Logo
আজঃ Friday ১৯ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে আবাসিকের অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন ডেমরায় প্যাকেজিং কারখানায় ভয়বহ অগ্নিকান্ড রূপগঞ্জে পুলিশের ভুয়া সাব-ইন্সপেক্টর গ্রেফতার রূপগঞ্জে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ॥ সভা সরাইলে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত। নারায়ণগঞ্জে পারিবারিক কলহে স্ত্রীকে পুতা দিয়ে আঘাত করে হত্যা,,স্বামী গ্রেপ্তার রূপগঞ্জ ইউএনও’র বিদায় সংবর্ধনা নাসিরনগরে স্বামীর পরকিয়ার,বলি ননদ ভাবীর বুলেটপানে আত্মহত্যা নাসিরনগরে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদত বার্ষিকী পালিত ডেমরায় জাতীয় শোক দিবসের কর্মসুচি পালিত

জাতীয় বা স্থানীয় কোনো নির্বাচনেই অংশ নেবে না বিএনপি

প্রকাশিত:Friday ০৭ January ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৫২৩জন দেখেছেন
Image

বর্তমান সরকারের অধীনে জাতীয় বা স্থানীয় কোনো নির্বাচনেই অংশ নেবে না বিএনপি- এ সিদ্ধান্ত আগেই নেওয়া ছিল। তবে স্থানীয় সরকার নির্বাচনের ক্ষেত্রে কিছুটা ছাড় ছিল- দলের কেউ চাইলে স্বতন্ত্র প্রার্থিতা করতে পারবে। কিন্তু এবার সেই পথও বন্ধ করে দিয়েছে বিএনপি। দল থেকে জানানো হয়েছে, সিদ্ধান্ত অমান্য করে গুরুত্বপূর্ণ পদধারী কোনো নেতা স্বতন্ত্র হিসেবে ভোট করলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দলের এ সিদ্ধান্তের কথা গতকাল বৃহস্পতিবার আমাদের সময়কে জানান বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, গুরুত্বপূর্ণ পদধারী কেউ স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যারা নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেবেন তারাও ছাড় পাবেন না। এ সিদ্ধান্ত অমান্য করলে তা শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকাণ্ড বলে গণ্য হবে।

বিএনপির দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা ও সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশগ্রহণ করায় গতকাল পর্যন্ত পাঁচ নেতাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। নোয়াখালী পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থী হওয়ায় দুই নেতাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তারা হলেন জেলা বিএনপির কোষাধ্যক্ষ ও নোয়াখালী পৌরসভা বিএনপির সভাপতি আবু নাছের এবং জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম। গত বুধবার রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত চিঠিতে এ আদেশ দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে শহিদুল ইসলাম বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়া যাবে বলে দলের কেন্দ্রীয় পর্যায় থেকে ঘোষণা দেওয়ার কারণেই তিনি প্রার্থী হয়েছেন। এর মধ্যে দলীয় সিদ্ধান্ত পরিবর্তন হয়েছে কিনা, তা জানি না। সিদ্ধান্ত পরিবর্তন হলে আগেই আমাদের জানানো উচিত ছিল। এখন এমন সময় অব্যাহতির সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছে, এ সময় পিছু হটার কোনো সুযোগ নেই। আর আবু নাছের বলেন, বিএনপি স্থানীয় সরকার নির্বাচনে প্রথমে অংশ নিয়েছিল। এর পর অনিয়মের কারণে সিদ্ধান্ত নেয়, এ সরকারের অধীনে আর কোনো স্থানীয় সরকার নির্বাচনে অংশ নেবে না। এর পর ঘোষণা দেওয়া হয় স্থানীয় পর্যায়ের কোনো নেতা চাইলে স্বতন্ত্র হিসেবে প্রার্থী হতে পারবেন। দলের এ সিদ্ধান্তে নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছি। কিন্তু কোনো ধরনের কারণ দর্শানো ছাড়াই সরাসরি দলের পদ থেকে অব্যাহতির চিঠিতে হতবাক হয়েছি।

এ ছাড়া নাটোরের বাগাতিপাড়া পৌরসভায় মেয়র পদে নির্বাচন করায় পৌর বিএনপির আহ্বায়ক আমিরুল ইসলাম জামাল এবং স্থানীয় একটি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হওয়ায় বাগাতিপাড়া উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক শরিফুল ইসলামকে তাদের পদ থেকে গতকাল অব্যাহতি দেওয়া হয়। যদিও দলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ওই দুই প্রার্থী আগেই দলের কাছে অব্যাহতি চেয়েছিলেন। এর আগে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থিতা করা তৈমূর আলম খন্দকারকে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টার পদ ও নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির আহ্বায়কের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়।

সরকারবিরোধী আন্দোলন জোরদার করতেই দলটি এ কঠোর অবস্থান নিয়েছে। বিএনপি নেতারা মনে করেন, দেশে-বিদেশে চাপে থাকা সরকার এখন সুষ্ঠু নির্বাচন করে ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধারের চেষ্টা করবে। আবার দলের নেতাকর্মীরা নির্বাচনের দিকে মনোযোগ দিলে চলমান আন্দোলনের গতি মন্থর হয়ে পড়বে। সে ক্ষেত্রে একটা বার্তা নিয়ে সক্রিয় থাকতে চায় বিএনপি। সেটা হলো নিরপেক্ষ সরকার প্রতিষ্ঠা।


আরও খবর



স্কুলশিক্ষক হত্যা: তিনজনের মৃত্যুদণ্ড, একজনের আমৃত্যু কারাদণ্ড

প্রকাশিত:Wednesday ১৭ August ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ১৮ August ২০২২ | ১১জন দেখেছেন
Image

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় স্কুলশিক্ষক খান মো. আলাউদ্দীন হত্যা মামলায় তিন আসামিকে মৃত্যুদণ্ড ও একজনকে আমৃত্যু কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। বুধবার (১৭ আগস্ট) দুপুরে ঝিনাইদহের দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. নাজিমুদ্দৌলা এ আদেশ দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- শৈলকুপা উপজেলার শিতলী গ্রামের রান্নু খাঁন, একই গ্রামের জামাল খান ও কানু খাঁন। মামলায় আসামি শামছুর রহমান খাঁনকে আমৃত্যু কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া মামলার অপর তিন আসামী চান্নু খাঁন, জাফন খাঁন ও সাদী খাঁনকে বেকসুর খালাস দেন আদালত।

মামলার বিবরণে জানা যায়, শৈলকুপার শিতলী গ্রামের শারমিন নাহারের সঙ্গে সুপারি গাছের মালিকানা নিয়ে রান্নু খানের বিরোধ তৈরি হয়। এরই জেরে ২০১৪ সালের ৭ সেপ্টেম্বর সকালে আসামিরা শারমিনের বাড়িতে গিয়ে তাকে ও তার স্বামী রিপন আলী খাঁনকে মারধর শুরু করেন। সেসময় তাদের চাচা খাঁন মো. আলাউদ্দিন তাদের রক্ষা করতে গেলে তাকে লোহার রড ও হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে ফেলে যান আসামিরা। এসময় প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে শৈলকুপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। সেখান থেকে চিকিৎসকরা ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। সেখানেও তার অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য হলে ঢাকায় পাঠানো হয়।

ঢাকা নেওয়ার পথে আলাউদ্দীন মারা যান। এ ঘটনার পরদিন নিহতের স্ত্রী মোছা. শিউলী খাতুন বাদী হয়ে শৈলকুপা থানায় সাতজনকে আসামি করে মামলা করেন। সেই মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত তিনজনকে মৃত্যুদণ্ড ও একজনকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দেন আদালত। মামলার বাকি তিন আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় বেকসুর খালাস দেওয়া হয়।

মামলার রায় ঘোষণার পর আদালত প্রাঙ্গণে উপস্থিত নিহতের ছেলে রাশিদুল ইসলাম রাশেদ খাঁন বলেন, আমাদের চোখের সামনেই আমার বাবাকে ওই সাতজন পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করে। রায়ে আমরা খুশি। তবে মামলার তিন আসামিকে খালাস দেওয়ায় কিছুটা হতাশ হয়েছি। তাদের শাস্তির জন্য পুনরায় উচ্চ আদালতে আপিল করবো।

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. ইসমাইল হোসেন বাদশা বলেন, দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত যে রায় দিয়েছেন তাতে আমরা সন্তুষ্টি প্রকাশ করছি। তবে আদালতের কাছে দ্রুত রায় কার্যকরের আশা করছি।


আরও খবর



নিউজিল্যান্ডে ক্রিকেটে ‘বর্ণবাদি আচরণে’র বোম ফাটালেন রস টেলর

প্রকাশিত:Thursday ১১ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৭৯জন দেখেছেন
Image

