Logo
আজঃ শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪
শিরোনাম

ইউনিয়ন পরিষদ ঘরে দরিদ্র দের ১৫ বস্তা চাল মজুদ

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ২০৭জন দেখেছেন

Image
আব্দুস সবুর তানোর প্রতিনিধি: রাজশাহীর তানোর উপজেলার পাঁচন্দর ইউনিয়ন পরিষদ ( ইউপির) হলরুমে দরিদ্র দের মাসিক ভিজিডির চাল বিতরন না করে মজুদ করে রেখেছেন চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন বলে অভিযোগ উঠেছে। ধনীদের নাম দেওয়ার কারনেই আসেন নি চাল নিতে বলে মনে করছেন ইউপির দরিদ্র জনগোষ্ঠী।  এতে করে চেয়ারম্যানের এমন কান্ডে এলাকায় বইছে সমালোচনার ঝড়, সেই সাথে তালিকা যাচাই বাছায়ের জন্যও তদন্তের জোরালো দাবি উঠেছে। বুধবার সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার পাঁচন্দর ইউনিয়ন পরিষদের হলরুমে চালের বস্তা রাখা আছে। হলরুমের ভিতরের পূর্বদিকের দেয়াল সংলগ্ন ১৫ বস্তা চাল রাখা হয়েছে। অনেক বস্তা ছিড়ে চাল পড়ে আছে মেঝেতে। পড়ে থাকা চালে আবর্জনা প্রচুর। স্থানীয়রা জানান, প্রকৃত দরিদ্র দের তালিকা করা হয়নি। তালিকা হয়েছে দলীয় বিবেচনায়।যারা প্রকৃত দরিদ্র তারা সঠিক সময়ে চাল নিয়ে যান। কারন তাদের পেটে ক্ষুধা আছে। তাদের চালের প্রয়োজন। যে সব চাল পড়ে আছে হয়তো ধনীদের হবে। তাছাড়া চাল পড়ে থাকার কথা না। তারা ইচ্চেমত তালিকা করার করনেই চালের এঅবস্থা।

সুত্রে মতে, মাসিক ভিজিডির চাল বিতরনের সময় ট্যাগ অফিসার থাকতে হবে। কিন্ত বিতরনের সময় ট্যাগ অফিসার ছিলেন না।এদিকে নিয়ম বহির্ভুত ভাবে চেয়ারম্যান মতিন পরিষদে এসি ব্যবহার করে থাকেন। অথচ পরিষদে এসি ব্যবহারের কোন এখতিয়ার নেই, এটা সম্পূর্ন রুপে ক্ষমতার অপব্যবহার।চেয়ারম্যান মতিন জানান, গত সোমবারে চাল বিতরন করা হয়েছে। ১৫ জন ব্যক্তি না আসার কারনে পরিষদে আছে। চালের বস্তা ছিড়ে আবর্জনার মধ্যে পড়ে আছে এবং এভাবে চাল রাখা যায় কিনা ও ট্যাগ অফিসার ছিল কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি কি তাদেরকে ডেকে আনব, সমস্যার কারনে ট্যাগ অফিসার আসেননি বলে দাম্ভিকতা দেখান তিনি। ট্যাগ অফিসার উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা  মশিউর রহমান  বলেন চাল বিতরনে থাকতে পারিনি, পরিক্ষার ডিউটিতে ছিলাম। আপনার কোন প্রতিনিধি ছিল কিনা ও মাস্টার রোল জমা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রতিনিধি ছিল না এবং মাস্টার রোলও জমা দেয়নি। ১৫ বস্তা চালের মধ্যে কয়েক বস্তা ছিড়ে আবর্জনার মধ্যে আছে চাল কিভাবে পুরুন হবে প্রশ্ন করা হলে উত্তরে বলেন বৃহস্পতিবার বিতরন করবে আর এক সপ্তাহের মধ্যে মাস্টার রোল জমা হবে।গোদাগাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানোর উপজেলার অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত ইএনওর সরকারী মোবাইলে একাধিকবার ফোন দিলেও রিসিভ করেন নি। জেলা প্রশাসক(ডিসি) শামিম আহম্মেদ বলেন, ভিজিডির চাল এভাবে রাখা ঠিক না। ট্যাগ অফিসার ছাড়াই বিতরন এবং মাস্টার রোল জমা হয়নি জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

আরও খবর



মাদকনির্ভরশীলতা এবং মানসিক রোগীদের চিকিৎসা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬৪জন দেখেছেন

Image

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি, ঢাকা:তারিখ : ১৭ই ফেব্রæয়ারী ২০২৪: মাদকনির্ভরশীলতা এবং মানসিক সমস্যাগ্রস্থ রোগীদের চিকিৎসায় মনোরোগ বিশেষজ্ঞ এবং এর পাশাপাশি কাউন্সিলিংয়ের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন। চিকিৎসা কেন্দ্রে সঠিকভাবে ও নিয়মিত কাউন্সেলিংয়ে একজন রোগীর সুস্থতার সম্ভাবনা অনেকাংশে বৃদ্ধি করে। শনিবার (১৭ ফেব্রæয়ারী) সকাল ১১ টায় রাজধানীর শ্যামলীতে ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন স্বাস্থ্য সেক্টরের সভাকক্ষে আহ্ছানিয়া মিশন নারী মাদকাসক্তি চিকিৎসা ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে চিকিৎসারত রোগীদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে “মাদকনির্ভরশীলতা ও মানসিক সমস্যাগ্রস্থ রোগীদের চিকিৎসা প্রক্রিয়া” বিষয়ক পারিবারিক সভায় এসব কথা বলেন অতিথিরা।

আহ্ছানিয়া মিশন নারী মাদকাসক্তি চিকিৎসা ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের কাউন্সেলর মেঘবতী সালমার সঞ্চালনায় সভায় বিশেষজ্ঞ আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রের আবাসিক মনোরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ রাহানুল ইসলাম। তিনি সভার মূল আলোচ্য বিষয় উপস্থাপনা করেন। উপস্থাপনায় মাদকনির্ভরশীলতা কি, মাদকনির্ভরশীলতার সাথে মানসিক রোগের সর্ম্পক কি, মানসিক সমস্যার রোগীদের চিকিৎসায় কাউন্সেলিংয়ের বিভিন্ন দিক ও কেন্দ্রের কাউন্সেলিং সার্ভিস নিয়ে আলোচনা করেন। এসময় তিনি বলেন, গবেষণা ভিত্তিক চিকিৎসা ব্যবস্থায় মাদকনির্ভরশীল এবং মানসিক রোগীদের জন্য দীর্ঘমেয়াদী চিকিৎসা ও পরিবারের সহযোগিতা অপরিসীম। চিকিৎসা পরবর্তীতে সুস্থ থাকতে কেন্দ্রের সাথে রোগীকে বিভিন্নভাবে সম্পৃক্ত থাকা প্রয়োজন এবং একই সাথে রোগীর সমস্যার পর্যায়নুযায়ী দীর্ঘমেয়াদে চিকিৎসা কেন্দ্রে চিকিৎসা নিলে সুস্থ থাকার হার অনেক বৃদ্ধি পায়।

সভায় আহ্ছানিয়া মিশন নারী মাদকাসক্তি চিকিৎসা ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের কেন্দ্র ব্যবস্থাপক ফারজানা ফেরদৌসসহ অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর

আজ রংপুরের স্থপতি আফিফার সাথে ফারাজের বিয়ে

শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




মিয়ামিকে ৬ গোলে উড়িয়ে দিলো আল নাসর

প্রকাশিত:শুক্রবার ০২ ফেব্রুয়ারী 2০২4 | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ১৩২জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক:আধিপত্য ধরে রেখে ইন্টার মায়ামিকে বিধ্বস্ত করেছে আল নাসর। বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) ক্লাব প্রীতি ম্যাচে সৌদি আরবের কিংডম অ্যারেনায় রোনালদোর আল নাসরের বিপক্ষে ৬-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছে মেসিরা।

ইনজুরির কারণে আল নাসরের স্কোয়াডে ছিলেন না পর্তুগালের তারকা খেলোয়াড় ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তবে দলকে উৎসাহ দিতে ঠিকই উপস্থিত হয়েছিলেন গ্যালারিতে। অন্যদিকে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীকে মাঠের লড়াইয়ে না পেয়ে প্রথমার্ধে মাঠে নামেননি লিওনেল মেসি। আর সেটাই ভুগিয়েছে মায়ামিকে। আর্জেন্টাইন বিশ্বকাপজয়ী যখন মাঠে নামেন ততক্ষণে মায়ামি ম্যাচ থেকে একেবারে ছিটকে যায়।

এদিকে একের পর এক গোল হজম করে যাচ্ছে মেসির দল ইন্টার মিয়ামি। অবশেষে ম্যাচের ৮৩ মিনিটে মনে হয় নিজেকে দেখানোর জন্যই মাঠে নামলেন মেসি। ততক্ষণে ইন্টার মিয়ামির জালে ৬ বার বল জমা করেছে রোনালদোহীন আল নাসর।

ফুটবলপ্রেমীরা ভেবেছিলেন, সৌদির মাঠে কঠিন লড়াইয়ে নামবেন আল নাসর ও মিয়ামি। কিন্তু ম্যাচ হলো পুরোপুরি একপেশে। মিয়ামিকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে সৌদি প্রো লিগের ক্লাব আল নাসর। শেষ দিকে মেসির কয়েকবারের চেষ্টাও রুখে দিয়েছে রোনালদোর দল।

বৃহস্পতিবার রাতে সৌদি আরবের রিয়াদের কিংডম অ্যারেনায় আল নাসরের হয়ে হ্যাটট্রিক করেছেন অ্যান্ডারসন টেলিস্কা। শেষ গোলটি তিনি ৭৩ মিনিটে করেছেন। বাকি গোল দুটি করেছেন ম্যাচের ১০ ও ৫১তম মিনিটে।

ম্যাচের একেবারে শুরুরদিকে ৩ মিনিটে গোল করে দলকে প্রথম লিড এনে দিয়েছেন ওটাবিও। এরপর ১২ মিনিটে আয়মেরিক লাপোর্তের গোলে ব্যবধান ৩-০ করে আল নাসর। এছাড়া আরেকটি গোল মোহাম্মদ মারান।


আরও খবর

আইপিএল শুরুর তারিখ প্রকাশ হলো

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




এক কোটি পরিবার রমজানে দুই দফায় পাবে ৫ পণ্য

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১১২জন দেখেছেন

Image

টিসিবির মাধ্যমে আসন্ন রমজান মাসে এক কোটি ফ্যামিলি কার্ডধারীদের ভর্তুকি মূল্যে দুই দফায় পাঁচটি পণ্য দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু। এসময় কৃত্রিম সংকট তৈরি করে বাজার অস্থিতিশীল না করার জন্য ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বানও জানানো হয়।

শনিবার (২৭ জানুয়ারি) টাঙ্গাইলে নিজ নির্বাচনি এলাকা দেলদুয়ার ও নাগরপুরে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত পৃথক নাগরিক সংবর্ধনা ও মতবিনিময় সভায় এ তথ্য জানান তিনি।

রমজানকে কেন্দ্র করে দেশে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের যথেষ্ট মজুত আছে উল্লেখ করে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, টিসিবির পণ্য আগে ট্রাকে করে বিক্রয় করা হতো। এখন ডিলারদের মাধ্যমে দেয়া হচ্ছে। কার্ডধারীরা ডিলারদের দোকান থেকে যাতে নিজেদের সুবিধামত সময়ে নিতে পারে সে শিগগিরই ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, পণ্যের দাম কমানোর কোনো ম্যাজিক নেই। তবে একটি সুষ্ঠু বাজার ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠা করতে পারলে যেটাকে আমরা স্মার্ট বাজার ব্যবস্থাপনা বলছি। এটা করতে পারলে বাজারে পণ্য সরবরাহ বাড়বে এবং দ্রুততম সময়ের মধ্যে ভোক্তার নিকট ন্যায্যমূল্যে পৌঁছাবে। বাজারে দামের ওপর প্রভাব পড়বে।

বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী জানান, টাঙ্গাইলের ঐতিহ্য তাঁত শিল্পকে আরও এগিয়ে নিতে নতুন পরিকল্পনা নেয়া হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হস্তশিল্পকে এবছরের বর্ষপণ্য ঘোষণা করেছেন। এর প্রেক্ষিতে আমরা ‘একটি গ্রাম একটি পণ্য’ স্লোগান নিয়ে কাজ শুরু করেছি।

তিনি এক্ষেত্রে টাঙ্গাইল জেলা বিশেষ করে দেলদুয়ারের শীতল পাটি এবং মৃৎশিল্প নিয়ে কাজ করতে উপজেলা প্রশাসনকে নির্দেশনা দেন।


আরও খবর



মিয়ানমারে বিজিপিসহ ৩৩০ জনকে হস্তান্তর

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭৯জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আরাকান আর্মির সাঁড়াশি আক্রমণের মুখে প্রাণভয়ে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা মিয়ানমারের সেনা, সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদস্য, শুল্ক কর্মকর্তাসহ ৩৩০ জনকে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে তথ্য যাচাই-বাছাই শেষে তাদের কক্সবাজারের উখিয়ার ইনানী নৌবাহিনী জেটিঘাট থেকে জাহাজে তোলা হয়।

এ সময় সেখানে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আশরাফুজ্জামান সিদ্দিকী ও বাংলাদেশে নিযুক্ত মিয়ানমার রাষ্ট্রদূত অং কিয়াও মোয়ে উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে, সকাল ৯টা ৫০ মিনিটে মিয়ানমারের ৫ সদস্য বিশিষ্ট বিজিপি প্রতিনিধি দল কক্সবাজারের ওই জেটিঘাটে এসে পৌঁছায়। ওই জাহাজটি থেকে মিয়ানমারের ৫ সদস্যের প্রতিনিধি দলটিকে কোস্টগার্ডের একটি জলযান ইনানী জেটিঘাটে নিয়ে আসে। এ সময় তাদের স্বাগত জানান বিজিবির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিজিবির জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. শরীফুল ইসলাম।

এদিকে ভোরে বান্দরবানের নাইক্ষ্যমছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্ত ও টেকনাফ থেকে বিজিবির কড়া পাহারায় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদস্য, শুল্ক কর্মকর্তাসহ ৩৩০ জনকে কক্সবাজারের ইনানীর নৌ-বাহিনীর জেটিঘাটে আনা হয়। সেখানে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মিয়ানমার বিষয়ক পরিচালক মো. রাকিবুল ইসলাম, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের উপ-সচিব মো. রাশেদ হোসেন চৌধুরী, বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আশরাফুজ্জামান সিদ্দিকী এবং মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতসহ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, গত ২ ফেব্রুয়ারি রাত থেকে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার সীমান্তের ওপারে বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান আর্মির সঙ্গে মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিপির সংঘর্ষ শুরু হয়। যুদ্ধের মধ্যে বিদ্রোহীরা বিজিপির কয়েকটি সীমান্ত ফাঁড়ি দখল করে নিলে মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদস্যরা ৪ ফেব্রুয়ারি সকাল থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে শুরু করে। এসময় তাদের নিরস্ত্র করে বিজিবি হেফাজতে রাখা হয় ঘুমধুমের একটি স্কুলে। পরে তাদের মধ্যে ১০০ জনকে সরিয়ে নেওয়া হয় টেকনাফে।


আরও খবর



ভারতের ফুটবল লিগে ১০ নম্বর জার্সিতে সানজিদার অভিষেক

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১১৭জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক:শেখ আসলাম বাংলাদেশের তারকা ফুটবলার, পুরুষ দলের হয়ে অনেক আগেই খেলেছেন প্রয়াত মোনেম মুন্না, রুমি, গাউসরা ইস্ট বেঙ্গল । প্রায় ৩২ বছর পর বাংলাদেশের কোনো ফুটবলার ইস্ট বেঙ্গলের হয়ে খেলতে যাচ্ছেন। সানজিদার সঙ্গে তিন মাসের জন্য চুক্তি করেছে ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি।

১৯৭১ সালের পর বাংলাদেশের অষ্টম ও প্রথম নারী হিসেবে ইস্ট বেঙ্গলে খেলছেন সানজিদা।

সাবিনা খাতুন ও কৃষ্ণা রানী সরকারের পর বাংলাদেশের তৃতীয় নারী ফুটবলার হিসেবে বিদেশি লিগে অভিষেক ঘটল ২২ বছর বয়সী সানজিদার।

ভারতে যাওয়ার আগে এই ফুটবলার বলেছিলেন, ‘প্রথমবার বলে কিছুটা নার্ভাস লাগছে। তবে, আমার চেষ্টা থাকবে ভালো খেলার।’

অবশেষে মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) ইস্ট বেঙ্গলের হয়ে অভিষেক হয়ে গেল তার। দশ নম্বর জার্সি পরে মাঠে নামেন তিনি। অবশ্য ভারতীয় নারী লিগে অভিষেক ম্যাচে জয় পায়নি তার দল। যদিও মনে রাখার মতো কিছু হয়নি, ড্রয়ে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাদের। একাদশে শুরু থেকে খেললেও গোল পাননি তিনি।

স্পোর্টস ওডিশার সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছে তার দল। প্রথমার্ধে দুর্দান্ত খেলেছেন তিনি। যদিও দ্বিতীয়ার্ধে তার সাপ্লাই লাইন কেটে দেয় ওড়িশা। আর পুরো ম্যাচেই এলেমেলো ফুটবল খেলেছে ইস্ট বেঙ্গল। সানজিদার দেয়া কিছু পাস কাজে লাগাতে পারেনি তার সতীর্থরা। আবার তাকে ক্লিয়ার পাসও দেওয়া যায়নি। তিনি নিজেও অনেক সময় পাসিংগুলো শতভাগ নিখুঁত করত পারেননি। কিংবা বল নিয়ে প্রতিপক্ষের বক্সের দিকে এগিয়ে গেলেও শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হতে হয়েছে।

পঞ্চম মিনিটে ভালো সুযোগ তৈরি করেছিলেন সানজিদা। বক্সে ঢুকে একজনকে কাটিয়ে শট নিয়েছিলেন। সেটি অবশ্য পোস্ট ঘেঁষে চলে যায় বাইরে।

২৮ মিনিটে আবারও বক্সে ঢুকে সুযোগ তৈরির চেষ্টা করলেও ফিনিশিং ব্যর্থতায় কাজের কাজ কিছু হয়নি। বিরতির পরও ছিল একই চিত্র। দুই দল শত চেষ্টা করেও প্রতিপক্ষের জাল কাঁপাতে পারেনি।

৭ দলের এই লিগে ৬ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ওড়িশা। ইস্ট বেঙ্গল ৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ৬ নম্বরে আর সাবিনার দল ১৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তিনে অবস্থান করছে। পরের ম্যাচে আগামী সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) আবার মাঠে নামবে ইস্ট বেঙ্গল। সেই ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ কিক স্টার্ট।

উল্লেখ্য, একই লিগে বাংলাদেশ জাতীয় দলের অধিনায়ক সাবিনা খাতুন খেলছেন কর্নাটকের দল কিকস্টার্টের হয়ে। ভারতের লিগে আগেও খেলেছেন সাবিনা। তবে সানজিদা এই প্রথম গেছেন দেশের বাইরে খেলতে।


আরও খবর