Logo
আজঃ Friday ১৯ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে আবাসিকের অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন ডেমরায় প্যাকেজিং কারখানায় ভয়বহ অগ্নিকান্ড রূপগঞ্জে পুলিশের ভুয়া সাব-ইন্সপেক্টর গ্রেফতার রূপগঞ্জে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ॥ সভা সরাইলে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত। নারায়ণগঞ্জে পারিবারিক কলহে স্ত্রীকে পুতা দিয়ে আঘাত করে হত্যা,,স্বামী গ্রেপ্তার রূপগঞ্জ ইউএনও’র বিদায় সংবর্ধনা নাসিরনগরে স্বামীর পরকিয়ার,বলি ননদ ভাবীর বুলেটপানে আত্মহত্যা নাসিরনগরে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদত বার্ষিকী পালিত ডেমরায় জাতীয় শোক দিবসের কর্মসুচি পালিত

এসডি রুবেলের ‘আমার একটা তুমি ছিল’

প্রকাশিত:Tuesday ২৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৭৩জন দেখেছেন
Image

সংগীতশিল্পী এসডি রুবেল অসংখ্য শ্রোতাপ্রিয় ও সুপারহিট গানের গায়ক। এবার তিনি অনিরুধ আর শুভর সঙ্গীতায়োজনে তরুণ গীতিকার রাসেল ইব্রাহীমের কথায় ‘আমার একটা তুমি ছিল’ শিরোনামের গানে কণ্ঠ দিয়েছেন। সুর করেছেন শিল্পী নিজেই।

গান প্রসঙ্গে এসডি রুবেল বলেন, রাসেল ইব্রাহীম একদম নতুন একজন গীতিকার। গানের কথা ভালো হয়েছে। প্রত্যাশা করি, তার লেখা এই গানটি সবার ভালো লাগবে।

এ বিষয়ে গানের গীতিকার রাসেল ইব্রাহীম বলেন, এসডি রুবেল একাধারে একজন কণ্ঠশিল্পী, নায়ক, পরিচালক, প্রযোজক, গীতিকার এবং সুরকার। এ রকম বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী একজন কণ্ঠশিল্পীর কণ্ঠে আমার লেখা গান ছোট্ট এই জীবনে এটি আমার জন্য অসাধারণ প্রাপ্তি।

জানা গেছে, ‘‘SD RUBEL FOUNDATION” নামক ইউটিউব চ্যানেলে গেলো বছর গানটি প্রকাশ করা হয়েছে।


আরও খবর

আসছে ‘গোলমাল ৫’!

Friday ১৯ August ২০২২




টানা চার ফিফটিতে গেইল-ম্যাককালামদের পাশে রেজা

প্রকাশিত:Thursday ০৪ August ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ১৮জন দেখেছেন
Image

ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা সময় কাটাচ্ছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ডানহাতি ওপেনার রেজা হেন্ডরিকস। টানা চার টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ফিফটি হাঁকিয়ে বিশ্বরেকর্ডে নাম তুলেছেন ৩২ বছর বয়সী এ ব্যাটার। যা এখন পর্যন্ত করতে পেরেছেন বিশ্বের মাত্র ছয়জন ব্যাটার।

বুধবার রাতে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে রেজার ব্যাট থেকে এসেছে ৫৩ বলে ৭৪ রানের ইনিংস। এর আগে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের তিন ম্যাচে ৫৭, ৫৩ ও ৭০ রানের ইনিংস খেলেন রেজা। বুধবারের ম্যাচে ক্যারিয়ারসেরা ইনিংসে করেছেন ৭৪ রান।

টেস্টখেলুড়ে দেশগুলোর মধ্যে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে টানা চার ম্যাচে ফিফটির কীর্তি রয়েছে ব্রেন্ডন ম্যাককালাম ও ক্রিস গেইলের মতো বিশ্ব তারকাদের। ২০০৮-০৯ সালে ম্যাককালাম ও ২০১২ সালে ক্রিস গেইল গড়েন এ কীর্তি। গেইলের চার ফিফটির দুইটি ছিলো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে।

