Logo
আজঃ Monday ০৩ October ২০২২
শিরোনাম

দুই সন্তানের জন্য বাঁচতে চান ক্যানসার আক্রান্ত শুকুর আলী

প্রকাশিত:Tuesday ২৬ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৩ October ২০২২ | ৯৬জন দেখেছেন
Image

পান খেতেন শুকুর আলী (৩৫)। পানের চুন থেকে জিহবার নিচে ঘায়ের মতো হয়। এজন্য টুকটাক ওষুধ খেয়েছেন। কিন্তু সেটা বাড়তেই থাকে। পরে স্থানীয় লায়ন্স হাসপাতালে দেখালে তারা দিনাজপুর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতলে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক মো. আলমগীর চিকিৎসা দেওয়ার পাশাপাশি বায়োপসি পরীক্ষা দেন। বায়োপসি পরীক্ষায় ক্যানসারের উপস্থিতি ধরা পড়ে। গ্রেড-৩ পর্যায়ে রয়েছে।

চিকিৎসকরা অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দিয়েছেন। এজন্য খরচ হবে ৪-৫ লাখ টাকা। তবে এত টাকা জোগাড় করা মুড়ির মিলে কাজ করা এ শ্রমিকের পক্ষে অত্যন্ত কষ্টকর। এজন্য বিত্তবানদের সহযোগিতা কামনা করেছেন শুকুর আলী।

শুকুর আলীর বাড়ি দিনাজপুরের পার্বতীপুর পৌরসভা এলাকার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের রোস্তম নগর এলাকায়।

বাঁচার আকুতি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘চিকিৎসক বলেছেন অপারেশন করলে ভালো হতে পারে। এজন্য ৪-৫ লাখ টাকা লাগবে। এত টাকা আমি কই পাবো? আমি একটা মুড়ির মিলে কাজ করি, সঞ্চয় নেই। তাই আমরা ঢাকায় এসেছি। আমি বাঁচতে চাই। আমার দুই সন্তান ছোট। আমি না বাঁচলে তাদের মানুষ করবে কে? তাদের কে দেখবে?’

শুকুর আলীর দুই সন্তান। বড় ছেলে নিশাত পঞ্চম ও ছোট ছেলে তানজিদ চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ে।

স্ত্রী মনোয়ারা বেগম তিথি জানান, স্বামীকে নিয়ে তিনি ঢাকায় এসেছেন। ঢাকা ডেন্টাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছেন। আসার সময় ৩০ হাজার টাকা নিয়ে এসেছিলেন। পরীক্ষা করতে করতেই সব টাকা প্রায় শেষ।

তিনি বলেন, ‘অপারেশন করাতে হলে ৪-৫ লাখ টাকা লাগবে। কিন্তু আমরা এত টাকা পাবো কোথায়? স্বামীর এ অসুস্থতায় দুই অবুঝ সন্তানকে নিয়ে খুব দুশ্চিন্তায় রয়েছি।’

পার্বতীপুর পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের কমিশনার রোস্তম আলী বলেন, এলাকার মানুষজনের কাছে সহায়তা চেয়ে কিছু টাকা দিয়ে আপাতত ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। সেটা খুবই সামান্য। এখন শুকুরের চিকিৎসার জন্য অনেক টাকা দরকার। মানুষের সহায়তা ছাড়া এটা সম্ভব না।

শুকুর আলী বর্তমানে ঢাকা ডেন্টাল কলেজ হাসপাতালের ওরাল অ্যান্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল বিভাগে ডা. নুসরাত নুইরীর তত্ত্বাবধানে ষষ্ঠ তলার ১৪ নম্বর বেডে ভর্তি আছেন।


আরও খবর