Logo
আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪
শিরোনাম

দীপ্ত প্লেতে ১০ জুন থেকে অরিজিনাল ফিল্ম ‘পয়জন‘

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৮৭জন দেখেছেন

Image

বিনোদন ডেস্ক:তিন তিনটা ফ্লপ সিনেমার পর চার নম্বর সিনেমা সুপারহিট সাথে ন্যাশনাল এওয়ার্ড! নায়িকা রূপা মীর্জা এখন টক অব দ্য শো বিজ। এই সাকসেস সেলিব্রেট করতে সে একটা পার্টি থ্রো করে। আলোকোজ্জ্বল ঐ  পার্টিতে  শুন্য থেকে শিখরে ওঠা রূপা মীর্জার অন্ধকার  অতীত সামনে চলে আসে । আপন, পর, শত্রু, মিত্র, মুখ ও মুখোশ সব যেনো এক গোলক ধাঁধা! পুরনো ক্ষত, পাপ কিংবা লোভের গল্পে রাত বাড়তে থাকে আর বাড়তে থাকে লাশ!

পরিচালক সঞ্জয় সমদ্দার বলেন, প্রয়োজনের অতিরিক্ত যে কোনো কিছু বিষ ! কিন্তু জীবনের এমনই আয়রনি যে, প্রয়োজনীয়তার সীমা আমরা প্রায়শই নির্ধারণ করতে পারি না । সেখান থেকেই জন্ম নেয় বেঁচে থাকার নানা সমীকরণ । পরিশ্রম, মেধা, কিংবা প্রতারণা নানা ভাবে জীবনের সেই সমীকরণ মেলানোর চেষ্টা  চলে কিন্তু জীবনের গল্প তো আসলে লেখে অন্য কেউ ..

প্রধান চরিত্রের তানজিন তিশা বলেন, আগামী ১০ তারিখ দীপ্ত প্লেতে আসছে ওয়েব ফিল্ম পয়জন। আমি এখানে একটা নায়িকার জীবনের গল্প উপস্থাপন করতে যাচ্ছি। এই চরিত্রে অভিনয় করার আগে আমি একজন নায়িকার জীবন যাপনও রপ্ত করেছি । আমাকে জানতে হয়েছে একজন নায়িকাকে কাজ করতে গিয়ে কি ডিল করতে হয়। আমি অনেক সিনেমা দেখেছি। যেহেতু আমি সিনেমার নায়িকা না, তাই রূপা মির্জা হতে গিয়ে একজন সিনেমার নায়িকাকে স্টাডি করতে হয়েছে। ১২ দিন যখন শুটিং করেছি তখন মনে হয়েছে আমি রূপা মির্জা ছিলাম। আশা করছি দর্শক আমার কাজ দেখে হতাশ হবেন না।

ওয়েব ফিল্মটির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন তানজিন তিশা। এছাড়াও আরো অভিনয় করেছেন আবু হুরায়রা তানভীর, টাইগার রবি, রওনক রিপন, আব্দুল্লাহ আল সেন্টু, এ কে আজাদ সেতু, এস এম সোহাগ প্রমুখ।


আরও খবর



মাগুরায় মাইক্রোবাস চুরির ঘটনায় পুলিশের এস আই রিমান্ডে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৯৫জন দেখেছেন

Image

স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরায় মাইক্রোবাস  চুরির ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে উৎপল কুমার দাস নামে পুলিশের এক এস আইকে রিমাণ্ডে নেয়া হয়েছে।

তিনি মাদারীপুর হাইওয়ে পুলিশে কর্মরত আছেন।

বুধবার দুপুরে মাগুরার বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তাকে হাজির করে পুলিশের পক্ষ থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হলে বিজ্ঞ আদালত একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, মামলার বাদী মাগুরার শালিখা থানার আড়পাড়া এলাকার আমির হোসেনের ছেলে রিয়াজ হোসেন তার প্রাইভেট মাইক্রোটি গত বছরের ৭ অক্টোবর মাগুরা-যশোর সড়কের কেচুয়াডুবি সালেহা এলপিজি পাম্পে রেখে বাড়িতে যান। কিন্তু পরদিন সকালে তিনি সেখানে মাইকোটি না পেয়ে সদর থানায় সাধারণ ডায়েরি  করেন।

এদিকে গত ১ জুন বাদী ঢাকায় অবস্থানকালে জানতে পারেন তার গাড়িটি যশোরের কোতোয়ালি থানাধীন লেবুতলার একটি গ্যারেজে আছে। তখন বাদী ঢাকা থেকে সেখানে তার লোকজনকে পাঠালে আসামি উৎপল কুমার দাস টেরপেয়ে গাড়িটি নিয়ে মাগুরার উদ্দেশে রওনা দেন। কিন্তু উৎপল কুমার দাস তাদের দেখে দ্রুত গাড়ি চালিয়ে পালানোর চেষ্টা করেন।

এরই এক পর্যায়ে বাদীর লোকজন সন্ধ্যা ৬টার দিকে শালিখার সীমাখালী বাজারে এসে গাড়িটি আটক করতে সক্ষম হয়। পাশাপাশি গাড়িসহ উৎপল কুমার দাসকে শালিখা থানায় হস্তান্তর করেন। এ ঘটনার পর উৎপল কুমার দাস ও অজ্ঞাতদের নামে মামলা দায়ের করা হয়।


আরও খবর



উদ্ভাবনী চার্জিং প্রযুক্তির কারণে অনন্য ইনফিনিক্স নোট ৪০ সিরিজ

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১১৯জন দেখেছেন

Image

প্রযুক্তি ডেস্ক:উদ্ভাবনী ও স্টাইলিশ ফোন বাজারে এনে তরুণ ও প্রযুক্তিপ্রেমীদের মাঝে জনপ্রিয় হয়েছে ট্রেন্ডি প্রযুক্তি ব্র্যান্ড ইনফিনিক্স। সম্প্রতি স্মার্টফোন শিপমেন্টের ক্ষেত্রে অন্যান্য বৈশ্বিক ব্র্যান্ডের তুলনায় সর্বোচ্চ বার্ষিক প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে ব্র্যান্ডটি।

একইসঙ্গে দ্রুত ও উদ্ভাবনী চার্জিং প্রযুক্তি নিয়ে ক্রমাগত কাজ করে যাচ্ছে ইনফিনিক্স। সম্প্রতি বাজারে আসা নতুন নোট ৪০ সিরিজের স্মার্টফোনে এই প্রযুক্তির মান আরও বেড়েছে। ফলে ব্যবহারকারীদের অভিজ্ঞতাও উন্নত হয়েছে।

প্রথমবারের মতো নোট ৪০ সিরিজে যুক্ত করা হয়েছে অল-রাউন্ড ফাস্টচার্জ ২.০ নামে পরিচিত ইনফিনিক্সের অল- রাউন্ড ফাস্টচার্জ প্রযুক্তির দ্বিতীয় প্রজন্ম। অত্যাধুনিক এই প্রযুক্তিতে আছে একটি মাল্টি-ট্যাব গঠনের ব্যাটারি এবং তিনটি সমান্তরাল ফাস্ট-চার্জিং চিপ। যার মাধ্যমে ১০০ ওয়াট পর্যন্ত স্থিতিশীল ও কার্যকর ওয়্যারড চার্জিংয়ের সুবিধা  পাওয়া যায়। এছাড়া, সিরিজটি ২০ ওয়াটের ওয়্যারলেস চার্জিং ও ওয়্যারলেস রিভার্স চার্জিংও সাপোর্ট করে। যার সাহায্যে ফোনকে অন্যান্য ডিভাইসের জন্য পাওয়ার ব্যাংক হিসেবে ব্যবহার করা যায়।

