Logo
আজঃ Monday ০৮ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড নিখোঁজ সংবাদ প্রধানমন্ত্রীর এপিএসের আত্মীয় পরিচয়ে বদলীর নামে ঘুষ বানিজ্য

বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম

প্রকাশিত:Sunday ২৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ১২৬জন দেখেছেন
Image

মোঃ আব্দুল হান্নানঃ-


ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলায় বন্যার পানি বেড়ে যাওয়ায় উপজেলার বিভিন্ন বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া ১ সংসদীয় ২৪৩ নাসিরনগর আসনের মাননীয় সংসদ  সদস্য আলহাজ্ব বি এম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম এমপি। এ সময় তিনি উপজেলার বিভিন্ন এলাকার বন্যার্তদের সার্বিক পরিস্থিতি জানতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত লোক ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করেন।


গত ২৩ ও ২৪ জুন রোজ বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার এই দুইদিন উপজেলার বন্যাকবলিত গোর্কণ, পূর্বভাগ, গুনিয়াউক, চাপরতলা, গোয়ালনগর, ভলাকুট ও চাতলপাড় ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন এমপি।পরিদর্শনকালে তিনি উপজেলার প্রায় ২শতাধিক পরিবারের মাঝে ত্রাণসামগ্রী ও বিভিন্ন শুকনো খাবার বিতরণ করেন।


খোঁজ নিয়ে জানা যায়,উপজেলায় গত এক সপ্তাহে তিতাস,মেঘনা,ধলেশ্বরী ও লঙ্গনের পানি বৃদ্ধির কারনে ৩ টি ব্রীজ ভেঙ্গে গেছে এবং বেশকিছু গ্রাম প্লাবিত হয়ে উপজেলার প্রায় ৩৫ কিলোমিটার রাস্তা তলিয়ে গেছে। বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা।পানি বন্ধী হয়ে পরেছে প্রায় লাখো মানুষ।


পরিদর্শনকালে  উপস্থিত ছিলেন নাসিরনগর উপজেলা চেয়ারম্যান রাফি উদ্দিন আহমেদ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃমেহেদী হাসান খান শাওন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ লিয়াকত আব্বাস টিপু, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক অরুণজ্যোতি ভট্টাচার্য,উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক রায়হান আলী ভূঁইয়া,উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃসাখাওয়াত হোসেন,সাবেক ছাত্রলীগ আহবায়ক মোঃ নাসির উদ্দিন রানা,উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রুবিনা আক্তার, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলাম সহ গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গরা।


আরও খবর



বিশ্ব বিতর্কের চ্যাম্পিয়নশিপে সেরা বাংলাদেশ

প্রকাশিত:Thursday ২৮ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৭৩জন দেখেছেন
Image

বিতর্কের বৈশ্বিক আসর ‘ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং চ্যাম্পিয়নশিপ'-এ জয়ী হয়েছে বাংলাদেশের বেসরকারি ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির দল ‘ব্র্যাক-এ’। বিশ্ববিদ্যালয়টির ডিবেটিং ক্লাবের সাজিদ আসবাত খন্দকার ও সৌরদ্বীপ পাল দেশের জন্য এই গৌরব বয়ে এনেছেন।

‘বিতর্কের বিশ্বকাপ’ খ্যাত এই চ্যাম্পিয়নশিপের এবারের আসর বসে সার্বিয়ার বেলগ্রেডে। বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে জয়ী হয়ে ফাইনালে পৌঁছান সাজিদ-সৌরদ্বীপ। বুধবার (২৭ জুলাই) অনুষ্ঠিত চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালেও বিজয়ীর হাসি হাসেন তারা।

ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং ক্লাবের ফেসবুক পেজে জানানো হয়, বৈশ্বিক আসরের এই সর্বোচ্চ খেতাব জয়ের পথে ফাইনালে প্রিন্সটন ইউনিভার্সিটি, সিঙ্গাপুরের ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ও ম্যানিলা ইউনিভার্সিটির দলকে হারিয়েছে ‘ব্র্যাক-এ’।

এর আগে, ব্র‍্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের এই দলটিই দেশের হয়ে প্রথমবারের মতো ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে পৌঁছায়। এবার বিতর্কের সর্বোচ্চ শিরোপাও তারাই প্রথম এনে দিলো বাংলাদেশকে।


আরও খবর



হাইকোর্টে বিএনপির ৬০ নেতাকর্মীর জামিন

প্রকাশিত:Sunday ০৭ August ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | ১০জন দেখেছেন
Image

ভোলায় পুলিশ ও বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশের করা মামলায় ভোলা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদকসহ ৬০ জনের ছয় সপ্তাহের জামিন মঞ্জুর করেছেন হাইকোর্ট।

জামিন সংক্রান্ত আবেদনের শুনানি নিয়ে রোববার (৭ আগস্ট) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. মোস্তফা জামান ইসলাম ও মো. সেলিমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির আইন সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল আসামিদের জামিন আবেদন করেন।

একই সঙ্গে জামিন আবেদন করেন অ্যাডভোকেট রুকুনুজ্জামান সুজা ও মো. মাকসুদ উল্লাহ। তিন আইনজীবী ৬২ জন বিএনপি নেতার পক্ষে পৃথক তিনটি জামিন আবেদনপত্র জমা দেন। ব্যারিস্টার কায়সার কামাল জামিন আবেদনের বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন ।

আসামিপক্ষের আইনজীবী মো. মাকসুদ উল্লাহ জাগো নিউজকে জানান, ছয় সপ্তাহ পরে আসামিদের ভোলা স্পেশাল জজকোর্টে আত্মসমর্পনের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

তিনি আরও জানান, এদিন আদালতে ভোলা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদকসহ ৬২ জনের জামিন আবেদন করা হয়েছিল। তাদের মধ্যে ৬০ জনের জামিন দেন আদালত। আর বাকি দুজন আসামি আদালতে উপস্থিত না থাকায় তাদের জামিন দেওয়া হয়নি।

জামিন পাওয়া নেতা-কর্মীদের মধ্যে অন্যতম হলেন- ভোলা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. হারুনুর রশিদ ট্রুমেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. এনামুল হক, যুগ্ম সম্পাদক হুমায়ুন কবীর সোপান, যুবদলের সভাপতি মো. জামাল উদ্দিন লিটন, সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল কাদের সেলিম, সেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মো. আল আমিন ও ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আল আমিন হাওলাদার।

এর আগে ১ আগস্ট সকালে ভোলায় পুলিশ ও বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে পুলিশ বাদী হয়ে ৭৫ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা ৬৭৫ জনকে আসামি করে ভোলা সদর থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করে।

গত রোববার (৩১ জুলাই) বিকেলে নিজ কার্যালয়ে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে ভোলা পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, সমাবেশের অনুমতি না নিয়েই কর্মসূচি দেয় বিএনপি। তাদের শান্তিপূর্ণ সমাবেশে পুলিশ কোনো বাধা দেয়নি।

‘কিন্তু সমাবেশের একপর্যায়ে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে বিএনপি নেতা-কর্মীরা রাস্তায় নেমে পুলিশের ওপর হামলা চালান। পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়েন ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেন। এতে ১০ পুলিশ সদস্য আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন।


আরও খবর



সোহেল চৌধুরী হত্যা: কেস ডকেট জমা দিতে আরও সময় চাইলেন ফরিদ

প্রকাশিত:Wednesday ২০ July ২০22 | হালনাগাদ:Thursday ০৪ August ২০২২ | ৫২জন দেখেছেন
Image

নব্বই দশকের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক সোহেল চৌধুরী হত্যা মামলার কেস ডকেট জমা দিতে আবারও সময় চাইলেন অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ পরিদর্শক ফরিদ উদ্দিন।

বুধবার (২০ জুলাই) ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক জাকির হোসেনের আদালতে উপস্থিত হয়ে এসময় চান তিনি।

২০০৫ সালের ২ জুন ঢাকা মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অফিস থেকে এ মামলার কেস ডকেট নিয়ে যান ফরিদ উদ্দিন। এরপর তিনি কেস ডকেট জমা না দেওয়ায় মামলাটির সাক্ষ্যগ্রহণ হয়নি।

আদালতে বিচারককে ফরিদ উদ্দিন বলেন, আমি এ মামলার কেস ডকেট সংগ্রহ করতে পারেনি। এজন্য আমার আরও সময় প্রয়োজন।

এরপর বিচারক আগামী ১,২ ও ৩ আগস্ট মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউর সামছুল হক বাদল।

