Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

ড. ইউনূসের মামলা দ্রুত নিষ্পত্তির নির্দেশ হাইকোর্টের

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১১০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:ড. ইউনূসের ছয় মাসের সাজা ও দণ্ড শ্রম আপিল ট্রাইব্যুনালে স্থগিতের আদেশ বাতিল করে হাইকোর্টের দেওয়া রায়ের পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি প্রকাশ করা হয়েছে।মামলার রায়ে ড. মুহাম্মদ ইউনূসের করা আপিল দ্রুত নিষ্পত্তি করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। প্রকাশিত ৫০ পৃষ্ঠার রায়ে আদালত আরও বলেছেন, সাজা কখনো স্থগিত হয় না।

বুধবার (৩ জুলাই) সকালে রায় প্রকাশের বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, কলকারখানা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের আইনজীবী মো.খুরশীদ আলম খান। তবে রায়ের অনুলিপি হাতে পাননি বলে জানিয়েছেন ড. ইউনূসের আইনজীবী ব্যারিস্টার আব্দুল্লাহ আল মামুন।

এর আগে, শ্রম আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে করা মামলায় ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড পাওয়া গ্রামীণ টেলিকমের চেয়ারম্যান ও নোবেলজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ চারজনের দণ্ডের রায় ও আদেশ স্থগিত করে দেওয়া শ্রম আপিলের ট্রাইব্যুনালের আদেশ অবৈধ ঘোষণা করে রায় দেন হাইকোর্ট। ফলে ড. ইউনূসের ৬ মাসের সাজা চলমান থাকে।

চারজনের দণ্ড স্থগিতের বৈধতা প্রশ্নে কলকারখানা প্রতিষ্ঠান অধিদপ্তরের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জারি করা রুলের শুনানি নিষ্পত্তি করে গত ১৮ মার্চ হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী ইবাদত হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ রায় দেন।

আদালতে ওইদিন আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। ড. ইউনূসের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী ব্যারিস্টার আব্দুল্লাহ আল মামুন। তার সঙ্গে ছিলেন ব্যারিস্টার তানভীর শিহাব খান।

এর আগে তৃতীয় শ্রম আদালতের ১ জানুয়ারি দেওয়া রায় ও আদেশের কার্যক্রম স্থগিত করে শ্রম আপিল ট্রাইব্যুনালের ২৮ জানুয়ারি দেওয়া আদেশ কেন বাতিল হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। ড. ইউনূসসহ চারজন ও রাষ্ট্রের পক্ষে ঢাকার জেলা প্রশাসকসহ বিবাদীদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়।

একই সঙ্গে শ্রম আইন লঙ্ঘনের মামলায় সাজার রায় থেকে অব্যাহতি পাওয়া গ্রামীণ টেলিকমের চেয়ারম্যান ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে বিদেশ গমনের ক্ষেত্রে আদালতের অনুমতি নিতে হবে। এ মামলার বাকি তিন আসামিকেও বিদেশযাত্রার ক্ষেত্রে একই আদেশ প্রতিপালন করতে হবে।


আরও খবর



কোটাবিরোধী আন্দোলনে স্থবির ঢাকা, ভোগান্তি চরমে

প্রকাশিত:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৯৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:রাজধানী ঢাকা সকাল-সন্ধ্যা সর্বাত্মক ‘বাংলা ব্লকেড’ কর্মসূচিতে অচল হয়ে পড়েছে। সরকারি চাকরিতে কোটা ব্যবস্থা বাতিল করে ২০১৮ সালে জারি করা পরিপত্র পুনর্বহালের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা সারাদেশে চালিয়ে যাচ্ছেন এ কর্মসূচি।

বুধবার (১০ জুলাই) সকাল ১০টা থেকে রাস্তায় নেমেছেন শিক্ষার্থীরা। ফলে শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে।কোটা নিয়ে হাইকোর্টের রায়ে স্থিতাবস্থার প্রতিক্রিয়ায় শিক্ষার্থীরা বলেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবেই।

