Logo
আজঃ শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪
শিরোনাম
কক্সবাজারে পাহাড় ধসে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু বন্ধ শিল্প প্রতিষ্ঠান চালুর পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে: শিল্পমন্ত্রী বাংলাদেশের হার দিয়ে সুপার এইট শুরু গোদাগাড়ীতে রাসেল ভাইপারের চিকিৎসার দাবিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রীর কাছে চিঠি দিয়েছে নাগরিক স্বার্থ-সংরক্ষণ কমিটি রূপগঞ্জে জমে উঠেছে কাঞ্চন পৌরসভা নির্বাচন যাত্রাবাড়ীতে পুলিশ কর্মকর্তার বাবা মাকে কুপিয়ে হত্যা যানজট নিরসনে সংসদ সদস্যগণের সাথে ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগের সমন্বয়সভা ভোলায় ফের দেখা মিলল রাসেল ভাইপার, জনমনে আতঙ্ক বাজেট পাস হয়নি,অনেক কিছু পুনর্বিবেচনা করা সম্ভব: অর্থমন্ত্রী দেশের সব মহৎ অর্জন আ. লীগের মাধ্যমেই হয়েছে: ওবায়দুল কাদের

ঢাকা সেনানিবাসে যান চলাচল সীমিত থাকবে কাল

প্রকাশিত:সোমবার ২০ নভেম্বর ২০23 | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | ২৫৬জন দেখেছেন

Image

খবর প্রতিদিন ২৪ডেস্ক : সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষ্যে আগামীকাল মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) ঢাকা সেনানিবাসে বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হবে। এ কারণে সেনানিবাস এলাকায় যান চলাচল সীমিত থাকবে। সোমবার (২০ নভেম্বর) আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়েছে, আগামীকাল ঢাকা সেনানিবাসের রাস্তাসমূহ (শহীদ জাহাংগীর গেট থেকে স্টাফ রোড পর্যন্ত প্রধান সড়ক) যানজট মুক্ত রাখার লক্ষ্যে সেখানে অবস্থানকারী ব্যক্তিবর্গ এবং আমন্ত্রিত অতিথিদের বহনকারী যানবাহন ছাড়া সকল প্রকার যানবাহন সকাল ৭টা থেকে ১১টা এবং দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত সেনানিবাস এলাকা দিয়ে চলাচল পরিহার করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

এদিকে সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও সশস্ত্র বাহিনীর সর্বাধিনায়ক মো. সাহাবুদ্দিন এবং প্রধানমন্ত্রী ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক পৃথক বাণী প্রদান করেছেন।


আরও খবর



কালিয়াকৈরে জনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় তামাকের মূল্য-কর বৃদ্ধির দাবী

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | ৯৭জন দেখেছেন

Image

সাগর আহম্মেদ,কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:“তামাক কোম্পানী হস্তক্ষেপ প্রতিহত করি, শিশুদের সুরক্ষা নিশ্চিত করি” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে রোববার দুপুরে অবস্থান কর্মসূচী পালন করা হয়েছে। বাংলাদেশ তামাক বিরোধী জোটের সহযোগীতায় ও দিশারীর আয়োজনে উপজেলা পরিষদের সামনে লতিফপুর এলাকায় এ কর্মসূচী পালন করা হয়। কর্মসূচীতে উপস্থিত ছিলেন-দিশারীর নির্বাহী পরিচালক মতিউর রহমান, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক এস এম ওয়ারেচ, মিনহাজ আহম্মেদসহ আরো অনেকে।এসময় জনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় আসন্ন বাজেটে তামাকের মূল্য ও কর বৃদ্ধির দাবী জানান অবস্থান কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ কারীরা।


আরও খবর



খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ ১৫টি প্রশংসনীয় কাজে আইজিপি পুরস্কার পেল

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | ৭৪জন দেখেছেন

Image
জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ,  চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বিপিএম (বার), পিপিএম মহোদয় এর দূরদর্শী নেতৃত্বে বাংলাদেশ পুলিশের সেবায় এক নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হয়েছে।এই অগ্রযাত্রার সাথে তাল মিলিয়ে খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ সেবার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করে আইজিপি মহোদয় কর্তৃক পুরস্কৃত হয়েছে। এই অর্জন কেবল সম্ভব হয়েছে সম্মানিত পুলিশ সুপার খাগড়াছড়ি জেলা,  মুক্তা ধর পিপিএম (বার) এর সার্বিক তত্ত্বাবধান ও দিকনির্দেশনার ফলে।

খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ যে ১৫টি বিষয়ে আইজিপি পুরস্কার পেলেন বিষয়বস্তু নিম্নরূপ:-
১.খাগড়াছড়ি জেলা মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশ কর্তৃক চাঞ্চল্যকর ও ক্লুলেস হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটনপূর্বক প্রধান আসামি গ্রেফতার সংক্রান্তে পুরস্কার।

২.খাগড়াছড়ি জেলা গুইমারা থানা পুলিশ কর্তৃক অস্ত্রসহ এক (০১) জন সন্ত্রাসী গ্রেফতার সংক্রান্তে পুরস্কার।

৩.খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশ কর্তৃক অপহৃত ভিকটিম সহ মূল অপহরণকারী গ্রেফতার সংক্রান্তে পুরস্কার।

৪.খাগড়াছড়ি জেলার সদর থানা পুলিশের অভিযানে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে আনা ০২ লক্ষ টাকার অধিক বিদেশি সিগারেট ও ০১ টি টমটম জব্দ সহ ০১ জন চোরাকারবারি গ্রেফতার সংক্রান্তে পুরস্কার।

৫.খাগড়াছড়ি জেলা সদর থানা পুলিশের অভিযানে ব্যাংকের আত্মসাৎকৃত অর্থ উদ্ধারসহ ০১ জন আসামি গ্রেফতার সংক্রান্তে পুরস্কার ।

৬.খাগড়াছড়ি জেলার গুইমারা থানা পুলিশের অভিযানে ০১ টি দেশীয় তৈরি পাইপগান  ও ০২ রাউন্ড কার্তুজ সহ একজন আসামি গ্রেফতার সংক্রান্তে পুরস্কার।

৭.খাগড়াছড়ি জেলার মানিকছড়ি থানা পুলিশের অভিযানে আন্ত:জেলা চোর চক্রের ০২ সদস্য গ্রেফতার এবং ০৪ টি চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার সংক্রান্তে পুরস্কার। 

৮. খাগড়াছড়ি জেলার গুইমারা থানা পুলিশ কর্তৃক সাড়ে ০৩ একরের অধিক জায়গায় চাষাবাদকৃত ৩০ কোটি ২৬ লক্ষ টাকার অধিক মূল্যের গাজা জব্দ সংক্রান্তে পুরস্কার। 

৯. খাগড়াছড়ি জেলার খাগড়াছড়ি সদর থানাধীন ভাইবোনছড়া পুলিশ ফাঁড়ি কর্তৃক  প্রায় ০২ লক্ষ টাকার বিদেশী সিগারেট সহ একজন আসামি গ্রেফতার সংক্রান্তে পুরস্কার। 

১০. খাগড়াছড়ি জেলার খাগড়াছড়ি সদর থানা কর্তৃক ১০৪০ লিটার  চোলাই মদ সহ ০২ জন আসামী গ্রেফপ্তার সংক্রান্তে পুরস্কার। 

১১. খাগড়াছড়ি জেলার মানিকছড়ি থানা পুলিশের অভিযানে অপহরণ মামলার রহস্য উন্মোচন সহ ০১ জন আসামি গ্রেফতার সংক্রান্তে পুরস্কার।

১২. খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশের অভিযানে চোরাই স্বর্ণালংকার সহ ০১ জন আসামি গ্রেফতার সংক্রান্তে পুরস্কার।

১৩. খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশ কর্তৃক ২ লক্ষাধিক টাকার অধিক মূল্যের ভারতীয় ঔষধ সহ ০২ আসামি গ্রেফতার সংক্রান্তে পুরস্কার।

১৪. খাগড়াছড়ি জেলার খাগড়াছড়ি সদর থানা পুলিশের অভিযানে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে আনা প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা মূল্যের বিদেশি সিগারেট সহ ০১ জন আসামি গ্রেফপ্তার সংক্রান্ত পুরস্কার। 

১৫. খাগড়াছড়ি জেলার গুইমারা থানা পুলিশ কর্তৃক ০৮ লক্ষ টাকার অবৈধ কাঠ সহ ০২ জন আসামি গ্রেফতার সংক্রান্তে পুরস্কার। 

১৫ টি ভালো কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ পুরস্কার প্রাপ্তিতে বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ চৌধুরী আবদুল্লাহ আল- মামুন বিপিএম (বার),পিপিএম মহোদয় এর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে খাগড়াছড়ি জেলার  পুলিশ সুপার মুক্তা ধর পিপিএম (বার) বলেন,এ পুরস্কার অর্জন আমাদের  দায়িত্ব ও কর্তব্য পালনের ক্ষেত্রে জেলা পুলিশের সকল পর্যায়ের কর্মকর্তাদের আরো উৎসাহিত ও উজ্জীবিত করবে। অনুজ হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশের সকল সদস্যদের কাছে শ্রদ্ধেয় আইজিপি স্যারের কর্মজীবন সর্বদা অনুকরণীয় এবং আমাদের বিশ্বাস স্যারের নেতৃত্বে বাংলাদেশ পুলিশের এই অগ্রযাত্রা থাকবে চির অম্লান।

