Logo
আজঃ Monday ০৮ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড নিখোঁজ সংবাদ প্রধানমন্ত্রীর এপিএসের আত্মীয় পরিচয়ে বদলীর নামে ঘুষ বানিজ্য

জুরাইনে পাশের বাড়ির উপড় ধসে পড়েছে সেই ঝুকিপুর্ন ভবনটি

প্রকাশিত:Saturday ২৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ১৩৬জন দেখেছেন
Image

বজলুর রহমানঃ

রাজধানীর কদমতলী থানাধীন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৫২নং ওয়ার্ডের মুরাদপুর মাদ্রাসা রোডে অবস্থিত ১৬৫ নং হোল্ডিংয়ের নির্মানধীন রাজউকের অনুমোদন বিহীন ভবনটির দক্ষিন পাশের একাংশ ধসে পড়েছে পার্শবর্তী বাড়ির উপড়।গত ২৩ জুন বৃস্পতিবার বিকেল ৪ টার সময় এ ঘটনা ঘটে।তবে ঘটনার সময় পাশের বাড়ির মালিক মোঃ ফাহাদ হোসেনের ঘরে কোন লোকজন না থাকায় দুর্ঘটনায় কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।


ধসে পড়া ভবন মালিক মোঃ বিল্লাল হোসেন ৬ তলা বিশিষ্ট পুরাতন একটি ভবন রাজউকের নিয়মনীতি উপেক্ষা করে ঝুকিপুর্নভাবে ভবনটির নির্মান কাজ চালিয়ে আসছিল।গত ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২২ তারিখে ঝুকিপুর্ন ভবনটি নিয়ে দৈনিক আমাদের কন্ঠ পত্রিকায় একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।স্থানীয় কাউন্সিলর কে বিষয়টি অবগত করা হয়।তবে শত অভিযোগের পরেও রাজউক কিংবা ঢাকা দক্ষিন সিটিকর্পোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলরের পক্ষ থেকে কোন ব্যাবস্থাই গ্রহন করা হয়নি।



তাছারাও একই স্থানে আরো ৫ টি ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে শতাধিক পরিবার বসবাস করে আসছে দীর্ঘ বছর যাবৎ।এসব ভবনেও যেকোনো মুহূর্তে ঘটে যেতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।ধসে পড়া ভবন মালিক মোঃ বিল্লাল হোসেনের কন্যা বিলকিস এর ৩ তলা ভবনটি অধিক ঝুকিপুর্ন বলেও জানায় পার্শবর্তী বাড়ির লোকজন।বাড়ির মালিক বিল্লাল ও তার ছোট মেয়ে বিলকিস এর সাথে কথা বললে তারা জানায়, "আমাদের ভবনগুলো ঝুঁকিপূর্ণ এটা নতুন কিছু না।স্থানীয় কমিশনারসহ এলাকার সকলেই অবগত আছেন, কোন ধরনের সমস্যা দেখা দিলে তারা এ বিষয়টি দেখবেন।" 


স্থানীয়রা জানায় রাজউক কর্মকর্তা ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তারা কয়েকবার এসেছে ঝুঁকিপূর্ণ ভবন পরিদর্শনে কিন্তু ওই কর্মকর্তারা বাড়ির মালিকদের কাছ থেকে গোপনে মোটা অংকের টাকা নিয়ে বার বার বিষয়টি ধামাচাপা দিয়ে রেখেছেন।



ঝুঁকিপূর্ণ ভবন গুলোর দিকে নজর নাই রাজধানী উন্নয়ন রাজউক কর্তৃপক্ষের, এমনকি ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের কর্তব্যরতদের। কয়েকজন ভাড়াটিয়ার সাথে কথা হলে তারা জানায় স্বল্প ভাড়ার কারণে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এসব ভবনে বসবাস করছেন তারা।



স্থানীয় ৫২ নং ওয়ার্ড কমিশনার মোঃ রুহুল আমিন এর সাথে কথা বললে তিনি জানান ভবনগুলো ঝুঁকিপূর্ণ তা সত্য তাছাড়াও আমার এলাকায় অগণিত ঝুঁকিপূর্ণ ভবন আছে যা রাজউক কর্তৃপক্ষের নজরে নাই ঝুঁকিপূর্ণ ভবনগুলোর বিষয়ে জরুরী আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া জরুরী বলে মনে করছি।


আরও খবর



অনাবৃষ্টিতে আমন ক্ষেত ফেটে চৌচির, পাট জাগ দেওয়া নিয়ে শঙ্কা

প্রকাশিত:Monday ১৮ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ০৩ August ২০২২ | ৫০জন দেখেছেন
Image

আষাঢ় শেষে শ্রাবণের তৃতীয় দিন চললেও তিন সপ্তাহ ধরে বৃষ্টি নেই নীলফামারীতে। প্রখর রোদে শুকিয়ে গেছে নদী-নালা, খাল-বিল ও জলাশয়। পানির অভাবে ব্যাহত হচ্ছে আমন ধান রোপণ। কিছু জায়গায় বিকল্প পদ্ধতিতে রোপণ করা গেলেও ফেটে চৌচির হয়ে পড়েছে ক্ষেত।

অন্যদিকে পানি শুকিয়ে যাওয়ায় পাটের জাগ দিতে পারছেন না কৃষকরা। পাট কাটলেও জাগ দিতে না পরায় জমিতে কিংবা রাস্তায় ফেলে রেখেছেন অনেকে। ফলে রোদে শুকিয়ে যাচ্ছে পাট গাছ।

তবে কৃষি বিভাগ বলছে, অনাবৃষ্টিতে পাটের তেমন ক্ষতি না হলেও সময় মতো আমন দান রোপণ করতে না পারলে ধানের ফলন ভালো নাও হতে পারে।

nil-(3)

নীলফামারীর চওড়া এলাকার কৃষক রশিদুল বলেন, ‘২০ দিন আগে দুই বিঘা জমিতে ধান রোপণ করা হয়েছে। বৃষ্টি না হওয়ায় পানির অভাবে ক্ষেত ফেটে গেছে। ধান হলুদ বর্ণ ধারণ করেছে।’

কৃষক তফিজুল বলেন, ‘বিকল্প পদ্ধতিতে পানি দিয়ে বীজতলা তৈরি করা হলেও অনাবৃষ্টির কারণে জমিতে চাষাবাদ করা যাচ্ছে না। বৃষ্টিনির্ভর আমন ধান সময় মতো রোপণ করতে না পরলে ধানের সংকট দেখা দিতে পারে।’

বড় রাউতার কৃষক তাইজুল বলেন, ‘পানির অভাবে আমরা জমি এখনো চাষের উপযুক্ত করে তৈরি করতে পারিনি। আর এক সপ্তাহ বৃষ্টির দেখা না মিললে বীজতলাগুলো নষ্ট হয়ে যাবে। সেচ দিয়ে বোরো ধান আবাদ করলেও আমন ধান প্রকৃতির ওপরই নির্ভর করে। তাই বৃষ্টিই আমাদের ভরসা।’

নীলফামারী সদর উপজেলার পাট চাষি হামিদুর রহমান বলেন, ‘পাট গাছ প্রায় ১৫ দিন আগেই কাটা হয়েছে। খাল-বিল ও পুকুরে পানি না থাকায় গাছে জাগ দিতে পারছি না। এভাবে আর সপ্তাহ খানেক চললে ক্ষেতেই পাট গাছ নষ্ট হয়ে যাবে।’

সাংগলশী এলাকার তপন বলেন, ‘দুই বিঘা জমিতে পাট আবাদ করেছি ফলনও ভালো হয়েছে। এখন জাগ দেওয়া নিয়ে শঙ্কায় পড়ে গেছি।’

nil-(3)

ডোমার পৌর সভার পাটচাষি বুলু বলেন, ‘চার বিঘা জমির সব পাট গাছ কেটে জমিতে ফেলে রাখা হয়েছে। এক বিঘা জমির পাট জাগ দিতে পারলেও পানির অভাবে বাকি তিন বিঘা জমির পাট কেটে ক্ষেতেই ফেলে রাখা হয়েছে।’

নীলফামারী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. আবু বক্কর সিদ্দিক জাগো নিউজকে বলেন, আমন ধান বৃষ্টিনির্ভর। অনেক জায়গায় পানির অভাবে ক্ষেত ফেটে গেছে। সঠিক সময়ে এ ধান রোপণ করতে পারলে ফলন ভালো হয় না। তাই কৃষকদের শ্যালোমেশিন দিয়ে ধান রোপণ করতে পরামর্শ দিচ্ছি। তবে এ এলাকার কৃষকরা শ্যালো দিয়ে জমি চাষ করতে ততটা আগ্রহী নন।

পাটের কোনো অসুবিধা হবে না জানিয়ে তিনি বলেন, পাট গাছ কেটে রাখা হলেও সমস্যা নাই। আবার জমিতে রেখে দিলেও নষ্ট হওয়ার হবে। বৃষ্টি এলেই খাল-বিলে পানি জমলে পাট গাছে জাগ দেওয়া যাবে।’


আরও খবর



ঢাকা সফরে আসছেন মার্কিন পলিসি উপদেষ্টা লরা স্টোন

প্রকাশিত:Monday ০১ August ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ০৬ August ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
Image

দুদিনের সফরে ঢাকায় আসছেন যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসনের সিনিয়র পলিসি অ্যাভাইজার (উপদেষ্টা) লরা স্টোন। কূটনৈতিক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সরকারি এ সফরে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমসহ ঢাকার উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করার কথা রয়েছে তার। একই সঙ্গে তিনি অংশ নেবেন মার্কিন দূতাবাসের কিছু কর্মসূচিতেও।

জানা গেছে, করোনা মোকাবিলায় বৈশ্বিক ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম সমন্বয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত লরা স্টোন বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের ভ্যাকসিন সহায়তা, এর প্রয়োগ এবং মহামারি পরিস্থিতি উত্তরণের অভিজ্ঞতা বিনিময় করবেন।

লরা স্টোন আগে যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক ডেপুটি অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি ছিলেন। বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ এবং ভুটান বিষয়ক মার্কিন নীতি এবং সম্পর্কের তদারকি করতেন তিনি।


আরও খবর



১৫৪ যাত্রী নিয়ে টরন্টো গেল বিমানের প্রথম ফ্লাইট, ফাঁকা ১৪৪ আসন

প্রকাশিত:Wednesday ২৭ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৫৩জন দেখেছেন
Image

অবশেষে কানাডার টরন্টোর উদ্দেশে উড়াল দিয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের প্রথম বাণিজ্যিক ফ্লাইট। বুধবার (২৭ জুলাই) ভোর ৩টা ৫০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ফ্লাইটটি টরন্টোর উদ্দেশ্যে উড়াল দেয়। ফ্লাইটটিতে ১৫৪ জন যাত্রী ছিল।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) তাহেরা খন্দকার জাগো নিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ব্র্যান্ড নিউ বোয়িং ৭৮৭-৯ ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজের মাধ্যমে ঢাকা-টরন্টো রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করবে বিমান। এ উড়োজাহাজে আসন সংখ্যা ২৯৮টি।

‘টরন্টোগামী বিজি-৩০৫ ফ্লাইটটি তুরস্কের ইস্তাম্বুল বিমানবন্দরে নেমে জেট ফুয়েল নেবে। এ জন্য সেখানে ১ঘন্টা বিরতি নিবে। এরপর এটি আবার টরন্টোর উদ্দেশে রওনা দিবে। তবে ফেরার সময় টরন্টো থেকে সরাসরি ঢাকায় আসবে। যাওয়ার সময় ফ্লাইটটির প্রায় ২০ ঘণ্টা লাগবে। সেখান থেকে বাংলাদেশে ফিরতে সময় লাগবে ১৬ ঘণ্টা।

মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে টরন্টো ফ্লাইটের সময়সূচি জানান তাহেরা খন্দকার। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৭ জুলাই থেকে সপ্তাহে প্রতি বুধবার বিজি-৩০৫ বাংলাদেশ সময় ভোর ৩টা ৩০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে টরন্টোর উদ্দেশে যাত্রা করবে। যাত্রাপথে ফ্লাইটটি রিফুয়েলিংয়ের জন্য স্থানীয় সময় সকাল ৯টায় তুরস্কের ইস্তাম্বুলে অবতরণ করবে। ১ঘণ্টা বিরতি শেষে ইস্তাম্বুল থেকে রওনা দিয়ে স্থানীয় সময় দুপুর ১টা ৫৫ মিনিটে ফ্লাইটটি টরন্টো পৌঁছাবে।

