্দ, গ্রেপ্তার এক

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৩২৮জন দেখেছেন

Image

জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:খাগড়াছড়ি জেলার মহালছড়ি থানা পুলিশের অভিযানে সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে নিয়ে আসা ৩৪ লাখ টাকার সিগারেট  জব্দ করেছে মহালছড়ি থানা পুলিশ। এসময় সিগারেট পাচারের সাথে জড়িত পিকআপ গাড়ি সহ এক জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সোমবার (২৭ নভেম্বর) রাত দেড়টার দিকে মহালছড়ি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই নিরস্ত্র) আরাফাত বিন ইউসুফ, সঙ্গীয় অফিসার ফোর্সসহ মহালছড়ি থানা এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা  করাকালীন সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মহালছড়ি ইউপির ২৪ মাইল ইউসিবি মহালছড়ি টু খাগড়াছড়ি  পাকা রাস্তার উপর কচুর ছড়া বোঝাই  পিক-আপগাড়ি করে অবৈধ সিগারেট নিয়ে যাচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে গাড়ির তল্লাশি চালিয়ে 

Super Slims Mond, premiun quality blend oris ১হাজার ৭০০ কার্টুন সিগারেট, সহ  আসামী  মোঃ সফিকুল আলম (২৩) কে গ্রেপ্তার করা হয়।

মহালছড়ি থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে 

উদ্ধারঃ  ৯৫০( নয়শত পঞ্চাশ ) কার্টুন  Super Slims Mond সিগারেট;  যাহার আনুমানিক মূল্য = ১৯,০০,০০০/- (উনিশ লক্ষ ) টাকা ২। ৭৫০( সাতশত পঞ্চাশ) কার্টুূন premiun quality blend oris সিগারেট,  যাহার আনুমানিক মূল্য = ১৫,০০,০০০/- (পনের লক্ষ) টাকা ,সর্বমোট ৩৪০০০০০/- (চৌ‌ত্রিশ লক্ষ) টাকা

গ্রেপ্তারকৃত আসামীরা হলেন-মোঃ সফিকুল আলম (২৩)খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার স্বনির্ভর বাজার, এলাকার আবুল হোসেন, এর ছেলে।

মহালছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)মো.আবুল হাসান জানান গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক অত্র থানায় মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন রহিয়াছে।

শুল্ক ফাঁকি দিয়ে চোরাই পথে কোনো পণ্য প্রবেশ ও বাজারজাত করতে দেওয়া হবে না জানিয়ে খাগড়াছড়ির পুলিশ সুপার মুক্তা ধর বলেন, আইন শৃংঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে মাদক ও চোরাচালানের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষনা করা হয়েছে। জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়নে জেলা পুলিশের প্রতিটি ইউনিট কাজ করে যাচ্ছে। মাদক ও চোরাচালান রোধে খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশের চলমান কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।


আরও খবর

ঢাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ২৬

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




কালিয়াকৈরে জোড়া পুলিশ বক্সের পাশে যুবক খুনের রহস্য উন্মোচন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৭৯জন দেখেছেন

Image

সাগর আহম্মেদ,কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:গাজীপুরের কালিয়াকৈরে জোড়া পুলিশ বক্সের পাশে সেই যুবককে খুনের রহস্য উন্মোচন করেছে কালিয়াকৈর থানা পুলিশ। মর্গে মিলে লাশের পরিচয়। ওই খুনের সঙ্গে জড়িত দুজনকে গ্রেপ্তারের পর তার খুনের রহস্য জানা যায়। মঙ্গলবার দুপুরে থানার ভেতরে প্রেসব্রিফিং করে এসব তথ্য জানান থানার ওসি এএফএম নাসিম।

নিহত যুবক হলেন, সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া থানার বানিয়াকৈড় এলাকার হায়দার আলী প্রামানিকের ছেলে ইমরান হোসেন শান্ত (২৪)।তার খুনের রহস্য উন্মেচন করার পর মঙ্গলবার দুপুরে প্রেসবিফিং করে কালিয়াকৈর থানা পুলিশ। এসময় উপস্থিত ছিলেন- কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এফ এম নাসিম, ওসি অপারেশন মোঃ যোবায়ের, সেকেন্ড অফিসার এসআই আজিম হোসেন, এসআই আনোয়ার হোসেনসহ অন্যান্য পুলিশ ও বিভিন্ন ইলেকটনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিক

বৃন্দ। পুলিশ জানায়, গত ১৮ জানুয়ারী সন্ধ্যায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের চন্দ্রা ত্রিমোড় এলাকায় নাওজোড় হাইওয়ে ও গাজীপুর জেলা পুলিশের দুটি বক্সের পাশে চুরিকাঘাতে এক যুবক খুন হয়।

তাৎক্ষনিকভাবে তার পরিচয় ও খুনের কারণ জানা যায়নি। তবে ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।

বিভিন্ন মিডিয়ায় সংবাদ ছাপার বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনার দুদিন পর মর্গে গিয়ে লাশ সনাক্ত করেন নিহতের চাচা দেওয়ান লিখন। নিহত ওই যুবকের নাম ইমরান হোসেন শান্ত। গত ২০ জানুয়ারী নিহতের ওই চাচা বাদী হয়ে কালিয়াকৈর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এরপর গাজীপুরের পুলিশ সুপার ও কালিয়াকৈর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপারের দিক নির্দেশনায়, কালিয়াকৈর থানার ওসির তত্বাবধানে চৌকশ অফিসার এসআই আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে অভিযান শুরু করে। অভিযান চালিয়ে কালিয়াকৈরের বিভিন্ন এলাকা থেকে খুনের সাথে জড়িত মাহাবুব হোসেন ওরফে বাধন ও সুজন মিয়া

খোকনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এসময় খুনের কাজে ব্যবহৃত একটি ধারালো ছুরি উদ্ধার করা হয়। পরে গ্রেপ্তারকৃতদের গাজীপুর বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হলে আসামীরা স্বীকারক্তিমুলক জবানবন্দি দেয়। তারা জানায়, মোবাইল ফোন ও টাকা ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে এ ঘটনা ঘটান।গ্রেপ্তারকৃত আসামী বাধন নাওগাঁর সদর থানার পিরোজপুর (মধ্যপাড়া) এলাকার রুহুল আমিনের ছেলে ও অপর আসামী খোকন গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর থানার এনায়েতপুর এলাকার নজল মিয়ার ছেলে।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এফ এম নাসিম জানান, আসামীরা দীর্ঘদিন যাবত কালিয়াকৈর ও আশুলিয়া থানা এলাকায় ভাড়া থেকে নানা অপকর্ম করে আসছিল। তাদের নামে বিভিন্ন থানায় চুরি, ছিনতাই ও মাদক মামলা রয়েছে। জোড়া পুলিশ বক্সের পাশে খুনের ঘটনার বিষয়ে তিনি বলেন, ওই দুটি পুলিশ বক্স ট্রাফিক ও হাইওয়ে যানবাহন নিয়ন্ত্রণে ব্যবহৃত হয়। রাঁতে যখন ওই ঘটনা ঘটে তখন হয়তো বক্সে পুলিশ ছিলেন না। তবে সবার সহযোগীতায় সুন্দর পরিছন্ন কালিয়াকৈর গড়তে চান এই কর্মকর্তা।


আরও খবর



দীঘিনালা থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে ইয়াবাসহ মাদক কারবারি গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭৯জন দেখেছেন

Image

জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ইমন হোসেন(২৩),নামের এক মাদক কারবারিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১৫ফেব্রুয়ারি)রাত সাড়ে ১০টার দিকে দীঘিনালা থানার একটি চৌকস আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দীঘিনালা থানা এলাকার বোয়ালখালী ইউনিয়নে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে  ৯নং ওয়ার্ডস্থ  জামতলী আনসার ক্যাম্পের গেটের সামনে পাকা রাস্তার উপর হতে  আসামী  ইমন হোসেন(২৩)এর দেহ তল্লাসী চালিয়ে তার পরিহিত প্যান্টের ডান পকেট হতে ৫১ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত আসামী- ইমন হোসেন(২৩) জেলার দীঘিনালা উপজেলার বোয়ালখালী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড জামতলী এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা মো.জাহাঙ্গীর আলম,এর ছেলে।

দীঘিনালা থানা পুলিশ জানান,গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা রুজু করা হইয়াছে। । গ্রেফতারকৃত আসামীকে বিধি মোতাবেক যথাসময়ে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হবে।


আরও খবর

ঢাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ২৬

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




তিন পর্বে হলে আরও সুষ্ঠু হবে নির্বাচন: সিইসি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৯৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:নির্বাচনকে যাতে আরও স্বচ্ছ, উন্নত করা যায় সেটা নিয়ে আমাদের কাজ করা প্রয়োজন, বলেছেন,প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল । তিন মাস ধরে নির্বাচন হয় ভারতে। আমাদের এখানে যদি তিনটা পর্বে সেটা করা যায় তাহলে আরও সহজ ও সুষ্ঠু হবে।

