Logo
আজঃ Sunday ২৪ October ২০২১
শিরোনাম
সুস্থ ও স্বচ্ছ চিন্তা যে কোনো ভালো কাজের ভিত্তি

চিন্তা সমস্ত কর্মকাণ্ডের প্রাণ : মামুনুর হাসান টিপু

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Sunday ২৪ October ২০২১ | ১৭৫জন দেখেছেন
Image


 

সম্পাদকীয় :

চিন্তা হচ্ছে মানবীয় সমস্ত কর্মকাণ্ডের প্রাণ। সুস্থ ও স্বচ্ছ চিন্তা যে কোনো ভালো কাজের ভিত্তি। এ চিন্তার জগতে আমাদের দৈন্য এখন স্পষ্ট। সমাজের সিংহভাগ মানুষের চিন্তার সময় নেই। এরা বেকারত্ব, হতাশা, প্রতিহিংসা, অসুস্থ প্রতিযোগিতায় আকণ্ঠ নিমজ্জিত। যে স্বল্পসংখ্যক মানুষের সময় আছে তাদের চিন্তা বিভ্রান্ত হচ্ছে চারপাশের অনাকাঙ্ক্ষিত তর্ক-বিতর্কে; অস্পষ্ট ধ্যান-ধারণায়। এ পরিস্থিতিতে সমাজের সামগ্রিক চিন্তাজগতে ইতিবাচক পরিবর্তনের প্রয়াস চালানো অপরিহার্য।

 

আমরা দায়সারা গোছের, পেশাগত চিন্তার, গতানুগতিক সংশয়-বিতর্কের, শাখাগত সমস্যার ফিরিস্তি বয়ানের এতসব লেখা আপনাদের সামনে হাজির করতে চাই না। প্রতিটি সংখ্যায় অল্প ক’টি লেখা যথার্থ পর্যালোচনা ও সমালোচনার দাবি নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির করতে চাই। এবং আমাদের পোর্টালটিতে বাছাই করা লেখা, চিন্তা, মতামত ও বিশ্লেষণ তুলে ধরতে চাই। আমরা বিশ্বাস করি, প্রকৃত পরিবর্তনের জন্য, সমাজকে নাড়া দেয়ার জন্য, চিন্তার খোরাক দেয়ার জন্য ভালো মানের অল্প লেখাই যথেষ্ট। তবে যদি আমরা মানসম্পন্ন চিন্তাশীল ব্যাপকসংখ্যক পাঠক-লেখক তৈরি করতে পারি তাহলে তাদের মতামত প্রকাশে কলেবর বৃদ্ধি করার ইচ্ছে আছে।

 

দেশ-বিদেশের প্রতি মুহূর্তের ‘ঘটনার’ সংবাদ এখন প্রায় প্রত্যেকের হাতের নাগালেই। চাইলেই পাচ্ছেন, না চাইলেও। কিন্তু প্রশ্ন জাগে, এসব সংবাদ আমাদের কতটুকু সচেতন বা আত্মসচেতন করছে? তর্ক তোলা যায় বিস্তর। কিন্তু না, তর্ক করার বা শোনার ইচ্ছে ও সময় কোনোটাই আমাদের নেই। কারণ আজকাল তর্কের অভাব নেই। সোশ্যাল মিডিয়া, প্রিন্ট-ইলেকট্রনিক মিডিয়া, চায়ের দোকানে, হাটে-ঘাটে-মাঠে তর্ক-বিতর্ক বিস্তর। তাহলে আমরা যা পেশ করছি- এগুলো কী? কেবলই তর্ক-বিতর্ক নয়? প্রশ্নটা আজকের মতো থাকুক। সব কথা বলতে হয় না। কিছু বুঝে নিতে হয়, কিছু নিজেরা চিন্তা করে বের করে নিতে হয়। নইলে ব্রেন ডেম হয়ে যাবে।

 

️লেখক:মামুনুর হাসান টিপু, সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব

 

 


আরও খবর



ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে চুরির ঘটনা বেড়েছে

চুরি আতঙ্ক, রাত জেগে এলাকাবাসীর পাহারা

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Sunday ২৪ October ২০২১ | ৭২জন দেখেছেন
Image


জেলা সংবাদদাতা :

 

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে চুরির ঘটনা বেড়েছে। শুধু রাতে নয়, দিনের বেলাতেও চুরির ঘটনা ঘটছে। খাবারে ওষুধ মিশিয়ে বাড়ির লোকজনকে অচেতন করে সব চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে একটি সংঘবদ্ধ দল। এতে উপজেলাজুড়ে চুরি-আতঙ্ক বিরাজ করছে। চোরদের হাত থেকে রক্ষা পেতে লাঠি-সোটা নিয়ে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছেন এলাকাবাসী।

 

শনিবার (৯ অক্টোবর) রাত ৯টায় উপজেলার পাড়িয়া ইউনিয়নের সৌলাপুকুর গ্রামে এ দৃশ্য দেখা গেছে। একদল যুবক সময় ভাগ করে নিয়ে রাতে বাড়িঘর পাহারা দিচ্ছেন।

 

এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, শুধু অক্টোবর মাসের প্রথম ১০ দিনেই দুওসুও ও পাড়িয়া ইউনিয়নে পাঁচটি দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে একটি চুরি হয়েছে দিনের বেলায়, অপরটি ঘটেছে বাড়ির লোকজনকে অচেতন করে। আগস্ট ও সেপ্টেম্বর মাসে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দুটি ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে এবং সাবেক এক ইউপি সদস্যের (মেম্বার) বাড়িতে তিনটি গরু চুরির ঘটনা ঘটেছে।

 

এলাকাবাসী বলছেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বিষয়টি জানানোর পরও চুরি বন্ধ হয়নি। সবাই চুরি আতঙ্কে রয়েছেন। উপায় না পেয়ে নিজেদের সম্পদ রক্ষা করতে নিজেরাই টর্চলাইট ও লাঠি নিয়ে রাত জেগে পাহারা বসিয়েছেন। তবে পুলিশ বলছে, চুরির ঘটনা ঠেকাতে তারা তৎপর রয়েছেন। খুব শিগগিরই সব চুরির ঘটনার রহস্য উন্মোচন হবে।

 

গত ৬-৮ অক্টোবর উপজেলার পাড়িয়া ইউনিয়নের তিনটি গ্রামে তিনজনের বাড়িতে দুর্ধর্ষ চুরি হয়েছে। এদের মধ্যে সৌলাপুকুর গ্রামের গয়া প্রসাদের বাড়িতে চেতনানাশক স্প্রে করে সাত ভরি স্বর্ণ ও নগদ লাখ টাকা, পানিশাল গ্রামের নাজমুল হকের বাড়িতে তিন লাখ টাকা ও ছয় ভরি স্বর্ণ এবং লোহাগাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক অতুল প্রসাদ সিংহের বাড়ি থেকে মোবাইল ও আসবাবপত্র চুরির ঘটনা ঘটেছে।

 

এর আগে ৫ অক্টোবর বালিয়াডাঙ্গী-নেকমরদহ মহাসড়কের পাশে সমিরউদ্দিন স্মৃতি কলেজের বিপরীতে স্কুলশিক্ষক আসাদ আলীর বাড়িতে দুপুরে চোরেরা চার ভরি স্বর্ণ চুরি করে নিয়ে গেছে। পরের দিন দুওসুও ইউনিয়নের হাসান মেম্বারপাড়া এলাকার রাজু হোসেন ও তার চাচার বাড়ির লোকজনকে অচেতন করে তিন লক্ষাধিক নগদ টাকা চুরি হয়েছে।

 

স্কুলশিক্ষক আসাদ আলী বলেন, চুরির ঘটনা পুলিশকে জানানোর পর পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এরপর আমরা থানায় লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছি। এ পর্যন্তই শেষ। কোনো ফল পাওয়া যায়নি। পাড়িয়া গ্রামের নাজমুল হক বলেন, চুরির ঘটনায় পরিবার নিয়ে চরম আতঙ্কে আছি।

সৌলাপুকুর গ্রামে রাত জেগে পাহারা দেওয়া কয়েকজন যুবক বলেন, চুরির ঘটনা ঠেকাতে সময় ভাগ করে আমরা ১৫ জন যুবক পাহারা দিচ্ছি। চুরি বন্ধ এবং পুলিশ তিনটি চুরির রহস্য উন্মোচন না করা পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলবে।

পাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বী রুবেল বলেন, চুরির ঘটনায় এলাকায় সাধারণ মানুষের মাঝে আতঙ্ক শুরু হয়েছে। ঘটনাগুলো তদন্ত করে চুরি হওয়া মালামাল উদ্ধারসহ চোরদের গ্রেফতারের দাবি জানান তিনি।

শনিবার রাতে পাড়িয়া ইউনিয়নে সংঘটিত দুটি চুরির ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বালিয়াডাঙ্গী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাবিবুল হক প্রধান, উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুস সোবহান।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে থানার ওসি হাবিবুল হক প্রধান বলেন, ঘটনাগুলো তদন্ত করা হচ্ছে। পরিবারের সবার ঘুম ঘুম ভাব এলে স্থানীয় চেয়ারম্যান অথবা থানাকে জানিয়ে রাখবেন। প্রয়োজনে আমরা পোশাক ছাড়া আপনাদের বাড়িতে এসে অবস্থান নেবো। চোরদের ধরতে স্থানীয়দের সহযোগিতা চান তিনি।

খবর প্রতিদিন /সি.বা

  


আরও খবর



হলে ফিরছেন দর্শক, প্রশংসা পাচ্ছে ‘পদ্মাপুরাণ’

‘পদ্মাপুরাণ’ দেখতে হলে ফিরছেন দর্শক

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Sunday ২৪ October ২০২১ | ১৭৬জন দেখেছেন
বিনোদন ডেস্ক

Image


বিনোদন ডেস্ক :

 

মুক্তির আগেই আলোচনায় ছিল তরুণ নির্মাতা রাশিদ পলাশের প্রথম চলচ্চিত্র ‘পদ্মাপুরাণ’। নানান চমকের পর এবার ছবিটি মুক্তি পেয়েছে। গেল শুক্রবার (৮ এপ্রিল) দেশের বড় কিছু প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে এটি। মুক্তির দুই দিনেই বেশ ভালো সাড়া মিলেছে দর্শকের।

 

বিশেষ করে সিনেপ্লেক্সগুলোতে মুক্তি পাওয়ায় শহরের দর্শক ছবিটি দেখতে আসছেন আশা জাগিয়ে। পরিচালকের ভাষ্যে, ‘করোনাকালীন অনেক মন্দ সময় গেছে আমাদের। সিনেমা নিয়েও আমরা একটা চ্যালেঞ্জের মুখে ছিলাম। এখনো করোনা পুরোপুরি বিদায় নেয়নি। তাই একটা আতঙ্ক তো ছিলোই সিনেমাটির মুক্তি নিয়ে।

 

তবে আশার কথা হলো বেশ ভালো রেসপন্স পাচ্ছি। প্রথম দিন কয়েকটি হলে শো ফুলহাউজ গেছে। আমার প্রথম সিনেমা এটি, তাই দর্শকের এই সাড়া আমার জন্য দারুণ অনুভূতির।

তিনি দাবি করেন, দর্শক সিনেমাটি দেখে প্রশংসা করছেন। ছবির গল্প, শিল্পীদের অভিনয় নিয়ে আলোচনা করছেন অনেকে। সোশ্যাল মিডিয়াতেও দর্শক ছবিটি দেখার তৃপ্তির কথা লিখছেন। অনেকে কিছু সমালোচনাও করছেন। সেগুলোকে নির্মাতা ভুল হিসেবে নিয়ে পরবর্তীতে তা শোধরে নেয়ার চেষ্টা হিসেবেই দেখছেন।

 

‘পদ্মাপুরাণ’ ছবিতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সাদিয়া মাহি, প্রসূন আজাদ, শম্পা রেজা, জয়রাজ, সুমিত সেনগুপ্ত, কায়েস চৌধুরী, সূচনা শিকদার, রেশমী, হেদায়েত নান্নু, আশরাফুল আশিষ, সাদিয়া তানজিন প্রমুখ। এদের মধ্যে আলাদা করে আলোচনায় এসেছে সাদিয়া মাহি ও সুমিতের অভিনয়।

 

ছবির গল্প ভাবনা জানিয়ে পরিচালক বলেন, ‘পদ্মার পাড়ের প্রকৃতির সঙ্গে মানুষের লড়াইয়ে গল্প তুলে ধরার চেষ্টা করেছি এ সিনেমায়। আমি বিশ্বাস করি অনেক ভাবনার দ্বার খুলে দিতে পারে এই সিনেমা।সেই জায়গাটাই পর্দায় দেখানোর চেষ্টা করেছি। আমি কোনো মতামত দেয়ার পক্ষে না। আমি একটা ওপেন এন্ডিং রাখতে চেয়েছি দর্শক যে যার মতো করে ভেবে নেবে।

 

 ‘পদ্মাপুরাণ’- দেখা যাচ্ছে

 

স্টার সিনেপ্লেক্স (বসুন্ধরা সিটি শপিং কমপ্লেক্স ও সনি স্কয়ার মিরপু্র), শ্যামলী সিনেমা, যমুনা ব্লকবাস্টার (যমুনা ফিউচার পার্ক), সিনেস্কোপ (নারায়ণগঞ্জ), সুগন্ধা সিনেমা (চট্টগ্রাম)।

 

খবর প্রতিদিন / সি.বা


আরও খবর



আমরা আজকে ফেসবুকে যা নিয়ে কথা বার্তা বলছি সেটাই বুঝি বাংলাদেশ

বাংলাদেশের প্রায় ১২ কোটি মানুষের কোন আগ্রহই নেই ফেসবুকে

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Saturday ২৩ October ২০২১ | ১২৩জন দেখেছেন
Image


 

Solaiman Shukhon  এর পেইজ থেকে নেয়া

 

 

আমরা ঢাকা বা কিছু বিভাগীয় শহরে বাস করা মানুষজন নিজেদেরকে বেশ খানিকটা পন্ডিত মনে করি |আমরা ভাবি আমরা আজকে ফেসবুকে যা নিয়ে কথা বার্তা বলছি সেটাই বুঝি বাংলাদেশ |

 

বাংলাদেশের প্রায় ১২ কোটি মানুষের কোনো অংশগ্রহণ এবং আগ্রহই নেই এসবে |

অধিকাংশ বাংলাদেশিদের মনোযোগ তার গ্রাম তার ধানক্ষেত তার মাছ ধরার নৌকা কিংবা বিদেশে কাজ করতে যাওয়া ছেলেকে নিয়ে |

 

শহরের কিছু মানুষ ফোনের স্ক্রিনে কি দেখে হাহা হিহি করছে সেটা এখনো বাংলাদেশকে রিপ্রেসেন্ট করে না | শহরের আমরা নিজেদের যতটা পন্ডিত মনে করি আমরা আসলে ততটা পন্ডিত না 🙂|

 

 

 

 


আরও খবর



সচল হয়েছে মোবাইল ফোনে থ্রিজি ও ফোরজি ইন্টারনেট

ফের সচল হলো থ্রিজি-ফোরজি ইন্টারনেট

প্রকাশিত:Friday ১৫ October ২০২১ | হালনাগাদ:Saturday ২৩ October ২০২১ | ১৪৫জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


ডেস্ক এডিটর :

 

সচল হয়েছে মোবাইল ফোনে থ্রিজি ও ফোরজি ইন্টারনেট। শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) বিকেল ৪টার পর ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলার অনেক ব্যবহারকারী তাদের মোবাইল ফোনে থ্রিজি ও ফোরজি ইন্টারনেট সেবা পেতে শুরু করেন।

 

এর আগে ভোর ৫টার দিক থেকে ইন্টারনেটের এ সেবা বন্ধ হয়ে যায়। তবে কোথাও কোথাও ধীরগতির টুজি ইন্টারনেট সেবা পাওয়া যাচ্ছিল। ব্রডব্যান্ডে ইন্টারনেট সেবাও থেকেছে নির্বিঘ্ন।

