Logo
আজঃ শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

বিজয়ীদের হাতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ | ২৭০জন দেখেছেন

Image

বিনোদন ডেস্ক:২০২২ সালে চলচ্চিত্রে বিশেষ অবদান রাখায় ২৭ ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের হাতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার তুলে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তিনি বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য দেন সিনিয়র সচিব মো. হুমায়ুন কবির খন্দকার। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি হাসানুল হক ইনু।

এ বছর শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র বিভাগে যৌথভাবে পুরস্কার জিতেছে মুহাম্মদ কাইয়ুম ও মো. তামজিদ উল আলম প্রযোজিত ‘কুড়া পক্ষীর শূন্যে উড়া’ এবং ‘পরান’ চলচ্চিত্র।

সৈয়দা রুবাইয়াত হোসেন তার ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ (বাংলায় ‘শিমু’ নামেও পরিচিত) চলচ্চিত্রের জন্য সেরা পরিচালকের পুরস্কার পেয়েছেন।

চঞ্চল চৌধুরী ‘হাওয়া’ চলচ্চিত্রে প্রধান ভূমিকার জন্য সেরা অভিনেতা নির্বাচিত হন। সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন যৌথভাবে ‘দ্য বিউটি সার্কাস’ চলচ্চিত্রের জন্য জয়া আহসান এবং ‘শিমু’ চলচ্চিত্রের জন্য রিকিতা নন্দিনী শিমু।

আজীবন সম্মাননা যুগ্মভাবে দেওয়া হয়েছে অভিনেতা খসরু ও চিত্রনায়িকা রোজিনাকে। দেশের বাইরে থাকায় খসরুর পুরস্কার নেন অভিনেতা আলমগীর।


আরও খবর



সুন্দরগঞ্জে তিস্তার পানিবন্দি ১'শ পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ | ৮৩জন দেখেছেন

Image
শামছুল হক,সুন্দরগঞ্জ(গাইবান্ধা)প্রতিনিধিঃতিস্তার পানিবন্দি গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ১০০ পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছে স্বেচ্ছাসেবি সংগঠন সংযোগ ফাউন্ডেশন।বুধবার (১০ জুলাই) বিকেলে উপজেলার বেলকা ইউনিয়নের বেলকা নবাবগঞ্জ, কিসামত সদর, হরিপুর ইউনিয়নের চর চরিতাবাড়ি গ্রামের পানিবন্দি ১০০ পরিবারের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়। 

সংযোগ ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে প্রতি পরিবারের মাঝে ৩ কেজি চাল, ২ কেজি ডাল, আধা কেজি চিড়া, ২ প্যাকেট বিস্কুট, ২ পাতা পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট খাদ্য সহায়তা করা হয়।স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবি সংগঠন আরসিবি ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবিদের সহযোগিতায় পানিবন্দি পরিবারগুলোর বাড়ি বাড়ি গিয়ে এসব খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেয়া হয়। 

ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের সময় উপস্থিত ছিলেন সংযোগ ফাউন্ডেশনের ভলান্টিয়ার সাজ্জাদ হোসেন রিপন, হারুন অর রশিদ, আলী আহসান মুজাহিদ, রাসেল ইসলাম, আরসিবি ফাউন্ডেশনের সমন্বয়ক ডা. রফিকুল ইসলাম, উপদেস্টা ফেরদৌস সরকার, সভাপতি সরকার হোজায়ফা হাবিব, সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ, সহ-সভাপতি নয়ন সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক কিফায়েত হোসেন আলিফ, কোষাধ্যক্ষ সাজ্জাদ হোসেন, দপ্তর সম্পাদক আতিকুর রহমান, প্রচার ও ডিজিটাল সম্পাদক শাহিন ইসলাম, পাঠাগার সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিব, সাইফুল ইসলাম, ইয়াসিন আলী প্রমুখ।  
এদিকে, ত্রাণ সহায়তা পেয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন দুর্গতরা। শারমিন নামের এক গৃহবধু জানান, ১৫ দিন থেকে পানিতে আছি। খাবারের খুব সংকট ছিল। সংযোগ ফাউন্ডেশন যে খাবার দিলো তা নিয়ে বাচ্চাদের নিয়ে খেতে পারবো কয়েকদিন।জুনায়েদ আলী নামের এক গৃহকর্তা জানান, দুই সপ্তাহ ধরে পানিবন্দি। এখন পর্যন্ত কেউ আমাদের খোঁজ নেয় নি। ছেলেরা এসে যে খাবারগুলো দিলো তাতে আমার পরিবারের অনেক উপকার হলো। যা কথায় প্রকাশ করতে পারবো না। 

এই উদ্যোগ অব্যাহত রাখার কথা জানিয়েছে সংযোগ ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবি সাজ্জাদ হোসেন রিপন জানান, তিস্তায় বন্যা দূর্গত মানুষের জন্য আমরা খাদ্য সহায়তা দিলাম। তিস্তাপাড়ের বিভিন্ন স্থানে এই সহযোগিতা আমরা করছি। এটা অব্যাহত থাকবে। বানভাসি মানুষের পাশে দেশের সকল বিত্ববানদের এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



অবরোধ প্রত্যাহার করে শিক্ষার্থীদের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ | ১২২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:চতুর্থদিনের মতো কোটা বাতিলের দাবিতে শাহবাগ অবরোধ করে কর্মসূচি পালন করে শিক্ষার্থীরা। অবরোধ শেষে বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন কর্মসূচি ঘোষণা দিয়েছেন কোটা সংস্কার আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। এছাড়া গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে অবরোধ কর্মসূচিরও ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

শনিবার (৬ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৫টায় শাহবাগ মোড়ে,রোববার (৭ জুলাই) বিকেল ৩টায় সারাদেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ‘ব্লকেড’ কর্মসূচি শুরু হবে বলে অবরোধ শেষে এই ঘোষণা দেন কোটা আন্দোলনের অন্যতম সমন্বয়ক নাহিদ ইসলাম।

শনিবার (৬ জুলাই) বিকেল ৩টায় শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি হল থেকে আলাদা ব্যানারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্ট্রাল লাইব্রেরির সামনে জড়ো হন। পরে সেখান থেকে বিশাল মিছিল নিয়ে হলপাড়া-ভিসি চত্বর-টিএসসি-বকশিবাজার-বুয়েট-ইডেন কলেজ-হোম ইকোনমিকস-নীলক্ষেত-টিএসসি হয়ে বিকেল ৫টায় শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা।


