Logo
আজঃ Monday ০৮ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড নিখোঁজ সংবাদ প্রধানমন্ত্রীর এপিএসের আত্মীয় পরিচয়ে বদলীর নামে ঘুষ বানিজ্য
মরদেহ দেখতে এসে আটক

বন্ধুকে গলাকেটে হত্যার অভিযোগে ঘাতক রেশাদকে আটক করেছে পুলিশ

প্রকাশিত:Friday ২৪ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ২৬৭জন দেখেছেন
Image

নাজমুল হাসানঃ

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর এলাকায় বন্ধুকে গলাকেটে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে আরেক বন্ধুর বিরুদ্ধে।বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) সন্ধ্যায় কামরাঙ্গীরচরে রনি মার্কেট এলাকার একটি বহুতল ভবনের নিচ তলায় দরজা ভেঙে শাওনের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।এ ঘটনায় রেশাদ নামক সন্দেহভাজন এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।


ঘটনার বিবরনেজানাগেছে,মধ্যরাতে বন্ধুকে হত্যার পর মরদেহ রুমে তালা দিয়ে নিজের বাসায় ফিরে যান ঘাতক। পরদিন মরদেহ দেখতে গিয়েই পুলিশের হাতে আটক হতে হয় তাকে। রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরে যুবকের মরদেহ উদ্ধারের পর এমনটাই জানিয়েছে পুলিশ।


বিরোধের জেরে বন্ধুই গলা কেটে হত্যা করে আরেক বন্ধু শাওনকে। আর হত্যার পর ঠান্ডা মাথায় মানুষের ভিড়ে মরদেহ দেখতে এসে রক্ষা হয়নি তার।


ভাড়াটিয়ারা জানান, নিউমার্কেটে একটি দোকানে কাজ করতেন শাওন। রুমটিতে একাই থাকতেন তিনি। তবে বন্ধুদের আসা-যাওয়া ছিল তার বাসায়।


 শাওনের মৃত্যুতে ছুটে আসা স্বজনরা ঘাতকের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করে  বলেন, ‘রাতে তার ঘরে মনে হয় কেই এসেছেন। রক্ত দেখা গেছে। পরে বিষয়টি জানাজানি হয়ে গেলে লোকজন ঘটনাস্থলে আসে। তখন ওই ঘাতক এখানে দেখতে এসেছে, শাওন মারা গেছে কিনা। আর কোনো মায়ের বুক যেন খালি না হয়। ওই ঘাতকের ফাঁসি চাই।’ 


হত্যার খবর পেয়ে এলাকাবাসী ছুটে আসে। ভিড়ের মধ্যে রেশাদ নামে সন্দেহভাজন এক যুবককে আটক করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করে খুন করে মরদেহ ফেলে যাওয়ার কথা। উদ্ধার করা হয়েছে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরি।


ডিএমপি লালবাগ জোনের উপপুলিশ কমিশনার মো. জসিম উদ্দিন মোল্লা বলেন, ‘সে যে এই খুনটা করেছে, তা নিশ্চিত হওয়া গেছে। তারা একে অপরের পরিচিত। তাদের মধ্যে অভ্যন্তরীণ কোনো সমস্যা থাকতে পারে। সেটা তদন্তসাপেক্ষে বলা যাবে।’  


ঘটনাস্থল থেকে বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেছে সিআইডির ফরেনসিক দল। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি ঢাকা মেডিকেলের মর্গে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



বর্ষায় ভ্রমণকালে যে ৫ বিষয়ে সতর্ক থাকবেন

প্রকাশিত:Wednesday ২৭ July ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ০৪ August ২০২২ | ৪২জন দেখেছেন
Image

বর্ষায় প্রকৃতি সেজে ওঠে আরও রঙে ও রসে। তাই তো এ সময় ভ্রমণপিপাসুরা ছুটে যান দেশ থেকে দেশান্তরে, শুধুই প্রকৃতি দর্শনে। এ সময় ঝরনা বেয়ে চলেন নিজ গতিতে, সমুদ্র হয়ে ওঠে উত্তাল, গাছের পাতাগুলো হয়ে ওঠে আরও সবুজ- সব মিশিয়ে প্রকৃতি বর্ষায় যৌবন লাভ করে। আর এ সৌন্দর্যে মুগ্ধ হয় পর্যটকরা।

যদিও ভ্রমণপ্রিয় পর্যটকদের ঘুরতে যাওয়ার জন্য কোনো মৌসুম লাগে না। তবে এ সময় ঘুরতে গেলে অবশ্যই বেশ কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে, না হলে ঘটতে পারে বিপদ। জেনে নিন বর্ষায় কোথাও ভ্রমণকালে কোন কোন বিষয়ে সতর্ক থাকবেন-

>> বর্ষাকালে এই বৃষ্টি আবার এই রোদ। বৃষ্টি হলে রাস্তায় জমে কাদা-পানি। তাই এই সময় ভ্রমণে যাওয়ার সময় কেমন জুতা পরবেন তা আগে থেকেই ঠিক করে রাখুন। সবচেয়ে ভালো হয় পানি শোষণ করে এমন কোনো জুত পরা। এতে জুতা ভিজে গেলেও সমস্যা হবে না।

>> জুতার মতো বর্ষাকালে জামাকাপড় ভিজে যেতে পারে। তাই সুতির জামাকাপড়ের বদলে সিন্থেটিকের পোশাক পরুন এ সময়। যাতে ভিজে গেলেও তাড়াতাড়ি শুকিয়ে যায়।

>> বর্ষায় সর্দি-জ্বর হওয়াটা খুব স্বাভাবিক। এর পাশাপাশি এ সময় পেটের গোলমালও বাড়ে। তাই এমন আবহাওয়ায় বাইরের খাবার এড়িয়ে চলুন। যতটা সম্ভব বাড়ির তৈরি খাবার সঙ্গে নিন। না হলে শুকনো খাবার সঙ্গে রাখুন। বিশুদ্ধ পানি সঙ্গে রাখা জরুরি।

>> ট্রাভেল ব্যাগটিও যেন ‘ওয়াটারপ্রুফ’ হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখুন। না হলে হঠাৎ বৃষ্টি এলে ব্যাগের সঙ্গে সঙ্গে তার মধ্যে থাকা জিনিসও ভিজে যেতে পারে।

>> বর্ষায় ডেঙ্গু ও ম্যালেরিয়ার প্রকোপও বেড়ে যায়। তাই কোথাও ভ্রমণে গেলে লম্বা হাতার পোশাক পরুন। মশা ছাড়াও অন্যান্য পতঙ্গের উৎপাত থেকে বাঁচতে বিভিন্ন অ্যান্টিসেপ্টিক ক্রিম ব্যবহার করুন।


আরও খবর



মঙ্গলবার থেকে এলাকাভিত্তিক লোডশেডিং

প্রকাশিত:Monday ১৮ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
Image

ডিজেলে বিদ্যুৎ উৎপাদন স্থগিত করে আগামীকাল থেকে এলাকাভিত্তিক লোডশেডিংয়ে যাচ্ছে দেশ। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে উচ্চ পর্যায়ের এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়েছে।

বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ ও জ্বালানি উপদেষ্টা, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী, মুখ্য সচিব, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সিনিয়র সচিবসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক সূত্র বলছে, সরকারি-বেসরকারি অফিস ভার্চুয়ালি করারও সিদ্ধান্ত হয়েছে সভায়।

মঙ্গলবার থেকে এলাকাভিত্তিক লোডশেডিং

এছাড়া সরকারি-বেসরকারি অফিসের সময় এক থেকে দুই ঘণ্টা কমিয়ে আনার চিন্তাও করা হচ্ছে। তবে এটি এখনো চূড়ান্ত হয়নি।


আরও খবর



‘রেললাইনে দুর্ঘটনার শিকার হলে তার দায়িত্ব রেল কর্তৃপক্ষের নয়’

প্রকাশিত:Monday ০১ August ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ২২জন দেখেছেন
Image

রেল লাইনে এসে কেউ দুর্ঘটনার শিকার হলে তার দায়িত্ব রেল কর্তৃপক্ষের নয় বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন। তিনি জানান, ট্রেন কাউকে ধাক্কা দেয় না, বরং বাইরে থেকে এসে ট্রেনকে ধাক্কা দেওয়া হয়।

সোমবার (১ আগস্ট) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর উদ্বোধনের সময় তিনি এসব কথা বলেন। উদ্বোধন অনুষ্ঠানটি গোপালগঞ্জের রেল স্টেশনে হয়।

এসময় রেলমন্ত্রী বলেন, আমরা আড়াই থেকে তিন হাজার কিলোমিটার রেল লাইন তৈরি করছি। যেখানে রাস্তা আছে সেখানেই ব্রিজ করা আছে। রেলে যে আমরা বেরিয়ার দেই, গেট দেই, এ গেটটা দেওয়া হয় যাতে রেলের কোনো ক্ষতি না হয়। রেল ঠিকভাবে চলতে পারে, বাইরে থেকে কোকো কিছু যেন রেলের ক্ষতি করতে না পারে। কিন্তু কেউ যদি এসে রেলগেটে কিংবা রেল লাইনে দুর্ঘটনার শিকার হন তার দায়িত্ব রেল কর্তৃপক্ষের নয়।

‘রেললাইনে দুর্ঘটনার শিকার হলে তার দায়িত্ব রেল কর্তৃপক্ষের নয়’

তিনি আরও বলেন, যখন রেল চলাচল করে তখন ১৪৪ ধারা জারি থাকে। কারো রেললাইনে আসা-যাওয়ার সুযোগ নাই। আরেকজন এসে আমার সঙ্গে ধাক্কা খাবে তার দায়িত্ব রেলের ওপর দেবেন এটা যুক্তিসঙ্গত নয়। আমি তো কাউকে ধাক্কা দিচ্ছি না। আরেকজন এসে আমাকে ধাক্কা দিয়ে রেল যোগাযোগে ব্যাঘাত ঘটাচ্ছে। যে ধাক্কা দিচ্ছে তার দোষ নাই, যেহেতু বড় গাড়ি আমার তাই সব দোষ আমার। এটা হলো আমাদের জেনারেল পারসেপশন, কিন্তু যুক্তি দিয়ে যদি বিবেচনা করেন তাহলে আপনারা সঠিক উত্তরটি পেয়ে যাবেন।

রেল তার নিজস্ব লাইনে চলে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, আমি কাউকে ধাক্কা দিতে পারি না। অন্য যানবাহন এসে আমাকে ধাক্কা দেয়। আরেকজন এসে তার ক্ষতি করবে, আর তার দায়িত্ব আমাকে নিতে হবে। এই জায়গাটাতে আমাদের একটু সচেতনতা প্রয়োজন রয়েছে।

‘রেললাইনে দুর্ঘটনার শিকার হলে তার দায়িত্ব রেল কর্তৃপক্ষের নয়’

কোনো দুর্ঘটনা ও মৃত্যু কারো কাম্য নয় উল্লেখ করে তিরি বলেন, কিন্তু এই ঘটনাগুলো রেলের দুর্ঘটনা নয়। রেলের দুর্ঘটনা সেটাই রেল যদি লাইনচ্যুত হয়। রেল যদি নিজের পথ ছেড়ে কারো বাড়িতে ঢুকে যায় সেটা হলো রেলের দুর্ঘটনা। এই বিষয়গুলো আমাদের বিবেচনায় নিতে হবে।

রেলের গেট পাহারার দায়িত্বের বিষয়ে রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন বলেন, রেলের গেট পাহারা দেওয়ার দায়িত্ব তাদের যারা রাস্তা করেছে। আপনার পৌরসভার রাস্তা আমার রেললাইনকে ক্রস করতেছে, আপনার লোকজন সেই রাস্তা দিয়ে পারাপার হবে এর দায়িত্ব আপনার আমার নয়।


আরও খবর



পরিমাপে তেল কম দেওয়ায় পেট্রলপাম্পের সামনে যুবকের অবস্থান

প্রকাশিত:Monday ০১ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ১৮জন দেখেছেন
Image

মাপে তেল কম দেওয়ার অভিযোগে রাজধানীর কল্যাণপুরে একটি পেট্রলপাম্পের সামনে অবস্থান নিয়েছেন ইসতিয়াক হোসেন নামে এক যুবক। তার দাবি ৫০০ টাকার তেল কিনে রশিদ পেলেও করা হয়েছে কারসাজি। তিনি একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা।

ইসতিয়াক জানান, শ্যামলীর আদাবর থেকে সোমবার (১ আগস্ট) সকাল ১০টার দিকে মিরপুরের বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) কার্যালয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। পথে কল্যাণপুরের সোহরাব সার্ভিস স্টেশন থেকে ৫০০ টাকার অকটেন নেন তিনি।

ইসতিয়াক জানান, সামনে মিটার থাকলেও তেল সরবরাহকারী আকাশ তাঁকে পেছনে আসতে বলেন। এতে তিনি গাছের আড়ালে পড়লে তাকে তেল দেওয়া হয়। তিনি বুঝতে পারেন তাকে তেল দিতে কারসাজি করা হয়েছে। ৫০০ টাকার রশিদ পেলেও তেল পাননি।

Pic2

ইশতিয়াক জানান, তার মোটরসাইকেলের রিজার্ভেও তেল ছিল না। তাই তিনি পেট্রলপাম্প কর্তৃপক্ষকে মোটরসাইকেল থেকে তেল বের করে মাপার কথা বলেন। কিন্তু তারা তার দাবিকে পাত্তা দেয়নি। এরপর বেলা ১১টা থেকে প্ল্যাকার্ড নিয়ে অবস্থান করছেন।

দুপুর ২টার দিকেও ইসতিয়াক পাম্পের সামনেই অবস্থান নিয়েছেন। তার দাবি পেট্রলপাম্প গুলোতে প্রায়শই এ রকম ঘটনা ঘটে। এর সমাধান চান তিনি। এসময় তিনি ভোক্তা অধিকারে অভিযোগ করবেন বলেও জানান।

এ বিষয়ে সোহরাব সার্ভিস স্টেশনের ম্যানেজার জানান, পেট্রলপাম্পের মালিকানা পরিবর্তন হওয়ায় নতুন ভাবে চালাচ্ছেন তিনি। ফলে পুরোনো কর্মচারী রয়ে গেছে। তারা কেউ এ ঘটনা ঘটিয়েছে।


আরও খবর



আশুরায় নবিজির (সা.) রোজা পালনের কারণ ও ফজিলত

প্রকাশিত:Thursday ০৪ August ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ০৬ August ২০২২ | ১১জন দেখেছেন
Image

মহররম। হিজরি সনের প্রথম মাস। ১০ মহররম পবিত্র আশুরা। আল্লাহ তাআলা ঘোষিত সম্মানিত এ মাসের অন্যতম আমল রোজা। এ মাসের রোজা পালনে রয়েছে বিশেষ কারণ। আবার আশুরার রোজার ফজিলত এবং মর্যাদাও অনেক বেশি। আশুরায় নবিজির রোজা পালনের কারণ ও ফজিলত ফুটে ওঠেছে হাদিসের একাধিক বর্ণনায়। কী সেই সব কারণ ও ফজিলত?

আশুরার রোজা রাখার কারণ ও নবিজির নির্দেশ

হজরত ইবনে আব্বাস রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মদিনায় এসে দেখলেন, ইহুদিরা আশুরার দিন রোজা রাখছে। তখন তিনি জিজ্ঞাসা করলেন, এটা কিসের রোজা?

তারা (ইহুদিরা) বলল, এটা একটা উত্তম দিন। আল্লাহ তাআলা এ দিন বনি ইসরাইল জাতিকে তাদের দুশমন (ফেরাউন)-এর আক্রমণ থেকে নিরাপদ করেছেন। তাই হজরত মুসা আলাইহিস সালাম এ দিন রোজা রেখেছিলেন। তখন নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, তোমাদের চেয়ে আমিই হজরত মুসা আলাইহিস সালামের (আদর্শ  পালনে) বেশি হকদার। কাজেই তিনি নিজে আশুরার রোজা রাখলেন এবং অন্যদেরকেও রোজা রাখার নির্দেশ দিলেন।’ (বুখারি,মুসলিম, ইবনে মাজাহ, আবু দাউদ, মুসনাদে আহমাদ, বায়হাকি)

আশুরার রোজার ফজিলত

১. হজরত আবু কাতাদাহ রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘আমি আশা রাখি যে, আশুরার রোজা বিগত এক বছরের গোনাহের কাফফারা হবে।’ (মুসলিম, আবু দাউদ, মুসনাদে আহমাদ)

২. হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘রমজানের পর সর্বোত্তম রোজা হলো মুহররম মাসের দোয়া।’ (মুসলিম, আবু দাউদ, তিরমিজি)

৩. হজরত আবু কাতাদাহ আনসারি রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে আশুরার রোজা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, ‘আশুরার রোজা বিগত এক বছরের গোনাহের কাফফারাহ হবে।’ (মুসলিম, মুসনাদে আহমাদ)

মুমিন মুসলমানের উচিত, নবিজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের অনুসরণ-অনুকরণ ও ফজিলত বর্ণনায় আশুরার উপদেশ মেনে যথাযথভাবে রোজা পালনের আমল করা জরুরি। আর এতে জারি হবে নবিজির সুন্নাত। আর তা হবে পুরো এক বছরের গুনাহের কাফফারা। মিলবে পরকালের নাজাত। পালন হবে হজরত মুসা আলাইহিস সালামের সুন্নাতও।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে আশুরার রোজা পালনের তাওফিক দান করুন। সুন্নাতের অনুসরণ ও অনুকরণের তাওফিক দান করুন। সম্মানিত মাস মহররমের মর্যাদা দেওয়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।


আরও খবর