 

এত দীর্ঘ সময় উচ্চগতির থ্রিজি ও ফোরজি সেবা বন্ধ থাকার বিষয়ে জানতে চাইলে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, সকালে কারিগরি ত্রুটি দেখা দিয়েছিল, যেজন্য আমরা সারাদেশে থ্রিজি-ফোরজি সচল রাখতে পারিনি। তবে ত্রুটি চিহ্নিত করে সেটা দূর করে বিকেলে ঢাকায় থ্রিজি ও ফোরজি ইন্টারনেট সেবা চালু করা হয়েছে।

 

কারিগরি বিষয় বিধায় সারাদেশে এই সেবা চালু হতে কিছুটা সময় লাগতে পারে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘টেকনিক্যাল বিষয় যেহেতু, সেজন্য আমরা একসঙ্গে হয়তো চালু করতে পারছি না। তবে ক্রমান্বয়ে এই সেবা চালু হয়ে যাবে। আশা করছি, ৭টা-৮টার মধ্যে পুরো দেশে থ্রিজি-ফোরজি সেবা সচল হয়ে যাবে।

 

বিভিন্ন অপারেটর সূত্র জানিয়েছে, বুধবার (১৩ অক্টোবর) প্রথমে কুমিল্লা এবং পরে আরও পাঁচ জেলায় দ্রুতগতির মোবাইল ইন্টারনেট সেবা বন্ধ করা হয়। শুক্রবার ভোর থেকে ঢাকাসহ সারাদেশে অচল হয়ে পড়ে থ্রিজি-ফোরজি ইন্টারনেট সেবা। বিকেল ৪টার পর আবার বেশিরভাগ জেলায় এই ইন্টারনেট সেবা পেতে শুরু করেছেন গ্রাহকরা।

  

খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



প্রায় ৪ হাজার বিঘা ৩ ফসলি জমি বছরের ৮/৯ মাস জলাবদ্ধ

নাটোর বড়াইগ্রামে দীর্ঘদিনের জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিত:Sunday ১৭ October ২০২১ | হালনাগাদ:Sunday ২৪ October ২০২১ | ১৭৩জন দেখেছেন
Image


 

নাটোর প্রতিনিধি :

 

নাটোরের বড়াইগ্রামে দীর্ঘদিনের জলাবদ্ধতার স্থায়ী সমাধানের দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।রবিবার সকালে উপজেলার জোনাইল ইউনিয়নের ভেদাগাড়ি বিলের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে চামটা,বর্নি এবং জোনাইল গ্রামের প্রায় ৪ শতাধিক জনসাধারণ অংশগ্রহণ করেন।

 

এ সময় অত্র এলাকার প্রবীণ ব্যক্তিত্ব মোঃ রওশন আলীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন - জোনাইল ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড সদস্য মো: ইমদাদুল হক, মো: তরিকুল ইসলাম, ফ্রান্সিস রোজারিও, মো: জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

 

 

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন- প্রায় ৪ হাজার বিঘা ৩ ফসলি জমি বছরের ৮/৯ মাস জলাবদ্ধ হয়ে থাকায় কোন ফসল ফলানো সম্ভব হয় না, ফলে এই এলাকার কৃষিভিত্তিক অর্থনীতি ব্যাপকভাবে ভেঙে পড়ায় সাধারণ মানুষ দারিদ্রতার দিকে ধাবিত হচ্ছে। চামটা-দিয়ারপাড়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা, মসজিদ, কবরস্থান সহ প্রায় ৪০ শতাংশ বাড়িতে দির্ঘ সময় জলাবদ্ধতা থাকে, এতে বয়োবৃদ্ধ ও শিশুরা সংক্রমিত হয় পানিবাহিত ও চর্ম রোগে। ২৫/৩০ বছরের সমস্যার স্থায়ীভাবে সমাধান চেয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন এলাকাবাসী।

 

 

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- মো: খলিলুর রহমান, মোঃ নজিমুল্লা, জুব্বার ফকির, সুনিল গোমেজসহ অত্র এলাকার সর্বস্তরের জনসাধারণ।

 

খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর