Logo
আজঃ শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪
শিরোনাম

বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে বিবাহিত নারীকে শারীরিক সম্পর্ক ধর্ষণ নয়

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৫ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৩৫৬জন দেখেছেন

Image

অনলাইন ডেস্ক; বিবাহিত নারীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করলে তাকে ধর্ষণের আওতায় ফেলা যাবে না। গতকাল বৃহস্পতিবার এমন রায় দিয়েছেন ভারতের কেরালা হাইকোর্ট। এক যুবকের বিরুদ্ধে করা ধর্ষণের মামলার রায় দিতে গিয়ে এই সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন আদালত। সেই সঙ্গে ধর্ষণের অভিযোগ থেকে ওই যুবককে খালাস দেওয়াও হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়,  ২০১৮ সালে ওই যুবকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা দায়ের করা হয়। এক নারী দাবি করেন, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে একাধিকবার তাকে ধর্ষণ করেছেন ওই যুবক।

ওই নারীর সঙ্গে ফেসবুকে আলাপ হয় অভিযুক্ত যুবকের। সেই পরিচয় থেকে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয়। একসঙ্গে অস্ট্রেলিয়ায় বেড়াতেও যান তারা। সেখানেই একাধিকবার তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে দাবি করেন ওই নারী।

তবে অভিযোগে ওই নারী জানিয়েছিলেন, তার সম্মতিতেই শারীরিক সম্পর্ক হয়েছিল। বিবাহের প্রতিশ্রুতি পেয়েছিলেন বলেই এই সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন। তবে সেই সময় আইনিভাবে তিনি বিবাহিত ছিলেন। প্রাক্তন স্বামীর সঙ্গে তখন তার বিবাহবিচ্ছেদের প্রক্রিয়া চলছিল।

ওই নারীর অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছেন কেরালা হাইকোর্ট। বিচারক কওসর এডাপ্পাগাথ জানিয়েছেন, শুনানির সময়ে একাধিকবার বোঝা গিয়েছে, দুজনের সম্মতিতে শারীরিক সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল। তাছাড়া অভিযোগকারী সেই সময়ে বিবাহিত ছিলেন। সেই অবস্থায় অন্য কোনো বৈবাহিক সম্পর্কে জড়াতে পারেন না তিনি। সেই ক্ষেত্রে বিবাহের প্রতিশ্রুতি একেবারেই অর্থহীন। এই যুক্তিতেই মামলাটি খারিজ করে দিয়েছেন বিচারক।

অভিযুক্তকে এই মামলায় বেকসুর খালাস দিয়েছেন কেরালা হাইকোর্ট। রায় দিতে গিয়ে বিচারক জানিয়েছেন, এহেন অহেতুক কারণ দেখিয়ে কারও বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আনা হয়েছে। প্রতারণা বা ধর্ষণ- কোনও অভিযোগই এই ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে না।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই এই ধরনের আরেকটি মামলায় রায় দিয়েছিলেন কেরালা হাইকোর্ট। সেই রায়ে বলা হয়েছিল, বিবাহিত পুরুষের সঙ্গে যদি কোনো নারী শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেন সেক্ষেত্রেও ধর্ষণের অভিযোগ আনা যাবে না।


আরও খবর



কুড়িগ্রামের রৌমারীর চালককে হত্যা করে অটোবাইক ছিতাই গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৫১জন দেখেছেন

Image

মাজহারুল ইসলাম,রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:ইজিবাইক চালককে হত্যা ঘটনার অপরাধিদের গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন করেছেন ইজিবাইক সংগঠনের চালকরা। বাংলাদেশ অটোবাইক শ্রমিক কল্যান সোসাইটি রৌমারীর ডাকে বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে উপজেলা চত্তরে ঘন্টা ব্যাপী এই মানববন্ধন করেন শ্রমীকরা।

বানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ইয়াকুব আলী সভাপতি দাঁতভাঙ্গা ইউনিয়ন অটোবাইক শ্রমীক সংগঠন, জাহাঙ্গীর আলম সভাপতি যাদুরচর ইউনিয়ন অটোবাইক শ্রমীক সংগঠন, রুস্তম আলী সহ-সভাপতি রিক্সা-ভ্যান শ্রমীক ইউনিয়ন, নুরুজ্জামান সভাপতি উপজেলা রিক্সা-ভ্যান শ্রমীক ইউনিয়ন, নুরুল ইসলাম সাধারণ সম্পাদক ট্রাক লড়ি শ্রমীক সংগঠন, এনামুলের বন্ধু এসএমএ মোমেন, মহির উদ্দিন শ্রমীক নেতা ও প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বাংলাদেশ অটোবাইক শ্রমিক কল্যান সোসাইটি রৌমারী, হারুন অর রশিদ উপদেষ্টা বাংলাদেশ অটোবাইক শ্রমিক কল্যান সোসাইটি রৌমারী, ওমর ফারুক ইছা কার্যকরি পরিচালনা কমিটি সভাপতি বাংলাদেশ অটোবাইক শ্রমিক কল্যান সোসাইটি রৌমারী ও নুরুল আজম বাবু সভাপতি বাংলাদেশ অটোবাইক শ্রমিক কল্যান সোসাইটি রৌমারী, স্ত্রী আয়শা খাতুনসহ অন্যান শ্রমীকবৃন্দ।

বক্তাগণ বলেন, ইজিবাইক চালকের হত্যার এবং থানায় মামলার ১১ দিন পার হলেও আজ পর্যন্ত একটি আসামীকে সনাক্তসহ গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। বক্তাগন আরো বলেন, পুলিশ পারে না, এমন কিছু কাজ নাই পারে না। পানির নিচে থেকে হলেও আসামী গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। তবে একজন গরীব সাধারণ মানুষ হেতু তার কোন গুরুত্ব নাই। একজন ধনী ব্যাক্তি হলে দ্রুত আসামীকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হতো। তবে আমরা আসা করি দ্রুত আসামীকে সনাক্ত ও গ্রেফতার করে আইনের আওতায় দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির ব্যবস্থা করা হউক। ৭ দিনের আল্টিম্যাটাম দিয়ে তারা আরো বলেন, ৭ দিনের মধ্যে আসামীদেরকে গ্রেফতারের আওতায় আনতে না পারলে শ্রমীক সংগঠন বাধ্য হবে দুর্বার আন্দোলন ও পরিবহন বন্ধ রাখা।

উল্লেখ্য যে, কুড়িগ্রামের রাজিবপুরে ছিনতাইকারিরা চালককে হত্যা করে ব্যাটারি চালিত অটো রিকশা ছিনতাই করেছে। হত্যার শিকার এনামুল হক (৫০) রৌমারী সদরের মধ্য ইছাকুড়ি গ্রামের মিছির আলীর ছেলে। ২৯ জানুয়ারী মঙ্গলবার রাজিবপুর সদর ইউনিয়নের স্লুইজগেট এলাকার ধানক্ষেত থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার সকালে সাড়ে ৭টার দিকে কয়েকজন কৃষক ধান রোপন করতে এসে ক্ষেতে এনামুলকে পড়ে থাকতে দেখে। পরে অজ্ঞান অবস্থায় তাকে তুলে আগুন জালিয়ে শরীর গরম করার চেষ্টা করতে থাকে। এমন অবস্থায় সাথে সাথে রাজিবপুর ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। মৃত এনামূলের কাছে থাকা ইজিবাইকটিও হত্যাকারীরা ছিনতাই করে নিয়ে যায়। এ হত্যাকান্ডে রাজিবপুর থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে। 


আরও খবর



মাদারীপুরে পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্সের বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭৯জন দেখেছেন

Image
এস এম শফিকুল ইসলাম জয়পুরহাট প্রতিনিধি ঃপপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের মাদারীপুর অঞ্চলের উন্নয়ন কর্মকর্তাদের নিয়ে বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার  (৪ ফেব্রুয়ারী) সকালে মাদারীপুর  জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে এ সম্মেলন  অনুষ্ঠিত হয়। 

পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক বি এম শওকত আলীর সভাপতিত্বে মাসিক  সমন্বয়  সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও, বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স ফোরামের প্রেসিডেন্ট ও বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশনের কার্য নির্বাহী সদস্য  বি এম ইউসুফ আলী। 

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন , একক বীমা প্রকল্পের  উর্দ্ধতন  উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ব্রাঞ্চ কন্ট্রোল) সৈয়দ মোতাহার হোসেন, ইসলামী বীমা তাকাফুল প্রকল্পের  উর্দ্ধতন  উপ- ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাবিবুর রহমান, জনপ্রিয় বীমা প্রকল্পের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক কামাল হোসেন মহসিন, ইসলামী ডিপিএস প্রকল্পের উপ- ব্যবস্থাপনা পরিচালক খলিলুর রহমান সিকদার।

এ সময়ে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আল বারাকাহ ইসলামী ডিপিএস প্রকল্পের উর্দ্ধতন নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প  পরিচালক সেলিম মিয়া, জনপ্রিয় একক বীমা প্রকল্পের  উর্দ্ধতন নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প  পরিচালক জাহাঙ্গীর হোসেন, পপুলার ডিপিএস প্রকল্পের নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প পরিচালক আবু মুঈদ শাহীন, আল আমিন বীমা প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক সাইফুল ইসলাম রুবেল।


আরও খবর



দুর্দান্ত ফিচারের টেকনোর নতুন ফোন স্পার্ক ২০ প্রো

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৯১জন দেখেছেন

Image

প্রযুক্তি ডেস্ক:ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২৪: গ্লোবাল শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড টেকনো বাংলাদেশে উন্মোচন করলো নতুন স্পার্ক ২০প্রো মডেলের স্মার্টফোন। টেকনোর জনপ্রিয় স্পার্ক সিরিজের সর্বশেষ সংস্করণ এই ফোনে রয়েছে আকর্ষণীয় সব ফিচারস। যার মধ্যে আছে ১২০ হার্জের ডিসপ্লে, ১০৮ মেগাপিক্সেলের মেইন ক্যামেরা এবং ৩৩ ওয়াটের ফাস্ট চার্জ সুবিধা।

টেকনো স্পার্ক ২০প্রো ফোনটিতে রয়েছে ১২০ হার্জ রিফ্রেশ রেট যুক্ত ৬.৭৮ ইঞ্চির ফুলএইচডিপ্লাস হোল স্কিন যা ফোনটির ব্যবহারকারীদের চমৎকার ভিউইং অভিজ্ঞতা দিবে। চমৎকার ছবি তোলা ও ভালো মানের ভিডিও ধারণের জন্য ফোনটিতে ১০৮ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা সেনসিং সেন্সর সমৃদ্ধ মেইন ক্যামেরা রয়েছে যা দিয়ে ক্রিস্টা্ল ক্লিয়ার ছবি তোলা যাবে। পাশাপাশি ১০ এক্স ডিজিটাল জুম ফিচার রয়েছে যা দিয়ে দূরের দৃশ্যও ক্লিয়ার ক্যাপচার করা যাবে। এছাড়াও এর আল্ট্রা লার্জ সেন্সর এবং ওয়াইড অ্যাপারচার অনায়াসে বিভিন্ন ধরনের আলোর সঙ্গে খাপ খাইয়ে, বিভিন্ন মুহূর্তের প্রাণবন্ত ছবি উপহার দিতে পারবে।

টেকনোর নতুন এই ফোনে সেলফি তোলার জন্য রয়েছে ৩২ মেগাপিক্সেলের গ্লোয়িং সেলফি ক্যামেরা যার কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) সহায়তায় অসাধারন সেলফি তুলতে পারবে ব্যবহারকারী। এছাড়াও এই ফোনে রয়েছে ডুয়েল ভিডিও মুড যা একই সাথে ফ্রন্ট এবং ব্যাক ক্যামেরা ব্যবহার করে মাধ্যমে উভয় সাইডের ভিডিও একসাথে ক্যাপচার করতে পারবে, যারা ফোনে কনটেন্ট তৈরি করেন, তাদের জন্য এই ফিচার আদর্শ চয়েজ হবে। স্মুথ পারফরমেন্সের জন্য টেকনো স্পার্ক ২০প্রো ফোনটিতে শক্তিশালী হেলিও জি৯৯ (৬ ন্যানোমিটার) চিপসেট দেওয়া হয়েছে। যা একই সাথে পাওয়ারফুল এবং ইফিশিয়েন্ট।

ফাস্ট অ্যাপ ওপেনিং এবং লং টাইম গেমিং এর জন্য এই ফোনটিতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা চালিত অরোরা এবং ড্রইন ইঞ্জিন ২.০ দেওয়া হয়েছে। ফোনটিতে রয়েছে ২৫৬ জিবির বিশাল বিল্টইন স্টোরেজ সাথে রয়েছে ১৬ জিবি র‌্যাম (৮+৮ জিবি)। র‌্যাম, রম, শক্তিশালী প্রসেসর এবং কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা চালিত ইঞ্জিনের কম্বিনেশনের জন্য এই ফোন নিশ্চিত করবে স্মুথ, ল্যাগ-হীন গেমিং এক্সপ্রিয়েন্স এবং ডেইলি লাইফ ইউজিং।

চমৎকার সাউন্ড অভিজ্ঞতা দেয়ার জন্য ফোনটিতে রয়েছে হয়েছে ডুয়েল স্টেরিও স্পিকার। দিনভর ব্যাকআপের জন্য এই ফোনে ৫০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার আওয়ারের শক্তিশালী ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে ও চার্জ করার জন্য রয়েছে ৩৩ ওয়াটের সুপার ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি।টেকনো স্পার্ক ২০প্রো মডেলটি দুইটি নান্দনিক রঙে পাওয়া যাবে যেগুলো হলো সানসেট ব্ল্যাশ এবং মুনলিট ব্ল্যাক কালার।

সেরা সব ফিচারে ভরপুর স্পার্ক ২০ প্রো ফোনটি দেশজুড়ে সকল টেকনো আউটলেটে পাওয়া যাবে মাত্র ২১ হাজার ৯৯৯ টাকায় (ভ্যাট প্রযোজ্য)। যারা পাওয়ারফুল এবং স্টাইলিশ ফোন খুঁজছে আকর্ষণীয় দামে তাদের জন্য এই ফোন হবে বাজেটে সেরা পছন্দ।


আরও খবর



বাংলাদেশের সঙ্গে সরাসরি বিমান চালু করতে চায় সুইজারল্যান্ড

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৪০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:ঢাকার সঙ্গে সরাসরি বিমান যোগাযোগ চালু করতে আগ্রহী সুইজারল্যান্ড। বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মুহাম্মদ ফারুক খানের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে এ আগ্রহ প্রকাশ করেন ঢাকায় নিযুক্ত দেশটির রাষ্ট্রদূত রেতো রেংগলি।

মন্ত্রী সুইজারল্যান্ডের আগ্রহকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, আমরা আশা করছি আগামী দুই মাসের মধ্যে বাংলাদেশ এবং সুইজারল্যান্ডের মাঝে এয়ার সার্ভিস এগ্রিমেন্ট স্বাক্ষরিত হবে। এরপর আমরা দুই দেশের মধ্যে সরাসরি বিমান পরিচালনার বিষয়টি বিবেচনা করব।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের অবস্থান আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল রুটের মধ্যে হওয়ায় আমরা এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশকে একটি অন্যতম প্রধান এভিয়েশন হাবে রূপান্তরের জন্য কাজ করছি।

মুহাম্মদ ফারুক খান আরও বলেন, হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের থার্ড টার্মিনাল, কক্সবাজার বিমানবন্দরের রানওয়ে সম্প্রসারণ ও নতুন টার্মিনাল নির্মাণসহ দেশের সব বিমানবন্দরের এভিয়েশন অবকাঠামোর উন্নয়ন কাজ চলছে। আমরা আশা করছি, আগামী অক্টোবরে থার্ড টার্মিনাল চালু হওয়ার পর আকাশপথের বিদ্যমান যাত্রী সংখ্যা ও কার্গোর পরিমাণ কয়েক বছরের মধ্যেই দ্বিগুণ হবে।

পর্যটনমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের পর্যটনের অপার সম্ভাবনাকে বাস্তবে রূপ দিতে কাজ করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে পর্যটন মহাপরিকল্পনা চূড়ান্ত করা হয়েছে। এ বছরেই তার বাস্তবায়ন শুরু হবে।

তিনি বলেন, আমরা বিদেশি পর্যটকদের জন্য কক্সবাজারসহ দেশের আরও বেশ কিছু জায়গায় নিবিড় পর্যটন অঞ্চল তৈরি করছি। সেখানে সুইজারল্যান্ড বিনিয়োগ করলে আমরা তাদের সকল সুযোগ-সুবিধা দেব। পাশাপাশি আমরা ভিসা সহজীকরণ ও ই-ভিসা চালু করা নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গেও কাজ করছি।

সাক্ষাৎকালে বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত বলেন, এয়ার সার্ভিস এগ্রিমেন্ট নিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করাটা ছিল আমাদের জন্য আনন্দের। বাংলাদেশ টিম নেগোসিয়েশনে প্রশংসনীয় দক্ষতা দেখিয়েছে। তাদের দক্ষতা ও সহযোগিতার জন্য সুইজারল্যান্ডের সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ তাদের ধন্যবাদ জানিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা আশা করছি বাংলাদেশকে এভিয়েশন হাবে রূপান্তরের যে কাজ চলছে তা দ্রুত বাস্তবায়ন হবে। আমরা বাংলাদেশের পর্যটন শিল্পে বিনিয়োগের জন্য সুইজারল্যান্ডের বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে কথা বলব।


আরও খবর



গণমাধ্যমের স্বাধীনতার জায়গায় কোনো সমস্যা সরকার চায় না

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ১১৬জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার স্টাফ রিপোর্টার:গণমাধ্যমের স্বাধীনতার জায়গায় কোথাও কোনভাবে সমস্যা তৈরি হোক এটা সরকার চায় না এবং হতে দেবে না বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত।

আজ বুধবার বিকালে সচিবালয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে এডিটরস গিল্ড বাংলাদেশ-এর কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যদের সাথে মতবিনিময়কালে প্রতিমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

এ সময় প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেমে গণমাধ্যম পূর্ণাঙ্গ ম্বাধীনতা ভোগ করছে এবং করবে। গণমাধ্যমের স্বাধীনতার জায়গায় কোথাও কোনভাবে সমস্যা তৈরি হোক এটা সরকার চায়না এবং হতে দেবে না। কিন্তু একইসাথে গণতন্ত্র এবং উন্নয়নের অগ্রগতি-অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে। একইসাথে সরকার এটাও বিশ্বাস করে, যারা যুদ্ধাপরাধী, মুক্তযুদ্ধবিরোধী অপশক্তি, জঙ্গি, উগ্রবাদী তাদের একটা জায়গায় রেখে গণতন্ত্র কখনোই সফল হয় না। এজন্য সরকারের অবস্থান উগ্রবাদের বিপক্ষে, জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসের বিপক্ষে, মৌলবাদের বিপক্ষে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাইরে যারা তাদের বিপক্ষে, গণতন্ত্রের পক্ষে, নির্বাচনের পক্ষে। সে জায়গায় গণমাধ্যম, রাজনীতিবিদ, সরকার-সবার মধ্যে ঐকমত্য আছে।

সরকার পরিচালনায় ভুল-ভ্রান্তি, বিচ্যুতি থাকলে সমালোচনা করার জন্য গণমাধ্যম সম্পাদকদের এ সময় আহ্বান জানান প্রতিমন্ত্রী। সরকার এটিকে স্বাগত জানাবে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী। পাশাপাশি সরকারের ভালো কাজগুলোর স্বীকৃতি দিয়ে সেটি গণমাধ্যমে তুলে ধরার আহ্বানও জানান তিনি ।

এ সময় প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ, বাংলাদেশের পতাকা, আমাদের জাতীয় সঙ্গীত, জাতির জনক, সংবিধান, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার প্রশ্নে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। একইসাথে ষড়যন্ত্র যেগুলো অতীতে বাংলাদেশে হয়েছে- জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র, দেশের ভেতরেও অনেকে এসব ষড়যন্ত্রে অংশগ্রহণ করে এবং তার ফলাফল হিসেবে ’৭৫ এর ১৫ আগস্ট আমরা দেখেছি, অতীতে অনেক অভিজ্ঞতা আমাদের আছে। এসব ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে।

তিনি আরো বলেন, অনেক ক্ষেত্রে আমাদের বিদেশি বন্ধুরা বলতে চান সংসদ একতরফা হয়ে গেছে। তারা বলেন, এখানে বিরোধী দল নাই। আমরা অবশ্যই শক্তিশালী বিরোধী দল চাই, সমালোচনা চাই, সংসদের মধ্যে আলোচনা চাই। কিন্তু আমরা জঙ্গিবাদ, উগ্রবাদ ও মুক্তযুদ্ধবিরোধী কোন অপশক্তি চাই ন। এ বিষয়ে আমাদের ঐক্য থাকতে হবে।

যারা নির্বাচন বর্জন করতে বলে, হুমকি দেয় তারা কি গণতন্ত্রের পক্ষে হতে পারে?-মতবিনিময়কালে এমন প্রশ্ন তোলেন প্রতিমন্ত্রী। 

এবারের নির্বাচন, যারা নির্বাচন বর্জনকারী তাদের না বলার নির্বাচন। তাদের এ দেশের জনগণ না বলেছে- যোগ করেন প্রতিমন্ত্রী।

এডিটরস গিল্ড গণতন্ত্রের পক্ষে, নির্বাচনের পক্ষে, বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার পক্ষে সরকারে সাথে একসাথে থাকবে-এ সময় আশাবাদ ব্যক্ত করেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী। 

এডিটরস গিল্ড বাংলাদেশ-এর কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি ও একাত্তর টেলিভিশনের প্রধান সম্পাদক মোজাম্মেল বাবু, সাধারণ সম্পাদক ও দি বিজনেস স্ট্যান্ডার্ডের সম্পাদক ইনাম আহমেদ, আজকের পত্রিকার সম্পাদক গোলাম রহমান, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার প্রধান সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, দৈনিক সংবাদ সম্পাদক আলতামাশ কবির, জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, ডিবিসি টেলিভিশনের প্রধান সম্পাদক মঞ্জুরুল ইসলাম, আমাদের অর্থনীতি’র প্রধান সম্পাদক নাঈমুল ইসলাম খান, দৈনিক যুগান্তর সম্পাদক সাইফুল আলম, বাংলাদেশ জার্নাল সম্পাদক শাহজাহান সরদার, ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত,  গ্লোবাল টেলিভশনের সিইও সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা, বাংলা ট্রিবিউন সম্পাদক জুলফিকার রাসেল, এনার্জি অ্যান্ড পাওয়ার সম্পাদক মোল্লাহ এম আমজাদ হোসেন, এক টাকার খবর সম্পাদক মুন্নী সাহা, আমাদের নতুন সময় সম্পাদক নাসিমা খান মন্টি এবং এটিএন বাংলার প্রধান নির্বাহী সম্পাদক জ ই মামুন প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

আরও খবর