Logo
আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪
শিরোনাম

হাইওয়ে পুলিশের ১৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৭১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:পুলিশের বিশেষায়িত ইউনিট হাইওয়ে পুলিশের ১৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্‌যাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষে মঙ্গলবার সকালে (১১ জুন) রাজারবাগে বাংলাদেশ পুলিশ অডিটরিয়ামে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আসাদুজ্জামান খান।

ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ, বাংলাদেশ চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বিপিএম (বার), পিপিএম-এর সভাপতিত্বে আলোচনা অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন হাইওয়ে পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি মো. শাহাবুদ্দিন খান বিপিএম (বার)।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বেনজীর আহমদ, এমপি, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মো. জাহাংগীর আলম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত আইজি (প্রশাসন) মো. কামরুল আহসান, স্পেশাল ব্রাঞ্চের প্রধান অতিরিক্ত আইজি মোঃ মনিরুল ইসলামসহ বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত আইজিগণ, ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাগণ, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক-শ্রমিক নেতৃবৃন্দ এবং সড়ক পরিবহন সংশ্লিষ্ট নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান, এমপি বলেন, মহাসড়কে যানবাহন চলাচলে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে হাইওয়ে পুলিশ প্রশংসনীয় ভূমিকা রাখছে। ট্রাফিক ব্যবস্থা স্বাভাবিক রাখার লক্ষ্যে ইতোমধ্যে হাইওয়ে পুলিশে ড্রোন সংযোজন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, হাইওয়ে পুলিশের তৎপরতার ফলে গত ঈদুল ফিতরে জনগণের যাত্রা স্বস্তিদায়ক হয়েছে। মন্ত্রী আশা প্রকাশ করে বলেন, এবার ঈদুল আযহায়ও জনগণ নির্বিঘ্নে তাদের নিজ নিজ গন্তব্যে পৌঁছতে পারবেন।

মন্ত্রী সড়কে নিরাপত্তা প্রদানের পাশাপাশি মাদক পরিবহন বন্ধে কাজ করার জন্য হাইওয়ে পুলিশকে নির্দেশনা প্রদান করেন। জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মো. জাহাংগীর আলম বলেন, নিরাপদ সড়ক গড়ে তোলা শুধু হাইওয়ে পুলিশের একার পক্ষে সম্ভব নয়। এজন্য প্রয়োজন সড়ক ব্যবহারকারীদেরকে ট্রাফিক আইন মান্য করা। তিনি ট্রাফিক আইন মেনে চলার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

সভাপতির বক্তব্যে আইজিপি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বিপিএম (বার), পিপিএম বলেন, হাইওয়ে পুলিশ আন্তরিকতার সাথে সড়কে শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য কাজ করছে। আজ হাইওয়ে পুলিশের অস্তিত্ব সকল স্থানে দৃশ্যমান।

তিনি বলেন, আসন্ন পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া পশুবাহী কোন গাড়ি থামানো যাবে না বলে পুলিশের সকল ইউনিটকে ইতোমধ্যে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

তিনি বলেন, পুলিশ সফলতার সাথে দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে দেশে শান্তি-শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা বজায় রাখার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

আইজিপি বলেন, জনগণ যাতে নিরাপদে নিজ নিজ গন্তব্যে পৌঁছতে পারে সেজন্য হাইওয়ে পুলিশ, জেলা পুলিশসহ সংশ্লিষ্ট সকল পুলিশ ইউনিট আন্তরিকভাবে কাজ করছে।

হাইওয়ে পুলিশের অতিরিক্ত আইজি মো. শাহাবুদ্দিন খান, বিপিএম (বার) বলেন, নানা সীমাবদ্ধতা স্বত্বেও নিরাপদ সড়ক গঠনের জনপ্রত্যাশা পূরণে হাইওয়ে পুলিশ আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি হাইওয়ে পুলিশের জনবল বাড়ানো এবং আইন প্রয়োগে কঠোরতার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে হাইওয়ে পুলিশের সার্বিক কার্যক্রমের ওপর একটি ডকুমেন্টারি প্রদর্শন করা হয়। পরে এ উপলক্ষে একটি কেক কাটা হয়।


আরও খবর

মেট্রোরেল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে

বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪




কুড়িগ্রামের রৌমারীর গ্রামবাসীর উদ্দ্যোগে বাঁশের সাকো উদ্বোধন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৫২জন দেখেছেন

Image

মাজহারুল ইসলাম, রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃরৌমরী উপজেলার দাঁতভাঙ্গা ও চরশৌলমারী ইউনিয়নের মাঝামাঝি আমবাড়ি ও কাজাইকাটা গ্রামে হলহলিয়া নদীর উপর স্বাধীনতার ৫৩ বছরেও উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি এসব অঞ্চলে যার ফলে ব্রীজ না থকায় চরম দুর্ভোগে পরেছে প্রায় ৬০ হাজার মানুষ। ইুতিমধ্যে গ্রামবাসীর উদ্দ্যোগে ২০০ ফুট লম্বা বাশেঁর সাকো নিজ খরচে তৈয়ারী যাতয়াত করছেন ২৫ গ্রামের ৬০ হাজার মানুষ। একমাত্র ভরসা বাঁশের সাকোটি উদ্বোধন করলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান। এ নদীর উপর দিয়ে দাঁতভাঙ্গা, চরশৌলমারী ও উলিপুর উপজেলার পুর্বঞ্চলের প্রায় ২৫টি গ্রামের ৬০ হাজার মানুষের যাতায়াতের একমাত্র রাস্তা। একটি ব্রীজের জন্য এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে বহু বার এমপি মন্ত্রীর কাছে আবেদন নিবেদন করেও প্রতিকারের ছোয়াও পায়নি বলেও জানা গেছে। শত কষ্ঠের মধ্যদিয়েও রৌমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম শালু প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে হলহলিয়া নদীর উপর এই সাঁকো উদ্বোধন করা হয়। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান সামসুল দোহা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদা আকতার স্মৃতি, স্থানীয় নেতা রোকনুজ্জামান রোকন, আব্দুর রাজ্জাকসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ ও গ্রামের সকল শ্রেণী পেশার মানুষ। 

আলোচনা সভায় স্থানীয় ভাবে বক্তব্য রাখেন, বক্তার হোসেন, ইমান আলী, মোল্লা জমির উদ্দিন, সুজন আহমেদ, মমিনুল হক প্রমুখ। 

স্থানীয় লোকজন জানান, বহুকাল থেকে এ দুটি ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষ এ রাস্তা দিয়ে চলাচল করে আসছি। প্রতি বছর এ নদীতে সরকারি ভাবে ঘাট, নিলাম ডাকে নৌকা দিয়ে যাতায়াত করে থাকি। এতে স্কুল পড়–য়া কমলমতি শিশুসহ স্কুল ও কলেজ পড়–য়া ছাত্র/ছাত্রী ব্যবসায়ী ও চাকুরিজীবিদের যাতায়াতে দুর্ভোগ পোহাতে হয়। অপরদিকে ফসলাদি বাজারে নিয়ে কৃয়বিক্রয় করা যেতো না। আমরা বারবার এমপি মন্ত্রীদের কাছে একটি ব্রীজের জন্য আবেদন করেছি। কোন সারা পাইনি। শুধু আশ্বাসে বানি দিয়ে আশ্বস্থ করে ভোট নিয়ে উধাও হয়েছে। আর ফিরে তাকায় নি। আজ আমরা গ্রামবাসীর উদ্দ্যোগ নিয়ে নিজের টাকায়, বাঁশ সংগ্রহ করে সহজে চলাচলের জন্য বাঁশের সাকো নির্মান করলাম। তবে প্রত্যন্ত এ অঞ্চলের মানুষের সরকারের কাছে দাবী, এ নদীর উপর দ্রুত একটি ব্রীজ নির্মান করে চলাচলের উপযোগী করে দিবেন। 

