Logo
আজঃ Monday ০৩ October ২০২২
শিরোনাম

ডেমরায় যৌতুক লোভী, পরনারীআসক্ত,দুশ্চরিত্র,ধর্ষক,নির্যাতনকারী স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীর মামলা

প্রকাশিত:Tuesday ২০ September ২০22 | হালনাগাদ:Monday ০৩ October ২০২২ | ৯৯জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাজধানীর ডেমরায় স্বামীর পরকীয়া,যৌতুকের দাবীতে নির্যাতন,  সইতে না পেরে মামলা করেছেন তানিয়া আক্তার নামের এক নারী। যৌতুুক দাবী করে ২ লক্ষ টাকা পেয়েও বদলাননি পরকীয়াসক্ত স্বামী ফয়সাল মিয়া এমনই অভিযোগ ডেমরা চিশতিয়া রোডের ভুক্তভোগী ওই স্ত্রীর।এছারাও অভিযুক্ত ফয়সাল মিয়ার বিরুদ্ধে যাত্রাবাড়ি থানায় অপ্রাপ্ত বয়স্ক এসএসসি পরীক্ষার্থী আরক কিশোরীকে নানা প্রলোভন দেখিয়ে আবাসিক হোটেলে নিয়ে রাতভর ধর্ষন করার অভিযোগে  ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন একটি মামলা রুজ্জু হয়েছে।




স্বামীকর্তৃক যৌতুকের দাবীতে বর্বরতম নির্যাতন থেকে রেহাই পেতে উপযুক্ত বিচার চেয়ে গত ১৫ সেপ্টেম্বর ঢাকার বিজ্ঞ সিএমএম আদালতে মামলা করেছেন নির্যাতিতা  স্ত্রীর তানিয়া।  





আদালতে মামলার পিটিশনে লিখিত বক্তব্যে জানা যায়,স্বামী ফয়সাল মিয়ার সাথে গত ১০ অক্টোবর ২০১৯ সালে ২০ লক্ষ টাকা দেন মোহর ধার্য্য করে তানিয়ার বিবাহ হয়।বিয়ের কিছুদিন যেতে না যেতেই স্বামী ফয়সাল মিয়া অন্য নারীদের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে।এ বিষয়ে তানিয়া প্রতিবাদ করলে সে তাকে প্রায়ই  শারিরিক ও মানষিক নির্যাতন করত।একপর্যায়ে ফয়সাল মিয়া তার স্ত্রীকে বাপের বাড়ি থেকে ২ লক্ষ টাকা যৌতুক বাবদ এনে দিতে বলেন,অন্যথায়. সে পরকীয়া করবে বলে হুমকি দেন।স্বামীর দাবীর মুখে ২০২০ সালে স্ত্রী তানিয়া ১ লক্ষ টাকা বাপের বাড়ি থেকে এনে যৌতুক দেন।অভিযুক্ত স্বামী সেই টাকা দিয়ে মাদক সেবন করে এবং নানা বয়সী মেয়েদের সাথে পরকীয়া করতে থাকে।




গত২০২২ সালের ২৮ জুন ১৬ বছরের নাবালিকা এক মেয়েকে বিবাহের কথা বলে ফুসলিয়ে অপহরনের পর ধর্ষন করে।সেই মামলায় জেলথেকে ছাড়া পেয়ে আবারো তার স্ত্রীর তানিয়ার কাছে ২ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে।এতে ভুক্তভোগী স্ত্রী রাজী না হওয়ায় ফয়সাল মিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে চুলের মুঠি ধরে টেনে মেঝেতে ফেলে দেয় এবং তানিয়ার তলপেটে, বুকে সজোরে লাথি মারতে থাকে।স্ত্রী তানিয়ার চিৎকারে লোকজন এগিয়ে এসে তার প্রান বাঁচায়।পরে ফয়সাল অন্যত্র বিয়ে করবে বলে হুমকি দিয়ে চলে যায়।


অভিযুক্ত স্বামী পলাতক রয়েছেন বলে জানাগেছে।


ফয়সাল মিয়া চাঁদপুর জেলার মতলব থানার শিবপুর তাতুয়া গ্রামের হযরত আলীর ছেলে।


বিষয়টির ব্যাপারে সরাসরি কথা হয় ভুক্তভোগী নারী তানিয়ার সাথে। তিনি জানান, কতোটা নির্যাতন হলে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করে স্ত্রী। বিয়ের ৩ বছর ধরে যৌতুক লোভী স্বামীর নির্যাতন সয়ে আসছি। সংসার ও ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে মুখ বুজে সয়ে এসেছি। কিন্তু এখন আর পারছি না। তিনি যৌতুক লোভী, একাধিক মেয়ের সাথে তার সম্পর্ক রয়েছে এবং সহজ সরল মেয়েদের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলেছে পরনারীআসক্ত,দুশ্চরিত্র,ধর্ষক,নির্যাতনকারী ফয়সাল মিয়ার দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবী করেছেন।


আরও খবর