Logo
আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪
শিরোনাম

চতুর্থ ধাপে ৩৪.৩৩ শতাংশ ভোট পড়েছে: সিইসি

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৯৯জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:চতুর্থ ধাপে  ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ৬০ উপজেলায় ৩৪ দশমিক ৩৩ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল

বুধবার (৫ জুন) রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান তিনি।

সিইসি বলেন, ৬০ উপজেলায় ভোট হয়েছে। ভোট শান্তিপূর্ণ হয়েছে। কিছু ইন্সিডেন্ট হয়েছে। এ জন্য ২৮ জনকে গ্রেপ্তার করেছি, ৯ জনকে বিভিন্ন অপরাধে দণ্ড দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ব্যালটবাক্স ছিনতাইয়ের ঘটনায় ভৈরব উপজেলায় ভোট স্থগিত করা হয়েছে। বরিশালে সংঘর্ষে ৫ জন আহত হয়েছেন। তবে ইভিএমে ভালো কাজ হয়েছে।

সিইসি বলেন, ভোট নিয়ে কমিশন সন্তুষ্ট। কারণ এবারের উপজেলা নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হয়েছে। বড় ধরনের কোনও সহিংসতা নেই।

এর আগে সকাল ৮টা থেকে দেশের ৬০ উপজেলার ৫ হাজার ১৪৪টি ভোটকেন্দ্রে চতুর্থ ধাপের ভোটগ্রহণ শুরু হয়। এর মধ্যে ছয়টিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) এবং বাকিগুলোতে ব্যালটে ভোট হয়।


আরও খবর

মেট্রোরেল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে

বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪




ডুমনী’তে ৫ পরিবারের বাড়ি ঢুকার রাস্তায় জোরপূর্বক বাউন্ডারির ওয়াল করে জমি দখলের অভিযোগ!

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ২০১জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টার:সাম্প্রতিক সময়ে খিলক্ষেত থানাধীন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৪৩ নং ওয়ার্ডের ৭৬১৫/১৬ নং দাগের আহবর ডুমনী বাজারে ভুক্তভোগী মোহাম্মদ আনোয়ারুল আজিম(৪৩)রফিকুল ইসলাম,কালীপদ রায়,এম এ আজিম,আসদ্দর আলী,বিল্লালুর রহমারসহ বেশ কয়েকজন ক্রয়কৃত জায়গার সামনে দখল করার উদ্দোশ্যে জোরপূর্বক ওয়াল নির্মান করেছেন দীপু  ও তার সহযোগি মধু। তাদের ওয়াল ব্যবহারের কারনে পিছনে পড়া ৫/৬ জন পরিবারের জীবন শেষ সম্ভল টাকা জমিয়ে  বাড়ি নির্মানের জন্য জীবনের শেষ ঠিকানাটি এখন বেদখলে চলে যাচ্ছে বলে তারা অভিযোগ করেছেন। তাদের পিছনে রেখে ওয়াল নির্মান করেছেন দিপু ও মধু । ভুক্তভোগিরা অনেক আকুতি মিনতি করলে তারা কোনে কর্ণপাত করে নি তারা।আজ তাদের জন্য পাঁছ ছয় টি পরিবার  খুব অসহায় অবস্থায়  জীবন যাপন করছে।

তাদের ক্রয়কৃত জায়গা জোরপূর্বক দখল নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তাদের এই দুই  প্রতিবেশী সাইদুর রহমান দিপু’ ও মধুর বিরুদ্ধে। 

