Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

দেশব্যাপী ওয়ানপ্লাস নর্ড সিই৪ লাইট ফাইভজি পাওয়া যাচ্ছে

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৩৯জন দেখেছেন

Image

প্রযুক্তি ডেস্ক:ওয়ানপ্লাস নর্ড সিই৪ লাইট ফাইভজি স্মার্টফোন এখন দেশব্যাপী পাওয়া যাচ্ছে। স্থানীয়ভাবে তৈরি ওয়ানপ্লাসের দ্বিতীয় ডিভাইসটির ফিচার উন্নয়নে ব্যবহারকারীদের পছন্দকে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে।

ওয়ানপ্লাসের জনপ্রিয় স্মার্টফোন সিরিজ নর্ড। এক্ষেত্রে ফ্ল্যাগশিপ-লেভেলের অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করবে ওয়ানপ্লাস নর্ড সিই৪ লাইট ফাইভজি। ডিভাইসটি সেরা মান ও সর্বোচ্চ আস্থা নিশ্চিতে বাংলাদেশ সরকারের সবরকম টেস্টে উত্তীর্ণ হয়েছে।

আগ্রহী ক্রেতারা দেশের যেকোনো ওয়ানপ্লাস স্টোর থেকে ক্রয়ের পাশাপাশি দারাজ , পিকাবু , গ্যাজেট অ্যান্ড গিয়ার ও ডলবেয়ার থেকে অনলাইনে অর্ডার দেয়ার সুযোগ রয়েছে।

এ বিষয়ে ওয়ানপ্লাস বাংলাদেশ’র সিইও মেঙ্ক ওয়াং বলেন, “আমরা নর্ড সিরিজের ডিভাইসে ব্যবহারকারীর সমৃদ্ধ অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। নর্ড সিই৪ লাইট ফাইভজি ফোনে ফ্ল্যাগশিপ-লেভেলের উদ্ভাবনী হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যার ফিচার ব্যবহার করা হয়েছে। বাংলাদেশে ওয়ানপ্লাস পণ্যের প্রতি মানুষের ভালোবাসা ও চাহিদা আমাদের এই যাত্রাকে আরও রোমাঞ্চকর করে তুলেছে।

বাংলাদেশের মানুষের জন্য আরও অনেক প্রযুক্তি ও পণ্য নিয়ে আসবো আমরা।” অ্যাকুয়া টাচ সহ ১২০ হার্জ সুপার-ব্রাইট ২,১০০ নিটস অ্যামোলেড ডিসপ্লে, ৮০ ওয়াট সুপারভুক ফাস্ট চার্জিং সহ ৫,৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি এবং ওআইএস সহ সনি লিটিয়া ৬০০ ক্যামেরার ফিচারে সমৃদ্ধ ওয়ানপ্লাস নর্ড সিই৪ লাইট ফাইভজি ফোনটি মাত্র ২৭,৯৯৯ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। আগ্রহী ক্রেতারা আরও বিস্তারিত তথ্যের জন্য অফিশিয়াল ফেইসবুক পেইজ https://www.facebook.com/oneplus.bangladesh.official বা ওয়েবসাইট https://www.oneplus.com/bd ভিজিট করতে পারেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



ডিমলায় তিস্তার পানি বৃদ্ধি

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১০৪জন দেখেছেন

Image

আবু মোতালেব হোসেন (নীলফামারী) প্রতিনিধিঃনীলফামারীর ডিমলায় গত কয়েক দিনের ভারি বর্ষন ও উজানের সিকিমের পাহাড়ি ঢলে তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে ৫১.৮৫ সেন্টিমিটার দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায়। 

পানি বৃদ্ধি পেয়ে কিছু এলাকা প্লাবিত হয়ে পড়েছে নদীর তীরবর্তী এলাকা উপজেলার খগা খড়িবাড়ী, খালিশা চাপানীর বাইশপুকুর, টেপা খড়িবাড়ী, ঝুনাগাছ চাপানী, পূর্ব ছাতনাই ইউনিয়ন সহ বেশকিছু এলাকায়। নদীর আশপাশের পরিবারগুলো পানি বন্দি সহ কৃষিক্ষেত তলিয়ে রয়েছে পানির নিচে। 

পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকাল থেকে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় দুপুর ১২ঃ০০ টা পর্যন্ত ৫১.৮৫ সে.মি। যা বিপৎসীমার ৩০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। পানি আরও বৃদ্ধি পেতে পারে বলে ধারনা করছে ডালিয়া পাউবো। পানি নিয়ন্ত্রণ করতে তিস্তা ব্যারাজের জলকপাট খুলে দিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।

টেপাখড়িবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম শাহিন বলেন, গত কয়েক দিনের ভারি বর্ষনে বন্যা দেখা দেওয়ার কারেনে এলাকার পূর্বখড়িবাড়ী ও চরখড়িবাড়ী এলাকার একটি বালির বাধ ভেঙ্গে গেছে, যা স্থানীয়ভাবে আমরা মেরামতের উদ্যেগ নিয়েছি।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আসফা-উদ-দৌল্লা বলেন, তিস্তা নদীর পানি সোমবার রাত থেকে বৃদ্ধি পাওয়ায় তিস্তা ব্যারেজের জলকপাট খুলে দেওয়া হয়েছে। তিস্তাপাড়ের মানুষকে সর্তক করার পাশাপাশি সকল প্রকার দুর্যোগ মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুুত আছি বলে তিনি জানান। 

এদিকে পানিবৃদ্ধি পাওয়ায় সার্বক্ষনিক এলাকার খোঁজখবর নিচ্ছেন ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মে সালমা।


আরও খবর



গলাচিপায় শিল্পকলা একাডেমি সংস্কার ও আধুনিকায়নের উদ্বোধন

প্রকাশিত:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৮২জন দেখেছেন

Image

রিয়াদ হোসাইন,গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি:ঐতিহ্যবাহী গলাচিপা শিল্পকলা একাডেমি সংস্কার ও আধুনিকায়নের উদ্বোধন করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মহিউদ্দিন আল হেলালের পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে মঙ্গলবার বেলা ২টায় শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত শিল্পকলা একাডেমি সংস্কার ও আধুনিকায়নের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক মো. নূর কুতুবুল আলম। 

ইউএনও মো. মহিউদ্দিন আল হেলালের সভাপতিত্বে ও গলাচিপা বেইজ বিল্ড ডিজিটাল একাডেমির সিনিয়র শিক্ষক লুৎফর রহমান আওলাদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ওয়ানা মার্জিয়া নিতু।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. নাসিম রেজা, জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট নুসরাত জাহান ইথিনা, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা খোকন চন্দ্র দাস, গলাচিপা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক সমিত কুমার দত্ত মলয়, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. নিজাম উদ্দিন তালুকদার, শিল্পকলা একাডেমির সঙ্গীত শিক্ষক কার্তিক চন্দ্র দাস, বেইজ বিল্ড ডিজিটাল একাডেমির প্রধান শিক্ষক রেদওয়ান করিম তালাল প্রমুখ। 

জেলা প্রশাসক নূর কুতুবুল আলম বলেন, ‘এক সময় এখান থেকে অনেক কন্ঠ শিল্পী তৈরি হতো, এখন কেন নয়? তোমরা কন্ঠ শিল্পীরা তাদের মতো হওয়ার চেষ্টা কর। তোমাদের গান শুনে আমি আনন্দিত ও মুগ্ধ হয়েছি। শিল্পীরা স্বতঃস্ফূর্ত ও আনন্দের সাথে গান গেয়েছে। এর সাথে কলকুশলীরাও ভাল পারফরমেন্স করেছেন। শিল্পকলা একাডেমির পক্ষ থেকে আপনারা যা দাবি করেছেন তার চেয়ে বেশি দেওয়ার চেষ্টা করব। ছোট ছোট শিশুরা শিল্পকলা একাডেমিতে যাতে স্বাচ্ছন্দে সঙ্গীত শিখতে পারে সেজন্য যথাযথ পরিবেশ ও সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা করতে হবে। তবেই শিশুরা উৎসাহ ও উদ্দীপনার সাথে সঙ্গীত শিক্ষা করে দেশের সুনাম অর্জন করে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে খ্যাতি ছড়িয়ে দিতে পারবে।’  

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



ঢাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ১৯

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৯৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে ১৯ জনকে গ্রেফতার করেছে ।

রোববার (৭ জুলাই) সকাল ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাদকসহ তাদের গ্রেফতার করা হয়।

ডিএমপি সূত্রে জানা যায়, গ্রেফতারের পাশাপাশি তাদের হেফাজত থেকে ২৮১ পিস ইয়াবা, ৩০ গ্রাম হেরোইন ও ২ কেজি ৫০০ গ্রাম ১৫০ পুরিয়া গাঁজা জব্দ করা হয়েছে।গ্রেফতার ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ১৪টি মামলা করা হয়েছে।


আরও খবর



পরিবেশবান্ধব ডেলিভারি জোরদারে আরএফএল’র সাথে ফুডপ্যান্ডার চুক্তি

প্রকাশিত:সোমবার ০১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৪৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:পরিবেশবান্ধব ডেলিভারি ও রাইডারদের সার্বিক কল্যাণ নিশ্চিতের লক্ষ্যে সম্প্রতি আরএফএল গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান দুরন্ত বাইসাইকেলের সাথে একটি চুক্তি সই করেছে দেশের শীর্ষস্থানীয় অনলাইন ফুড ও গ্রোসারি ডেলিভারি প্ল্যাটফর্ম ফুডপ্যান্ডা। এ চুক্তির ফলে দুরন্ত বাইসাইকেল কিনলে ১৫ শতাংশ ছাড় পাবেন ফুডপ্যান্ডার রাইডাররা।

রাজধানীর গুলশানে ফুডপ্যান্ডার প্রধান কার্যালয়ে এ চুক্তি স্বাক্ষর হয়। ফুডপ্যান্ডার ফাইন্যান্স ডিরেক্টর জামাল ইউসুফ জুবেরি এবং দুরন্ত’র (আরএফএল গ্রুপ) করপোরেট সেলসের জেনারেল ম্যানেজার মো. তৌহিদুল ইসলাম ভূইয়া নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এ চুক্তি স্বাক্ষর করেন। এ সময় উভয় প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

এ চুক্তি প্রসঙ্গে ফুডপ্যান্ডা বাংলাদেশের ফাইন্যান্স ডিরেক্টর জামাল ইউসুফ জুবেরি বলেন, “এখন ফুডপ্যান্ডার ৯০ শতাংশের বেশি রাইডার সাইকেল ও ই-বাইক এর মতো পরিবেশবান্ধব বাহন ব্যবহার করে গ্রাহকের দোরগোড়ায় খাবার ও গ্রোসারি পৌঁছে দেন। এ চুক্তির ফলে সারাদেশের রাইডার পার্টনাররা আরও সহজে ছাড়কৃত মূল্যে পরিবেশবান্ধব বাহন সাইকেল কেনার সুযোগ পাবেন।”ফুডপ্যান্ডার রাইডার পার্টনাররা রাইডারশপ ওয়েবসাইট থেকে নিজেদের পছন্দের মডেলের বাইসাইকেল কিনতে পারবেন। এরপর রাইডারদের ঠিকানায় বিনামূল্যে বাইসাইকেল পৌঁছে দেবে দুরন্ত।

উল্লেখ্য, জীবিকা নির্বাহের সুযোগ তৈরির পাশাপাশি স্বাস্থ্যসেবা সহায়তা, বিমা ও দক্ষতা উন্নয়নে অনলাইন শিক্ষার সুযোগ তৈরির মাধ্যমে রাইডারদের কল্যাণের জন্য নিবেদিতভাবে কাজ করে আসছে ফুডপ্যান্ডা৷


আরও খবর

রাজধানীতে তাজিয়া মিছিল শুরু

বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪




ডোমারে দৃষ্টি নন্দন করে সাজিয়েছে ছোটরাউতা সপ্রাবি’র প্রধান শিক্ষক নাজিরা আখতার ফেরদৌসী

প্রকাশিত:শনিবার ২৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১১৭জন দেখেছেন

Image

মানিক, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি:নীলফামারী ডোমারে মনের মাধুরি দিয়ে দৃষ্টি নন্দন হিসাবে গড়ে তুলেছেন নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উপজেলার ছোট রাউতা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজিরা আখতার ফেরদৌসী চৌধুরী। 

বিদ্যালয়ে শিক্ষার মান, পরিবেশ, শতভাগ স্কুল ড্রেসসহ ফুলের বাগান, সাহিত্য ও সংস্কৃতিতে ব্যপক ভুমিকা রেখে গোটা উপজেলায় প্রশংসার জোয়ারে ভাষছেন এই গুণি শিক্ষক। 

শিশুদের কারিগর ফেরদৌসী ম্যাডাম, তার সারাদিনের কর্মের মূল ভাবনাই বিদ্যালয় ও বিদ্যালয়ের শিশুদের নিয়ে। ছোট রাউতা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টিকে তিনি সাজিয়েছেন মনের মাধুরি মিশিয়ে। মানসম্মত শিক্ষার পরিবেশ থাকার জন্য উপজেলার শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপিঠের স্থান দখল করে নিয়েছেন তার বিদ্যালয়টি। ২০১৭ সালে তিনি এই বিদ্যালয়ে যোগদান করেন, সেই থেকে সফলতার সাথে কর্মদক্ষতা দিয়ে কাজ করে ২০২২ সালে উপজেলার শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয় হিসাবে পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। এই জীবন্ত কিংবদন্তি শিক্ষক ফেরদৌসী ম্যাডাম যার ধ্যান জ্ঞান পুরোটাই বিদ্যালয় ও তার শিশু শিক্ষার্থীদের নিয়ে। পরিপাটি ভাবে সাজানো পরিস্কার পরিছন্ন স্কুলের খেলার মাঠটি দেখলেই বোঝাযায় কোথাও একটি পাতাও পড়ে থাকতে দেখবেন না। শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষের মন কেড়েছে বিদ্যালয়ের ছাদ বাগান। বাগানটি একটি নজর দেখতে প্রতিদিন মানুষের ভীড়জমে। এই কাজে উৎসাহ দিয়েছেন সহকারী শিক্ষকগণ। সরকারী ভাবে বরাদ্ধকৃত টাকা ছাড়াও নিজের অর্থ ব্যায়ে তিনি বিদ্যালয়টিকে সাজিয়েছেন মনের মতকরে। উপজেলায় ১৭৯টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। বিদ্যালয় গুলোতে সরকারের পক্ষ থেকে প্রতি বছর শিক্ষা উপকরণ সহ বিদ্যালয় উন্নয়নের জন্য অর্থ বরাদ্দ দেয়া হয়। কিন্তু এই অর্থ সঠিক ভাবে ব্যবহার করলে বিদ্যালয় গুলোকে শিশুদের শিক্ষার উপযোগী করে গড়ে তোলা যায় তার প্রমান দিলেন এই প্রধান শিক্ষক। তিনি এই অর্থ বিদ্যালয় ও শিশুদের জন্য ব্যয় করে শিশুদের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য বিদ্যালয়টিকে উপযোগী করে তুলেছেন। সবচেয়ে বড় সফলতার বিষয় গত কয়েকদিন আগে ইউনিট লিডার নাজিরা আখতার ফেরদৌসী চৌধুরীর নের্তৃত্বে ওই বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী শিক্ষিকা ইলোরা জাহানের কন্যা মুসাফ্ফা কবির জাতীয় পর্যায়ে মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর কাছ থেকে শ্রেষ্ঠ কাব অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্ত হয়। বিদ্যালয়টিতে ৩৩১ জন ছাত্র ছাত্রী রয়েছে। শিশু শ্রেনীসহ সব শ্রেনী গুলো রয়েছে  ইতিহাসের কালের স্বাক্ষী হিসেবে সাজানো। বিভিন্ন কবি,সাহিত্যিক মুক্তি যোদ্ধাদের নামে নামকরণ করা হয়েছে শ্রেনী কক্ষগুলো। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতার নামে করা হয়েছে মুক্তি যুদ্ধের ইতিহাস ঐতিহ্য ভিত্তিক মুক্তি যোদ্ধা গ্যালারী। সেখানে নতুন প্রজন্মকে জানার জন্য রয়েছে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক শিশুদের জন্য লেখা নানা লেখকের বই, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক শিক্ষা, খেলার উপকরণ। এছাড়া জাতীয় চার নেতা, বীর শ্রেষ্ঠসহ মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক ছবি ও চার্ট দেয়ালে প্রদর্শন করা হয়েছে। অফিস কক্ষটিতে রয়েছে জাতীর শ্রেষ্ঠ ব্যাক্তি ছবিসহ ফুলের সমারহো। শিশুদের লেখা দেয়ালিকায় মুক্তিযুদ্ধে জাতির জনকের অবদান ও তার কর্ম জীবন ফুটিয়ে তুলেছে। শিশুদের জন্য একটি ফুলের বাগান। সব মিলিয়ে একটি পরিপাটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যা দেখলে প্রান জুড়িয়ে যায়। বিদ্যালয়টির সামনে বারান্দায় বিভিন্ন প্রজাতির ফুল গাছ। স্কুলের ছাদে তিনি লাগিয়েছেন বিভিন্ন প্রজাতির  ফল ও ফুলের গাছ, যা টিফিনের সময় সহকারী শিক্ষকসহ সকলে পরিচর্চা দিয়ে ফুলের সুবাসে ফুটিয়ে তুলেছে ছাদ বাগানটি। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম জানান, আমরা এই বিদ্যালয় নিয়ে গর্ববোধকরি, এই বিদ্যালয়টি শিশুদের শিক্ষার জন্য একটি আদর্শ বিদ্যালয়। বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষানুরাগীরা ফুল প্রেমী মানষেরা ভীড় জমায়।  শিক্ষকদের আন্তরিকতা ও এলাকা বাসীর সহযোগীতা থাকলে প্রত্যেকটা প্রাথমিক বিদ্যালয় এভাবে সাজিয়ে তোলা  সম্ভব। এ বিদ্যালয়টি দেখে অন্যদের ও তাদের নিজস্ব উদ্যোগে নিজ বিদ্যালয়কে সরকারের নিয়ম মেনে সুন্দর করার চেষ্টা করলে প্রাথমিক শিক্ষার আরো মানবৃদ্ধি পাবে।


আরও খবর