Logo
আজঃ বুধবার ২২ মে ২০২৪
শিরোনাম

জামালপুরে শ্রেষ্ঠ এএসপি অভিজিত দাস ও শ্রেষ্ঠ ওসি সুমন তালুকদার

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | ১১০জন দেখেছেন

Image
লিয়াকত হোসাইন লায়ন,জামালপুর প্রতিনিধি:জামালপুর জেলা পুলিশের মাসিক আইন শৃঙ্খলা ও অপরাধ পর্যালোচনা বিষয়ক সভায় কৃতিত্বপূর্ণ সাফল্যে জেলার শ্রেষ্ঠ সার্কেল অফিসার নির্বাচিত হয়েছেন ইসলামপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) অভিজিত দাস এবং শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ  নির্বাচিত হয়েছেন ইসলামপুর থানার ওসি সুমন তালুকদার।

মঙ্গলবার (১৪ মে) জামালপুর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে গত এপ্রিল মাসের আইন শৃঙ্খলা ও অপরাধ পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।এতে সভাপতিত্ব করেন এসপি মো. কামরুজ্জামান। তিনি আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির বিভিন্ন দিকনির্দেশনা প্রদান করেন। এছাড়াও তিনি জঙ্গি দমন, অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার, কমিনিটি পুলিশিং ও বিট পুলিশিং কার্যক্রম জোরদার, জেলার মুলতবি মামলা, গ্রেপ্তারি পরোয়ানা নিষ্পত্তি, দেশে বর্তমানে বিরাজমান স্বাভাবিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি বজায় রাখতে পেশাদারিত্ব ও সততার সাথে দায়িত্ব পালনের জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

এ সময় শ্রেষ্ঠ এএসপি অভিজিত দাস এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক‌র্তৃক 'রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক-সেবা' (পিপিএম-সেবা) পদকে ভূষিত ওসি সুমন তালুকদারকে সম্মাননা দেওয়া হয়। 

এছাড়াও শ্রেষ্ঠ আইসি নারায়ণপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক মোহাম্মদ কামাল হোসেন, জামালপুর কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক এ.বি.এম মাঈদুল হাছান। শ্রেষ্ঠ উপপরিদর্শক সরিষাবাড়ী থানার শিব্বির আহমেদ, শ্রেষ্ঠ সহকারী উপপরিদর্শক  জামালপুর সদর থানার মোস্তাফিজুর রহমান,শ্রেষ্ঠ মাদক উদ্ধারকারী জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) শাখ-১ এর এসআই আব্দুস সালাম, শ্রেষ্ঠ ওয়ারেন্ট তামিলকারী  মেলান্দহ থানার এএসআই মোহাম্মদ আলী হোসেন, শ্রেষ্ঠ বিট অফিসার ইসলামপুর থানার এএসআই মো. আব্দুল হাদি, শ্রেষ্ঠ সর্বোচ্চ চোরাই ও হারানো মোবাইল উদ্ধারকারী দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার এএসআই মোহাম্মদ শাহীন মিয়াকে সম্মাননাসহ সনদ প্রদান ও বিশেষ পুরষ্কার দেওয়া হয়।  

সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) মো. মাসুদ আনোয়ার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার  মো. সোহেল মাহমুদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল), মো. সোহরাব হোসেন এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দেওয়ানগঞ্জ সার্কেল) সুমন কান্তি চৌধুরীসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও খবর



রাণীশংকৈলে ৫ দিন পর মানসিক প্রতিবন্ধির অর্ধ গলিত লাশ ভূট্টাক্ষেত থেকে উদ্ধার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০২ মে 2০২4 | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | ১০৬জন দেখেছেন

Image
রাণীশংকৈল(ঠাকুরগাঁও)প্রতিনিধিঃঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার নন্দুয়ার ইউনিয়নের রামপুর ব্রিজের পার্শ্বে ভুট্টা ক্ষেত থেকে বৃহস্পতিবার (২মে) মানসিক প্রতিবন্ধির লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। জানাযায়, উপজেলার জওগাঁও গ্রামের আমিরুল ইসলাম (৫৭) ধামালু ভুট্টা ক্ষেতে পানি (সেচ) দিতে গেলে ক্ষেতের ভিতরে লাশ দেখতে পায়। এসময় ধামালুর চিৎকারে স্থানীয় লোকজন জড়ো হলে ভুট্টা ক্ষেতে অজ্ঞাত নামা লাশ দেখে পুলিশে খবর দেয়।

স্থানীয়রা জানায়, ৫দিন ধরে উপজেলার চেংমারি গোচিয়া এলাকার মৃত আবুল হোসেনের পুত্র মানসিক প্রতিবন্ধি তৈমুল হক (৫৫) বাড়ি থেকে হারিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার কালো রং মাখানো অর্ধ গলিত তৈমুলের লাশ ভুট্টা ক্ষেতে পাওয়া যায়। তবে পরিবারে লোকজনের দাবী তৈমুল কে হত্যা করা হয়নি। সে মানসিক প্রতিবন্ধি ছিল।

এএসপি সার্কেল রেজাউল হক, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহেল রানা ঘটনা স্থলে গিয়ে লাশের সুরতহাল রির্পোট তৈরি করে, লাশ মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি নিচ্ছিল।

এ প্রসঙ্গে এএসপি সার্কেল রেজাউল হক বলেন, লাশের গায়ে কোন আঘাতের চিহৃ পাওয়া যায়নি। তবে সিআইডি’র একটি চৌকস দল এলেই লাশের মোটিভ আরো কিছুটা পরিস্কার হবে। যেহেতু অর্ধগলিত লাশ তা ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের মাঝে হস্থান্তর করা হবে।

আরও খবর



নীলফামারির ৫ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪ | ৯৭জন দেখেছেন

Image

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:নীলফামারীর রিপোর্টার ইউনিটির সদস্য, দৈনিক সমাজ সংবাদ পত্রিকার প্রতিনিধি,নুরুল ইসলাম, গ্লোবল টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি সোহেল রানা, আজকের দেশ কন্ঠ পত্রিকার প্রতিনিধি রফিকুল ইসলাম, দৈনিক বর্তমান কথার নীলফামারী প্রতিনিধি হারুন উর রসিদ ও আন্দোলন কারি সাংবাদিক নেতা, দৈনিক জনতার নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি এস এম হামিদী বাবুর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছেন নীলফামারী রিপোর্টার ইউনিটির সাংবাদিকবৃন্দ। মঙ্গলবার দুপুর ১২ টার দিকে নীলফামারীর ডিসির মোড়ে ওই মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি নুর আলম সিদ্দিকি দুলালের সভাপতিত্বে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে দায়ের কৃত মিথ্যা  মামলা তুলে নেয়ার দাবী জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, সাধারন সম্পাদক সাহজাহান কবির লেলিন, কার্যকরী সভাপতি আবু হাসান,মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম ডিমলা উপজেলা শাখার সম্পাদক সম্পাদক মহিনুল ইসলাম, সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির সৈয়দপুর উপজেলার সদস্য সচিব ওয়ালিউর রহমান রতন সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ জেলা কমিটির সভাপতি স্বর্না আকতার স্বর্নালী প্রমুখ।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী সাংবাদিক বক্তারা বলেন, নীলফামারির ৭ নং কচুকাটা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুর রসিদ চৌধুরী গত ঈদ উল ফিতরে দুস্হদের মাঝে প্রদানরকৃত চালরওজনে কম দেয়ার প্রতিবাদ করেন উল্লেখিত ৫ সাংবাদিক। পরে চেয়ারম্যানের চাল চুরি নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করেন তারা।এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে ওই ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রসিদ চৌধুরী গত ২৪ এপ্রিল নীলফামারী সদর থানায় ৫ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেন।

মানববন্ধনে অংশ নেয়া সাংবাদিকরা বলেন,৭ নং কচুকাটা ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে ফায়দা নিতে একটি কুচক্রী মহল ৫ সাংবাদিককে আসামি করতে ইন্ধন জাগিয়েছে। অচিরেই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা তুলে না নিলে রাজ পথেই বৃহৎ আন্দোলন গড়ে তোলা হবে বলে বক্তারা তাদের বক্তব্যে উল্লেখ করেন। 


আরও খবর



৫ বছরের মধ্যে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-২ মহাকাশে উৎক্ষেপণের পরিকল্পনা

প্রকাশিত:সোমবার ১৩ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | ১৩৯জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর সুবিধাকে আরও এগিয়ে নিতে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-২ নিয়ে সরকার কাজ করছে বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড (বিএসসিএল)। আগামী ২ থেকে ৩ বছরের মধ্যে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ২ তৈরির কাজ শেষ হবে বলে জানিয়েছেন জানিয়েছেন সংস্থাটির চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. শাহজাহান মাহমুদ। আর ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক জানিয়েছেন, করে বলেছেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-২ নির্মাণে একাধিক দেশ আগ্রহ দেখিয়েছে। এই মুহূর্তে সবার প্রস্তাবনা যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। আগামী ৫ বছরের মধ্যে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-২ মহাকাশে উৎক্ষেপণ করা হবে।

রবিবার সন্ধ্যায় ঢাকা ক্লাবে অনুষ্ঠিত বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে উৎক্ষেপণের ৬ষ্ঠ বার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে এসব তথ্য জানান তারা।

অনুষ্ঠানে কক্সবাজার থেকে অনলাইনে যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পররাষ্ট মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজ জলে-স্থলে-অন্তরীক্ষে আমাদের বিজয় কেতন উড়ছে। এই কেতন যেন চিরদিন উড্ডীন থাকে। চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের সঙ্গে দেশকে সংযুক্ত করে যেনো আমরা উন্নত দেশের সঙ্গে সমান তালে এগিয়ে যেতে পারি।

বিশেষ অতিথি প্রতিমন্ত্রী পলক জানান, ‘এখন পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট থেকে ১৫০ কোটি টাকার মতো আয় আসছে। এটি আরও বাড়ানোর জন্য সরকার কাজ করছে।‘

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যাদ্বয় বেঁচে যাওয়ার সঙ্গে বেঁচে গেছে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন। আজ আমরা অর্থনৈতিক মুক্তির দ্বারপ্রান্তে। সাংস্কৃতিক মুক্তির আন্দোলনও শুরু হয়েছে।  

পলক আরো বলেন, সরকার এখন বাড়ি বাড়ি সংযুক্ত ক্যাবল সংযোগও ডিজিটাল করতে চায়। ভবিষ্যতে টেলিভেশন দর্শকদের ভিডিও অন ডিমিান্ড থেকে শুরু করে নতুন নতুন সেবা দিতে চাই ক্যাবল অপারেটর্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশর পক্ষ থেকে। অ্যাটকো-কোয়াব সবাইকে নিয়ে এই ক্ষেত্রে বিনিয়োগের ব্যবস্থা করবো। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অল্প দিনের মধ্যে সেটটপ বক্স বন্ধে কঠোর অভিযান শুরু হবে। স্বচ্ছতার সঙ্গে প্রযুক্তি মাধ্যমে রাজস্ব বৃদ্ধি করতে চাই।

সভাপতির বক্তব্যে ড. শাহজাহান মাহমুদ জানান, এই স্যাটেলাইট জনসম্পদ সুরক্ষা, অভ্যন্তরীণ নদী ও উপকুলের জলাভূমি, সমুদ্র ও নদীর স্তর স্রোতের গতি প্রকৃতি ও পানির গুণগত মান বিশ্লেষণ, জলীয় সম্পদের পর্যবেক্ষণ ও নজরদারি, ভূমি গবেষণা, আবহাওয়া গবেষণা, ব্লু ইকোনোমি, প্রতিরক্ষা ব্যবস্থায় ব্যবহৃত হবে।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু ১ স্যাটেলাইটের সি ব্যান্ড প্রায় শেষের দিকে। স্যাটেলাইটের জন্য প্রায় ২৭০০ কোটি টাকা ব্যয় হয়। এর মাধ্যমে দেশের সবগুলো চ্যানেলের পাশাপাশি এখন ২৬টি বিদেশি চ্যানেল বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ১ এর মাধ্যমে প্রচারিত হচ্ছে। সাড়ে ৪ থেকে পৌনে ৫ বছরে বছরের বাণিজ্যিক কার্যক্রমে আয় হচ্ছে। এটি এতো ভালোভাবে উৎক্ষেপন ও পরিচালনা করা হয়েছে, আমি মনে করি স্যাটেলাইটের মেয়াদ ১৫ বছর থাকলেও, এটি ১৮ বছর পর্যন্ত বাঁচবে। আগামী তিন-চার মাস পর যখন এটি রিপ্লেসমেন্টের কাজ শুরু হবে সেটি আমরা নিজেদের অর্থায়নে করতে পারবো।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যর মধ্যে ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব আবু হেনা মোরশেদ জামান, বিটিআরসি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মহিউদ্দিন আহমেদ, অ্যাটকো সিনিয়র সহ সভাপতি ইকবাল সোবহান চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 


আরও খবর



কৃষকদের জলবায়ু-সহিষ্ণু করে তুলতে একসাথে কাজ করবে আইফার্মার ও উইনরক

প্রকাশিত:শুক্রবার ১০ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২০ মে ২০24 | ১১০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আইফার্মার লিমিটেডের প্রধান কার্যালয়ে গত ০৮ মে আইফার্মার লিমিটেড ও উইনরক ইন্টারন্যাশনালের মধ্যে এক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অব স্টেটের অর্থায়নে পরিচালিত বি-পিইএমএস অগ্রযাত্রা ক্লাইমেট চেঞ্জ প্রকল্পে নিবিড়ভাবে কাজ করার লক্ষ্যে দুই পক্ষ এ চুক্তি স্বাক্ষর করে। এই অংশীদারিত্ব ক্লাইমেট-স্মার্ট চাষাবাদ অনুশীলনে তথ্য, কৃষি উপকরণ ও বিশেষায়িত আর্থিক সহযোগিতার মাধ্যমে কৃষি ও অ্যাকুয়াকালচার এই দুই ক্ষেত্রেই কৃষকদের জন্য সমৃদ্ধ নিশ্চিতে ভূমিকা রাখবে।

আইফার্মার লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী ফাহাদ ইফাজ ও উইনরক ইন্টারন্যাশনালের বি-পিইএমএস অগ্রযাত্রা ক্লাইমেট চেঞ্জ প্রজেক্টের প্রকল্প পরিচালক নাসির চৌধুরী এই চুক্তি স্বাক্ষর করেন। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন – উইনরকের ক্লাইমেট চেঞ্জ সিনিয়র টেকনিক্যাল লিড জাকিয়া নাজনিন, লাইভলিহুডস অ্যান্ড স্কিলস ডেভেলপমেন্ট স্পেশালিস্ট লায়েল মো. জহিরুল ইসলাম, কমিউনিকেশন অ্যান্ড নলেজ ম্যানেজমেন্ট স্পেশালিস্ট নুসরাত খান, আইফার্মারের ভিপি অব ফিল্ড অপারেশন ফরহাদ জুলফিকার  রাফেল ও হেড অব ফার্মার ফাইন্যান্সিং অপারেশনস কল্লোল কুমার রায়। দুই প্রতিষ্ঠানের অন্যান্য  কর্মকর্তাদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট কোঅর্ডিনেটর দেব কুমার নাথ, ইমপ্যাক্ট অ্যানালিস্ট মোহাম্মদ আদিব শরীফ এবং মার্কেটিং ইনভেস্টমেন্ট অ্যান্ড ডিজিটাল অ্যাক্টিভেশনের অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার মায়েশা বিনতে মাহবুব।

১১টি জেলার কৃষি ও মৎস্যজীবী পরিবারকে আরও বেশি জলবায়ু-সহিষ্ণু করে তুলতে সহায়তা করার ক্ষেত্রে জলবায়ু পরিবর্তন ও মানব পাচারের ওপর প্রভাব নিয়ে কাজ করাই উইনরক ইন্টারন্যাশনালের বি-পিইএমএস অগ্রযাত্রা ক্লাইমেট চেঞ্জ প্রকল্পের লক্ষ্য। নীতি ও কাঠামোগত ফলাফলগুলো অন্তর্ভুক্ত করতে সরকারের সাথেও কাজ করবে প্রকল্পটি। আইফার্মারের সাথে এই অংশীদারিত্বের উদ্দেশ্য বাংলাদেশের উত্তর ও দক্ষিণের ৫টি জলবায়ু ঝুঁকিপূর্ণ জেলায় জলবায়ু-সহিষ্ণু কৃষি ও অ্যাকুয়াকালচারকে এগিয়ে নিয়ে  যাওয়া।

সমন্বিত কৃষি-অর্থায়ন, কৃষি উপকরণের ক্ষেত্রে পরামর্শ ও জলবায়ু-সংক্রান্ত ঝুঁকি কমাতে বীমার ওপর গুরুত্বারোপ করে আইফার্মারের প্রধান নির্বাহী ফাহাদ ইফাজ বলেন, “উইনরক ইন্টারন্যাশনালের সাথে এই অংশীদারিত্ব ক্লাইমেট-স্মার্ট কৃষির সঙ্গে সম্পর্কিত আমাদের লক্ষ্যপূরণে একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।”এ বিষয়ে বি-পিইএমএস অগ্রযাত্রা ক্লাইমেট চেঞ্জ প্রজেক্টের প্রকল্প পরিচালক নাসির চৌধুরী বলেন,“এই প্রকল্পের মাধ্যমে আমরা আরও বেশি জলবায়ু-সহিষ্ণু করে তোলার ক্ষেত্রে সবচেয়ে ঝুঁকিপ্রবণ মানুষদের সাথে গভীরভাবে কাজ করার সুযোগ পাবো।”

প্রকল্প পরিচালিত হচ্ছে এমন সব স্থানে স্থাপন করা হবে আইফার্মার সেন্টার; যেখান থেকে কৃষকরা প্রয়োজনীয় সবরকম সহযোগিতা পাবেন। এই সহযোগিতা জলবায়ু ঝুঁকিপ্রবণ কৃষক জনগোষ্ঠীর মাঝে আনুষ্ঠানিক আর্থিক অন্তর্ভুক্তি এবং জলবায়ুগত অনিশ্চিত পরিস্থিতির ক্ষেত্রে সহিষ্ণুতা বাড়াতে ভূমিকা রাখবে।


আরও খবর



ইন্দোনেশিয়া ৬.২ মাত্রার ভূমিকম্পে কাঁপল

প্রকাশিত:সোমবার ০৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | ১১৯জন দেখেছেন

Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে ইন্দোনেশিয়ার ওয়েস্ট পাপুয়া অঞ্চলে।স্থানীয় সময় রোববার (৫ মে) এ ভূমিকম্প অনুভূত হয়। রিখটার স্কেলে যার মাত্রা ছিল ৬.২। 

মার্কিন ভূ-তাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা ইউএস জিওলজিক্যাল সার্ভে (ইউএসজিএস) জানিয়েছে, ইন্দোনেশিয়ায় অনুভূত ওই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৬.২।

তবে শক্তিশালী এ ভূমিকম্পের আঘাতে জেরে কোনো হতাহত বা ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ছিল পশ্চিম পাপুয়ায় ফাকফাক এলাকার ১৫৩ কিলোমিটার (৯৫ মাইল) দক্ষিণ-পশ্চিমে। ভূপৃষ্ঠের ১২.১ কিলোমিটার গভীরে।

এশিয়ার বৃহত্তম দ্বীপরাষ্ট্র ইন্দোনেশিয়া ভূতাত্ত্বিক অবস্থার কারণে ভূমিকম্প, অগ্নুৎপাত ও সুনামির মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগের ঘটনা ঘটে থাকে।

এর আগে গত মাসের শেষের দিকে ৬.৫ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে ইন্দোনেশিয়া। সমুদ্রের নিচে আঘাত হানা এই ভূমিকম্পের জেরে সেসময় অবশ্য বিশাল কোনও ঢেউ সৃষ্টি হয়নি এবং সুনামির সতর্কতাও জারি করা হয়নি।

খবর আনাদুলু এজেন্সি


আরও খবর