Logo
আজঃ Monday ২৯ November ২০২১
শিরোনাম
নৌকা পরাজিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান হলো তৃতীয় লিঙ্গের ঋতু! তৃতীয় ধাপে ইউনিয়ন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা কুমিল্লায় নৌকা পেয়েও সরে দাড়ালেন বাহালুল, প্রাথমিক সদস্য না হয়েও মনোনীত নূরুল! মাতুয়াইলে সড়ক উন্নয়ন কাজের উদ্ধোধন করলেন সংসদ সদস্য কাজী মনু পলো উৎসবে মাছ ধরায় মেতেছে মানুষ, চির চেনা বাংলা গাজীপুরে ৩০ সেকেন্ডেই মা-মেয়ের জীবন শেষ করল দুই খুনি হয়নি হাফ পাসের সিদ্ধান্ত,টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব আলেম-ওলামাদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা-ভক্তি রয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রংপুরের তারাগঞ্জে ট্রাকচাপায় তিন নারী শ্রমিক নিহত কুমিল্লার তিতাস ও মেঘনা উপজেলায় ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী যারা !
রিকশাচালক বাবার ঘরের টিন খুলে নিল ছেলের পাওনাদাররা

ছেলে কাছে টাকা পায় তাই রিকশাচালক বাবার ঘরের টিন খুলে নিল পাওনাদাররা

প্রকাশিত:Monday ০১ November ২০২১ | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ২০৮জন দেখেছেন
Image


 

আমারা বড় ছেলে আবুল কাশেম বৌ নিয়ে আলাদা থাকে। তার কাছে স্থানীয় ইউনুস, আবুল কালাম ও রবিন নামে তিন যুবক টাকা পাবে বলে দাবি করে আসছে। কিন্তু কিসের টাকা বা কত টাকা পাবে তা আমি জানি না। আর এ টাকার জন্য প্রায়ই গালমন্দ ও মারধরের হুমকি শুনতে হয়েছে আমাকে। গত শুক্রবার আমার ঘরের টিনের চাল খুলে নিয়ে যায় ওই তিন যুবক।

 

রোববার দুপুরে কান্নাজড়িত কণ্ঠে এভাবেই কথাগুলো বলছিলেন আবদুর রহিম নামে এক বৃদ্ধ রিকশাচালক। তিনি লক্ষ্মীপুর পৌর শহরের দক্ষিণ মজুপুর গ্রামের বাসিন্দা। তার দুই ছেলে, এক মেয়ে। অন্যদিকে, অভিযুক্তরা হলেন- একই এলাকার সিরাজের ছেলে ইউনুস, আলীর ছেলে আবুল কালাম ও খোকনের ছেলে রবিন।

 

আবদুর রহিম বলেন, ছেলের অপরাধের জন্য বাবাকে শাস্তি ভোগ করতে হবে, এটা কেমন বিচার। আমি রিকশা চালিয়ে কোনোরকমে স্ত্রী, স্কুল পড়ুয়া দুই নাতনী ও প্রতিবন্ধী ছোট ছেলেকে নিয়ে থাকি। কার সঙ্গে আমার ছেলের ব্যবসা আছে তাও জানা নেই। তাকে না পেয়ে টাকা পাওয়ার দাবি করে তারা বাড়িতে হামলা করে আমার ঘরের টিনের চাল খুলে নিয়ে যায়। এখন চালবিহীন (ছাউনি ছাড়া) ঘরে গত তিনদিন মানবেতর জীবনযাপন করছি। রাতে কুয়াশায় ভিজতে হচ্ছে আবার উপরে ছাউনি না থাকায় দিনে রৌদে কষ্ট পেতে হচ্ছে।

 

এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কোনো অভিযোগ করেননি ওই রিকশাচালক। কারণ হিসেবে তিনি জানিয়েছেন, মামলা করতে টাকা লাগে, সে টাকা তো আমার নাই। ঘটনার পর থেকেই আমি মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছি। গত তিনদিন রিকশা নিয়ে বের হতে পারিনি। এছাড়া অভিযুক্তরাও প্রভাবশালী।

 

স্থানীয় ও প্রতিবেশীরা জানান, রিকশাচালক আবদুর রহিমের ছেলে কাশেম চট্টগ্রামে মাছের ব্যবসা করতেন। ব্যবসার জন্য ইউনুস, কালা ও রবিনের কাছ থেকে টাকা ধার নেন কাশেম। ব্যবসায় লোকসান হওয়ায় কাশেম গা ঢাকা দেয়। কিন্তু পাওনা টাকা উদ্ধারের জন্য আইনের আশ্রয় না নিয়ে নিজেরাই কাশেমের বাড়িঘরে হামলা চালায়। এক পর্যায়ে বৃদ্ধ রহিমের বসতঘরের টিন খুলে ফেলে তারা। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চান তারা।

   

খবর প্রতিদিন /সি.বা 


আরও খবর



ইউপি নির্বাচনে শৃঙ্খলা ভঙ্গ করলে কঠোর ব্যবস্থা: সেতুমন্ত্রী

ইউপি নির্বাচনে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করলে কঠোর ব্যবস্থা: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:Monday ০১ November ২০২১ | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ১৩৯জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে মনোনয়নকে কেন্দ্র করে যারা সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গ করছেন, নিজেদের মধ্যে সংঘাত- সংঘর্ষে লিপ্ত হচ্ছেন তাদেরকে সাংগঠনিক শৃঙ্খলা বিরোধী তৎপরতা থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে।

 

তিনি বলেন, সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গকারী এবং তাদের মদদদাতা, উস্কানিদাতা নেতা ও জনপ্রতিনিধিরাও দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থার সম্মুখীন হবেন।সোমবার সকালে সংসদ ভবন এলাকায় নিজ বাসভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

 

শৃঙ্খলা ভঙ্গকারী এবং তাদের মদদদাতাদের বিরুদ্ধে দলীয় প্রধানের নির্দেশে তালিকা তৈরি করা হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, অপকর্ম করলে কেউ রেহাই পাবে না; শাস্তি তাদের  পেতেই হবে। কৌশলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কেউ নির্বাচিত হলে শৃঙ্খলা বিরোধী অপকর্ম বলে গণ্য করা হবে।

 

তিনি বলেন, ক্ষমতায় যেতে আওয়ামী লীগের কোন ষড়যন্ত্রের প্রয়োজন হয় না, আওয়ামী লীগ এদেশের মাটি ও মানুষের দল। বঙ্গবন্ধু এ দেশের মানুষের জন্য আজীবন সংগ্রাম করেছেন, আর এখন তার কন্যা শেখ হাসিনা পিতার স্বপ্ন পূরণে অবিরাম লড়ে যাচ্ছেন।

 

ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ জনগণের রাজনীতি করে বলেই জনগণ আওয়ামী লীগের প্রাণ শক্তি। অপরদিকে যারা ক্ষমতাকে নিজের ভাগ্য বদলের চাবি মনে করে এবং দেশে বিদেশে সম্পদের পাহাড় গড়ে,ষড়যন্ত্র, হত্যা ও সন্ত্রাস নির্ভর রাজনীতি করে তাদের জনগণ প্রত্যাখ্যান করেছে।

 

খবর প্রতিদিন /সি.বা 


আরও খবর



ভালোবেসে বিয়ে, জাত-পাতের রেষারেষিতে শেষ দুই জীবন

ভালোবেসে বিয়ে: উচু জাত নিচু জাত দ্বন্ধে বউকে কুপিয়ে মেরে, নিজের বুকে ছুড়ি চালিয়ে আত্তহত্যা

প্রকাশিত:Wednesday ০৩ November ২০২১ | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ৩২৯জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


 

অভি-যুথির দীর্ঘদিনের প্রেম। করেছেন বিয়েও। তবে মেনে নেয়নি অভির পরিবার। ভালোবেসে বিয়ে করলেও স্ত্রীকে ঘরে তুলতে পারেননি স্বামী। শুধু একটাই আপত্তি; যুথির পরিবার নিম্ন বংশের। আর এ জাত-পাত নিয়েই বাড়তে থাকে মতানৈক্য। শেষমেশ ভালোবাসার মানুষটিকেই কুপিয়ে হত্যা করেন অভি। নিজেও বেঁচে থাকেননি। ছুরি মেরে নিজেকেও শেষ করে দেন।

 

ঘটনাটি চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের। মঙ্গলবার রাত প্রায় ১২টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান অভি। এ ঘটনায় এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

 

নিহত ২৩ বছর বয়সী যুথি সূত্রধর সীতাকুণ্ড পৌর শহরের প্রেমতলা এলাকার বাসিন্দা রামচন্দ্র সূত্রধরের কলেজপড়ুয়া মেয়ে। আর ২৭ বছরের অভি চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলা কালীপুর বণিক পাড়ার শুধাংশ ধরের ছেলে।

 

