Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

বুয়েটে ভর্তির চূড়ান্ত পরীক্ষা আজ

প্রকাশিত:Saturday ১৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৬৫জন দেখেছেন
Image

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির চূড়ান্ত ভর্তি পরীক্ষা আজ। বুয়েট ক্যাম্পাসে দুই শিফটে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

শনিবার (১৮ জুন) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত প্রথম শিফটের এবং দুপুর ২টা থেকে বিকেল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত দ্বিতীয় শিফটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। আজকের চূড়ান্ত পরীক্ষায় মোট ৬ হাজার পরীক্ষার্থী অংশ নেবেন।

প্রথম শিফটে মডিউল-এ ‘ক’ ও ‘খ’ গ্রুপের জন্য গণিত, পদার্থবিজ্ঞান ও রসায়ন এবং দ্বিতীয় শিফটে মডিউল-বি ‘খ’ গ্রুপের মুক্তহস্ত অঙ্কন এবং দৃষ্টিগত ও স্থানিক ধীশক্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

আগামী ৬ জুলাই নির্বাচিত ও অপেক্ষমান প্রার্থীদের নামের তালিকা প্রকাশ করার কথা রয়েছে।

এর আগে, গত ৪ জুন বুয়েটে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার প্রাক্-নির্বাচনী (প্রাথমিক বাছাই) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। প্রাথমিক বাছাইয়ে নির্বাচিতদের চূড়ান্ত পরীক্ষার জন্য মনোনীত করা হয়।

এ বছর বুয়েটে মোট আসনসংখ্যা ১ হাজার ২৭৯টি। এর মধ্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম ও অন্যান্য এলাকার ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীভুক্ত প্রার্থীদের প্রকৌশল বিভাগ এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের জন্য তিনটি ও স্থাপত্য বিভাগে একটি সংরক্ষিত আসন রয়েছে।


আরও খবর



বাসের অগ্রিম টিকিটের চাপ নেই সায়েদাবাদে

প্রকাশিত:Saturday ২৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ২৩জন দেখেছেন
Image

আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হলেও রাজধানীর সায়েদাবাদ টিকিট কাউন্টারগুলোতে কোনো চাপ নেই। সায়েদাবাদ কাউন্টারগুলোতে খুলনা, কুমিল্লা, নোয়াখালী, কক্সবাজার, সিলেট, চট্টগ্রামের পরিবহনের টিকিট বিক্রি করা হয়। এর মধ্যে নোয়াখালী ও কুমিল্লা রুটের অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে না। তবে সিলেট, কক্সবাজার, চট্টগ্রাম এবং খুলনা রুটে চলাচল করা পরিবহনগুলো অগ্রিম টিকিট বিক্রি করছে।

নোয়াখালী ও কুমিল্লা রুটে চলাচল করা পরিবহনের কর্মীরা জানিয়েছেন, ঢাকা থেকে যারা নোয়াখালী ও কুমিল্লায় যান তারা দিনের টিকিট দিনেই সংগ্রহ করেন। ঢাকা থেকে প্রতিদিন অসংখ্য বাস নোয়াখালী, কুমিল্লার উদ্দেশে ছেড়ে যায়। বাস ছাড়ার সময় কাউন্টারে এলেই টিকিট পাওয়া যায়। তাই যাত্রীদের কাছে অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হয় না।

jagonews24

অন্যদিকে খুলনা, চট্টগ্রাম, সিলেট, কক্সবাজার রুটে চলাচল করা পরিবহনের কর্মীরা জানিয়েছেন, যাত্রীরা চাইলে ঈদের অগ্রিম টিকিট সংগ্রহ করতে পারেন। অগ্রিম টিকিট না নিলেও সমস্যা নেই। যাত্রীরা চাইলে দিনের টিকিট দিনেই সংগ্রহ করতে পারেন। তবে অগ্রিম টিকিট কাটলে ভালো, সিট পাওয়া যায়। এজন্য অনেকেই অগ্রিম টিকিট কাটেন।