নোট ৪০ সিরিজের একটি উল্লেখযোগ্য ফিচার হলো- ওয়্যারলেস ম্যাগচার্জ, যা অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ক্ষেত্রে একটি নতুন  সংযোজন। নিরবচ্ছিন্ন ম্যাগনেটিক চার্জিংয়ের জন্য এই সিস্টেমে আছে একটি ফোন কেস (ম্যাগকেস), একটি ম্যাগনেটিক চার্জিং প্যাড (ম্যাগপ্যাড) এবং একটি ওয়্যারলেস ম্যাগনেটিক পাওয়ার ব্যাংক (ম্যাগপাওয়ার)। সম্প্রতি,  ফোর্বস ইনফিনিক্সের ম্যাগচার্জকে অ্যাপলের ম্যাগসেফ-এর সাথে তুলনা করেছে। তাদের মতে, কার্যকারিতা ও সুবিধা উভয় ক্ষেত্রেই ইনফিনিক্সের সমাধান উন্নততর।

অল-রাউন্ড ফাস্টচার্জ ২.০ প্রযুক্তির কেন্দ্রে আছে ইনফিনিক্সের তৈরি পাওয়ার ম্যানেজমেন্ট চিপ চিতা এক্স১। যার সাহায্যে বিভিন্ন ধরনের চার্জিং ফিচার ও মোড কাজ করতে পারে। যেমন- মাল্টি-স্পিড ফাস্ট চার্জিং, বাইপাস চার্জিং, এআই চার্জিং প্রোটেকশন এবং পিডি ৩.০ প্রোটোকলের জন্য সাপোর্ট। মাল্টি-স্পিড ফাস্ট চার্জিংয়ের আওতায় আছে সুপার মোড, স্মার্ট মোড এবং লো-টেম্পারেচার মোড। এই মোডগুলো ব্যবহারকারীদের চার্জিংয়ের অভিজ্ঞতা উন্নত করে।

উচ্চ তাপমাত্রা সহনীয় ডিভাইস হিসেবে নোট ৪০ সিরিজের ডিজাইন করা হয়েছে। মাইনাস ২০° সেলসিয়াস তাপমাত্রায়ও অনায়েসেই এই স্মার্টফোন চার্জ দেওয়া যায়। এ কারণে ভ্রমণপ্রেমীরা নিশ্চিন্তে এই ডিভাইসটি বেছে নিতে পারেন।

এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের বাজারে নোট ৪০ সিরিজের দুটি মডেল এসেছে- নোট ৪০ ও নোট ৪০ প্রো। দেশজুড়ে ইনফিনিক্স অফিশিয়াল রিটেইলারের কাছে পাওয়া যাচ্ছে ফোনগুলো।


আরও খবর



গোদাগাড়ীতে শিশুদের মাঝে গাছের চারা বিতরন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১৮জন দেখেছেন

Image

মুক্তার হোসেন,গোদাগাড়ী(রাজশাহী)প্রতিনিধিঃরাজশাহীর গোদাগাড়ীতে শিশুদের মাঝে পুষ্টির চাহিদা পুরণের লক্ষে ১৯ হাজার ২৫০ টি ফলজ গাছের চারা বিতরন করা হয়।বৃহস্পতিবার ১৩ জুন) বেলা সাড়ে ১১ টায়  উপজেলার আই হাই উচ্চ বিদ্যালয়ে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ গোদাগাড়ী এপির উদ্যোগে। ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ গোদাগাড়ী এপি ম্যানেজার প্রেরণা চিসিমের সভাপতিত্বে  ফলজ গাছের চারা বিতরণ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম সরকার। বিশেষ অতিথি ছিলেন,গোদাগাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাসিদুল গণি মাসুদ,আই হাই উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক হোসেন আলী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ গোদাগাড়ী এপির প্রোগ্রাম অফিসার এন্ড্রিকাস মুর্মু প্রমূখ। উল্লেখ্য যে উপজেলার ৬টি ইউনিয়ন ও ২ পৌরসভার মধ্যে ১৯হাজার ২৫০ টি ফলজ চারা বিতরণ করা হয়। এর মধ্যে আম ৭ হাজার ৭০০টি, লিচু ৩হাজার ৮৫০টি পেয়ারা ৩হাজার ৮৫০টি লেবু-৩ হাজার ৮৫০টি ফলজ গাছের চারা শিশুদের মাঝে তুলে দেয়া হয়। যা শিশুদের পুষ্টি চাহিদা পুরণে সাহায্য করবে।