সিইসি বলেন, একই জেলার মধ্যে হওয়ার কারণে প্রশাসনের জন্য এটা সহজ হয়ে যাবে। ভোটার আসছে কি না, সহিংসতার সম্ভাবনা আছে কি-না, এমন বিষয় পর্যালোচনা করে কার্যকরী পদক্ষেপ নেওয়া যাবে। উপজেলায় এটা প্রয়োগ হচ্ছে। এটার বেশ কিছু ইতিবাচক দিক আমরা দেখতে পাচ্ছি।

মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁও নির্বাচন ভবনের সম্মেলন কক্ষে আরএফইডির নবনির্বাচিত কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ ও বিদায়ী কমিটির সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

উপজেলা নির্বাচনে দলীয় প্রতীক না থাকার বিষয়ে সিইসি বলেন, দলীয় প্রতীক না থাকলে এটারও ভালো দিক আছে। এটা তো জাতির জন্য নয়, এলাকার জন্য। স্থানীয় সরকার ছোট একটা এলাকায় পরিচালিত হয়, সীমিত ক্ষমতা নিয়ে। পাকিস্তানেও বিভিন্ন প্রতীক নিয়ে একটা অংশগ্রহণমূল নির্বাচন হয়েছে। দলীয় প্রতীক হোক কিংবা না হোক আমরা চাই সুন্দর নির্বাচন।

এ সময় প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, বিএনপিকে নির্বাচনে আনার জন্য ফোনে কথা বলেছি, ডিও লেটার দিয়ে আহ্বান জানিয়েছি। তারা আহ্বানে সাড়া দেয়নি। আমরা নির্দ্বিধায় বলেছি, তারা যদি নির্বাচনে অংশ নিতেন তাহলে সেটি অনেক বেশি অংগ্রহণমূলক হতো, ভোটার উপস্থিতিও বেশি হতো। তিনি বলেন,নির্বাচনটা সার্বজনীন হোক। বড় বড় দল অংশ না নিলে নির্বাচন অবৈধ হবে না। তবে নির্বাচনের ন্যায্যতা, গ্রহণযোগ্যতা খর্ব হবে। আমরা যদি সঠিক সমন্বয় ঘটাতে পারি নির্বাচন আরও সুন্দর হবে।

তিনি বলেন গণমাধ্যমের স্বাধীনতার বিষয়ে , অনেক সময় এটা আদায় করে নিতে হয়। স্বাধীনতা সব সময় থাকবে না। তবে স্বাধীনভাবে কাজ করলেও সব সময় চাপ আসবে তা নয়। গণমাধ্যমের ভূমিকাকে আরও শক্তিশালী কীভাবে করা যায়, তা নিয়ে কাজ করতে হবে। উন্নত বিশ্বে শাসকদের ঠিক জায়গায় রাখতে গণমাধ্যমে ব্যাপক ভূমিকা রাখছে। গঠনমূলক সামালোচনা করার করার কথাও বলেন।

তিনি বলেন, ক্ষমতা নয় দায়িত্বই আমাদের গ্রহণ করতে হয়। ক্ষমতা শব্দটিকে যদি আমরা পরিহার করতে পারি তাহলে দেশ ও সমাজ অনেক বেশি এগিয়ে যেতে পারে। গণমাধ্যমের ভূমিকা নিয়ে লম্বা বক্তৃতা দেওয়ার প্রয়োজন নেই। অনেক সময় রাষ্ট্রের স্তম্ভগুলো কাজ করে না, তখন সবগুলো কাজ গণমাধ্যম একাই করে সমাজকে বাঁচিয়ে রাখে।


আরও খবর



গোদাগাড়ীতে মসজিদের ইমামকে বহিস্কারকে কেন্দ্র করে মুসল্লীদের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৩৬জন দেখেছেন