অভিযোগে ভুক্তভোগী মোহাম্মদ আনোয়ারুল আজিম ও টিটু ও রফিকুল ইসলামের স্ত্রী সাংবাদিকদের জানান আমার প্রতিবেশী সাইদুর রহমান দিপু  ও তার মুল সহযোগি মধু আমার ক্রয়কৃত সম্পত্তি যার দাগ নং-৪৫৭৯/৮০ (চালা ও ভিটা) হোল্ডি নং-৪৬-৪৪ খতিয়ান নং-১১১১২, ডুমনী আহবর খানা-খিলক্ষেত ঢাকায় ডিজিটাল সার্ভেয়ার দিয়ে মেপে সাইনবোট এবং পিলার লাগানো হয়।গত ১৮ সেপ্টেম্বর-২৩ ইং তারিখে সকাল ১১ ঘটিকার সময় আমার জমিতে গিয়ে দেখি উক্ত সিমানা পিলার এবং সাইবোড নাই। আমার মনে হয় বিবাদী উক্ত সিমানা পিলার কৌসলে সরিয়ে ফেলেছেন। এবং বিবাদী আমার জায়গা জোরপূর্বক দখল করার পায়তারা করতেছেন।এমতাবস্থায় আমার চাকুরী জীবনের জমানো কিছু টাকা দিয়ে ক্রয়কৃত জায়গাটি সাইদুর রহমান দিপুর হাত থেকে রক্ষা পেতে আইনের আশ্রায় নিতে আমি বাধ্য হয়েছি বলে ও জানান তিনি ।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়,সাইদুর রহমান দিপু  ও মধু নিজ এলাকায় ডুমনীতে ত্রাসের রাজত্ব্য কায়েম করেন।অত্র ওয়ার্ডের অসংখ্য মানুষের ক্রয়কৃত জায়গা জোরপূর্বক নিজের নামে নেওয়ার অভিযোগ আছে তার বিরুদ্ধে ।নাম প্রকাশে অনুচ্ছুক ডুমনী এলাকার এক স্থানীয় বাসিন্দা বলেন সাইদুর রহমান দিপুর পেশায় একজন ঠিকাদার সাধারন মানুষকে নয় ছয় বলে তাদের ক্রয়কৃত জমি নিজের নামে করে নেন তিনি।

উল্লেখ্য যে উক্ত জমি গুলো ২০০০ সালে মধু কিনে দিয়ে ছিলো পাঁচজন ভুক্তভোগিকে ।জমি কেনার সময় স্বাক্ষী হিসেবে সই করেছেন মধু।তখন পায়ে হেটে যাওয়া যেতো জমি গুলোতে তখন জমি গুলোতে দুই দাগের মাঝে আইল ছিল।

বর্তমানে জায়গা গুলো দিপু এবং মধু জোরপূর্বক ভোগ দখল করার উদ্দ্যাশে গেইট দিয়ে যাওয়ার রাস্তা বন্ধ করেছে বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগিরা। 

ডিএমপি খিলক্ষেত থানার ওসি হুমায়ন এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন এই বিষয়ে আমাদের থানায় কিছুদিন আগে একটা অভিযোগ হয়েছে স্থানীয় কাউন্সিলর এর সাথে কথা বলে আমরা তদন্ত সহিত ব্যবস্থা নিবো যাতে ভুক্তভোগী মোহাম্মদ আনোয়ারুল আজিম তার ক্রয়কৃত জায়গা টি বুজে পায় ।

এ ব্যাপারে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৪৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো.শরিফুল ইসলাম জানান,এই বিষয়ে আমার খিলক্ষেত থানার ওসির সাথে কথা হয়েছে দুই পক্ষের সাথে কথা হয়ে সময় করে দুইপক্ষকে থানায় বা আমার অফিসে বসে যার জায়গা তাকে বুজিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করবো।
তিনি আরো বলেন বর্তমান দেশরত্ন শেখ হাসিনা সরকার কারো জমি জোরপূর্বক দখল বা ভাংচুর করা হলে তার বিরুদ্ধে যথাযত ব্যবস্থা নেওয়ার অনুমতি দিয়েছেন ।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত সাইদুর রহমান দিপুর কাছে জানতে চাইলে পুরো বিষয়টি তিনি অস্বীকার করে বলেন যার জায়গা যতটুকু তিনি ততোটুকু পাবেন জোরপূর্বক কারো জমি তিনি দখল করে রাখেন নি বলে জানান।

