Logo
আজঃ Friday ১৯ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে আবাসিকের অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন ডেমরায় প্যাকেজিং কারখানায় ভয়বহ অগ্নিকান্ড রূপগঞ্জে পুলিশের ভুয়া সাব-ইন্সপেক্টর গ্রেফতার রূপগঞ্জে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ॥ সভা সরাইলে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত। নারায়ণগঞ্জে পারিবারিক কলহে স্ত্রীকে পুতা দিয়ে আঘাত করে হত্যা,,স্বামী গ্রেপ্তার রূপগঞ্জ ইউএনও’র বিদায় সংবর্ধনা নাসিরনগরে স্বামীর পরকিয়ার,বলি ননদ ভাবীর বুলেটপানে আত্মহত্যা নাসিরনগরে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদত বার্ষিকী পালিত ডেমরায় জাতীয় শোক দিবসের কর্মসুচি পালিত

বিরোধী দল দমনে আরও হিংস্র রূপে সরকার: ফখরুল

প্রকাশিত:Tuesday ২৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৭৪জন দেখেছেন
Image

আওয়ামী দুঃশাসন টিকিয়ে রাখতে বিরোধী দল ও মতকে দমনে সরকার এখন আরও হিংস্র রূপ ধারণ করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মঙ্গলবার (২৮ জুন) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ মন্তব্য করেন তিনি।

বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, গতকাল (সোমবার) পুলিশের গুলিতে পঙ্গুত্ব বরণকারী চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সাইফ চট্টগ্রাম আদালতে হাজিরা দিতে যান। এসময় তাকে পাঁচলাইশ থানা পুলিশ তুলে নিয়ে যায়। কিন্তু এখনো পর্যন্ত সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজ নিয়েও তার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি।

ফখরুল বলেন, সাইফকে এভাবে আটক ও গুম করে রাখা নির্মম মনুষ্যত্বহীনতা ও ভয়ানক অশুভ সংকেত। এর আগেও তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে পুলিশ উঠিয়ে নিয়ে গিয়ে পায়ে অস্ত্র ঠেকিয়ে দুই রাউন্ড গুলি করে। এতে সাইফ চিরতরে পঙ্গু হয়ে যায়। আবারও তাকে একই কায়দায় আটক ও তার কোনো সন্ধান না পাওয়া গভীর উদ্বেগজনক।

তিনি বলেন, রাষ্ট্র পরিচালনার সব ক্ষেত্রে নিজেদের ব্যর্থতা আড়াল করতে ও আওয়ামী দুঃশাসন টিকিয়ে রাখতেই বিরোধী দল ও মতকে দমনে সরকার এখন আরও হিংস্র রূপ ধারণ করেছে। এটি সবার কাছে দৃশ্যমান যে, সাইফকে পাঁচলাইশ থানা পুলিশ তুলে নিয়ে যায়। সাইফ পুলিশের কাছেই আছে। তাকে এভাবে নিখোঁজ করে রাখায় দলের সব পর্যায়ের নেতাকর্মী ও তার পরিবার গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। আমি অবিলম্বে সাইফকে জনসমক্ষে হাজির করার জোর দাবি জানাচ্ছি।


আরও খবর



বোয়ালখালীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মাছ ব্যবসায়ীর মৃত্যু

প্রকাশিত:Monday ০১ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৫৯জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নেজাম উদ্দিন (৪০) নামের এক মাছ ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে। রোববার (৩১ জুলাই) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলার শাকপুরা চৌমুহনী বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

বৈদ্যুতিক লাইট জ্বালানোর সময় তিনি বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন বলে জানিয়েছে পুলিশ। নেজাম উদ্দিন পশ্চিম শাকপুরার ইয়াছিন তালুকদার পাড়ার মৃত নূর হোসেনের ছেলে।

নিহতের স্বজন মো. মোজাম্মেল জানান, সন্ধ্যায় হোল্ডারে বাল্ব লাগানোর সময় নেজাম বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। তাকে উদ্ধার করে বোয়ালখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে রেফার করেন।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন জাগো নিউজকে বলেন, বোয়ালখালী থেকে নেজাম উদ্দিন নামের এক ব্যক্তিতে মুমূর্ষু অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ইমার্জেন্সি কেয়ারে নিয়ে আসা হয়। রাত ৯টার দিকে জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক নেজামকে মৃত ঘোষণা করেন।

এর আগে গত ৫ জুন শাকপুরা চৌমুহনী বাজারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মাছ বিক্রেতা রনি দাস (২৫) মারা যান। এছাড়া ওই বাজারে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে আহত হয়েছিলেন উপজেলার সারোয়াতলীর ইমামুল্লাচরের বাসিন্দা মো. ইব্রাহীম। তিনি চমেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে দীর্ঘদিন চিকিৎসাধীন ছিলেন।


আরও খবর



শবনমের জন্ম ও শামসুর রাহমানের প্রয়াণ

প্রকাশিত:Wednesday ১৭ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ২৩জন দেখেছেন
Image

মানুষ ইতিহাস আশ্রিত। অতীত হাতড়েই মানুষ এগোয় ভবিষ্যৎ পানে। ইতিহাস আমাদের আধেয়। জীবনের পথপরিক্রমার অর্জন-বিসর্জন, জয়-পরাজয়, আবিষ্কার-উদ্ভাবন, রাজনীতি-অর্থনীতি-সমাজনীতি একসময় রূপ নেয় ইতিহাসে। সেই ইতিহাসের উল্লেখযোগ্য ঘটনা স্মরণ করাতেই জাগো নিউজের বিশেষ আয়োজন আজকের এই দিনে।

১৭ আগস্ট ২০২২, বুধবার। ২ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ঘটনা
১৯১০- রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গীতাঞ্জলি বাংলায় প্রথম প্রকাশিত হয়।
১৯৪৭- ভারত স্বাধীন হওয়ার পর ভারতে নিয়োজিত ব্রিটিশ বাহিনীর প্রথম ব্যাটালিয়ন স্বদেশের উদ্দেশে ভারত ত্যাগ করে।
১৯৯৯- তুরস্কে এক ভয়াবহ ভূমিকম্পে ১৭ হাজার মানুষ নিহত হয়।
২০০৫- বাংলাদেশের ৬৩টি জেলার ৩০০টি স্থানে প্রায় ৫০০ হাতে তৈরি বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।
২০০৬- পাবনায় বন্দুক যুদ্ধে ১০ জন নিহত।

জন্ম
১৭৬১- ব্রিটিশ খ্রিস্টান ধর্মপ্রচারক, বাংলায় গদ্য পাঠ্যপুস্তকের প্রবর্তক উইলিয়াম কেরি।
১৮০১- ছিলেন একজন সুইডিশ লেখক ও নারীবাদী সংস্কারক ফ্রেডরিকা ব্রেমার।
১৯২০- নৌ-বিদ্রোহের অন্যতম বিপ্লবী শহীদ সুনীলকুমার মুখোপাধ্যায়।
১৯৪০- বাংলাদেশি চলচ্চিত্র অভিনেত্রী শবনম। আসল নাম ঝর্ণা বসাক। শবনম নামে পাকিস্তান ও বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। জন্ম ব্রিটিশ ভারতে। শৈশবেই বুলবুল ললিতকলা একাডেমিতে নাচ শিখেছিলেন শবনম। একজন নৃত্যশিল্পী হিসেবে তিনি সুপরিচিতি লাভ করেন। সেখানেই একটি নৃত্যের অনুষ্ঠানে এহতেশাম তার নাচ দেখে এদেশ তোমার আমার চলচ্চিত্রের নৃত্যে অভিনয়ের সুযোগ করে দেন। মুস্তাফিজ পরিচালিত ‘হারানো দিন‘ ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে ১৯৬১ সালে নায়িকা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন শবনম। ১৯৬২ সালে উর্দু চলচ্চিত্র চান্দা ছবির মাধ্যমে তৎকালীন সমগ্র পাকিস্তানে রাতারাতি তারকাখ্যাতি পান। ষাটের দশকের মাঝামাঝি সময়ে শবনম পাকিস্তানের সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় অভিনেত্রী হিসেবে চিহ্নিত হন। পাকিস্তানের চলচ্চিত্র শিল্পে অসামান্য অবদান রাখায় শবনম সম্মানসূচক পুরস্কার হিসেবে মোট ১২বার নিগার পুরস্কার লাভ করেন। এছাড়া ২০১৯ সালের লাক্স স্টাইল অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে তাকে আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হয়।
১৯৭২- বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক হাবিবুল বাশার।

মৃত্যু
১৯০৯- ভারতের অগ্নিযুগের বিপ্লবীর ফাঁসি হয় মদন লাল ধিংড়া।
১৯৪৯- ঢাকা অনুশীলন সমিতির প্রতিষ্ঠাতা পুলিনবিহারী দাস।
২০০৪- বিশিষ্ট ইতিহাসবিদ ও বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য নিমাইসাধন বসু।
২০০৬- প্রখ্যাত বাংলাদেশি কবি শামসুর রাহমান। পুরনো ঢাকার মাহুতটুলি এলাকায় নানাবাড়িতে জন্ম তার। ১৩ ভাই-বোনের মধ্যে তিনি ছিলেন ৪র্থ। পেশায় সাংবাদিক ছিলেন। ১৯৫৭ সালে দৈনিক মর্নিং নিউজ-এ সহসম্পাদক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৫৭ থেকে ১৯৫৯ সাল পর্যন্ত রেডিও পাকিস্তানের অনুষ্ঠান প্রযোজক ছিলেন। বিংশ শতকের তিরিশের দশকের পাঁচ মহান কবির পর তিনিই আধুনিক বাংলা কবিতার প্রধান পুরুষ হিসেবে প্রসিদ্ধ। জীবদ্দশায়ই তিনি বাংলাদেশের প্রধান কবি হিসেবে মর্যাদা লাভ করেছিলেন। একজন কবি হিসেবে খ্যাতিমান তেমনি তার শিশুদের প্রতি অপরিসীম ভালোবাসা ছিল। একারণে তিনি শিশুদের জন্য লিখেছেন বেশ ক’টি বই। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের ওপর লিখিত তার দুটি কবিতা খুবই জনপ্রিয়। স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় তিনি মজলুম আদিব (বিপন্ন লেখক) ছদ্মনামে কলকাতার বিখ্যাত দেশ ও অন্যান্য পত্রিকায় কবিতা লিখতেন। তিনি আদমজী সাহিত্য পুরস্কার, বাংলা একাডেমি পুরস্কার, একুশে পদক, স্বাধীনতা পদক, আনন্দ পুরস্কারসহ বিভিন্ন সম্মাননা পুরস্কার পেয়েছেন।


আরও খবর



‘তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে থাকলে বেঁচে থাকাও কঠিন হয়ে পড়বে’

প্রকাশিত:Monday ২৫ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১৭ August ২০২২ | ২৯জন দেখেছেন
Image

জ্যোতির্বিদ ও মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার সাবেক গবেষক অধ্যাপক ড. দীপেন ভট্টাচার্য বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে দিন দিন বাংলাদেশসহ বিশ্বে তাপমাত্রা দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। এভাবে তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে থাকলে জীবন ধারণ সম্ভব হবে কি না তা বলা দুরূহ হয়ে পড়বে।

তিনি বলেন, বন্যা হলে মানুষ বেঁচে থাকতে পারে। কিন্তু তাপমাত্রা বিপজ্জনকভাবে বৃদ্ধি পেতে থাকলে আমাদের কারো কিছু করার থাকবে না। বেঁচে থাকাও কঠিন হয়ে পড়বে। তাই জলবায়ু পরিবর্তন রোধ ও পরিবেশ রক্ষায় এখনই উদ্যোগ নিতে হবে।

সোমবার (২৫ জুলাই) বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সিলেট শাখা ও শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের যৌথ উদ্যোগে বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন ও উষ্ণ প্রবাহ শীর্ষক একক বক্তব্যে অধ্যাপক দীপেন ভট্টাচার্য এসব কথা বলেন।

এই জ্যোতির্বিদ আরও বলেন, ‘গবেষণা বলছে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে প্রতি বছর তাপমাত্রা ১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়বে। এমনটি যদি হয় তাহলে আদো জীবন ধারণ সম্ভব হবে কি না তা বলা দুরূহ। এবার মৌসুমি বায়ু ভারত অঞ্চলে নিচে থাকায় আসাম, মেঘালয়ে প্রচুর বৃষ্টিপাত হয়েছে। আর এ কারণে সিলেটসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় ভয়াবহ বন্যা দেখা দেয়।’

jagonews24

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক বিল্ডিং এ-এর ১২৯ নম্বর গ্যালারিতে অনুষ্ঠিত একক বক্তৃতা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সিলেট বাপার সহসভাপতি ও পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. নাজিয়া চৌধুরী।

সিলেট বাপার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম কিমের সূচনা বক্তব্যের পর অধ্যাপক ড. দীপেন ভট্টাচার্যকে পরিচয় করিয়ে দেন এবং তার জীবন ও কর্মের ওপর সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন বাপার কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এবং শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক শাকিল। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সিলেট বাপার সহসভাপতি এবং শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক রেজিস্ট্রার জামিল আহমেদ চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও বাপা সিলেটের যুগ্ম-সম্পাদক ছামির মাহমুদ, জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক উজ্জ্বল মেহেদী, সারি নদী বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি আবদুল হাই আল হাদী, বাঁচাও বাসিয়া নদী ঐক্য পরিষদের সভাপতি মো. ফজল খান, শেডো সিলেটের সম্পাদক লিটন চৌধুরী, কবি কাজী লিপি প্রমুখ।


আরও খবর



হাইকোর্টে ৫৩ বেঞ্চ গঠন

প্রকাশিত:Sunday ৩১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ১৫ August ২০২২ | ৫১জন দেখেছেন
Image

সোমবার (১ আগস্ট) থেকে হাইকোর্ট বিভাগে বিচারকাজ পরিচালনার জন্য ৫৩টি বেঞ্চ গঠন করে দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী। এসব বেঞ্চে শারীরিক উপস্থিতিতে বিচার কাজ পরিচালিত হবে।

এ বিষয়ে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন থেকে প্রধান বিচারপতির স্বাক্ষরে রোববার (৩১ জুলাই) বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

এতে জানানো হয়, সোমবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে নবনিযুক্ত ১১ বিচারপতি বিচারিক কাজে অংশগ্রহণ করবেন।

এর আগে নিয়োগ পাওয়া নতুন ১১ জন বিচারপতিকে শপথ পাঠ করান প্রধান বিচারপতি। বিকেল সাড়ে চারটার পর সুপ্রিম কোর্টের জাজেস লাউঞ্জে এ শপথ অনুষ্ঠান হয়।

এসময় রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. মোমতাজ উদ্দিন ফকির উপস্থিত ছিলেন।

শপথ নেওয়া ১১ বিচারপতি হলেন- জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ শওকত আলী চৌধুরী, জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ আতাবুল্লাহ, জেলা ও দায়রা জজ ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ, জেলা ও দায়রা জজ ফাহমিদা কাদের, সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. বজলুর রহমান, মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ, সাবেক ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. আমিনুল ইসলাম, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বশির উল্লাহ, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী একে রবিউল হাসান, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এস এম মাসুদ হোসেন দোলন ও মো. আলী রেজা।


আরও খবর



বরেন্দ্র এলাকায় খালে পানি সংরক্ষণ, সম্ভাব্য ব্যয় ২৪৯ কোটি

প্রকাশিত:Tuesday ১৬ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ২৪জন দেখেছেন
Image

বরেন্দ্র এলাকায় পানি সংরক্ষণসহ ছয় প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। এগুলো বাস্তবায়নে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে দুই হাজার ৫০৪ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারি তহবিল থেকে এক হাজার ৬২৮ কোটি ১৩ লাখ টাকা ও বৈদেশিক ঋণ সহায়তা থেকে ৮৭৬ কোটি ৬২ লাখ টাকা ব্যয় করা হবে।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে এতে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা।

বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন- পরিকল্পনা সচিব মামুন-আল-রশীদ, ভৌত অবকাঠামো বিভাগের সদস্য সত্যজিৎ কর্মকার, তথ্য ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব ড. শাহনাজ আরেফিন এবং পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য মোসাম্মৎ নাসিমা বেগম প্রমুখ।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, দুই হাজার ৫০৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ছয় প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। প্রকল্পগুলো সঠিক সময়ে বাস্তবায়ন করে নাগরিক সেবা দেওয়া হবে। একনেকে অনুমোদিত প্রকল্পগুলো হচ্ছে, সোনাপুর-কবিরহাট-কোম্পানীগঞ্জ ও বসুরহাট-দাগনভুইয়া আঞ্চলিক মহাসড়ক যথাযথমানে উন্নীতকরণ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৫৭ কোটি টাকা। গল্পামারী-বটিয়াঘাটা-দাকোপ-নলিয়ান ফরেস্ট সড়কের ২৮তম কিলোমিটারে চুনকুড়ি নদীর ওপর চুনকুড়ি সেতু নির্মাণ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৭৪৫ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। আশুগঞ্জ অভ্যন্তরীণ কন্টেইনার নদী বন্দর স্থাপন প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৫৮ কোটি টাকা। কর্ণফুলী নদীর তীর বরাবর কালুরঘাট সেতু থেকে চাক্তাই খাল পর্যন্ত সড়ক নির্মাণ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৩৬ কোটি ১৫ লাখ টাকা। বিসিক মুদ্রণ শিল্প নগরী প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ১২৫ কোটি ৮৫ লাখ টাকা। বরেন্দ্র এলাকায় খালে পানি সংরক্ষণের মাধ্যমে সেচ সম্প্রসারণ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ২৪৯ কোটি ৪০ লাখ টাকা।


আরও খবর