আরও খবর



যশোরে ট্রাকচাপায় ও বাস উল্টে ৩ জন নিহত

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১০৩জন দেখেছেন

Image

ইয়ানূর রহমান শার্শা,যশোর প্রতিনিধি:যশোরে-নড়াইল সড়কের তারাগঞ্জ এলাকায় সোমবার (২৭ মে) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সেন্টমার্টিন পরিবহনের একটি বাস উল্টে ২জন নিহত এবং ৫ জন আহত হয়েছেন। এছাড়া একই সড়কের হামিদপুরে আরেকটি ঘটনায় ট্রাক চাপায় আরও একজন নিহত হয়েছেন।

তারাগঞ্জ এলাকায় নিহতদের একজন বাসযাত্রী সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার নীলকণ্ঠপুর গ্রামের আছান আলীর ছেলে হাশেম আলী (৪০)। অন্যজন বাসটির সুপারভাইজার। তার পরিচয় এখনও শনাক্ত করা যায়নি।

বাসযাত্রী হারুন অর রশিদ বলেন, ‘আমাদের বাড়ি সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ ও আশাশুনি উপজেলায়। আমরা ৪০ জন চট্টগ্রামের রাউজান থেকে রোববার সন্ধ্যায় সেন্টমার্টিন পরিবহনের একটি রিজার্ভ বাসে সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে যাচ্ছিলাম। গোপালগঞ্জ আসার পর বাসচালক ঘুমাতে যান। এসময় তিনি বাসের হেলপারের কাছে গাড়ি চালাতে দেন। বৃষ্টির মধ্যে বাসের হেলপার বেপরোয়া গতিতে চালাচ্ছিল। তারাগঞ্জ এলাকায় পৌঁছালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে উল্টে যায় বাসটি।’

নড়াইলের তুলারামপুর হাইওয়ে পুলিশের উপ-পরিদর্শক মনির আহমদ বলেন,‘দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে হতাহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছি। দুজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ৫ জন।

নিহত হাশেম আলীর খালাত ভাই মফিজুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা ৪০ জন ইটভাটার শ্রমিক হিসেবে কাজ করতাম। ৮ মাস পর বাস রিজার্ভ করে বাড়ি ফিরছিলাম।পথিমধ্যে দুর্ঘটনায় খালাতো ভাই হাশেম আলী ও বাসের সুপারভাইজার নিহত হয়েছেন। আমরা বাড়ি ফিরলেও ভাই ফিরবে লাশ হয়ে।’

অপরদিকে এ ঘটনার পরপরই যশোরের হামিদপুর বিজিবি ক্যাম্পের সামনে ট্রাকচাপায় একজন নিহত হয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন যশোর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক মামুনুর রশীদ।


আরও খবর



দেশ ও জনগণের স্বার্থে সবাইকে কাজ করতে হবে: রাষ্ট্রপতি

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ জুন ২০২৪ | ১৪৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শক্তির ইস্পাত কঠিন ঐক্যের বিকল্প নেই,বলেছেন রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন। ব্যক্তি ও গোষ্ঠী স্বার্থকে উপেক্ষা করে দেশ ও জনগণের স্বার্থে সবাইকে কাজ করতে হবে।

শনিবার (১৮ মে) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির ৮ম জাতীয় সম্মেলনের উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির ভাষণে রাষ্ট্রপ্রধান এ কথা বলেন।

তিনি দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব অক্ষুণ্ন রেখে উন্নয়ন ও অগ্রগতি অব্যাহত রাখতে এবং সর্বস্তরে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ছড়িয়ে দিতে ৭১ এর পরাজিত শক্তি ঘাতক-দালালদের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যাতে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সমৃদ্ধ হয়ে বেড়ে উঠতে পারে সে লক্ষ্যে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার কথাও বলেন রাষ্ট্রপতি সাহাবুদ্দিন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা সাহাবুদ্দিন বলেন, এ লক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সব শক্তির ইস্পাত কঠিন ঐক্যের বিকল্প নেই। ব্যক্তি ও গোষ্ঠী স্বার্থ উপেক্ষা করে দেশ ও জনগণের স্বার্থে সবাইকে কাজ করতে হবে।

রাষ্ট্রপতি সবাইকে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস, বঙ্গবন্ধুর দর্শন, ধর্মনিরপেক্ষতা ও অসাম্প্রদায়িকতার বোধ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ারও তাগিদ দেন।

তরুণদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ডিজিটাল মাধ্যম ইতিবাচকভাবে ব্যবহার করুন। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস পড়ুন, বঙ্গবন্ধুর জীবনী ও আদর্শ সম্পর্কে জানুন। মনন, বোধ ও জীবনাচরণে মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ বুকে লালন করে বাঙালির গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাসকে বিশ্বের কাছে তুলে ধরুন।

তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের ২১ বছর পর ১৯৯২ সালে শহীদ জননী জাহানারা ইমামের নেতৃত্বে শুরু হয়ে এ আন্দোলনের প্রাজ্ঞ নেতারা প্রায় ৩৩ বছর ধরে নানা চড়াই-উতরাই, ঘাত-প্রতিঘাত পেরিয়ে এ সংগঠনকে আজকের জায়গায় নিয়ে এসেছেন।

রাষ্ট্রপতি উল্লেখ করেন, কেবল যুদ্ধাপরাধীদের বিচারই নয়, মুক্তিযুদ্ধ-পরবর্তী প্রজন্মের কাছে এ মহাসংগ্রামের প্রকৃত ইতিহাস পৌঁছে দিয়ে তাদের মুক্তিযুদ্ধের আদর্শে দীক্ষিত করার ক্ষেত্রেও একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

তিনি আশা করেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ধর্মনিরপেক্ষ, গণতান্ত্রিক, সহনশীল ও মানবিক সমাজ এবং রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে আগামী দিনগুলোতেও ‘একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি’র অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে।

রাষ্ট্রপতি বলেন, স্বাধীনতার ৫৩ বছর পরেও ঘাতক-দালাল চক্র মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার চেতনাসহ আমাদের সাফল্য ম্লান করে দিতে অবিরাম অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

যুদ্ধাপরাধী বা মানবতাবিরোধী অপরাধীদের বিচার কাজ সম্পন্ন হলেও ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির কাজ কখনো শেষ হবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বিরুদ্ধে যেকোনো ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির ভূমিকা অতীতের মতো ভবিষ্যতে উজ্জ্বলভাবে কার্যকর থাকবে।

রাষ্ট্রপ্রধান বলেন, বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধীদের চলমান বিচার আজ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়েরও প্রশংসা অর্জন করেছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ আর্থ-সামাজিক ও তথ্য-প্রযুক্তির নানা সূচকে বিশ্বের দরবারে উজ্জ্বল দৃষ্টান্তে পরিণত হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকারের বিভিন্ন সাফল্যের কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ থেকে স্মার্ট বাংলাদেশের পথে যাত্রা শুরু করেছি আমরা। এ অগ্রযাত্রার পথে সরকারের সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল মৌলবাদ ও আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ। প্রধানমন্ত্রীর সাহসী নেতৃত্ব এবং জঙ্গিবাদের প্রতি তার সরকারের ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির কারণেই জঙ্গিবাদ দমনে বিশ্বমঞ্চে বাংলাদেশ আজ রোল মডেল।

রাষ্ট্রপতি বলেন, সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশও ডিজিটাল বিপ্লবের পাশাপাশি চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার জন্য দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তুলতে হবে।


আরও খবর

মেট্রোরেল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে

বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