অন্যদিকে দিপুর আরেক সহযোগি মধুর কাছে এবিষয়ে জানতে একাধিকবার ফোন দিলেও ফোন রিসিভ করে নি।

আরও খবর



আত্রাইয়ে শিক্ষা সেবিকাদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা

প্রকাশিত:সোমবার ২০ মে ২০24 | হালনাগাদ:বুধবার ১২ জুন ২০২৪ | ১০৫জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি:প্রাথমিক শিক্ষার গুণগত মানোন্নয়নের লক্ষে নওগাঁর আত্রাইয়ে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা আশা’র শিক্ষা সেবিকাদের নিয়ে দক্ষতা বৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ  কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

আত্রাই উপজেলার ভবানীপুর শাখার উদ্যোগে সোমবার সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন সংস্থাটির সিনিয়র শাখা ব্যবস্থাপক  মো.আব্দুস ছাত্তার। 

কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আত্রাই প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক সাংবাদিক নাজমুল হক নাহিদ, শিক্ষা সুপারভাইজার সাইফুল ইসলাম। 

দুই দিন ব্যাপী এই কর্মশালায় ১৫ জন শিক্ষা সেবিকা এবং ১জন শিক্ষা সুপার ভাইজার অংশগ্রহণ করেন।  

উল্লেখ্য নওগাঁ জেলায় ৩৪টি ব্রাঞ্চে ৫১০ জন শিক্ষা সেবিকা ও ৩৪ জন শিক্ষা সুপারভাইজারের সমন্বয়ে হতদরিদ্র পরিবারের শিশু শিক্ষার্থীদের প্রাথমিক শিক্ষা প্রদান করেন ।


আরও খবর



হিলি স্থলবন্দর দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়লেও তবুও দামে উর্ধ্বগতি

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১২১জন দেখেছেন

Image

মাসুদুল হক রুবেল,হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে বেড়েছে কাঁচা মরিচ আমদানি।এখন প্রতিদিনই বন্দর দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি হচ্ছে। তবে বন্দর দিয়ে আমদানি বাড়ালেও কমছে না দেশীয় কাঁচা মরিচের দাম।আমদানিকারকরা বলছেন,দাম বাড়ার কোন প্রশ্নই আসে না,ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে কাঁচা মরিচের দাম বাড়িয়ে দিচ্ছেন। 

এদিকে খুচরা বিক্রেতারা বলছেন,প্রচন্ড গরম ও কৃষকেরা বোরো ধান কাটা মাড়াই নিয়ে ব্যস্ত থাকায় ক্ষেত থেকে কাঁচা  মরিচ তুলছেন না,তাই বাজারে কাঁচা মরিচের সরবরাহ কমছে। সরবরাহ কমে যাওয়ায় মোকামগুলোতেই দাম বেশি। 

আজ বুধবার বেলা ১১ টায় হিলি বাজার ঘুরে দেখা যায়,দুই দিন আগে মানভেদে কাঁচা মরিচ ৮০ থেকে ৯০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ বুধবার সেই কাঁচা মরিচ কেজিতে ৬০ টাকা বেড়ে এখন ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। আর বন্দরে আমদানিকৃত কাঁচা মরিচ মানভেদে ১২০ থেকে ১৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। 

তবে বাজারে কাঁচা মরিচের দাম স্বাভাবিক রাখতে গত মাসের (২৩ মে) ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি শুরু করেন আমদানিকারকরা। পেঁয়াজের মত কাঁচা মচিরে দামও ওঠা নামা করছে। প্রতিকেজিতে শুল্ক দিতে হবে ৩৫ টাকা আর প্রতি মেট্রিক টন কাঁচা মরিচ আমদানি হয়েছে ২০০ মার্কিন ডলারে।

হিলি বাজারে কাঁচা মরিচ কিনতে আসা ব্যাটারি চালিত অটো চালক ফিজু বলেন,আমি দুই দিন আগে ৯০ টাকা কেজি দরে কাঁচা মরিচ কিনেছি।আজ সেই কাঁচা মরিচ কিনলাম ১৫০ টাকা কেজি দরে। এভাবে প্রতিটি জিনিস দাম বাড়লেও আমাদের অটো ভাড়া বাড়ে না। 

হিলি বাজারে কাঁচা মরিচ বিক্রেতা শেখ বিল্পব বলেন,প্রচন্ড গরম ও ধান কাটা মাড়ায় নিয়ে কৃষকেরা ব্যস্ত।তাই কৃষকেরা ক্ষেত থেকে কাঁচা মরিচ তুলতে না পারায় বাজারে সরবরাহ কমে যাচ্ছে। একারণে দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। তবে ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি বৃদ্ধি পেলেও কমছে না দাম। আজ বুধবার সকালে আমি পাঁচবিবি হাট থেকে ১৩০ থেকে ১৪০ টাকা কেজি দরে কিনে ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছি। কাঁচা পণ্য প্রতি মনে ১ থেকে ২ কেজি কাঁচা মরিচ নষ্ট হয়ে যায়। এতে আমাদেরও লোকশানগুনতে হয়। পরিবহন খরচ বাদ দিয়ে ৩ থেকে ৪ টাকা লাভ রেখে আমরা বিক্রি করে থাকি। আমরা কম দামে কিনতে পারলে কম দামেই বিক্রি করে থাকি। 

হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারক শাহীনুর রেজা শাহিন বলেন,বন্দর দিয়ে প্রচুর পরিমান কাঁচা মরিচ আমদানি হচ্ছে। আশেপাশের উপজেলার চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে যাচ্ছে আমদানিকৃত কাঁচা মরিচ। তবে কাঁচা মরিচের দাম বাড়ার কোন প্রশ্নই আসেনা। বিভিন্ন হাট বাজারের ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে কাঁচা মরিচের দাম বাড়িয়ে দিচ্ছে। বন্দর দিয়ে আমদানি বৃদ্ধি পেয়েছে। কাঁচা মরিচের দাম কমে আসবে।   

পানামা হিলি পোর্টের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন মল্লিক প্রতাব জানান,অনুমতি পাওয়ার পর গত ২৩ মে থেকে বন্দর দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি শুরু হয়। এখন প্রতিদিনই হিলি স্থলবন্দর দিয়ে কাঁচামরিচ আমদানি হচ্ছে। কাঁচা মরিচ একটি পচন শিল পণ্য তাই কাস্টমসের যাবতীয় প্রক্রিয়া শেষে দ্রুত ছাড়করণ করা হচ্ছে এসব কাঁচা মরিচ। এতে বন্দর থেকে সরকারের রাজস্ব আয় যেমন বেড়েছে, তেমনি বন্দর কর্তৃপক্ষ ও শ্রমিকদের দৈনন্দিন আয়ও বেড়েছে। 

হিলি কাষ্টমস সূত্রে জানা গেছে, গত মাসের ২৩ মে থেকে ৪ জুন পর্যন্ত ভারতীয় ৬১ টি ট্রাকে ৫২৮ মেট্রিক টন ৮৭৬ কেজি কাঁচা মরিচ আমদানি হয়েছে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে।


আরও খবর



ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আতাউর রহমান মিল্টন চেয়ারম্যান নির্বাচিত

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৬৯জন দেখেছেন

Image

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান মিল্টন (মোটরসাইকেল প্রতীক) ৫৭ হাজার ৬৬২ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। 

তার নিকট তম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুশফিকুর রহমান বাবুল (ঘোড়া প্রতীক) পেয়েছেন ৩১ হাজার ৬৪ ভোট। আনারস প্রতীকের অপর প্রার্থী রফিকুল ইসলাম মন্টু পেয়েছেন ২০৬   ভোট।

ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর মো. আল কামাহ তমাল গত বুধবার (৫ জুন) রাত ৯ টায় উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে উপজেলা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করেন।

এদিকে ফুলবাড়ি উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে মামুনুর রশীদ মামুন (তালা প্রতীক) ৩০ হাজার ৩০ ভোট পেয়ে ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন।

তার নিকট তম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বর্তমান উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মঞ্জু রায় চৌধুরী (চশমা প্রতীক) পেয়েছেন ২৭ হাজার ২৬৮ ভোট। অপর দুই প্রার্থীর মধ্যে উড়োজাহাজ প্রতীকের মোকলেছার রহমান ১৬ হাজার ৮৪ ভোট এবং সোলাইমান মন্ডল (টিউবওয়েল প্রতীক) পেয়েছেন ১৩ হাজার ৪৯৮ ভোট। 

অপরদিকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ফুটবল প্রতীকের শিউলী রানী রায় ৩৭ হাজার ৭৭৬ ভোট পেয়ে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন।

তার নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নীরু শামসুন্নাহার (কলস প্রতীক) নিয়ে পেয়েছেন ৩৫ হাজার ৪৩৩ ভোট। অপর প্রার্থী হাজরা বিবি (হাঁস প্রতীক) পেয়েছেন ১২ হাজার ১২১ ভোট।উপজেলার একটি পৌরসভাসহ সাতটি ইউনিয়নে ৬৩ টি ভোট কেন্দ্রর মাধ্যমে ভোট গ্রহণ করা হয়েছে। ফুলবাড়ি উপজেলা নির্বাচনে সফল চেয়ারম্যান খেটে খাওয়া মানুষের আস্তার প্রতীক মোঃ আতাউর রহমান মিল্টন দ্বিতীয় বারে বিপুল ভোটে উপজেলা নির্বাচনে জয়ী হন।


আরও খবর



ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভিতর বটগাছটি ঝুঁকিপূর্ণ

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১২৯জন দেখেছেন

Image

ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি:দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান গেটের সামনে বটগাছটি ঝুঁকিপূর্ণ। যেকোন মুহুর্তে প্রাকৃতিক দূর্যোগে ঘটতে পারে দূর্ঘটনা। স্বাধীনতার পর ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মূল গেটের সামনে একটি বিশাল আকৃতির বটগাছ রয়েছে। বটগাছটির বড় বড় ডালের ভিতর দিয়ে ৩৩ কেভি বিদ্যুতের তার রয়েছে। এছাড়া বটগাছটি বিশাল আকৃতির হওয়ায় প্রাকৃতিক দূর্যোগে ভেঙ্গে পড়ে দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। গেটের ভিতরে দেওয়াল সংলগ্ন স্থানে কোভিড-১৯ সময়কালে প্রায় সাড়ে ৩লক্ষ টাকা ব্যয়ে একটি শেড নির্মাণ করা হয়েছে। সেখানে এখন কোন কার্যক্রম চলেনা। সেখানে সাধারণ জনগণ বিশ্রাম নেন। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পক্ষ থেকে সেটি এখন ব্যবহার করা হচ্ছেনা। ঐ বটগাছটির নিচেই শেডটি নির্মাণ করা হয়েছে। বর্তমান প্রাকৃতিক দূর্যোগ ঘটলে বটগাছের ডালগুলি ভেঙ্গে পড়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেইন গেটটি ও শেডটি নষ্ট হয়ে যেতে পারে। এমনকি দূর্যোগের সময় শেডের ঘরে রোগীদের আসা লোকজন ও বিশ্রাম নেওয়া মানুষজন দূর্ঘটনায় পতিত হতে পারে। এ কারণে এই বটগাছটি যদিও ছায়া দিচ্ছে তারপরও সেটি এখন ঝুঁকিপূর্ণ। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষের বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে স্থানীয় জনসাধারণ নেক দৃষ্টি কামনা করেছেন।


আরও খবর