Logo
আজঃ Monday ২৯ November ২০২১
শিরোনাম
নৌকা পরাজিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান হলো তৃতীয় লিঙ্গের ঋতু! তৃতীয় ধাপে ইউনিয়ন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা কুমিল্লায় নৌকা পেয়েও সরে দাড়ালেন বাহালুল, প্রাথমিক সদস্য না হয়েও মনোনীত নূরুল! মাতুয়াইলে সড়ক উন্নয়ন কাজের উদ্ধোধন করলেন সংসদ সদস্য কাজী মনু পলো উৎসবে মাছ ধরায় মেতেছে মানুষ, চির চেনা বাংলা গাজীপুরে ৩০ সেকেন্ডেই মা-মেয়ের জীবন শেষ করল দুই খুনি হয়নি হাফ পাসের সিদ্ধান্ত,টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব আলেম-ওলামাদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা-ভক্তি রয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রংপুরের তারাগঞ্জে ট্রাকচাপায় তিন নারী শ্রমিক নিহত কুমিল্লার তিতাস ও মেঘনা উপজেলায় ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী যারা !
মেটা’ নিয়ে উপহাস করছে ইসরায়েলিরা

ফেসবুকের নতুন নাম ‘মেটা নিয়ে উপহাস করছে ইসরায়েলিরা

প্রকাশিত:Monday ০১ November ২০২১ | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ১৩০জন দেখেছেন
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image


 

বিশ্বের সবচেয়ে বৃহৎ ও জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের নতুন কোম্পানির নাম ‘মেটা’ নিয়ে উপহাস করছে ইসরায়েলের ব্যবহারকারীরা। এর কারণ নতুন নামটি হিব্রু শব্দ 'মৃত'-এর মতো শোনাচ্ছে।

 

দ্য টেকল্যাশ এবং টেক ক্রাইসিস কমিউনিকেশনের লেখক ড. নিরিট ওয়েইস-ব্ল্যাট, টুইট করেছেন, ‘হিব্রুতে, ‘মেটা’ মানে ‘মৃত’। ইহুদি সম্প্রদায় আজীবন এই নামটিকে নিয়ে উপহাস করবে।' তিনি আরো বলেন, ‘মেটা’ হিব্রু শব্দটির স্ত্রীলিঙ্গের মতো শোনাচ্ছে।

 

ইসরায়েলি জরুরি উদ্ধার সংস্থা জাকা, যার কাজ একটি সঠিক ইহুদি সমাধি নিশ্চিত করার জন্য মানুষের দেহাবশেষ সংগ্রহ করা। তার টুইটার অনুসারীদের আশ্বস্ত করার জন্য উদ্ধৃত করেছে, 'চিন্তা করবেন না, আমরা এটির সঙ্গে আছি।

 

ব্র্যান্ডগুলো অনুবাদে প্রাধান্য না দেওয়ার এটাই প্রথম ঘটনা নয়। ১৯৮০-এর দশকে কেএফসি যখন তার ক্যাচফ্রেজ 'ফিঙ্গার লিকিন গুড' নিয়ে চীনে এসেছিল, তখন স্থানীয়রা এটাকে ভালো চোখে দেখেনি। ম্যান্ডারিনে এটির অনুবাদটি ছিল 'আপনার আঙুলগুলো বন্ধ করুন'। তবে এতে কম্পানিটির কোনো প্রকৃত ক্ষতি হয়নি, বরং কেএফসি দেশটির অন্যতম বৃহত্তম ফাস্ট ফুড চেইন।

-খবর প্রতিদিন /সি.বা

নিউজ ট্যাগ: মেটা ফেসবুক

আরও খবর



বাগদাদ থেকে আনা শতবর্ষী’ ডেগ

শতবর্ষী’সেই ডেগ উদ্ধার হয়নি আজও

প্রকাশিত:Monday ০১ November ২০২১ | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ১৬৫জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


 

মাদারীপুরের শিবচর চুরি হওয়ার ১১ দিন পরও ‘বাগদাদ থেকে আনা শতবর্ষী সেই ডেগ উদ্ধার হয়নি। এমনকি চুরির সঙ্গে জড়িত কেউ এখন পর্যন্ত ধরা পড়েনি। এ পরিস্থিতিতে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে স্থানীয়দের মাঝে।

 

গত ২১ অক্টোবর রাত ৩টার দিকে ৩-৪ জন চোর একটি ভ্যানে করে নিয়ে যায় ডেগটি। স্থানীয় একটি বাড়ির সিসি ক্যামেরার ফুটেজে এমন দৃশ্য দেখে গেছে। ফুটেজ সংগ্রহ করে পর্বেক্ষণ করছে পুলিশ। এছাড়া ঘটনার পরদিন শিবচর থানার ওসি মিরাজ হোসেনসহ পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

 

স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার (২২ অক্টোবর) ফজরের নামাজের সময় মৌলভী বাড়ির খবির উদ্দিন মৌলভীর নাতি হাবিব মুন্সী মসজিদে গিয়ে দেখেন ডেগটি নেই। ডেগটি যে ঘরে রাখা ছিল সেই ঘরের একটি খুঁটি ভেঙে কে বা কারা চুরি করে নিয়ে গেছে। পরে বাড়ির সবাইকে বিষয়টি জানিয়ে পুলিশে খবর দেন তিনি। দত্তপাড়া পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের একটি দল খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

 

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় একটি বাড়ির সিসি ক্যামেরার অস্পষ্ট ফুটেজে দেখা গেছে- রাত ৩টার দিকে একটি ব্যাটারিচালিত ভ্যানে করে কাপড়ে ঢাকা ডেগ সদৃশ কিছু একটা নিয়ে যাচ্ছে ৩-৪ জন লোক। ঐ ঘটনায় হাবিব মুন্সী অজ্ঞাত ৫-৬ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন।

শিবচর থানার ওসি মিরাজ হোসাইন জানান, সিসিটিভি ফুটেজ দেখে চোর শনাক্তের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। ঘটনাটি রাতের হওয়ায় এবং ফুটেজ অস্পষ্ট হওয়ায় শনাক্ত করতে কষ্ট হচ্ছে।

 

উল্লেখ্য, মাদারীপুরের শিবচরের মৌলভী বাড়ির মাওলানা খবির উদ্দিন আহমেদ আল কাদেরী প্রায় ১০০ বছর আগে ইরাকের বাগদাদ থেকে এই ডেগটি এনেছিলেন। তার মাজারের পাশের একটি খোলা ঘরে দর্শনার্থীদের জন্য ডেগটি রাখা হয়েছিল।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 

নিউজ ট্যাগ: শতবর্ষী’ ডেগ

আরও খবর



একসঙ্গে পাঁচ ছেলে-মেয়ের জন্ম

৬ মাসেই একসঙ্গে পাঁচ ছেলে-মেয়ের জন্ম দিলেন সাদিয়া

প্রকাশিত:Tuesday ০২ November 2০২1 | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ৪১৩জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image

 


কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে একসঙ্গে পাঁচ সন্তানের জন্ম দিয়েছেন সাদিয়া খাতুন নামে এক প্রসূতি। তাদের মধ্যে চারজন মেয়ে ও একজন ছেলে। গর্ভধারণের মাত্র ছয় মাসের মাথায় শিশুগুলোর জন্ম হয়েছে।

 

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, নির্দিষ্ট সময়ের আগে প্রসব হওয়ায় বাচ্চাগুলোর ওজন কম হয়েছে। মা সুস্থ থাকলেও বাচ্চাগুলো ঝুঁকিতে রয়েছে।মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে একসঙ্গে পাঁচ শিশুর জন্ম হয়। প্রসূতি সাদিয়া কুমারখালী উপজেলার পান্টি ইউনিয়নের পান্টি গ্রামের কলেজপাড়া এলাকার সোহেল রানার স্ত্রী।

 

হাসপাতাল সূত্র জানায়, ৬ মাসের মাথায় সাদিয়া বাচ্চা প্রসব করেছেন। একসঙ্গে পাঁচ বাচ্চা প্রসবে অনেক ঝুঁকি ছিল। তবে মা সুস্থ থাকলেও ওজন কম হওয়ায় ঝুঁকিতে রয়েছে বাচ্চাগুলো।সাদিয়ার ননদ রাবেয়া বলেন, সোমবার রাত ১০টায় হাসপাতালে আসি। ৬ মাস ১০ দিনের মাথায় নরমাল ডেলিভারিতে বাচ্চাগুলোর জন্ম হয়েছে। আমার ভাবি সুস্থ আছেন। আমরা খুবই খুশি।