জানা গেছে, যুথির সঙ্গে অভির প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। দুই বছর আগে তারা পালিয়ে বিয়ে করেন। বিয়ের কিছুদিনের মধ্যেই যুথিকে বউ করে নিজ ঘরে তুলবেন বলে আশ্বাস দিয়েছিলেন অভি। কিন্তু এতে আপত্তি জানায় পরিবার। অভি উচ্চ বংশের ছেলে। যুথির পরিবার তাদের তুলনায় নিম্ন বংশের। এটিই ছিল অভির পরিবারের আপত্তি। এ কারণে আর শেষ পর্যন্ত শ্বশুরবাড়িতে স্থান হয়নি যুথির। যদিও তারা ভাড়া বাসায় থাকতেন।

 

শ্বশুরবাড়িতে না নেয়ায় দিন দিন স্বামীর সঙ্গে যুথির মতানৈক্য বাড়তে থাকে। এর জেরে দেড় মাস আগে স্বামীকে ছেড়ে বাবার বাড়িতে চলে যান যুথি। এতে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয় অভির মনে। ভালোবাসার মানুষটিকে হারিয়ে তিনি মাদকাসক্ত হয়ে পড়েন। একপর্যায়ে ২৭ অক্টোবর শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে স্ত্রী যুথিকে ফিরিয়ে নিতে চান তিনি। কিন্তু স্বামীর সঙ্গে আর যাবেন না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দেন যুথি। এতেই চরম ক্ষোভে নিজের সঙ্গে আনা ধারালো ছুরি দিয়ে যুথিকে এলোপাতাড়ি কোপান। শরীরের বিভিন্ন অংশে ১৯টি ছুরিকাঘাতে যুথি ঘটনাস্থলেই নিহত হন। শেষে নিজেই নিজের পেটে ছুরিকাঘাত করতে থাকেন অভি। এতে রক্তাক্ত ও গুরুতর আহত হন নিজেও। পরে তাকে চমেক হাসপাতালে নেয়া হয়।

চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থাতেই ওই রাতেই অভির বিরুদ্ধে স্ত্রীকে হত্যা ও আত্মহত্যাচেষ্টার দুটি অপরাধে মামলা করেন শ্বশুর রামচন্দ্র সূত্রধর। সেই থেকে পুলিশি পাহারায় অভির চিকিৎসা চলতে থাকে। এমনি অবস্থায় মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অভিও মারা যান।

 

সীতাকুণ্ড থানার ওসি (তদন্ত) সুমন বণিক বলেন, ছেলে অভি ছিলেন উচ্চবংশীয়। আর তার বিয়ে করা বউ যুথির বংশ পরিচয় তাদের পছন্দনীয় নয়। জাতিগত এ কুসংস্কারের কারণে অভির পরিবার তার বউকে মেনে নেয়নি। যার শেষ পরিণতিতে সম্ভাবনাময় দুটি জীবন চিরতরে ধ্বংস হয়ে গেছে।

 

তিনি আরো বলেন, ২৭ অক্টোবর স্ত্রী হত্যার পর নিজেও আত্মহত্যার চেষ্টাকারী অভিকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চমেকে ভর্তি করানো হয়েছিল। কিন্তু তার অবস্থার কোনো উন্নতি হয়নি। শেষ পর্যন্ত মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে তারও মৃত্যু হয়।

 

-খবর প্রতিদিন /সি.বা 


আরও খবর



রংপুরের তারাগঞ্জে ট্রাকচাপায় তিন নারী শ্রমিক নিহত

প্রকাশিত:Saturday ২৭ November ২০২১ | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ৭৫জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


 

রংপুরের তারাগঞ্জে ট্রাকচাপায় তিন নারী শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ৩ জন। তবে তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

 

শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার ঘোনিরামপুর এলাকায় ব্রাদার্স কোল্ড স্টোরেজ সংলগ্ন রংপুর-সৈয়দপুর মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় করে বাড়ি ফিরছিলেন তিন নারী শ্রমিক। ব্রাদার্স কোল্ড স্টোরেজের সামনে পৌঁছলে বিপরীত থেকে আসা একটি ট্রাক তাদের চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে তিন শ্রমিকই নিহত হন।

 

তারাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি নুরুন্নবী প্রধান জানান, তিন নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

-খবর প্রতিদনি/ সি.বা


আরও খবর



আওয়ামিলীগ মনোনিত প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র জমা

মধুপুরে গোলাবাড়ী ও মির্জাবাড়ী ইউপি নির্বাচনে আওয়ামিলীগ মনোনিত প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র জমা