এদিকে, সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতি বাতিলের পরিপত্র ‘অবৈধ’ ঘোষণা করে হাইকোর্টের দেওয়া রায়ের ওপর একমাসের স্থিতাবস্থা দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। ফলে কোটা বাতিল করে ২০১৮ সালে জারি করা পরিপত্রটি বহাল থাকছে বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা। বুধবার (১০ জুলাই) দুপুরে প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল আবু মোহাম্মদ (এএম) আমিন উদ্দিন জানান, আপিল বিভাগ স্থিতাবস্থা বজায় রাখার আদেশ দিয়েছেন। ফলে যা ছিল, তা-ই থাকবে। অর্থাৎ, কোটা বাতিল নিয়ে ২০১৮ সালের পরিপত্র বহাল থাকছে।

কোটা নিয়ে হাইকোর্টের দেওয়া রায়ের ওপর এক মাসের স্থিতিবস্থার আদেশ দিয়েছেন আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে কোটাবিরোধী আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান। তিনি বলেন, প্রতিবাদকারীরা চাইলে আদালতে তাদের বক্তব্য উপস্থাপন করতে পারবে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফিরিয়ে নিতে ভিসিদেরও উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

দেখা গেছে, শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণায় স্থবির হয়ে পড়েছে রাজধানীর ঢাকা। দুপুর ১২টার দিকে অনেকটা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে যাতায়াত ব্যবস্থা। বাসসহ অন্য যানবাহন প্রধান সড়কগুলোয় আটকা পড়েছে। নগরজুড়ে দেখা দিয়েছে তীব্র যানজট। অনেকে গাড়ি থেকে নেমে হেঁটে গন্তব্যের উদ্দেশে রওয়ানা দিচ্ছেন। মোড়ে মোড়ে আন্দোলনকারীর বেরিকেট দিয়ে রাস্তা বন্ধ করে দিচ্ছে। তবে অ্যাম্বুলেন্স ও সাংবাদিকদের গাড়ি তারা ছেড়ে দিচ্ছে।

‘বাংলা ব্লকেড’ কর্মসূচিতে সতর্ক রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। পূর্বনির্ধারিত স্থানে, এমনবি মোড়ে মোড়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। সড়কে ব্যারিকেড প্রস্তুত রেখেছে পুলিশ। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত পুলিশ সদস্যরা।

এ বিষয়ে ডিএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. ফারুক হোসেন বলেন, সকাল থেকে সতর্ক পুলিশ। মানুষ ও যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে মোড়ে মোড়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। কেউ যাতে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি তৈরি করতে না পারে সেজন্য যথেষ্ট প্রস্তুতি নেওয়া আছে।


-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



ঝিনাইদহে কোটা বিরোধী বিক্ষোভ পন্ড, আহত ১৫

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৪১জন দেখেছেন

Image

কামরুজ্জামান ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:ঝিনাইদহে সকাল ১১ টায় উজির আলী স্কুল এন্ড কলেজ প্রাঙ্গন থেকে কোটা বিরোধী বিক্ষোভ শুরুর মুহূর্তে কতিপয় যুবক লাঠিশোঠা নিয়ে হামলা করলে কোটা বিরোধী বিক্ষোভ পন্ড হয়ে যায়। এসময় ১৫ জন ছাত্র-ছাত্রী আহত হয়। তাদেরকে বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। পরে স্কুলের উত্তর পাশের্^ এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে কোটা আন্দোলনের যুগ্ম আহবায়ক আবু রায়হান বলেন, আন্দোলন চলবে দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত। ১৫ জন নেতা-কর্মী আহত হয় বলে তিনি জানান। আহতরা হলো শারমিন সুলতানা, আবু রায়হান, নুসরাত জাহান সাথী, আব্দুল্লাহ আল মামুন, ইলমা রহমান প্রমুখ।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



খাগড়াছড়িতে পুনাক কমপ্লেক্স এর উদ্বোধন করলেন: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল এিপুরা

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১০৮জন দেখেছেন

Image

জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:বর্ণিল আয়োজনের মধ্যে দিয়ে খাগড়াছড়ি জেলায় পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতি (পুনাক) কমপ্লেক্স এর উদ্বোধন করা হয়েছে।

রবিবার (২৩ জুন) সকাল ১০টার দিকে  খাগড়াছড়ি জেলায় পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতি (পুনাক) কমপ্লেক্স এর  উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে    খাগড়াছড়ি জেলার পুলিশ সুপার  মুক্তা ধর পিপিএম (বার) এর পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতি (পুনাক) কমপ্লেক্স এর উদ্বোধন করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি।

এসময়  সাবেক সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি বাশন্তী চাকমা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) (পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত) মাহমুদা বেগম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(ক্রাইম এন্ড অপস্)  মোঃ জসীম উদ্দিন পিপিএম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(সদর সার্কেল) তফিকুল আলম সহ জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, পুনাকের সদস্যগণ, গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সভাপতি,র বক্তব্যে খাগড়াছড়ি জেলার পুলিশ সুপার  মুক্তা ধর পিপিএম (বার) বলেন, পুনাক বাংলাদেশ পুলিশের একটি অঙ্গ সংগঠন। ১৯৮৬ সালে প্রতিষ্ঠিত হবার পর থেকেই পুনাক একটি সামাজিক ও কল্যাণমুখী প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে। পুনাক তার কার্যক্রম দিয়ে পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়ন, শ্রদ্ধাবোধ ও মেধা বিকাশে সহায়তা করছে। বেকার ও ক্ষতিগ্রস্ত নারীদের সাহায্য পুনাক বিশেষভাবে কাজ করে থাকে । পুনাক একদিকে যেমন অসহায়দের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়াচ্ছে অপর দিকে তেমনি পিছিয়ে পড়া নারী সমাজ কে আত্ননির্ভরশীল হতে উদ্ভুদ্ধ করছে।

ইতিপূর্বে খাগড়াছড়িতে পুনাক বিক্রয় কেন্দ্র উদ্বোধন করা হয়েছে যেখানে নারীদের শাড়ি, থ্রিপিস, গহনা, চাদর, মাটির তৈজসপত্র, শোপিস, বস্ত্র পণ্য, কসমেটিকস, বিভিন্ন ধরনে আচার ও খাদ্য সামগ্রীসহ বিভিন্ন দ্রব্য পাওয়া যায়। পুনাক বিক্রয় কেন্দ্রে হাতের তৈরিকৃত ঘর সুসজ্জিতকরনের বিভিন্ন জিনিসপত্রও পাওয়া যায়।

প্রধান অতিথি,র বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি বলেন, এই নবনির্মিত পুনাক কমপ্লেক্স উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে খাগড়াছড়ি তে পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতির দীর্ঘদিনের আকাঙ্ক্ষা পূর্ণ হলো। সমাজের জন্য পুনাকের অনেক কিছু করার আছে। ভবিষ্যতে এই সংস্থার সামাজিক কল্যাণমুখী কাজকে আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি  পুনাক কমপ্লেক্স উদ্বোধন শেষে পুনাক বিক্রয় কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।  বিভিন্ন বিক্রয় সামগ্রী, মূল্য তালিকাসহ মালামালের গুণগত দিক যাচাই করে সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং নিজেও পুনাক বিক্রয় কেন্দ্র থেকে বিভিন্ন পণ্যসামগ্রী ক্রয় করেন।

আরও খবর



ফুলবাড়ীতে নিমতলা মোড়ের ঐতিহ্য ধরে রাখতে নিম গাছ রোপন

প্রকাশিত:শনিবার ২৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১১৫জন দেখেছেন

Image

ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি:ফুলবাড়ী উপজেলার প্রাণকেন্দ্র নিমতলা মোডের ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে নিমগাছ রোপন করলেন ফুলবাড়ী পৌর মেয়র আলহাজ্ব মাহমুদ আলম লিটন। স্থানীয় শিক্ষার্থী মোঃ শাকিল আহমেদের ব্যক্তিগত উদ্যোগে গতকাল শুক্রবার বিকেল ৫টায় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বৃক্ষরোপণ করেন পৌর মেয়র আলহাজ্ব মাহমুদ আলম লিটন।

মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর তিনি শহরের প্রধান সড়কের দুই পাশে অনেক বৃক্ষরোপণ করেন। বিভিন্ন প্রজাতির ফুলের গাছ এবং ঔষধি গাছ রোপন করেন শহর জুড়ে। সেই গাছগুলো এখন ধীরে ধীরে ছায়াদার হয়ে উঠছে। শহরের প্রাণকেন্দ্র নিমতলা মোড়ে এক সময় বড় বড় নিম গাছ থাকলেও তা কালের আবর্তে বিলীন হয়ে গেছে। 

বর্তমান পৌর মেয়র আলহাজ্ব মাহমুদ আলম লিটনের পরিচ্ছন্ন, ছায়াদার, বিশুদ্ধ বায়ুর শহর গড়ার লক্ষ্যকে বাস্তবায়ন করতে শহরের প্রাণকেন্দ্র নিমতলা মোড়ে বেশ কিছু নিম গাছ রোপন করা হয়।

শুক্রবার বিকেলে এই কর্মসূচি পালন করা হয়।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফুলবাড়ী পৌর নির্বাহী প্রকৌশলী লুৎফুল হুদা চৌধুরী লিমন, ফুলবাড়ী থানা প্রেসক্লাবের সভাপতি আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী থানা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাইটিভি ফুলবাড়ী প্রতিনিধি ফিজারুল ইসলাম ভুট্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক দৈনিক জনতা প্রতিনিধি আল আমিন বিন আমজাদ, ফুলবাড়ী প্রেসক্লাবের সদস্য দৈনিক সংবাদ প্রতিনিধি আশরাফ পারভেজ ফুলবাড়ীর দোকান কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি হামিদুল হক সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।


আরও খবর



রৌমারীতে রাস্তা না থাকায় চরম দুর্ভোগে গ্রামবাসি

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১১৮জন দেখেছেন

Image

রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার সদর ইউনিয়নের প্রত্যন্ত গ্রামে রাস্তা না থাকায় বিপাকে গ্রামবাসি, বর্ষাকালে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। গ্রামবাসি,শিক্ষার্থী,ব্যবসায়ী,চাকুরিজীবি,কৃষক,শ্রমিক, বীর মুক্তিযোদ্ধার পরিবারসহ দৈনিক প্রায় ১০ হাজার মানুষ চলাচল করে এই রাস্তা দিয়ে। মঙ্গলবার ২৫ জুন উপজেলার রতনপুর, চর বামনেরচর পূর্বপাড়া ও খাটিয়ামারী এই তিন গ্রামবাসীসহ সাধারন মানুষের চলাচলের চরম দূর্ভোগ পোহাচ্ছে বলে সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে। 

জানা গেছে, মাত্র দেও থেকে দুই কিলোমিটার সড়ক না থাকায় ফসলি জমির আইল সরু রাস্তা দিয়ে দীর্ঘদিন থেকে যাতায়াত করছেন এলাকাবাসি। ফসল উৎপাদনে ধান রোপনের সময় কাদা মাখা জমির সুরু রাস্তা দিয়ে চরম দুর্ভোগে উপায় না পেয়ে উপজেলা শহরের যাতায়াত করতে হয়। অপর দিকে বর্ষাকালে দুর্ভোগের আর শেষ থাকে না, কৃষি নির্ভর এই গ্রামের মানুষের উৎপাদিত কৃষিপণ্য উপজেলা সদর ও বিভিন্ন হাট বাজারে পৌঁছাতে, শিক্ষার্থীদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে এবং রোগীদের হাসপাতালে দ্রুত পৌঁছাতে, বাড়িতে আগুন লাগলে দ্রুত ফায়ার সার্ভিস ঘটনা স্থালে পৌঁছাতে পারে না এমন দুর্ভোগ নিত্য দিনের সঙ্গী। 

