Logo
আজঃ শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪
শিরোনাম
কক্সবাজারে পাহাড় ধসে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু বন্ধ শিল্প প্রতিষ্ঠান চালুর পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে: শিল্পমন্ত্রী বাংলাদেশের হার দিয়ে সুপার এইট শুরু গোদাগাড়ীতে রাসেল ভাইপারের চিকিৎসার দাবিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রীর কাছে চিঠি দিয়েছে নাগরিক স্বার্থ-সংরক্ষণ কমিটি রূপগঞ্জে জমে উঠেছে কাঞ্চন পৌরসভা নির্বাচন যাত্রাবাড়ীতে পুলিশ কর্মকর্তার বাবা মাকে কুপিয়ে হত্যা যানজট নিরসনে সংসদ সদস্যগণের সাথে ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগের সমন্বয়সভা ভোলায় ফের দেখা মিলল রাসেল ভাইপার, জনমনে আতঙ্ক বাজেট পাস হয়নি,অনেক কিছু পুনর্বিবেচনা করা সম্ভব: অর্থমন্ত্রী দেশের সব মহৎ অর্জন আ. লীগের মাধ্যমেই হয়েছে: ওবায়দুল কাদের

ডেঙ্গুতে ৭ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ৩০২৭

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | ২৫৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:একদিনে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে আরও ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এসময়ে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ৩০২৭ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৮৪৯ জন আর ঢাকার বাইরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২১৭৪ জন।

মঙ্গলবার (১৯ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে মোট ১০ হাজার ১০২ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসাধীন আছেন। ঢাকার সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে বর্তমানে ৩ হাজার ৮১৪ জন এবং অন্যান্য বিভাগের বিভিন্ন হাসপাতালে ৬ হাজার ২৮৮ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি রয়েছেন।

চলতি বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১ লাখ ৭৩ হাজার ৭৯৫ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকায় ৭৪ হাজার ৯৭৬ জন এবং ঢাকার বাইরে চিকিৎসা নিয়েছেন ৯৮ হাজার ৮১৯ জন।

আক্রান্তদের মধ্যে হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১ লাখ ৬২ হাজার ৮৪৭ জন। ঢাকায় ৭০ হাজার ৫৮৪ এবং ঢাকার বাইরে ৯২ হাজার ২৬৩ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

চলতি বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত ৮৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।


আরও খবর



রূপগঞ্জে ব্যবসায়ীর বাড়ী-ঘরে হামলা ভাংচুর, লুটপাট, ২ টি ড্রাম ট্রাকে আগুন

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | ৯৯জন দেখেছেন

Image

আবু কাওছার মিঠু রূপগঞ্জ নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি:নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এক ব্যবসায়ীর বাড়ীতে প্রতিপক্ষের লোকজন হামলা,  ভাংচুর ও লুটপাটে চালিয়েছে। এসময় ব্যবসায়ীর ২ টি মালবাহী ড্রাম ট্রাক আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেয়। এসময় বাধাঁ দেয়ায় ব্যবসায়ী ও তার স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম করে হামলাকারীরা। 

গত শুক্রবার বিকালে উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের খৈশার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এদিকে ঘটনায় পর ৩ দিন অতিবাহিত হয়ে গেলে ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী রূপগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেও পুলিশ মামলা নিতে গরিমসি করছে। এদিকে  হামলাকারীদের ভয়ে চরম আতঙ্কে রয়েছে ব্যবসায়ীর পরিবার।

জানাযায়, খৈশার এলাকার ব্যবসায়ী মফিজুলের সাথে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী এসটি ছাত্তারের বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরে শুক্রবার বিকালে ছাত্তারের নির্দেশে ১৫/২০ জন দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে  ব্যবসায়ী মফিজুলে বাড়ী ঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট চালায়।  একপর্যায়ে বাড়ির সামনে রাখা ২ টি  ড্রাম ট্রাকে  পেট্রোল দিয়ে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। এসময় বাধাঁ দেয়ায় ব্যবসায়ী ও তার স্ত্রীকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করেন তারা। হামলায় কমপক্ষে ৯০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী করেছেন ব্যবসায়ী।