এছাড়া সব সদস্য দেশকে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির স্বীকৃতি দেওয়ার পর ২০২১ সালে নামিবিয়ার ক্রেইগ উইলিয়ামস, একই বছর কানাডার রায়ানখান পাঠান ও ২০২২ সালে ফ্রান্সের গুস্তাভ ম্যাকিওন টানা চার ম্যাচে পঞ্চাশোর্ধ্ব রানের ইনিংস খেলেন। এর মধ্যে ম্যাকিওন আবার টানা দুই সেঞ্চুরিতে করেন বিশ্বরেকর্ড।

এবার রেজার সামনে রয়েছে প্রথম ব্যাটার হিসেবে টানা পাঁচ ম্যাচে ফিফটি করার সুযোগ। আগামীকাল (শুক্রবার) আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে খেলতে নামবে দক্ষিণ আফ্রিকা। এই ম্যাচে ন্যুনতম পঞ্চাশ রান করলেই এককভাবে টানা ফিফটির বিশ্বরেকর্ড হবে রেজার।


আরও খবর



শস্যবাহী প্রথম জাহাজ ইউক্রেন ছাড়তে পারে কাল: তুরস্ক

প্রকাশিত:Sunday ৩১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৪৪জন দেখেছেন
Image

যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর শস্যবাহী প্রথম জাহাজ ইউক্রেনের বন্দর ছাড়তে পারে সোমবার (১ আগস্ট)। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়্যেপ এরদোয়ানের একজন মুখপাত্র এ তথ্য জানিয়েছেন। খবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

ইব্রাহিম কালিন জানান, যদি সব কিছু সম্পূর্ণভাবে ঠিক থাকে তাহলে কাল শস্যবাহী জাহাজ ইউক্রেন ছাড়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। আমরা আগামীকাল থেকে শস্যবাহী জাহাজা ইউক্রেন ছাড়তে দেখবো।

এক সাক্ষাতকারে কালিন আরও জানান, শিগগিরই রপ্তানির রুট তৈরিতে চূড়ান্ত কাজ ইস্তাম্বুলের যৌথ সমন্বয়কেন্দ্র করবে।

ইউক্রেন ও রাশিয়া বিশ্বে প্রধান গম সরবরাহকারী দেশ। দুই দেশের মধ্যে যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর বিশ্বব্যাপী খাদ্য পণ্যটির দাম বেড়ে যায়। তবে গত সপ্তাহে জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় তুরস্কে দেশ দুইটির মধ্যে চুক্তি সই হয়েছে, যাতে নিরাপদে শস্যবাহী জাহাজ ইউক্রেনের বন্দর ছাড়তে পারে।

তাছাড়া শনিবার (৩০ জুলাই) জানানো হয়, ইউক্রেনের বন্দর দিয়ে শস্য রপ্তানি শুরু হতে চলেছে। এরই মধ্যে ১৬টি জাহাজ শস্য দিয়ে বোঝাই করা হয়েছে। ইউক্রেনের ওডেসা বন্দর ছাড়তে সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত এগুলো।

প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির কার্যালয় থেকে জানানো হয়, জাহাজগুলো শিগগির ছেড়ে যাবে।


আরও খবর



রেকর্ড দুই মেয়াদে ডি-৮ সভাপতির দায়িত্বে বাংলাদেশ

প্রকাশিত:Wednesday ২৭ July ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ১৮ August ২০২২ | ৩৪জন দেখেছেন
Image

অর্থনৈতিক ফোরাম ডি-৮-এর সভাপতি হিসেবে আরও এক বছর দায়িত্ব পালন করবে বর্তমান সভাপতি দেশ বাংলাদেশ। সভাপতির দায়িত্ব পাওয়ার ক্ষেত্রে টানা দুই বছর এ দায়িত্ব পালনের রেকর্ড এখন কেবল বাংলাদেশরই। এরআগে ডি-৮ ভুক্ত আর কোনো দেশ টানা দুই বছর সংগঠনটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেনি।