গত এপ্রিল মাসেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের সাবেক ব্যাটার রস টেলর। তিন ফরম্যাট মিলিয়ে ১৮ হাজারের বেশি রান করেছেন টেলর। অবসর নেয়ার পরই তিনি বাজারে আনলেন নিজের আত্মজীবনী, ‘রস টেলর ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট’।

এই বইতেই গুরুতর অভিযোগ তুললেন রস টেলর। সেখানে তিনি অভিযোগ করেছেন, নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটে কিভাবে বর্ণবাদের চর্চা হয়। তার মতে, নিউজিল্যান্ডে ক্রিকেট শুধুমাত্র সাদাদের খেলা। এখানে তিনি প্রতিনিয়ত কতটা বর্ণবাদি আচরণ এবং নিগ্রহের শিকার হতেন, সে বর্ণনা তুলে ধরেছেন। এমনকি অন্য যারা বর্ণবাদের শিকার হতেন, সেটাও তুলে ধরেছেন।

রস টেলর পুরোপুরি শেতঙ্গ নন। মায়ের দিক থেকে তিনি একজন সামোয়ান। তার শরীরের রঙ কিছুটা বাদামী। এ কারণে, ড্রেসিংরুমেই তিনি সাদাদের কাছ থেকে অনেক বর্ণবাদের শিকার হয়েছেন বলে দাবি করেছেন। শুধু তাই নয়, ড্রেসিংরুমে এসব বর্ণবাদকে স্রেফ ঠাট্টা হিসেবেই দেখা হতো।

টেলর লিখেছেন, ‘নিউজিল্যান্ডে ক্রিকেট হচ্ছে সবচেয়ে বেশি সাদাদের খেলা। আমার পুরো ক্যারিয়ারে সাদাদের মধ্যে আমিই ছিলাম একমাত্র ব্যতিক্রম। ভ্যানিলা লাইনআপে আমিই ছিলাম একমাত্র বাদামী মুখের।’

রস টেলরের অভিযোগ ওঠার পরই নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট (এনজেডসি) আজ জানিয়েছে, টেলরের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তদন্ত শুরু হয়েছে।

তবে ঠিক কোন পর্যায়ের খেলায় বর্ণবাদের শিকার হয়েছেন, তা নির্দিষ্ট করে বলেননি। ড্রেসিংরুমের পরিবেশ নিয়ে টেলর জানিয়েছেন, ‘ড্রেসিংরুমের টিপ্পনি অনেকভাবেই চাপ বিস্তার করত। এক সতীর্থই আমাকে বলত, রস, তুমি অর্ধেক ভালো মানুষ। কিন্তু কোন অর্ধেকটা ভালো? আমি কী বোঝাচ্ছি সেটা তুমি জানো না। কিন্তু আমি বুঝে নিতাম। জাতিগত বিষয় নিয়ে এমন সব কথা অন্য খেলোয়াড়দেরও মেনে নিতে হয়েছে। একজন পাকেহা (নিউজিল্যান্ডের সাদা চামড়ার মানুষ) এসব শুনে ভাবত, ওহ, এসব তো স্রেফ ঠাট্টা–মশকরা। কিন্তু তাদের দৃষ্টিভঙ্গিটা সাদা চামড়ার মানুষ হিসেবে, আর এসব কথা তাদের শুনতে হয় না। তাই কোনো প্রতিবাদ হতো না, কেউ শুধরে দিত না।’


আরও খবর



প্রাইভেটকারে গার্ডার: ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট

প্রকাশিত:Wednesday ১৭ August ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ১৮ August ২০২২ | ২১জন দেখেছেন
Image

রাজধানীর উত্তরায় নির্মাণাধীন বাস র্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের ক্রেন থেকে গার্ডার ছিটকে পড়ে প্রাইভেটকারের পাঁচ যাত্রী নিহত হওয়ার ঘটনায় প্রত্যেকের পরিবারকে এক কোটি টাকা করে ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট আবেদন দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার (১৭ আগস্ট) সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী জাকারিয়া খান এ রিট দায়ের করেন।


আরও খবর



আমার বাড়িতে এত টাকা রাখা হয়েছিল জানতাম না: অর্পিতা

প্রকাশিত:Friday ২৯ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৬৬জন দেখেছেন
Image

