Logo
আজঃ Wednesday ২৫ May ২০২২
শিরোনাম

ধুপখোলা মাঠকে মাঠ হিসেবে ব্যবস্থাপনা করতে হবে

প্রকাশিত:Saturday ১৪ May ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ৫৪জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

পুরাতন ঢাকার গেন্ডারিয়ার ধুপখোলা মাঠকে সম্পূর্ণরূপে মাঠ হিসেবে ছেড়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন আইনজীবী ও বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) প্রধান নির্বাহী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান।


তিনি বলেছেন, মাঠটিকে মাঠ হিসেবে ব্যবস্থাপনা করতে হবে। এখানে যত স্থাপনা আছে এগুলো সরিয়ে ফেলতে হবে।



শনিবার (১৪ মে) পরিবেশ ও সংস্কৃতি কর্মী এবং নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা ধূপখোলা মাঠ পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন।


রেজওয়ান হাসান বলেন, ঢাকা শহরের মাস্টার প্ল্যান ও হাইকোর্টের রায়ে বলা আছে, মাঠের মধ্যে কোনো স্থাপনা হতে পারবে না। আর ধূপখোলা মাঠের মতো এরকম ঐতিহ্যবাহী মাঠ নেই। যে কোনো নির্মাণ কাজ করতে গেলে ওখানে একটা সাইনবোর্ড দিয়ে জনগণকে জানাতে হবে এই নির্মাণ কাজ কে করছে, অর্থায়ন কে করছে, ইঞ্জিনিয়ার কে, অনুমোদনের তারিখ কবে। এখানে এরকম কোনো সাইনবোর্ড আমরা দেখতে পাইনি।



তিনি আরও বলেন, ঢাকা শহরের বেশির ভাগ খেলার মাঠ ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে আছে সিটি করপোরেশন। আর সিটি করপোরেশন যদি আইন ভঙ্গ ও হাইকোর্টের রায় উপেক্ষা করে মাঠের মধ্যে স্থাপনা করে তাহলে জনগণ যাবে কোথায়। এখানে ‘রক্ষকই ভক্ষক’ এই উদাহরণ সৃষ্টি করছে সিটি করপোরেশন।


পরিদর্শন শেষে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সহ-সভাপতি মোবাশ্বের হোসেন বলেন, মহানগরী, বিভাগীয় শহর ও জেলা শহরের এলাকাসহ দেশের সব পৌর এলাকার খেলার মাঠ, উন্মুক্ত স্থান, উদ্যান ও প্রাকৃতিক জলাধার সংরক্ষণ আইন, ২০০০ অনুসারে মাঠে কোনো স্থাপনা করার সুযোগ নেই। এই আইনে বিজিএমইএ ভবন ভেঙে ফেলা হয়েছে। ধূপখোলা মাঠে যে সব অবৈধ নির্মাণ কাজ রয়েছে সেগুলো সরিয়ে ফেলতে হবে। আর এই কাজটি করতে সিটি করপোরেশনকে উদ্যোগ নিতে হবে।



নাগরিক উদ্যোগের প্রধান নির্বাহী জাকির হোসেন বলেন, দেশের আইন ও উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী কোনো মাঠে স্থাপনা তৈরি করা যায় না। খেলার মাঠ খেলার জন্যই উন্মুক্ত থাকবে। ধূপখোলা মাঠ ঢাকার মধ্যে সবচেয়ে বড় খেলার মাঠ। এছাড়া জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররাও এখানে খেলাধুলা করেন।


তিনি নির্মাণ কাজ বন্ধ করার জন্য সিটি করপোরেশনের প্রতি আহ্বান জানান।


প্রতিনিধি দলে আরও উপস্থিত ছিলেন- গ্রিন ভয়েসের প্রধান সমন্বয়ক আলমগীর কবির, কেন্দ্রীয় সহ-সমন্বয়ক হুমায়ুন কবির সুমন, ময়মনসিংহ বিভাগের সমন্বয়ক শাকিল কবির, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক তারেক রহমান, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান মিল্টন, পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দীন, ক্যামেলিয়াসহ অন্যান্য নেতারা।



আরও খবর



বঙ্গোপসাগরে জাহাজ ডুবি

বঙ্গোপসাগরে গম বোঝাই জাহাজ ডুবি

প্রকাশিত:Wednesday ১৮ May ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ১২২জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