Image

গোদাগাড়ী(রাজশাহী) প্রতিনিধিঃরাজশাহীর গোদাগাড়ীতে মসজিদের ইমামকে বহিস্কারকে কেন্দ্র করে মুসল্লীদের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে।পৌর এলাকার কেল্লারারুইপাড়া জামে মসজিদের ইমাম জসিমউদ্দীন বিন সমিরের বিরুদ্ধে জ্বিনের কবিরাজী করার ও মুসল্লিদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করায় তাকে কমিটি ইমাম পদ থেকে বহিস্কার করে।কিন্তু ইমাম জসিমউদ্দীন বিন সমির গুটি কয়েক জনের প্ররোচনায় জোর করে মসজিদে নামাজ পড়াতে যায়। এরপর কমিটির সাধারন সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ইমাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করে।থানায় বসে ইমাম ও কমিটির মধ্যে সমঝোতা হলে দুই মাসের বেতন দিলে ইমাম সেচ্ছায় চাকরি ছেড়ে দেন।তবে কমিটির সাবেক সম্পাদক ও এক সদস্য ইমামকে চাকরিতে বহাল রাখার আশ্বাস দিয়ে ইউএনও কাছে পাঠায়। কমিটি ও ইমাম পুনরায় ্ধসঢ়;ইউএনওর কাছে বসে আগের সিদ্ধান্তের একমত হয়ে কমিটির সিদ্ধান্তকে মেনে নেন ইমাম।মসজিদ কমিটির সাধারন সম্পাদক শফিকুল ইসলাম বলেন,ইমাম জসিমউদ্দীন বিন সমির উর্দ্দা দিয়ে পান খাওয়া ও মিথ্যা কথা বলা,খুৎবা দিতে গিয়ে হাদিস কোরআনের মূল আলোচনা বাদ স্থানীয় রাজনীতি ও রাস্ট্র বিরোধী কথা বার্তা বলার অভিযোগ উঠায় কমিটির সকল সদস্য একমত হয়ে ইমামকে বাদ দেয়া হয়েছে। অস্থায়ীভাবে একজন ইমাম রেখে নামাজ পড়ানো হচ্ছে। শ্রীঘ্রই একজন ইমাম নিয়োগ নিয়োগ দেয়া হবে। ইমাম জসিমউদ্দীন বিন সমির তার বিরুদ্ধে উঠা অভিযোগ অস্কীকার করে বলেন,কমিটি আমাকে অন্যায় ভাবে বাদ দিচ্ছে।এদিকে মসজিদের ইমামকে কেন্দ্র মুসল্লীদের মাঝে উত্তেজনা সৃষ্টি প্রসঙ্গে গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) আব্দুল মতিন বলেন,শুক্রবার(২৩ ফেব্রয়ারী) মসজিদে কোন ধরনের অরাজকতা করলে তার রিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ফুলবাড়ীতে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার প্রথম দিন অনুপস্থিত ২৩ জন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৪৯জন দেখেছেন

Image

ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি:দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি), দাখিল ও ভোকেশনাল (সমমান) পরীক্ষায় প্রথম দিনেই অনুপস্থিত ছিলেন ২৩ জন।

গত বৃহস্পতিবার (৩০ ফেব্রুয়ারি) উপজেলার পরীক্ষা কেন্দ্রগুলোতে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে এসএসসি, দাখিল ও ভোকেশনাল (সমমান) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে প্রথম দিনেই অনুপস্থিত শিক্ষার্থীর সংখ্যা ২৫ জন। উপজেলার সুজাপুর সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, জিএম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ও দারুস সুন্নাহ সিদ্দিকীয়া মাদ্রাসা পরীক্ষা কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, শিক্ষার্থীরা শান্তিপূর্ণ ভাবে পরীক্ষা দিচ্ছে।

বিদ্যালয়ের গেটের বাহিরে অপেক্ষা করছেন অভিভাবকরা। পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আতাউর রহমান মিল্টন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর মোঃ আল কামাহ তমাল, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ জাফর আরিফ চৌধুরী, থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান প্রমূখ।উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা দফতর সূত্রে জানা যায়, চলতি এসএসসি পরীক্ষায় ২ হাজার ১ শত ০৬ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহন করার কথা থাকলেও জেনারেল শাখায় ১৪৭৯ পরিক্ষার্থীর মধ্যে ৯ জন পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত। দাখিল পরীক্ষায় ৩৬০ জনের মধ্যে ১২ জন অনুপস্থিত।ভোকেশনাল পরীক্ষায় ২৫০ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ২ জনসহ অনুপস্থিত মোট ২৩ জন পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর মোঃ আল কামাহ জানান, উপজেলার সুজাপুর সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যাল, ফুলবাড়ী গোলাম মোস্তফা (জিএম) পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, দাদুল চোকিয়াপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়, দারুস সুন্নাহ সিদ্দিকীয় মাদ্রাসা কেন্দ্রে অত্যন্ত সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে প্রথম দিনের এসএসএসি/সমমান পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কেন্দ্র গুলোতে কঠোর নজরদারি রাখা হয়েছে। কোন প্রকার বিশৃঙ্খলার ঘটনা ঘটেনি। আশা করা যাচ্ছে বাকি পরীক্ষাগুলোর সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত হবে।


আরও খবর