Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

ডেমরা সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসে একরাম হোসেন একজন কর্মবীর মানুষ

প্রকাশিত:Tuesday ২৬ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১৯৭জন দেখেছেন
Image

নাজমুল হাসানঃ

ডেমরা সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের ভারপ্রাপ্ত অফিস সহকারী একরাম হোসেন একজন কর্মবীর মানুষ।অনন্য কর্মদক্ষতায় তিনি ডেমরা সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসে কাজের গতিশীলতা ফিরিয়ে এনেছেন।তিনি নিজে সৎ ও ভালো মানুষ হিসেবে প্রচণ্ড চাপের মুখেও সহজে মেজাজ খারাপ করেন না।


সেবাগ্রহীতারা জানান, সবার সাথে সদা হাসি মুখে সীমিত সামর্থ্যের মধ্যে সর্বোচ্চ সেবা প্রদানে সদা তৎপর থাকেন ডেমরা সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের ভারপ্রাপ্ত অফিস সহকারী একরাম হোসেন। দলিল সম্পাদনের গুরুত্বপুর্ন ধাপগুলো তিনি দ্রুত প্রক্রিয়া করে সাব-রেজিষ্টারের টেবিলে উত্থাপন করেন।


ডেমরা সাবরেজিস্ট্রি অফিসের নতুন যোগদানকারী সাব-রেজিষ্ট্রার কাওসার খান অফিসের পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে শুদ্ধি অভিযান ঘোষনা করেন।তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে যে কজন কর্মচারী সঠিকভাবে কর্ম সম্পাদনা করেন তাদের মধ্যে অন্যতম অফিস সহকারী একরাম হোসেন।


ডেমরা সাবরেজিস্ট্রি অফিসের ভারপ্রাপ্ত সহকারী একরাম হোসেন জানান,"সব সময় চিন্তা করি আমার উপড় ন্যাস্ত কর্তব্য সুচারুভাবে সম্পন্ন করতে,আবার নতুন সাব-রেজিষ্ট্রার হিসেবে কাওসার খান স্যারের যোগদানের পর অফিসের পরিবেশ অনেকটা পাল্টে যেতে শুরু করেছে,কোথাও বিন্দু পরিমান অসংগতি তিনি মেনে নিতে চান না,তার কারনে  জনবান্ধব অফিসে পরিণত হয়েছে ডেমরা সাবরেজিস্ট্রি অফিস।


আরও খবর



মুদিদোকানে গাঁজার কারবার, ব্যবসায়ী আটক

প্রকাশিত:Monday ১৩ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৫৫জন দেখেছেন
Image

ভোলার মনপুরায় মুদিদোকানে অভিযান চালিয়ে সাড়ে তিন কেজি গাঁজাসহ মো. মিজান পাটোয়ারী (৩২) নামে এক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে।

রোববার (১২ জুন) রাতে উপজেলার ফকিরহাট বাজারে জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের একটি টিম অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে।

আটক মিজান পা‌টোয়ারী মনপুরা উপ‌জেলার হা‌জিরহাট ইউনিয়‌নের ৮ নম্বর ওয়া‌র্ডের চর‌ফৈজু‌দ্দিন গ্রা‌মের মো. র‌ফিজল পা‌টোয়ারীর ছে‌লে।

জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক এ কে এম দিদারুল আলম জানান, দীর্ঘদিন ধরে মু‌দিদোকানি মিজান পাটোয়ারীকে পর্যবেক্ষণ করছিল অধিদপ্তরের টিম। তিনি মুদিব্যবসার আড়ালে মাদক কারবার করতেন বলে অভিযোগ ছিল। রোববার তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে গাঁজাসহ তাকে হাতেনাতে আটক ক‌রা হয়। এসময় তার দোকান থেকে সাড়ে তিন কেজি গাঁজা জব্দ করা হয়।

আটক মিজান পাটোয়ারীর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের এ সহকারী পরিচালক।


আরও খবর



দক্ষিণ-মধ্যাঞ্চলে বৃষ্টি বাড়তে পারে তিনদিন পর

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৫৭জন দেখেছেন
Image

 

দেশের উত্তরাঞ্চলে বৃষ্টির প্রবণতা থাকলেও দক্ষিণ ও মধ্যাঞ্চলে বৃষ্টি বলতে গেলে নেই। তাই এ অঞ্চলে তাপমাত্রা বেড়ে গরমের কষ্ট পাচ্ছে মানুষ। আগামী দুই তিনদিনের মধ্যে এ অঞ্চলে বৃষ্টির প্রবণতা বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।

সোমবার খুলনা ও বরিশাল বিভাগ ছিলো প্রায় বৃষ্টিহীন। চট্টগ্রামে খুবই সামান্য বৃষ্টি হয়েছে। সোমবার সকাল ৬টা থেকে মঙ্গলবার সকাল ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৭৮ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে টাঙ্গাইলে। ঢাকায় কোন বৃষ্টি হয়নি।

