Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা
নৃশংস হত্যাকাণ্ড

ডেমরায় চোরের অপবাদ দিয়ে যুবককে পিটিয়ে হত্যার হুকুমদাতার নাম নেই মামলায়

প্রকাশিত:Sunday ১৯ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ২৬০জন দেখেছেন
Image

এ.আর হানিফঃ

রাজধানীর ডেমরা বাদশা মিয়া রোড এলাকায় রাকিব রহমান (৩৫) নামে এক যুবককে চুরির অপবাদ দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।মামলায়এ হত্যাকান্ডের হুকুমদাতা আনোয়ার হোসেন মৃধার নাম বাদ দেয়ায় ক্ষুব্ধ নিহতের পরিবার।


শুক্রবার ১৭ জুন সকালে এই ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের পর এ ঘটনায় ৮ জনকে অভিযুক্ত করে ডেমরা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

নিহত রাকিব রহমানের স্ত্রী মুন্নী সংবাদ কর্মীদের জানান, "রাকিব রহমান ডেমরার বড় পাইটি এলাকায় একটি মুদি দোকান পরিচালনা করে জীবিকা নির্বাহ করতেন,ঘটনার দিন ভোরবেলা রাকিবের মোবাইলে একজন  করে ডেমরা এলাকার বাদশা মিয়া রোডের ৬নং গলির ভেতর স্যাটেলাইট গার্ডেন-২ নামক নির্মানধীন একটি ভবনের সামনে ডেকে নিয়ে যায়,সেখানে পুর্ব পরিকল্পনামতে স্যাটেলাইট গার্ডেন-২ ভবনের মালিক আনোয়ার হোসেন মৃধার নির্দেশে মামলার আসামীরা যথাক্রমে সাদ্দাম হোসেন,কেয়ারটেকার আশিক,নাজমুল,মোঃ শাহীন,মোঃ মিলন,মোঃ শফিকুল,আজিজার ও লেবার কন্ট্রাকটর সোহাগ সহ আরো ৪/৫ জন মিলে পরস্পর যোগসাজোশে আমার স্বামীকে পুর্বপরিকল্পিত ভাবে হত্যার উদ্দ্যেশ্যে পিটিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত জেনে রাস্তার উপড় ফেলে রাখে।আমি খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে আমার ভাসুর সুজন এবং মিঠু খানের সহায়তায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।ঘটনাস্থলে আশপাশের মানুষের কাছ থেকে জানতে পারি ভবনের মালিক আনোয়ার হোসেন মৃধার নির্দেশে আমার স্বামী রাকিব রহমান খুন হয়েছেন।আমি মামলায় অভিযোগ দায়ের করার সময় আনোয়ার হোসেন মৃধার নাম বারবার বলার পরেও পুলিশ তাকে বাদ দিয়ে তড়িঘরি করে মামলাটি দায়ের করে।এ সময় স্যাটেলাইট গার্ডেন-২ ভবনের মালিক আনোয়ার হোসেন মৃধার নাম মামলায় না দিতে তার পক্ষে কয়েকজন আমাকে অনুরোধ করে এবং মোটা অংকের টাকা দেওয়ার প্রস্তাব দেয়।আমি তাদের প্রস্তাবে রাজী না হলে তারা ডেমরা থানার পুলিশকে মোটা অংকের টাকা দিয়ে মামলার এজাহার থেকে তার নাম বাদ দিয়ে দেয়।"



সরেজমিনে অনুসন্ধান করে জানাগেছে, নিহত রাকিব রহমান ডেমরার বড় পাইটি এলাকার খলিল রহমানের ছেলে। তাদের গ্রামের বাড়ি দিনাজপুর জেলায়।ডেমরার পাইটিএলাকায় তার মুদি দোকানের ব্যাবসা রয়েছে।তিন মাস আগে তার পিতা মারা যান।পাইটি এলাকায় তার নিজ বাড়িতে স্ত্রী মুন্নীকে নিয়ে বসবাস করতেন।তার এগারো বছরের পঞ্চম শ্রেনীতে পড়ুয়া একটি কন্যা সন্তান এবং ৪ বছর বয়সী একটি ছেলে আছে।


 এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে শাহিন মিয়া (২৫) ও নাজমুল (২৪) নামে দুজনকে আটক করলেও মামলার অন্য আসামীরা পলাতক রয়েছে।অন্যদিকে হত্যাকা্ন্ডে হুকুমদাতা আনোয়ার হোসেন মৃধা ধরাছোয়ার বাইরে থাকায় ন্যায় বাচার থেকে বঞ্চিত হওয়ার আশংকা করছেন বাদীর পরিবার।

এবিষয়ে ডেমরা থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি শফিকুল ইসলাম জানান,"বাদীর লিখিত এজাহার মোতাবেক মামলাটি রুজ্জু হয়েছ,আনোয়র হোসেন মৃধার বিরুদ্ধে হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার কোন আলামত পাওয়া যায়নি,যতদুর জেনেছি ঘটনার সময় তিনি স্পটেওছিলেন না,তার পরেও যদি আনোয়ার হোসেন মৃধার বিরুদ্ধে কোন তথ্য প্রমান পাওয়া যায় তবে ন্যায় বিচারের স্বার্থে অবশ্যই মামলায় তাকেও সেন্ড আপ করা হবে,ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হওয়ার কোন কারন নেই।"


 স্যাটেলাইট গার্ডেন-২ নামক নির্মানধীন ভবন মালিক আনোয়ার হোসেন মৃধা জানান,"আমার বিরুদ্ধে এ ঘটনায় তদন্ত করে পুলিশ কোন তথ্য পায়নি,আমি কোন ভাবে এ হত্যাকান্ডে সম্পৃক্ত নই,পুলিশ ঘটনার সময়ে সিসিটিভিতে ধারন করা সব ফুটেজ নিয়ে তদন্ত করছে।"


আরও খবর



ঘরের পরিবেশ দূষণমুক্ত রাখবেন যেভাবে

প্রকাশিত:Sunday ০৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৮৭জন দেখেছেন
Image

একজন নাগরিক হিসেবে ঘর ও বাইরের পরিবেশ দূষণমুক্ত রাখার দায়িত্ব সবার। পরিবেশ দূষণ বেড়ে যাওয়ার ক্ষতিকর প্রভাব এখন পড়ছে ছোট-বড় সবার শরীরেই।

চাইলে সচেতনতার মাধ্যমে পরিবেশ দূষণমুক্ত রাখতে পারেন সবাই। এই অনুশীলন প্রথম ঘর থেকেই শুরু করা জরুরি। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক ঘরের পরিবেশ দূষণমুক্ত রাখবেন কীভাবে-

>> প্রথমেই বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতির ব্যবহার কমিয়ে দিতে হবে। এটি শক্তি সংরক্ষণের সর্বোত্তম উপায়। আপনি এমন যন্ত্রপাতি কিনতে পারেন যা শুধু পরিবেশবান্ধব নয় বরং শক্তি সাশ্রয়ীও।

বিদ্যুৎ সংরক্ষণের সর্বোত্তম উপায় হলো প্রয়োজন ব্যতীত সব ধরনের আলো ও যন্ত্রপাতি বন্ধ করে দেওয়া। গরম পানির বদলে ঠান্ডা পানি এমনকি ওয়াশিং মেশিনের বদলে হাত দিয়ে কাপড় ধোয়ার অভ্যাস গড়তে পারেন। এভাবে বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতির ব্যবহার কমাতে হবে ধীরে ধীরে।

>> ঠিক একইভাবে বাইরের পরিবেশ দূষণমুক্ত রাখতে গাড়ি কম চালান। জানেন কি, বিশ্বে এমনো দেশ আছে যেখানে সবাই গাড়ির বদলে সাইকেল ব্যবহার করেন শুধু পরিবেশ দূষণমুক্ত রাখতে।

আর গাড়ি চালালেও এর লিক এয়ার কন্ডিশন মেরামত করুন নিয়মিত। গাড়িতে গ্যাস ভরার সময়ও আপনাকে সতর্ক থাকতে হবে যাতে তা ছিটকে না যায়। আপনি মোটর তেলও ব্যবহার করতে পারেন।

>> অনেকেই বাড়িতে রান্নার জন্য মাটির চুলা ব্যবহার করেন। তবে এ ধরনের চুলা বাতাসে অতিরিক্ত ধোঁয়া তৈরি করে, যা পুরো পরিবারের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এর পরিবর্তে আপনি শক্তি সাশ্রয়ী যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে খাবার রান্না করতে পারেন। এতে খরচও কমবে আবার দ্রুত রাঁধতেও পারবেন।

>> বাড়ির পরিবেশ ভালো রাখতে সবুজ গাছপালা, জীব ও প্রাণীদের সঙ্গে ভালো মিথস্ক্রিয়ার জন্য একটি ইকো সিস্টেমের প্রয়োজন। তবে অত্যধিক বায়ু দূষণ ও গ্লোবাল ওয়ার্মিংয়ের কারণে সমগ্র ইকো সিস্টেম আজ নেতিবাচকভাবে প্রভাবিত। চাইলে আপনার দৈনন্দিন জীবনযাত্রার সামান্য পরিবর্তন মাধ্যমে এই ইকোসিস্টেম বজায় রাখতে পারেন।

>> পরিবেশকে সরাসরি দূষিত করে এমন সর্বাধিক ব্যবহৃত গৃহস্থালি রাসায়নিক ও কীটনাশক ব্যবহার বন্ধ করতে হবে। তার পরিবর্তে আপনি পাতিত ভিনেগার, লেবু ও বেকিং সোডা ব্যবহার করে বাসনপত্রসহ বিভিন্ন জিনিস পরিষ্কার করতে পারেন। বাজারে অনেক প্রাকৃতিক ক্লিনিং পণ্য পাওয়া যায় যা পরিবেশবান্ধব ক্লিনার।

>> বর্জ্য পণ্য পুনর্ব্যবহার করুন। কাচ, প্লাস্টিক, অ্যালুমিনিয়াম ও কাগজের মতো অনেক বর্জ্য পণ্য ডাস্টবিনে ফেলার পরিবর্তে পুনর্ব্যবহৃত করতে পারেন। নিষ্পত্তিযোগ্য প্লাস্টিক বা ব্যাগ ব্যবহার করার পরিবর্তে পুনরায় ব্যবহারযোগ্য জিনিস ব্যবহার করুন।

>> অতিরিক্ত বায়ু দূষণের কারণে কার্বন ফুটপ্রিন্ট কমানোর অনেক উপায় আছে। যেমন ওয়াটার হিটার, ডিশওয়াশার, এয়ার কন্ডিশনার ইত্যাদি ব্যবহার কমাতে পারেন। এতে ঘরের পরিবেশ ভালো থাকবে।

>> স্থানীয়ভাবে বিভিন্ন শাক-সবজি ও ফলমূল চাষ করুন। এসব খাবার শরীরের জন্য ভালো আবার বাড়ি ও পরিবেশের দূষণও রোধ হবে।

>> বাড়ির দূষণ কমাতে বিষাক্ত ও নোংরা পদার্থের ব্যবহার কমাতে হবে। স্বাস্থ্যকর পরিবেশ পেতে ঘর থেকেই অনুশীলন শুরু করুন। এজন্য ঘরের সব বর্জ্য পদার্থ সঠিক উপায়ে নিষ্পত্তি করুন।

>> বাড়ির আশপাশে কোথাও আবর্জনা বা বর্জ্য পদার্থ ফেলবেন না। আপনাকে অবশ্যই বায়োডিগ্রেডেবল ও নন-বায়োডিগ্রেডেবল বর্জ্যগুলোকে সঠিক উপায়ে নিষ্পত্তি করতে হবে।

সূত্র: গ্রিন ডায়েরি


আরও খবর



ডিবিসির প্রযোজক বারী হত্যার রহস্য উদঘাটনে সময় লাগবে: ডিবি

প্রকাশিত:Friday ১০ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৪৩জন দেখেছেন
Image

রাজধানীর হাতিরঝিল লেকপাড় এলাকা থেকে ডিবিসি নিউজের প্রযোজক আবদুল বারীর মরদেহ উদ্ধার করে গুলশান থানা পুলিশ। এটাকে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড আখ্যায়িত করে পুলিশ জানিয়েছে, এ ঘটনার রহস্য উদঘাটন করতে সময় লাগবে।

শুক্রবার (১০ জুন) ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিবি প্রধান) এ কে এম হাফিজ আক্তার এ কথা জানান। রাজধানীর ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ডিবিসি নিউজের প্রযোজক আবদুল বারীর হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করতে ডিবি, পিবিআই ও সিআইডিসহ অনেকগুলো সংস্থা একসঙ্গে কাজ করছে। ঘটনাস্থল থেকে ভিকটিমের একটি ফোন পাওয়া গেছে। আমার জানা মতে ফোনটি ওপেন করা যায়নি।

ডিবি প্রধান বলেন, এই মামলার তদন্তে অনেক বিষয় সামনে নিয়ে একসঙ্গে কাজ করা হচ্ছে। হত্যার রহস্য উদঘাটনে ভিকটিমের মরদেহ যে এলাকায় উদ্ধার হয়েছে সেসব বিষয়সহ অনেক বিষয় মেলাতে হবে। রহস্য উদঘাটনে আমাদের আরও সময় লাগবে।

এ কে এম হাফিজ আক্তার আরও বলেন, নিহত ব্যক্তি একজন অত্যন্ত মৃদুভাষী মানুষ ছিলেন। তিনি যেখানে চাকরি করতেন সেখানেও খুবই কম কথা বলতেন। তার খুব বেশি লোকজন পরিচিত ছিল না।

এর আগে, বুধবার (৮ জুন) সকালে রাজধানীর হাতিরঝিল লেকপাড়ের গুলশান পুলিশ প্লাজার উল্টো দিকের সড়ক থেকে ডিবিসি নিউজের প্রযোজক আবদুল বারীর মরদেহ উদ্ধার করে গুলশান থানা পুলিশ।

এ ঘটনায় নিহতের ভাই বাদী হয়ে গুলশান থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তাকে হত্যা করে হয়ে থাকতে পারে।


আরও খবর



৩ চোরাই গরুর মালিককে খুঁজছে পুলিশ

প্রকাশিত:Monday ২৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ২০জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে একটি সন্দেহভাজন পিকআপ ভ্যান থেকে তিনটি চোরাই গরু উদ্ধার করেছে পুলিশ। গরু তিনটির মালিককে খুঁজছে মিরসরাই থানা পুলিশ।

মিরসরাই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাজিব চন্দ্র পোদ্দার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, রোববার (২৬ জুন) রাতে ডিউটি চলাকালীন সময়ে উপজেলা মিঠাছড়া বাজারে চট্টগ্রামমুখী একটি পিকআপ ভ্যান তল্লাশি চালানো হয়। এ সময় তিনটি চোরাই গরু আটক করা হয়। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আগেই পালিয়ে যান পিকআপ চালক।

মিরসরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কবির হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, সন্দেহভাজন পিকআপ তল্লাশি করে গরুগুলো পাওয়া যায়। উপযুক্ত প্রমাণ পেলে গরুর মালিককে ফেরত দেওয়া হবে।


আরও খবর



হাটহাজারীতে আবাসিক মহিলা মাদরাসায় অগ্নিকাণ্ড

প্রকাশিত:Tuesday ১৪ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৫৭জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে একটি আবাসিক মহিলা মাদরাসায় অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে।

সোমবার (১৩ জুন) রাত সোয়া ৯টায় উপজেলার ফতেয়াবাদ বাজারের ইডেন সিটি এলাকার জুন্নুরাইন মহিলা হেফজখানা মাদরাসায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, আগুনে ওই মাদরাসার নিচতলায় থাকা মোটরসাইকেল, কম্পিউটার, শিক্ষার্থীদের পোশাকসহ বিভিন্ন মালামাল পুড়ে গেছে। ফায়ার সার্ভিসের দাবি, গ্যাস সিলিন্ডারের পাইপ ছিদ্র হয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

হাটহাজারী ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মুহাম্মদ শাহজাহান জাগো নিউজকে বলেন, গ্যাস সিলিন্ডারের পাইপ ছিদ্র হয়ে মাদরাসার রান্নাঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এতে বড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পায় মাদরাসাটি। অগ্নিকাণ্ডে মাদরাসার কম্পিউটার, মোটরসাইকেলসহ পাঁচ লাখ টাকার মালামাল পুড়ে গেছে।


আরও খবর



২৬ জুন থেকে কলেরার মুখে খাওয়ার টিকা কার্যক্রম শুরু

প্রকাশিত:Tuesday ১৪ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
Image

আগামী ২৬ জুন থেকে কলেরার মুখে খাওয়ার টিকা কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

মঙ্গলবার (১৪ জুন) বিকেলে রাজধানীর মহাখালী আইসিডিডিআর,বি অডিটোরিয়ামে আয়োজিত এক আলোচনা সভা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ডায়রিয়ার প্রকোপ মোকাবিলায় রাজধানীর ঝুঁকিপূর্ণ পাঁচ এলাকার ২৩ লাখ মানুষকে মুখে খাওয়ার কলেরা টিকা দিবে সরকার। অন্তঃসত্ত্বা ব্যতীত এক বছরের বেশি সব বয়সের মানুষকে এই টিকা দেওয়া হবে।

জাহিদ মালেক বলেন, দুই ডোজের এই টিকা কর্মসূচির প্রথম ডোজ দেওয়া হবে ২৬ জুন। পরবর্তীতে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হবে।

এর আগে, গত ২৮ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম জানান, ঢাকায় ডায়রিয়ার প্রকোপ নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আগামী ১৫ মে’র মধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বাংলাদেশকে ৭৫ লাখ কলেরার টিকা দিবে।

গত ১৩ এপ্রিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম জানান, রাজধানীতে ২৩ লাখ মানুষকে কলেরার টিকা খাওয়ানো হবে।

তিনি বলেন, ডায়রিয়াজনিত সমস্যার কারণ নির্ণয় ও সমাধানে ওয়াসার সঙ্গে আলোচনা হচ্ছে। ডায়রিয়া হঠাৎ কোনো সমস্যা নয়। এটা প্রায়ই হয়, আমরা এটি নিয়ে কাজ করছি। যদি পানিতে কোনো সমস্যা থেকে থাকে, তবে ওয়াসা সেটি দেখবে। আমরাও আমাদের সেবা চালিয়ে যাবো।


আরও খবর