 

শিশুদের বাবা সোহেল রানা বলেন, ২০১৬ সালের ৩০ জুলাই সাদিয়া খাতুনকে বিয়ে করি। পাঁচ বছর পর আমাদের একসঙ্গে পাঁচ সন্তান হলো। আমরা খুবই খুশি। আমার স্ত্রী সুস্থ আছে, বাচ্চারা শিশু ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন।

 

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক শাহীন আক্তার সুমন বলেন, বাচ্চাদের সুস্থ করে তোলার চেষ্টা চলছে। তবে ঝুঁকি থেকেই যাচ্ছে। তাদের ওজন কম হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজের শিশু বিভাগে অথবা শিশু হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। বাচ্চাগুলোর ওজন ৫০০ থেকে ৬০০ গ্রাম। তবে মা সুস্থ রয়েছেন।

 

-খবর প্রতিদিন / সি.বা 


আরও খবর



হাজার হাজার শৌখিন মৎস শিকারিদের আনা গোনায় রহুল বিল

পলো উৎসবে মাছ ধরায় মেতেছে মানুষ, চির চেনা বাংলা

প্রকাশিত:Saturday ২৭ November ২০২১ | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ১০৪জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


 

মাছ ধরা বা মাছ শিকার করা বিলাঞ্চলের মানুষদের আজন্ম শখ। বিশেষ করে চলন বিল এলাকায় বর্ষা মৌসুমে নিম্নাঞ্চলের খাস বা সরকারি জলাভূমিতে পানি অল্প থাকাকালে মাছ শিকারিরা দল বদ্ধ হয়ে পলো, ছোট জাল নিয়ে একটি নিদিষ্ট দিনে মাছ শিকার করে থাকে। এলাকায় এটি পলো উৎসব বা বাউত উৎসব নামের পরিচিত।

 

শনিবার পাবনার ভাঙ্গুড়ার উপজেলার পারভাঙ্গুড়া ইউপির বিল রুহুলে এমনই এক শৌখিন মাছ শিকারিদের মিলন মেলা হয়েছে। এতে সবার কাছে মাছ ধরা পড়ুক বা না পড়ুক এক সঙ্গে বছরের এই দিনে মাছ ধরতে আসার মজাই যেন অন্য রকম।

 

সরেজমিন শনিবার উপজেলার বিল রুহুল এলাকা ঘুরে দেখা যায় , পাবনাসহ পার্শ্ববর্তী জেলাগুলো থেকে শৌখিন মাছ শিকারিরা ভোর বেলার কুয়াশা ভেদ করেই বিভিন্ন যানবাহন বাস, নছিমন, আটো ভ্যান, ভটভটি যোগে এই বিল পাড়ে আসতে থাকে। তাদের হাতে পলো, জাল ঠেলাজাল, ধর্মখরাসহ মাছ ধরার বিভিন্ন উপকরণ নিয়ে বিলের পাড়ে এসে হাজির হয়ে এক সঙ্গে মাছ ধরতে পানিতে নামে। তারা মাছ ধরার সময় বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। কেউ মাছ পেলে সবাই মিলে তাকে আরো উৎসাহ দিতে থাকে।

 

এদিনে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে বিলপাড়ে বিস্কুট রুটি ও চায়ের দোকান নিয়েও বসেছে। মাৎস শিকারিদের কেউ কেউ পেয়েছে সোল, বোয়াল, রুই, গজার । আবার অনেকেই মাছ পায় নি। তবে প্রায় সবার মুখেই ছিল মাছ ধরতে আসতে পারায় আনন্দের ছোয়া।

শিশু, কিশোর, যুবক, বৃদ্ধসহ সব ধরণের হাজার হাজার শৌখিন মৎস শিকারিদের আনা গোনায় রহুল বিল ছিল কানায় কানায় পরিপূর্ণ।

জানা গেছে, ভাঙ্গুড়া উপজেলার পারভাঙ্গুড়া ইউপি ও পার্শ্ববর্তী চাটমোহর উপজেলার পার্শ্বডাঙ্গা ইউপির কিছু অংশ নিয়ে কয়েক হাজার একর জমি নিয়ে রয়েছে রুহুল বিল। বিশেষত বর্ষার পানি চলে যাওয়ার পর কয়েক শ’ একর জমিতে বিভিন্ন গভীরতায় পানি থাকে। সেখানে বর্ষার পানিতে আটকে থাকা বোয়াল, সোল, গজার, পুঁটি, সিং সহ দেশীয় প্রজাতির বিভিন্ন মাছ।

 

বছরের একটি নিদিষ্ট দিনে একে অন্যেরে সঙ্গে মোবাইল ফোন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যোগাযোগ করে নাটোর, পাবনা, সিরাজগঞ্জ, টাঙ্গাইল থেকে বাস, ভটভটি, নছিমন যোগে ভোরে এই বিলে মাছ ধরার জন্য এসে হাজির হয়। এদিনে তাদের হাতে ধরা পড়ে নানা ধরণের মাছ। বেলা বাড়ার  সঙ্গে সঙ্গে মাছ শিকারির সংখ্যাও কমতে থাকে।

মাছ ধরতে আসা নাটোরের পঞ্চাশোর্ধ আলম হোসেন বলেন, এই দিনটিতে রহুল বিলে মাছ ধরার জন্য প্রতি বছর অপেক্ষা করে থাকি। লোক মুখে খবর পেয়ে মাছ ধরতে এসেছি।

টাঙ্গাইলের বাছের উদ্দীন বলেন, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মাছ ধরার খবর পেয়ে তারা একাধিক বাস রিজার্ভ করে পলো ও মাছ ধরার উপকরণ নিয়ে কয়েকশ শৌখিন মাৎস শিকারি মাছ ধরতে এসেছেন।

 

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



ডোমার পৌর নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মনছুরুল ইসলাম দানু নির্বাচিত

প্রকাশিত:Tuesday ০২ November 2০২1 | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ১৮৪জন দেখেছেন
Image


 

মনিরুজ্জামান লেবু , নীলফামারী :

 

 

নীলফামারীর ডোমার পৌরসভায় প্রথমবারের মতো ইভিএম’এ অনুষ্ঠিত নির্বাচনের বেসরকারীভাবে ফলাফল ঘোষনা করা হয়েছে। মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী নারিকেল গাছ প্রতীকের মনছুরুল ইসলাম দানু ৪ হাজার ৫৩৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।

 

তিনি টানা ৩য়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হলেন। এর আগে ডোমার ইউনিয়ন পরিষদে টানা ৫বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন। 

 

অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী মোবাইল ফোন প্রতীকের আফরোজা নাজনীন রুমি ৩ হাজার ৬৭৪ভোট পেয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন। তবে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী গনেশ কুমার আগরওয়ালা পেয়েছেন ২ হাজার ৩২৫ ভোট। 

 

মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত শান্তিপূর্নভাবে ৯টি কেন্দ্রের ৫১টি বুথে ভোটাররা আনন্দঘন পরিবেশে তাদের ভোটাধীকার প্রয়োগ করেন। নির্বাচনকালীন সময়ে কোন কেন্দ্রে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি বলে জানিয়েছেন রিটার্নিং অফিসার মোহাম্ম জাহাঙ্গীর হোসেন।

 

 খবর প্রতিদিন/ সি.বা

 


আরও খবর



পরাজয় থেকে বেড়িয়ে আসতে চায় বাংলাদেশ

আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে পরাজয় থেকে বেড়িয়ে আসতে চায় বাংলাদেশ

প্রকাশিত:Monday ০১ November ২০২১ | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ১৪৫জন দেখেছেন
স্পোর্টস ডেস্ক

Image


সেমিফাইনালের দৌঁড় থেকে ছিটকে পড়ার দ্বারপ্রান্তে থাকলেও পরাজয়ের বৃত্ত থেকে বেড়িয়ে আসতে চায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। এমন লক্ষ্য নিয়েই আগামীকাল দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টি-২০ বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে আবু ধাবির শেখ জায়েদ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মাঠে নামবে টাইগাররা।

 

এখন পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টি-২০ ফরম্যাটে ছয়টি ম্যাচ খেলে সবকটিতেই পরাজিত হয়েছে বাংলাদেশ।  ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম ফরমাটে আফ্রিকান দেশটির বিপক্ষে জয়ের খরা কাটাতে ২০১৭ সালের পর প্রথমবারের মতো তেম্বা বাভুমার দলের মুখোমুখি হবে টাইগাররা বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায় শুরু হওয়া ম্যাচটি সরাসরি দেখাবে গাজী টিভি ও টি-স্পোটর্স।

 

সুপার টুয়েলভে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলংকার কাছে ৫ উইকেটে হারে বাংলাদেশ। এরপর ইংল্যান্ডের কাছে হারে ৮ উইকেটে। তবে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ৩ রানে হার ছিলো হৃদয় বিদারক। শ্রীলংকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জিততে পারলে টুর্নামেন্টে দারুণভাবে লড়াইয়ে থাকতো টাইগাররা।

 

গাণিতিকভাবে বাংলাদেশের শেষ চারে উঠার সুযোগ এখনও সম্ভব।  কিন্তু  এ জন্য একসঙ্গে অনেক কিছু ঘটতে হবে, যার অনেক কিছুই বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রনে নেই।

তবে বাংলাদেশ যা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে তা হলো - দক্ষিণ আফ্রিকা এবং অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নিজেদের শেষ দু’টি ম্যাচে জয়, যা বাংলাদেশি সমর্থকদের মুখে হাসি ফোটাতে পারে। কিন্তু এই ইভেন্টে টাইগাররা বারবার ব্যর্থ হওয়ায় ভক্ত-সমর্থকরা হতাশ। তার ওপড় টাইগার দলের বড় ধাক্কা হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির কারণে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়েছেন অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

 

এমন অবস্থার পরও প্রয়োজনীয় সময়ে সতীর্থদের জ্বলে ওঠার আহ্বান অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের। সম্প্রতি দেশের মাটিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৪-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতে বাংলাদেশ।  তবে এ ক্ষেত্রে নিজেদের পরিকল্পনা মত উইকেট বানিয়ে ম্যাচগুলো জিতেছিল তারা।

টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত তিন ম্যাচে দু’টি করে জয় পেয়ে দারুণ ফর্মে রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়া। নিজেদের প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। আবার ইংল্যান্ডের কাছে পরাজিত হয়েছে অস্ট্রেলিয়া। গ্রুপ-১তে পারফরমেন্সের বিচারে ইংল্যান্ডক ভয়ংকর দল।  যেমনটা গ্রুপ-২এ পাকিস্তান।

এমন অবস্থায় গ্রুপ থেকে দ্বিতীয় দল হিসেবে সেমিফাইনালে যাবার দৌঁড়ে টিকে থাকতে বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজেদের ম্যাচগুলোতে জিততে চাইবে দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়া।

তবে দক্ষিণ আফ্রিকা এবং অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে জয়  ছাড়া নেট রান-রেটও বাড়ানোর লক্ষ্য তাদের থাকবে বলে আগেই জানিয়েছিলেন মাহমুদুল্লাহ। সেমিফাইনালে যাবার সামান্য সুযোগও কাজে লাগাতে চান তিনি।

হতাশাজনক বিশ্বকাপ যাত্রায় কিছুটা সান্তনা পেতে ও গাণিতিকভাবে বাংলাদেশের সম্ভাবনাকে বাঁচিয়ে রাখতে, শেষ দু’টি ম্যাচে জয়ের জন্য লক্ষ্য স্থির করেছেন মাহমুদউল্লাহ।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বাংলাদেশ উদ্বিগ্ন কারণ এখনও টি-২০ ফরম্যাটে আফ্রিকান দেশের বিপক্ষে কোন জয় পায়নি টাইগাররা।

টি-২০ ক্রিকেটে বাংলাদেশের পারফরমেন্স আশানুরুপ নয়। এখন পর্যন্ত ১১৮ ম্যাচ খেলে ৪৩টি জিতেছে তারা। ৭৩ ম্যাচে হার ও দু’টি পরিত্যক্ত হয়েছে।

এখন পর্যন্ত ক্রিকেটের এই সংক্ষিপ্ত সংস্করণের বিশ্বকাপে ৩০টি ম্যাচ খেলেছে এবং মাত্র সাতটিতে জিতেছে বাংলাদেশ। ২০০৭ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাছাই পর্বে একটি ম্যাচ জিতেছে তারা।

 

 খবর প্রতিদিন /সি.বা


আরও খবর