এর আগে ৩ জুলাই পিপি আব্দুল্লাহ আবু, ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউর সামছুল হক বাদল ও সহকারী পাবলিক প্রসিকিউর সাদিয়া আফরিন শিল্পীকে সমন্বয় করে ২০ জুলাই আদালতে কেস ডকেট উপস্থাপনের নির্দেশ দিয়েছিলেন একই ট্রাইব্যুনালের বিচারক জাকির হোসেন।

এদিন মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ও ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটরকে কেস ডকেটে যা আছে, তা লিখিতভাবে দাখিলের জন্য দিন ধার্য ছিল। এদিন তারা তা দাখিল করেনি। এজন্য বিচারক তাদের কেস ডকেট সমন্বয় করে ২০ জুলাই উপস্থাপনের নির্দেশ দিয়েছিলেন।

এর আগে ৩০ মে ফরিদ উদ্দিনকে কেস ডকেট দাখিলের জন্য শেষবারের মতো সময় দিয়েছিলেন আদালত। তখন তাকে ১৫ জুন পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়। এদিন কেস ডকেট দাখিল না করলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানানো হয়। কিন্তু তিনি এদিন কেস ডকেট দাখিল করেননি। আদালতেও উপস্থিত হননি।

কেস ডকেট হলো মানচিত্র, সূচিপত্র, রাষ্ট্রপক্ষের ১৬১ ধারায় জবানবন্দির নথিসহ অন্যান্য কাগজপত্র।

১৯৯৮ সালের ১৭ ডিসেম্বর রাজধানীর বনানী ট্রাম্পস ক্লাবের নিচে সোহেল চৌধুরীকে গুলি করে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় তার ভাই তৌহিদুল ইসলাম চৌধুরী গুলশান থানায় মামলা করেন। সোহেল চৌধুরী নিহত হওয়ার পরপরই এ হত্যাকাণ্ডে চলচ্চিত্র প্রযোজক ও ব্যবসায়ী আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের সম্পৃক্ততার অভিযোগ ওঠে।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, হত্যাকাণ্ডের কয়েক মাস আগে আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের সঙ্গে সোহেল চৌধুরীর কথা কাটাকাটি হয়। এর প্রতিশোধ নিতে সোহেল চৌধুরীকে হত্যা করা হয়। ঘটনার রাতে সোহেল তার বন্ধুদের নিয়ে ট্রাম্পস ক্লাবে ঢোকার চেষ্টা করেন। তাকে ভেতরে ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়। রাত আড়াইটার দিকে আবারও তিনি ঢোকার চেষ্টা করেন। তখন সোহেলকে লক্ষ্য করে ইমন, মামুন, লিটন, ফারুক ও আদনান গুলি চালান। আসামিদের মধ্যে আদনান খুনের পরপরই ধরা পড়েছিলেন।

মামলাটি তদন্ত শেষে ১৯৯৯ সালের ৩০ জুলাই গোয়েন্দা পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার আবুল কাশেম ব্যাপারী ৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ২০০১ সালের ৩০ অক্টোবর ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। এর দুই বছর পর মামলাটির বিচার দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য ঢাকার দুই নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হয়।

ওই বছরই আসামিদের মধ্যে একজন হাইকোর্টে আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২০০৩ সাল থেকে দীর্ঘ ১৯ বছর হাইকোর্টের আদেশে মামলাটি স্থগিত ছিল। সবশেষ গত ২৭ ফেব্রুয়ারি স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার হলে ফের মামলাটিতে সাক্ষ্যগ্রহণের প্রক্রিয়া শুরু হয়।

এ মামলার অভিযোগপত্রভুক্ত আসামিরা হলেন আদনান সিদ্দিকী, ট্রাম্পস ক্লাবের মালিক আফাকুল ইসলাম ওরফে বান্টি ইসলাম, ব্যবসায়ী আজিজ মোহাম্মদ ভাই ওরফে আব্দুল আজিজ, তারেক সাঈদ মামুন, সেলিম খান, হারুন অর রশীদ ওরফে লেদার লিটন ওরফে বস লিটন, ফারুক আব্বাসী, শীর্ষ সন্ত্রাসী সানজিদুল ইসলাম ইমন ও আশিষ রায় চৌধুরী ওরফে বোতল চৌধুরী।

এর মধ্যে গত ৫ এপ্রিল রাতে রাজধানীর গুলশান থেকে আশিষ রায় চৌধুরীকে গ্রেফতার করে র্যাব। তখন তার বাসা থেকে ২২ বোতল বিদেশি মদ, ১৪ বোতল সোডা ওয়াটার, একটি আইপ্যাড, ১৬টি বিভিন্ন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড, দুটি আইফোন ও নগদ দুই লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় ৬ এপ্রিল রাতে আশিষ রায় চৌধুরীর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেন র্যাব-১০ এর ডিএডি জাহাঙ্গীর আলম।

১৯৮৪ সালে এফডিসির ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে চলচ্চিত্র জগতে পা রাখেন সোহেল চৌধুরী। ওই একই প্রতিযোগিতায় নির্বাচিত হয়েছিলেন তার স্ত্রী দিতিও।


আরও খবর



পরিবেশ দূষণের অভিযোগে ওয়াশিং প্ল্যান্টকে জরিমানা

প্রকাশিত:Friday ০৫ August ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | ৩৩জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রাম মহানগরীর বন্দর থানা এলাকায় পরিবেশগত ছাড়পত্র না নিয়ে এবং ইটিপি চালু না রেখে ওয়াশিং প্ল্যান্ট চালু রেখে পরিবেশ দূষণের অভিযোগে মেসার্স ডেনিম ওয়াশিং ইন্ডাস্ট্রিজকে ১ লাখ ৯০ হাজার ৮০ টাকা জরিমানা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর।

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) কারখানা কর্তৃপক্ষের উপস্থিতিতে শুনানি শেষে পরিবেশের ক্ষতিপূরণ হিসেবে এই অর্থ জরিমানার আদেশ দেন পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগর কার্যালয়ের পরিচালক হিল্লোল বিশ্বাস।

৭ দিনের মধ্যে ক্ষতিপূরণ হিসেবে এই টাকা ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে জমা দেওয়ার আদেশ দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে হিল্লোল বিশ্বাস বলেন, গত ২৩ জুন মেসার্স ডেনিম ওয়াশিং ইন্ডাস্ট্রিজ ফ্যাক্টরিটি পরিদর্শনকালে তাদের ইটিপি অকার্যকর পাওয়া যায়। এতে অপরিশোধিত তরল বর্জ্য পার্শ্ববর্তী এলাকার পরিবেশ ও প্রতিবেশের মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে। এছাড়া প্রতিষ্ঠানটির পরিবেশগত কোনো ছাড়পত্র ছিল না।

এসব কারণে বৃহস্পতিবার কারখানাটির মালিকের উপস্থিতিতে শুনানিতে তাদের এক লাখ ৯০ হাজার ৮০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে বলে জানান তিনি।


আরও খবর



জমি নিয়ে বিরোধে বাঁশখালীতে দুই ভাইয়ের পরিবারে কোপাকুপি

প্রকাশিত:Saturday ২৩ July ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | ৪০জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে জায়গা-জমি বিরোধ নিয়ে আপন দুই ভাইয়ের পরিবারের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। শনিবার (২৩ জুলাই) ভোর ৬টার দিকে বাঁশখালীর শিলকূপ ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মোহাব্বত আলী পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

৮নং ওয়ার্ডের গ্রাম পুলিশ অনুপা বড়ুয়া জাগো নিউজকে বলেন, বাড়ির জায়গা নিয়ে আপন দুই ভাই রফিক আহমদ ও মোস্তাক আহমদর পরিবারের মধ্যে মারামারি হয়েছে। তাদের দুই পরিবারের দুইজন আহত হয়েছে। একজন রফিকের স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস ও ভাই মোস্তাক। তাদের উদ্ধার করে প্রথমে বাঁশখালী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির তদারককারী কর্মকর্তা পাঁচলাইশ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সাদিকুর রহমান বলেন, পারিবারিক ঝামেলা নিয়ে দুপক্ষের সংঘর্ষে হয়। সংঘর্ষে দুই পক্ষের আহত দুইজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ইমার্জেন্সি কেয়ারে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের ২৮নং নিউরো সার্জারি ওয়ার্ডে ভর্তি করে দেন। বর্তমানে তারা চিকিৎসাধীন ও আশঙ্কামুক্ত আছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।


আরও খবর