Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা
ঢাকা জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক জাহানারা বেগম ওমরাহ পালনের উদ্দেশ্যে মক্কা নগরীতে অবস্থান করছেন

ঢাকা জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক জাহানারা বেগম ওমরাহ পালনে পবিত্র মক্কা নগরীতে অবস্থান করছেন

প্রকাশিত:Sunday ১৫ May ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১৬৭জন দেখেছেন
Image

সোহরাওয়ার্দীঃ

ঢাকা জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক জাহানারা বেগম ওমরাহ পালনের উদ্দেশ্যে গত ১৩ মে সৌদি আরবের উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করেন।


শুক্রবার ১৩ মে রাতে কাতার এয়ারলাইন্সের বিমানে তিনি সৌদি আরবের জেদ্দা বিমানবন্দরে এসে পৌঁছান।


এ সময় তার সফর সঙ্গী হিসেবে জাহানারা বেগমের মা আনোয়ারা বেগম এবং মামী জোহরা খাতুন সঙ্গে ছিলেন।


আজ তারা সকলে সাফা মারওয়া সাতবার প্রদক্ষিন শেষে ওমরা হজের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেছেন।

বর্তমানে তারা সকলে মক্কার একটি তিন তারকা হোটেলে অবস্থান করছেন।


২০ মে সকালে তারা মদিনা শরীফের উদ্দেশ্যে মক্কা নগরী ত্যাগ করবেন।


যথারীতি ওমরা হজের সকল আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হলে ২৮ মে বিকেলের ফ্লাইটে তারা ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দিবেন।


জাহানারা বেগম জানান এ সময় তিনি দেশবাসী সহ কেরানীগঞ্জের সকল  আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীর জন্য বিশেষভাবে দোয়া করবেন।


আরও খবর



আচরণবিধি লঙ্ঘনের অপরাধে নৌকার প্রার্থীকে জরিমানা

প্রকাশিত:Monday ১৩ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৪৬জন দেখেছেন
Image

বরগুনার তালতলী উপজেলার বড় বগী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. আলমগীর মিয়াকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সোমবার (১৩ জুন) বিকালে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফয়সাল আল নূর এ দণ্ডাদেশ দেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, ১৫ জুন এ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নিয়ম অনুযায়ী প্রচার-প্রচারণা বন্ধ থাকার কথা থাকলেও বড় বগী ইউনিয়নের নৌকার প্রার্থী নির্বাচনী প্রচারণার জন্য মিছিল বের করেন। এ অভিযোগে তার জরিমানা করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফয়সাল আল নূর জানান, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন আচরণবিধি লঙ্ঘন করায় নৌকার প্রার্থীকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। যে প্রতিনিধি আচরণবিধি লঙ্ঘন করবেন তাকেই শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে।


আরও খবর



যানজটে আটকে মোটরসাইকেলে সমাবেশে যোগ দিলেন তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:Friday ০৩ June ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ১০৫জন দেখেছেন
Image

শুক্রবার (৩ জুন) বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে সমাবেশ ছিল উত্তর ও দক্ষিণ জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের। সমাবেশে অতিথি ছিলেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। মন্ত্রী সমাবেশে যোগ দেওয়ার জন্য ঢাকা থেকে বিমানে চট্টগ্রামে আসেন। পরে নিজের গাড়িতে বিমানবন্দর থেকে প্রেস ক্লাবের দিকে রওনা হন।

কিন্তু বিকেল সোয়া ৫টার দিকে বন্দরটিলায় যানজটে আটকা পড়ে মন্ত্রীকে বহনকারী গাড়ি। এসময় ডিউটি শেষে বাসায় ফিরছিলেন পতেঙ্গা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিজানুর রহমান। তিনিও ওই যানজটে আটকা পড়েন। এসময় মন্ত্রী নিজের গাড়ি থেকে নেমে পড়েন। এ ঘটনা দেখে পুলিশ কর্মকর্তা মিজানুর মন্ত্রীকে নিয়ে যাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেন। এরপর মন্ত্রী পুলিশ ইন্সপেক্টর মিজানুরের মোটরসাইকেলে চেপে বসেন। এভাবে প্রায় ১০ কিলোমিটারের বেশি পথ অতিক্রম করে ওই সমাবেশে যোগ দেন তিনি।

এ বিষয়ে পতেঙ্গা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জাগো নিউজকে বলেন, আমি অফিস শেষে বাসায় ফিরছিলাম। বন্দরটিলা এলাকায় জ্যামে আটকা পড়ি। এসময় মন্ত্রী মহোদয়ও জ্যামে আটকা পড়েন। তখন তাকে আমার মোটরসাইকেলে করে নিয়ে যাই। বন্দরটিলা থেকে ভেতর পথে বন্দরের এনসিটি গেইট হয়ে সল্টগোলা ক্রসিং দিয়ে বারিক বিল্ডিং হয়ে জামাল খানে সমাবেশস্থলে পৌঁছি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মন্ত্রী। দীর্ঘ পথ মোটসাইকেলে পাড়ি দিয়ে সমাবেশে যোগ দেওয়ায় দলীয় নেতাকর্মীরা মন্ত্রীর আন্তরিকতায় মুগ্ধ হন।


আরও খবর



ঈমান ও ইসলামের ওপর অটল থাকার উপায়

প্রকাশিত:Sunday ১২ June ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ২৫ June ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
Image

আল্লাহ যাকে চান, তাকেই দ্বীন, ঈমান ও ইসলামের ওপর অটল অবিচল রাখেন। জীবনের প্রতিটি পর্যায়ে দান করেন প্রশান্তি। এটি বান্দার প্রতি মহান আল্লাহর একান্ত অনুগ্রহ। মহান আল্লাহর ইশারাতেই মানুষের অন্তর পরিচালিত হয়। হাদিসে এসেছে-
নবিজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘সব বনি আদমের অন্তরসমূহ দয়াময় রহমানের কুদরতের নিয়ন্ত্রণাধীন। তিনি যেভাবে চান তাতে পরিবর্তন আনেন।’ (মুসলিম, তিরমিজি)

নবিজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এ হাদিসে দ্বীন, ঈমান ও ইসলামের ওপর অটল ও অবিচল থাকতে, প্রশান্ত আত্মার অধিকারী হতে মহান আল্লাহর কাছে সাহায্য প্রার্থনা করার কথা বলেছেন। একমাত্র মহান আল্লাহ তাআলাই মানুষের অন্তরকে পরিবর্তন করে দিতে পারেন। প্রশান্তি দান করতে পারেন।

মানুষের অন্তরে প্রশান্তি পেতে, দ্বীন-ঈমান ও ইসলামের ওপর অটল ও অবিচল থাকতে তারই শেখানো ভাষায় প্রার্থনা করাই শ্রেয়। আল্লাহ তাআলাই কোরআনুল কারিমে মানুষের জন্য এসব প্রার্থনা তুলে ধরেছেন। আবার নবিজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামও হাদিসে পাকে একাধিক দোয়া শিখিয়েছেন। তাহলো-
১. رَبَّنَا لَا تُزِغْ قُلُوبَنَا بَعْدَ إِذْ هَدَيْتَنَا وَهَبْ لَنَا مِنْ لَدُنْكَ رَحْمَةً إِنَّكَ أَنْتَ الْوَهَّابُ
উচ্চারণ : রাব্বানা লা তুযেগ কুলুবানা বাদা ইজ হাদাইতানা ওয়া হাবলানা মিল্লাদুংকা রাহমাতান ইন্নাকা আংতাল ওয়াহহাব।'
অর্থ : ‘হে আমাদের রব! আপনি আমাদের যে হেদায়াত দান করেছেন, তারপর আর আমাদের অন্তরে বক্রতা সৃষ্টি করবেন না। আর একান্তভাবে আপনার পক্ষ থেকে আমাদের রহমত দান করুন। নিশ্চয়ই আপনি অসীম দানশীলতার অধিকারী।' (সুরা আল ইমরান : আয়াত ৮)

২. হজরত আনাস রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম অধিক পরিমাণে এ দোয়াটি পড়তেন-
يَا مُقَلِّبَ القُلُوبِ ثَبِّتْ قَلْبِي عَلَى دِينِكَ
উচ্চারণ : ‘ইয়া মুকাল্লিবাল কুলুবি, ছাব্বিত কালবি আলা দ্বীনিকা।’
অর্থ : ‘হে অন্তরসমূহের পরিবর্তনকারী! আপনি আমার অন্তরকে আপনার দ্বীনের ওপর অবিচল রাখুন।’

৩. اللَّهُمَّ مُصَرِّفَ القُلُوبِ صَرِّفْ قُلُوبَنَا عَلَى طَاعَتِكَ
উচ্চারণ : ‘আল্লাহুম্মা মুসাররিফাল কুলুবি সাররিফ কুলুবিনা আলা ত্বাআতিকা।’
অর্থ : ‘হে আল্লাহ! হে অন্তরসমূহের নিয়ন্ত্রক! আপনি আমাদের অন্তরকে আপনার ইবাদতের ওপর অবিচল রাখুন।’ (মুসলিম)

সুতরাং মুমিন মুসলমানের উচিত, মহান আল্লাহর কাছে দ্বীন-ঈমান ও ইসলামের ওপর অটল ও অবিচল থাকতে বেশি বেশি এ দোয়াগুলো করা। কোরআন-সুন্নাহর দিকনির্দেশনা মেনে চলা।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে সব সময় দ্বীন-ঈমান ও ইসলামের ওপর অবিচল থাকতে এবং অন্তরে প্রশান্তি পেতে কোরআন-সুন্নায় ঘোষিত দোয়াগুলো বেশি বেশি পড়ার তাওফিক দিন। আমিন।


আরও খবর



দিনে ৩০০ টাকার খাবার খায় আড়াই মণের ‘লালবাবু’

প্রকাশিত:Wednesday ০৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৪৫জন দেখেছেন
Image

সাদা ও হালকা লালচে রঙের তোতাপুরি জাতের বিরাট ছাগলটির নাম ‘লালবাবু’। ওজন প্রায় ১০৫ কেজি (আড়াই মণের বেশি)। ছাগলটি লালন-পালন করছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ পৌর এলাকার ইউসুফ আলী। লালবাবুকে দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসছে মানুষ।

১৫ দিন আগে চৌডলা এলাকা থেকে ৭০ হাজার টাকায় লালবাবুকে কিনেছেন ইউসুফ আলী। তখন থেকেই দিনে ৩০০ টাকার খাবার খাওয়ানো হচ্ছে তাকে। এখন বিক্রি করলে লাখ টাকা পাবেন বলে আশা ইউসুফের।

jagonews24

ছাগল পালতে পছন্দ করেন ইউসুফ আলী। শখের বসে গত ১০ বছর ধরে ছাগল পালন করছেন। ১৫ দিন আগে লালবাবুকে কিনে এনেছেন। লালবাবু কলা, মুড়ি, কাঁঠাল পাতা, গম, ডালের গুঁড়াসহ দিনে প্রায় ৩০০ টাকার খাবার খায়।

ইউসুফ আলী জাগো নিউজকে বলেন, ‘গরমে থাকতে পারে না লালবাবু। তাই তার থাকার ঘরে ফ্যান লাগিয়েছি। ছাগলটি এখন বিক্রি করলে লাখ টাকা পাবো বলে আশা করছি।’

jagonews24

শিবগঞ্জ উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা শ্রী রনজিৎ চন্দ্র সিংহ বলেন, জেলায় ১১০ কেজির আরও একটি ছাগল রয়েছে। লালবাবু জেলার দ্বিতীয় বড় ছাগল। গতবছর জেলায় সর্বোচ্চ ৯০ কেজি ওজনের একটি ছাগলের দেখা মিলেছিল। দিন দিন এখানকার মানুষের বড় ছাগল পালনের চাহিদা বাড়ছে।


আরও খবর



হাওরের উন্নয়নে স্থায়ী প্রকল্প নিচ্ছে সরকার: উপমন্ত্রী

প্রকাশিত:Thursday ১৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
Image

দেশের হাওরাঞ্চলের বহুমুখী উন্নয়নে সরকার স্থায়ী প্রকল্প নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম।

তিনি বলেছেন, হাওয়ের উন্নয়নে কাজ করছে সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হাওর এলাকার মানুষের দুঃখ-কষ্ট উপলব্ধি করে সেসব অঞ্চলের উন্নয়নে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে নানামুখী কাজ করছেন। স্থায়ী প্রকল্প গ্রহণ করা হচ্ছে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে হাওরাঞ্চলের মানুষের দুঃখ-কষ্ট দূর হবে। তারা হাসিমুখে ফসল ঘরে তুলতে পারবে।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) দুপুরে রাজধানীর গ্রিন রোডে বাংলাদেশ হাওর ও জলাভূমি উন্নয়ন অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

উপমন্ত্রী বলেন, হাওররক্ষা আমাদের দায়িত্ব। এজন্য সরকারের অনেক পরিকল্পনা রয়েছে, যা বাস্তবায়নে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা হাওরপাড়ের মানুষের মুখে স্থায়ী হাসি দেখতে চান। এ কারণে তিনি হাওরে স্থায়ী প্রকল্প গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন। যেন হাওর এলাকার মানুষের আর কান্না দেখতে না হয়।

তিনি বলেন, সারাদেশে নদীভাঙন রোধে বিভিন্ন স্থায়ী প্রকল্প চলমান। নতুন নতুন প্রকল্পও হাতে নেওয়া হচ্ছে। এছাড়াও নদীভাঙন এলাকা চিহ্নিত করে স্থায়ী বাঁধ করা হচ্ছে।

এনামুল হক শামীম বলেন, প্রধানমন্ত্রী আগামীর বাসযোগ্য বিশ্বমানের বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে ডেল্টা প্ল্যান-২১০০ বাস্তবায়নের ঘোষণা দিয়েছেন। আর এ মহাপরিকল্পনার ৮০ ভাগ কাজই পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় বাস্তবায়ন করবেন। এ মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে সারাদেশে নদীভাঙন ও জলাবদ্ধতার কোনো সমস্যাই থাকবে না। এ লক্ষ্যে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় ও পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে।

এসময় হাওর উন্নয়ন মহাপরিচালক মো. মাশুক মিয়া, পরিচালক কেএম আবদুল ওয়াদুদ, মো. অলিউল্লাহ মিয়া, ড. আলী মুহম্মদ ওমর ফারুক ও উপ-পরিচালক নুরজাহান খানম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর