Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

ঢাবি শিক্ষকরা নিয়মিত ক্লাস নেন না: অতিরিক্ত সচিব

প্রকাশিত:Friday ১৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৭১জন দেখেছেন
Image

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষকরা নিজ বিভাগের নিয়মিত ক্লাস নেন না, প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতি মনোযোগ বলে অভিযোগ করেছেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. আবু ইউসুফ মিয়া।

এসময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেটের শিক্ষক প্রতিনিধিরা এর প্রতিবাদ জানিয়ে তার বক্তব্য প্রত্যাহার করতে বলেন।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) বিকেলে অনুষ্ঠিত হওয়া সিনেট অধিবেশনে অতিরিক্ত সচিবের বক্তব্যের সময় এ ঘটনা ঘটে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট নির্বাচিত প্রতিনিধির বাইরেও উপাচার্য, রাষ্ট্রপতি, স্পিকার ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মনোনীত সদস্যদের নিয়ে গঠিত হয়। অতিরিক্ত সচিব মো. আবু ইউসুফ মিয়া শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের থেকে মনোনীত সিনেট সদস্য।

সিনেটে তার বক্তব্যের সময় তিনি বলেন, আমি যখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলাম, তখন শিক্ষকরা যেভাবে ক্লাস নিতো এখনও সেভাবে নিয়মিত ক্লাস নেওয়ার কথা। কিন্তু নিয়মিত ক্লাস না নিয়ে সব ক্লাস একেবারে নিচ্ছে। এই অভিযোগটা আছে।

এসময় ঢাবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক নিজামুল হক ভূঁইয়া এ কথার প্রতিবাদ জানান।

তিনি বলেন, আমি মনে করি শিক্ষকরা যথাসময়ে ক্লাস নিচ্ছেন। কোনো শিক্ষার্থী বলতে পারবে না যে শিক্ষকরা ক্লাস নিচ্ছেন না।

এসময় তিনি অতিরিক্ত সচিবকে তার বক্তব্য প্রত্যাহার করতে অনুরোধ করেন।

অপরদিকে শিক্ষক প্রতিনিধির চেয়ারে থাকা নীল দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক আব্দুস সামাদ, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আব্দুল মঈন, জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. এ কে এম মাহাবুব হাসান ও অধ্যাপক আ জ ম শফিউল আলম ভূঁইয়া সচিবের বক্তব্যের বিরোধিতায় উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় করেন।

একপর্যায়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান অতিরিক্ত সচিবের বক্তব্য প্রত্যাহার করেন। পরে অতিরিক্ত সচিব তার বক্তব্যের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন।


আরও খবর



বাজেট অধিবেশন বসছে বিকেলে

প্রকাশিত:Sunday ০৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
Image

আজ রোববার (৫ জুন) জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশন শুরু হচ্ছে। বিকেল ৫টায় এ অধিবেশন বসবে। এটি চলমান জাতীয় সংসদের ১৮তম অধিবেশন। গত ১৮ মে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এ অধিবেশন আহ্বান করেন। চলমান এ অধিবেশনের পঞ্চম কার্যদিবস বৃহস্পতিবার (৯ জুন) জাতীয় সংসদে ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন করা হবে।

সংসদের কর্মকর্তারা জানান, এবার মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলকসহ অন্যান্য স্বাস্থ্য সুরক্ষাবিধি অনুসরণ করতে হলেও তেমন কড়াকড়ি থাকবে না। এবার নেভেটিভ সনদ থাকলেই সংসদ সদস্যরা সংসদে ঢুকতে পারবেন। আগের অধিবেশনগুলোর মতো রোস্টার ভিত্তিতে সংসদ সদস্যদের বৈঠকে অংশ নেওয়ার বিষয়টি থাকছে না।

এ বিষয়ে সরকারি দলের হুইপ ইকবালুর রহিম বলেন, এবার আমরা সংসদ সদস্যদের জন্য রোস্টার করছি না। করোনাভাইরাস নেগেটিভ সনদ থাকা সবাই সংসদে অংশ নিতে পারবেন।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে এর আগের দুই বছরের বাজেট অধিবেশন সংক্ষিপ্ত ছিল। এই অধিবেশনের কার্যদিবস বেশি হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। বাজেট উত্থাপনের পর সম্পূরক বাজেট নিয়ে আলোচনা ও পাস এবং নতুন অর্থবছরের বাজেট নিয়ে আলোচনা করবেন সংসদ সদস্যরা। মাসজুড়ে আলোচনা শেষে ৩০ জুনের মধ্যে বাজেট পাস করবে সংসদ।

এবারের অধিবেশনে উত্থাপনের জন্য শনিবার পর্যন্ত চারটি বিল সংসদে সচিবালয়ে জমা পড়েছে। এগুলো হলো- বাংলাদেশ গ্যাস, তেল ও খনিজসম্পদ করপোরেশন বিল, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল বিল, বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন (সংশোধন) বিল এবং বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টে বিচারক (ছুটি, পেনশন, ও বিশেষাধিকার) বিল।

যা থাকলে প্রথম দিনের বৈঠকে

রোববার প্রথমদিনের বৈঠকের শুরুতে সভাপতিমণ্ডলীর মনোনয়ন দেবেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। এরপর শোকপ্রস্তাব উত্থাপন করবেন তিনি। প্রথমদিনের বৈঠকে স্বাস্থ্য, নৌ-পরিবহন, ধর্ম ও সংস্কৃতিক বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রশ্নোত্তর ও জরুরি জনগুরুত্বসম্পন্ন (৭১ বিধি) বিষয়ে মনোযোগ আকর্ষণ নোটিশ নিষ্পত্তির বিষয়টি কার্যসূচিতে রয়েছে। তবে এ দুটি কার্যক্রমের মধ্যে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উত্থাপন ও ৭১ বিধি স্থগিত হতে পারে।

প্রথমদিনের বৈঠকে বেসরকারি মেডিকেল কলেজ ও ডেন্টাল কলেজ বিল-২০২২, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন (অ্যামেন্ডমেন্ট) বিল ২০২২-এর রিপোর্ট উপস্থাপন করা হবে। এছাড়া এদিনে বাংলাদেশ অয়েল, গ্যাস অ্যান্ড মিনারেল করপোরেশন অর্ডিন্যান্স ১৯৮৫ রহিত করে নতুন করে বাংলাদেশ গ্যাস, তেল ও খনিজসম্পদ করপোরেশন বিল ২০২২ উত্থাপন করা হবে। পরে বৈঠকে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল বিল ২০২২ পাস হবে।

দুই বছর পর বসছে কার্য উপদেষ্টা কমিটি

সংসদের বৈঠক শুরু হওয়ার আগে অধিবেশনের মেয়াদ ও কার্যপরিধি ঠিক করতে বৈঠকে বসবে কার্যউপদেষ্টা কমিটি। এ কমিটির সভাপতি স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কমিটির সদস্য।

২০২০ সালে করোনাভাইরাস মহামারি শুরু হওয়ার পর আর কার্যউপদেষ্টা কমিটির বৈঠক বসেনি। সংসদ সচিবালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, সংসদের বৈঠকের সময়সূচি কমিটিতে সিদ্ধান্ত হবে।

জানা যায়, স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও কর্মসৃজনে প্রাধান্য দিয়ে ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণা করতে যাচ্ছে সরকার। এবারের বাজেটের আকার ছয় লাখ ৭৭ হাজার ৮৬৪ কোটি টাকা। যা দেশের জিডিপির (মোট দেশজ উৎপাদন) ১৫ দশমিক ৪০ শতাংশ। বাজেটে সামাজিক সুরক্ষা খাতের বরাদ্দ বাড়লেও পরিধি বাড়ছে না। করোনাজনিত বাড়তি চাপ না থাকলেও আগের প্যাকেজগুলো চলমান থাকায় থাকবে ব্যয়ভার।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এবারের বাজেট প্রণয়ন সরকারের জন্য বেশ চ্যালেঞ্জিং হবে। কারণ করোনা-পরবর্তী দেশের অর্থনীতিকে গতিশীল করতে এবার ব্যতিক্রমী বাজেট ঘোষণা করতে হবে। এছাড়া করোনার কারণে পিছিয়ে পড়া মানুষদের নতুন করে বাড়তি সুরক্ষা দিতে বাজেটে থাকতে হবে বিশেষ উদ্যোগ। নজর রাখতে হবে মূল্যস্ফীতির দিকে।

আগামী ৯ জুন জাতীয় সংসদে নতুন অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন করবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এর আগে গত ৯ মে প্রধানমন্ত্রীর সামনে প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট অনেকটাই চূড়ান্ত করা হয়।

২০২১-২২ অর্থবছরে ঘোষিত বাজেটের আকার ছয় লাখ তিন হাজার ৬৮১ কোটি টাকা। এবার বাড়ছে ৭৪ হাজার ১৮৩ কোটি টাকা। এবারের বাজেটে মূল্যস্ফীতির হার ৫ দশমিক ৫ শতাংশ ধরা হচ্ছে, ২০২১-২২ অর্থবছরে যা ছিল ৫ দশমিক ৩ শতাংশ। মোট বিনিয়োগ ধরা হয়েছে জিডিপির ৩১ দশমিক ৫ শতাংশ। এর মধ্যে বেসরকারি খাত থেকে ২৪ দশমিক ৯ শতাংশ ও সরকারি খাত থেকে ৬ দশমিক ৬ শতাংশ বিনিয়োগ আসবে। বাজেটে টাকার অংকে নতুন জিডিপির আকার হচ্ছে ৪৪ লাখ ১২ হাজার ৮৪৯ কোটি টাকা।


আরও খবর



পারভেজ মোশাররফ জীবিত, তবে সুস্থ হওয়ার ‘সম্ভাবনা নেই’

প্রকাশিত:Friday ১০ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৫৭জন দেখেছেন
Image

পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট পারভেজ মোশাররফের মৃত্যুর খবরটি সম্পূর্ণ গুজব। তিনি এখনো বেঁচে রয়েছেন। তবে সাবেক সামরিক শাসকের শারীরিক অবস্থা ভালো নয়। ভবিষ্যতে তার সুস্থ হয়ে ওঠারও কোনো সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছেন পরিবারের সদস্যরা। খবর জিও টিভির।

জেনারেল পারভেজ মোশাররফের টুইটার আইডি থেকে দেওয়া পোস্টে পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, তিনি অসুস্থতার (অ্যামাইলয়েডোসিস) কারণে তিন সপ্তাহ ধরে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। পারভেজ মোশাররফের শারীরিক অবস্থা একটি কঠিন পর্যায়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, যেখানে আরোগ্যলাভ সম্ভব নয়। তার অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলোও ঠিকমতো কাজ করছে না।

পাকিস্তানের সাবেক সেনাপ্রধানের ‘দৈনন্দিন জীবনযাপনে স্বাচ্ছন্দ্যের জন্য’ সবার কাছে দোয়া চেয়েছে পরিবার।

তাছাড়া পারভেজ মোশাররফ প্রতিষ্ঠিত রাজনৈতিক দল অল পাকিস্তান মুসলিম লীগ (এপিএমএল) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, সাবেক সামরিক শাসককে হাসপাতাল থেকে বাড়িতে ফিরিয়ে নেওয়া হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক অথবা তাকে ভেন্টিলেটরে রাখার খবরটি সঠিক নয়।

দলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, অ্যামাইলয়েডোসিসে আক্রান্ত পারভেজ মোশাররফের চিকিৎসা চলছে। তার অবস্থা স্থিতিশীল।

এর আগে, শুক্রবার (১০ জুন) হঠাৎ করে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে পারভেজ মোশাররফের মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ে। নাম অনুল্লেখিত পাকিস্তানি সূত্রের বরাতে ভারতের বেশ কিছু গণমাধ্যমে তার মৃত্যুর খবর প্রকাশ হয়। বলা হয়, দুবাইয়ের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন পাকিস্তানের সাবেক সামরিক শাসক।

২০১৬ সাল থেকেই সংযুক্ত আরব আমিরাতে অবস্থান করছেন ৭৮ বছর বয়সী এ নেতা। ২০০৭ সালে প্রেসিডেন্ট থাকার সময় বেআইনিভাবে সংবিধান বাতিল ও জরুরি অবস্থা জারির দায়ে ২০১৩ সালে মোশাররফের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা হয়। ২০১৪ সালের ৩১ মার্চ তাকে অভিযুক্ত করা হয়। ওই বছরের সেপ্টেম্বরে বিশেষ আদালতের কাছে বিচারের জন্য সব তথ্যপ্রমাণ পেশ করা হয়। তবে আপিল ফোরামে মামলাটি তোলার পর বিচারকাজ দীর্ঘায়িত হয়ে পড়ে এবং মোশাররফ ২০১৬ সালের মার্চ মাসে পাকিস্তান ছেড়ে চলে যান। চিকিৎসার জন্য তাকে দেশত্যাগের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল।

তবে দুবাইয়ে যাওয়ার পর তিনি আর স্বদেশে ফেরেননি। তার কয়েক মাস পরেই পাকিস্তানের একটি বিশেষ আদালত তাকে অপরাধী ঘোষণা করে। বারবার আদালতে হাজির না হওয়ায় পাকিস্তানে থাকা তার সব সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দেন আদালত। বাতিল হয় তার পাসপোর্ট এবং পরিচয়পত্রও।

রাষ্ট্রদোহের ওই মামলায় দোষী সাব্যস্ত করে ২০১৯ সালের ১৭ ডিসেম্বর ইসলামাবাদের বিশেষ আদালত পারভেজ মোশাররফের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন। পাকিস্তানের ইতিহাসে এ ধরনের রায়ের ঘটনা ছিল এটিই প্রথম। তবে ২০২০ সালের জানুয়ারিতে পাকিস্তানের সাবেক সামরিক শাসকের মৃত্যুদণ্ড বাতিল করেন দেশটির আদালত। যে প্রক্রিয়ায় পারভেজ মোশাররফের মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছিল, তাকে অসাংবিধানিক উল্লেখ দিয়ে মৃত্যুদণ্ডাদেশের সিদ্ধান্ত বাতিল করা হয়।

নওয়াজ শরিফকে হটিয়ে সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ১৯৯৯ সালে ক্ষমতা দখল করেন পারভেজ মোশাররফ। ২০০১ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত দেশটির প্রেসিডেন্ট ছিলেন তিনি। ২০০৭ সালের নভেম্বরে তিনি পাকিস্তানের সংবিধান বাতিল করে জরুরি অবস্থা জারি করলে এর প্রতিবাদে দেশটিতে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়। অভিশংসনের ঝুঁকি এড়াতে ২০০৮ সালে পদত্যাগ করেন তিনি।


আরও খবর



বিশ্ব নিরাপদ খাদ্য দিবস আজ

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৬৬জন দেখেছেন
Image

আজ বিশ্ব নিরাপদ খাদ্য দিবস। প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও ৭ জুন বিশ্বব্যাপী দিবসটি পালন করা হচ্ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) উদ্যোগে বিভিন্ন দেশে দিবস উপলক্ষে নানা কার্মসূচি পালিত হচ্ছে।

এ বছর বিশ্ব নিরাপদ খাদ্য দিবসের প্রতিপাদ্য ‘নিরাপদ খাদ্য, উন্নত স্বাস্থ্য’। বিশ্বব্যাপী খাদ্য নিরাপত্তা ইস্যুতে সচেতনতা বাড়াতে ২০১৮ সালে প্রথম এ দিবসটি পালন করা হয়। এরপর থেকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার সদস্য রাষ্ট্রের পাশাপাশি অন্যান্য স্টেকহোল্ডাররাও যৌথভাবে দিবসটি পালন করে আসছে।

বাংলাদেশেও এ দিবস পালন করছে জাতীয় নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ। দিবস উপলক্ষে মঙ্গলবার (৭ জুন) সকালে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে ‘উন্নত অর্থনীতির জন্য নিরাপদ খাদ্য’ শীর্ষক সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে।

সেমিনারে প্রধান অতিথি হিবেবে উপস্থিত থাকবেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। সভাপতিত্ব করবেন খাদ্যসচিব ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম।

এদিকে এ বছর দিবস উপলক্ষে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বব্যাপী প্রতি দশজনের মধ্যে একজন খাদ্যবাহিত রোগে আক্রান্ত। নিরাপদ খাদ্য সুস্বাস্থ্যের উৎস হলেও অনিরাপদ খাদ্য অনেক রোগের কারণ।


আরও খবর



বিশ্বকাপ জিতবে ফ্রান্স বা ব্রাজিল, আর্জেন্টিনার সম্ভাবনা তলানিতে!

প্রকাশিত:Friday ১৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৪২জন দেখেছেন
Image

দরজায় কড়া নাড়ছে কাতার বিশ্বকাপ। স্বভাবতই ৩২ দলের এই বিশ্বকাপে শিরোপা জিতবে কোন দল, এ নিয়ে জোর আলোচনা শুরু হয়ে গেছে ইতোমধ্যে। দর্শক-সমর্থকদেরও আগ্রহ-উদ্দীপনার কমতি নেই। তাদের সবার কৌতুহল, প্রিয় দল কেমন করবে?

এই কৌতুহল মেটাতেই সম্ভাব্য বিশ্বকাপজয়ীর একটি তালিকা তৈরি করেছে ব্রিটিশ ক্রীড়া বিশ্লেষণমূলক প্রতিষ্ঠান ‘অপটা স্পোর্টস’। সাম্প্রতিক মাসগুলোর পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করে গ্লোবাল র্যাঙ্কিং মডেল তৈরি করেছে তারা, যা অপটা স্পোর্টস ডাটা নামেও পরিচিত।

ব্রিটিশ এই স্পোর্টস অ্যানালিটিক্যাল কোম্পানিটির প্রণীত র্যাঙ্কিং মডেল অনুসারে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স এবং রেকর্ড পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলের এবারের বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি।

তবে সেলেসাওদের চেয়ে শিরোপা জেতার সম্ভাবনার দৌড়ে কিছুটা এগিয়ে ফরাসিরা। করিম বেনজেমা-এমবাপেদের টানা বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনা ১৭.৯৩ শতাংশ। যা কাতারের টিকিট পাওয়া ৩২ দলের মধ্যে সর্বোচ্চ। অন্যদিকে ব্রাজিলের সম্ভাবনা ১৫.৭৩ শতাংশ।

দুঃসংবাদ আর্জেন্টাইন সমর্থকদের। অপটা স্পোর্টসের বিশ্লেষণ অনুযায়ী, লিওনেল মেসির দলের বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনা মাত্র ৬.৪৫ শতাংশ। তারা আছে তালিকার আট নম্বরে। অন্যদিকে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর পর্তুগাল ৫.১১ শতাংশ সম্ভাবনা নিয়ে তার ঠিক পরেই, নবম অবস্থানে।

১১.৫৩ শতাংশ সম্ভাবনা নিয়ে তিন নম্বরে স্পেন, ৮.০৩ শতাংশ নিয়ে চারে ইংল্যান্ড এবং ৭.৯০ শতাংশ নিয়ে পাঁচ নম্বরে আছে বেলজিয়াম। এছাড়া ছয়ে নেদারল্যান্ডস, সাতে জার্মানি এবং দশে আছে ক্রোয়েশিয়া।


আরও খবর



কর্মবিরতিতে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে কার্যক্রম ব্যাহত

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৬২জন দেখেছেন
Image

পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে কর্মবিরতি পালন করেছেন সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টরা। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে মঙ্গলবার (৭ জুন) দিনব্যাপী এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

দিনব্যাপী সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টদের কর্মবিরতির কারণে স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানি ব্যাহত হয়।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের লাইসেন্সিং বিধিমালা ২০২০ সংশোধনসহ বিভিন্ন দাবিতে কর্মবিরতির ডাক দিয়েছে ফেডারেশন অব বাংলাদেশ সিঅ্যান্ডএফ ক্লিয়ারিং অ্যান্ড ফরওয়ার্ডিং এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশন।

কর্মবিরতিতে বাংলাবান্ধা সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের আহ্বায়ক রেজাউল করিম রেজা, যুগ্ম-আহ্বায়ক আব্দুল্লাহ আল মামুন মুসা, সাইদুর রহমান, সদস্য সাদেকুল ইসলামসহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা অংশ নেন।


আরও খবর