আবহাওয়াবিদ লতিফুল নেওয়াজ কবির জাগো নিউজকে বলেন, এখন জৈষ্ঠ মাস, বৃষ্টি না হলে গরম থাকবে এটাই স্বাভাবিক। এখন রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট অঞ্চলে প্রচুর বৃষ্টি হচ্ছে। কোথাও কোথাও ১০০ মিলিমিটারে কাছাকাছি বৃষ্টি হচ্ছে। এখন পশ্চিমা লঘুচাপ সক্রিয় একইসঙ্গে রয়েছে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু। এখন দেশের উত্তর, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বেশি।

তিনি বলেন, এখন আবহাওয়ার বৈশিষ্ট্য এমন, যখন বৃষ্টিপাত হয় তখন তাপমাত্রা সহনীয় পর্যায়ে চলে আসে, আবার বৃষ্টিপাত কমে গেলে গরম বেড়ে অস্বস্তিকর অবস্থা তৈরি হয়। দেশের দক্ষিণ ও মধ্যাঞ্চলে বৃষ্টিপাত কমে যাওয়ার কারণে গরম বেশি অনুভূত হচ্ছে।

এই অবস্থাটা আরও দুই-তিন দিন থাকতে পারে জানিয়ে এই আবহবিদ বলেন, এরপর হয়তো বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বাড়বে। তখন হয়তো গরম সহনীয় পর্যায়ে চলে আসবে।

লতিফুল নেওয়াজ কবির বলেন, এবার দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে এবার উত্তরাঞ্চলে বৃষ্টিপাতটা একটু বেশি থাকতে পারে। পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর, সিলেট এই অঞ্চলে মূলত বৃষ্টিপাতের প্রবণতাটা বেশি থাকতে পারে।

মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায়; রাজশাহী, ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে দেশের উত্তরাঞ্চলের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে।

এ সময়ে সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আবহাওয়া বিভাগ জানিয়েছে, লঘুচাপের বর্ধিতাংশ বিহার থেকে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের উপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে দুর্বল থেকে মাঝারি অবস্থায় রয়েছে।

সোমবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৬ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিলো যশোরে। ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৫ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দর সমূহের জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা এবং সিলেট অঞ্চলের উপর দিয়ে দক্ষিণ বা দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।


আরও খবর



হাজী সেলিমের জামিন বিষয়ে আপিল শুনানি ১ আগস্ট

প্রকাশিত:Monday ০৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৫৩জন দেখেছেন
Image

জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুদকের মামলায় ১০ বছরের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য হাজী মোহাম্মদ সেলিমের জামিনের বিষয়ে কোনো আদেশ দেননি আপিল বিভাগের চেম্বার জজ আদালত। এ বিষয়ে শুনানির জন্য সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের নিয়মিত পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠান আদালত। আগামী ১ আগস্ট এ শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

সোমবার (৬ জুন) আপিল বিভাগের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের চেম্বার জজ আদালত এই আদেশ দেন।

আদালতে আজ হাজী সেলিমের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী সাঈদ আহমেদ রাজা। আর দুদকের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান।

এর আগে গত ২২ মে দুর্নীতির মামলায় হাইকোর্টের রায়ে ১০ বছরের কারাদণ্ড বহাল থাকায় উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুসরণ করে আত্মসমর্পণ করেন হাজী সেলিম। এরপর তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত। আদালতে আত্মসমর্পণ করে যে কোনো শর্তে জামিনের আবেদন করেন হাজী মোহাম্মদ সেলিম।

ওইদিন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৭ এর বিচারক শহিদুল ইসলাম এ আদেশ দেন।

এরপর ২৩ মে হাজী সেলিমকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) ভর্তি করা হয়। সেখানেই চিকিৎসা নিচ্ছেন তিনি

ওইদিন সকাল ৯টার দিকে অ্যাম্বুলেন্সে কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে বিএসএমএমইউতে আনা হয় আলোচিত এই সংসদ সদস্যকে।


আরও খবর



স্বাস্থ্যে থোক বরাদ্দ অর্ধেকে নামলো

প্রকাশিত:Thursday ০৯ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৩৪জন দেখেছেন
Image

কোভিড-১৯ মহামারিকালে স্বাস্থ্যখাতের যে কোনো জরুরি চাহিদা মেটাতে বিগত দুই অর্থবছরের বাজেটেই সরকার ১০ হাজার কোটি টাকা করে থোক বরাদ্দ রেখেছিল। নতুন অর্থবছরে স্বাস্থ্যখাতে থোক বরাদ্দ কমিয়েছে সরকার। এবার স্বাস্থ্যখাতের জরুরি চাহিদা মেটানোর জন্য পাঁচ হাজার কোটি টাকার থোক বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (৯ জুন) বিকেলে জাতীয় সংসদে ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের বাজেট পেশকালে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এ কথা জানান।