প্রায় সাড়ে ১৩ ঘণ্টা তল্লাশি চালানোর পর অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের ফ্ল্যাট থেকে নগদ ৩০ কোটি টাকাসহ ৫ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার করেছে অ্যানফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) কর্মকর্তারা। বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) ভোর ৫টার দিকে টাকা গোনা শেষ হয়।

এরপর ইডির অন্যান্য প্রক্রিয়া শেষে সকাল ৬টার দিকে নগদ অর্থসহ অন্যান্য জিনিস জব্দ করা হয়। পরে অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার জিনিসের একটি তালিকাও আবাসন কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

তবে ইডি সূত্রে জানা গেছে, ইডির কার্যালয়ে বসে টিভিতে টাকার ছবি দেখে উত্তেজিত হয়ে অর্পিতা মুখোপাধ্যায় প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের তাকিয়ে বলে ওঠেন, স্যার, এত টাকা আমার বাড়িতে রাখা হয়েছিল? এরপরে ইডির কর্মকর্তাদের দিকে তাকিয়ে বলেন, ‘বিশ্বাস করুন। এত টাকার কথা আমি জানতাম না।’

ইডির দাবি, প্রাথমিক জিঙ্গেসাবাদে জানা গেছে, টালিগঞ্জ ও বেলঘরিয়ার ফ্ল্যাটে টাকা নিয়ে যেতেন পার্থের প্রতিনিধি। সেই টাকা রেখে তারা চলে আসতেন।

‘বুধবার টিভিতে টাকার পরিমাণ দেখার পরে অর্পিতা বলেন, ‘এর মধ্যে (বাজেয়াপ্ত হওয়া টাকা) এক টাকাতেও হাত দেওয়ার অধিকার ছিল না আমার। গয়না আলমারির লকারে রাখা থাকত। কয়েকটা হয়তো আমি পরেছি। কিন্তু এই গয়নাতেও আমার কোনও অধিকার ছিল না।’

ইডি সূত্রের দাবি, এই সময়ে পার্থ নাকি চুপ করে বসেছিলেন। অর্পিতা বলতে থাকেন, ‘স্যার। আমার নামে সম্পত্তি-কোম্পানি সবই রয়েছে। প্র্যাকটিক্যালি আই অ্যাম নট অ্যান ওনার অব দিজ প্রোপার্টি। আই অ্যাম পেড স্টাফ, অ্যান্ড অলসো আ কেয়ারটেকার।’

তদন্তকারী সংস্থার এক কর্মকর্তা বলেন, ‘অর্পিতা সব দোষ এখন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের উপরেই চাপাচ্ছেন। তার সমস্ত দাবি যাচাইয়ের প্রয়োজন রয়েছে। অভিযোগ এড়িয়ে যাওয়ার জন্যও তিনি এমনটা বলে থাকতে পারেন। অর্পিতার বয়ানের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পার্থকে এক নাগারে জেরা করা হয়েছে।’

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা


আরও খবর



মুদ্রার বিনিময় হার: ৮ আগস্ট ২০২২

প্রকাশিত:Monday ০৮ August ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ১৫ August ২০২২ | ৩২জন দেখেছেন
Image

বাংলাদেশের এক কোটিরও বেশি মানুষ পাড়ি জমিয়েছেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। প্রবাসীদের পাঠানো কষ্টার্জিত অর্থে সচল রয়েছে দেশের অর্থনীতির চাকা। প্রবাসীদের লেনদেনের সুবিধার্থে ৮ আগস্ট ২০২২ মুদ্রার বিনিময় হার তুলে ধরা হলো।

মুদ্রা

ক্রয় (টাকা)

বিক্রয় (টাকা)

ইউএস ডলার

৯৪.০০

৯৫.০০

পাউন্ড

১২৭.১৬

১৩৪.৬১

ইউরো

১০৫.৯৬

১১৩.৪৬

জাপানি ইয়েন

০.৭৬

০.৮২

অস্ট্রেলিয়ান ডলার

৬৫.১২

৬৬.৮৫

হংকং ডলার

১১.৯৭

১২.১০

সিঙ্গাপুর ডলার

৭৪.৫৪

৮০.৭০

কানাডিয়ান ডলার

৭২.৭০

৭৩.৪৭

ইন্ডিয়ান রুপি

১.১৫

১.২০

সৌদি রিয়েল

২৪.৯৭

২৫.২৯

মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত

২১.০৩

২১.৩১

সূত্র ঃ এনসিসি ব্যাংক লিঃ


আরও খবর