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম শালু জানান, বহুকাল থেকে এই নদীতে একমাত্র যাতায়াতের ভরসা ছিল  নিলামকৃত নৌকা। প্রতিদিন মানুষকে ৫/১০ টাকা দিয়ে নৌকা পাড়াপাড় হতে হতো এবং ভ্যান গাড়ি পার করতে দিতে হতো ২০/৩০ টাকা। এবার উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বলে ঘাটের নিলাম ডাক বন্ধ করে দিয়ে গ্রামবাসীর উদ্দ্যোগে  বাঁশের সাকোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ সাকো দিয়ে দাঁতভাঙ্গা, চরশৌলমারী ও উলিপুর উপজেলার পূর্বাঞ্চলের প্রায় ৬০ হাজার মানুষ সাকোতেই যাতয়াত করবেন।

। আমি নতুন চেয়ারম্যান হয়েছি, যথা সাধ্যমত চেষ্টা করে যাবো, আমার আগামী ৫ বছর সমায়ের মধ্যে এখানে একটি পুর্নাঙ্গ ব্রীজ নির্মান করার। আমার জন্য দোয়া করবেন।


আরও খবর



শুভ বুদ্ধপূর্ণিমা আজ

প্রকাশিত:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১৪৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আজ বুধবার বৌদ্ধধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শুভ বুদ্ধপূর্ণিমা। দেশ ও দেশের বাইরের বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের মানুষ তাদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব বুদ্ধপূর্ণিমা সাড়ম্বরে উদযাপন করবেন।

বৌদ্ধধর্মমতে, প্রায় আড়াই হাজার বছর আগে এই দিনে মহামতি গৌতম বুদ্ধ আবির্ভূত হয়েছিলেন। ‘জগতের সব প্রাণী সুখী হোক’ এই অহিংস বাণীর প্রচারক গৌতম বুদ্ধের শুভ জন্ম, বোধিজ্ঞান ও মহাপরিনির্বাণ লাভ এই তিন স্মৃতিবিজড়িত বৈশাখী পূর্ণিমা বিশ্বের বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের কাছে বুদ্ধপূর্ণিমা নামে পরিচিত।

বুদ্ধপূর্ণিমা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, মানুষের কল্যাণে এবং সমাজে শান্তি ও সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠায় মহামতি গৌতম বুদ্ধ প্রচার করেছেন অহিংসা, সাম্য, মৈত্রী ও করুণার বাণী।

বুদ্ধপূর্ণিমা উপলক্ষে আজ সরকারি ছুটি। এদিন রাজধানীসহ দেশজুড়ে বৌদ্ধবিহারগুলোতে বুদ্ধ পূজা, প্রদীপ প্রজ্বালন, শান্তি শোভাযাত্রা, ধর্মীয় আলোচনা সভা, প্রভাতফেরি, সমবেত প্রার্থনা, আলোচনা সভা ও বুদ্ধ পূজা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া মানবজাতির সর্বাঙ্গীণ শান্তি ও মঙ্গল কামনায় বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে রাষ্ট্রপতি বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে আজ বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের সংবর্ধনা দেবেন। বঙ্গভবনের ক্রিডেনশিয়াল হলে বিকেল ৪টায় এই সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়েছে। রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের উদ্দেশে ভাষণ দেবেন। একই সঙ্গে তার সহধর্মিণী ড. রেবেকা সুলতানা বাংলাদেশের বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব উপলক্ষে বৌদ্ধ নেতাদের শুভেচ্ছা জানাবেন। বৌদ্ধধর্মীয় নেতারাও বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতিকে ফুলের তোড়া উপহার দেবেন।


আরও খবর

মেট্রোরেল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে

বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪




ডোমারে ভূমিসেবা সপ্তাহ ২০২৪ এর শুভ উদ্বোধন

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৩৬জন দেখেছেন

Image

ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি:“স্মার্ট ভূমিসেবা, স্মার্ট নাগরিক” এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে নীলফামারীর ডোমারে ভূমিসেবা সপ্তাহ ২০২৪ এর শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

উপজেলা ভূমি কার্যালয় আয়োজিত দিবসটি পালনে আলোচনা সভা, শিক্ষার্থীদের ভূমি সংক্রান্ত বিষয়ে কুইজ প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ করা হয়।   

শনিবার (৮জুন) সকাল ১১টায় উপজেলা ভূমি কার্যালয় চত্ত্বরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমুল আলম (বিপিএএ)’র সভাপপিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চোয়াম্যান সরকার ফারহানা আখতার সুমি। 

বিশেষ অতিথি হিসাবে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জান্নাতুল ফেরদৌস হ্যাপি, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান দিলীপ কুমার মুখোপাধ্যায়, ফেরদৌসী বেগম, বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরননবী, উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মনজুরুল হক চৌধুরী প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। 

অনুষ্ঠানে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল জব্বার, সহিদার রহমান মানিক, গোলাম মোস্তফা, শমশের আলী, আলহাজ¦ করিমুল ইসলাম সহ উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও গণমাধ্যম কর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা শেষে বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের নিয়ে ভূমি সংক্রান্ত বিষয়ে কুইজ প্রতিযোগিতা এবং বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।


আরও খবর



ডলার সংকট এখন আর নেই : সালমান এফ রহমান

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | ৮৯জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেছেন দেশের ব্যাংক খাতের সংস্কার দরকার, এ বিষয়ে কাজ চলছে। তারল্য সংকট কাটাতে কী করা যায় সেটা নিয়েও আলোচনা চলমান রয়েছে বলেও জানান তিনি।

সোমবার (২৭ মে) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) ভবনে এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

সালমান এফ রহমান বলেন, দেশের অর্থনীতিতে অবশ্যই চ্যালেঞ্জ আছে। তবে আমরা তা মোকাবিলা করতে পারব। এখন আর ডলার সংকট নেই। তবে সুদহার বাড়ায় একটা সমস্যা তৈরি হয়েছে। মূল্যস্ফীতিও আমাদের একটা সমস্যা।

পুঁজিবাজারকে শক্তিশালী করার তাগিদ দিয়ে তিনি বলেন, শুধু ব্যাংক নয়, অনেক দেশ পুঁজিবাজার থেকে ঋণ নেয়। সেটি নিয়েও কাজ চলছে। সিকিউরিটি এক্সচেঞ্জ কমিশনের সঙ্গে কথা হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রীর বিনিয়োগ উপদেষ্টা বলেন, ভিসা, মাস্টারকার্ডে এআই যুক্ত করতে চায়। টোল প্লাজা বা মেট্রোরেলের টিকেট কাটতে লম্বা লাইন ধরতে হয়। সেই সমস্যার সমাধান হবে ভিসা, মাস্টার কার্ডে এআই প্রযুক্তি যুক্ত হলে। পেমেন্ট হবে এআইর মাধ্যমে।


আরও খবর

মেট্রোরেল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে

বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪




বঙ্গবন্ধু কাপ ২০২৪ আন্তর্জাতিক কাবাডি টুর্নামেন্ট শুরু হচ্ছে ২৬ মে

প্রকাশিত:সোমবার ২০ মে ২০24 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১৯৪জন দেখেছেন

Image

আজাদ হোসেনঃ

 আগামী ২৬ মে থেকে ’স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর নামকরণে বঙ্গবন্ধু কাপ ২০২৪ আন্তর্জাতিক কাবাডি টুর্নামেন্টের চতুর্থ আসর মিরপুর শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামে শুরু হচ্ছে। এ টুর্নামেন্টে এবার ইউরোপ, আফ্রিকা ও এশিয়া এই তিন মহাদেশের মোট ১২টি দল অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছে। বিদেশী দলগুলো ২৩ মে থেকে ঢাকায় আসতে শুরু করবে।

এরপর ২৫ মে ম্যানেজার্স মিটিংয়ে গ্রুপিং ও ফিকশ্চার চূড়ান্ত করা হবে। ফলে ২৬ মে থেকে কোর্টে খেলা গড়াবে। এরপর ফাইনাল খেলার মধ্য দিয়ে ৩ জুন টুর্নামেন্ট শেষ হবে। ইউরোপ মহাদেশ থেকে পোল্যান্ড, আফ্রিকা মহাদেশ থেকে কেনিয়া ও উগান্ডা এবং এশিয়া মহাদেশ থেকে জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, মধ্যপ্রাচ্যের ইরাক, অ্যাসোসিয়েশনের ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড এবং দক্ষিণ এশিয়ার নেপাল, শ্রীলঙ্কা ও স্বাগতিক বাংলাদেশ অংশগ্রহণ করবে। এর মধ্যে সর্বশেষ দুই বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে খেলেছে দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান ও থাইল্যান্ড। তবে প্রথমবারের মতো এ টুর্নামেন্টে জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া ও উগান্ডা অংশগ্রহণ করছে।


সোমবার (২০ মে) দুপুরে বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন (বিওএ) ভবনের ডাচ-বাংলা অডিটোরিয়ামে এ টুর্নামেন্ট উপলক্ষে সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ কাবাডি ফেডারেশনের সভাপতি ও ইন্সপেক্টর জেনারেল অব বাংলাদেশ পুলিশ চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সংসদের হুইপ ও বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা, কাবাডি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ও ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান, কাবাডি ফেডারেশনের যুগ্মসম্পাদক-২ এসএম নেওয়াজ সোহাগ এবং কাবাডি ফেডারেশনের সহ সভাপতি হাফিজুর রহমান খান।


জনাকীর্ণ সাংবাদিক সম্মেলনে এক প্রশ্নে বাংলাদেশ কাবাডি ফেডারেশনের সভাপতি ও ইন্সপেক্টর জেনারেল অব বাংলাদেশ পুলিশ চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, নানারকম কর্মসূচির মাধ্যমে  কাবাডি উন্নয়নে আমাদের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। সেই সঙ্গে আমাদের জাতীয় খেলা কাবাডিকে বিশ্বপরিসরে মেলে ধরছি। অপর এক প্রশ্নে বলেন ঢাকাতে আলাদা একটা কাবাডি কমপ্লেক্স করার চেষ্টা চলছে। ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ে আমরা প্রস্তাব দিয়েছি।


এদিকে কাবাডি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ও ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান জানান গত এশিয়ান গেমসে আমরা কাঙ্ক্ষিত ফল পাইনি। কোচ অসুস্থ হয়ে পড়ায়, ঠিকমত দিকনির্দেশনা দিতে পারেননি। মূলত কোচ ছাড়া, পরামর্শ ছাড়া আমাদের দল খেলেছে। ফলে আমরা এমন সব দলের কাছে হেরেছি যা ছিল অকল্পনীয়। তিনি জানান, খেলাটা আরও ছড়িয়ে দেবার আমরা চেষ্টা করছি। আমাদের এখানে ভারতের মতো সেই বড় মানের বিনিয়োগ নেই। সেখানে সকল বড় তারকার নিজস্ব কাবাডি দল রয়েছে। অন্যদিক আমাদের এখানে তেমন নেই। সেজন্য এখানে প্রো-কাবাডির আয়োজন করাটা কঠিন।


অপরদিকে জাতীয় সংসদের হুইপ ও বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা বলেন, ব্র্যান্ড ভ্যালু বাড়ানো একদিনের কাজ না। সহজও না। আগেও একবার সঙ্গে ছিলাম। এবারও চেষ্টা করবো। আপাতত নতুন কোনো আইডিয়া নেই। সুযোগ পেলে অবশ্যই চেষ্টা করব। সুযোগ এলে অবশ্যই ঢাকার ভেতরে কঠিন হলেও বাইরে বা আশেপাশে একটা কমপ্লেক্সের ব্যাপারে কিছু একটা করার চেষ্টা করবো।


উল্লেখ্য ২০২১ সালে বৈশ্বিক মহামারী করোনার দুঃসময়ে সরকারের সংশ্লিষ্ট দফতরের কঠোর নির্দেশনা মেনে সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশতবার্ষিকী মুজিববর্ষ উপলক্ষে ২০২১ সালে বঙ্গবন্ধু কাপ আন্তর্জাতিক কাবাডি টুর্নামেন্টের যাত্রা শুরু হয়। এ টুর্নামেন্ট যখন মাঠে গড়িয়েছিল তখন করোনাভাইরাসে বিশ্বক্রীড়াঙ্গন স্তব্ধ ছিল। বিশ্বজুড়ে কঠোর লকডাউন চলছিল। এমন কি বিশ্বজুড়ে সবধরনের ফ্লাইটও প্রায় বন্ধ ছিল। ঠিক সেসময় কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে নেপাল, শ্রীলঙ্কা, কেনিয়া, পোল্যান্ড ও স্বাগতিক বাংলাদেশসহ পাঁচ দেশের অংশগ্রহণে প্রথম আসর অনুষ্ঠিত হয়।


এরপর ২০২২ সালে দ্বিতীয় আসরে নেপাল, শ্রীলঙ্কা, কেনিয়া, ইংল্যান্ড, ইরাক, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া ও স্বাগতিক বাংলাদেশসহ আটটি দেশ অংশগ্রহণ করে। ২০২৩ সালে তৃতীয় আসরে রেকর্ড ১২টি দেশ অংশগ্রহণ করেছিল। এশিয়া, ইউরোপ ও আফ্রিকা মহাদেশের গণ্ডি পেরিয়ে টুর্নামেন্টের ব্যাপ্তি ছড়িয়ে ছিল দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশেও। টুর্নামেন্টের মূল আকর্ষণ ছিল ফুটবলের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন মেসির দেশ আর্জেন্টিনার কাবাডি দল। তৃতীয় আসরে অংশ নেওয়া দেশগুলো ছিল লাতিন আমেরিকার আর্জেন্টিনা, ইউরোপের ইংল্যান্ড, পোল্যান্ড, আফ্রিকার কেনিয়া, এশিয়ার ইরাক, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, চাইনিজ তাইপে, নেপাল, শ্রীলঙ্কা ও স্বাগতিক বাংলাদেশ।


আন্তর্জাতিক আঙিনায় সারা জাগানিয়া এ টুর্নামেন্ট এখন আন্তর্জাতিক কাবাডি ফেডারেশনের বর্ষপঞ্জিতে বিশেষ গুরুত্ব বহন করছে। বাংলাদেশের এ আসরটি বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব হিসেবেও বিবেচিত হচ্ছে। গত তিনটি আসর শহীদ নূর হোসেন ভলিবল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হলেও এবার নতুন ভেন্যু হিসেবে মিরপুর শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। এ টুর্নামেন্ট সামনে রেখে কাবাডি ফেডারেশন ইতোমধ্যে সবধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। গেল তিনটি আসরের হ্যাটট্রিক চ্যাম্পিয়ন স্বাগতিক বাংলাদেশ এবারও শিরোপায় চোখ রেখে ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে প্রস্তুতি অব্যাহত রেখেছে।



প্রথম আসরে কেনিয়াকে হারিয়ে বাংলাদেশ প্রথমবারের মতো কোনো আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে শিরোপা জয়ের কৃতিত্ব দেখায়। এরপর ২০২২ সালেও সেই কেনিয়াকে ফাইনালে পরাজিত করে স্বাগতিকরা চ্যাম্পিয়ন হয়। তারপর ২০২৩ সালে অবশ্য চাইনিজ তাইপেকে হারিয়ে হ্যাটট্রিক শিরোপা ঘরে তোলে বাংলাদেশ।


বঙ্গবন্ধু কাপ আন্তর্জাতিক কাবাডি টুর্নামেন্টকে মহাদেশীয় পর্যায়ে সম্প্রসারণ করতে এবারও এশিয়ার বাইরে ইউরোপ ও আফ্রিকা মহাদেশের একাধিক দেশকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। এবারও ১২টি দল অংশ নিতে যাচ্ছে। শুরুতে দুই গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলবে। এরপর দুই গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দল সেমিফাইনালে মুখোমুখি হবে। জয়ী দুই দল খেলবে ফাইনাল। টুর্নামেন্টের সব কয়টি ম্যাচ সরাসরি সম্প্রচার করবে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল টি স্পোর্টস।


আরও খবর