আরও খবর



বিরামপুরে প্রতিবন্ধীর সাথে প্রতারণা এনজিও ম্যানেজারকে গণপিটুনী

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ | ৯৭জন দেখেছেন

Image

আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি:বিরামপুর উপজেলার এক প্রতিবন্ধীকে লোন দেওয়ার নামে প্রতারণা করায় এনজিও ম্যানেজারকে গ্রামবাসী গণ পিটুনী দিয়েছে। বিরামপুর উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের কুর্শাখালী শান্তিমোড় গ্রামের আলম হোসেন জানান, তিনি একজন প্রতিবন্ধী। কাজ-কর্ম করতে না পারায় রিক্সা-ভ্যান চালিয়ে সংসার পরিচালনা করেন। বিরামপুর সরকারি হাসপাতাল সংলগ্ন মহিলা বহুমূখী শিক্ষা কেন্দ্রের মাইক্রোফাইন্যান্স প্রোগ্রাম কর্মসূচির আওতায় ইতিপূর্বে লোন নিয়েছিলেন। সংস্থার নিয়ম অনুয়ায়ী কিস্তির মাধ্যমে সেই টাকা পরিশোধ করেছেন। বর্তমানে আবার লোন নিয়ে একটি অটোরিক্সা ক্রয়ের স্বপ্ন দেখেছিলেন। তাই তিনি আবারও সেই সংস্থায় যোগাযোগ করেন। সংস্থার ম্যানেজার বাবুল হোসেন ও মাঠকর্মী ইউসুব আলী তাকে ৪০ হাজার টাকা লোন দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ৬ হাজার টাকা সঞ্চয় জমা নেন। গত ২৬ মে’২৪ লোনের টাকা পাওয়ার চুড়ান্ত কথার পর আলম হোসেন ব্যাংক একাউন্ট করেন। একটি পুরাতন অটোরিক্সা ক্রয়ের জন্য ১০ হাজার টাকা বায়না প্রদান করেন এবং মায়ের গরু বিক্রি করে আরো টাকা সংগ্রহ করেন। কিন্তু হঠাৎ করে সংস্থার ম্যানেজার তাকে বলেন যে, তোমাকে লোন দেওয়া যাবেনা, তুমি তোমার সঞ্চয়ের টাকা ফেরত নিয়ে যাও। একথার পর আলম হোসেনকে সঞ্চয়ের টাকা ফেরত দেওয়া হয়। কিন্তু অটোরিক্সা বায়না দেওয়ার টাকা আর ফেরত পাননি। ঘটনার সুবিচার চেয়ে তিনি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট অভিযোগ দিয়েছেন।

এ ঘটনায় আলম হোসেনের গ্রামের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। সেই ম্যানেজার বাবুল হোসেন ঐ এলাকায় গেলে গ্রামের লোকজন তাকে এলোপাথাড়ি ভাবে চড়-থাপ্পড় মেরে আটক করে রাখে। খবর পেয়ে বিরামপুর থানা পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে আনেন। এ ব্যাপারে সংস্থার ম্যানেজার বাবুল হোসেন বলেন, ঐ এলাকার লোকজনের ভাষ্যমতে আলম হোসেনের নিকট থেকে কিস্তি আদায় কঠিন হবে মনে করে তাকে লোন দেওয়া হয়নি। তবে এলাকার কিছু লোক ভুল বুঝে তাকে মারধর করেছে।


আরও খবর



জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ | ৭৭জন দেখেছেন

Image
এস এম শফিকুল ইসলাম,জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃজয়পুরহাটে ডাকাতির পর হত্যার মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া তাদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা ও অনাদায়ে তিন বছরের কারাদন্ড দেওয়া হয়। মঙ্গলবার দুপুরে অতিরিক্ত দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক নুরুল ইসলাম এ রায় দেন।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, সদর উপজেলার দাদড়া জন্তিগ্রামের তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে ছামসুল হুদা ও মৃত খাজের মৃধার ছেলে মিজান, ভিটি দক্ষিণপাড়ার মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে বাবু, ভিটি প্রধানপাড়ার আব্দুল গফুরের ছেলে জাহিদুল, ভিটির লুৎফর রহমানের ছেলে মুক্তিয়ার ও চকবম্বু পাতারপাড়ার মৃত কিয়ামত আলীর ছেলে সবুর। এদের মধ্যে জাহিদুল পলাতক রয়েছেন। এছাড়া অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় এ মামলা থেকে ১৪জনকে খালাস দিয়েছেন বিচারক।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০৮ সালের ২৯ আগস্ট রাতে আসামীরা জয়পুরহাট সদর উপজেলার পাকারমাথা ভিটি এলাকার মৃত মহিম চন্দ্র মন্ডলের ছেলে প্রতুল চন্দ্রের বাড়িতে ডাকাতি করতে যান। ঘরে ঢুকে ডাকাতরা প্রতুলের ছেলে পলাশের মাথায় লাঠি দিয়ে আঘাত করে। এসময় প্রতুল বাধা দিলে তাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিলে সে মাথায় আঘাত পায়। এরপর ডাকাতরা সেই বাড়ি থেকে টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায়। পরে প্রতুল ও তার ছেলেকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রতুলকে মৃত ঘোষনা করেন। এ ঘটনায় নিহতের ভাতিজা উৎপল কুমার বাদি হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত আজ এ রায় দেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



বর ও কনের বাড়ীতে শোকের মাতম

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ | ১১৭জন দেখেছেন

Image

আব্দুল্লাহ আল নোমান,আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি:ব্রীজ ভেঙ্গে বিয়ের কনের পক্ষের ৯ জন মারা যাওয়ায় বর ডাঃ সোহাগ ও কনে হুমায়রার বাড়ীতে শোকের মাতম বইছে। বরের বাড়ীতে সুনসান নিরবতা। কনের বাড়ীতে কান্নার রোল বইছে। 

জানাগেছে, আমতলী উপজেলা কাউনিয়া ই্ব্রাহিম একাডেমি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক উত্তর তক্তাবুনিয়া গ্রামের মাসুম বিল্লাহ মনিরের মেয়ে হুমায়রা আক্তারের সঙ্গে একই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আমতলী পৌর শহরের খোন্তাকাটা এলাকার বাসিন্দা সেলিম মাহমুদের ছেলে ডাঃ সোহাগের বিয়ে হয়। গত শুক্রবার ওই কনেকে বরের বাড়ী তুলে আনেন। শনিবার মেয়ের পক্ষের লোকজন বরের বাড়ীতে মাইক্রো এবং অটো গাড়ীতে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে হলদিয়া ব্রীজ পাড় হওয়ার সময় ব্রীজের মাঝের অংশ ভেঙ্গে যায়। এতে মাইক্রোবাস ও অটো গাড়ী নদীতে পড়ে যায়। অটোতে থাকা যাত্রীরা সকলে সাতরে কিনারে উঠতে পারলেও মাইক্রোবাসের যাত্রীরা নদীতে তলিয়ে যায়। তাৎক্ষনিক স্থানীয়রা ওই মাইক্রোতে থাকা লোকজনকে উদ্ধারের চেষ্টা চালায় বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শী নাশির উদ্দিন। ততক্ষণে মাইক্রোবাসে থাকা কনে পক্ষের ৯ যাত্রী নিহত হয়েছে। নিহতরা হলেন রুবিয়া (৪৫), রাইতি (২২), ফাতেমা (৫৫), জাকিয়া (৩৫), রুকাইয়াত ইসলাম (৪), তাহিয়া মেহজাবিন আজাদ (৭), তাসফিয়া (১৪), ঋধি (৪) ও শাহনাজ আক্তার রুবি বেগম (৩৫)। এদের মধ্যে রুকাইয়াত ইসলাম ও জাকিয়ার বাড়ী উপজেলার দক্ষিণ তক্তাবুনিয়া গ্রামে। অপর নিহত ৭ জনের বাড়ী মাদারিপুর জেলার শিবচর উপজেলার কোকরার চর গ্রামের বাসিন্দা। এরা কনে হুমায়রার মামা বাড়ীর আত্মীয়স্বজন। এমন ঘটনায় বর ডাঃ সোহাগ ও কনের হুমায়রার বাড়ীতে শোকের মাতম বইছে। শনিবার সন্ধ্যায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে বর ডাঃ সোহাগের বাড়ীতে সুনসান নিরবতা। ডেক্সিভরা খাবার রয়েছে। মানুষজন নেই। কনের বাড়ীতে বইছে কান্নার মাতম। 

বরের বাবা কাউনিয়া ইব্রাহিম একাডেমি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সেলিম মাহমুদ বলেন, এমন ঘটনার আমি হতভম্ব। কনে পক্ষের লোকজনের জন্য সকল আয়োজন ছিল কিন্তু একটি ফোনে সকল কিছু ভেস্তে চলে গেল। 

কনের বাবা মাসুম বিল্লাহ মনির বলেন, আমার কিছুই বলার নেই। আমি শ্বশুর বাড়ীর মানুষকে কি জবাব দেব? আল্লায় কেন আমার উপরে এতো বড় বিপদ দিল? 


আরও খবর