Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

ঈদ উপলক্ষে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ১৪ নির্দেশনা

প্রকাশিত:রবিবার ১৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ২৩৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও চিকিৎসাসেবা নির্বিঘ্ন রাখতে পবিত্র ঈদুল আজহার ছুটিতে দেশের সব হাসপাতালের জরুরি বিভাগে সার্বক্ষণিক চিকিৎসক রাখাসহ ১৪টি নির্দেশনা দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

শনিবার (১৫ জুন) অধিদপ্তরের হাসপাতাল ও ক্লিনিক শাখার পরিচালক আবু হোসেন মো. মঈনুল আহসানের সই করা বিজ্ঞপ্তিতে এ নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

নির্দেশনাগুলো হলো- ১. ছুটিকালীন কর্মস্থলে পর্যাপ্ত জনবল ও চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করার জন্য ঈদের আগে ও পরে সমন্বয় করে জনবলকে পর্যায়ক্রমে ছুটি দেওয়া যেতে পারে।

২. প্রতিষ্ঠান প্রধান নিরবচ্ছিন্ন জরুরি চিকিৎসা কার্যক্রম ও জনস্বার্থকে প্রাধান্য দিয়ে ছুটি মঞ্জুর করবেন।

৩. সিভিল সার্জন, বিভাগীয় পরিচালককে অবহিত করে শুধু ঈদের ছুটিকালীন নিজ জেলার মধ্যে অতি প্রয়োজনীয় জনবল সমন্বয় করতে পারবেন।

৪. জরুরি বিভাগে সার্বক্ষণিক চিকিৎসকের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে হবে।

৫. জরুরি বিভাগ ও লেবার রুম, ইমারজেন্সি ওটি সার্বক্ষণিক চালু রাখতে হবে।

৬. আন্তঃবিভাগে ইউনিট প্রধানরা প্রতিদিন তদারকি করবেন। মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, বিশেষায়িত হাসপাতাল, জেলা সদর হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে জরুরি ল্যাব, এক্স-রে সেবা সার্বক্ষণিক চালু রাখতে হবে।

৭. ছুটি শুরুর আগেই ছুটিকালীন সময়ের জন্য পর্যাপ্ত ওষুধ, আই ডি ফ্লুয়িড কেমিক্যাল রি-এজেন্ট, সার্জিক্যাল সামগ্রী মজুত ও তাৎক্ষণিকভাবে সরবরাহের ব্যবস্থা রাখতে হবে। এ ক্ষেত্রে স্টোরকিপার অথবা ছুটিকালীন দায়িত্বপ্রাপ্ত স্টাফ অবশ্যই নিজ জেলা ও উপজেলায় অবস্থান করবেন।

৮. অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস সার্বক্ষণিক চালু রাখতে হবে।

৯. ছুটিকালীন হাসপাতালের নিরাপত্তার জন্য স্থানীয় প্রশাসন ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে আগাম চিঠি দিতে হবে।

১০. প্রতিষ্ঠান প্রধান ও বিভিন্ন বিভাগের প্রধানরা ছুটিকালীন সেবা প্রদানকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ করবেন এবং ঈদের দিন কুশল বিনিময় করবেন।

১১. প্রতিষ্ঠান প্রধান ছুটি নিলে অবশ্যই বিধি অনুযায়ী কাউকে দায়িত্ব দিয়ে যাবেন এবং দায়িত্ব গ্রহণকারী কর্মকর্তা সব দায়িত্ব সুষ্ঠুভাবে পালন করবেন। দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তির নাম ও মোবাইল নম্বর ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করতে হবে।

১২. প্রতিষ্ঠান প্রধান ঈদের দিন রোগীদের উন্নতমানের খাবার পরিবেশন তদারকি করবেন এবং রোগীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন।

১৩. পশুর হাটের নিকটবর্তী স্বাস্থ্য স্থাপনাগুলোতে বিশেষ প্রস্তুতি নিতে হবে।

১৪. জাতীয় ঈদগাহ ও অন্য জেলা ঈদগাহগুলোতে (চাহিদা অনুযায়ী) মেডিকেল টিম দায়িত্ব পালন করবে।


আরও খবর



২০২৪ সালের প্রথম প্রান্তিকে বৈশ্বিক মার্কেট শেয়ারে ইনফিনিক্সের উল্লেখযোগ্য প্রবৃদ্ধি অর্জন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৭৬জন দেখেছেন

Image

প্রযুক্তি ডেস্ক:তরুণদের প্রিয় ট্রেন্ডি প্রযুক্তি ব্র্যান্ড ইনফিনিক্স ২০২৪ সালের প্রথম প্রান্তিকে বৈশ্বিক মার্কেট শেয়ারে উল্লেখযোগ্য প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে।

ইন্টারন্যাশনাল ডেটা কর্পোরেশনের (আইডিসি) বৈশ্বিক ত্রৈমাসিক মোবাইল ফোন ট্র্যাকারের তথ্য  অনুযায়ী, বিশ্বের প্রধান স্মার্টফোন ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে বছরে সর্বোচ্চ বৈশ্বিক মার্কেট শেয়ারে প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে কোম্পানিটি।

২০২৪ সালের প্রথম প্রান্তিকে তাদের বার্ষিক মার্কেট শেয়ার ১.৭% থেকে ৩.৭% পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে। এছাড়া বিশ্বজুড়ে কোম্পানিটির স্মার্টফোন চালান ১৫০.৬% পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে। এর মাধ্যমে টানা চার প্রান্তিকে দ্রুত ও টেকসই প্রবৃদ্ধি বজায় রেখেছে এই ব্র্যান্ড।

ইনফিনিক্সের জেনারেল ম্যানেজার টনি ঝাও বলেন, “২০২৪ সালের প্রথম প্রান্তিকে এমন অসাধারণ পারফরম্যান্স দেখাতে পেরে আমরা খুবই আনন্দিত। প্রযুক্তিপ্রিয় গ্রাহকদের হাতে সাশ্রয়ী মূল্যে সেরা মানের ফোন পৌঁছে দিতে আমাদের টিম নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এই সাফল্যে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছে আমাদের প্রশংসিত ইনফিনিক্স নোট ৪০ সিরিজ এবং ইনফিনিক্স জিটি ২০ প্রো। এই ফোনগুলো ভোক্তাদের চার্জিং ও গেমিং পারফরম্যান্স সংক্রান্ত প্রয়োজনীয়তা মিটিয়েছে। পাশাপাশি বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজারে প্রথম সারির উদ্ভাবক হিসেবে আমাদের অবস্থানও দৃঢ় করেছে।”

আফ্রিকা ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার মতো গুরুত্বপূর্ণ বাজারে ইনফিনিক্সের পারফরম্যান্স ছিল লক্ষণীয়। ২০টির বেশি দেশে স্মার্টফোন মার্কেট শেয়ারের ক্ষেত্রে সেরা পাঁচের মধ্যে স্থান করে নিয়েছে ব্র্যান্ডটি। বিশ্বের বৃহত্তর ভোক্তাগোষ্ঠীর কাছে আধুনিক প্রযুক্তি সহজলভ্য করে তুলতে ইনফিনিক্স দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। অসাধারণ এই অর্জনের মধ্য দিয়ে সেই প্রতিজ্ঞার কথাই ফুটে ওঠে।

তাছাড়া, ইনফিনিক্সকে ২০২৪ সালের এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের ষষ্ঠ সেরা উদ্ভাবনী ব্র্যান্ড হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে ফাস্ট কোম্পানি। সম্মানজনক এই তালিকায় একমাত্র স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হিসেবে স্থান পেয়েছে ইনফিনিক্স।

ইনফিনিক্সের জোরালো বৈশ্বিক মার্কেট শেয়ার অর্জনের পেছনে আছে তরুণদের পছন্দের সাথে মিল রেখে পণ্য বাজারে নিয়ে আসা, উদ্ভাবনী পণ্য ও সৃজনশীল মার্কেটিং। ইনফিনিক্স নোট ৪০ সিরিজ  এবং জিটি ২০ প্রো বাজারে এনে গেমারদের মনোযোগ আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছে কোম্পানিটি। 

এসব ফোনে যুক্ত করা হয়েছে নতুন অল-রাউন্ড ফাস্টচার্জ ২.০, যার লক্ষ্য ছিল চার্জিং নিয়ে গ্রাহকদের দাবি পূরণ করা। এই ফিচারগুলোর মধ্যে আছে ১০০ ওয়াট মাল্টি-স্পিড ফাস্টচার্জ, ওয়্যারলেস ম্যাগচার্জ এবং মাল্টি-ফাংশনিং চার্জিং মোড সাপোর্টকারী চিতা এক্স১ চিপ। ইনফিনিক্স জিটি ২০ প্রো এই দামের মধ্যে একমাত্র ফোন যাতে একটি গেমিং ডিসপ্লে চিপ যুক্ত আছে। ব্যবহারকারীদের গেমিং অভিজ্ঞতা উন্নত করাই এর লক্ষ্য।

২০২৪ সালের প্রথম প্রান্তিকে ইনফিনিক্সের এসব অর্জনের মাধ্যমে উদ্ভাবনী এবং সাশ্রয়ী মূল্যের পণ্য সরবরাহ, বহুমুখী মার্কেটিং পদ্ধতির ব্যবহার এবং প্রযুক্তিগত অগ্রগতির প্রতি কোম্পানিটির প্রতিশ্রুতি প্রতিফলিত হয়। এই ব্র্যান্ডের বৈচিত্র্যময় এবং তরুণকেন্দ্রিক মার্কেটিং কৌশল এর অসাধারণ বৈশ্বিক পারফরম্যান্স ও খ্যাতির পেছনে অবদান রেখেছে। ভবিষ্যতে ব্যবহারকারীদের উন্নত পণ্য ও সেবা প্রদান, নতুন মানদণ্ড স্থাপন ও আরও বেশি সাফল্য অর্জনের চেষ্টা করাই ইনফিনিক্সের লক্ষ্য।


আরও খবর



কালিয়াকৈরে ধর্ষণের পর কিশোরী চার মাসের অন্তঃসত্তা,গ্রেপ্তার ধর্ষক

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৯৭জন দেখেছেন

Image

সাগর আহম্মেদ,কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:গাজীপুরের কালিয়াকৈরে মুসলিম এক মাছ ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে নানা প্রলোভন দেখিয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। একাধিকবার ধর্ষণের পর চার মাসের অন্তঃসত্তা হয়ে পড়েন ওই কিশোরী। উপজেলার কালামপুর খাজারডেক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর ওই ধর্ষককে গ্রেপ্তার করে মঙ্গলবার গাজীপুর জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃত হলেন, কালিয়াকৈর উপজেলার কালামপুর এলাকার আব্দুল হালিমের ছেলে রফিকুল ইসলাম রফিক। তিনি উপজেলার চন্দ্রা এলাকায় মাছ ব্যবসা করেন।

এলাকাবাসী, কিশোরীর পুরিবার ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, গত ৪/৫ মাস আগে কালিয়াকৈর উপজেলার কালামপুরের খাজারডেক এলাকার সুশিল চন্দ্র সরকারের ১৬ বছর বয়সী মেয়েকে নানা প্রলোভন দিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করেন একই এলাকার মাছ ব্যবসায়ী রফিকুল। আর তার একাধিকবার ধর্ষণের পর চার মাসের অন্তসঃত্তা হয়ে পড়েন ওই কিশোরী। এতে নিরুপায় হয়ে গত কয়েক দিন আগে ওই কিশোরী বিষয়টি তার পরিবারকে জানায়। এ ঘটনায় গত ২/৩ দিন আগে ওই কিশোরীর বাবা সুশীল চন্দ্র সরকার বাদী হয়ে কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ করেন। কিন্তু পুলিশ অভিযোগ নিলেও কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি বলে তার পরিবারের অভিযোগ। বিষয়টি জানতে পেরে ওই কিশোরীরসহ তার পরিবারকে প্রাণ নাশের হুমকি দেয় ধর্ষক রফিকুল। পরে নিরুপায় হয়ে গত সোমবার ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে গাজীপুর আদালতে রফিকুলকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। এরপর ওইদিন রাতেই ধর্ষক রফিকুলকে গ্রেপ্তার করে কালিয়াকৈর থানা পুলিশ। পরে মঙ্গলবার গ্রেপ্তারকৃতকে গাজীপুর জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ওই কিশোরীর বাবা সুশীল চন্দ্র সরকার জানান, নানা প্রলোভন দেখিয়ে আমার মেয়েকে ধর্ষণ করে রফিক। এতে আমার মেয়ে ৪ মাসের অন্তঃসত্তা হয়ে পড়েছে। বিষয়টি নিয়ে থানায় গেলেও পুলিশ প্রথমে আমাদের অভিযোগ নেয়নি। পরে থানা পুলিশ একটা অভিযোগ নিলেও কোন পদক্ষেপ নেয়নি। এছাড়াও মেয়েসহ আমাকে মেরে ফেলার হুমকিও দেয় লম্পট রফিক। তাই সোমবার গাজীপুর আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছি।

কালিয়াকৈর থানার ডিউটি অফিসার উপপরিদর্শক (এসআই) মামুন অর রশিদ জানান, এ ঘটনায় রফিকুল নামে একজনকে গ্রেপ্তার করে গাজীপুর জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।


আরও খবর



মিরসরাইয়ে প্রবাসীদের মিলনমেলা

প্রকাশিত:সোমবার ০১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১১২জন দেখেছেন

Image

এম আনোয়ার হোসেন, মিরসরাই (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:মিরসরাইয়ে দিনব্যাপী প্রবাসীদের মিলনমেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (২৯ জুন) হান্ডি মহামায়া রেস্টুরেন্টে মিরসরাই উপজেলার সর্বপ্রথম ও সর্বাধিক প্রচারিত অনলাইন পত্রিকা মিরসরাই নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম পত্রিকার উদ্যোগে এই আয়োজন করা হয়। এসময় মিরসরাই নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম পাঠক ফোরাম কুয়েতের প্রতিষ্ঠাতা নুরুল আজিমের সঞ্চালনায় এবং পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক এম আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনা পর্বে বক্তব্য রাখেন জমজম সুইটস এন্ড বেকস্’র চেয়ারম্যান আবুল খায়ের সেলিম, পাঠক ফোরামের উপদেষ্টা রহিম উদ্দিন ভূঁইয়া, দুর্গাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন রুবেল, মিরসরাই নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম পাঠক ফোরাম কুয়েতের সভাপতি মোর্শেদ আলম, সাবেক সভাপতি মনজুরুল ইসলাম মনজু, মানবাধিকারকর্মী আহসান উল্ল্যাহ ভূঁইয়া মিলন, মোহাম্মদ হানিফ, আবুল হোসেন, শামীম হোসেন, আব্দুর রহিম, মেজবা উদ্দিন ও জুয়েল রানা। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক আকতার হোসেন, রেদোয়ান হোসেন জনি, আলিম উল্ল্যাহ রিপন, সরোয়ার উদ্দিন প্রমুখ।

বক্তব্যে প্রবাসীরা বলেন, বিভিন্নভাবে প্রবাসীরা হয়রানীর শিকার হন। সেসব বন্ধে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এছাড়া মিরসরাইয়ের হতদরিদ্র মানুষের কল্যাণে কাজ করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। 

আলোচনা পর্বের পূর্বে মধ্যাহ্নভোজে অংশ নেন প্রবাসীরা। সব শেষে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম কৃত্রিম লেক মহামায়া লেকে নৌকা ভ্রমণের মধ্যদিয়ে দিনব্যাপী আয়োজনের সমাপ্তি ঘটে।


আরও খবর



বাকেরগঞ্জের গারুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থিতা ঘোষণা ফারুকের

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১০৮জন দেখেছেন

Image
রবিউল ইসলাম বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি:বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার গারুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক আলহাজ্ব মোঃ ফারুক হোসেন হাওলাদার।

শুক্রবার (২১ জুন) সন্ধ্যায় উপজেলার ডিঙ্গারহাট নিজ বাড়িতে অনুষ্ঠিত উঠান বৈঠকে তিনি এ ঘোষণা দেন।

প্রার্থিতা ঘোষণার সময় আলহাজ্ব মোঃ ফারুক হোসেন হাওলাদার গারুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নিজেকে আগাম চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করে বলেন, উপজেলার মধ্যে গারুড়িয়া ইউনিয়ন দীর্ঘদিন ধরে অবহেলিত ও অনুন্নত। তাই জনসাধারণের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে তিনি আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থিতা ঘোষণা করেছেন। তিনি বিশ্বাস করেন, মানুষের প্রতি শ্রদ্ধা-ভালোবাসা তাকে বিজয়ী করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি হাফিজুল ইসলাম নান্নার সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন গারুড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুদ্দিন তালুকদার মিন্টু, সমাজসেবক জাফর উল্লাহ মাসুৃম, রফিকুল ইসলাম খান, ইউপি সদস্য ফকরউদ্দিন হাওলাদার, খান সুলতান মাহমুদ জলিল, গারুরিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কুদ্দুস নান্টু, প্রভাষক রিপন চক্রবতী, দিপঙ্কর দত্ত, ইউপি সদস্য নুপুর বেগম, কমল মালামার, সাবেক ইউপি সদস্য আকলিমা সুলতানা আঙ্গুরী, খান সুলতান মাহমুদ জলিল, মনিরুজ্জামান মনির, জাহিদ হোসেন খানসহ ইউনিয়নের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও খবর



৫৫ কোটি টাকা লোপাট করেছে ডাক বিভাগের কর্মীরা: পলক

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৫১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:রাজশাহীর তানোরের পারুল বেগমের ২ লাখ টাকা ছাড়াও ডাক বিভাগের কর্মীরা গ্রাহকের অর্থ এবং ডাকের নিজস্ব তহবিল মিলিয়ে মোট ৫৫ কোটি টাকা লোপাট করেছে,বলেছেন ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বুধবার (২৬ জুন) রাজধানীর গুলশানে একটি হোটেলে এটুআই, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এবং আন্তর্জাতিক টেলিযোগাযোগ ইউনিয়নের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত কর্মশালায় এ কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, শুধু রাজশাহীর তানোরের পারুল বেগমের ২ লাখ টাকা আত্মসাৎই নয়, গ্রাহকের অর্থ এবং ডাকের নিজস্ব তহবিল মিলিয়ে মোট ৫১ কোটি টাকা লোপাট করেছে ডাক বিভাগের কর্মীরা। এ রকম ১১টি অনিয়মের সত্যতা পাওয়া গেছে জানিয়ে পলক আরও বলেন, এসব কর্মীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দুদককে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

সম্প্রতি রাজশাহীর তানোর উপজেলা পোস্ট অফিসে পরিবার সঞ্চয়পত্রে পারুল বেগম নামের এক নারীর জমা রাখা দুই লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে পোস্টমাস্টার মোহাম্মদ মোকসেদ আলীর বিরুদ্ধে। টাকা ফেরত না পাওয়ায় আত্মহত্যার চেষ্টা করেন পারুল বেগম। ওই ঘটনার পর আর কোনো গ্রাহক প্রতারিত হয়েছেন কি না তা জানতে তানোর’সহ দেশের বিভিন্ন উপজেলায় মাইকিং করে জানানোর উদ্যোগ নেন ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী। এতে শুধু তানোরেই আরও ৫১ জন গ্রাহক প্রতারণার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন। এতে অনিয়ম বন্ধ করে বছরে ডাক বিভাগের ৭০০ কোটি টাকা লোকসান ঠেকাতে গাড়ি-জমি লিজ দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়। যাতে ২০টি প্রতিষ্ঠান সাড়া দিয়েছে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী। এসময় টেলিটক, টেশিস,বিটিসিএল লোকসান দিচ্ছে কেন তার কারণ অনুসন্ধান সংক্রান্ত পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন আগামী ৩০ জুনের মধ্যে পাওয়া যাবে বলেও জানান জুনাইদ আহমেদ পলক। এতসব অনিয়ম দুর্নীতি হলেও ডাক ভবনে প্রবেশে বাধার সম্মুখীন হওয়ার অভিযোগ প্রতিমন্ত্রীর কাছে তোলেন সাংবাদিকরা।


আরও খবর