প্রকাশিত:Tuesday ০২ November 2০২1 | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ২০৫জন দেখেছেন
Image


আাবুল হোসেন আকাশ , মধুপুর :

 

আসন্ন ৩য় ধাপের ইউপি নির্বাচনে টাংগাইলের মধুপুর উপজেলার গোলাবাড়ী ইউনিয়ন ও মির্জাবাড়ী পরিষদের আওয়ামী লীগের  মনোনিত চেয়ারম্যান প্রার্থী ৫নং গোলাবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী গোলাম  মোস্তাফা খান বাবলু, ৬ নং মির্জাবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী সাদিকুল ইসলাম সাদিক  মধুপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসার খন্দকার মোহাম্মদ আলীর নিকট আজ দুপুরে মনোনয়ন পত্র জমা দেন ।

 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন  মধুপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ছরোয়ার আলম খান আবু, মধুপুর উপজেলা আ‘লীগের সভাপতি শফি উদ্দিন মনি ও টাংগাইল জেলা কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোশারফ হোসেন আকন্দ সহ আ,লীগের কয়েক শত নেতাকর্মী ও সাধারণ ভোটারগণ। 

 

খবর প্রতিদিন /সি.বা 


আরও খবর



দলীয় মনোনয়ন পেয়েও সরে দাড়ালেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান বাহালুল

কুমিল্লায় নৌকা পেয়েও সরে দাড়ালেন বাহালুল, প্রাথমিক সদস্য না হয়েও মনোনীত নূরুল!

প্রকাশিত:Sunday ২৮ November ২০২১ | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ১২৭জন দেখেছেন
Image


মাহফুজ বাবু :

 

কুমিল্লায় চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেয়েও সরে দাড়ালেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান বাহালুল, অপর দিকে স্থানীয় আওয়ামী লীগের সাধারণ সদস্য পদ না থাকলেও দলীয় ভাবে মনোনীত হয়েছেন সিআইপি নূরুল ইসলাম।

 

আদর্শ সদর উপজেলার পাঁচথুবি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী ইকবাল হোসেন বাহালুল নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েন। আসন্ন নির্বাচনে তিনি অংশ নেবেন না বলেও ঘোষণা দিয়েছেন।

 

মনোনীত হওয়ার পর এ নিয়ে চেয়ারম্যান বাহালুল তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডিতে ২৪ নভেম্বর একটি স্টাটাস দেন এতে তিনি লেখেন আল্লাহ মেহেরবানিতে আমি দলীয় মনোনায়ন পেয়েছি তবে সংগঠন ও এম পি মহোদয় সিদ্ধান্তের বাহিরে কিছু করব না । আমি সবার কাছে ক্ষমা প্রার্থী

পরদিন ২৫ নভেম্বর আরেকটি পোস্ট করেন তার ফেসবুক আইডিতে তাতে লেখা নৌকা পেয়েছি, নৌকা উৎসর্গ করেছি, নেতার জন্য। এইটা তেমন বেশি কি নেতা ডেকে এনে চেযারম্যান করেছিল, না হলে হয়ত হতে পারতাম না।সকলে মেনে নাও নৌকার বিজয় হয়েছে,আমাদের হাতে। জয় বাংলা।

 

গত ২৫ নভেম্বর বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন হলেও তিনি তার মনোনয়ন পত্র জমা দেননি। এতে ঐ ইউনিয়নে একক প্রার্থী হিসেবে বিনা ভােটে নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন হাসান রফি রাজু। তিনি পাঁচথুবি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। জানা যায়, সদর উপজেলার ছয়টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) দলীয় কাউন্সিলের মাধ্যমে মনােনীত প্রার্থীদের তালিকা কেন্দ্রে পাঠায় উপজেলা আওয়ামী লীগ। কিন্তু সে তালিকায় ছিলেন না বর্তমান চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন বাহালুল। তার বদলে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসান রফি রাজুর নাম কেন্দ্রে পাঠানো হয়। তবে তাকে মনোনয়ন না দিয়ে ইকবাল হোসেন বাহালুলকে মনোনয়ন দেওয়া হয়।

 

 এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের মনােনয়ন পাওয়া ইকবাল হোসেন বাহালুল বলেন, দল আমাকে মনোনয়ন দিয়েছে, আমি নৌকা প্রতীক পেয়েছি। তারপরও নির্বাচন করব না। দলীয় শৃঙ্খলা বজায় রাখা সহ আমার নেতা ও কর্মীরদের স্বার্থে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

 মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়া হাসান রফি রাজু বলেন, তৃণমূল আওয়ামী লীগ সম্মেলনের মাধ্যমে আমাকে নির্বাচিত করেছে তৃণমূল আওয়ামী লীগ যেহেতু আমাকে নির্বাচিত করেছে। তাই আমি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করব। শুনেছি, নৌকা প্রতীকের প্রার্থী নির্বাচন করবেন না। তাই আমি ছাড়া এই ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে আর কোনো প্রার্থী নেই।

 

এদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে কেন্দ্রে পাঠানো ছয়জনের মধ্যে দলের মনােনয়ন পাননি তিন বারের নির্বাচিত ১নং কালিরবাজার ইউপি'র চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সেকান্দর আলী। এখানে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছে নুরুল ইসলাম। স্থানীয় আওয়ামী লীগের সদস্য পদ না থাকলেও গত বছর আওয়ামী লীগে যোগদানকারী প্রবাসী ব্যবসায়ী ও সিআইপি তিনি।

 

এবিষয়ে ১নং কালির বাজার ইউনিয়নের তিন বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আলহাজ্ব সেকান্দর আলী বলেন, কিছুদিন আগে ইউনিয়ন কাউন্সিলিংয়ে নেতৃবৃন্দের ভোটে আমি ৭০ভোট পাই, বিপরিতে নূরুল ইসলাম পান ১৬ ভোট। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ এবং এলাকাবাসীর সেবায় দীর্ঘ ১৫ বছর নিজেকে উৎসর্গ করেছি। উন্নয়ন করেছি প্রতিটি গ্রামে। তবে কি কারনে এমনটা হয়েছে জানা নেই। দলীয় মনোনয়ন না পাওয়ায় নেতাকর্মীরা কিছুটা অবাক হয়েছেন অনেকে। তবে ইউনিয়নবাসী ও স্থানীয় নেতাকর্মীদের অনুরোধ রক্ষায় আমি অবশ্যই নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবো। এবং আশাকরি সুষ্ঠ ভোটের মাধ্যমে বিশাল ব্যবধানের জয়লাভ করবো।

 

এদিকে দলীয় মনোনয়ন পেলেও এখনো ভোটের মাঠে ততটা সরব দেখা যায়নি আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী নূরুল ইসলামকে। মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করেও পাওয়া যয়নি তাকে। তবে তার নেতাকর্মীদের কয়েকজন জানান কৌশলে আগাচ্ছেন তিনি। নিরবে ভোটারদের মাঝে প্রচারণা চালাচ্ছেন তারা। আগামী ৫তারিখ প্রতিক বরাদ্দের পর আনুষ্ঠানিক ভাবে ভোটের মাঠে নামবেন তারা। 

 

আদর্শ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আবুল বাশার এ বিষয়ে বলেন, আমরা দলীয় প্রার্থী নির্বাচনে ছয়টি ইউপিতে সম্মেলন করেছি। সেখান থেকে নির্বাচিত ছয় জনের তালিকা কেন্দ্রে পাঠিয়েছি। তাদের মধ্যে চারজন নৌকা প্রতীক পেয়েছেন। দলীয় শৃঙ্খলা বজায় রাখতে বাকি দুজনের বিষয়ে সমন্বয়ের চেষ্টা করছি।

 

গত ২৬ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সদর উপজেলা নির্বাচন কার্যালয়ে মনােনয়নপত্র জমা দিয়েছেন মোট ১৫ জন। জগন্নাথপুর ইউপিতে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী মামুনুর রশিদ, জসিম উদ্দিন তালুকদার, আবু বক্কর সিদ্দিক। দুর্গাপুর উত্তর ইউপিতে আওয়ামী লীগের মনােনীত প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ, এয়াকুব আলী, দুর্গাপুর দক্ষিণ ইউপিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আমিনুল হক, হুমায়ূন কবির, আমড়াতলী ইউপিতে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী কাজী মোজাম্মেল হক, কাজী নজরুল ইসলাম, রুবেল আহমেদ, কালিরবাজার ইউপিতে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী নূরুল ইসলাম ও সেকান্দর আলী, আব্দুল হক, কামাল হোসেনএবং পাঁচথুবি ইউপিতে হাসান রফি রাজু। আগামী ২৬ ডিসেম্বর চতুর্থ ধাপে এসকল ইউপিতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 

নিউজ ট্যাগ: ইউপি নির্বাচন

আরও খবর