ঢাকা থেকে নোয়াখালী, সোনাপুর রুটে চলাচল করা একুশে এক্সপ্রেসের কাউন্টার ম্যানেজার মো. সুমন বলেন, আমাদের রুটে অসংখ্য কোম্পানির পরিবহন চলাচল করে। পরিবহনের কোনো অভাব নেই। আধা ঘণ্টা পর পর গাড়ি ছাড়ে। যাত্রীরা যখন আসবেন তখনই টিকিট পাবেন। আমরা অগ্রিম টিকিট বিক্রি করি না। যাত্রীরাও অগ্রিম টিকিট নেন না।

তিনি বলেন, আমাদের ঈদ আর স্বাভাবিক সময় সবই এক। ঈদের আগের দিনও যখন খুশি তখন যাত্রীরা কাউন্টারে এসে টিকিট সংগ্রহ করতে পারবেন। টিকিট পেতে কোনো সমস্যা হবে না।

ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম ও সিলেট রুটে চলাচল করা শ্যামলী এন আর পরিবহনের টিকিট বিক্রেতা আরিফুল ইসলাম বলেন, যাত্রীরা চাইলে আমাদের পরিবহনের অগ্রিম টিকিট কিনতে পারেন। এক মাস আগে থেকেই আমাদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। এখন আসন্ন ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি হচ্ছে। তবে অগ্রিম টিকিটের তেমন চাপ নেই।

তিনি বলেন, অগ্রিম টিকিট না কাটলেও সমস্যা নেই। দিনের দিন এসেও আমাদের কাউন্টার থেকে যাত্রীরা টিকিট সংগ্রহ করতে পারেন। তবে অগ্রিম টিকিট নিয়ে রাখলে ভালো, সিট পাওয়া যায়। কাউন্টারে না এসে অনলাইনেও অগ্রিম টিকিট কাটার ব্যবস্থা আছে।

jagonews24

সিলেট রুটে চলাচল করা লন্ডন এক্সপ্রেসের টিকিট বিক্রেতা মো. মারুফ বলেন, আমরা ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু করেছি। এখন ৭, ৮ ও ৯ জুলাইসহ যে কোনো দিনের অগ্রিম টিকিট কিনতে পারবেন যাত্রীরা। আবার যাত্রীরা চাইলে দিনের দিন এসেও টিকিট সংগ্রহ করতে পারবেন। আমাদের অগ্রিম টিকিট বিক্রির তেমন চাপ নেই। কারণ আধা ঘণ্টা পর পর আমাদের গাড়ি আছে।

খুলনা রুটে চলাচল করা ফাল্গুনী পরিবহনের টিকিট বিক্রেতা মো. আমিনুল বলেন, এবার আমাদের পরিবহন পদ্মা সেতু দিয়ে যাবে। আমাদের এসি এবং নন-এসি দুই ধরনের পরিবহন আছে। পদ্মা সেতু দিয়ে চলাচল করার জন্য নন-এসি পরিবহনের ভাড়া বাড়বে না। তবে এসি পরিবহনের ভাড়া ৫০ টাকা বাড়ানো হচ্ছে।

ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঈদ উপলক্ষে আমাদের অগ্রিম টিকিট বিক্রির তেমন চাপ নেই। তবে যাত্রীরা চাইলে অগ্রিম টিকিট কিনতে পারেন। আর অগ্রিম টিকিট না কিনলেও সমস্যা নেই। আমাদের প্রচুর গাড়ি চলে এই রুটে। যাত্রীরা দিনের দিন এসেও টিকিট সংগ্রহ করতে পারবেন।


আরও খবর



৪৫ রানে ৬ উইকেট হারালো বাংলাদেশ

প্রকাশিত:Thursday ১৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৪০জন দেখেছেন
Image

একের পর এক উইকেট হারানোর মিছিলে ভরসা হয়ে ছিলেন তামিম ইকবাল আর লিটন দাস। বিপর্যয়ের মুখে দাঁড়িয়ে একটি জুটিও গড়েছিলেন। কিন্তু ৫ বলের ব্যবধানে এই দুই ব্যাটারকে হারিয়ে আবারও বিপদে পড়েছে বাংলাদেশ।

তামিম-লিটন দুজনই ব্যাটিং লাইনআপে বড় আস্থার প্রতীক। ১৬ রানে ৩ উইকেট হারানো দলকে অনেকটা সময় দুশ্চিন্তামুক্তও রেখেছিলেন তারা। ৫৩ বলের জুটিতে আসে ২৫ রান।