বুধবার (২৭ জুলাই) বিকেলে ঢাকায় হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নিয়ম অনুযায়ী বুধবারই ডি-৮-এর সভাপতির দায়িত্ব মিশরের কাছে হস্তান্তরের কথা ছিল বাংলাদেশের। কিন্তু এ বছর মিশরে জাতিসংঘ জলবায়ু সম্মেলন (কপ) হতে যাচ্ছে। বিশ্বের ১৯৬টি দেশের রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান বা তাদের প্রতিনিধিরা এতে অংশ নেবেন। এজন্য দেশটি ব্যস্ত সময় পার করছে জানিয়ে কায়রো ঢাকাকে আরও এক বছর দায়িত্ব পালনের অনুরোধ জানিয়েছে।

আব্দুল মোমেন বলেন, ‘এটা আমাদের জন্য আনন্দের খবর। কোনো কাঠখড় না পুড়িয়েই আমরা আরও এক বছর ডি-৮-এর সভাপতির দায়িত্ব পালন করবো। এটা বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত গর্বের।’

ডি-৮ একটি অর্থনৈতিক ফোরাম উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘১৪ বিলিয়ন ডলার থেকে আট দেশের আন্তঃবাণিজ্য ১২৯ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে। আমি আশা করি, আগামী ১০ বছরে এর পরিমাণ ১০ গুণ বাড়বে, যা দাঁড়াবে ট্রিলিয়ন ডলারেরও বেশি। বাংলাদেশ সবসময়ই এ ফোরাম থেকে লাভবান হয়ে আসছে। ভবিষ্যতেও বাংলাদেশ অনেক কিছু অর্জন করবে।’

চলতি বিশ্বে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি ও অস্থিরতার বিষয় উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ডি-৮-এর দুই দেশ ইরান ও নাইজেরিয়া যথাক্রমে বিশ্বের পঞ্চম ও ১১তম জ্বালানি রপ্তানিকারক দেশ। দেশে দেশে জ্বালানি নিরাপত্তা নিয়ে দুশ্চিন্তা বাড়ছে। বুধবারের বৈঠকেও বিষয়টি আলোচনা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘জ্বালানি সংকটে সহযোগিতা বাড়াতে এনার্জি মিনিস্ট্রিয়াল মিটিং করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ইরানের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের একটা নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। অনেকেই এসব নিষেধাজ্ঞা মানছে না। তারা শক্তিশালী দেশ। কিন্তু আমরা দুর্বল। আমরা ইরান থেকে তেল আনবো না। তবে ফোরামের মধ্যে সিদ্ধান্ত হলে আমরা ভেবে দেখবো কীভাবে কী করা যায়।’

এক প্রশ্নের জবাবে মোমেন বলেন, ‘আজকের (বুধবার) সামিটে হালাল মার্কেট নিয়ে কথা না হলেও বাই-লিটারেলি আলোচনা হয়েছে। ইন্দোনেশিয়া ও ব্রুনাই সফরকালেও আমি বিষয়টি তুলে ধরেছি। সবচেয়ে বড় বিষয় হলো, হালাল মার্কেটের বাজার যারা দখল করে আছে, তাদের একটিও মুসলিম দেশ নয়। আমি বিষয়টিতে সবাইকে গুরুত্ব দেওয়ার কথা বলেছি।’


আরও খবর



খাওয়ার পর হাঁটলেই নিয়ন্ত্রণে থাকবে ডায়াবেটিস, বলছে গবেষণা

প্রকাশিত:Wednesday ১০ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৪৪জন দেখেছেন
Image

শরীর সুস্থ রাখতে হাঁটাহাঁটির বিকল্প নেই। চিকিৎসকরাও দৈনিক ৩০-৪৫ মিনিট জোরে হাঁটার পরামর্শ দেন সুস্থতার জন্য। অনেকেই ফিট থাকতে সকাল-সন্ধ্যা দু’বেলা নিয়ম করে হাঁটেন।

আবার ডায়াবেটিস রোগীরাও রক্তে শর্করার মাত্রা ঠিক রাখতে নিয়ম করে হাঁটেন। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে নিয়মিত হাঁটার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

স্পোর্টস মেডিসিন জার্নালে প্রকাশিত একটি মেটা-বিশ্লেষণে জানা গেছে, হার্টের স্বাস্থ্য, ইনসুলিন ও রক্তে শর্করার মাত্রার উপর বসা ও দাঁড়ানো/হাঁটার উপর নির্ভর করে।

দীর্ঘক্ষণ বসে থাকার তুলনায় ঘন ঘন দাঁড়ানো কিংবা সামান্য হাঁটাহাঁটি করা রক্তের শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। বিশেষজ্ঞদের মতে, দীর্ঘক্ষণ বসে থাকা খারাপ জীবনধারার অংশ যা বিভিন্ন রোগের ঝুঁকি দ্বিগুণ বাড়ায়।

একটানা ২ ঘণ্টা বসে থাকলেই গ্লুকোজ, ট্রায়াসিলগ্লিসারল ও উচ্চ-ঘনত্বের লাইপোপ্রোটিন কোলেস্টেরল বেড়ে যেতে পারে। যা কার্ডিওমেটাবলিক স্বাস্থ্যের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে।

গবেষণাপত্রে বলা হয়েছে, দীর্ঘক্ষণ বসে থাকার মধ্যে সামান্য দাঁড়ানো হাঁটিকে সেডেন্টারি ব্রেক বলা হয়। নিয়মিত এই ব্রেক নিলে রক্তচাপ, এইচডিএল কোলেস্টেরল, ইনসুলিন, গ্লুকোজ, ট্রাইগ্লিসারাইড ও কোমরের পরিধি কমাতে। ঠিক একইভাবে খাওয়ার কিছুক্ষণ পর কয়েক মিনিট হাঁটলেও একই উপকারিতা মিলবে।

গবেষণায় কী পাওয়া গেছে?

দীর্ঘক্ষণ বসার পরিবর্তে স্বল্প সময়ের জন্য দাঁড়ানো পোস্টপ্র্যান্ডিয়াল গ্লুকোজের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। আরও দেখা গেছে, হালকা হাঁটা গ্লুকোজ ও ইনসুলিনের প্রভাব কমিয়েছে।

দীর্ঘক্ষণ বসে থাকার তুলনায় দাঁড়িয়ে থাকলে ইনসুলিনে স্বাস্থ্যকর প্রভাব পড়ে। আবার খাওয়ার পরপরই শুয়ে পড়ার অভ্যাসও রক্তে শর্করার মাত্রা বাড়িয়ে তুলতে পারে।

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, যারা ডেস্কে বসে কাজ করেন তারা এই বিরতি নেন না। সময়স্বল্পতার অজুহাত দেখিয়ে অনেকেই কাজের ফাঁকে ব্রেক নেন না, অথচ এর মাধ্যমে নিজেদেরই ক্ষতি করছেন তারা।

আয়ারল্যান্ডের লিমেরিক বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন স্নাতক ছাত্র ও এই গবেষণাপত্রের লেখক আইদান নিউইয়র্ক টাইমসকে জানান, কর্মব্যস্ত থাকার পরও সুস্থতার জন্য মিনি-ওয়াক জরুরি। এই অভ্যাসকে বাধ্যতামূলক করুন।

লিফটের বদলে সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামা করা কিংবা কফি পান বা ফোনে কথা বলতে বলতে সামান্য হাঁটাহাঁটি করুন। এসব ছোটখাট অভ্যাস ওজন ও ডায়াবেটিসসহ বিভিন্ন রোগ নিয়ন্ত্রণ করবে।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া


আরও খবর



যেসব কারণে গোসল ফরজ হয়

প্রকাশিত:Monday ২৫ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ১৫ August ২০২২ | ২৩জন দেখেছেন
Image

আরবি শব্দ গোসল অঞ্চলভেদে গোসল, স্নান বা নাইতে যাওয়াকে বুঝায়। তবে আরবি গোসল শব্দের অর্থ হচ্ছে পুরো শরীর ধোয়া। আর ইসলামি শরিয়তের পরিভাষায় পবিত্রতা ও আল্লাহর নৈকট্য পাওয়ার উদ্দেশ্যে পবিত্র পানি দ্বারা পুরো শরীর ধোয়াকে ‘গোসল’ বলা হয়। কিন্তু এ গোসল করা ফরজ হয় কেন?

গোসল ফরজ হওয়ার কারণ

৪ কাজ থেকে অব্যহতির পর গোসল ফরজ হয়। তাহলে গোসল ফরজ হওয়ার কারণগুলো কী? সুনির্দিষ্ট চার কারণের যে কোনে একটি সংঘটিত হলেই গোসল ফরজ হয়। তাহলো-

১. জানাবাত থেকে অপবিত্রতা থেকে পবিত্রতা হওয়ার গোসল। এটি নারী-পুরুষের যৌন মিলন, স্বপ্নদোষ বা যে কোনো উপায়ে বীর্যপাত হলে। আল্লাহ তাআলা নির্দেশ দেন-

وَإِن كُنتُمْ جُنُبًا فَاطَّهَّرُواْ

‘আর যদি তোমরা অপবিত্র হও তবে সারা দেহ পবিত্র করে নাও।’ (সুরা : মায়েদা, আয়াত : ৬)

২.  মাসিক বন্ধ হওয়ার পর নারীদের পবিত্র হওয়ার জন্য গোসল করা ফরজ।

৩.  সন্তান প্রসবের পর নেফাসের রক্ত বন্ধ হলে পবিত্র হওয়ার জন্য নারীদের গোসল করা ফরজ।

৪. আর জীবতদের জন্য মৃত ব্যক্তিকে গোসল দেওয়া ফরজ।

গোসলের ফরজ কাজ

উল্লেখিত অপবিত্রতা থেকে পবিত্র হতে ৩টি কাজ করা ফরজ। যথাযথভাবে এ ৩ কাজ আদায় না করলে গোসলের ফরজ আদায় হবে না। কাজ তিনটি হলো-

১.  কুলি করা । (বুখারি, ইবনে মাজাহ)

২.  নাকে পানি দেওয়া। (বুখারি, ইবনে মাজাহ)

৩. সারা শরীর পানি দিয়ে এমনভাবে ধোয়া যাতে দেহের চুল পরিমাণ জায়গাও শুকনো না থাকে। (আবু দাউদ)

তবে ফরজ গোসল সম্পন্ন করার সর্বোত্তম নিয়ম হলো-

১. বিসমিল্লাহ বলে শুরু করা। বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম (بِسْمِ اللهِ الرَّحْمَنِ الرَّحِيْم) বলে গোসল শুরু করা। তবে গোসলখানা ও টয়লেট একসঙ্গে থাকলে বিসমিল্লাহ মুখে উচ্চারণ করে বলা যাবে না।

২. দুই হাত ধোয়া। অর্থাৎ উভয় হাতের কব্জি পর্যন্ত ধোয়া।

৩. লজ্জাস্থান ধোয়া। বাম হাতে পানি দ্বারা লজ্জাস্থান পরিস্কার করা। সম্ভব হলে ইস্তিঞ্জা তথা পেশাব করে নেওয়া। এতে নাকাপি সম্পূর্ণরূপে বের হয়ে যাবে।

৪. নাপাকি ধোয়া। কাপড়ে বা শরীরের কোনো অংশে নাপাকি লেগে থাকলে তা ধুয়ে নেওয়া।

৫. ওজু করা। পা ধোয়া ছাড়া নামাজের অজুর ন্যয় অজু করে নেওয়া।

৬. অতঃপর ফরজ গোসলের তিন কাজ-  কুলি করা, নাকে পানি দেওয়া এবং ‍পুরো শরীর ভালোভাবে ধুয়ে নেওয়া। যাতে শরীরের একটি লোমকুপও শুকনো না থাকে।

৭. পা ধোয়া। সবশেষে গোসলের স্থান থেকে একটু সরে এসে উভয় পা ভালোভাবে ধোয়া।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে ফরজ গোসল করার সময় এ বিষয়গুলো খেয়াল রাখার এবং যথাযথভাবে গোসল করার তাওফিক দান করুন। আমিন।


আরও খবর