গুছ গ্রাম তুরা রোড থেকে সোজাপূর্ব দিকে রোডের রতনপুর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান আলীর বাড়ীর পাশদিয়ে ঈদগাঁহ মাঠ হয়ে রতনপুর কবরস্থান বাইতুল হামদ নূরানী ও হাফিজিয়া মাদ্রাসার পরে পাকা রাস্তা পর্যন্ত প্রায় ১.৫ কিলোমিটার রাস্তার চরম দুর্ভোগ। এই রাস্তা দিয়ে ভ্যান গাড়ী অটো চলাচলের জন্য প্রশস্ত ১০ ফুট চওড়া ও ৫ ফুট উঁচু) করে রাস্তাটি নির্মাণ করা বিশেষ প্রয়োজন বলে দাবি করেন এলাকাবাসি। বর্তমানে গ্রামবাসী পায়ে হেঁটে কোন রকম সরু রাস্তা দিয়ে ফসলি জমির আইল ঘেষে কষ্ট করে যাতায়াত করছে। এছাড়া অত্র এলাকার অনেক শিক্ষার্থীকে স্কুল-কলেজে যাতায়াত করতে হয় পায়ে হেঁটে। এদিকে মুমূর্ষ রোগীদের জন্য এই রাস্তা যেন মরণফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর এসব দুর্ভোগ প্রতিনিয়ত পোহাতে হচ্ছে বলে নিশ্চিত করেছেন রৌমারী সদর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য শফিকুল ইসলাম। স্থানীয় এলাকাবাসি ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবার রাস্তাটি চলাচলের সু-ব্যবস্থা করার জন্য কুড়িগ্রাম-৪ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাড.বিপ্লব হাসান পলাশ এমপিসহ বিভিন্ন দপ্তরে দুর্ভোগ লাঘবে রাস্তাটি নির্মাণ করার জন্য জোর দাবি জানান। 

স্থানীয় বাসিন্দা ভুক্তভোগী মোহাম্মদ তইনুদ্দিন দেওয়ানী জানান, রাস্তা না থাকায় অনেক কষ্ট করে বাজারে যেতে হয়। ফসলি জমির আইল দিয়ে সারা বছর কষ্ট করে এভাবে চলাচল করতে হয়। এতে সাইকেল, ভ্যান, রিক্সা, এম্বুলেন্স সহ কোন প্রকার যানবাহন চলাচলের সুযোগ নেই।

কৃষক সাইফুল ইসলাম জানান, আমরা ফসল উৎপাদন করি দের কিলোমিটার রাস্তা না থাকায় ভ্যান, রিক্সা ও সাইকেল চলে না। এতে ফসল হাটে পৌঁছাতে অনেক কষ্ট হয়। বর্ষা মৌসুমে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়। এই রাস্তাটি নির্মাণের জন্য সরকারের নিকট জোর দাবি জানাচ্ছি। 

বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মেহেদী হাসান মাসুদ বলেন, রাস্তা না থাকায় দুর্ভোগের বিষয়টি ইতিমধ্যেই সংসদ সদস্য ও জনপ্রতিনিধিদের অবগত করাসহ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসককে লিখিতভাবে জানিয়েছি। আশা করি জনভোগান্তি রোধে সকলের প্রচেষ্টায় রাস্তাটির নির্মাণে আন্তরিক হবেন।  

এব্যাপারে রৌমারী সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক দুর্ভোগের কথা স্বীকার করে  জানান, ওই এলাকায় একটা রাস্তা না থাকায় সাধারন মানুষ খুব কষ্টে চলাচল করে। আমি বিভিন্ন ভাবে যোগযোগ করছি যাতে ওই খানে একটা রাস্তা হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাহিদ হাসান খান জানান, জনদুর্ভোগ লাঘবে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর