Logo
আজঃ Wednesday ২৫ May ২০২২
শিরোনাম

ধনবাড়ীতে সরিষার সুফলে লাভ জনক কৃষক ছানোয়ার হোসেন তোতা

প্রকাশিত:Tuesday ২৫ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ২৩৩জন দেখেছেন
Image


আবুল হোসেন আকাশ (টাঙ্গাইল,ধনবাড়ী)

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী উপজেলার ধোপাখালী ইউনিয়নের কৃষক ছানোয়ার হোসেন তোতা উপজেলার কৃষি অফিস থেকে একটি প্রকল্প  দিয়েছে  কৃষিক পর যায় উন্নত জাতের একটি ডাল তৈল ও মশলা  প্রকল্পটির  মাধ্যমে  তিন একর জমিতে সরিষা চাষ করেন ।  


কৃষক ছানোয়ার হোসেন তোতা জানান প্রথম আমাকে  উপজেলা-কৃষি-অফিস থেকে এক একর জমি চাষ করার জন্য  সার বীজ এবং কিছু অর্থ দিয়ে আমাকে সহযোগিতা করে  এতে আমি অনেক লাভ বান হই। আর ৫০০ কেজি সরিষা বীজ  উৎপাদন করি  ।


আবারো আমি  দুই একর জমিতে সরিষা চাষ করি এতে আমার ১ এক হাজার কেজি  বীজ উৎপাদন করি  পরে লোক জনে জানজানি হয় যে আমি সরিষা  বারি সত্তেরো  বারি চৌদ্দো ,আমার এই সরিষা বীজ বিভিন্ন এলাকার মানুষ   নিয়ে সরিষা চাষ করে  অনেকেই  আজ লাভ বান হয়   । এবার আমি তিন একর জমিতে সরিষা চাষ করেছি। এতে আমার  প্রতি এক একর জমিতে ৫০০ কেজি সরিষা উৎপাদন হবে বলেস।


কৃষক তোতা তিন এবার ৩ একর জমিতে ১৫০০ শ কেজি থেকে ১৮০০শ কেজি সরিষা উৎপাদন হবে বলে আশা করেন কৃষক ছানোয়ার হোসেন তোতা । তিনি বলেন, সরিষা আবাদে খরচ কম ফলে অল্প খরচেই ও কম পরিশ্রমেই সরিষা আবাদ করা যায়।  । আমার নিজের জন্য কিছু বীজ রেখে আর সব বীজ আমি বিক্রয় করবো ।


আমি অনেক লাভমান হবো ,আমি উপজেলা  কৃষি সম্পসারণ অধিদপ্তর এর সহযোগিতা না পেলে  আমি এতো লাভ ভান হতে পারতাম না  । মাননীয় কৃষি মন্ত্রীর ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি মহদোয় কৃষকদের প্রতি বিশেষ  অবদান রেখেছেন। ,


বর্তমানেমাননীয় প্রধান মন্রীর শেখ হাসিনার  নেতিত্বে আমরা কৃষিক যারা সার বীজ নগত  অর্থ সহ  অনেক সুযোগ সুবিধা পাচ্ছি  ।


আরও খবর



পুলিশ ইন্সপেক্টর রুহুল কুদ্দুছ মারা গেছেন

প্রকাশিত:Tuesday ১০ May ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ২০৩জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলার কৃতি সন্তান নেত্রকোনা সমিতি ময়মনসিংহ এর সদস্য ময়মনসিংহ জেলার ইন-সার্ভিস ট্রেনিং সেন্টারে কর্মরত পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) মোহাম্মদ রুহুল কুদ্দুছ খান  আর নেই( ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। গতকাল  রাত ১.২০ মিনিটে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইহকাল এর মায়া ত্যাগ করেছেন। 


তিনি কর্মজীবনে ছিলেন একজন নিষ্ঠাবান সৎ সাদা মনের পুলিশ অফিসার। কর্মজীবনে তিনি ময়মনসিংহ ডিবি, ওসি তদন্ত নান্দাইল, অফিসার ইনচার্জ, ১নং পুলিশ ফাঁড়িতে সততা দক্ষতা সাথে দায়িত্ব পালন করে গেছেন।তাঁর কর্মদক্ষতা প্রজন্মের কাছে অনুকরণীয় হয়ে থাকবে।


কৃতিমান এই সৎ দক্ষ কর্মবীরের মৃত্যুতে নেত্রকোনা সমিতি, ময়মনসিংহ এর পক্ষ থেকে সভাপতি আলহাজ্ব অধ্যক্ষ মোঃ আব্দুল হক, সহ-সভাপতি সিনিয়র সাংবাদিক মোঃ আব্দুল হাফিজ, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুল আজিজ, বাবু জ্যোর্তিরময় সাহা,সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জহিরুল ইসলাম খান জামাল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ আনিসুর রহমান খান  গভীর শোক প্রকাশ করে শোকাভিভূত পরিবার বর্গের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। 


রাইটার্স ইউনিটি ময়মনসিংহ এরপক্ষ থেকে সভাপতি লেখক ও সাংবাদিক মোঃ আব্দুল হাফিজ শোক প্রকাশ করে শোকাভিভূত পরিবার বর্গের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।


মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন তাকে জান্নাতুল ফেরদৌস নসিব করুন ও কবরকে সহজ করে দাও, আমিন।


আরও খবর



কর্মজীবী মানুষের ঢাকা ফেরাও স্বাচ্ছন্দ্যে হবে-নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:Thursday ০৫ May ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৩ May ২০২২ | ৬৮জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক।।


ঈদের ছুটি শেষে কর্মজীবী মানুষের ঢাকা ফেরাও স্বাচ্ছন্দ্যে হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।


বৃহস্পতিবার (৫ মে) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে তিনি এ কথা বলেন। এর আগে প্রতিমন্ত্রী মন্ত্রণালয়ে সচিবসহ কর্মকর্তাদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।



তিনি বলেন, এবারের ঈদযাত্রা খুব ভালোভাবেই করতে পেরেছি। আল্লাহর রহমতে সারাদেশের মানুষ আনন্দের সঙ্গে ঈদ করতে পেরেছে।


স্বাচ্ছন্দ্যে ঈদের সময়ে মানুষ বাড়ি যেতে পেরেছে। সারাদেশে আনন্দঘন পরিবেশ বিরাজ করছে। ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে যারা চেয়েছিল, তারা সফল হতে পারেনি। আল্লাহর রহমতে এবং সরকারের পদক্ষেপের কারণে মানুষ ভালোমত ঈদ করতে পেরেছে।


প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার ও আমার পক্ষ থেকে সবাইকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। মানুষ সচেতন হচ্ছে। আইনশৃংখলা বাহিনীসহ দায়িত্বরত অন্যান্যরা তাদের দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করছে। নৌপথে ঢাকামুখী ফেরাটাও স্বাচ্ছন্দ্যে হবে বলে আশা করি। 


আরও খবর



রান্না করা মাংস ও সালাদের দোকানে কাজ করতেন টাইটানিক ছবির নায়িকা

প্রকাশিত:Monday ২৩ May ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ৭৪জন দেখেছেন
Image

 বিনোদন ডেস্ক।

হলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী কেট উইন্সলেট। ‘টাইটানিক’ সিনেমায় রোজের চরিত্রে অভিনয় করে জয় করে নিয়েছেন অস্কার। হয়েছেন কালজয়ী সিনেমার অংশ।


দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসের মতে, একজন অভিনেত্রী হিসেবে উইন্সলেটের নমনীয়তা স্পষ্ট। তিনি ‘টাইটানিক’ এবং দার্শনিক ‘রেব্যুলোশনারি রোড’- এর মতো ব্লকবাস্টার সিনেমায় অভিনয় করার পাশাপাশি। এইচবিওর ‘মিলড্রেড পিয়ার্স’ এবং ‘মেয়ার অফ ইস্টটাউন’- এর মতো ড্রামাতেও অভিনয় করেছেন। হয়েছেন বিখ্যাত।



তবে কেট উইন্সলেট বিখ্যাত এবং মিলিয়ন ডলার উপার্জন শুরু করার আগে বাকিদের মতো সাধারণ কাজ করতেন।


বার্কশায়ার লাইভ অনুসারে, উইন্সলেট বার্কশায়ারের রিডিং শহরে বেড়ে উঠেন। অভিনেত্রী হওয়ার আগে রান্না করা মাংস এবং তৈরি করা সালাদ ইত্যাদির দোকানে কাজ করতেন।



তিনি সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, তার প্রথম সিনেমা ‘হেভেনলি ক্রিয়েচার’- এ অভিনয় করার সময় অভিনয়ের ক্যারিয়ারকে সুরক্ষিত করার আশায় পার্শ্ব কাজ হিসেবে তিনি ডেলিতে কাজ চালিয়ে যান। কেননা একজন অভিনেত্রী হিসেবে জীবিকা নির্বাহ করা বেশ কঠিন। বিশেষ করে যখন কেউ সবেমাত্র কাজ শুরু করে।


তিনি বলেন, ‘অবশ্য যখন আমি বিখ্যাত সিনেমাগুলোতে প্রধান চরিত্রে সুযোগ পেতে শুরু তখন সময়ের সঙ্গে সবকিছু বদলে যায়।’

১৯৯৪ সালে শোবিজ দুনিয়ায় আত্মপ্রকাশের পর উইন্সলেটের পরবর্তী দুর্দান্ত হিট ছিল ১৯৯৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘সেন্স অ্যান্ড সেন্সিবিলিটি’ ছবিটি। এরপর তাকে পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। অনেক দূর এগিয়ে শক্ত করে নিয়েছেন নিজের স্থান।


আরও খবর



মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী আনার কলি বেপরোয়া

আশুগঞ্জে মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী আনার কলির বিরুদ্ধে থানায় জিডি

প্রকাশিত:Thursday ১৯ May ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ May ২০২২ | ১১০জন দেখেছেন
Image
আশুগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে দিন দিন অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছেন মহিলা আওয়ামীলীগের নেত্রী আনার কলি। 

সম্প্রতি  তার দখল বাণিজ্যের তথ্য অনুসন্ধ্যান করতে গিয়ে ওই নেত্রীর হুমকি-ধামকিসহ তোপের মুখে পড়েছেন উপজেলা সহকারি (ভূমি) ও গনমাধ্যম কর্মীরা। এ ঘটনায় উপজেলা প্রশাসন ও গণমাধ্যম কর্মীরা ওই নেত্রীর বিরুদ্ধে আশুগঞ্জ থানায় পৃথক দুটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন।


মহিলা আওয়ামীলীগের নেত্রীর বিরুদ্ধে উপজেলা প্রশাসন এবং সাংবাদিকের জিডি করার বিষয়টি টক অব দ্যা আশুগঞ্জে পরিণত হয়েছে।
অনুসন্ধ্যানে জানা গেছে, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের অর্থ সম্পাদক  ও আশুগঞ্জের প্রভাবশালী নেত্রী আনার কলি স্থানীয় রওশন আরা জলিল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন রেলওয়ের ১১৮৮ বর্গফুট জায়গা লীজ নেন মৎস্য, কৃষি ও নার্সারী করার শর্তে ।


ওই জায়গা লীজ নিয়ে আনার কলি লীজের শর্ত ভঙ্গ করে সেখানে মার্কেট করার জন্য জলাশয় ভরাট করতে থাকেন। খবর পেয়ে  গত ৩০ এপ্রিল আশুগঞ্জ উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ঘটনাস্থলে গিয়ে অবৈধ মাটি ভরাটে বাঁধা দেন। এ সময় সেখানে থাকা আনার কলি ও তার সাথে থাকা অজ্ঞাতনামা আরো ২/৩ জন সহকারি কমিশনার (ভূমি) কে অকথ্য ভাষায় গালাগালসহ সরকারি কাজে বাঁধা প্রদান করেন।
 এ ঘটনায় সহকারি কমিশনারে পক্ষে নাজির মনিরুজ্জামান বাদী হয়ে গত ৩০ এপ্রিলই  আশুগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী দায়ের করেন। জিডি নং-২৭৩৬।


এদিকে মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী আনার কলির জলাশয় ভরাট করে অবৈধভাবে সেখানে মার্কেট নির্মান করার বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ব্যাপক লেখালেখি শুরু হলে সময় টেলিভিশনের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ব্যুরো প্রধান উজ্জ্বল চক্রবর্তী তার ক্যামেরাপারসন মোঃ জুয়েলুর রহমানকে সাথে নিয়ে গত বুধবার দুপুর  সোয়া ১২ টার দিকে আশুগঞ্জে ঘটনাস্থলে গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করতে থাকলে খবর পেয়ে মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী আনার কলি ঘটনাস্থলে এসে চিৎকার করে বলতে থাকেন ‘আপনারা ভুয়া সাংবাদিক, আমার কাছ থেকে টাকা নিতে এসেছেন।’ 

এ সময় আনার কলি তাদের অকথ্য ভাষায় গালাগালসহ তাদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি এবং নারী নির্যাতনের মামলা করার হুমকি দেন। এ সময় আনার কলি মোবাইলে সাংবাদিক উজ্জল  ও তার ক্যামেরাপারসন জুয়েলুর রহমানের ভিডিও ধারণ করেন এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছাড়ারও হুমকি দেন। এ সময় আনার কলি সাংবাদিক উজ্জ্বল চক্রবর্তী দেখে নেয়ার হুমকি দেন।
এ ঘটনায় সাংবাদিক উজ্জ্বল চক্রবর্তী বুধবার দুপুরে আশুগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। জিডি নং-১০৪৬।


স্থানীয়রা জানান, আনার কলি রেলওয়ে থেকে এগারশ আটাশি বর্গফুট জায়গা লীজ নিয়ে জলাশয় ভরাট করে কয়েকগুণ বেশি জায়গা জুড়ে মার্কেটের কাঠামো নির্মাণ করছেন।
স্থানীয় বাসিন্দা, নূর উল্লাহ সরকার সাংবাদিকদের বলেন, ওই নেত্রী লীজ নেয়া জায়গায় অবৈধভাবে দোকান নির্মান করেছেন। অথচ এলাকায় কোন সিএনজিচালিত অটোরিকসা স্ট্যান্ড করার মতো কোন জায়গা নেই। প্রতিদিন এখানে যানজট লেগে থাকে। ওই নেত্রীকে কেউ কিছু বলতে পারে না। যে তার বিরুদ্ধে কথা বলেন, তাকে চাঁদাবাজি ও নারী নির্যাতন মামলা দেয়ার ভয় দেখায়। 

মোঃ সালমান নামে আরেক বাসিন্দা মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী আনারকলি  রেলওয়ের কাছ থেকে এই জায়গা মাছ চাষ করার কথা বলে লীজ নিয়েছেন বলে শুনেছি। মাছ চাষ করার কথা বলে ওই জায়গা লীজ এনে তিনি জলাশয় ভরাট করে দোকানপাট  নির্মান করেছেন। তার ভয়ে কেউ তাকে কিছু বলতে সাহস পায়না।

মার্কেটে দোকান ভাড়া নেয়া মোঃ আল-আমিন বলেন, আমি আনার কলির কাছ থেকে মাসিক ৪ হাজার টাকা ভাড়ায় একটি দোকান ভাড়া নিয়েছি। সিকিউরিটি বাবদ দিয়েছি ৬০ হাজার টাকা।
এ ব্যাপারে সাংবাদিক উজ্জ্বল চক্রবর্তীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী আনার কলি আমাদের সাথে আপত্তিজনক আচরণসহ চাঁদাবাজি নারী নির্যাতন করার হুমকি দেন এবং মোবাইলে আমাদের ভিডিও ধারণ করেন অসৎ উদ্দেশ্যে ।

এ ব্যাপারে আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অরবিন্দু বিশ্বাসের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, লীজের শর্ত ভঙ্গ করে আনার কলি অবৈধভাবে জলাশয় ভরাট করছে খবর পেয়ে এসিল্যান্ড বাঁধা প্রদান করলে আনার কলি তার সাথে অশোভন ও আপত্তিকর আচরণ করেন। আমরা বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি। এ ঘটনায় এসিল্যান্ড আশুগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। আমরা বিষয়টি রেলের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানাবো। 

এ ব্যাপারে আশুগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হানিফ মুন্সী সাংবাদিকদেরকে বলেন, উপজেলা পরিষদের আসার পথে আমি এই জায়গাটি দেখেছি। বালু দিয়ে ভরাটের সময় সময় আমি স্থানীয়দের কাছ থেকে জানতে পারি জায়গাটি আনারকলি ভরাট করছেন। পরে আনার কলির সাথে কথা বললে তিনি জানান, এই জায়গা তিনি রেলওয়ের কাছ থেকে লীজ এনেছেন। তবে এখানকার অটোরিক্সা চালকদের দাবি ছিল এখানে একটি সিএনজি স্ট্যান্ড করার জন্য । 

কিন্তু রেলওয়ের জায়গা হওয়ার কারণে আমরা সেখানে হস্তক্ষেপ করতে পারিনি। জলাশয় ভরাটের বিষয়ে আমরা অবগত হয়েছি এবং এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।
এ ব্যাপারে রেলওয়ের ভূ-সম্পদ কর্মকর্তা শহীদুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, লীজের শর্ত ভঙ্গ করলে এবং অবৈধভাবে জলাশয় ভরাট করলে অবশ্যই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও খবর



তিন দিন ধরে স্কুলছাত্রী নিখোঁজ

কিশোরগঞ্জে তিন দিনেও নিখোঁজ স্কুল ছাত্রীর সন্ধান পাওয়া যায়নি

প্রকাশিত:Sunday ১৫ May ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ৫৯জন দেখেছেন
Image

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলায় স্কুলে গিয়ে আর বাড়ি ফিরে আসেনি এক স্কুলছাত্রী (১৬)। এ নিয়ে তিন দিন ধরে তার পরিবার উৎকণ্ঠায় রয়েছেন।




ওই স্কুলছাত্রী নিখোঁজ হওয়ায় শনিবার (১৪ মে) দিনগত রাতে পরিবারের পক্ষ থেকে হোসেনপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে। জিডি নং-৫২৪, তারিখ-১৪/০৫/২০২২ইং।


নিখোঁজ মেয়েটি হোসেনপুর সরকারি মডেল পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রভাতী শাখার ১০ম শ্রেণির ছাত্রী।


জিডি ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (১২ মে) সকালে মেয়েটি স্কুলে যাওয়ার পর আর বাড়ি ফিরে আসেনি।


পরে পরিবারের লোকজন তার খোঁজ করেও সন্ধান পায়নি। নিখোঁজের সময় তার গায়ে ছিল সাদা রঙের স্কুল ড্রেস।


তার উচ্চতা ৫ ফুট এবং গায়ে রং ফর্সা। গত তিন দিন ধরে মেয়েটিকে না পেয়ে পরিবারে চলছে কান্নার রোল। এ ব্যাপারে একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে। যার জিডি নং-৫২৪, তারিখ-১৪/০৫/২০২২ইং।


কোনো সহৃদয়বান ব্যক্তি মেয়েটির সন্ধান পেলে ০১৭৯১-০৯৪৪৭১ মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করতে মেয়েটির বাবা অনুরোধ জানিয়েছেন।


আরও খবর