Logo
আজঃ Friday ১৯ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে আবাসিকের অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন ডেমরায় প্যাকেজিং কারখানায় ভয়বহ অগ্নিকান্ড রূপগঞ্জে পুলিশের ভুয়া সাব-ইন্সপেক্টর গ্রেফতার রূপগঞ্জে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ॥ সভা সরাইলে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত। নারায়ণগঞ্জে পারিবারিক কলহে স্ত্রীকে পুতা দিয়ে আঘাত করে হত্যা,,স্বামী গ্রেপ্তার রূপগঞ্জ ইউএনও’র বিদায় সংবর্ধনা নাসিরনগরে স্বামীর পরকিয়ার,বলি ননদ ভাবীর বুলেটপানে আত্মহত্যা নাসিরনগরে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদত বার্ষিকী পালিত ডেমরায় জাতীয় শোক দিবসের কর্মসুচি পালিত

এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ

প্রকাশিত:Thursday ৩০ December ২০২১ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৩৬১জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিনামূল্যে বই বিতরণ উদ্বোধনের পর এই ফল প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরীক্ষায় গড়ে ৯৩.৫৮ শতাংশ পরীক্ষার্থী পাস করেছে। 

এদিন সব বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রধানমন্ত্রীর কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে এ পরীক্ষার ফলাফলের সারসংক্ষেপ তুলে দেন। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে এসএসসি ও সমমানের ফল গ্রহণ করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। পরে সংবাদ সম্মেলন করে ফলাফলের বিস্তারিত তথ্য জানাবেন শিক্ষামন্ত্রী।

করোনা মহামারির কারণে নির্ধারিত সময়ের সাড়ে আট মাস পর এবার এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এই পরীক্ষায় ২২ লাখের বেশি শিক্ষার্থী অংশ নেয়।

এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের কলেজে ভর্তির জন্য অনলাইনে আবেদন নেওয়া শুরু হবে ৫ জানুয়ারি থেকে। ২ মার্চ থেকে একাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

শিক্ষার্থীরা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট এবং এসএমএসের মাধ্যমে ফল জানতে পারবে। http://www.educationboardresults.gov.bd ওয়েবসাইট ভিজিট করে ফলাফল জানা যাবে। ওয়েবসাইটে রোল নম্বর, পরীক্ষার (Examination) নাম এবং বোর্ড সিলেক্ট করে সাবমিট বাটনে ক্লিক করে ফলাফল জানা যাবে।

এ ছাড়া মোবাইলে এসএমএস-এর মাধ্যমেও ফল জানা যাবে। সেজন্য মেসেজ অপশনে গিয়ে SSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে আবার স্পেস দিয়ে পাসের বছর লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে। উদাহরণস্বরূপ : SSC DHA 123456 2021 লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে।

মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের জন্য DAKHIL লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে আবার স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে পাসের সাল লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে। উদাহরণস্বরূপ : DAKHIL MAD 123456 2021 লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে।


আরও খবর



ক্লাসে ঢুকতে দেরি হওয়ায় ছাত্রীর হাত ভাঙলেন শিক্ষক

প্রকাশিত:Thursday ০৪ August ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ১৬ August ২০২২ | ৩৬জন দেখেছেন
Image

সাতক্ষীরার শ্যামনগরের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আনিসা আক্তার (১১) নামে এক শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে হাত ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকের বিরুদ্ধে। ১ আগস্ট দুপুরে সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার ১০৩ নম্বর সেন্ট্রাল আবাদ চন্ডিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় আনিসা আক্তারসহ আরও ৬ জন শিক্ষার্থীকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করেন ওই শিক্ষক।

ভুক্তভোগি আনিসা আক্তার ওই বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী ও চন্ডিপুর গ্রামের আবুল হোসেনের মেয়ে। বর্তমানে তিনি শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগি শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে আবুল হোসেন বিদ্যালয়টির সহকারী শিক্ষক শহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে শ্যামনগর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বরারব লিখিত অভিযোগ করেছেন।

আহত আনিসা আক্তার জানায়, ঘটনার দিন দুপুরে শহিদুল স্যার আমাদেরকে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে ক্লাসে যাওয়ার কথা বলেন। তবে আমিসহ আমার কয়েকজন সহপাঠীর পানি পিপাসা লাগাই আমরা পানি খেতে যাই। এতে শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করতে আমাদের একটু দেরি হয়। তবে স্যার আমাদের কোনো কথা বলার সুযোগ না দিয়ে বেধড়ক মারতে থাকেন।

আহত শিশুর বাবা আবুল হোসেন বলেন, ঘটনার দিন দুপুরে আমার মেয়ে কাঁদতে কাঁদতে বাড়ি আসে। এ সময় তার কাছে জিজ্ঞাসা করা হলে সে বলে, স্যার আমাকে মেরেছে। আমার হাতে প্রচুর যন্ত্রণা হচ্ছে। আমি সহ্য করতে পারছি না। এক পর্যায়ে মেয়ের অবস্থা বেগতিক দেখে তাকে শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করি। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার হাতের এক্স-রে করানোর কথা বলেন। এক্স-রে রিপোর্টে দেখা যায় তার বাম হাতের কব্জির দুইটা হাড় ভেঙে গেছে।

তিনি বলেন, এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের জন্য আমি বুধবার (৪ আগস্ট) উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে একটি অভিযোগ দায়ের করেছি। তবে অভিযুক্ত শিক্ষকের বড় ভাই স্থানীয় জনপ্রতিনিধি হওয়ায় আমাদেরকে বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিয়ে চাপ প্রয়োগ করে যাচ্ছেন। এতে আমরা নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছি।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক শহিদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জাগো নিউজকে বলেন, স্কুলে নতুন ভবন নির্মাণের কাজ পরিদর্শন করতে এসেছিলেন সংশ্লিষ্টরা। আমি বাচ্চাদের ক্লাসে যেতে বলেছিলাম কিন্তু কেউই কথা শুনছিল না। এ জন্য আমি লাঠি দিয়ে কয়েকজন শিক্ষার্থীকে কিছুটা মেরেছিলাম। তবে হাড় ভাঙবে এমনভাবে কাউকে মারা হয়নি।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক সৌভিক রায় জাগো নিউজকে বলেন, শিক্ষার্থীদের মারধরের ঘটনাটি আমি শুনেছি। তবে ঘটনাটি যখন ঘটে তখন আমি বিদ্যালয়ে ছিলাম না। ঘটনাটি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে জানিয়েছি।

এ ব্যাপারে শ্যামনগর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রফিজ মিয়া জাগো নিউজকে বলেন, বিষয়টি তদন্তের জন্য একজন সহকারী শিক্ষা অফিসারকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তদন্তপূর্বক তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর



ঢাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৮৬

প্রকাশিত:Saturday ৩০ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৩৮জন দেখেছেন
Image

রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকার মাদকবিরোধী অভিযানে বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে ৮৬ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ।

এ সময় তাদের কাছ থেকে দুই হাজার ৯২১ পিস ইয়াবা, ৪৪৫ গ্রাম হেরোইন, ১০ কেজি ৫৬০ গ্রাম গাঁজা ও ১০৪ বোতল দেশিমদ উদ্ধার করা হয়।

শুক্রবার (২৯ জুলাই) ভোর ৬টা থেকে শনিবার (৩১ জুলাই) ভোর ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৫৬টি মামলা রুজু হয়েছে।


আরও খবর



ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৩ দিন থাকবে না গ্যাস, চিন্তায় গৃহিণীরা

প্রকাশিত:Friday ২৯ July ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ১৬ August ২০২২ | ৩০জন দেখেছেন
Image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তিনদিন গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। গ্যাস পাইপলাইনের কমিশনিং কাজের জন্য রোববার (৩১ জুলাই) ভোর ৬টা থেকে ৩ আগস্ট ভোর ৬টা পর্যন্ত টানা ৭২ ঘণ্টা গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। এরই মধ্যে এ তথ্য জানিয়ে বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের ওয়েবসাইটে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

২৪ জুলাই জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আশুগঞ্জ নদীবন্দর থেকে ভারতের আগরতলা চার লেন সড়কের উন্নতিকরণের প্রকল্পের ইউটিলিটি সিফটিংয়ের আওতায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার ঘাটুরা থেকে পুনিয়াউট নতুন বাইপাস মহাসড়ক পর্যন্ত গ্যাস পাইপলাইনের কমিশনিং কাজ করা হবে। এজন্য তিনদিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর ও সরাইল এলাকার আবাসিক এবং বাণিজ্যিক উভয় গ্রাহকদের গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে।

বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের ব্রাহ্মণবাড়িয়া কার্যালয়ের উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) শফিউল আলম জানান, আশুগঞ্জ নৌবন্দর থেকে আখাউড়া স্থলবন্দর পর্যন্ত চার লেন মহাসড়কে উন্নীতকরণ প্রকল্পের জন্য মূলত গ্যাস পাইপলাইন আপগ্রেডেশন করা হচ্ছে। এ প্রকল্পের আওতায় গ্যাসের পুরোনো লাইন বদলে নতুন লাইন করা হচ্ছে। ৩১ জুলাই ভোর ৬টা থেকে ৩ আগস্ট ভোর ৬টা পর্যন্ত গ্যাস লাইন হুক-আপ করার কাজ চলবে।

সংশ্লিষ্ট এলাকায় বাখরাবাদ কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে গত কয়েকদিন ধরেই এ বিষয়টি উল্লেখ করে মাইকিং করা হচ্ছে।

এদিকে, টানা তিনদিন গ্যাস না থাকার খবরে চিন্তায় পড়েছেন গৃহিণীরা। কেউ কেউ রান্নাবান্নার পূর্ব প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

জেলা শহরের নিউ সিনেমা হল সড়কের গৃহিণী প্রমিলা দাস জাগো নিউজকে বলেন, ‘গ্যাস না থাকার খবরে দুশ্চিন্তায় পড়েছি। বড়দের খাবার নিয়ে চিন্তার বিষয় নয়। আমরা বাইরে থেকে কিনে এনে খেতে পারবো। কিন্তু ছোট শিশুদের খাবারের কী হবে?’

তিনি বলেন, ‘আমার দুটি ছোট বাচ্চা আছে। এরমধ্যে একজনকে খিচুড়ি ও গরম পানি দিয়ে খাবার তৈরি করে দিতে হয়। তিনদিন তার জন্য খাবার কীভাবে তৈরি করবো সেই চিন্তায় আছি।’

শহরের কাজীপাড়ার গৃহিণী আইরিন আক্তার বলেন, ‘নিজেরা না হয় একটু কষ্ট করলাম। আর বাইরে থেকে কিনে এনে কি সবসময় খাওয়া সম্ভব? শহুরে জীবনে মাটির চুলায় রান্না করতে অভ্যস্ত নই। তিনদিন কীভাবে রান্না করবো ভেবে পাচ্ছি না।’

সদর উপজেলার সুহিলপুরের বাসিন্দা দিপু দেব বলেন, ‘তিনদিন গ্যাস বন্ধ থাকবে বলে মাইকিং করা হচ্ছে। খাবার তো খেতে হবে। তাই বাড়ির ছাদে ইট দিয়ে চুলা বানিয়ে রান্নার বিকল্প ব্যবস্থা করেছি।’


আরও খবর



গাড়ি দুর্ঘটনায় মৃত্যু আম্পায়ার রুডি কোয়ের্তজেনের

প্রকাশিত:Tuesday ০৯ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৫০জন দেখেছেন
Image

আইসিসির সাবেক এলিট প্যানেল আম্পায়ার দক্ষিণ আফ্রিকান রুডি কোয়ের্তজেন মৃত্যু বরণ করেছেন। ইএসপিএন ক্রিকইনফো জানাচ্ছে, গাড়ি দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে তার। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৩ বছর।

কেপ টাউন থেকে নিজেই গাড়ি চালিয়ে ইস্টার্ন কেপ-এ যাচ্ছিলেন রুডি কোয়ের্তজেন। সেখানেই তিনি পরিবার নিয়ে বসবাস করতেন। পথেই দুর্ঘটনার শিকার হলেন তিনি।

রুডি কোয়ের্তজেন হচ্ছেন বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ম্যাচ পরিচালনাকারী আম্পায়ার। মোট ৩৩১টি ম্যাচ আম্পায়ার হিসেবে পরিচালনা করেন তিনি। ২০১০ সালে কোয়ের্তজেন যখন অবসর গ্রহণ করেন, তখন তিনিই ছিলেন সর্বোচ্চ ম্যাচ পরিচালনাকারী আম্পায়ার। এরপর পাকিস্তানের আলিম দার তাকে ছাড়িয়ে যান। আলিম দার এখনও আম্পায়ারের দায়িত্ব পালন করছেন এবং এখনও পর্যন্ত মোট ৪২০টি ম্যাচ পরিচালনা করেছেন।

শুধু সর্বোচ্চ ম্যাচ পরিচালনা করাই নয়- রুডি কোয়ের্তজেন, আলিম দার এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্টিভ বাকনর- মাত্র এই তিন আম্পায়ারই ১০০’র বেশি টেস্ট ম্যাচ পরিচালনা করার গৌরব অর্জন করেন।

রুডি কোয়ের্তজেনের মৃত্যুর সংবাদ শুনে আলিম দার বলেন, ‘এই মৃত্যু সর্বপ্রথম তার পরিবার, এরপর দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ক্রিকেটের জন্য অনেক বড় একটি ক্ষতি এবং মর্মবেদনার সংবাদ। আমি অনেকগুলো ম্যাচেই তার সঙ্গে আম্পায়ারের দায়িত্ব পালন করতে দাঁড়িয়েছি। তিনি শুধু একজন দুর্দান্ত আম্পায়ার ছিলেন না, ছিলেন একজন অসাধারণ সহকর্মী। মাঠের মধ্যে ছিলেন সব সময় দারুণ সহযোগী। এমনকি মাঠের বাইরেও তিনি অনেক সহযোগিতা করতেন।’

দক্ষিণ আফ্রিকার আরেক আম্পায়ার মারিয়াস এরাসমাস বলেন, ‘শারীরিক এবং মানসিক দিক থেকে এমন এক চরিত্রের অধিকারী ছিলেন রুডি, যা অতুলনীয়। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দক্ষিণ আফ্রিকান আম্পায়ারদের জন্য তিনিই প্রথম দরজা খুলে ধরতে সক্ষম হন। আমাদের মধ্যে এই আত্মবিশ্বাস জন্মিয়েছিলেন যে, এটা সম্ভব। একজন সত্যিকারের কিংবদন্তি এবং তরুণ আম্পায়ার হিসেবে আমি তার কাছ থেকে অনেক কিছুই শিখেছি।’

আম্পায়ার হিসেবে ১৯৯২-৯৩ সালে অভিষেক ঘটে কোয়ের্তজেনের। প্রথম ম্যাচ পরিচালনা করেচন পোর্ট এলিজাবেথে। এরপর ধীরে ধীরে বিশ্বের সেরা আম্পায়ারে পরিণত হন এক সময়। ১৯৯৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং ভারতের মধ্যকার একটি ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব আসে তার কাছে এবং তিনি সে প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়ে সবার প্রশংসা কুড়িয়ে নেন।

২০০৭ বিশ্বকাপের ফাইনালে থার্ড আম্পায়ার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি এবং ওই ম্যাচটি একটি বিশৃঙ্খলার মধ্য দিয়ে শেষ হওয়ার কারণে আইসিসির পক্ষ থেকে শাস্তিরও শিকার হন কোয়ের্তজেন।

অবসরের পর একটি আত্মজীবনী লিখেন কোয়ের্তজেন। নাম দেন, স্লো ডেথ: মেমোরাইজ অব দ্য ক্রিকেট আম্পায়ার। সেখানে অকপটে ২০০৭ বিশ্বকাপের ফাইনালসহ বিভিন্ন ম্যাচে যে সব ভুল করেছেন, তা তুলে ধরেন।

সর্বশেষ তিনি ২০১১ সালে আইপিএলে রয়্যাল চ্যালেঞ্চার্স ব্যাঙ্গালুরু এবং চেন্নাই সুপার কিংসের একটি ম্যাচ পরিচালনা করেন। প্রায় ১৮ বছরের বেশি আম্পায়ার হিসেবে দায়িত্ব পালন করার পর তিনি এই অঙ্গন থেকে সরে দাঁড়ান।


আরও খবর



তেলের দাম বাড়ায় ব্যবসায়ীরা সুযোগ নিচ্ছেন: বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:Wednesday ১৭ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ২৪জন দেখেছেন
Image

জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর অজুহাত দিয়ে কোন কোন ব্যবসায়ী সুযোগ নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

বুধবার (১৭ আগস্ট) সচিবালয়ে টিসিবির এক কোটি পরিবারের মধ্যে ভর্তুকিমূল্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রির কার্যক্রম সংক্রান্ত বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা জানান।

বাজারে সব নিত্যপণ্যের দাম বেশি। সরকার মানুষের দুর্ভোগ লাগবে কী পদক্ষেপ নিচ্ছে- জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা সত্যি কথা বলছেন। আমরা দেখছি, সব যে আমরা বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কন্ট্রোল করি তা নয়। সব ব্যাপারে আপনাদের বুঝাতে পারব তাও নয়। কিন্তু আমার যেটা কথা, এগুলো একটা হঠাৎ করে সুযোগ কেউ নিয়েছে। যে পরিমাণ বাড়ার কথা এর চেয়ে অনেক বেশি সুযোগ নিয়েছে, এটা সত্যি কথা। আমরা সবাই মিলে চেষ্টা করছি।’

তিনি বলেন, ‘যে যে মন্ত্রণালয়ে সেখান থেকে চেষ্টা করা দরকার। ডলার দেখলেন হঠাৎ করে কত বেশি, সেটাও কিন্তু চেষ্টা করা হচ্ছে। একটু বোধহয় কমছে।’

‘আমার কাছে হিসাব আছে, তেলের দাম বাড়ার কারণে চালের দাম কেজিতে বড় জোর ৫০ পয়সা বাড়তে পারে, কিন্তু ৪ টাকা বেড়ে গেছে। কোন লজিক আছে? তার মানে সুযোগটা নিয়ে নিয়েছে।’

টিপু মুনশি বলেন, ‘দেখেন মানুষ কত কায়দাবাজি করে। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চন্দ্রা নামের একটা জায়গা আছে। দূরত্ব ধরেন ১৫ কিলোমিটার, ভাড়া নির্ধারণ করা হলো প্রতি কিলোমিটার ৩০ বা ৪০ পয়সা। সেখানে কী সুযোগ নিয়েছে? ওই ১৫ কিলোমিটার যেটা জেনুইন গত ৩০/৫০ বছর ধরে...জায়গার মাপ তো আগে পিছে করা যাবে না, যা দূরত্ব তাই। কিন্তু ভাড়া হিসাব করার সময় ওটা ৪ কিলোমিটার বাড়িয়ে দিয়ে করা হয়েছে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘এ সুযোগ তো কেউ কেউ নিচ্ছেন। আমাদের একটু সময় দেন। আমরা সবাই মিলে চেষ্টা করছি। আপনাদের যেমন বলতে হবে, কোথায় নিচ্ছে। আমাদেরর চোখ-কান খুলে দিতে হবে। আমরা চেষ্টা করছি।’


আরও খবর