এর আগে গত ২৬ মার্চ প্রথমবারের মতো ঢাকা থেকে টরেন্টোর উদ্দেশে পরীক্ষামূলক বাণিজ্যিক ফ্লাইট পরিচালনা করেছিল বিমান।


আরও খবর



বাড়ির আঙিনা থেকে ১০০ গাঁজা গাছ জব্দ, দম্পতি পলাতক

প্রকাশিত:Sunday ৩১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ০৬ August ২০২২ | ৩৫জন দেখেছেন
Image

শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার সুরুজ মাদবরের বাড়ির আঙিনা থেকে ১০০ গাঁজা গাছ জব্দ করা হয়েছে। রোববার (৩১ জুলাই) বিকেল সাড়ে চারটার দিকে উপজেলার পূর্ব নাওডোবা ইউনিয়নের উকিল উদ্দিন মুন্সিকান্দি গ্রামে অভিযান চালিয়ে গাঁজার গাছগুলো জব্দ করে পুলিশ। তবে এ ঘটনার পর থেকে বাড়ির মালিক তার স্ত্রী পলাতক রয়েছেন।

jagonews24

পুলিশ জানায়, সুরুজ মাদবর (৪১) ও তার স্ত্রী সুমি বেগম (৩৬) দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় মাদকের কারবার করে আসছিলেন। এজন্য তিনি বাড়ির আঙিনায় গাঁজার গাছ রোপণ করেন। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে গোয়েন্দা সদস্যরা খবর পেয়ে পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানার পুলিশ সদস্যদের নিয়ে যৌথ অভিযান চালান। বিষয়টি টের পেয়ে সুরুজ ও সুমি বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যান। এসময় ১০০টি গাঁজার গাছ জব্দ করে পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় সুরুজ ও সুমির বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

jagonews24

স্থানীয় ইউপি সদস্য মজিবুর রহমান মাদবর বলেন, এই ঘটনায় আমরা অনেকটাই হতবাক। এখানে এইভাবে গাঁজার চাষ হচ্ছে তা আমরা কল্পনাও করতে পারিনি। যারা এতে জড়িত তাদের আইনের আওতায় আনা হোক।

পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে গাজা গাছগুলো উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসেছি। তবে গাঁজা চাষি সুরুজ ও তার স্ত্রী সুমি পলাতক। তাদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।


আরও খবর



নেত্রকোনায় আদালত থেকে নথি চুরি, কর্মচারী গ্রেফতার

প্রকাশিত:Wednesday ২৭ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ০৩ August ২০২২ | ১২জন দেখেছেন
Image

আদালত থেকে মামলার নথি চুরি ও বিনষ্ট করার অভিযোগে নেত্রকোনা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১ এর এক কর্মচারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) সন্ধ্যায় মডেল থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

এর আগে সোমবার রাতে চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের নাজির মো. নুরুজ্জামান বাদী হয়ে ওই কর্মচারীর বিরুদ্ধে মামলা করেন।

গ্রেফতার ওই কর্মচারীর নাম জলিলুর রহমান (৩২)। তিনি ওই আদালতের স্টেনোগ্রাফার হিসেবে কর্মরত। তার বাড়ি সদর উপজেলার ফরিদপুর এলাকায়।

পুলিশ ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, জলিলুর রহমান প্রায় আট বছর আগে চাকরিতে যোগ দেন। তিনি নেত্রকোনা চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে স্টেনোগ্রাফার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। সেখান থেকে তাকে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১ এ বদলি করা হয়। কিন্তু তিনি আগের কর্মস্থল চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত থেকে একটি মামলার নথি চুরি করেন। পরে বিষয়টি টের পেয়ে ওই আদালতের নাজির মো. নুরুজ্জামান বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে মামলা করেন। পরে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়। এসময় পুলিশ ও আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা আদালতের পেছন থেকে নথির ছেড়া আংশিক অংশ উদ্ধার করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বুধবার (২৭ জুলাই) দুপুর আড়াইটার দিকে নেত্রকোনা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার শাকের আহমেদ বলেন, গ্রেফতার স্টেনোগ্রাফার জলিলুর রহমানকে আদালতে হাজির করার জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। তাকে পাঁচদিনের রিমান্ড চাওয়া হবে।


আরও খবর