উল্লেখ্য যে এর আগেও খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ ভালো কাজের স্বীকৃতি স্বরুপ মাননীয় আইজিপি মহোদয় কতৃক পুরস্কৃত হয়েছে।

আরও খবর



বাল্য ও জোরপূর্বক বিবাহ বন্ধে কুড়িগ্রামের রৌমারী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ১০৭জন দেখেছেন

Image

মাজহারুল ইসলাম রৌমারী কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃজোরপূর্বক বাল্যবিবাহ বন্ধে রৌমারী উপজেলার যুব নেতাদের সাথে সুশীল সমাজের সংগঠনের সংযোগস্থাপন বিযয়ক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্থানীয় উপজেলা পরিষদ হলরুম রৌমারী কুড়িগ্রাম আলোচনা সভাটি উপজেলার সকল কাজিগনদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় রৌমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদ হাসান খানের সভাপতিত্বে বাল্য জোরপূর্বক বিবাহ  বন্ধে উপস্থিতি ছিলেন রৌমারী উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান, সমাজ সেবা কর্মকর্তা মিনহাজুল ইসলাম, প্রজেক্ট সমন্বয় কর্মকর্তা আব্দুল আল মামুন চাইল্ড ব্রাইড। পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা নুর আলম, সার্বিক সহযোগিতায় উপজেলা প্রশাসন রৌমারী কুড়িগ্রাম। আয়োজনে চাইল্ড,  নট,ব্রাইড প্রজেক্ট আরডিআরএস বাংলাদেশ, কারিগরি সহযোগিতায় প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ।

এসময় এনজিওর কর্মকর্তা কর্মচারীরা সকলেই উপস্থিতি থাকলেও রৌমারী উপজেলার স্থানীয় সাংবাদিকদের অবগত করেননি বাল্যবিবাহ বন্ধের আলোচনা সভার  সংশ্লিষ্টরা। এ নিয়েও সাংবাদিকদের মাঝে খোপের সৃষ্টি হয়েছে। আলোচনা ব্যানারে উল্লেখ রয়েছে সুশীল সমাজকে নিয়ে বাল্য ও জোরপূর্বক বিবাহ বন্ধে আলোচনা সভাটি করছেন দায়িত্বরত এনজিওর  আরডিআরএস বাংলাদেশ কিন্তু সুশীল সমাজের সাংবাদিকরা আজকের আলোচনা সম্পর্কে কেউই অবগত ছিলনা বলে আবেগ করেছেন সাংবাদিকবৃন্ধরা।

তবে কেন সাংবাদিকদেরকে অবগত করেননি সেটি জানা যায়নি। 

আরও খবর



পত্নীতলায় মাদকদ্রব্য সহ ৩জনকে আটক করেছে র‌্যাব

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | ৮২জন দেখেছেন

Image
দিলিপ চৌহান, পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি:র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-৫, রাজশাহীর একটি অপারেশন দল শুক্রবার পত্নীতলা উপজেলার ঘোষনগর ইউপির মোসলেমের মোড়ে অভিযান চালিয়ে ৪৭.৫ কেজি অবৈধ মাদকদ্রব্য গাঁজা সহ সংঘবদ্ধ মাদক চক্রের ৩সদস্যকে গ্রেফতার করেছে।

র‌্যাব-৫, রাজশাহীর এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকেই দেশের সার্বিক আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার লক্ষ্যে সব ধরণের অপরাধীকে আইনের আওতায় নিয়ে আসার ক্ষেত্রে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৫, রাজশাহীর একটি চৌকস আভিযানিক দল গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে পত্নীতলার ঘোষনগর এলাকায় কতিপয় সংঘবদ্ধ মাদক চক্রের সদস্যরা অবৈধ মাদকদ্রব্য গাঁজার একটি বড় চালানসহ অবস্থান করছে বলে জানতে পেরে সেখানে অভিযান পরিচালনা করে ৩ জনকে ২টি বস্তাসহ আটক করে। এসময় তাদের বস্তা তল্লাশী করে ৪৭.৫ কেজি অবৈধ মাদকদ্রব্য গাঁজা উদ্ধার করে।

আটককৃতরা হলো পত্নীতলা উপজেলার ঘোষনগর ইউপির নবীর উদ্দীনের ছেলে নূর নবী (৩৮), উপজেলার চাপড়া গ্রামের রামপদ এর ছেলে রজনী কান্ত (৩২) এবং চাপাই নবাবগঞ্জ জেলার নাচোল দেউপাড়া গ্রামের ইসাহাকের ছেলে মোঃ নবী (৩০)। এসময় তাদের কাছে থাকা ৩টি মোবাইল ফোন ও সীম উদ্ধার করে।

র‌্যাব জানায়, ধৃত আসামিগণ সঙ্গবদ্ধ মাদক চক্রের সদস্য। তারা নিজ পেশার আড়ালে দীর্ঘদিন যাবত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে সুকৌশলে অবৈধ মাদকদ্রব্য গাঁজা, ফেন্সিডিল সহ বিভিন্ন মাদক কৌশলে কুমিল্লা জেলার ভারতীয় সীমান্ত এলাকা হতে সংগ্রহ করে নওগাঁ সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রয় ও সরবরাহ করে আসছিল।

উপরোক্ত ঘটনায় থানায় একটি মামলা রুজু হয়েছে বলে পত্নীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোজাফফর হোসেন নিশ্চিত করেছেন।

আরও খবর



মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠানোর ঘটনায় দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | ৮২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানিয়েছেন বাংলাদেশি কর্মীরা মালয়েশিয়া যেতে না পারার জন্য দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে।

বুধবার (৫ জুন) জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ ও জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নুর সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান সরকারপ্রধান। স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশন শুরু হয়।

মুজিবুল হক চুন্নুর সম্পূরক প্রশ্নে- নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মালয়েশিয়ায় লোক পাঠানোর ব্যর্থতা কার জানতে চান। জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কর্মসংস্থানের জন্য যাওয়া স্বাভাবিক বিষয়। অনেকেই যেয়ে থাকে। মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠানোর বিষয়ে কী সমস্যা হয়েছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনায় দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বৈদেশিক কর্মসংস্থানে সরকার সহযোগিতার কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কিছু লোক দালালের মাধ্যমে করে, দালালের মাধ্যমে যেতে চায়। যেতে গিয়ে সমস্যায় পড়ে। এতে সমস্যা তৈরি হয়।

মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠাতে সরকার বিশেষ ফ্লাইট চালু করেছিল বলে উল্লেখ করে সরকারপ্রধান বলেন, বিশেষ ফ্লাইট, অন্যান্য ফ্লাইটের সঙ্গে সংযুক্ত করে সবাইকে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু অনেকেই বাদ পড়ে গেছে। বাদ পড়ার কারণ কি সেটা অনুসন্ধান করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, যখনই আমরা আলোচনা করে ঠিক করি কত লোক যাবে, কীভাবে যাবে। তখনই দেখা যায় আমাদের দেশের এক শ্রেণির লোক, যারা জনশক্তির ব্যবসা করে, তারা তড়িঘড়ি করে লোক পাঠানোর চেষ্টা করে। এদের সঙ্গে মালয়েশিয়ার কিছু লোকও সংযুক্ত আছে। যার ফলে জটিলতার সৃষ্টি হয়। প্রতিবারই যখন সরকার আলোচনা করে সমাধানে যায়। তখনই কিছু লোক ছুটি যায়, একটা অস্বাভাবিক পরিস্থিতি সৃষ্টি করে। যারা যায় তাদের কাজের ঠিক থাকে না, চাকরিও ঠিক থাকে না, বেতনের ঠিক থাকে না, সেখানে গিয়ে বিপদে পড়ে। এটা শুধু মালয়েশিয়া না, অনেক জায়গায় ঘটে।

বার বার আমি দেশবাসীকে বলেছি জমিজমা, ঘরবাড়ি বিক্রি করে লাখ লাখ টাকা খরচ করার দরকার নেই। যদি দরকার হয় প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক ঋণ নিতে পারে। প্রয়োজনবোধে বিনা-জামানতে ঋণ দেওয়া হয়। সেখানে তাকে সুনির্দিষ্ট করতে হবে সে যে যাচ্ছে তার চাকরিটা সুনির্দিষ্ট কিনা, এটা হলে ব্যাংক থেকে ঋণ নিতে পারবে।

সরকারপ্রধান বলেন, তারপরও আমাদের দেশে কিছু মানুষ আছে, কে আগে যাবে, সেই দৌড় দিতে যেয়ে হাতা-খাতা বাড়ি-ঘর সব বিক্রি করে তারপরে পথে বসে। অথবা সেখানে যদি চলেও যায় বিপদে পড়ে। সবাইকে বলেছি, এভাবে না যেতে। নিয়ম মেনে গেলে বিপদের সৃষ্টি হয় না। এবার যে সমস্যা হচ্ছে তা আমরা খতিয়ে দেখছি, কেউ দায়ী থাকলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর