Logo
আজঃ শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

ডেমরায় নকশা বহির্ভূত নির্মাণধীন ভবনে রাজউকের উচ্ছেদ অভিযান

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ | ২৪৬জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হাসানঃ 

রাজধানীর ডেমরায় নকশা বহির্ভূত স্থাপনা অপসারণে অভিযান চালিয়েছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। এ সময় বেশ কয়েকটি ভবনে উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে অবৈধভাবে নির্মিত অংশ অপসারণসহ বিভিন্ন অংকের জরিমানা আদায় করা হয়।


সোমবার (৮ মে) রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কামরুল ইসলাম ও অথরাইজড অফিসার রাজীবুল ইসলাম এর নেতৃত্বে গঠিত টাস্কফোর্স এ অভিযান চালায়।এ সময় রাজউকের ইমারত পরিদর্শক মাসুদ রানা উচ্ছেদ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন।


অভিযানে ডেমরা কোনাপাড়া আল-আমিন রোড প্রধান সড়কে  ডগাইর মৌজার ৯৬৭ নং দাগে বেইজমেন্টসহ ১৪ তলা ভবনের অনুমোদন নিয়ে নকশা বহির্ভূত ভাবে চারপাশে কোন জায়গা না ছেড়েই নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।সোহরাব হোসেন নাদু শেখ গং ৯৬ জন মিলে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে ভবনটি নির্মাণ করছে।


  নির্মাণাধীন ঐ ভবনে রাস্তার পাশের ৪ টি কলাম ভেঙ্গে অপসারণ করা হয়। এবং ভবন মালিক কে ২ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়। অবশিষ্ট নকশা ব্যতয়কৃত অংশ ভেঙে ফেলতে সময় দিয়ে ৩০০ টাকার নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর গ্রহণ করা হয়।

আল-আমিন রোডের ছায়াকুঞ্জ ভবনে নকশা ব্যতয় করে দেলোয়ার হোসেন নামের এক ভবন মালিক নির্মাণ কাজ করায় ২ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়। ভবনের ব্যত্যয়কৃত অংশ ভেঙে ফেলতে ৩০০ টাকার নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে সময় বেঁধে দেয়া হয়।

এছাড়াও ডেমরা আল-আমিন রোডের বাইতুল মামুর মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় আপন সিটি বিল্ডার্স নামক একটি ডেভলপার কোম্পানি কর্তৃক নির্মিত ভবনে অভিযান পরিচালিত হয়। নকশা বহির্ভূত ভাবে সেখানে নির্মাণ কাজ করায় ২ লক্ষ টাকা জরিমানা আদায় করে রাজউক।


রাজউক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, অথোরাইড অফিসার, ইমারত পরিদর্শক ছাড়াও পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা অভিযানে অংশগ্রহণ করে। 



রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ রাজউক এর দায়িত্বপ্রাপ্ত ইমারত পরিদর্শক মাসুদ রানা দৈনিক সকালের সময়কে জানান,অবৈধভাবে নির্মাণাধীন ভবনের বিরুদ্ধে রাজউকের এই অভিযান নিয়মিত পরিচালিত হবে। 




আরও খবর



দুই হাজার গ্রাহকের তিন কোটি টাকা হাতিয়ে লাপাত্তা এনজিও

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ | ১০৮জন দেখেছেন

Image

মাজহারুল ইসলাম,রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:জামালপুর দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার ডাংধরা ইউনিয়নে,ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট এন্টারপ্রাইজ (আইডিই) এনজিওর লোকজন ঘর ও শিশু কার্ড দেয়ার কথা বলে দুই হাজার ভুক্তবোগীকে প্রতারনার ফাঁদে ফেলে প্রায় তিন কোটি টাকা হাতিয়ে  নিয়ে লাপাত্তার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অনেক কষ্টে ঘরের নামে টাকা জমা দেয়া ভুক্তভোগীরা চেয়ারম্যান ও স্থানীয়দের মৌখিক অভিযোগ করেছেন। 

জানা যায়, উপজেলার ডাংধরা ইউনিয়নের নিমাইমারী গ্রামে সাজেদুল ইসলামের বাড়িতে দুটি রুম সাত মাস আগে ভাড়া নেয় এবং ঘরের দেয়ালে এনজিওর সাইন বোর্ড ঝুলিয়ে দিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করেন। এতে ফিল্ড অফিসার রেজাউল করিম রেজা, একাউন্টস অফিসার সাজু আহমেদ, ম্যানেজার রনি আহমেদ ও অডিট ম্যানেজার হিসেবে কামরুজ্জামান বন্ধন অফিসটি পরিচালনা করতেন। পরে ইউনিয়নের মাঠ পর্যায়ে বিভিন্ন গ্রাম থেকে ১৩ জন কর্মী নিয়োগ দিয়ে সদস্য সংগ্রহ করেন। ঘর ও শিশু কার্ড দেয়ার প্রলোভনে প্রত্যেক সদস্যের কাছে থ্রি কোয়ার্টার ঘরের জন্য ৪৫/৫০ হাজার টাকা ও শিশু কার্ডের নামে ৭৭৫ টাকা করে নেয়া হয়। এতে চর আমখাওয়া ও ডাংধরা ইউনিয়ন এর বিভিন্ন গ্রামের সহজ সরল মানুষের কাছ থেকে প্রায় তিন কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে এখন লাপাত্তা ভুয়া এনজিওটি। এতে দিশেহারা ভুক্তভোগীরা। 

ভুক্তভোগী মালা খাতুন  বলেন, আমি ভিক্ষা করে খাই। ঋণ, ধারদেনা করে সেই অফিসের কর্মী পারভীন এর কথা শুনে অনেক কষ্ট করে ৪৫ হাজার টাকা দিয়েছি। আমি অফিসে গিয়ে দেখি ঘরের দরজা তালা বদ্ধ। পরে লোক মুখে শুনি পালাইয়া গেছে। এখন আমি কি করবো, আমার সব শেষ। আমি কি ভাবে ঋণ ধারদেনা পরিশোধ করবো। 

অন্য ভুক্তভোগী আলামিন বলেন, অলিখিত পরিচালনা দায়িত্বে স্থানীয় মেম্বার বখতিয়ার (বক্তো) এর কথা শুনে ২৫ হাজার টাকা দিয়েছি পনেরো হাত ঘরের জন্য। আমায় শুধু খুটি দিছে, পরে শুনি এনজিও পালাইয়া গেছে। তবে এই অফিসের প্রায় সব কাজ অলিখিতভাবে পরিচালনা করতো মেম্বার বখতিয়ার (বক্তো)। 

ওই অফিসে কর্মরত আসমাউল হুসনা নামে এক কর্মী বলেন, বিভিন্ন গ্রাম থেকে আমাদের ১৩ জন কর্মীকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। সাত হাজার থেকে আট হাজার টাকার মধ্যেই আমাদের বেতন নির্ধারণ করা হয়েছিল। আমাদের মূল কাজ ছিল, গ্রামে গ্রামে গিয়ে মানুষকে ঘর ও শিশু ভাতার কার্ডের  নাম দেওয়ার কথা  বলে টাকা নিয়ে অফিসে জমা দেওয়া। বিশ হাত ঘরের জন্য অফিস নির্ধারিত  ৪৫/৫০ হাজার টাকা ও শিশু ভাতার জন্য ৭৭৫ টাকা করে অফিসে জমা দেওয়া হয়েছে। হুসনা আরো বলেন, অফিসের নির্ধারিত টাকার চেয়েও অনেক কর্মীরা মানুষের কাছ থেকে বেশি টাকা নিয়েছে।

এ বিষয়ে মেম্বার বখতিয়ারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার দুই মেয়ে ওই অফিসের কর্মী হিসেবে কাজ করতো। ডাংধরা  ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান ও চর আমখাওয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জিয়াউল ইসলাম জিয়া, এই অফিসের একটি কাগজে সহি করে দিয়েছে। যেটা আমরা দেখে বিষয়টিকে আরো সত্যি ভেবে মানুষের কাছ থেকে টাকা এনে অফিসে জমা দিয়েছি । তিনি আরো বলেন, চেয়ারম্যানরা যেহেতু বিষয়টি জানে তাই কোন সমস্যা হবে না এটাই ভেবেছি আমরা।

এই বিষয়ে ডাংধরা ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান মোঃ আজিজুর রহমান বলেন, বিভিন্ন মাধ্যমে আমার কাছে কিছু মানুষ অভিযোগ করেন। ঘর দেওয়ার নামে ৪৫/৫০ হাজার টাকা নিচ্ছে। আমি এনজিও পরিচালকদের ডেকেছিলাম। তাদের কাজ সঠিক আছে কিনা জানার জন্য। পরে আমি ও চর আমখাওয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জিয়াউল ইসলাম জিয়া মিলে তাদের কাছে জানতে পারি হতদরিদ্রদেরকে ২০ হাত করে ঘর দেবে। দরিদ্রদেরকে দিয়ে উপকারের জন্য তাদের কাগজে সহি করে দেই। পরে শুনতে পাই ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে প্রায় ৩ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে এনজিও পালিয়ে গিয়েছে।

এ ব্যাপারে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদ হাসান প্রিন্স বলেন, এই এনজিও টাকা নিয়ে লাপাত্তার বিষয়ে আমার কাছে অভিযোগ এসেছে। ৫ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি করা হয়েছে তদন্ত রিপোর্ট অনুযায়ী আইনগত  ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরও খবর



মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে গাঁজা সহ গ্রেফতার দুই

প্রকাশিত:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ | ৯২জন দেখেছেন

Image
জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে গাঁজা সহ আসামী মো. লিটন  (৩৭) ও নুরুল হুদা (৩০)কে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ।

সোমবার  (৮ জুলাই) , রাত  ১১টার দিকে  মাটিরাঙ্গা থানার একটি চৌকস দল মাটিরাঙ্গা থানা এলাকায় মাদকদ্রব্য/অবৈধ অস্ত্র/চোরাচালান উদ্ধার ও ওয়ারেন্ট তামিল ডিউটি কারাকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাটিরাঙ্গা থানাধীন মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড গাজীনগর মোড়স্থ জনৈক জয়নাল আবেদীনের চা দোকানের সামনে মাটিরাঙ্গা টু গোমতী গামী পাকা রাস্তার উপর অভিযান পরিচালনা করে ৫০০ (পাঁচশত) গ্রাম গাঁজা (মাদকদ্রব্য) সহ আসামী  মোঃ লিটন(৩৭), ও নুরুল হুদা (৩০) কে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামী হলেন -মো.লিটন ( ৩৭) মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড দক্ষিন মুসলিম পাড়া এলাকার বাসিন্দা মো.হান্নান মিয়ার ছেলে।নুরুল হুদা (৩০)বেলছড়ি ইউনিয়ন এর মাষ্টার পাড়া ২নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মৃত কামাল হোসেন এর ছেলে।গ্রেফতারকৃত আসামীদ্বয়ের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা রুজু করতঃ আসামীদ্বয়কে বিধি মোতাবেক বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হবে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চীনে যাচ্ছেন আজ

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ | ১০৯জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হা‌সিনা চী‌নের প্রধানমন্ত্রী লি কিয়াংয়ের আমন্ত্রণে আজ সোমবার (৮ জুলাই) চার‌ দি‌নের সফ‌রে চীন যা‌চ্ছেন । ৮ থে‌কে ১১ জুলাইয়ের সফ‌রে দুই দে‌শের ম‌ধ্যে ২০‌টি সম‌ঝোতা স্মারক সই হওয়ার সম্ভাবনা র‌য়ে‌ছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

প্রধানমন্ত্রীর সফর নি‌য়ে রবিবার (৭ জুলাই) পররাষ্ট্র মন্ত্রণাল‌য় আয়ো‌জিত সংবাদ স‌ম্মেল‌নে এ তথ্য জানান তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও জানান, প্রধানমন্ত্রীর সফ‌রে প্রায় ২০‌টির ম‌তো সম‌ঝোতা স্মারক সই হওয়ার সম্ভাবনা র‌য়ে‌ছে। প্রধানমন্ত্রীর সফ‌রে কিছু প্রকল্পও ঘোষণা করা হ‌বে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চীনের প্রধানমন্ত্রী লি কিয়াংয়ের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন এবং চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। বিশেষ করে শি জিনপিংয়ের সঙ্গে শেখ হাসিনার বৈঠকেই সবার নজর থাকবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসন্ন চীন সফর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হতে যাচ্ছে। কারণ এই সফর ঢাকা-বেইজিংয়ের মধ্যে উন্নয়ন সহযোগিতা ও সম্পর্ককে উল্লেখযোগ্যভাবে এগিয়ে নিয়ে যাবে। তিনি চীনকে বাংলাদেশের বৃহত্তম উন্নয়ন ও বাণিজ্য অংশীদার উল্লেখ করে বলেন, তারা বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে বাণিজ্য ব্যবধান কমানোর বিষয়েও আলোচনা করবেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



ঈদযাত্রায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২৬২ জন নিহত

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ | ১৪৪জন দেখেছেন

Image

খবর প্রতিদিন ২৪ডেস্ক:ঈদুল আজহার আগে-পরে ১৩ দিনে (১১ জুন থেকে ২৩ জুন পর্যন্ত) দেশে ২৫১টি সড়ক দুর্ঘটনায় ২৬২ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে কমপক্ষে ৫৪৩ জন।আজ সোমবার রোড সেফটি ফাউন্ডেশন এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

নিহতের মধ্যে নারী ৩২, শিশু ৪৪। ১২৯টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত ১০৪ জন, যা মোট নিহতের ৩৯.৬৯ শতাংশ। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার হার ৫১.৩৯ শতাংশ। দুর্ঘটনায় ৪৯ জন পথচারী নিহত হয়েছে, যা মোট নিহতের ১৮.৭০ শতাংশ। যানবাহনের চালক ও সহকারী নিহত হয়েছেন ২৮ জন, অর্থাৎ ১০.৬৮ শতাংশ। এই সময়ে ৭টি নৌ-দুর্ঘটনায় ১২ জন নিহত এবং ৩ জন আহত হয়েছে। ১৬টি রেলপথ দুর্ঘটনায় ১৪ জন নিহত এবং ৮ জন আহত হয়েছে। রোড সেফটি ফাউন্ডেশন ৯টি জাতীয় দৈনিক, ৭টি অনলাইন নিউজ পোর্টাল এবং ইলেক্ট্রনিক গণমাধ্যমের তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ বলছে,ঈদুল আজহা উদযাপনকালে সংঘটিত সড়ক দুর্ঘটনায় যে পরিমাণ মানব সম্পদের ক্ষতি হয়েছে তার আর্থিক মূল্য ৯ শত ৯৮ কোটি ৫৫ লাখ ৩৭ হাজার টাকার মতো। 



আরও খবর



তরুন সমাজকে মাদকমুক্ত করতে গোদাগাড়ীতে ৩ দিন ব্যাপী নাইট মিনি ফুটবল ফাইনাল খেলা

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ | ১২৪জন দেখেছেন

Image

মুক্তার হোসেন,গোদাগাড়ী(রাজশাহী)প্রতিনিধিঃরাজশাহীর গোদাগাড়ী পৌরসভার তরুন সমাজকে মাদকমুক্ত করতে প্রকৌশলী এরশাদ আলী আকাশের উদ্যোগে তরুনদের নিয়ে ৩ দিন ব্যাপী নাইট মিনি ফুটবল ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়।বৃহস্পতিবার রাত ৯ টা থেকে ১২ টা পর্যন্ত জাহানাবাদ ঈদগাহ মাঠে জাহানাবাদ সমাজ কল্যান ০২-০১ রাব্বানী একাদশকে হারিয়ে চাম্পিয়ন হয়।গোদাগাড়ী পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড যুবলীগ সাধারন সম্পাদক জুয়েল রানার সভাপতিত্বে খেলায় প্রধান অতিথি ছিলেন,৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মুহাম্মদ ওবাইদুল্লাহ।বিশেষ অতিথি ছিলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লেদার ইনস্টিটিউট ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক,ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সহসম্পাদক ও লেস ফুটওয়্যার বিডির চেয়ারম্যান গোদাগাড়ীর কৃতিসন্তান প্রকৌশলী এরশাদ আলী আকাশ,গোদাগাড়ী পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত সচিব সারওয়ার জাহান মুকুল,ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি এমদাদুল হক টুটুল,সাধারন সম্পাদক মোমিনুল ইসলাম মোমিন প্রমূখ।

খেলা শেষে চাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দলকে ট্রফি তুলে দেন অতিথিরা। খেলাটি সার্বিকভাবে পরিচালনা করেন পৌর ছাত্রলীগ সাধারন সম্পাদক আব্দুল মালেক নয়ন।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রনেতা ও লেস ফুটওয়্যার বিডির চেয়ারম্যান গোদাগাড়ীর কৃতিসন্তান প্রকৌশলী এরশাদ আলী আকাশ বলেন, মাদক একটি সামাজিক ব্যাধিতে পরিণত হয়েছে। যুবসমাজকে মাদক থেকে দূরে রাখতে খেলাধুলার কোনো বিকল্প নেই। যুবক ও তরুণদের খেলাধুলার মধ্যে রাখতে হবে। খেলাধুলা করলে যেমন শরীর ভালো থাকে তেমনি মনও ভাল থাকবে। তিনি আরো বলেন, আমার সাথে কারও রক্তের সম্পর্ক নেই। এ অঞ্চলের মানুষের সাথে আত্নার সম্পর্ক  আছে থাকবে। আর খেলার মাঠের বিষয়ে এখানকার জনপ্রতিনিধিদের সাথে থেকে একটি খেলার মাঠের ব্যবস্থা করা হবে।শিক্ষক নেতৃবৃন্দ, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন এবং আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার ১২-১৫হাজার মানুষ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর