Logo
আজঃ Friday ০২ December 2০২2
শিরোনাম

ফেভারিটের মতোই শুরু করবে আর্জেন্টিনা

প্রকাশিত:Tuesday ২২ November 20২২ | হালনাগাদ:Friday ০২ December 2০২2 | ৪২জন দেখেছেন
Image

স্পোর্টস ডেস্ক ;এবারের বিশ্বকাপে হট ফেভারিট হিসেবেই অংশ নিচ্ছে দুবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। আজ বিশ্বকাপের গ্রুপ ‘সি’তে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামবে তারা সৌদি আরবের বিপক্ষে। তবে এই ম্যাচে আর্জেন্টিনা নিঃসন্দেহে জিতবে এটাই বলা চলে। যদিও দলের অধিনায়ক লিওনেল মেসির খেলা নিয়ে সংশয় রয়েছে। তবুও মনে হয় না সৌদি দলটা আর্জেন্টিনার বিপক্ষে খুব বেশি পেরে উঠবে।

ইনজুরি থেকে ডি মারিয়ার ফেরাটা দলের জন্য সুখবর। এই ম্যাচে তার দিকে ফোকাস থাকবে। বড় মঞ্চগুলোতে ডি মরিয়া নিজের সেরাটা সবসময় দিয়ে এসেছেন বারবারই। আর্জেন্টিনার আক্রমণভাগে মেসির পর ডি মারিয়ার ওপরই নির্ভর করে দল। সৌদির তুলনায় অবশ্যই আর্জেন্টিনা ব্যালান্সড টিম।

এবারের বিশ্বকাপে যতটা মনে হয়েছিল আরব দেশগুলো ভালো করবে, তা মোটেও হয়নি। প্রথম দুই ম্যাচে মধ্যপ্রাচ্যের দুই দেশ কাতার ও ইরানের খেলা আমাকে হতাশই করেছে। নিজেদের আবহাওয়া আর কন্ডিশনের যে সুযোগ তারা কাজে লাগানোর কথা ছিল সেদিক থেকে তারা সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। সেই দিক বিবেচনা করলে সৌদি আরব এই ম্যাচে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে তেমন কোনো প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারবে বলে আমার মনে হয় না। বরং আমার মনে হয় আর্জেন্টিনার আক্রমণাত্মক ফুটবলের বিপক্ষে ডিফেন্সিভ মুডের ফুটবল খেলবে সৌদিরা।

ইউরোপ আর লাতিনের সায়েন্টিফিক্যালি ফুটবলের তুলনায় এশিয়ার ফুটবল যে যোজন যোজন পিছিয়ে প্রথম দুই ম্যাচ দেখে তা অনুমান করা গেছে। ইউরোপ আর লাতিনের ফুটবলের কাছাকাছি যেতে হলে এশিয়ার দলগুলোকে আরও বেশি অ্যানালাইসিস করতে হবে।

ফ্রান্স আর অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার ম্যাচটি হাড্ডাহাড্ডির লড়াই হবে বলে আমি মনে করি। বিশ্বকাপ শুরুর আগে যেভাবে ইনজুরি হানা দিয়েছে ফ্রান্স শিবিরে তা রীতিমতো ভয়ঙ্কর ব্যাপার বলা চলে। মিডফিল্ডার পল পগবা, এনগালো কান্তে ডিফেন্ডার প্রেসনেল কিম্বাবে আর ফরোয়ার্ড ক্রিস্টোফার এনকুকু আগেই বাদ পড়ে ইনজুরির কারণে। সর্বশেষ ব্যালন ডি অর বিজয়ী করিম বেনজেমার বাদ পড়াটা দলের জন্য অশনি সংকেত মনে করি।

একসঙ্গে এতগুলো গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হারানো ফ্রান্সের জন্য আজকের চ্যালেঞ্জের বলা চলে। মানসিক চাপও একটা তাদের জন্য সমস্যা হয়ে দাঁড়াতে পারে। তবে তারা যেহেতু বিশ্বচ্যাম্পিয়ন তাই এই ম্যাচে তারা জয় দিয়েই শুরু করতে চাইবে।

অস্ট্রেলিয়ার এই ম্যাচে হারানোর কিছু নেই বললে চলে। তারা আন্ডারডগ হিসেবেই ফ্রান্সের বিপক্ষে মাঠে নামবে। ফ্রান্সের বিপক্ষে গেল বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে দারুণ লড়াই করেও শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলে হার মানতে হয়েছিল অস্ট্রেলিয়াকে। এই ম্যাচে যে অস্ট্রেলিয়া সহজে ছেড়ে কথা কইবে না তা বলা চলে। তবে ম্যাচটি বেশ উপভোগ্যই হবে।


আরও খবর