এরপরই আবার বিপদ। আলজেরি জোসেফের লেগ সাইডের বল খেলতে গিয়ে দুর্ভাগ্যজনকভাবে উইকেটরক্ষকের ক্যাচ হয়েছেন তামিম। ৪৩ বলে ৪ বাউন্ডারিতে তিনি করেন ২৯ রান।

এর পরের ওভারে জোড়া আঘাত হেনেছেন কাইল মায়ার্স। লিটন দাস ৩৩ বলে ১২ করে ক্যাচ দিয়েছেন উইকেটরক্ষকের কাছে। ইয়াসির আলি রাব্বির বদলে সুযোগ পাওয়া নুরুল হাসান সোহান এক বল পরই হয়েছেন এলবিডব্লিউ (০)।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১৫ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ৪৫ রান। সাকিব আল হাসান আর মেহেদি হাসান মিরাজ মাত্রই ক্রিজে এসেছেন।

অ্যান্টিগায় টস হেরে ব্যাটিং করছে বাংলাদেশ। ক্যারিবীয় পেসার কেমার রোচ ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই আঘাত হেনেছেন। বাইরের বল অযথা খোঁচা দিয়ে স্লিপে ক্যাচ হয়েছেন মাহমুদুল হাসান জয় (১ বলে ০)। টেস্টে ১১ ইনিংসে তার শূন্য এ নিয়ে ছয়টি।

এক ওভার বিরতি দিয়ে এসে রোচ তুলে নিয়েছেন টপঅর্ডারের আরেক ব্যাটার নাজমুল হোসেন শান্তকেও। ব্যাট-প্যাডের ফাঁক গলে বোল্ড হওয়া শান্তও করেছেন শূন্য, ৫ বল খেলে। ফলে ৩ রান তুলতেই ২ উইকেট হারিয়ে বসে বাংলাদেশ।

এরপর ব্যাট করতে নেমে তামিমের সঙ্গে জুটি বাধার চেষ্টা করেছিলেন মুমিনুল হক। আশা ছিল, নেতৃত্বের ভারমুক্ত হওয়ার পর নিজেকে ফিরে পাবেন টেস্টে বাংলাদেশের সেরা এই ব্যাটার। কিন্তু, না। তিনি নিজেকে যেন হারিয়ে খুঁজছেন। কোনোভাবেই ফর্মে ফিরতে পারছেন না।

আজও সুযোগ ছিল তার সামনে নিজেকে মেলে ধরার। কিন্তু না, মাহমুদুল হাসান জয় আর নাজমুল হোসেন শান্তর দেখানো পথে হেঁটে তিনিও আউট হলেন শূন্য রানে। জেইডেন সিলসের ডেলিভারি তাড়া করতে গিয়ে স্লিপে ক্যাচ দিয়েছেন মুমিনুল। এ নিয়ে টানা আট ইনিংসে দশের নিচে আউট হলেন তিনি।


আরও খবর



বাজেট অধিবেশন শুরু, চলবে ৪ জুলাই পর্যন্ত

প্রকাশিত:Sunday ০৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৬৪জন দেখেছেন
Image

জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশন শুরু হয়েছে। রোববার (৫ জুন) বিকেল ৫টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হয়। এসময় প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা যোগ দেন। এছাড়া করোনার ধকল কাটিয়ে দীর্ঘ দুই বছর পর আজকের অধিবেশনে বেশি সংখ্যক এমপি যোগ ‍দিয়েছেন। তবে বিদেশে চিকিৎসারত থাকায় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ অনুপস্থিত রয়েছেন।

অধিবেশন শুরুর আগে সংসদের কার্যউপদেষ্টা অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এ অধিবেশন ৪ জুলাই পর্যন্ত চলবে। তবে স্পিকার চাইলে সংসদের অধিবেশন বাড়াতে বা কমাতে পারবেন।

সংসদের শুরুতেই কোরআন তেলওয়াতের পর সভাপতিমণ্ডি মনোনয়ন করা হয়। তারা স্পিকার বা ডেপুটি স্পিকারের অনুপস্থিতিতে জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে সংসদের বৈঠক পরিচালনা করবেন। এরা হলেন- শামসুল হক টুকু (পাবনা-১), এ বি তাজুল ইসলাম (ব্রাক্ষণবাড়িয়া-৬), মুহিবুর রহমান মানিক (সুনামগঞ্জ-৫), মুজিবুল হক চুন্নু ( কিশোরগঞ্জ-৩) ও শামীমা আকতার খানম( মহিলা আসন-২১)।।

এটি চলমান জাতীয় সংসদের ১৮তম অধিবেশন। গত ১৮ মে (বুধবার) রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এ অধিবেশন আহ্বান করেন। চলমান এ অধিবেশনের পঞ্চম কার্যদিবস বৃহস্পতিবার (৯ জুন) জাতীয় সংসদে ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন করা হবে।

সংসদের কর্মকর্তারা জানান, এবার মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলকসহ অন্যান্য স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিধি অনুসরণ করতে হলেও তেমন কড়াকড়ি থাকবে না। এবার নেগেটিভ সনদ থাকলেই সংসদ সদস্যরা সংসদে ঢুকতে পারবেন। আগের অধিবেশনগুলোর মতো রোস্টার ভিত্তিতে সংসদ সদস্যদের বৈঠকে অংশ নেওয়ার বিষয়টি থাকছে না।

এ বিষয়ে সরকারি দলের হুইপ ইকবালুর রহিম বলেন, ‘এবার আমরা সংসদ সদস্যদের জন্য রোস্টার করছি না। করোনাভাইরাস নেগেটিভ সনদ থাকা সবাই সংসদে অংশ নিতে পারবেন।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে এর আগের দুই বছরের বাজেট অধিবেশন সংক্ষিপ্ত ছিল। এই অধিবেশনের কার্যদিবস বেশি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। বাজেট উত্থাপনের পর সম্পূরক বাজেট নিয়ে আলোচনা ও পাস এবং নতুন অর্থবছরের বাজেট নিয়ে আলোচনা করবেন সংসদ সদস্যরা। মাসজুড়ে আলোচনা শেষে ৩০ জুনের মধ্যে বাজেট পাস করবে সংসদ।

এবারের অধিবেশনে উত্থাপনের জন্য শনিবার পর্যন্ত চারটি বিল সংসদে সচিবালয়ে জমা পড়েছে। এগুলো হলো- বাংলাদেশ গ্যাস, তেল ও খনিজসম্পদ করপোরেশন বিল, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল বিল, বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন (সংশোধন) বিল এবং বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টে বিচারক (ছুটি, পেনশন, ও বিশেষাধিকার) বিল।

আগামী ৯ জুন জাতীয় সংসদে নতুন অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন করবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এর আগে গত ৯ মে প্রধানমন্ত্রীর সামনে প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট অনেকটাই চূড়ান্ত করা হয়।

২০২১-২২ অর্থবছরে ঘোষিত বাজেটের আকার ৬ লাখ ৩ হাজার ৬৮১ কোটি টাকা। এবার বাড়ছে ৭৪ হাজার ১৮৩ কোটি টাকা। এবারের বাজেটে মূল্যস্ফীতির হার ৫ দশমিক ৫ শতাংশ ধরা হচ্ছে, ২০২১-২২ অর্থবছরে যা ছিল ৫ দশমিক ৩ শতাংশ। মোট বিনিয়োগ ধরা হয়েছে জিডিপির ৩১ দশমিক ৫ শতাংশ। এর মধ্যে বেসরকারি খাত থেকে ২৪ দশমিক ৯ শতাংশ ও সরকারি খাত থেকে ৬ দশমিক ৬ শতাংশ বিনিয়োগ আসবে। বাজেটে টাকার অংকে নতুন জিডিপির আকার হচ্ছে ৪৪ লাখ ১২ হাজার ৮৪৯ কোটি টাকা।


আরও খবর



শাবিপ্রবিতে ভয়াবহ বন্যা, শিক্ষার্থীদের উদ্ধারে কাজ করছে বিজিবি

প্রকাশিত:Friday ১৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৩৮জন দেখেছেন
Image

টানা বৃষ্টিপাত ও উজানের পাহাড়ি ঢলের কারণে সুরমা নদীর পানি উপচে পড়েছে সিলেট নগরীর বিভিন্ন এলাকায়। বাদ পড়েনি শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসও।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) সকাল থেকে ধীরে ধীরে পানি বেড়ে সন্ধ্যার দিকে হাঁটুপানিতে পরিণত হয়। রাতে আরও ভয়াবহ অবস্থা তৈরি হয় ক্যাম্পাসে। বৃষ্টি না কমায় শুক্রবার (১৭ জুন) ক্যাম্পাসের চারদিকে পানি ছড়িয়ে পড়ে। এতে শিক্ষার্থীরা দিশেহারা হয়ে পড়েন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন, খেলার মাঠ, কিলো রোড, প্রশাসনিক ভবন ও শিক্ষার্থীদের আবাসিক হলে পানি উঠে পড়েছে। সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছেন আবাসিক হলের ছাত্রীরা। শিক্ষার্থীদের হল থেকে নিরাপদে বাড়ি ফিরতে উদ্ধারকাজ শুরু করেছেন বিজিবি সদস্যরা।

jagonews24

গত ১৪ মে থেকেই সিলেটে টানা বৃষ্টিপাত ও পাহাড়ি ঢলের কারণে দুর্বিষহ জীবনযাপন করেন নগরীর বাসিন্দারা। পরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর্যায়ে গেলেও গত কয়েকদিন ধরে আবারও শুরু হয় ভারি বর্ষণ। এতে সুরমা নদীর পানি শহরের চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে।

সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর সহযোগী অধ্যাপক ইশরাত ইবনে ইসমাইল বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও বিজিবি সদস্যরা শিক্ষার্থীদের উদ্ধারকাজে একসঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেন। শিক্ষার্থীরা নিরাপদে হল থেকে বের না হওয়া পর্যন্ত আমাদের এ কাজ চলতে থাকবে।’

jagonews24

এদিকে শুক্রবার সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জরুরি সিন্ডিকেট সভায় আগামী ২৫ জুন পর্যন্ত এক সপ্তাহের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সবধরনের ক্লাস-পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে।

এছাড়া বিদ্যুৎ না থাকায় হলে থাকতে আবাসিক শিক্ষার্থীদের খাবারসহ বিভিন্ন সমস্যায় পড়তে হবে জানিয়ে হল প্রভোস্টরা তাদের বাড়িতে যাওয়ার নির্দেশ দিচ্ছেন। শিক্ষার্থীরাও বাড়ির পথে রওনা দেওয়া শুরু করেছেন।


আরও খবর



'পদ্মা সেতু দক্ষিণাঞ্চলের অর্থনীতিতে অভাবনীয় পরিবর্তন আনবে'

প্রকাশিত:Friday ০৩ June ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
Image

পদ্মা সেতু দক্ষিণাঞ্চলের অর্থনীতিতে অভাবনীয় পরিবর্তন আনবে বলে মন্তব্য করেছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। তিনি বলেন, পদ্মা সেতু দক্ষিণের মানুষের জীবনমানের পরিবর্তন করবে, তাদের আধুনিক আকাঙ্ক্ষা পূরণ হবে। এ সেতু দক্ষিণাঞ্চলের জন্য আশীর্বাদ।

শুক্রবার (৩ জুন) পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় পর্যটন হলিডে কমপ্লেক্সে বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএফআরআই) আয়োজিত সীউইড মেলার উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতু দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের জন্য আশীর্বাদ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা না থাকলে এটি কখনোই সম্ভব হতো না। প্রক্রিয়াজাতকরণের ব্যবস্থা না থাকায় এ অঞ্চলে উৎপাদিত মাছ, মাংস, দুধ ও ডিমসহ অন্যান্য কৃষিসামগ্রী ঢাকায় পৌঁছানো বা রপ্তানির সুযোগ ছিল না।

‘পদ্মা সেতুর সংযোগের ফলে দক্ষিণাঞ্চলে উৎপাদিত কৃষিসামগ্রী দ্রুততার সঙ্গে ঢাকায় যেতে পারবে। পাশাপাশি এ অঞ্চলে প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্প প্রতিষ্ঠা হবে। প্রক্রিয়াজাত করা সামগ্রী সরাসরি বিদেশে পাঠিয়ে দেওয়া যাবে। এ সেতু দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের ঢাকায় আসা-যাওয়াই শুধু সহজ করবে না, এ অঞ্চলের অর্থনীতিকেও সমৃদ্ধ করবে।’

এ সময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ এখন মাছে স্বয়ংসম্পূর্ণ। সমুদ্র থেকে টুনা জাতীয় মাছ আহরণে মৎস্য অধিদপ্তর প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। বিশ্বের অন্তত ৯০টি দেশে বাংলাদেশের মাছের চাহিদা রয়েছে।

‘পদ্মা সেতু হওয়ার কারণে দক্ষিণাঞ্চলে মাছ প্রক্রিয়াজাতকরণ ও প্যাকেটজাতকরণ শিল্প গড়ে উঠবে। বিশ্বের অনেক দেশে মাছ পাঠানো যাবে। এখান থেকে প্যাকেটজাত করে সরাসরি মাছ রপ্তানি করতে পারলে মৎস্য সংশ্লিষ্ট শিল্পেই দক্ষিণাঞ্চল এগিয়ে যাবে, এ অঞ্চলের অর্থনীতি সমৃদ্ধ হবে।’

মেলার উদ্বোধনকালে শ ম রেজাউল বলেন, সীউইড বা সামুদ্রিক শৈবাল বাণিজ্যিক গুরুত্বসম্পন্ন একটি সমুদ্রসম্পদ। এ সম্পদ কাজে লাগাতে হবে। মানুষের পুষ্টি চাহিদা মেটাতে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ও সুস্বাদু খাবারের জোগান দিতে সীউইড অত্যন্ত সহায়ক। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সীউইডের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। সীউইড পণ্যের প্রয়োজনীয়তা ও গ্রহণযোগ্যতা তারা উপলব্ধি করে।

jagonews24

তিনি আরও বলেন, সীউইড প্রাপ্তির একটি বড় অঞ্চল কুয়াকাটা। এ অঞ্চলের পর্যটন হোটেলসহ অন্যান্য হোটেল-মোটেল সংশ্লিষ্টদের এ বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। সীউইডের আহরণ ও বিপণনে যেন কোনো বাধার সৃষ্টি না হয়, সে বিষয়ে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। এর আহরণ, চাষ পদ্ধতি ও গুণাবলি সবার কাছে পৌঁছে দিতে হবে।

সীউইড জাতীয় অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে জানিয়ে রেজাউল করিম বলেন, সুনীল অর্থনীতির অন্যতম সম্ভাবনাময় সম্পদ সীউইড। খাদ্য, ঔষুধ শিল্প ও প্রসাধনী শিল্পসহ নানা ক্ষেত্রে সীউইডের বহুমুখী ব্যবহার রয়েছে। এ সম্পদকে কাজে লাগিয়ে আমাদের অর্থনীতিকে সুদৃঢ় করতে হবে। বিদেশে সীউইড রপ্তানির বড় বাজার রয়েছে, সেটা আমরা ধরতে চাই।

এ সময় সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, সমুদ্রগামী প্রতিটি নৌযানের রেজিস্ট্রেশন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। সমুদ্রগামী সব মাছধরার নৌযানে আধুনিক প্রযুক্তি সংযোজন হচ্ছে। এর মাধ্যমে সমুদ্রে মাছধরা নৌযানের অবস্থান জানা যাবে। ফলে অবৈধ উপায়ে এবং যত্রতত্র মাছধরা ট্রলার যাওয়া বন্ধ হয়ে যাবে।

‘বৈধ উপায়ে মাছ ধরতে গিয়ে জেলেরা দুর্ঘটনায় পড়লে সরকার সব ধরনের সহযোগিতা করবে। গভীর সমুদ্রে অবৈধ উপায়ে মৎস্য আহরণে যাওয়াকে সরকার নিরুৎসাহিত করছে।’

মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ। অনুষ্ঠানে সীউইড নিয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিএফআরআইয়ের ‘বাংলাদেশ উপকূলে সীউইড চাষ ও সীউইডজাত পণ্য উৎপাদন গবেষণা প্রকল্প’র পরিচালক মো. মহিদুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী। এছাড়াও এতে উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. তৌফিকুল আরিফ ও মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক খ. মাহবুবুল হক, পটুয়াখালীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. ওবায়দুর রহমান ও কলাপাড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এস এম রাকিবুল আহসান, বিএফআরআই ও মৎস্য অধিদপ্তরের বরিশাল বিভাগের কর্মকর্তা, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও মৎস্য খাতের অংশীজনরা।


আরও খবর