এদিকে ঘটনার পর মফিজুল ইসলাম বাদী হয়ে ছাত্তারসহ ১০ জনকে আসামী করে রূপগঞ্জ থানায় লিখিত অভাযোগ দায়ের করলে ঘটনার ৩ দিন অতিবাহিত হয়ে গেলে পুলিশ থানায় মামলা রুজু করছে না। এমনকি হামলাকারী ছাত্তারসহ তার লোকজনের প্রতিনিয়ত হুমকির কারনে চরম আতঙ্ক ও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে ব্যবসায়ী ও তার পরিবার।

এব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার ওসি দিপক চন্দ্র সাহার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, হামলা ভাংচুর ও গাড়ীতে অগ্নি সংযোগের ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত সম্পন্ন হলে পরবর্তী আইনানুক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব

আরও খবর



বগুড়ায় জোড়া খুনের ঘটনায় মোটর শ্রমিক নেতা মিঠু সহ গ্রেফতার ৪

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | ৮১জন দেখেছেন

Image
লতিফ বগুড়া বিশেষ প্রতিনিধি:মঙ্গলবার শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।মঙ্গলবার দিবাগত রাতে হত্যাকান্ডের ঘটনায় মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ কবির আহমেদ মিঠু তার ছোট ভাই জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা সৈয়দ সার্জিল আহমেদ টিপু ও পৌরসভার ১নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহ মো. মেহেদী হাসান হিমুসহ ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া মামলায় আরো ১৪/১৫ জনকে অজ্ঞাত আসামী করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে নিহত শরিফের মা বাদী হয়ে সদর থানায় মামলাটি দায়ের করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. শাহীনুজ্জামান। 
অন্য গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, সদরের সুলতানগঞ্জ পাড়া এলাকার ইসমাইল হোসেনের ছেলে ছাত্রলীগ আজবিন রিফাত (১৯), নিশিন্দারা খাঁপাড়া এলাকার আব্দুল গফুর এর ছেলে শেখ সৌরভ ও নিশিন্দারা পূর্বপাড়ার মৃত আব্দুল কুদ্দুস এর ছেলে নাঈম হোসেন (২৮)।এর আগে সোমবার (১৭ জুন) রাত দেড়টায় নিশিন্দারা চকপাড়া এলাকার জাহিদ মিয়ার ইউক্যালিপ্টাস বাগানের গলিতে একই এলাকার শফিকুল ইসলামের ছেলে রুমন (১৭) ও দুদু মিয়ার ছেলে শরিফ (১৮)কে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ সময় তারা গোলাগুলির ঘটনাও ঘটায় সেখানে। এ ঘটনায় নিহতদের বন্ধু একই এলাকার মোঃ বাদলের ছেলে হোসাইন পায়ে গুলিবিদ্ধ হন। পরে খবর পেয়ে পুলিশ লাশ দুটো উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায় এবং হোসাইনকে চিকিৎসার জন্য ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ঈদের দিন বিকেলে নামাজগড় থেকে হাকিরমোড়গামী নির্মাণাধীন রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় নিহত রুমনের মোটর সাইকেল জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান সৈয়দ সার্জিল আহম্মেদ টিপুর গাড়িতে ধাক্কা লাগে। ওই গাড়িতে টিপুর মেয়ে ছিলেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এরই জের ধরে আসামীরা ওই দিন রাত ১২টায় শরিফ শেখ, রুমন, হোসাইনকে ঘটনাস্থল চকরপাড়ার জাহিদ মিয়ার ইউক্যালিপ্টাস বাগানে মীমাংসার কথা বলে ডেকে নিয়ে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটায়।মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বগুড়া সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত), মো. শাহিনুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ১৮ জুন দিবাগত রাত ১২টায় মামলাটি দায়ের করা হয়। ইতোমধ্যে মামলার আসামী হিসেবে ছাত্রলীগ নেতা রিফাতসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। বাকীদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে।

র‍্যাব-১২ বগুড়ার কোম্পানী কমান্ডার মীর মনির হোসেন বলেন, গতকাল সৈয়দ কবির আহম্মেদ মিঠুকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কার্যালয়ে ডাকা হয়। এরপর তদন্ত শেষে রাত ৩টায় তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আরও খবর



কুড়িগ্রামের রৌমারী পাহাড়ি ঢলের পানিতে নিম্মাঞ্চল প্লাবিত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | ৬৯জন দেখেছেন

