Logo
আজঃ Friday ১৯ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে আবাসিকের অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন ডেমরায় প্যাকেজিং কারখানায় ভয়বহ অগ্নিকান্ড রূপগঞ্জে পুলিশের ভুয়া সাব-ইন্সপেক্টর গ্রেফতার রূপগঞ্জে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ॥ সভা সরাইলে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত। নারায়ণগঞ্জে পারিবারিক কলহে স্ত্রীকে পুতা দিয়ে আঘাত করে হত্যা,,স্বামী গ্রেপ্তার রূপগঞ্জ ইউএনও’র বিদায় সংবর্ধনা নাসিরনগরে স্বামীর পরকিয়ার,বলি ননদ ভাবীর বুলেটপানে আত্মহত্যা নাসিরনগরে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদত বার্ষিকী পালিত ডেমরায় জাতীয় শোক দিবসের কর্মসুচি পালিত

এজেন্ডা বাস্তবায়নে মাহবুব তালুকদার

প্রকাশিত:Thursday ০৬ January ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৩৪৮জন দেখেছেন
Image

চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদারের দেওয়া বক্তব্যকে ‘মিথ্যাচার’ আখ্যায়িত করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। তিনি বলেছেন, মাহবুব তালুকদার মিথ্যাচার করেন। তিনি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বক্তব্য দেন। হয়তো তার কোনো এজেন্ডা আছে, সেটা বাস্তবায়নের জন্য তিনি এমন বক্তব্য দেন।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে এক কর্মশালা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি এসব কথা বলেন।

এর আগে গতকাল বুধবার পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচন পর্যবেক্ষণ শেষে মাহবুব তালুকদার বলেছিলেন, সন্ত্রাস ও সংঘর্ষ যেন ইউপি নির্বাচনের অনুষঙ্গ হয়ে উঠেছে। এখন ভোটযুদ্ধে যুদ্ধ আছে, ভোট নেই। ইউপি নির্বাচনে এখন উৎসবের বাদ্যের বদলে বিষাদের করুণ সুর বাজছে। নির্বাচন ও সন্ত্রাস একসঙ্গে চলতে পারে না।

মাহবুব তালুকদারের এ বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে প্রধান নির্বাচন কমিশনার সাংবাদিকদের বলেন, উনি তো সব সময় এরকম বলেন। একেকটা সময় একেকটা শব্দ চয়ন করেন। এই কথাগুলো অপ্রাসঙ্গিক, অপ্রচারমূলক। নির্বাচন কমিশনকে অপবাদ দেওয়া কথা।

সিইসি আরও বলেন, ‘ভোটযুদ্ধ আছে, ভোট নেই! তাহলে ৭৫ শতাংশ ভোটার কোথা থেকে আসে? টেলিভিশনে দেখেছেন, সারিবদ্ধভাবে নারী-পুরুষ দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দেন। তাহলে এরা কারা? এরা কি ভোটার নন? সুতরাং ওনার কথার কোনো সংগতি নেই।’


আরও খবর



বাংলাদেশের অগ্রগতিতে ইউএসটিডিএ'র ভূয়সী প্রশংসা

প্রকাশিত:Wednesday ০৩ August ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১৭ August ২০২২ | ১৫জন দেখেছেন
Image

বাংলাদেশ সরকারের চলমান অগ্রগতি কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন ইউএস ট্রেড অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট এজেন্সির (ইউএসটিডিএ) ডিরেক্টর মিস এনো এবাং। একই সঙ্গে তিনি বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন খাতে অব্যাহত অগ্রগতিতে মার্কিন সহযোগিতার কথা পুনর্ব্যক্ত করেন।

সোমবার (১ আগস্ট) ওয়াশিংটন ডিসির সদরদপ্তরে সফররত নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরীর সঙ্গে সাক্ষাতকালে এ সহযোগিতার কথা ব্যক্ত করেন ইউএসটিডিএর পরিচালক।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশের অগ্রগতিতে আমেরিকা সরকারের সহযোগিতার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এ সময় তারা ধন্যবাদ জানানোর পাশাপাশি এক অপরের সঙ্গে শুভেচ্ছা স্মারক বিনিময় করেন।

বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের সদস্য বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেকসহ অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী ইউএসটিডিএর আমন্ত্রণে এবং ইউএসটিডিএ আয়োজিত ‘বাংলাদেশ ইনল্যান্ড ওয়াটারওয়েজ ম্যানেজমেন্ট রিভার্স ট্রেড মিশনে’ অংশ নিতে ইউএস সফর করছেন। তিনি আমেরিকার ওয়াশিংটন ডিসি, বাল্টিমোর, ভিক্সবার্গ এবং নিউ আরলিনস সফর করেন।


আরও খবর



আবারও টস হেরে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ

প্রকাশিত:Tuesday ০২ August 2০২2 | হালনাগাদ:Wednesday ১৭ August ২০২২ | ২৩জন দেখেছেন
Image

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের তৃতীয় ম্যাচেও টস হেরেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। প্রথম দুই ম্যাচের মতো এবারও টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে।

সিরিজ নির্ধারণী শেষ ম্যাচটিতে আগে ফিল্ডিং করতে নামবে মোসাদ্দেক হোসেনের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ দল। এই ম্যাচে অভিষেক করানো হয়েছে বাঁহাতি ওপেনার পারভেজ হোসেন ইমনের।

বিস্তারিত আসছে...


আরও খবর



সংকটের সমাধান হবে রাজপথে: দুদু

প্রকাশিত:Friday ২২ July 20২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১৭ August ২০২২ | ৩৫জন দেখেছেন
Image

দেশের চলমান রাজনৈতিক সংকটসহ সব সমস্যার সমাধান রাজপথে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু।

তিনি বলেছেন, এই দেশ, এই ভূমি, এই দেশের মানুষ সব সময় গণতন্ত্রের পক্ষে। সুতরাং রাজপথে আন্দোলন হবে না এমনটা ভাবার কোনো সুযোগ নেই।

শুক্রবার (২২ জুলাই) দুপুরে বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদের কনফারেন্স রুমে এক স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ঢাকা কলেজের সাবেক জিএস ও বিএনপির সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আউয়াল খানের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এ স্মরণসভার আয়োজন করে অপরাজেয় বাংলাদেশ নামের একটি সংগঠন।

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, আব্দুল আউয়াল খান ছিলেন একজন ধর্মপ্রাণ জাতীয়তাবাদী নেতা। তিনি আসলে আমাদের ছেড়ে যাননি। তিনি আমাদের মাঝে ছিলেন, আছেন এবং থাকবেন। তবে সেটি সশরীরে না হলেও কর্মগুণে। আল্লাহ তায়ালা তাকে জান্নাত নসিব করুন এ দোয়া করি।

তিনি বলেন, দেশের যে সংকট সেটা আমরা ফয়সালা করবো রাজপথে। এটাই আমাদের লক্ষ্য। আমাদের নেতা এরইমধ্যে সে ঘোষণা দিয়েছেন। এরশাদের পতন হয়েছিলো রাস্তায়। শ্রীলঙ্কার পরিবর্তন হলো রাস্তায়। দেশের অনেক ইস্যুর সমাধান হয়েছে রাস্তায়। দেশে এখন সংসদ নেই, সঙ রয়েছে।

দুদু বলেন, আওয়ামী লীগ জানে তাদের ক্ষমতা ছাড়তে হবে। তারা এখন পতনের দ্বারপ্রান্তে। ক্ষমতা এমন জিনিস যা সহজে কেউ ছাড়তে চায় না। কারণ, এখানে থেকে অনায়াসে আরাম-আয়েশ ও লাগামহীন দুর্নীতি করা যায়।

তিনি আরও বলেন, রাজপথে আন্দোলন হবে না এমনটা ভাবার কোনো কারণ নেই। কারণ, শ্রীলঙ্কার পরিবর্তন কিন্তু রাজপথের বিপ্লবের মাধ্যমে হয়েছে। এই মাটি, এই দেশ সবসময় গণতন্ত্র ও স্বাধীনতার পক্ষে। যদি কেউ ভাবেন যে মানুষ সব সময় একইরকম থাকবে তাহলে তা ভুল সিদ্ধান্ত।

বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ বলেন, আওয়ামী লীগ দেড়যুগ ধরে জোর করে দেশ শাসন করছে। তারা দেশকে বহু পেছনে ঠেলে দিয়েছে। রাজনৈতিক সংস্কৃতি ধ্বংস করে দিয়েছে। এখন দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা নাজুক। তারা হাতিরঝিলে শতভাগ বিদ্যুতায়নের দেশ উপলক্ষে উৎসব করেছে। এখন সেই আওয়ামী লীগই কেন এলাকাভিত্তিক রুটিনমাফিক লোডশেডিং করছে? কারণ, তারা কুইক রেন্টালের নামে নিজেদের দলীয় লোকদের অবাধে লুটের সুযোগ দিয়েছে। দুই বছর পর শুরু হবে বিদেশি ঋণের কিস্তি পরিশোধ। তখন দেশের পরিস্থিতি কী হবে?

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন- তাঁতীদলের কাজী মনিরুজ্জামান মনির, জিয়া নাগরিক ফোরামের মিয়া মোহাম্মদ আনোয়ার, কৃষক দলের রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের সহ-সভাপতি একেএম ওয়াজেদ আলী ও সভা পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন সিরাজী প্রমুখ।


আরও খবর



ডেপুটি ম্যানেজার নিয়োগ দিচ্ছে বসুন্ধরা গ্রুপ

প্রকাশিত:Thursday ০৪ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৩২জন দেখেছেন
Image

শীর্ষস্থানীয় শিল্পপ্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপে ‘ডেপুটি ম্যানেজার/সিনিয়র এক্সিকিউটিভ’ পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: বসুন্ধরা গ্রুপ
বিভাগের নাম: ক্রিয়েটিভ সার্ভিস

পদের নাম: ডেপুটি ম্যানেজার/সিনিয়র এক্সিকিউটিভ
পদসংখ্যা: নির্ধারিত নয়
শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক/স্নাতকোত্তর (আর্টস/গ্রাফিক্স ডিজাইন)
অভিজ্ঞতা: ০৫ বছর
বেতন: আলোচনা সাপেক্ষে

চাকরির ধরন: ফুল টাইম
প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ
বয়স: সর্বনিম্ন ২৫ বছর
কর্মস্থল: ঢাকা

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা jobs.bdjobs.com এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ১০ আগস্ট ২০২২

সূত্র: বিডিজবস ডটকম


আরও খবর



অভিযানের পর ডলারের দামে ‘কিছুটা স্বস্তি’

প্রকাশিত:Sunday ১৪ August ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ১৫ August ২০২২ | ১০জন দেখেছেন
Image

দেশে সাম্প্রতিক সময়ে ডলারের বাজার চরম অস্থিতিশীল। সংকট কাটিয়ে উঠতে রিজার্ভ থেকে ডলারের যোগান দিচ্ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এমন সংকটের মধ্যেই ব্যাংকারসহ অনেকে জড়িয়ে পড়েছেন ডলার কারসাজিতে। অনেকে আবার প্রয়োজন ছাড়াই ডলার কিনে জমা করছেন, যাতে বাজারে কৃত্রিম সংকট আরও প্রকট হয়ে উঠছে।

গত সপ্তাহের শুরু থেকে খোলাবাজারে তেজিভাব ছিল ডলারের। দাম বাড়তে বাড়তে ডলারের দাম ১১৮ টাকা পর্যন্ত ওঠে। এতে নড়েচড়ে বসে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও সরকার। অভিযানে নামে বাংলাদেশ ব্যাংক। তৎপরতা বাড়িয়েছে গোয়েন্দা সংস্থা ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও। একই সঙ্গে ক্রেতাও কমে আসে বাজারে। এতে দুদিনের ব্যবধানে খোলাবাজারে ডলারের দাম ১১২ টাকা নেমেছে।

রোববার (১৪ আগস্ট) রাজধানীর পল্টন, ফকিরাপুল ও মতিঝিল এলাকায় খোলাবাজারে ১১২-১১৪ টাকা দরে ডলার বিক্রি হয়েছে। তবে পাসপোর্ট ও ভিসার কাগজপত্র দেখিয়ে এক্সচেঞ্জ হাউজগুলো থেকে ১১০-১১২ টাকায় কেনা যাচ্ছে ডলার।

পল্টন এলাকায় খুচরামূল্যে ডলার বিক্রি করেন মোজাম্মেল হোসেন। তিনি জাগো নিউজকে বলেন, ‘এখানে ডলার বিক্রি নেই তেমন। ক্রেতা সংকট। দামও কমে গেছে অনেক। ডলারের সরবরাহ বেশি। তবে ব্রিটিশ মুদ্রা পাউন্ডের সংকট রয়েছে এখনো।’

একই কথা জানান ফকিরাপুলের ব্যবসায়ী আনাস। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিনিধি ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা এক্সচেঞ্জ হাউজগুলোর সামনে কড়া নজরদারি করছেন। পুলিশ-র্যাবও ডলার কেনাবেচায় জড়িতদের ওপর কঠোর নজর রাখছে। এ কারণে খুচরা বিক্রেতারা আগের মতো ডলার বিক্রি করতে পারছেন না।’

আনাস বলেন, ‘এখন বাজারে ডলারের সরবরাহ আগের চেয়ে একটু বেড়েছে। দাম কম হওয়ার এটাও একটা কারণ।’

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জাগো নিউজকে বলেন, ‘অবৈধভাবে ডলার বিক্রি বন্ধে অভিযান জোরদার করেছি আমরা। এক্সচেঞ্জ হাউজে আমাদের টিম নিয়মিত অভিযান চালাচ্ছে। কোনো ধরনের অনিয়ম পেলেই কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এসব কারণে সংকট কিছুটা নিয়ন্ত্রণ এসেছে। এ অভিযান অভিযান অব্যাহত থাকবে।’

জানা গেছে, খোলাবাজারে ডলারের অস্বাভাবিক দাম ওঠায় অনেক গ্রাহকের অনাগ্রহ তৈরি হয়। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অভিযানের পরও খোলাবাজারের অস্থিরতা কমেনি। এ কারণে বিদেশগামীদের ডলার যোগাড়ে বেগ পেতে হচ্ছিল।

তবে মানি এক্সচেঞ্জগুলো দাবি করছিল, বাজারে যে হারে ডলারের চাহিদা বাড়ছে, ওই হারে সরবরাহ নেই। যার প্রভাবে ডলারের দাম বাড়ছে। এমন পরিস্থিতি বিবেচনায় মানি এএক্সচেঞ্জগুলোর ওপর নির্ভরশীলতা কমাতে দেশের সব ব্যাংকের শাখায় শাখায় ডলার বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ ব্যাংক।

এদিকে, রোববার (১৪ আগস্ট) বিকেলে দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর প্রধানদের নিয়ে বৈঠকে বসেছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের শীর্ষ কর্মকর্তারা। এ বৈঠকে ডলারের বাজারে স্থিতিশীলতা ফেরাতে আলোচনা হতে পারে বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের একটি সূত্র।


আরও খবর