তিনি বলেন, কোভিড ১৯ এর ন্যায় জটিল অতিমারি মোকাবিলা, দ্রুত সাড়া দেওয়া ও নিয়ন্ত্রণের সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে পরিকল্পনা গ্রহণ, গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা করা এবং প্রাতিষ্ঠানিক, কারিগরি দিক ও দক্ষ মানবসম্পদ উন্নয়নের ক্ষেত্রে সার্বিক সক্ষমতা বৃদ্ধির বিষয়টি সরকার গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করছে। বিগত দুটি বাজেটেই কোভিড-১৯ মোকাবেলা ও স্বাস্থ্যখাতের উন্নয়নের লক্ষ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে গুরুত্বপূর্ণ কার্যক্রম বাস্তবায়নের জন্য বিপুল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্যখাতের যে কোনো জরুরি চাহিদা মেটানোর জন্য উভয় বাজেটেই আমরা ১০ হাজার কোটি টাকা করে থোক বরাদ্দ রেখেছিলাম। যদিও দেশে করোনা সংক্রমণ বর্তমানে অনেকটাই স্তিমিত হয়ে এসেছে, কিন্তু এর সম্ভাব্য পুনরাবির্ভাবের আশঙ্কা এখনও রয়ে গেছে। কারণ বিশ্বের অনেক দেশেই এখনও এ অতিমারির প্রকোপ বিরাজমান। সুতরাং কোভিড-১৯ মোকাবিলা ও তজ্জনিত কারণে স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে সংঘটিত ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার উদ্দেশ্যে আগামী অর্থবছরেও স্বাস্থ্যখাতের জরুরি চাহিদা মেটানোর জন্য পাঁচ হাজার কোটি টাকার থোক বরাদ্দের প্রস্তাব করছি।

কোভিড-১৯ অভিঘাত পেরিয়ে উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় প্রত্যাবর্তনের লক্ষ্য নিয়ে প্রস্তাবিত ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেটের আকার হচ্ছে ছয় লাখ ৭৮ হাজার ৬৪ কোটি টাকা। এবারের বাজেটের আকার যেমন বড়, তেমনি এ বাজেটে ঘাটতিও ধরা হয়েছে বড়। অনুদান বাদে এই বাজেটের ঘাটতি দুই লাখ ৪৫ হাজার ৬৪ কোটি টাকা, যা জিডিপির সাড়ে ৫ শতাংশের সমান। আর অনুদানসহ বাজেট ঘাটতির পরিমাণ দুই লাখ ৪১ হাজার ৭৯৩ কোটি টাকা, যা জিডিপির ৫ দশমিক ৪০ শতাংশের সমান।

এটি বর্তমান সরকারের ২৩তম এবং বাংলাদেশের ৫১তম ও বর্তমান অর্থমন্ত্রীর চতুর্থ বাজেট। বাজেটে সংগত কারণেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ, কৃষিখাত, স্বাস্থ্য, মানবসম্পদ, কর্মসংস্থান ও শিক্ষাসহ বেশকিছু খাতকে।


আরও খবর



ব্যবসায়ী উজ্জ্বল হত্যা: ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড, যাবজ্জীবন ৬

প্রকাশিত:Tuesday ১৪ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৩৮জন দেখেছেন
Image

ময়মনসিংহের ধোবাউড়ার বতিহালা গ্রামের ব্যবসায়ী মো. উজ্জ্বল মিয়া হত্যা মামলায় তিনজনের মৃত্যুদণ্ড ও ৬ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল।

মঙ্গলবার (১৪ জুন) ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-৩ এর বিচারক মনির কামাল এ রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন-নওশাদ, শাহাবুদ্দিন ও সবুজ। মৃত্যুদণ্ডের পাশাপাশি প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে। যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- মরম, মহিম, কারিম, জসিম, মিয়া হোসেন ও জালাল উদ্দিন। পাশাপাশি প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া আসামি ইসলাম, এমদাদুল, কুদ্রত আলী ও হাছেন আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের খালাস প্রদান করেন আদালত। আরেক আসামি রশিদ মামলার বিচার চলাকালে মারা যান।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ব্যবসায়ী উজ্জ্বল মিয়ার সঙ্গে আসামিদের জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলছিল। ২০১৩ সালের ২৭ মার্চ রাত ৯টার দিকে পাশের এলাকা থেকে বার্ষিক দোলযাত্রা মেলা থেকে মোটরসাইকেলে ফিরছিলেন উজ্জ্বল মিয়া। তার সঙ্গে ছিলেন নজর আলী ও কালাম। বতিহালা এবতেদায়ী মাদরাসার কাছে পৌঁছালে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা আসামিরা তার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন। তাকে মারাত্মক জখম করেন ও দুই পা ভেঙে দেন তারা। সেসময় উজ্জ্বলের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে আসামিরা পালিয়ে যান। পরে আহত উজ্জ্বলকে ধোবাউড়া হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান থেকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় উজ্জ্বলের বড় ভাই কুদরত আলী ধোবাউড়া থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। ২০১৪ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি ১৪ জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট জমা দেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিআইডির পুলিশের উপ-পরিদর্শক পরিমল চন্দ্র সরকার। ২০১৫ সালের ২৯ মার্চ আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত। মামলার বিচার চলাকালে ২৮ জন সাক্ষীর মধ্যে ১৫ জন সাক্ষ্য দেন।


আরও খবর