Image

মাজহারুল ইসলাম, রৌমারী(কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃগত কয়েকদিনের টানা ভারিবৃষ্টি ও ভারতীয় পাহাড়ি ঢলে কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার রৌমারী সদর, যাদুরচর, শৌলমারী বন্দবেড় ও চর শৌলমারী ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকার নিম্মাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। 

বুধবার সকালের দিকে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পানিবন্ধি হয়েছে ঝাউবাড়ি, লাঠিয়ালডাঙ্গা, চুলিয়ারচর, বারবান্দা, পূর্বইজলামারী, ভুন্দুরচর, চান্দারচর, নওদাপাড়া, ব্যাপারীপাড়া, বোল্লাপাড়া, খাটিয়ামারী, মোল্লারচর, বেহুলারচর, খেতারচর, বড়াইবাড়ি, রতনপুর, চর শৌলমারী ইউনিয়নের সুখেরবাতি, চর সুখেরবাতি, ঘুঘুমারী, উত্তর খেদাইমারী, মধ্য খেদাইমারী, উত্তর বাগুয়ারচর, বন্দবেড় ইউনিয়নের বাগুয়ারচর, বলদমারা, খেরুয়ারচর, চর খনজনমারা, বাইশপাড়া, পালেরচর, ফলুয়ারচর, বাঘমারা, চর বাঘমারা, চর বাঘমারা, যাদুরচর ইউনিয়নের দিঘলেপাড়া, ধনারচর পশ্চিমপাড়া, কোমড়ভাঙ্গিসহ প্রায় ৫০টি গ্রাম। অপর দিকে চর নতুনবন্দর স্থলবন্দরটিও বন্যার পানিতে তুলিয়ে যাওয়ার আশঙ্খ্ াদেখা দিয়েছে। ইতোমধ্যে মাঠে বৃষ্টির পানি জমে আমদানী ও রপ্তানী বন্ধ রয়েছে। কয়েকদিন থেকে টানা বৃষ্টি ও ভারতীয় আসাম রাজ্যের পাহাড়ি ঢল মানকারচর কালো নদী দিয়ে বাংলাদেশ সীমান্ত ঘেঁষা জিঞ্জিরাম নদী দিয়ে নেমে আসে। বন্যার পানি অস্বাভাবিক ভাবে বৃদ্ধি হওয়ায় জিঞ্জিরাম নদী উপচে গিয়ে ওইসব নিম্মাঞ্চল প্লাবিত হয়। এতে পানিবন্ধি হয়ে পড়ে কয়েকটি গ্রাম। ফলে ওই এলাকার মানুষ জীবনের ঝুকি নিয়ে নৌকা বা ভেলা দিয়ে প্রয়োজনীয় তাগিদে বিভিন্ন এলাকায় পারাপার হচ্ছে। গরু, মহিষ, ভেড়াঁ, ছাগলসহ গৃহপালিত পশু পাখি নিয়ে বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা। দেখা দিয়েছে গো-খাদ্যের চরম সংকট। স্থলবন্দরের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকায় কয়েক হাজার শ্রমিক বেকার হয়ে পড়েছে। ফলে তারা পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। অপর দিকে বিভিন্ন ফসলি জমি পানির নিচে তলিয়ে গেছে। বন্যায় প্রায় ৭০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হলেও এখন পর্যন্ত ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের কাছে কোন ত্রাণ সহায়তা দেয়া হয়নি।

রৌমারী সদর ইউপি সদস্য শফিকুল ইসলাম শফিক বলেন, কয়েকদিনের টানা বর্ষন ও ভারতের পাহাড়ি ঢলে আমার এলাকার চর নতুনবন্দর, চান্দারচর ও নওদাপাড়াসহ কয়েকটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। ওই এলাকার মানুষ বর্তমানে নৌকা দিয়ে পারাপার হচ্ছে। 