বঙ্গোপসাগরে প্রায় ৬ কোটি ৬৪ লাখ টাকার গমসহ  ডুবে গেছে লাইটার জাহাজ ‘এমভি তামিম’।  


বুধবার (১৮ মে) বিকেল ৩টার দিকে জাহাজটি রামগতি পাইলট বিচের নিচে তিল্লার চর এলাকায় ডুবে যায়।


আগের দিন মঙ্গলবার সকালে চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে অবস্থানরত বড় জাহাজ ‘এমভি প্রোফেল গ্রেস’ থেকে প্রায় ১ হাজার ৬০০ টন গম বোঝাই করে ঢাকার নাবিল অটো ফ্লাওয়ার মিলের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেছিল জাহাজটি। 


দুর্ঘটনার পর জাহাজটির ১২ জন নাবিককে অপর একটি জাহাজ এসে উদ্ধার করেছে।


এমভি তামিম জাহাজটি ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট সেলের (ডব্লিউটিসি) সিরিয়ালে পরিচালনা করছিল সমতা শিপিং অ্যান্ড লজিস্টিকস। সমতার কর্মকর্তা জামাল হোসেন  জানান, চলার পথে পানির নিচে অদৃশ্য বস্তুর সঙ্গে লেগে জাহাজের সামনের হেজ ফেটে যায়।


এ সময় হেজে পানি ঢুকে যায়। পরে মাঝের ও সামনের হেজেও পানি ঢুকে জাহাজটি ডুবে যায়।


শুধু জাহাজের ব্রিজ দেখা যাচ্ছে। নাবিকদের নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে।  




আরও খবর



ফেরিতে জুয়ার আসর বসানোর দায়ে চার জুয়ারী আটক

প্রকাশিত:Saturday ২১ May ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ৯২জন দেখেছেন
Image

এ আর হনিফঃ

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া নৌপথে চলাচলরত ফেরিগুলোতে জুয়ারীদের উপদ্রব বেড়েছে।



 এসব জুয়াড়িরা ফেরিতে জুয়া খেলার আয়োজন করে নিঃস্ব করছে যাত্রী ও চালকদের। 


শুক্রবার (২০ মে) দিবাগত রাতে দৌলতদিয়ার ৫নং ঘাট থেকে ছেড়ে যাওয়া রো রো ফেরি কেরামত আলী মাঝ নদীতে পৌঁছালে যাত্রী বেশে থাকা নৌ-পুলিশ চার জুয়াড়িকে গ্রেফতার করে।


তারা হলেন- গোয়ালন্দ উপজেলার উত্তর দৌলতদিয়া সিদ্দিক কাজীপাড়া এলাকার মৃত মোবারক মোল্লার ছেলে বরকত মোল্লা (৪২), উত্তর দৌলতদিয়া ঢল্লাপাড়া এলাকার মৃত নবু খাঁর ছেলে নুরু খাঁ (৫৩), বাহিরচর দৌলতদিয়া শাহাদৎ মেম্বারপাড়া এলাকার অকেল মোল্লার ছেলে উসমান মোল্লা (৫৪) ও একই গ্রামের মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে সাগর হোসেন (৩৭)।


গ্রেফতার জুয়াড়িদের দেওয়া ভাষ্যমতে একই গ্রামের মৃত মোহন সিকদারের ছেলে রেজাউল সিকদারও (৩০) ফেরিটিতে ছিলেন। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আগেই পালিয়ে যান।


 এ সময় পুলিশ তাদের কাছ থেকে তাস, কুপি বাতি, জুয়া খেলার একটি বোর্ড ও নগদ টাকা জব্দ করে। তাদেরকে আজ দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এক মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আজিজুল হক খান।


পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, তারা দীর্ঘদিন ধরে নেশা ও জুয়ার সঙ্গে জড়িত। এর মধ্যে উসমান মোল্লা ফেরিতে জুয়া খেলার সময় পুলিশের হাতে গ্রেফতার হলে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছিলেন। কারাগার থেকে গত বৃহস্পতিবার বের হয়ে আবার ফেরিতে জুয়া খেলা শুরু করেন।


ঘাট সংশ্লিষ্টরা জানান, প্রায় রাতে ঘাট থেকে ছেড়ে যাওয়া ফেরি মাঝ নদীতে পৌঁছলে ইঞ্জিন চালিত নৌকা থেকে তারা ফেরিতে উঠে পড়ে। 


ফেরির এক কোনায় কুপি বাতি জ্বালিয়ে প্রথমে নিজেরা ৪-৫ জন বসে তাস নিয়ে খেলা শুরু করে। এ সময় যাত্রী বা গাড়ি চালক খেলায় আগ্রহ দেখালে সংঘবদ্ধ সদস্যরা টাকা পয়সা, মূল্যবান জিনিসপত্র কেড়ে নেয়। কেউ এগিয়ে গেলে ধারালো ছুরি বা চাকু দিয়ে আঘাত করে দ্রুত নৌকা নিয়ে সটকে পড়ে।


দৌলতদিয়া নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক সৈয়দ জাকির হোসেন বলেন, ‘শুক্রবার রাত পৌনে ১২টার দিকে দৌলতদিয়ার ৫নং ঘাট থেকে ছাড়া কেরামত আলী রো রো ফেরিতে জুয়াড়ি চক্রের সদস্যরা উঠছে সংবাদ পেয়ে যাত্রী বেশে কয়েকজন পুলিশ আগে থেকে অবস্থান নেয়। ফেরিটি কিছু দূর যেতেই কুপি বাতি জালিয়ে জুয়া খেলা শুরু করলে হাতেনাতে চার জনকে আটক করি।’


তিনি আরও বলেন, ‘এরা নেশার সঙ্গে জড়িত থাকায় টাকা জোগাড় করতে এ ধরনের কাজে জড়িয়ে পড়ে। এ ক্ষেত্রে প্রতিটি ফেরিতে পুলিশ দেওয়া সম্ভব হয় না। যে ফেরিতে পুলিশ থাকে না নিশ্চিত হওয়ার পর ওই ফেরিতেই জুয়ার আসর বসায়। এ ছাড়া যে ফেরিতে তারা জুয়ার আসর বসায়, সেই ফেরিতে থাকা ডিম বিক্রেতা, ঝাল মুড়ি বিক্রেতাসহ বিভিন্ন হকাররা জুয়াড়িদের গোপনে খবর আদান প্রদান করে। বিনিময়ে জুয়াড়িরা হকারদের কিছু টাকা দেয়।’



আরও খবর



সাগর-রুনি হত্যা মামলার প্রতিবেদন ৮৮ বারের মতো পিছিয়েছে

প্রকাশিত:Tuesday ২৬ April ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ১৩৩জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

সাংবাদিক দম্পতি সাগর সারোয়ার ও মেহেরুন রুনি হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার তারিখ ৮৮ বারের মতো পিছিয়েছে। পরবর্তী তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ৭ জুন দিন ধার্য করেছেন আদালত।


মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিন ধার্য ছিল। তদন্ত সংস্থা র‍্যাব প্রতিবেদন দাখিল না করায় ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবদাস চন্দ্র অধিকারী প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নতুন এদিন ধার্য করেন। শেরেবাংলা নগর থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা পুলিশের উপ-পরিদর্শক জালাল উদ্দিন  বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।


২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি মাছরাঙা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক সাগর সারোয়ার ও এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মেহেরুন রুনিকে হত্যা করা হয়। এরপর নিহত রুনির ভাই নওশের আলম রোমান শেরেবাংলা নগর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।


প্রথমে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ছিলেন ওই থানার এক উপ-পরিদর্শক (এসআই)। চারদিন পর চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলার তদন্তভার ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কাছে হস্তান্তর করা হয়।


দুই মাসেরও বেশি সময় তদন্ত করে রহস্য উদঘাটনে ব্যর্থ হয় ডিবি। পরে হাইকোর্টের নির্দেশে একই বছরের ১৮ এপ্রিল হত্যা মামলাটির তদন্তভার র‍্যাবের কাছে হস্তান্তর করা হয়।



আরও খবর



শীঘ্রই আলোচনায় বসবে বিএনপির সাথে

বিএনপিসহ সমমনা দলগুলোর সঙ্গে আলোচনায় বসবে সিইসি

প্রকাশিত:Friday ২০ May ২০22 | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ৮১জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

বিএনপিসহ রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে খুব শিগগির সংলাপে বসার ইঙ্গিত দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল।

তিনি বলেছেন, বিএনপিসহ রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে শিগগির সংলাপে বসবে নির্বাচন কমিশন।


শুক্রবার (২০ মে) সকালে সাভার উপজেলা মিলনায়তনে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

সিইসি আরও বলেন, ‘ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। এর সক্ষমতা কতটুকু দরকার, আরও কী কী করা যায় তা নিয়ে ভাবছি। সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য আমরা কাজ করবো।’

ভোটার তালিকা প্রণয়নের জন্য তিন ধরনের তথ্য নেওয়া হচ্ছে জানিয়ে নির্বাচন কমিশনের সচিব হুমায়ুন কবীর খোন্দকার বলেন, ‘২০২৩ সালের ২ মার্চ ভোটার তালিকা প্রণয়ন করা হবে।

এই ভোটার তালিকা দিয়েই আগামী জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তাই এই ভোটার তালিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। শুধু তাই নয়, ট্রান্সজেন্ডার ও নিষিদ্ধ পল্লীর মা-বোনদেরও কিন্তু এই তালিকায় আনার জন্য আমরা নির্দেশনা দিয়েছি। কীভাবে নিয়ে আসবেন সে বিষয়ে আমরা প্রশিক্ষণও দিয়েছি।’

এ সময় ঢাকা জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার, জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মনির হোসেন, সাভার উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম রাজীব, সাভার পৌরমেয়র আব্দুল গণি, সাভারের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাজহারুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



দেশের উন্নয়নে বাধা সৃষ্টি করা অপরাজনীতির বিপক্ষে অবস্থান নিতে হবে-মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

প্রকাশিত:Friday ০৬ May ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৩ May ২০২২ | ৮৭জন দেখেছেন
Image

পিরোজপুর, ৬ মে ২০২২ (শুক্রবার)

দেশের উন্নয়নে বাধা সৃষ্টি করা অপরাজনীতির বিপক্ষে দল-মত নির্বিশেষে অবস্থান নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন  মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।


শুক্রবার (৬ মে) সকালে পিরোজপুর সদর উপজেলা পরিষদের শহীদ ওমর ফারুক মিলনায়তনে দুস্থ জনগোষ্ঠীর মাঝে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের শুকনো খাবার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ আহ্বান জানান।


পিরোজপুর সদর উপজেলা প্রশাসন এ অনুষ্ঠান আয়োজন করে।


এ সময় মন্ত্রী বলেন, দেশের উন্নয়নে যারা বাধা সৃষ্টি করে, যারা অপরাজনীতি করে, যারা ধ্বংসের রাজনীতি করে তাদের বিপক্ষে অবস্থান নিতে হবে। বিপক্ষে অবস্থান নিতে হবে স্বাধীনতাবিরোধীদের।


প্রত্যেকের মধ্যে নিজস্ব বিশ্বাস ও চেতনা থাকলেও স্বাধীনতাবিরোধীদের ভ্রান্ত, অন্ধকারাচ্ছন্ন জায়গা থেকে বেরিয়ে আসার জন্য সকলকে প্রগতিশীল রাজনীতিতে আসতে হবে।

তিনি আরো বলেন, যদি কেউ ধ্বংসাত্মক কার্যক্রম করতে চায়, পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করতে চায়, মানুষকে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের দিকে নিয়ে যেতে চায় তাহলে রাষ্ট্রের সাংবিধানিক দায়িত্ব আছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করার।


এ জাতীয় অপরাজনীতি যারা করবে আওয়ামী লীগ জনগণকে সঙ্গে নিয়ে তাদের যেকোন মূল্যে প্রতিহত করবে।

মন্ত্রী আরও যোগ করেন, আমরা অন্ধকার থেকে আলোর পথে যাচ্ছি। অপ্রতিরোধ্য গতিতে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হচ্ছি। শেখ হাসিনা হচ্ছেন উন্নয়নের জাদুকর। তাঁর নেতৃত্বে বাংলাদেশ আরও এগিয়ে যাবে।


পিরোজপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বশির আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাহেদুর রহমান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাঈদুর রহমান, পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ হাকিম হাওলাদার, স্থানীয় অন্যান্য সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ ও স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।


পরে পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলা কৃষি অফিস হলরুমে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন উপকূলীয় চরাঞ্চলে সমন্বিত প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের অবহিতকরণ সভায় যোগ দিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, দেশের অসহায় মানুষকে স্বাবলম্বী করাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লক্ষ্য।


তাঁর নেতৃত্বাধীন সরকারে সময়ে দেশে কোনো মানুষ অভুক্ত থাকে না। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে করোনা মহামারীতেও দেশের উন্নয়ন থেমে নেই।



আরও খবর