রৌমারী সদর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক জানান, কয়েকদিনের টানা বর্ষনে আমার ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রাম পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। আরো কয়েকদিন এ অবস্থা থাকলে পরিস্থিতি খারাপের দিকে যাবে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কাইয়ুম চৌধুরী জানান, নিম্মাঞ্চল প্লাবিত হওয়ায় পাট আংশিক ৩৮, আউস ধান ৮, তিল ৯, চিনা ৫, শাকসবজি ১৮ ও মরিচ ৭ হেক্টর তলিয়ে গেছে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবাস্তবায়ন কর্মকর্তা শামসুদ্দিন বলেন, উপজেলা  প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের জন্য ১৬ মেট্রিক টন চাউল ও ৮৫ হাজার টাকা প্রস্তুত রাখা হয়েছে। যে কোন মুহুর্তে এসব বিতরণ করা হবে। 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাহিদ হাসান খান জানান, খুব শৗঘ্রই ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে জিআরের চাল ও নগদ অর্থ দেওয়া হবে। তাছাড়াও জেলার সাথে পরামর্শ করে শুকনো খাবারের ব্যবস্থা করা হবে।


আরও খবর



উপজেলা নির্বাচনে ১৭৫ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | ১৬৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:চতুর্থ ধাপে ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট ৬০ উপজেলায় ১৭৫ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৪ জুন) এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, আগামী বুধবার (৫ জুন) অনুষ্ঠিতব্য উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চতুর্থ ধাপে স্থানীয় বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তার জন্য ইন এইড টু সিভিল পাওয়ারের আওতায় ৩ জুন থেকে আগামী ৭ জুন পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষার্থে মোবাইল ও স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে কাজ করবে বিজিবি।

প্রসঙ্গত, আগামী বুধবার দেশের ২৭ জেলার ৬০টি উপজেলায় সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলবে। এসব উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ২৫১ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৬৫ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২০৫ জন প্রার্থী রয়েছেন। পাঁচ হাজার ১৪৪টি ভোটকেন্দ্রে এক কোটি ৪৩ লাখ ৫৭ হাজার ৮২০ জন ভোটার ভোট দেবেন এ ধাপে। ভোট উপলক্ষে সংশ্লিষ্ট উপজেলাগুলোতে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।


আরও খবর



বাকেরগঞ্জে ছাগল বাঁধাকে কেন্দ্র করে শিশুসহ ৩ জনকে পিটিয়ে জখম

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | ৮৩জন দেখেছেন

Image
রবিউল ইসলাম,বাকেরগঞ্জ (বরিশাল) প্রতিনিধি:বরিশালের বাকেরগঞ্জে ছাগল বাঁধাকে কেন্দ্র করে ঝগড়ার একপর্যায়ে শিশুসহ তিনজনকে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। আহত শিশুপুত্র মোঃ হোসেইন মাহামুদ (৮), আল আমিন হাওলাদার (১৭) ও রোজিনা বেগম (৩২) কে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। 

বুধবার (১২জুন) বিকেল ৪.৫০ টায় উপজেলার ভরপাশা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটেছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ভরপাশা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ভরপাশা গ্রামের মোঃ হারুন মোল্লার পালিত ছাগল একই গ্রামের নজরুল ইসলামের রোপনকৃত সবজি ক্ষেত নষ্ট করে। এ ঘটনায় তার দুই পুত্র মোঃ হুসেইন মাহামুদ ও আল আমিন হাওলাদার ওই ছাগলটি বাড়ির কাছে বেঁধে রাখেন। ছাগল বেঁধে রাখা নিয়ে হারুন মোল্লার সাথে তাদের ঝগড়া হয়।ঝগড়ার একপর্যায়ে হারুন লাঠি দিয়ে পিটিয়ে তাদেরকে রক্তাক্ত যখন করে। এ সময় তাদের ডাকচিৎকার শুনে বাঁচাতে গেলে মা রোজিনা বেগমকেও পিটিয়ে জখম করে। 

গৃহবধূ রোজিনা বেগম জানান, তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে একই গ্রামের হারুন মোল্লা ও তার স্ত্রী নুরজাহান বেগম তাকেসহ তার দুই পুত্রকে পিটিয়ে রক্তাক্ত যখন করেছে। তিনি আরও জানান, হারুন মোল্লার মেয়ে জামাতা পুলিশে চাকরি করে। সেই প্রভাব খাটিয়ে তিনি এলাকার বিভিন্ন মানুষের উপর হামলা ও তাদের নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। এমনকি তাদের এ ঘটনা নিয়ে থানায় কোন মামলা-মোকদ্দমা দায়ের করলে তার দুই পুত্রকে খুন জখমের হুমকি দেয় হারুন মোল্লা। এতে তিনি ও তার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছেন। থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি জানান।

আরও খবর